ঢাকা,সোমবার,১৭ আষাঢ় ১৪২৭,০১,মার্চ,২০২১ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > মুজিব বর্ষে পল্লী বিদ্যুতের নিজস্ব অর্থায়নে কুড়িগ্রামে গৃহহীন পরিবারকে পাকা ঘর হস্তান্তর   > ড. ইউনূসকে হাইকোর্টে তলব লিখিত আদেশ প্রকাশ   > বিপুল অর্থ ব্যয়ে গ্রামাঞ্চলে শতভাগ নিরাপদ পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার উদ্যোগ   > শায়েস্তাগঞ্জে বাস ও টমটমের মুখোমুখি সংঘর্ষ ১ জন নিহত   > মৌলভীবাজারে কেক কাটা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত   > ইংল্যান্ড ছেড়ে জার্মানিতে মুসিয়ালা   > এবার জল্পনার অবসান   > আমরাও মানুষ কাজের ব্যবস্থা হলে মুক্তি মিলবে এই বিড়ম্বনার জীবন থেকে   > টানা দরপতনে শেয়ারবাজারে ৩৫ হাজার কোটি টাকা ক্ষতি   > আল জাজিরার প্রতিবেদন তৈরিতে জড়িত দেশিয়দের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  

   ফিচার
  হারিয়ে যাচ্ছে শরীয়তপুরের কুটির শিল্প
  Publish Time : 20 January 2021, 2:57:10:PM

শরীয়তপুর প্রতিনিধি : শরীয়তপুরের কুটির শিল্প বলে খ্যাত বাঁশ বেত শিল্প আজ হারিয়ে যেতে বসেছে। জেলার জাজিরা, শরীয়তপুর সদরসহ ৬টি উপজেলায় এক সময় বাঁশ বেত শিল্পে ছিলো বিখ্যাত। ডামুড্যা ও জাজিরায় বেতের ডালা, দাড়িপালা, সাজি, সোফাসেট, চেয়ার, টেবিলও ঘর সাজানো সামগ্রী তৈরী হতো। ছিলো দক্ষ ও অভিজ্ঞ বেতের কারিগর। অন্যদিকে জাজিরার মূলনা, জাজিরা, সেনেরচর, জয়নগর, নড়িয়া, রাজনগর, নশাসন, ভোজস্বর, জপসা ইউনিয়নে বাঁশ শিল্পের বিসাল সম্ভার ছিলো। দক্ষ ও অভিজ্ঞ কারিগরেরা বাঁশ দিয়ে ফলের জালা, চহি, ওড়া, বুক সেলফ, চাঙ্গা, ঝাকা, পালা, ডোল ইত্যাদি তৈরী করতো। যা স্থানীয় চাহিদা পুরণ করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পাঠাতো। বর্তমানে ডামুড্যায় কিছু বেতের ডালা দেখতে পাওয়া যায়। বেত শিল্পী অনল ঋষি বলেন, আগে বেতের তৈরি জিনিসের চাহিদা ছিলো। বিশেষ করে কৃষি কাজে ব্যবহারের জন্য ধামা, পাল্লা, পুড়া ইত্যাদির প্রচুর চাহিদা ছিলো। দামও ছিলো কম বেতও পাওয়া যেত সহজেই। কিন্তু বর্তমানে বেত পাওয়া যায় না দামও বেশি তাই উৎপাদন খরচও বেড়ে গেছে। বাজারে নতুন নতুন পাল্লা আসায় আমাদের তৈরি পাল্লার চাহিদা নাই। বেত না পাওয়ায় বেতের ফাণিৃচার বানানো ছেড়ে দিয়েছি; যদিও বেতের ফার্ণিচারের চাহিদা এখনও আছে।
গঙ্গানগর, ছাব্বিশ পাড়াসহ জাজিরা নড়িয়া অঞ্চলে এখনো কোন রকম বাঁশ শিল্প টিকে আছে। সেখানে কারিগররা ডালা, ঝাকা, সাজি, মাছ ধরার দোহাইর, চাই, বেড়, পলো ইত্যাদি তৈরি করে। এক সময় এই শিল্পে প্রচুর কারিগর কাজ করত বাঁশের তৈরি দ্রব্য জেলার ভিতরের চাহিদা পূরণ করে অন্যান্য জেলায় পাঠানো হতো। বর্তমানে আর্থিক সংকট থাকায় আমরা বাঁশ কিনতে পারিনা, সিজনের সময় বাঁশ কিনে না রাখলে সারা বছর কাজ করা যায় না। এখনো মাছের ডালা, সাজি, বর্ষায় মাছ ধরার দোহাইর, চাই, বেড় ইত্যাদির চাহিদা আছে। আমাদের মধ্যে পেশা পরিবর্তনের হাওয়া লেগেছে। বাপ-দাদার পেশায় সংসার চালানো কঠিন হয়ে পরেছে। সরকারি ভাবে যদি আমাদের সহযোগীতা করা হয় এবং বাজার সৃষ্টি করে তাহলে আমরা আমাদের কাজের মধ্য দিয়ে এই শিল্পকে বাঁচিয়ে রেখে সংসার চালাতে পারবো।
এনজিও কর্মী আছমা আক্তার জানান, বাঁশ শিল্প একটি সম্ভাবনা ময় শিল্প। এ শিল্পটি বাঁচিয়ে রেখে এই অঞ্চলকে কুটির শিল্পের নগরী বানানো সম্ভব। কারিগরদের প্রশিক্ষণ দিয়ে আরো দক্ষ এবং নতুন নতুন পন্য তৈরির জন্য উৎসাহিত করতে হবে। তবে এদর আর্থিক সহযোগীতা প্রয়োজন। আমরা যে সহযোগীতা করি তা পর্যাপ্ত নয়। আরো বড়ো আকারে আর্থিক সহযোগীতা প্রয়োজন। এই বাঁশ শিল্প এর পাশাপাশি বেত শিল্পকে সংরক্ষন করা গেলে এই অঞ্চলে বেকারের সংখ্যা কমে আসবে।



সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 75        
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     ফিচার
পৈত্রিক পেশা ঘোড়া দিয়ে ঘানি ভাঙা
.............................................................................................
বিদেশি পর্যটক আকৃষ্টে পতেঙ্গায় হচ্ছে বিশ্বমানের ট্যুরিস্ট জোন
.............................................................................................
নবীনগরে বিলুপ্তির পথে বাঁশশিল্প
.............................................................................................
মেহেরপুর বিলুপ্তির পথে ঘটকালী প্রথা
.............................................................................................
ঠাকুরগাঁওয়ে ব্যস্ত মৌ-চাষীরা
.............................................................................................
কমলগঞ্জের তাঁতশিল্পে উৎপাদিত পণ্যের চাহিদা বাড়ছে বিশ্ববাজারে
.............................................................................................
থামছেই না টাঙ্গুয়ায় পাখি শিকার
.............................................................................................
হারিয়ে যাচ্ছে শরীয়তপুরের কুটির শিল্প
.............................................................................................
কালের সাক্ষী ৪০০ বছরের বলিয়াদী জমিদার বাড়ি
.............................................................................................
বরগুনায় নৌকা জাদুঘর
.............................................................................................
রাজবাড়ীতে এক বাড়িতে ৫০টি মৌচাক
.............................................................................................
কালের বিবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে গরুর গাড়ির দৌড় প্রতিযোগিতা
.............................................................................................
চৌহালীতে সরিষা ক্ষেতে মধু চাষ
.............................................................................................
ফুরবাড়িতে ভাপা পিঠা বিক্রি করে স্বাবলম্বি সুজন
.............................................................................................
অতিথি পাখিদের কলরবে মুগ্ধ দিনাজপুরের শেখপুরা ইউনিয়নে ভাটিনা গ্রামের মানুষ
.............................................................................................
ঐতিহ্য হারাচ্ছে দাগনভূঞার জমিদার বাড়ি
.............................................................................................
জয়পুরহাটে পরিযায়ি পাখির অভয়ারণ্য পুন্ডুরিয়া গ্রাম
.............................................................................................
কাস্তে বানাতে ব্যস্ত মির্জাগঞ্জের কামারা
.............................................................................................
কুমিল্লার কুচিয়া যাচ্ছে বিদেশে
.............................................................................................
ফুলবাড়িতে বিলুপ্তির পথে ঐতিহ্যবাহী গরুর গাড়ী
.............................................................................................
অপরূপ সৌন্দর্যে ঘেরা রাঙ্গাবালী
.............................................................................................
জাবি ক্যাম্পাসে পরিযায়ী পাখিদের আনাগোনা
.............................................................................................
ঝুটের জোড়া তালির কম্বলে নারীদের ভাগ্য বদলে চেষ্টা
.............................................................................................
সুপারি কেনা-বেচায় ভালো দাম পাওয়ায় ক্রেতা-বিক্রেতাদের মুখে হাসি
.............................................................................................
ঠাকুরগাঁও বুড়ির বাঁধে মাছ ধরা উৎসব
.............................................................................................
ঠাকুরগাঁওয়ের একমাত্র ভারী শিল্প কারখানা সুপ্রিয় জুটমিল
.............................................................................................
গোপালগঞ্জের শাপলার বিল
.............................................................................................
সিরাজদিখানের কোলা ভিলেজ পার্ক
.............................................................................................
শামুক নিধনে ঝুঁকিতে জীববৈচিত্র্য
.............................................................................................
বর্ষার পানি মিলছে দেশি প্রজাতির মাছ
.............................................................................................
স্ট্রিট লাইটের আলোয় আলোকিত ধোবাউড়ার জনপদ
.............................................................................................
পিলপিলের ৪৪ ডিমে চারটি বাচ্চার জন্ম
.............................................................................................
পর্যটকদের জন্য খুলেছে বান্দরবান
.............................................................................................
কদর বেড়েছে মৌসুমি ছাতার কারিগরদের
.............................................................................................
আদর্শ নগর পর্যটন কেন্দ্র হচ্ছে আদর্শ নগরে
.............................................................................................
সুন্দরবনে বেড়েছে মধু উৎপাদন, খুশি মৌয়াল
.............................................................................................
বীরগঞ্জে হারিয়ে যাওয়া মাছ ধরার সামগ্রীর চাহিদা বাড়ছে
.............................................................................................
রামসাগর জাতীয় উদ্যানে কোলাহল মুক্ত পরিবেশে চিত্রা হরিন দল
.............................................................................................
দস্যুতা দমন ও মৎস্য সম্পদ রক্ষায় কাজ করছে পুলিশ-কোস্টগার্ড-র‌্যাব
.............................................................................................
নৌকা তৈরী ও কেনাবেচার ধুম!
.............................................................................................
কোরবানীর হাট মাতাতে আসছে ‘বাংলার বস’ ও ‘বাংলার সম্রাট’
.............................................................................................
করোনাকালে জলকেলিতে ব্যস্ত পথশিশু-কিশোরেরা
.............................................................................................
করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হলে বন্ধ থাকবে সিলেটের সব হোটেল
.............................................................................................
নাজিরপুরে বর্ষা মৌসুমে জমে উঠেছে চাইয়ের হাট
.............................................................................................
রাসিক মেয়র লিটনের স্বপ্ন নগরীতে এখন ফুলের সুবাস
.............................................................................................
শরীয়তপুর উন্নয়নের স্বপ্ন
.............................................................................................
যেভাবে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হয়
.............................................................................................
দিনাজপুরে উঠছে প্রচুর রসালো মিষ্টি লিচু
.............................................................................................
শাল, গজারি, আদিবাসী, আনারস, রাবার চাষ সহ নানা ঐতিহ্যের মধুপুর
.............................................................................................
আমাদেরকে কী সবকিছুই আইন করেই মানাতে হবে?
.............................................................................................
Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale
Digital Load Cell
Digital Indicator
Digital Score Board
Junction Box | Chequer Plate | Girder
Digital Scale | Digital Floor Scale

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন
বাণিজ্যিক কার্যালয় : "রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্লেক্স"
(৬ষ্ঠ তলা), ২৮/১ সি, টয়েনবি সার্কুলার রোড,
মতিঝিল বা/এ ঢাকা-১০০০| জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা
ফোন নাম্বার : ০২-৪৭১২০৮০৫/৬, ০২-৯৫৮৭৮৫০
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, 01731800427
E-mail: dailyganomukti@gmail.com
Website : http://www.dailyganomukti.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop