| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > এ শূণ্যতা কখনো পূরন হবার নয়   > প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার সফল বাস্তবায়নে ৩৬ বিসিএস আনসারের ১১জন কর্মকর্তার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ   > আমাদের দাবি , ‘জাতীয় দাম্পত্য দিবস’   > ৫০ দিনে ৪০ হাজার ক্ষুধার্ত পরিবারকে খাদ্য সহায়তা   > অসহায় দরিদ্র মানুষের মাঝে শরীয়তপুর পুলিশ সুপারের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ   > রাজশাহী জেলা আনসার ও ভিডিপি’র ত্রাণসামগ্রী বিতরণ   > গত ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনায় নতুন আক্রান্ত ৩০৯   > করোনায় মাদক-জঙ্গি রোধে কঠোরতর ব্যবস্থা : র‌্যাব ডিজি   > রাজশাহী জেলা আনসার ও ভিডিপি কার্যালয় করোনাভাইরাসের প্রভাব হ্রাসে নিরবে কাজ করছে   > ক্যামেরা জার্নালিস্টদের সহায়তা দিলো পারটেক্স গ্রুপ  

   ফিচার
  নারী জাগরনের অগ্রদূত -বেগম রোকেয়া
  Publish Time : 9 December 2019, 12:32:16:PM

তারাপদ আচার্য্য : আজ ৯ ডিসেম্বর সেই সাহিত্যিক, শিক্ষানুরাগী, সমাজ-সংস্কারক বেগম রোকেয়ার জন্ম ও মৃত্যুবার্ষিকী।

১৮৮০ সালের ৯ ডিসেম্বর রংপুর জেলার মিঠাপুকুর থানার পায়রাবন্দ গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

মাত্র বায়ান্ন বছর বয়সে নারী জাগরণের অগ্রদূত এই মহিয়সী নারী ১৯৩২ সালের ৯ ডিসেম্বর কলকাতায় মৃত্যুবরণ করেন। 

বাংলাদেশে নারী আন্দোলনের ইতিহাসে বেগম রোকেয়ার অবদান চিরস্মরণীয়। সামাজিক প্রতিবন্ধকতার কারণে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না পেলেও বাড়িতে বড় ভাইদের সহায়তায় পড়ালেখার সুযোগ লাভ করেন।

শুধু তাই নয়, সাহিত্য চর্চা করার যথেষ্ঠ উপযুক্ত পরিবেশও বেগম রোকেয়া ছোটবেলা থেকেই পেয়েছিলেন।

আর তাই সামাজিক পশ্চাৎপদতা আর কুসংস্কারের বিরুদ্ধে নারী সমাজের বহুমাত্রিক অধিকার আদায় ও নারী শিক্ষার পথ নির্দেশক হতে পেরেছিলেন বেগম রোকেয়া।

১৯৮৭ সালে বিহারের ভাগলপুরের এক খানদানি ক্ষয়িঞ্চু মুসলিম পরিবারের কীর্তিমান ও মহাত্না পুরুষ সৈয়দ সাখাওয়াৎ হোসেন রোকেয়ার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

সাখাওয়াৎ হোসেন ছিলেন নিজের যোগ্যতা ও গুণেই সমাজে পরিচিত হওয়ার মতো মানুষ। তার কর্মজীবন ছিলো নানা বৈচিত্র্যমন্ডিত। সাখাওয়াতের পত্নী প্রেমও ছিল প্রগাঢ়।

বেগম রোকেয়ার স্বাচ্ছন্দ্যের জন্য তিনি সম্ভাব্য সব কিছুই করেছিলেন।  বেগম রোকেয়ার মনের গঠন, শিক্ষা ও সাহিত্য চর্চায় স্বামীর ভূমিকার কথা বিশেষভাবে স্মরণ করতে হয়।

স্বামীর থেকে তিনি ভালো ইংরেজি শিখেছিলেন। রোকেয়ার ভেতরে যে সুপ্ত প্রতিভা ছিলো তার আবিষ্কার ও প্রকাশেও স্বামী রোকেয়ার নারী মুক্তির যে ভাবনা-চিন্তা তারও সমর্থক ছিলেন সাখাওয়াৎ। এ বিষয়ে বেগম রোকেয়া নিজেও বলেছেন, ‘আমার শ্রদ্ধেয় স্বামী অনুকূল্য না পাইলে আমি কখনোই প্রকাশ্য সংবাদপত্রে লিখিতে সাহসী হইতাম না’।

সাখাওয়াৎ হোসেন একজন অত্যন্ত দিলখোলা প্রাণবন্ত মানুষও ছিলেন। তিনি নারী শিক্ষার একান্ত পক্ষপাতী ছিলেন।

নিঃসন্তান রোকেয়া যাতে মেয়েদের স্কুল প্রতিষ্ঠার ভিতরে দিয়ে তাঁর নিঃসঙ্গতা ঘোঁচাতে পারেন, সেই সাথে সমাজের কল্যাণমূলক কাজের সঙ্গেও যুক্ত থাকতে পারেন সেই ব্যবস্থাই করেছিলেন স্বামী সাখাওয়াৎ।
অথচ বর্তমান সময়ে পৃথিবী যখন অনেক দূর এগিয়ে গেছে, এখনও দেখি স্বামীদের উদার মন-মানসিকতার অভাবে নারীদের সুপ্ত প্রতিভা আবিষ্কার ও প্রকাশ হয় না।

নারীরা তাই পারছে না, তাদের চিন্তার স্বাধীনতার আত্নপ্রকাশ ঘটাতে। এদিক দিয়ে সাখাওয়াৎ হোসেন ব্যতিক্রম ছিলেন বলেই বেগম রোকেয়ার নামের সাথে তাঁর স্বামীর নামটি নারী মুক্তির আন্দোলনের যুক্ত হয়ে গেছে।

বাঙালি মুসলমান সমাজে নারী জাগরণ ও নারী অধিকার আন্দোলনের অন্যতম পথিকৃৎ অবশ্যই বেগম রোকেয়া।

তিনি প্রথমবারের মতো বাঙালি মুসলিম সমাজে পুরুষের পাশাপাশি নারীর সমান অধিকারের দাবি তুলে ধরেন, নারী স্বাধীনতার পক্ষে নিজের মতবাদ প্রচার করেন, অবরোধ প্রথার শিকল ভাঙেন।
সাহিত্যিক হিসেবে সেই সময়ের প্রেক্ষাপটে রোকেয়া ছিলেন এক ব্যতিক্রমী প্রতিভা। তার সাহিত্য কর্মের মধ্যে প্রতিফলিত হয়েছে সমাজের কুসংস্কার ও অবরোধ প্রথার কুফল, নারী শিক্ষার প্রতি তার নিজস্ব মতামত, নারীদের প্রতি সামাজিক অনাচার ও অপমানের কথা।

নারীর অধিকার ও নারী জাগরণ সম্পর্কে তাঁর দূরদর্শী চিন্তাভাবনা তাঁর সাহিত্যে বার বার উঠে এসেছে। বাল্য-বিবাহ ও বহুবিবাহ প্রথার বিরুদ্ধেও তার লেখনী ছিল সোচ্চার।

রোকেয়ার উল্লেখযোগ্য রচনার মধ্যে রয়েছে মতিচুর, পদ্মরাগ, অবরোধবাসিনী প্রভৃতি। এছাড়া রয়েছে অসংখ্য প্রবন্ধ, ছোটগল্প, কবিতা, ব্যাঙ্গাত্নক রচনা ও অনুবাদ।

বেগম রোকেয়া আজ থেকে একশ দশ-পনের বছর পূর্বে নারীর শিক্ষায় গুরুত্ব দিয়ে পল্লিগ্রামেও উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন বুনে গিয়েছেন।

বাল্যবিয়ে যে নারীশিক্ষার অন্তরায়, তা তিনি চিহ্নিত করেছেন। বেগম রোকেয়ার সুলতানার স্বপ্ন বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, তিনি অত্যন্ত আধুনিক এবং বিজ্ঞানমনষ্ক ছিলেন।

তিনি অনেক সুন্দর একটি দেশের কল্পনা করে গেছেন। যেখানে মানুষ, ‘নারী-পুরুষ’ হিসেবে নয়, দু’জনেই মানুষ হিসেবে কাজ করবে। কেউ কাউকে অবমূল্যায়ন করবে না।

যার-যার জায়গা থেকে কাজ করবে। শারীরিকশক্তি এবং বুদ্ধিমত্তা দু’টিকেই কাজে লাগিয়ে একটি দেশকে কীভাবে সুখের স্বর্ণরাজ্যে পরিণত করা যায়, সেই স্বপ্ন রচনা করে গেছেন।

কার্যত এই ‘সুলতানার স্বপ্ন’ কল্পকাহিনিটিকে আমরা আধুনিক ‘সাইন্স ফিকশনের’ সাথে তুলনা করতে পারি। তিনি সেই সময়েই বসে সৌররশ্মির ব্যবহার করে সংসারের দৈনন্দিন কাজ সম্পন্ন করার কথা চিন্তা করতে পেরেছেন। সৌররশ্মিকে যুদ্ধে জেতার জন্য অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করার পাশাপাশি মাঠের ফসল ফলানোর কাজে ব্যবহারের চিন্তা করেছেন।

বৃষ্টির পানিকে নিয়ন্ত্রণ করে প্রয়োজনমতো ব্যবহারের চিন্তা করেছেন। আজ বর্তমান বিশ্বে, ঠিকই সৌররশ্মির ব্যাপক ব্যবহার হচ্ছে।

বৃষ্টির পানিকে নিয়ন্ত্রণ করে আমরা আমাদের দৈনন্দিন কাজে ব্যবহার করার উদ্যোগ নিচ্ছি।

বেগম রোকেয়া তাঁর চিন্তাধারায় নিজেকে আধুনিক করতে পেরেছিলেন বলেই এ ধরনের স্বপ্ন বুনতে সমর্থ হয়েছিলেন।

যা আজকে আমরা আমাদের বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাঝে বিদ্যমান পাই। তাঁকে বেগম রোকেয়ার স্বপ্নদেখা রাষ্টনায়কের প্রকৃষ্ট উদাহরণ হিসেবে দেখতে পাই।

রোকেয়ার সুলতানার স্বপ্নে’র রাজ্যের মহারানির স্বপ্ন, আর আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেক হাসিনার কর্মে যেন এক মেলবন্ধন তৈরি করছে।

তিনি যেন রোকেয়ার স্বপ্নের প্রতিচ্ছবি এং কোনো কোনো ক্ষেত্রে তাঁর স্বপ্নের ছেয়েও বেশি অগ্রগামী।

যেমন উদাহরণ হিসেবে উল্লেখ করতে পারি, ভবিষ্যতের বাংলাদেশের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হসিনা স্বপ্ন বুনছেন।

তিনি ইতিমধ্যে ২০২১ সালের রূপকল্প ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশ এবং ২১০০ সালের ডেল্টা প্ল্যান তৈরি করেছেন। ভবিষ্যতের বাংলাদেশ কেমন হবে ? কেমন করে এগিয়ে যাবে ?

কেমন করে নেতৃত্ব দেবে ? তিনি সে স্বপ্ন রচনা করে যাচ্ছেন। পরিকল্পনা প্রণয়ন করে দিয়েছেন বাস্তবায়নের জন্য।

একুশ শতকের বাংলাদেশকে এক নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার কান্ডারী দেশরত্ন শেখ হাসিনা।
আমরা শ্রদ্ধাভরে স্বরণকরি স্বপ্নদ্রষ্টা বেগম রোকেয়া কে তাঁর জন্ম ও প্রয়াণ দিবসে।

 

 



সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 137        
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     ফিচার
শাল, গজারি, আদিবাসী, আনারস, রাবার চাষ সহ নানা ঐতিহ্যের মধুপুর
.............................................................................................
আমাদেরকে কী সবকিছুই আইন করেই মানাতে হবে?
.............................................................................................
‘৩২ নম্বর’ বাড়িটি এখন ইতিহাস
.............................................................................................
জলবায়ু পরিবর্তন চ্যালেঞ্জ : পানি ও পরিবেশ
.............................................................................................
১৩৬ বছরেও কাজ করছেন সোনাভান
.............................................................................................
আমাদের সেই মহানায়ক
.............................................................................................
সুতাং নদীর দূষিত পানিতে মারা যাচ্ছে জলজ প্রাণী
.............................................................................................
মহম্মদপুরে ঋতুরাজ বসন্তের শিমুল ফুল
.............................................................................................
কালিয়াকৈরে নবনির্মিত ব্রিজ সংলগ্ন সড়কে গর্ত, দুর্ঘটনার আশঙ্কা
.............................................................................................
জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবের মুখে বাংলাদেশ
.............................................................................................
বীরগঞ্জে গাছে গাছে শিমুল ফুল
.............................................................................................
বীরগঞ্জে বিলুপ্তির পথে বাঁশ শিল্প
.............................................................................................
ইসলামপুর পৌরবাসীর প্রিয় নেতা মেয়র সেখ মো: আ: কাদের
.............................................................................................
ফুলপুরে কংশ নদীতে পারাপার ঝুঁকিতে দশ গ্রামের মানুষ
.............................................................................................
সাহেবের আলগা হতে দাঁতভাংগা পর্যন্ত রাস্তাটির বেহালদশা
.............................................................................................
সুনামগঞ্জের পাখির গ্রাম মুরাদপুর
.............................................................................................
প্রায় ৮ হাজার নারী-পুরুষের কর্মসংস্থান
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু’র আদর্শকে ধারণ করে চলছেন আবদুল খালেক
.............................................................................................
ডেপুটেশনের ফাঁদে ধ্বংস হচ্ছে কুড়িগ্রামের প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থা
.............................................................................................
আধুনিকতার ছোঁয়ায় বিলুপ্তির পথে আত্রাইয়ে মাটির ঘর
.............................................................................................
নারী জাগরনের অগ্রদূত -বেগম রোকেয়া
.............................................................................................
অসহায় মানুষের জীবনে দ্বীপ জ্বালাতে চান রেশমা জাহান
.............................................................................................
লাখো ভক্তের স্বপ্নসারথী ইকবাল হোসেন অপু প্রকৃত অর্থেই একজন জননেতা
.............................................................................................
“নারীবাদ নাকি সমকামিতা, কোন পথে আমরা”
.............................................................................................
কি ঘটে জানুয়ারির প্রথম সোমবারে?
.............................................................................................
নারী পুরুষের ১০টি মানসিক পার্থক্য
.............................................................................................
শিশুর যত সুন্দর নাম
.............................................................................................
সৌভাগ্যের জন্য গুরুত্বপূর্ণ যে চারটি বিষয়
.............................................................................................
মানসিক সমস্যা সারিয়ে তুলতে পারেন দাদা-দাদি
.............................................................................................
যে গ্রামে পুরুষ প্রবেশ নিষেধ
.............................................................................................
স্বাধীন ভারতের বীরপুত্র
.............................................................................................
বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীন খাবারের সন্ধান
.............................................................................................
৩৬২ কোটি টাকা এক খণ্ড হিরের দাম
.............................................................................................
কুকুর শনাক্ত করবে ম্যালেরিয়া রোগ
.............................................................................................
হঠাৎই হারিয়ে গেল জাপানের আস্ত একটি দ্বীপ!
.............................................................................................
৪০০ কোটি বছরেরও পুরোনো গোমেদ পাথর!
.............................................................................................
যে কারণে সুইসাইড স্পট হয়ে ওঠে এই স্টার হোটেলটি
.............................................................................................
আমার শরীরটা পুরুষের ছিল, কিন্তু মনটা ছিল নারীর
.............................................................................................
এই পান্নার দাম ১৫ কোটি টাকা!
.............................................................................................
অসাধারণ জীবনীশক্তি মিঠা পানির জেলিফিশের
.............................................................................................
দাবানল ঠেকাবে ছাগল বিগ্রেড
.............................................................................................
নিজের স্বরের এই ৭ তথ্য আপনি জানেন কি?
.............................................................................................
পাঁচ মাস বয়সেই যুক্তরাষ্ট্রের ৫০ অঙ্গরাজ্য ভ্রমণ
.............................................................................................
বিশ্বের উষ্ণতা কমানোর ৫ উপায়
.............................................................................................
ভারতের যেসব মন্দিরে নারীদের প্রবেশ নিষেধ
.............................................................................................
চুল শুকাতে সোনার হেয়ার ড্রায়ার!
.............................................................................................
১৯ বছর ধরে যে শহরে চলে না গাড়ি
.............................................................................................
বরফের নিচে আশ্চর্য শহর
.............................................................................................
মোগলাই খাবার এত স্পাইসি হয় কেন?
.............................................................................................
সেতুও আবার রোলার কোস্টার হয় নাকি
.............................................................................................
Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale
Digital Load Cell
Digital Indicator
Digital Score Board
Junction Box | Chequer Plate | Girder
Digital Scale | Digital Floor Scale

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম ।
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন ।
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন ।

সম্পাদক কর্তৃক শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত । সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্ল্যাক্স (৬ষ্ঠ তলা) । ২৮/১ সি টয়েনবি সার্কুলার রোড, মতিঝিল, বা/এ ঢাকা-১০০০ । জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা ।
ফোন নাম্বার : ০২-৯৫৮৭৮৫০, ০২-৫৭১৬০৪০৪
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, ০১৯১৬৮২২৫৬৬ ।

E-mail: dailyganomukti@gmail.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD