ঢাকা,শনিবার,৯ মাঘ ১৪২৭,২৩,জানুয়ারী,২০২১ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > ১১ হাজার মেট্রিক টন খাদ্রশস্য মজুদ রয়েছে সংসদে জানালেন খাদ্যমন্ত্রী   > কুড়িগ্রামে কম্বল বিতরণ   > থামছেই না টাঙ্গুয়ায় পাখি শিকার   > মুজিববর্ষে ঘর পাচ্ছে নওগাঁর ১১০ পরিবার   > লক্ষ্মীপুরে উৎপাদিত ৬০ পণ্য বিশ্ববাজারে   > ‘নির্ধারিত সময়েই হবে অলিম্পিক’   > অপেক্ষায় ঐশী   > জাতীয় সংসদে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি   > ৪২ হাজার রোহিঙ্গা শনাক্ত মিয়ানমারের এপ্রিলে প্রত্যাবাসনের আশা   > রাজউকে প্রভাবশালি শফিউল্লাহ বাবু নকল, জাল-জালিয়াতির প্রধান কারিগর  

   তথ্য-প্রযুক্তি -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বিজ্ঞান জাদুঘরে রোবট প্রযুক্তি মেলা

স্টাফ রিপোর্টার : বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন “প্রযুক্তির উদ্ভাবন দিয়ে বাংলাদেশকে এগুতে হবে। উদ্ভাবনের মাধ্যমে জন সেবার মান উন্নয়ন, সম্পদ আহরণ, পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণ, খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং কৃষি ও শিল্পখাতে উৎপাদনশীলতা বাড়িয়ে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনা যায়। ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে তরুণ বিজ্ঞানীরা অগ্রসৈনিক। তবে প্রযুক্তির উৎকর্ষতার সঙ্গে নৈতিকতার সমন্বয় থাকতে হবে। নতুবা প্রযুক্তি অর্থহীন হয়ে যাবে।” গতকাল মঙ্গলবার রোবট বিষয়ক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। অনুষ্ঠানে রাজধানীসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ১২ টি টিম মেলায় অংশগ্রহণ করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যুব কর্মসূচির প্রধান ও বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির সহসভাপতি মুনীর হাসান, বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের রোবোটিক্স এন্ড মেটাটোনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রফেসর ড. নাফিফা জামান। মেলায় ১ম স্থান অধিকার করেন ঢাকা কলেজের দলনেতা সানি জুবায়ের সিগমা- এ ফায়ার ফাইটিং রোবট, ২য় স্থান অধিকার করেন চট্টগ্রাম গ্রামার স্কুল এর দলনেতা কাজী মোসতাহিদ লাবিব, ট্রান্সরোভার এবং ৩য় স্থান অধিকার করেন চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক কলেজের দলনেতা মিসবাহ্ উদ্দিন ইনান, ফিউচার ফাইড ট্রেন । অনুষ্ঠানে ১২টি প্রজেক্টের মাধ্যমে রোবটের প্রযুক্তিগত উদ্ভাবন প্রদর্শন করা হয়।

বিজ্ঞান জাদুঘরে রোবট প্রযুক্তি মেলা
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন “প্রযুক্তির উদ্ভাবন দিয়ে বাংলাদেশকে এগুতে হবে। উদ্ভাবনের মাধ্যমে জন সেবার মান উন্নয়ন, সম্পদ আহরণ, পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণ, খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং কৃষি ও শিল্পখাতে উৎপাদনশীলতা বাড়িয়ে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনা যায়। ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে তরুণ বিজ্ঞানীরা অগ্রসৈনিক। তবে প্রযুক্তির উৎকর্ষতার সঙ্গে নৈতিকতার সমন্বয় থাকতে হবে। নতুবা প্রযুক্তি অর্থহীন হয়ে যাবে।” গতকাল মঙ্গলবার রোবট বিষয়ক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। অনুষ্ঠানে রাজধানীসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ১২ টি টিম মেলায় অংশগ্রহণ করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যুব কর্মসূচির প্রধান ও বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির সহসভাপতি মুনীর হাসান, বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের রোবোটিক্স এন্ড মেটাটোনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রফেসর ড. নাফিফা জামান। মেলায় ১ম স্থান অধিকার করেন ঢাকা কলেজের দলনেতা সানি জুবায়ের সিগমা- এ ফায়ার ফাইটিং রোবট, ২য় স্থান অধিকার করেন চট্টগ্রাম গ্রামার স্কুল এর দলনেতা কাজী মোসতাহিদ লাবিব, ট্রান্সরোভার এবং ৩য় স্থান অধিকার করেন চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক কলেজের দলনেতা মিসবাহ্ উদ্দিন ইনান, ফিউচার ফাইড ট্রেন । অনুষ্ঠানে ১২টি প্রজেক্টের মাধ্যমে রোবটের প্রযুক্তিগত উদ্ভাবন প্রদর্শন করা হয়।

বিজ্ঞান জাদুঘরে আসছে আধুনিক প্রযুক্তির মিউজিয়াম বাস
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জগতে এবার সংযোজন হচ্ছে বিজ্ঞান জাদুঘরের অত্যাধুনিক মডেলের মিউজিয়াম বাস। প্রায় ১০ কোটি ৬২ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এ বাসগুলো ‘ভ্রাম্যমাণ বিজ্ঞান জাদুঘর’ হিসেবে শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান শিক্ষা প্রদানের কাজে ব্যবহৃত হবে। প্রতিটি আড়াই কোটি টাকার বেশী মূল্যমানের বাসে ১৫৮ ধরনের প্রদর্শনীবস্তু থাকবে, যেখানে থাকছে হিউমেনয়ড রোবট, হাইড্রো পাওয়ার মডেল, সিম্পল হারমোনিক মোশন, ভ্যান ডি গ্রাফ জেনারেটর, লজিক গেইট, নাম্বার কনভার্শন সিস্টেম, হিউমেন বডি মডেল ও শক্তিশালী ৩০টি অত্যাধুনিক কম্পিউটার। বাসগুলোর বডি ফেবরিকেশনের কাজ প্রায় শেষ হয়েছে। এখন যন্ত্রপাতি বসানোর কাজ চলছে বিজ্ঞান জাদুঘর ক্যাম্পাসে। এ প্রসঙ্গে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, অনন্য প্রযুক্তি শৈলীতে নির্মিত ভ্রাম্যমাণ মিউজিয়াম বাস সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মাইলফলক। মাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিজ্ঞান শিক্ষার সীমাবদ্ধতা দূর করে বিনোদনের মাধ্যমে এগুলো বিজ্ঞান শিক্ষার উৎকৃষ্ট মাধ্যম হিসেবে অবদান রাখবে। তিনি বলেন, জাদুঘর কর্তৃপক্ষের সার্বক্ষণিক কঠোর নজরদারী ও নির্দেশনায় যূগোপযোগী করে এসব বাস নির্মিত হচ্ছে। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে মুজিববর্ষকে স্মরণীয় করে সীমিত পরিসরে কোভিড স্বাস্থ্য বিধি মেনে ছোট ছোট অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজ্ঞান শিক্ষার্থীদের জন্য ভ্রাম্যমাণ এ বাসগুলো চালু করা হবে।

বিজ্ঞান জাদুঘরে হাতে কলমে আগুন নেভানোর প্রশিক্ষণ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার: ঘরে ঘরে গ্যাস দুর্ঘটনা, মানুষ পুড়ে ছাই হয়ে যাচ্ছে। রান্না শেষে গ্যাসের চুলা আমরা নিভাই না। চুলা নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণ করি না। নিম্নমানের চুলা ব্যবহার করি। অবৈধ গ্যাস সংযোগ ব্যবহার করি। বিল্ডিং কোড মানতে চাই না। নির্বিবেকে আইন ভেঙে সরকারকে দায়ী করি। সরকার একা কিছু করতে পারেনা। নাগরিক হিসেবে আমাদের অস্থিমজ্জায় ছড়িয়ে আছে আইন অমান্যতা। গ্যাসের চুলা বা সিলিন্ডার থেকে সৃষ্ট বিস্ফোরণ এবং অগ্নিকান্ড রোধে প্রযুক্তির ব্যবহার এখন সময়ের দাবি। প্রযুক্তির উদ্ভাবনে বিজ্ঞান জাদুঘর উদ্ভাবকদের অনুপ্রেরণা যোগাবে ও প্রণোদনা দেবে। আমরা এমন প্রযুক্তি দেখতে চাই, যা’ স্মার্ট ফোন বা সেন্সরের মাধ্যমে তাৎক্ষিণিক অগ্নিকান্ডের বার্তা দেবে এবং বাসিন্দাদের সতর্ক করবে। ফ্ল্যাটে ফ্ল্যাটে লাখ লাখ টাকা সার্ভিস চার্জ নেয়া হয়। তার একটি অংশ বাসিন্দাদের অগ্নি নিরাপত্তায় ব্যয় করা উচিত” সম্প্রতি জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরে “ঘরে ঘরে অগ্নি দুর্ঘটনার ঝুঁকিঃ সমাধানে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি” শীর্ষক অগ্নি নিরাপত্তা বিষয়ক এক প্রাণবন্ত সেমিনারে মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী এ কথা বলেন। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মো: মামুনুর রশীদ এ্যাডজুটেন্ট, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ট্রেনিং কমপ্লেক্স। মূল প্রবন্ধের উপর আলোচনা করেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি অধ্যাপক ড. মনন মাহবুব এবং শিল্প মন্ত্রণালয়ের উপ-প্রধান বয়লার পরিদর্শক প্রকৌশলী মো: জিয়াউল হক। কোভিড-১৯ স্বাস্থ্য বিধি মেনে অনুষ্ঠানে অংশ নেন শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক এবং সরকারি কর্মকর্তারা। সেমিনারে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকদের নিয়ে গ্যাস সিলিন্ডার থেকে আগুন ছড়ালে তা’ নিভানোর উপর হাতে কলমে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।

বিজ্ঞান মনস্ক জাতি গঠনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর: মহাপরিচালক
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেছেন, শুদ্ধাচারী হওয়ার আগে নৈতিক হতে হবে। কিসের শুদ্ধাচার নৈতিকতা থাকলে মানুষ আপনা আপনি শুদ্ধাচারী হয়ে যাবে। সততা ও শুদ্ধাচার প্রয়োগের বিষয়। আইনের সঠিক প্রয়োগের অভাব আছে বিধায় শুদ্ধাচারের প্রশ্ন এসেছে। অভাবে স্বভাব নষ্ট-এ যুক্তি এখন অর্থহীন। বাংলাদেশের যে কেউ এখন তিন বেলা তৃপ্তিভরে আহার করতে পারে। অশিক্ষিত শ্রেনীর মধ্যে দুর্নীতি নেই। কিন্তু শিক্ষিত সমাজের ৯৯% দুর্নীতিগ্রস্থ। সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য প্রয়োজন সৎ ছাত্র, সৎ শিক্ষক, সৎ পিতামাতা এবং সৎ পরিবেশ। তবেই দুর্নীতি নির্মুল হবে। বিজ্ঞান মনস্ক জাতি গঠনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর। গতকাল সোমবার জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরে “শুদ্ধাচার ও দুর্নীতি প্রতিরোধ” শীর্ষক কর্মশালায় এসব কথা বলেন তিনি। মুনীর চৌধুরী বলেন, এ পার্থিব জীবন ক্ষণস্থায়ী জেনেও মানুষ বিলাসবহুল ফ্ল্যাট নির্মাণে আসক্ত হচ্ছে। কিন্তু মুহূর্তেই মৃত্যু এসে মানুষকে থামিয়ে দিচ্ছে। তাই আল্লাহর ভয় এবং পরকালীন জবাবদিহীতা মানুষকে দুর্নীতিমুক্ত রাখতে পারে। জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠানের পরিচালক মো: ইমতিয়াজ হোসেন, দেশের বরেণ্য শিক্ষাবিদ মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক মুনিমুল হক, শিক্ষার্থীদের পক্ষে বুয়েটের রক্তিম চৌধুরী ও সীমস্বাদ এনা, সমবায় অধিদপ্তরের কর্মকর্তা আইনিন নাইম ফিমা, বিমান প্রকৌশলী তানজিয়া রশিদ, বিজ্ঞান জাদুঘরের সহকারী কিউরেটর মাসুদুর রহমান প্রমূখ। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ, পেশাজীবী এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। বক্তারা দুর্নীতি রোধে প্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠ্য বই কমিয়ে নৈতিকতা শিক্ষা প্রদান, আইনের নিরপেক্ষ প্রয়োগ, দুদক ও অডিট বিভাগকে শক্তিশালীকরণ এবং দুর্নীতিবাজদের কঠোর শাস্তি প্রদানের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

প্রযুক্তি দিয়ে দূষন নিয়ন্ত্রণের তাগিদ দিলো বিজ্ঞান জাদুঘর
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : নারায়নগঞ্জের বন্দর উপজেলায় গতকাল শনিবার শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের নিয়ে বিজ্ঞান বক্তৃতা, বিজ্ঞান সভা ও কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেন জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর। আয়োজিত সভায় জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, শিতলক্ষ্যা পাড়ের অসংখ্য কারখানায় ভয়ংকর দূষণ ঘটছে, শুকনো মৌসুমে নদীর পানির অক্সিজেনের মাত্রা মারাত্মকভাবে হ্রাস পায়। এসব কারখানার অধিকাংশই ঊঞচ চালায় না। এ পরিবেশ অপরাধ দমনে আধুনিক প্রদুক্তির ব্যবহার অপরিহার্য। দূষণ উৎঘাটনে ড্রোন প্রযুক্তি ব্যবহার করা যেতে পারে। তিনি বলেন, প্রান্তিক পর্যায়ে বহু নবীন বিজ্ঞানী রয়েছে , যাদের অনুপ্রেরণা যোগালে প্রযুক্তির ক্ষেত্রে বিপ্লব ঘটে যাবে। এক্ষেত্রে বিজ্ঞান শিক্ষকদের বিজ্ঞান শিক্ষায় এবং প্রযুক্তির উৎকর্ষতায় নিবেদিত প্রাণ হতে হবে। বন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শুকলা সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ কর্মসূচীতে শিক্ষার্থী, শিক্ষক এবং মিডিয়া কর্মী ও কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে বিজয়ী ৬ শিক্ষার্থীকে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের পক্ষ থেকে পুরস্কৃত করা হয়। এছাড়া বিজ্ঞান জাদুঘরের পক্ষ থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং উপজেলা প্রশাসনের জন্য কোভিড-১৯ বিষয়ক স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

শিক্ষার্থীদের প্রকৃতিবান্ধব জীবন চর্চার তাগিদ দিলেন মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের আয়োজনে খোলা মাঠে সকালের মিষ্টি রোদে কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরিবেশ বান্ধব এক ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছে দেড়শ শিক্ষার্থী। সবার মুখে মাস্ক, সরাসরি সূর্যের আলো থেকে ভিটামিন ডি গ্রহণ এবং পরস্পর নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ, সবমিলে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের কাছে অতিদ্রুত আকর্ষণীয় ও জনপ্রিয় হয়ে ওঠে এ অনুষ্ঠান।

সোমবার আগারগাঁওস্থ শেরে বাংলা নগর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, “শিক্ষার্থীরা মোবাইল আসক্তি পরিহার করবে, প্রতিদিন উন্মুক্তস্থানে সূর্যের আলোয় স্নাত হবে, অনলাইনে পড়াশুনা অব্যাহত রাখবে, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি চর্চা করবে, পিতা-মাতা ও শিক্ষকদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হবে এবং নৈতিক জীবন মেনে চলবে, তবেই বাংলাদেশকে তারা গড়তে পারবে এবং মেধাবী জনসম্পদে পরিণত হবে। “বায়ু দূষণ থেকে সুরক্ষা এবং কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা” শীর্ষক এ বিজ্ঞান বক্তৃতা ও কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ৭ জন শিক্ষার্থীকে পুরস্কৃত করা হয়।

শিক্ষার্থীদের এ সমাবেশে স্বাস্থ্যবিধি রক্ষায় প্রকৃতিবান্ধব জীবনধারা গ্রহণ, ফাস্টফুড-জাঙ্কফুড বর্জন, শাক-সবজি, সরষের তেল, মধু ও কালোজিরাসহ প্রাকৃতিক খাবার গ্রহণ, নিয়মিত শরীর চর্চা, পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা এবং কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে উদ্ভুদ্ধ করেছেন জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক।

বিজ্ঞান শিক্ষকতা চাকুরী নয়: সিঙ্গাইরে বললেন মুনীর চৌধুরী
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেছেন,‘মুখস্থ বিদ্যা ভিত্তিক বিজ্ঞান শিক্ষা নয়, প্রায়োগিক বিজ্ঞান শিক্ষার উপর গুরুত্ব দিতে হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিজ্ঞান শিক্ষকরা শিক্ষকতার মত মহান পেশাকে চাকুরি বানিয়ে ফেলেছেন।

রোববার (১২ ডিসেম্বর) সকালে মানিক গঞ্জের সিঙ্গাইরে এক বিজ্ঞান সভায় প্রধান অতিধির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রান্তিক পর্যায়ে বহু মেধাবী শিক্ষার্থী আছে, যাদের বৈজ্ঞানিক উদ্ভাবনীর স্ফূরণ ঘটছে না। আধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে বিজ্ঞান শিক্ষকদের গবেষণা করতে হবে। পরিবেশ বিজ্ঞান সম্পর্কে জেনে পরিবেশ রক্ষার চেতনা শিক্ষার্থীদের অন্তরে প্রবেশ করাতে হবে। সুস্বাস্থ্য রক্ষায় বিজ্ঞান সম্মত খাদ্যাভাস গড়ে তুলতে হবে।

বিজ্ঞান জাদুঘরের মহাপরিচালক বলেন, প্লাষ্টিক ও পলিথিন ব্যাগের খাবার পরিহার করে প্রাকৃতিক খাবারের প্রতি তরুণদের উৎসাহিত করতে হবে। কীট নাশক ব্যবহারও বিজ্ঞান সম্মত পদ্ধতিতে করতে হবে।

সভায় সিঙ্গাইর উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুনা লায়লা বক্তব্য রাখেন। এছাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা, সহকারী কমিশনার(ভূমি), উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাসহ উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞান শিক্ষকরা অংশগ্রহণ করেন।
সভা শেষে সিঙ্গাইর উপজেলা প্রশাসন এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের জন্য বিজ্ঞান জাদুঘরের পক্ষ থেকে হ্যান্ড-স্যানিটাইজার এবং উপহার সামগ্রী প্রদান করা হয়।

 

মানুষের কাছে এখনও অজানা জাতীয় বিজ্ঞান জাদুঘর
                                  

মহিউদ্দিন তুষার : জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর রাজধানী আগারগাঁওয়ের শেরেবাংলা নগরে অবস্থিত। প্রতিনিয়ত বিজ্ঞানের নতুন আবিষ্কার, যুগের পরিবর্তনের কারণ খুঁজতে এবং জ্ঞানের পরিধি বাড়াতে ক্রমেই দর্শনার্থীর সংখ্যা বাড়ছে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরে। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে প্রতিদিন এ জাদুঘরে আসে হাজার হাজার দর্শনার্থী। চলতি বছর করোনা মহামারীর কারনে দর্শনার্থীরা সেভাবে না আসলেও জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের ডিজিটাল ব্যবস্থাপনার আওতায় অক্টোবর মাসে সারাদেশে ১ লক্ষ ৩১ হাজার ৩৭২ জন দর্শক ভার্চুয়াল ভিজিটের মাধ্যমে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর পরিদর্শন করেছে। প্রদর্শন উপযোগী প্রাকৃতিক সামগ্রী এবং স্থানীয় সৃষ্টিশীল বিজ্ঞানীদের অনুপ্রেরণা ও উদ্ভাবনমূলক কাজ সম্পাদনের জন্য এ জাদুঘর প্রতিষ্ঠা করা হয়। এখন দেশের বৈজ্ঞানিক ও প্রযুক্তিগত অগ্রগতির নির্দশন সামগ্রী প্রদর্শন, বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রার নির্দশন ও বিজ্ঞানমনস্ক শিক্ষিত মানব সমাজ গড়ে তুলতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ফলে এর বিস্তৃতি এখন শহর, নগর কিংবা গ্রাম সর্বত্রই ছড়িয়ে পড়ছে। এটি রাজধানীসহ দেশের বিভাগীয়, জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ে সব শ্রেণিপেশার মানুষের জন্য বিজ্ঞান মেলা, বিজ্ঞান প্রতিযোগিতা এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সামগ্রী প্রদর্শনের আয়োজন করে। সেইসঙ্গে মিউজু বাসের মাধ্যমে ভ্রাম্যমাণ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রদর্শন সামগ্রী দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের মাঝে পৌঁছে দিচ্ছে। যে কারণে তরুণদের আগ্রহ ক্রমেই বেড়ে চলেছে জাদুঘরের প্রতি। ১৯৬৫ সালের ২৬ এপ্রিল পাকিস্তান সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবনায় ১৯৬৬ সালে ঢাকা পাবলিক লাইব্রেরি ভবনে যৌথভাবে কাজ শুরু করে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর। এরপর জ্ঞান অন্বেষণকারীদের অজানাকে জানার চাহিদা ক্রমেই বাড়তে থাকে। সেইসঙ্গে নতুন নতুন প্রদর্শন সামগ্রী সংগ্রহ হওয়ায় একটি নিজস্ব ভবনের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। ১৯৭০ সালের এপ্রিল মাসে চামেলীবাগে স্থানান্তরের পর পর্যাপ্ত স্থান সংকুলান না হওয়ায় ১৯৭১ সালের মে মাসে এটিকে ধানমন্ডির ১ নম্বর সড়কে স্থানান্তর করা হয়। সেখান থেকে ১৯৭৯ সালে ধানমন্ডির ৬ নম্বর সড়কে এবং ১৯৮০ সালে কাকরাইল মসজিদের সামনে স্থানান্তর করা হয়। প্রতিবছর জাদুঘরটি এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যেন স্থানান্তরিত করতে না হয় সেজন্য ১৯৮১ সালে সরকার জাদুঘরের নিজস্ব ভবন নির্মাণের জন্য আগারগাঁওয়ের শেরেবাংলা নগর এলাকায় ৫ একর জমির ওপর একটি ভবন নির্মাণ করে। জাদুঘরটি ১৯৭২ সালে ‘জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর’ হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হয়। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিবের তত্ত্বাবধানে এবং বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, শিক্ষা ও জাদুঘর সংশ্লিষ্ট বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সমন্বয়ে এটি পরিচালিত হচ্ছে। জাদুঘরটিতে মোট ৭টি গ্যালারি, প্রবেশ ও বাহির হওয়ার জন্য দুটি আলাদা পথ এবং ঘুরে দেখানোর জন্য গাইডলাইন রয়েছে। শনি ও রোববার আকাশ মেঘমুক্ত থাকলে সন্ধ্যার পরে টেলিস্কোপের সাহায্যে আকাশ পর্যবেক্ষণ করতে পারে দর্শনার্থীরা। সপ্তাহের রোববার থেকে বুধবার পর্যন্ত জাদুঘরটি সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ১০ টাকার টিকিটের বিনিময়ে দর্শনার্থীরা প্রবেশ করতে পারেন। তবে ৫ বছরের নিচের শিশুর জন্য প্রবেশমূল্য ফ্রি। শুক্রবার (দুপুর ২টা ৩০ মিনিট থেকে সন্ধা ৭টা) শনিবার (সকাল ৯টা থেকে সন্ধা ৬টা) পর্যন্ত খোলা থাকে। প্রতি বৃহস্পতিবার জাদুঘরটি সাপ্তাহিক বন্ধ থাকে। জাদুঘরটিতে অন্যান্য দিনের তুলনায় সূর্য ও চন্দ্র গ্রহণের সময় দর্শনার্থীর সংখ্যা বহুগুণ বেড়ে যায়। চারতলা এই জাদুঘরের ১ম ও ২য় তলায় গ্যালারি, ৩য় তলায় অফিস এবং ৪র্থ তলায় বাংলাদেশ বিজ্ঞান একাডেমি অবস্থিত।
১ম ও ২য় তলায় সায়েন্স, ইন্ডাস্ট্রিয়াল টেকনোলজি, বায়োলজি, ইনফরমেশন টেকনোলজি, ফান সায়েন্স এবং ইয়ং সায়েন্টিস্ট প্রোজেক্ট গ্যালারি রয়েছে। এছাড়াও ভবনটিতে একটি লাইব্রেরি, ওয়ার্কশপ ও অডিটোরিয়াম রয়েছে। দর্শনার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত সিঁড়ি ও একটি লিফট রয়েছে ভবনে। ভবনের সামনে একটি ডাইনোসরের মূর্তি এবং একটি ছোট যুদ্ধবিমান রাখা হয়েছে। জাদুঘর প্রাঙ্গণে একসঙ্গে ৫০টি গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গা রাখা হয়েছে। রয়েছে অগ্নি নির্বাপনের সব ধরনের ব্যবস্থা। তবে জাদুঘরের ভেতরে ছবি তোলা এবং জোরে শব্দ করা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। দর্শনার্থীর সঙ্গে বহন করা ব্যাগ, ক্যামেরা ইত্যাদি কাউন্টারে জমা দিয়ে প্রবেশ করতে হয়। এই জাদুঘরের সঙ্গে নিবন্ধিত দেশের জেলা ও উপজেলাসহ বিভিন্ন স্থানে ৪৯০টি বিজ্ঞান ক্লাব রয়েছে। বিজ্ঞান ক্লাবগুলো জাদুঘরের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হয়ে বিজ্ঞান প্রদর্শনীর মাধ্যমে শিক্ষাদান, বিজ্ঞানের প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি এবং তরুণ প্রজন্মের উদ্ভাবনী শক্তির বিকাশ ঘটাতে স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়া জেলা পর্যায়ে বিজ্ঞান মেলা, দলভিত্তিক পরিদর্শন শেষে সাধারণ কুইজ, বিজ্ঞান বক্তৃতার আয়োজন এবং আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান দিবসে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করে।

ফ্রিল্যান্সারদের পরিচয়পত্র দেয়ার কার্যক্রম উদ্বোধন আজ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ফ্রিল্যান্সারদের আর্থিক ও সামাজিক মর্যাদা নিশ্চিতে পরিচয়পত্র দেয়ার কার্যক্রম শুরু করছে সরকার। আজ বুধবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই কার্যক্রম বাস্তবায়নে ভার্চুয়াল আইডি কার্ড পোর্টালের উদ্বোধন করবেন। আইসিটি বিভাগের জনসংযোগ কর্মকর্তা শহিদুল আলম মজুমদার জানান, অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এবং তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকও থাকছেন। অনুষ্ঠান আয়োজনে গত সোমবার প্রস্তুতিমূলক সভাও করেছেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী। ফ্রিল্যান্সারদের এই সামাজিক ও প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্যোগী হয়েছিলেন। চলতি বছরের ২৫ আগস্ট জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, অনেক স্মার্ট ছেলে ফ্রিল্যান্সিং করছে, ভালো কাজ করে, ভালো আয় করে, সুন্দর কাপড় পরে। কিন্তু বিয়ে করতে গেলে অসুবিধা হয়।’ ওই সভায় ফ্রিল্যান্সাররা যে কাজ করছে, এর সামাজিক এবং প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি কিভাবে দেওয়া যেতে পারে কিনা, জানতে চেয়েছিলেন শেখ হাসিনা। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী আইটি খাতের সঙ্গে কথা বলবেন বলেও জানিয়েছিলেন। আর এই বিশাল কর্মযজ্ঞই বুধবার বাস্তবে পরিণত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার ৭ দিনের মধ্যের তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের ২০২০-২১ অর্থবছরের সেপ্টেম্বর মাসের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) বাস্তবায়ন পর্যালোচনা সভায় এই কার্ড প্রদান কার্যক্রম দ্রুত বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেন। সভায় পলক কন্ট্রোলার অব সার্টিফাইং অথরিটি (সিসিএ), বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) ও মোবাইল গেমস অ্যান্ড অ্যাপস প্রকল্প কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এ কর্মসূচি সমন্বয় করার জন্য প্রকল্প পরিচালক, লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট প্রকল্প ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশনা দেন।
এরপর সেপ্টেম্বরের শেষে ফ্রিল্যান্সারদের এক অনুষ্ঠানে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জানান, দেশের প্রায় সাড়ে ছয় লাখ ফ্রিল্যান্সারকে ভার্চুয়াল কার্ড দিচ্ছে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ। এই কার্ডের মাধ্যমে আত্মপরিচয়ের পাশাপাশি ব্যাংকের ঋণ সহায়তা এবং হাইটেক পার্কে অগ্রাধিকার পাবেন ফ্রিল্যান্সাররা।

নড়াইলের সাদাত আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কারে ভূষিত
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ‘সাইবার বুলিং’ থেকে শিশুদের রায় কাজ করে এ বছর আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশের প্রত্যন্ত এলাকা নড়াইলের সাদাত রহমান। সাদাত সিআরআই আয়োজিত জয় বাংলা ইউথ অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী। নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগ শহরে গত শুক্রবার এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে নড়াইলের ১৭ বছর বয়সী সাদাতের হাতে এই পুরস্কার তুলে দেন শান্তিতে নোবেল বিজয়ী মালালা ইউসুফজাই। তিনি ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে সাদাতকে এই পুরস্কার দেন। পুরস্কারের সঙ্গে এক লাখ ইউরো পাচ্ছে সাদাত। বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক সাদাতের এই অর্জনে তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠা ও ঝুঁকিতে থাকা শিশুদের সুরা কাজের জন্য প্রতি বছর এই পুরস্কার দেয় ‘কিডস রাইটস’ নামের একটি সংগঠন। ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সীরা এই পুরস্কারের জন্য আবেদন করতে পারে। কিডস রাইটসের বিশেষজ্ঞ কমিটি ৪২টি দেশের ১৪২ জন প্রতিযোগীর মধ্যে সাদাতকে এ বছরের পুরস্কারের জন্য বিজয়ী ঘোষণা করেছে বলে সংগঠনটির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে। সাইবার বুলিং বন্ধে সামাজিক সংগঠন গড়ে তোলার পাশাপাশি সাদাত ‘সাইবার টিনস’ নামের একটি মোবাইল অ্যাপ চালু করে। যার মাধ্যমে শিশু ও কিশোর-কিশোরীরা উপকৃত হচ্ছে। ‘কিডস রাইটস’ বলেছে, এই পুরস্কার অর্জনের মধ্য দিয়ে সাদাত একটি আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্ম পেলো, যা তাকে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষের কাছে তার বার্তা পৌঁছে দেওয়ার সুযোগ করে দেবে।

বিজ্ঞান জাদুঘরে দুই মেধাবী প্রকৌশলীর সংবর্ধনা
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক: মেধার সদ্ব্যবহার করে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উৎকর্ষতায় যে অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করা যায়, তার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর। মেধাকে স্বীকৃতি দিতে হবে, নতুন দেশের অগ্রগতি বিঘ্নিত হবে। প্রায় ১দশক পরিত্যক্ত থাকা ৩টি বিমানকে সংস্কার ও আধুনিকায়ন করে যান্ত্রিক আবহে উপস্থাপনে সফল অবদান রাখা মেধাবী এ্যরোনটিক্যাল প্রকৌশলী তানজিয়া রশিদ’ এর সম্মানে আয়োজিত এক বিজ্ঞান সভা ও বিজ্ঞান বক্তৃতা অনুষ্ঠানে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী এ কথা বলেন। 

অনুষ্ঠানে প্রকৌশলী তানজিয়া এবং তাঁর স্বামী মেরিন প্রকৌশলী রাইসুল হাসান’ কে বিজ্ঞান জাদুঘর থেকে মেধার স্বীকৃতি স্বরূপ সংবর্ধনা জানান হয়। সংবর্ধনার জবাবে তানজিয়া রশিদ ও রাইসুল হাসান বলেন, “আমাদের মেধা বাংলাদেশের উন্নয়নের পেছনে নিবেদিত করতে চাই। আমরা বিজ্ঞান জাদুঘরকে সমৃদ্ধ করতে চাই”।

উল্লেখ্য, বিজ্ঞান জাদুঘরের সহযোগিতায় গত ৪মাস অক্লান্ত পরিশ্রমে এ্যরোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার তানজিয়া রশিদ ও তাঁর সহযোগী পাইলট সালেকীন তাজ দুটি কানাডিয়ান বিভার বিমানের আধুনিকায়ন কাজ সম্পন্ন করেন।

 

বিজ্ঞান জাদুঘরে শেখ রাসেলকে স্মরণ: শূন্যতা পূরণ করবে তরুন মেধাবীরা
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ট পুত্র শেখ রাসেলের ৫৭তম জন্মদিন উপলক্ষে গতকাল রোববার জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরে শিশু-কিশোরদের নিয়ে এক বিজ্ঞান সভার আয়োজন করা হয়েছে। বাংলাদেশ বিজ্ঞান পরিষদ, বুয়েট, রুয়েট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়, হলিক্রস কলেজ, ঢাকা কলেজ, ময়মনসিংহ ক্যাডেট কলেজের প্রায় ৪০জন শিক্ষার্থী এ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা শেখ রাসেলকে স্মরণ পূর্বক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উৎকর্ষতায় দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, “অবুঝ শিশু শেখ রাসেলকে হত্যা জাতিসংঘ সনদ এবং আন্তর্জাতিক কনভেনশন অনুযায়ী ঘৃণ্য অপরাধ। নিরপরাধ শিশু ও মানুষ হত্যা ইসলামেও নিষিদ্ধ। শেখ রাসেল বেঁচে থাকলে আজ বাংলাদেশের অনেক বড় বিজ্ঞানী, গবেষক বা দেশের কান্ডারী হতে পারতেন। তাঁর এ শুন্যতা পূরণ করতে হবে আজকের তরুন প্রজন্মকে, যারা মেধা ও যোগ্যতা দিয়ে বাংলাদেশকে বিশ্বমানচিত্রে সম্মানজনক অবস্থানে নিয়ে যাবে”।

অনুষ্ঠান শেষে শেখ রাসেলের বিদেহী আত্নার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয় এবং এতিম শিশুসহ অংশগ্রহনকারীদের মধ্যে খাবার বিতরণ করা হয়।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও বন্ধ হয়নি বিজ্ঞান চচা: মুনীর চৌধুরী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার: জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও বন্ধ হয়নি বিজ্ঞান চর্চা। মুজিব বর্ষকে স্মরণ করে শিক্ষার্থীদের অচলায়তন থেকে রক্ষায় এ বিজ্ঞানভিত্তিক প্রাণবন্ত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে, যা আগামীতে অব্যাহত থাকবে।

বুধবার রাজধানীর অদূরে কেরানীগঞ্জে মুজিব বর্ষ উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের জন্য ভ্রাম্যমাণ বিজ্ঞান উৎসবের কর্মসূচীর মাধ্যমে ৪-ডি ভিত্তিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির অজানা রহস্য প্রদর্শন, মহাকাশের গ্রহ নক্ষত্র পরিচিতি এবং বিজ্ঞান বিষয়ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
বিজ্ঞান জাদুঘরের পক্ষে একটি বিশাল মুভিবাস ও একটি মহাকাশ পর্যবেক্ষণ বাস কেরানীগঞ্জে পৌঁছলে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসবের আমেজ সৃষ্টি হয়। সেখানে কেরানীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় ১০ টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রায় ৭০০ জন ছাত্র-ছাত্রী এ প্রদর্শনীতে অংশ গ্রহণ করে।

 

হেরে গেল মাইক্রোসফট, টিকটক কিনছে ওরাকল
                                  

ডেস্ক রিপোর্ট : চাপ প্রয়োগ করে টিকটকের মার্কিন ব্যবসা বিক্রির জন্য ট্রাম্প প্রশাসন যে সময়সীমা বেধে দিয়েছিল তা পেরোনোর আগেই জানা গেলো, জনপ্রিয় এই ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপটি বিক্রির জন্য ওরাকল করপোরেশনকে বেছে নিয়েছে টিকটকের মালিকানাধীন চীনা কোম্পানি বাইটড্যান্স।

আজ সোমবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এবং বার্তা সংস্থা এপির প্রতিবেদনে সংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাতে এ খবর জানানো হয়েছে। টিকটক কেনার এই প্রতিযোগিতায় আরেক মার্কিন প্রযুক্তি জায়ান্ট মাইক্রোসফটের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে বাইটড্যান্স। টিকটক বিক্রির জন্য কিছুদিন ধরে মার্কিন ক্রেতা খুঁজছিল বাইটড্যান্স।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চীনা অ্যাপ টিকটককে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে অভিহিত করে গত মাসে এক নির্বাহী আদেশ জারি করে টিকটকের মালিকানা যুক্তরাষ্টের কোনো প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রির জন্য সময়সীমা বেধে দেন। ট্রাম্প প্রশাসনের বেঁধে দেয়া সময় ছিল ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

ট্রাম্প নির্বাহী আদেশ জারির পর হুমকি দিয়ে বলেন, এই সময়সীমার মধ্যে টিকটক বিক্রি না করা হলে যুক্তরাষ্ট্রে তা নিষিদ্ধ করা হবে। ট্রাম্পের এমন হুমকির পর থেকে সম্ভাব্য ক্রেতাদের কাছে টিকটকের মার্কিন ব্যবসা বিক্রি করার জন্য বাইটড্যান্স মার্কিন জায়ান্ট ওরাকল এবং মাইক্রোসফটের সঙ্গে আলোচনা শুরু করে।

এখন ওরাকলের কাছে মার্কিন ব্যাবসা বিক্রির জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও চীন সরকারের অনুমোদনের প্রয়োজন হবে টিকটকের। মাইক্রোসফট স্থানীয় সময় রোববারই অবশ্য জানায় যে, টিকটকের মার্কিন ব্যাবসা কেনার জন্য তারা যে প্রস্তাব দিয়েছিল তা ফিরিয়ে দিয়েছে অ্যাপটির মালিকানা প্রতিষ্ঠান বাইটড্যান্স।

ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশ জারির পর অবশ্য মার্কিন সরকার কর্তৃক এই নিষেধাজ্ঞার হুমকিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে একটি মামলা দায়ের করেছিল টিকটক। তাতে কোম্পানিটি দাবি করে যে, ট্রাম্পের আদেশ আন্তর্জাতিক জরুরি অর্থনৈতিক শক্তি আইনের অপব্যবহার। কারণ প্ল্যাটফর্মটি ‘অস্বাভাবিক এবং অসাধারণ হুমকির’ নয়।

বাংলাদেশের তথ্যের মান খুবই দুর্বল: বিশ্বব্যাংক
                                  

গণমুক্তি ডেস্ক : ভারত, পাকিস্তান, ভুটান ও শ্রীলঙ্কার চেয়েও বাংলাদেশের তথ্যের মান খুবই দুর্বল বলে জানিয়েছে দেশের অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী বিশ্বব্যাংক।

গতকাল বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) বিশ্বব্যাংক জানায়, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) দেশের শুমারি, খানা আয়-ব্যয় জরিপ (এইচআইইএস) ও পরিসংখ্যানগত সব তথ্য প্রকাশ করে। এসব কাজে তথ্যের উৎস ও পদ্ধতিগত বিষয়গুলো ভালোমতো অনুসরণ করা হলেও ঠিক সময়ে তথ্য প্রকাশে দুর্বলতা রয়েছে।

গেল অর্থবছরে দেশের মোট দেশজ উৎপাদনে (জিডিপি) প্রবৃদ্ধির প্রাথমিক হিসাব তুলে ধরে পরিসংখ্যান ব্যুরো। যার নির্ভরযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলে গবেষণা সংস্থা সিপিডি। অনেক সময় রাজস্ব, রপ্তানি আয়, এডিপিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে দুটি সংস্থার মধ্যে সরকারি তথ্য নিয়ে ভিন্নরকম উপস্থাপনাও দেখা যায়। সরকারি সংস্থাগুলোর পরিসংখ্যানগত দুর্বলতার চিত্র উঠে এসেছে বিশ্বব্যাংকের স্ট্যাটিসটিক্যাল ক্যাপাসিটি স্কোরে। এ সময়ে দেশের পয়েন্ট কমেছে ১৮।

বিশ্বব্যাংক বলছে, গত পাঁচ বছরে বাংলাদেশে পরিসংখ্যানগত দুর্বলতা আরো তীব্র হয়েছে। দেশের তথ্যের নির্ভরযোগ্যতা সর্বোচ্চ পর্যায়ে উঠেছিল ২০১৪ সালে। সে বছরে ১০০ পয়েন্টের মধ্যে প্রায় ৮০ পয়েন্ট পেয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু ২০১৯ সালে বাংলাদেশের স্কোর পয়েন্ট কমে ৬২ দশমিক ২ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। তথ্যসূত্র ও উৎস, মেথডোলজি এবং সময়কাল এ তিনটি বিষয়কে প্রাধান্য দিয়ে এই মূল্যায়ন করে বিশ্বব্যাংক। এক্ষেত্রে ২৫টি মানদণ্ডের বিপরীতে গড় স্কোর নির্ধারণ করে সংস্থাটি। সূচকটি তৈরিতে দেশের প্রায় সব ক্ষেত্রের তথ্যের সরবরাহ ও পদ্ধতিগত এবং সময় বিষয়গুলোর ওপর বিশ্লেষণ করা হয়েছে।

এসব তথ্যের মধ্যে রয়েছে সামষ্টিক অর্থনীতির প্রধান সূচক, ন্যাশনাল অ্যাকাউন্ট বা জিডিপির হিসাব, লেবার ফোর্স সার্ভে, বাণিজ্য (আমদানি-রফতানি) এইচআইইএস, দরিদ্র, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, রাজস্ব ও মুদ্রানীতিবিষয়ক তথ্য, বাজেট, ব্যালান্স অব পেমেন্ট, সব বিভাগের আর্থসামাজিক তথ্য। বিশ্বব্যাংকের বিবেচনায় মূলত তথ্যের উৎস দুর্বলতা, মেথডোলজিক্যাল দুর্বলতা বা মান নির্ধারণে দুর্বলতা, নির্ভুলতা ও নির্দিষ্ট সময়ে প্রকাশ করতে না পারার কারণেই ধারাবাহিকভাবে বাংলাদেশের তথ্যের মান দুর্বল হচ্ছে। সংস্থাটির প্রতিবেদন অনুযায়ী, স্ট্যাটিসটিক্যাল ক্যাপাসিটি স্কোরে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে আফগানিস্তানের ঠিক ওপরে রয়েছে বাংলাদেশ। এই সূচকে ভারতের পয়েন্ট ছিল ৭৫ দশমিক ৬ শতাংশ। এছাড়া ভুটান ৬৩ দশমিক ৩ শতাংশ, শ্রীলংকা ৮১ দশমিক ১ শতাংশ, পাকিস্তান ৭১ দশমিক ১ শতাংশ, নেপাল ৭৪ দশমিক ৪ শতাংশ ও আফগানিস্তান ৫০ পয়েন্ট পেয়েছে। সার্বিকভাবে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর গড় ৬৯ দশমিক ১ শতাংশ পয়েন্ট হয়েছে।

সূত্র জানিয়েছে, দেশের ব্যালান্স অব পেমেন্ট ও মুদ্রানীতির মেথডোলজি ও সোর্স আন্তর্জাতিক মানদণ্ডে উন্নীত হয়েছে। তবে এ দুই খাতের তথ্য প্রকাশে সময়ক্ষেপণ রয়েছে। আবার রপ্তানি ও রাজস্ব খাতের তথ্য পিরিওডিক্যালি প্রকাশের ক্ষেত্রে অগ্রগতি দেখা যাচ্ছে। রপ্তানি তথ্য প্রকাশে আন্তঃসংস্থার সমন্বয়ে এখন অগ্রগতি ভালো হয়েছে। কিছুটা পিছিয়ে রয়েছে রাজস্ব খাত।

তবে অর্থমন্ত্রী হিসেবে আ হ ম মুস্তফা কামাল দায়িত্ব গ্রহণের পর সময়মতো এসব খাতের তথ্য প্রকাশে গতি এসেছে। গত কয়েক মাসে নিয়মিতভাবে রাজস্ব আয়, রেমিট্যান্স, রিজার্ভ ও বাংলাদেশের ব্যাংকের বেশকিছু সূচকের তথ্য প্রকাশ করছেন তিনি। আন্তঃপ্রতিষ্ঠান সমন্বয় আনতে প্রতি তিন মাস পরপর অর্থ মন্ত্রণালয়গুলোর অধীন সংস্থাগুলো নিয়ে বৈঠক করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

বিজ্ঞান জাদুঘরের উদ্যোগে এতিম শিশুদের মাঝে খাবার ও উপহার বিতরণ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর এবারও ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে ১৫ আগস্ট ২০২০ আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের পাশাপাশি আগারগাঁও এলাকায় ২টি এতিমখানায় বিজ্ঞান জাদুঘরের পক্ষ থেকে দেওয়া হয় উন্নতমানের খাবার এবং উপহার। প্রায় ৩ শতাধিক এতিম শিশুদের মাঝে উপহার হিসেবে উন্নতমানের ছাতা, মগ এবং মাস্ক দেওয়া হয়। এসব পেয়ে এতিম শিশু আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়ে।

এ প্রসঙ্গে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, “বঙ্গবন্ধুকে শুধু আনুষ্ঠানিকতায় নয়, বঙ্গবন্ধুর আত্নার মাগফেরাত কামনা করে তাঁকে অন্তর থেকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য নিষ্পাপ শিশুদের জন্য এ আয়োজন করা হয়েছে”।

এদিকে বিজ্ঞান জাদুঘরে আলোচনা সভায় বক্তারা বঙ্গবন্ধুর দেশপ্রেমের চেতনাকে ধারণ করে জনসেবায় উজ্জীবিত হবার উপর গুরুত্বারোপ করেন। এ অনুষ্ঠানে মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী বলেন, “ বঙ্গবন্ধু সংবিধানে কর্মকর্তা-কর্মচারি প্রভেদ রাখেননি। বঙ্গবন্ধুর কল্যাণ রাষ্ট্রের ধারণায় আমরা সবাই কর্মচারি। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর বৈষম্যহীন মানসিকতা ধারণ করতে হবে আমাদের।”


   Page 1 of 76
     তথ্য-প্রযুক্তি
বিজ্ঞান জাদুঘরে রোবট প্রযুক্তি মেলা
.............................................................................................
বিজ্ঞান জাদুঘরে আসছে আধুনিক প্রযুক্তির মিউজিয়াম বাস
.............................................................................................
বিজ্ঞান জাদুঘরে হাতে কলমে আগুন নেভানোর প্রশিক্ষণ
.............................................................................................
বিজ্ঞান মনস্ক জাতি গঠনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর: মহাপরিচালক
.............................................................................................
প্রযুক্তি দিয়ে দূষন নিয়ন্ত্রণের তাগিদ দিলো বিজ্ঞান জাদুঘর
.............................................................................................
শিক্ষার্থীদের প্রকৃতিবান্ধব জীবন চর্চার তাগিদ দিলেন মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী
.............................................................................................
বিজ্ঞান শিক্ষকতা চাকুরী নয়: সিঙ্গাইরে বললেন মুনীর চৌধুরী
.............................................................................................
মানুষের কাছে এখনও অজানা জাতীয় বিজ্ঞান জাদুঘর
.............................................................................................
ফ্রিল্যান্সারদের পরিচয়পত্র দেয়ার কার্যক্রম উদ্বোধন আজ
.............................................................................................
নড়াইলের সাদাত আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কারে ভূষিত
.............................................................................................
বিজ্ঞান জাদুঘরে দুই মেধাবী প্রকৌশলীর সংবর্ধনা
.............................................................................................
বিজ্ঞান জাদুঘরে শেখ রাসেলকে স্মরণ: শূন্যতা পূরণ করবে তরুন মেধাবীরা
.............................................................................................
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও বন্ধ হয়নি বিজ্ঞান চচা: মুনীর চৌধুরী
.............................................................................................
হেরে গেল মাইক্রোসফট, টিকটক কিনছে ওরাকল
.............................................................................................
বাংলাদেশের তথ্যের মান খুবই দুর্বল: বিশ্বব্যাংক
.............................................................................................
বিজ্ঞান জাদুঘরের উদ্যোগে এতিম শিশুদের মাঝে খাবার ও উপহার বিতরণ
.............................................................................................
বন্ধ হচ্ছে গুগল প্লে মিউজিক
.............................................................................................
ফ্রিল্যান্সারদের জন্য ‘সবচেয়ে কঠিন’ শহর ঢাকা
.............................................................................................
বিল গেটস, ওবামাসহ প্রভাবশালীদের টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক
.............................................................................................
চালক ছাড়াই চলবে গাড়ি
.............................................................................................
টিভি সেবা খরচ বাড়ালো ইউটিউব
.............................................................................................
রাজনীতিকদের পোস্টে ‘সম্ভাব্য ক্ষতিকারক’ লেবেল দেবে ফেসবুক
.............................................................................................
কখন হাত ধুঁতে হবে বলে দেবে ঘড়ি
.............................................................................................
ভার্চুয়াল স্নাতক ডিগ্রিধারীদের মালালার অভিনন্দন
.............................................................................................
হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের জন্য সুসংবাদ
.............................................................................................
মুজিববর্ষে একশ সার্ভিসে দশ কোটি মানুষকে সুবিধা দেয়া হবে-পলক
.............................................................................................
হুয়াওয়ে ৫ জি রায়ের সিদ্ধান্ত `কয়েকটি ভাল বিকল্প সহ`
.............................................................................................
১৬ বছরে পা রাখলো বাংলা উইকিপিডিয়া
.............................................................................................
তরুণ প্রজন্মকে প্রযুক্তির সাথে সম্পৃক্ত করে গড়ে তুলতে হবে : পলক
.............................................................................................
ফেসবুক এবং ইউটিউব মডারেটররা পিটিএসডি প্রকাশে স্বাক্ষর করেছেন
.............................................................................................
প্রযুক্তি হুমকিতে ফেলতে যাচ্ছে যে সাতটি পেশা
.............................................................................................
শিগগির রফতানিতে গার্মেন্টকে ছাড়াবে আইটি খাত : জয়
.............................................................................................
ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলার উদ্বোধন করলেন জয়
.............................................................................................
স্যার ডেভিড অ্যাটেনবারো জলবায়ু `সঙ্কটের মুহুর্ত` সম্পর্কে সতর্ক করেছেন
.............................................................................................
প্রথমবারের মতো ৫জি ব্যবহারের সুযোগ আগামি-বৃহস্পতিবার
.............................................................................................
মিলিয়ন ডলার খরচ করে মহাকাশে যাচ্ছেন প্রথম যে পর্যটকরা
.............................................................................................
স্পেসএক্স আরও ৬০ টি স্টারলিঙ্ক উপগ্রহকে কক্ষপথে প্রেরণ করে
.............................................................................................
চলতি বছরই মহাকাশ ভ্রমণ করবে মানুষ
.............................................................................................
হুয়াওয়ের নতুন অফার নতুন বছরে
.............................................................................................
চীনের বাজারে শাওমির ওয়্যারলেস কি-বোর্ড ও মাউস
.............................................................................................
২০২০ : সতর্ক থাকুন তারিখ লেখা নিয়ে
.............................................................................................
২০১৯ সালের মহাকাশের সেরা কিছু ছবি
.............................................................................................
ইনবক্সে `সারপ্রাইজ মেসেজ` খোলার আগে ভাবুন
.............................................................................................
যুবরাই ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রধান শক্তি : আইনমন্ত্রী
.............................................................................................
ইন্টারনেটের অভাবে কীভাবে ডুবছে কাশ্মীরের অর্থনীতি
.............................................................................................
মঙ্গল গ্রহে যে নভোযান হয়তো দু-তিন মাসেই নিয়ে যাবে
.............................................................................................
প্রকৃতি ক্ষতি : `প্রাকৃতিক ও মানব জরুরী অবস্থা` তুলে ধরার জন্য প্রধান প্রতিবেদন
.............................................................................................
সূর্য গ্রাহান ২০১9 : সৌর গ্রহণ চলাকালীন কি কি খাওয়া উচিত নয়
.............................................................................................
বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন ইন্টারনেট ‘সফলভাবে পরীক্ষা’ করেছে রাশিয়া
.............................................................................................
নতুন ইঞ্জিন প্রযুক্তি যা আমাদের মঙ্গল গ্রহে দ্রুত পৌঁছে দিতে পারে
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন
বাণিজ্যিক কার্যালয় : "রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্লেক্স"
(৬ষ্ঠ তলা), ২৮/১ সি, টয়েনবি সার্কুলার রোড,
মতিঝিল বা/এ ঢাকা-১০০০| জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা
ফোন নাম্বার : ০২-৪৭১২০৮০৫/৬, ০২-৯৫৮৭৮৫০
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, 01731800427
E-mail: dailyganomukti@gmail.com
Website : http://www.dailyganomukti.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop