২২ জিলহজ ১৪৪১ , ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ আগস্ট , ২০২০ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > বরগুনায় অগ্নিঝরা টাউনহল চত্বরে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের মানববন্ধন ও অবস্থান ধর্মঘট   > বন্যায় মৃতের সংখ্যা দুইশ ছাড়াল   > স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক হলেন সেব্রিনা ফ্লোরা   > বরিশাইল্লা ‘দাদো’র চরিত্রে মীর সাব্বির   > ২৪ ঘন্টায় আরো ৪৪ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬১৭   > ট্রেনের টিকিট হাতবদল হলেই সাজা   > মাদারীপুরের ডাসারে র‌্যাব-৮ এর অভিযানে দেশি-বিদেশী মদ উদ্ধার, আটক ১   > সুবিদখালী বাজার সড়কের বেহাল দশা, দুর্ভোগ চরমে !   > এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিচার শুরু   > ভূঞাপুরে ছাত্রলীগ নেতার গলাকাটা লাশ উদ্ধার  

   ধর্ম -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
মুমিনের যে আমল আল্লাহর কাছে সবচেয়ে উত্তম

ধর্ম ডেস্ক : ইসলামের প্রধান ইবাদত নামাজ। মুমিন মুসলমানের জন্য নিয়মিত ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা ফরজ। শুধু তাই নয়, নিশ্চয় নির্দিষ্ট সময়ে মুসলমানদের উপর নামাজ আদায় করা ফরজ। নামাজ আদায়ের মধ্যেই রয়েছে মুমিনের সবচেয়ে উত্তম আমল।

যথাসময়ে নামাজ আদায় করাকে মুমিনের অন্যতম বৈশিষ্ট্য ও আমল হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। আল্লাহ তাআলা নামাজের ব্যাপারে তাগিদ দিয়ে বলেন-

حَافِظُواْ عَلَى الصَّلَوَاتِ والصَّلاَةِ الْوُسْطَى وَقُومُواْ لِلّهِ قَانِتِينَ - فَإنْ خِفْتُمْ فَرِجَالاً أَوْ رُكْبَانًا فَإِذَا أَمِنتُمْ فَاذْكُرُواْ اللّهَ كَمَا عَلَّمَكُم مَّا لَمْ تَكُونُواْ تَعْلَمُونَ

`(সময় মতো) সব (ফরজ) নামাজের প্রতি যত্নবান হও, বিশেষ করে মধ্যবর্তী নামাজের ব্যাপারে। আর আল্লাহর সামনে একান্ত আদবের সাথে দাঁড়াও। অতপর যদি তোমাদের কারো ব্যাপারে ভয় থাকে, তাহলে পদচারণা অবস্থাতেই (নামাজ) পড়ে নাও অথবা সওয়ারীর উপরে। তারপর যখন তোমরা নিরাপত্তা পাবে, তখন আল্লাহকে স্মরণ কর, যেভাবে তোমাদের শেখানো হয়েছে, যা তোমরা ইতিপূর্বে জানতে না।` (সুরা বাকারা : আয়াত ২৩৮-২৩৯)

উল্লেখিত আয়াতে যথা সময়ে নামাজ আদায়ের ব্যাপারে তাগিদ দেয়া হয়েছে। বিভিন্ন অজুহাতে মানুষ নামাজে দেরি করে। অবহেলায় সময় কাটিয়ে দেয়। অথচ কুরআনুল কারিমের নির্দেশনা হলো- সময় মতো নামাজ পড়া। এমনকি যদি কারো কোনো ভয় কিংবা কেউ সফরে সাওয়ারির উপরও থাকে তবে তাকে সময় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নামাজ আদায়ের তাগিদ দেয়া হয়েছে। নামাজ পড়ার সময় একান্ত আদবের সঙ্গে আদায় করার কথাও বলা হয়েছে। কেননা নামাজ পড়া হয় মহান আল্লাহর জন্য।

নামাজ ফরজ ইবাদত। কিন্তু যথা সময়ে নামাজ আদায় করা মুমিন মুসলমানের জন্য সবচেয়ে উত্তম আমল। এ কথা ঘোষণা করেছেন স্বয়ং বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। হাদিসে এসেছে-

হজরত আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, আমি জিজ্ঞাসা করলাম- হে আল্লাহ্‌র রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আল্লাহ‌র কাছে কোন আমল সবচেয়ে উত্তম? তিনি বললেন, `সময় মতো সালাত আদায় করা`। (আমি) বললাম, তারপর কোনটি? তিনি বললেন, `বাবা-মার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করা। (আমি) বললাম, তারপর কোনটি? তিনি বললেন, `আল্লাহ্‌র পথে জিহাদ করা।` (বুখারি ও মুসলিম)

মনে রাখতে হবে
ইচ্ছাকৃতভাবে নামাজে অবহেলা করা বা দেরি করে নামাজ আদায় করা মারাত্মক ক্ষতি। আল্লাহ তাআলা কুরআনুল কারিমের সুরা মাউন-এ ঘোষণা করেন-
فَوَيْلٌ لِّلْمُصَلِّينَ - الَّذِينَ هُمْ عَن صَلَاتِهِمْ سَاهُونَ
`অতএব দুর্ভোগ সেসব নামাজির জন্য যারা তাদের নামাজ সম্বন্ধে বে-খবর।` (সুরা মাউন : আয়াত ৪-৫)

ফরজ ইবাদত নামাজ যথা সময়ে আদায়ে যেমন কুরআনের জোর দাবি এসেছে। তেমনি হাদিসে পাকে যথা সময়ে নামাজ আদায়কে মুমিনের সবচেয়ে উত্তম হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। আবার ইচ্ছাকৃতভাবে দেরি করে কিংবা অবহেলা করে নামাজ আদায়ের ব্যাপারে মারাত্মক ক্ষতির কথা ঘোষণা করেছেন মহান আল্লাহ। সুতরাং যথা সময়ে নামাজ আদায় করে কুরআন-সুন্নাহর উপর যথাযথ আমল করার মুমিন মুসলমানের ঈমানের একান্ত দাবি।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে যথাসময়ে নামাজ আদায় করে কুরআন-সুন্নাহ ঘোষিত উত্তম আমলে নিজেদের নিয়োজিত করার তাওফিক দান করুন। ইচ্ছাকৃতভাবে দেরি কিংবা অবহেলা করে ক্ষতির সম্মুখীন হওয়া থেকে বিরত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

মুমিনের যে আমল আল্লাহর কাছে সবচেয়ে উত্তম
                                  

ধর্ম ডেস্ক : ইসলামের প্রধান ইবাদত নামাজ। মুমিন মুসলমানের জন্য নিয়মিত ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা ফরজ। শুধু তাই নয়, নিশ্চয় নির্দিষ্ট সময়ে মুসলমানদের উপর নামাজ আদায় করা ফরজ। নামাজ আদায়ের মধ্যেই রয়েছে মুমিনের সবচেয়ে উত্তম আমল।

যথাসময়ে নামাজ আদায় করাকে মুমিনের অন্যতম বৈশিষ্ট্য ও আমল হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। আল্লাহ তাআলা নামাজের ব্যাপারে তাগিদ দিয়ে বলেন-

حَافِظُواْ عَلَى الصَّلَوَاتِ والصَّلاَةِ الْوُسْطَى وَقُومُواْ لِلّهِ قَانِتِينَ - فَإنْ خِفْتُمْ فَرِجَالاً أَوْ رُكْبَانًا فَإِذَا أَمِنتُمْ فَاذْكُرُواْ اللّهَ كَمَا عَلَّمَكُم مَّا لَمْ تَكُونُواْ تَعْلَمُونَ

`(সময় মতো) সব (ফরজ) নামাজের প্রতি যত্নবান হও, বিশেষ করে মধ্যবর্তী নামাজের ব্যাপারে। আর আল্লাহর সামনে একান্ত আদবের সাথে দাঁড়াও। অতপর যদি তোমাদের কারো ব্যাপারে ভয় থাকে, তাহলে পদচারণা অবস্থাতেই (নামাজ) পড়ে নাও অথবা সওয়ারীর উপরে। তারপর যখন তোমরা নিরাপত্তা পাবে, তখন আল্লাহকে স্মরণ কর, যেভাবে তোমাদের শেখানো হয়েছে, যা তোমরা ইতিপূর্বে জানতে না।` (সুরা বাকারা : আয়াত ২৩৮-২৩৯)

উল্লেখিত আয়াতে যথা সময়ে নামাজ আদায়ের ব্যাপারে তাগিদ দেয়া হয়েছে। বিভিন্ন অজুহাতে মানুষ নামাজে দেরি করে। অবহেলায় সময় কাটিয়ে দেয়। অথচ কুরআনুল কারিমের নির্দেশনা হলো- সময় মতো নামাজ পড়া। এমনকি যদি কারো কোনো ভয় কিংবা কেউ সফরে সাওয়ারির উপরও থাকে তবে তাকে সময় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নামাজ আদায়ের তাগিদ দেয়া হয়েছে। নামাজ পড়ার সময় একান্ত আদবের সঙ্গে আদায় করার কথাও বলা হয়েছে। কেননা নামাজ পড়া হয় মহান আল্লাহর জন্য।

নামাজ ফরজ ইবাদত। কিন্তু যথা সময়ে নামাজ আদায় করা মুমিন মুসলমানের জন্য সবচেয়ে উত্তম আমল। এ কথা ঘোষণা করেছেন স্বয়ং বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। হাদিসে এসেছে-

হজরত আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, আমি জিজ্ঞাসা করলাম- হে আল্লাহ্‌র রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আল্লাহ‌র কাছে কোন আমল সবচেয়ে উত্তম? তিনি বললেন, `সময় মতো সালাত আদায় করা`। (আমি) বললাম, তারপর কোনটি? তিনি বললেন, `বাবা-মার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করা। (আমি) বললাম, তারপর কোনটি? তিনি বললেন, `আল্লাহ্‌র পথে জিহাদ করা।` (বুখারি ও মুসলিম)

মনে রাখতে হবে
ইচ্ছাকৃতভাবে নামাজে অবহেলা করা বা দেরি করে নামাজ আদায় করা মারাত্মক ক্ষতি। আল্লাহ তাআলা কুরআনুল কারিমের সুরা মাউন-এ ঘোষণা করেন-
فَوَيْلٌ لِّلْمُصَلِّينَ - الَّذِينَ هُمْ عَن صَلَاتِهِمْ سَاهُونَ
`অতএব দুর্ভোগ সেসব নামাজির জন্য যারা তাদের নামাজ সম্বন্ধে বে-খবর।` (সুরা মাউন : আয়াত ৪-৫)

ফরজ ইবাদত নামাজ যথা সময়ে আদায়ে যেমন কুরআনের জোর দাবি এসেছে। তেমনি হাদিসে পাকে যথা সময়ে নামাজ আদায়কে মুমিনের সবচেয়ে উত্তম হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। আবার ইচ্ছাকৃতভাবে দেরি করে কিংবা অবহেলা করে নামাজ আদায়ের ব্যাপারে মারাত্মক ক্ষতির কথা ঘোষণা করেছেন মহান আল্লাহ। সুতরাং যথা সময়ে নামাজ আদায় করে কুরআন-সুন্নাহর উপর যথাযথ আমল করার মুমিন মুসলমানের ঈমানের একান্ত দাবি।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে যথাসময়ে নামাজ আদায় করে কুরআন-সুন্নাহ ঘোষিত উত্তম আমলে নিজেদের নিয়োজিত করার তাওফিক দান করুন। ইচ্ছাকৃতভাবে দেরি কিংবা অবহেলা করে ক্ষতির সম্মুখীন হওয়া থেকে বিরত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এবার বাংলাতেও হবে হজের খুতবা
                                  

গণমুক্তি ডেস্ক : মুসলিম ধর্মের ৫টি গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভের মধ্যে অন্যতম হজ। প্রতি বছর আরাফার ময়দানে ৯ জ্বিলহজ হজের খুতবা অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণত আরবি ভাষাতেই এই খুতবা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।

তবে গত বছর ৫টি ভাষায় এই খুতবার অনুবাদ প্রচারিত হয়েছিল। চলতি বছর বাংলা-সহ আরও ৫টি ভাষায় প্রচারিত হবে হজের খুতবা। অর্থাৎ এ বছর মোট ১০টি ভাষায় হজের খুতবা শোনা যাবে।

গ্র্যান্ড মসজিদ ও মসজিদে নববীর জেনারেল অ্যাফেয়ার্সের চেয়ারম্যান ড. আব্দুল রহমান বিন আব্দুল আজিজ আল সুদাইস জানিয়েছেন, এ বছর আরবি ছাড়াও ইংরেজি, মালয়, উর্দু, ফার্সি, ফ্রেঞ্চ, মান্দারিন, তুর্কি, রুশ, হাবশি ও বাংলা ভাষায় হজের খুতবা অনুষ্ঠিত হবে।

চলতি বছর করোনা মহামারির কারণে বিপাকে পড়েছে সৌদি। আগের মতো বিশাল পরিসরে এবার হজের আনুষ্ঠানিকতা হচ্ছে না। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী, এক সপ্তাহ আগে অর্থাৎ ১৯ জুলাই থেকে হজে অংশগ্রহণকারীদের আইসোলেশনের মাধ্যমে এবারের হজের কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা জানায় সৌদির হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়।

এক টুইট বার্তায় জানানো হয় যে, স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী এবার বিশেষ শর্তে মুসল্লিদের হজ পালনের সুযোগ দেয়া হয়েছে। হজ শুরুর আগে হজে অংশগ্রহণকারী প্রটোকল অনুযায়ী ৭ দিনের আইসোলেশনে রয়েছেন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে গত ২২ জুন এক ঘোষণায় সৌদি কর্তৃপক্ষ জানায়, দেশটি বসবাসকারী সব দেশের নাগরিকদের এবারের হজে সীমিত আকারে অংশগ্রহণের অনুমতি দেবে।

মহামারি করোনা ভাইরাস যেন হজের সময় কারও মধ্যে না ছড়ায় সে লক্ষ্যে বিভিন্ন সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিয়েছে সৌদি সরকার। পর্যাপ্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি বিনা অনুমতিতে মক্কা ও এর আশপাশের এলাকায় প্রবেশের ওপর কড়া নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

সূত্র : গালফ নিউজ

এবারের হজে কাবা ছোঁয়া নিষিদ্ধ
                                  

গণমুক্তি ডেস্ক : বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে এবার সীমিত পরিসরে অনুষ্ঠিত হবে হজ। এই হজব্রত পালনের সময় পবিত্র কাবাঘর স্পর্শ করা যাবে না বলে নির্দেশনা দিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

এবার প্রথমবারের মতো সৌদি আরবের বাইরে থেকে কেউ হজে অংশ নিতে পারবেন না। দেশটিতে বসবাসরত হাজার খানেক মুসল্লি হজব্রত পালন করবেন।

করোনাকালের এই হজের বিষয়ে এক স্বাস্থ্য নির্দেশনায় সৌদি কর্তৃপক্ষ জানায়, সীমিত পরিসরের এবারের হজে আল্লাহর ইবাদতের জন্য মুসলিমদের কেবলা পবিত্র কাবাঘর স্পর্শ করা যাবে না। নামাজের সময় এমনকি কাবা শরিফ তাওয়াফের সময় দেড় মিটার দূরত্ব বজায় রাখতে হবে হাজিদের।

সৌদি প্রেস এজেন্সির বরাত দিয়ে সিঙ্গাপুরভিত্তিক সংবাদমাধ্যম স্ট্রেইটস টাইমস আরও জানায়, সোমবার সৌদির রোগ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র (সিডিসি) এক বিবৃতিতে বলেছে, কাবা শরিফ স্পর্শ না করা, নামাজসহ অন্যান্য অনুষ্ঠানিকতা পালনের সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি সীমিত সংখ্যক হাজি মিনা, মুজদালিফা ও আরাফাতে যাওয়ার অনুমতি পাবেন।

আগামী ১৯ জুলাই এবারের হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে। চলবে ২ আগস্ট পর্যন্ত। এই সময়ে হাজি ও আয়োজকদের সর্বদা মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে গত মার্চ থেকে বন্ধ ছিল কাবা শরিফ। এবার হজ পালন হবে কি না সংশয় ছিল। গত মাসে অভ্যন্তরীণ এক হাজার সৌদি নাগরিককে হজের অনুমতি দেয় সৌদি কর্তৃপক্ষ।

মহামারী বা দূরারোগ্য ব্যধি থেকে পরিত্রাণের দোয়া
                                  

গণমুক্তি ডেস্ক : বিভিন্ন প্রতিরোধক ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি দূরারোগ্য ব্যধি কিংবা মহামারী থেকে একমাত্র আল্লাহর কাছে আশ্রয় চাওয়াটাই সর্বোত্তম পন্থা। এমন পরিস্থিতিতে সব সময় এ দোয়াটি পড়ার অভ্যাস করা সমীচীন, যা রাসুল (সা) শিখিয়ে দিয়েছেন:

اَللَّهُمَّ اِنِّىْ اَعُوْذُ بِكَ مِنَ الْبَرَصِ وَ الْجُنُوْنِ وَ الْجُذَامِ وَمِنْ سَىِّءِ الْاَسْقَامِ

উচ্চারণ : আল্লাহুম্মা ইন্নি আউজুবিকা মিনাল বারাসি ওয়াল জুনুন ওয়াল ঝুজাম ওয়া মিন সায়্যিল আসক্বাম।’
-সূনানে আবু দাউদ, সূনানে তিরমিজি

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আপনার কাছে আমি শ্বেত রোগ থেকে আশ্রয় চাই। মাতাল হয়ে যাওয়া থেকে আশ্রয় চাই। কুষ্ঠু রোগে আক্রান্ত হওয়া থেকে আশ্রয় চাই। আর দূরারোগ্য ব্যাধি (যেগুলোর নাম জানিনা) থেকে আপনার আশ্রয় চাই।’

তিরমিজিতে এসেছে, আরও একটি দোয়া পড়তে বলেছেন রাসুলূল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম :

اللَّهُمَّ إِنِّي أَعُوذُ بِكَ مِنْ مُنْكَرَاتِ الأَخْلاَقِ وَالأَعْمَالِ وَالأَهْوَاءِ وَ الْاَدْوَاءِ

উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা ইন্নি আউজুবিকা মিন মুনকারাতিল আখলাক্বি ওয়াল আ’মালি ওয়াল আহওয়ায়ি, ওয়াল আদওয়ায়ি।’

অর্থ : হে আল্লাহ! নিশ্চয় আমি তোমার কাছে খারাপ (নষ্ট-বাজে) চরিত্র, অন্যায় কাজ ও কুপ্রবৃত্তির অনিষ্টতা এবং বাজে অসুস্থতা ও নতুন সৃষ্ট রোগ বালাই থেকে আশ্রয় চাই।’ _সূনানে তিরমিজি।

সীমিত আকারের হজে সুযোগ নেই বিদেশীদের
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনা মহামারির কারণে এ বছর সীমিত পরিসরে হজ আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব। করোনার প্রাদুর্ভাব রোধে এবার শুধুমাত্র সৌদি আরবের নাগরিক এবং দেশটিতে বসবাসকারী বিদেশি নাগরিকরা ছাড়া অন্য কেউ আসন্ন হজে অংশ নিতে পারবেন না। অর্থাৎ বাংলাদেশসহ অন্যান্য সকল দেশ থেকে এবার হজযাত্রা বন্ধ থাকবে। খবর আরব নিউজ ও আল জাজিরা।

সোমবার দেশটির হজ ও উমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে।

প্রতি বছর ২৫ লাখের মতো ধর্মপ্রাণ মুসলিম হজ পালন করেন। বাংলাদেশ থেকে এ বছর এক লাখ ৩৭ হাজার হজ যাত্রী যাওয়ার কথা ছিল। হজে যেতে ইচ্ছুক ৬৭ হাজার মানুষ ইতিমধ্যে নিবন্ধন করেছেন।

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের মহামারির কারণে এ বছর হজ নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়। বেশ কয়েকটি দেশ ইতোমধ্যে হজে অংশ না নেওয়ার ঘোষণাও দেয়। তবে সৌদি আরবের পক্ষ থেকে গত মার্চে উমরাহ পালন সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হলেও হজ নিয়ে আনুষ্ঠানিক কোনও সিদ্ধান্ত সোমবারের আগে জানানো হয়নি। অবশেষে হজ নিয়ে সৌদি আরব সিদ্ধান্ত জানায়। সীমিত আকারে এবারের হজ আয়োজনের সিদ্ধান্তের কারণে সৌদিতে অবস্থানরতরা ছাড়া বাংলাদেশসহ অন্যান্য সকল দেশ থেকে এবার কেউ হজে যেতে পারবেন না। ঘোষণায় বলা হয়, শুধু সৌদি আরবে বসবাসরতরাই এবারের হজে অংশ নিতে পারবেন।

সৌদি আরবের হজ মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে সৌদি প্রেস এজেন্সির এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিভিন্ন দেশের মুসলিম যারা বর্তমানে সৌদি আরবে বসবাস করছেন ওইসব সীমিত সংখ্যক হাজিদের নিয়েই এবারের হজ অনুষ্ঠিত হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বিশ্বজুড়ে করোনভাইরাসের সংক্রমণ দিন দিন বাড়ছে। এমনকি এখন পর্যন্ত কোনো ভ্যাকসিন বা প্রতিষেধক বের হয়নি। এই অবস্থায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা লাখো হাজিদের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা কঠিন হয়ে পড়বে। সে জন্যেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ৩০ জুলাই অর্থাৎ ৯ জিলহজ হজ অনুষ্ঠিত হতে পারে।

আবারও আইসিইউতে আল্লামা আহমদ শফী
                                  

গণমুক্তি ডেস্ক : আল্লামা আহমদ শফীকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। রবিবার (৭ জুন) দিবাগত রাত ৮টার দিকে তাকে হাটহাজারী দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসা থেকে অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে আনা হয়। এরআগে তিনি বেশ কিছুদিন মাদ্রাসাতেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছিলেন।

সোমবার (৮ জুন) ভোর পৌনে ৬টার দিকে হেফাজতের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী এই তথ্য জানান।

মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী জানান, বার্ধক্যজনিত কারণেই শরীর দুর্বল হয়েছে হুজুরের। রবিবার রাত ৮টার দিকে চট্টগ্রামে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয় তাকে। এরপর চিকিৎসকেরা তাকে আইসিইউতে ভর্তি করেন। শারীরিক অন্যান্য কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানো হয়েছে, সবকিছু স্বাভাবিক এসেছে।

আহমদ শফীকে হাসপাতালে আনার খবর পেয়ে রবিবার রাতে হাসপাতালে গিয়েছিলেন ইসলামী চট্টগ্রাম ছাত্র খেলাফত যুগ্ম সম্পাদক ওসমান কাসেমী। তিনি জানান, কয়েকদিন ধরেই শ্বাসকষ্টে ভুগছেন আল্লামা শফী। রবিবার শরীর বেশি খারাপ হলে মাগরিবের পর মাওলানা আনাস মাদানাীসহ কয়েকজন হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

চট্টগ্রামের হাটহাজারীর স্থানীয় একজন সাংবাদিক বলেন, `গত কয়েকমাসে দফায়-দফায় হাসপাতালে যেতে হয়েছে আহমদ শফীকে। ১১ এপ্রিল তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে প্রথমে চট্টগ্রামের একটি হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়। এরপর ১৪ এপ্রিল ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখান থেকে ফিরে গিয়ে হাটহাজারী মাদ্রাসাতেই অবস্থান করছিলেন। একইসঙ্গে তার চিকিৎসাও চলছিলো।`

স্থানীয় এই সাংবাদিক এও জানান, গত বেশ কয়েক মাস ধরেই হাটহাজারী মাদ্রাসায় আহমদ শফীর পর কে মহাপরিচালক হবেন, এ নিয়ে শীতল লড়াই চলছিল। যা গত এক মাসে প্রকাশ্যে এসেছে কয়েকবার। ইতোমধ্যে স্থানীয় প্রশাসনের একাধিক ব্যক্তিও যুক্ত হয়েছেন এই তৎপরতায়। পরিস্থিতি দিনে-দিনে অবনতির দিকে যাচ্ছে বলে আশঙ্কাও করেছেন নাম ও পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক তৃণমূল-সাংবাদিক।
প্রসঙ্গত, হেফাজতে ইসলামের শীর্ষনেতা আহমদ শফী দেশব্যাপী পরিচিতি পান ২০১১ সালে। ওই বছর নারী উন্নয়ন নীতিমালা করার পর এর বিরোধিতা করে চট্টগ্রামে কর্মসূচি ডাকেন তিনি। যদিও ওই আন্দোলনে দৃশ্যত বিক্ষোভ-প্রতিবাদে বেশি কার্যকর ছিলেন ঢাকার আলেমরা। পরে ২০১৩ সালে ব্লগার রাজীব হায়দারের (থাবা বাবা) ব্লগিংকে কেন্দ্র করে সারা দেশেই বিক্ষোভে নামে কওমি মাদ্রাসার আলেম ও শিক্ষার্থীরা। তবে ঢাকায় জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের আলেমদের অনুপস্থিতিতে পুরো দেশের আলেম সমাজের নেতৃত্বে চলে আসেন আহমদ শফী। তবে বিভিন্ন সময়ে নারী ও নারী শিক্ষা সংক্রান্ত মন্তব্যের কারণে দেশের বিশিষ্ট নাগরিক ও নারী অধিকার সচেতনদের মধ্যে সমালোচিত হন তিনি।

হেফাজতের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক আল্লামা শফীর একটি সংক্ষিপ্ত জীবনী দিয়েছিলেন। সেখানে বলা হয়েছে, দেশের জ্যেষ্ঠ এই আলেম ১৯২০ সালে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া থানার পাখিয়াটিলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১০ বছর বয়সে হাটহাজারী মাদ্রাসায় ভর্তি হন তিনি। ১৯৪১ সালে তিনি ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ মাদ্রাসায় ভর্তি হয়ে চার বছর হাদিস, তাফসির, ফিকাহ শাস্ত্র অধ্যয়ন করে দাওরায়ে হাদিস সমাপ্ত করেন। ১৯৪৬ সালে দারুল উলুম হাটহাজারীতে শিক্ষক হিসেবে নিযুক্ত হন। ১৯৮৬ সালে প্রতিষ্ঠানের মজলিসে শুরার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মহাপরিচালক পদে দায়িত্ব পান। পরবর্তী সময়ে শায়খুল হাদিসের দায়িত্বও তিনি পালন করেন। ২০০৮ সালে তিনি কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড-বেফাকের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০১০ সালের ১৯ জানুয়ারি দারুল উলুম হাটহাজারী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ওলামা সম্মেলনে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ গঠন করা হয়। তিনিই এর প্রতিষ্ঠাতা আমির মনোনীত হন।

প্রসঙ্গত, আল্লামা শাহ আহমদ শফীর নেতৃত্বে ১১ এপ্রিল ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কওমি মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিসের সনদকে এমএ (আরবি-ইসলামিক স্টাডিজ)-এর সমমান ঘোষণা করেন। ব্যক্তিগত জীবনে তার স্ত্রী, দুই ছেলে, দুই মেয়ে, নাতি, নাতনি রয়েছে। আল্লামা আহমদ শফী কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড, আল হাইয়াতুল উলইয়া’র চেয়ারম্যান ও আন্তর্জাতিক মজলিসে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়াত বাংলাদেশের সভাপতি। তার বেশ কয়েকটি প্রকাশনা রয়েছে।

তাবলিগের নিজামুদ্দিন মারকাজ নিয়ে বিশেষ বার্তা দিল দেওবন্দ মাদ্রাসা
                                  

ডেস্ক রিপোর্ট : তাবলিগ জামাতের সমাবেশে যোগ দেয়া বড় একটা অংশ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে যে প্রচার চালানো হচ্ছে সেটিকে ধর্মীয় বিদ্বেষ বলে আখ্যায়িত করেছে ভারতের প্রভাবশালী ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান দারুল উলুম দেওবন্দ।

করোনাভাইরাসকে ধর্মীয় সহিংসতায় ব্যবহার করা অত্যন্ত নিন্দনীয় ও ঘৃণিত কাজ বলে মন্তব্য করে গতকাল শনিবার দেওবন্দ মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আবুল কাসেম নোমানী একটি বিবৃতি দেন। দেওবন্দ মাদ্রাসার ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ওই বিবৃতিতে বলা হয়, নিজামুদ্দিন মারকাজকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি যে জলঘোলা পরিস্থিতির সৃষ্টি করা হয়েছে, এটি অবশ্যই নিন্দনীয়। বৈশ্বিক এই সঙ্কটকালেও কিছু নীতি ভ্রষ্ট মানুষ করোনাভাইরাসকে ধর্মীয় সহিংসতায় ব্যবহার করতে চাচ্ছেন; আমরা জোরালো ভাষায় এর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

ভারতীয় প্রশাসনের কাছে আবেদন জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, আশা করছি সরকার বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে যাচাই করবে এবং যারা করোনাভাইরাসকে ধর্মীয় বিরোধ ও সংঘাতে ব্যবহার করতে চাচ্ছে, তাদের ব্যাপারে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

‘বিশেষত দেশ এবং দেশের বাইরের যারা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের প্রতি আইনি ব্যবস্থার আগে মানবতার পরিচয় দেয়া হবে বলে আমরা আশা করছি’।

বিবৃতিতে তাবলিগ জামাতের যে সদস্যরা গত ১ মার্চের পরে দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজে অবস্থান করেছিল, তাদের স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ করে নিজেদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে নেয়ারও আহ্বান জানানো হয়। নিজামুদ্দিনের ঘটনায় ভারতীয় মিডিয়া বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে অভিযোগ করে দেওবন্দের প্রিন্সিপাল বলেন, আমরা এ জাতীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর তীব্র নিন্দা জানাই। সরকারের কাছে আমরা দাবি জানাচ্ছি, এ জাতীয় বিদ্বেষ যে মিডিয়াগুলো ছড়িয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

 

বোয়ালমারীতে মসজিদ ও বাজার উদ্বোধন
                                  

ফরিদপুর প্রতিনিধি : ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার পরমেশ্বরর্দী ইউনিয়নের পরমেশ্বরদী নাদু মিয়া পাড়া জামে মসজিদ ও নাদু মিয়া পাড়া বাজার উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় এই উদ্বোধন করা হয়।

জানা যায়, পরমেশ্বরদী গ্রামের মরহুম মুক্তার মিয়ার ছেলে জাসুদ মিয়া নিজের অর্থায়নে মসজিদের একতলা ভবন নির্মাণ করেন। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জাসুদ মিয়াসহ তার পরিবারের সকলের জন্য দোয়া করা হয়। এ সময় মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে তার (জাসুদ মিয়ার) ক্রেস্ট তার পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেন কমিটির সদস্যরা।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, পরমেশ্বরদী ইউপি আ’লীগের সহসভাপতি এবং পরমেশ্বদী গ্রাম সভাপতি আব্দুল হান্নান মোল্যা, ৩নং ওয়ার্ড আ’লীগ সভাপতি মো. কাঞ্চন খালাসী, ইউপি স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আবুল কালাম মোল্যা, ৩নং ওয়ার্ড কৃষকলীগের সভাপতি মো. আইয়ুব খন্দকার, ৩নং ইউপি সদস্য শাহজাহান মোল্যা সমাজসেবক রিপন মিয়া প্রমুখ।

 

মালয়েশিয়ায় সবচেয়ে ‘বড় মাহফিলে’ আজহারী
                                  

ডেস্ক রিপোর্ট : স্মরণকালের সবচেয়ে ‘বড় তাফসির মাহফিলে’ বয়ান করলেন আলোচিত ইসলামী বক্তা মিজানুর রহমান আজহারী। এ মাহফিল হয়েছে মালয়েশিয়ায়। গত রোববার (০৮ মার্চ) স্থানীয় সময় বিকেল ৪টায় রাজধানী কুয়ালালামপুর আমপাং পার্কের উইসমা এমসিএ কনভেনশন সেন্টারে এ তাফসির মাহফিল হয়। মালয়েশিয়া প্রবাসী কমিউনিটি এ মাহফিলের আয়োজন করে বলে জানা গেছে।এদিন আজহারীর মাহফিলে প্রবাসীদের ঢল নামে। মাহফিলে আগত প্রবাসীদের সামাল দিতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হয় আয়োজকদের। ভিড় সামাল দিতে পুলিশের পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবীরাও কাজ করেন।

জানা গেছে, বিকেল ৪টা থেকে মাহফিলের কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সকাল ১০টা থেকে মালয়েশিয়ার বিভিন্ন প্রান্তে থেকে হাজার হাজার প্রবাসী বাংলাদেশি এসে হলে জমায়েত হন। বিকেল নাগাদ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় পুরো হল কক্ষ। হলে ঢুকতে না পেরে অনেকেই মিজানুর রহমান আজহারীকে একনজর দেখার অপেক্ষায় রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকেন। মাগরিবের নামাজ শেষে তাফসির পেশ করেন মিজানুর রহমান আজহারী।

মাহফিলে আজহারী সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কোরআন সুন্নাহর পতাকাতলে আসার আহ্বান জানান। পরে মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।আয়োজদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, জায়গা সংকুলান না থাকায় দ্বিগুণ প্রবাসী চলে গেছে। আগামীতে আমরা আরো বড় পরিসরে প্রোগ্রাম করার চেষ্টা করব। তবে মালয়েশিয়ার ইতিহাসে এটাই প্রবাসীদের স্মরণকালের সবচেয়ে বড় ওয়াজ মাহফিল বলে মনে করেন তারা।

কাঁঠালিয়ায় চিশতীয়ায় বার্ষিক ওরশ শরীফ বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন
                                  

কাঁঠালিয়া (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি : ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলা সদরের বড় কাঠালিয়া খাজা শাহসুফি সোহরাফ চিশতীর চিশতীয়া দরবার শরীফের ৩৫তম মহাপবিত্র বার্ষিক ওরশ শরীফ বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন। গতকাল ৮ মার্চ রোববার থেকে দুইদিন ব্যাপি বার্ষিক ওরশ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।  

এলাকাবাসীর পক্ষে কয়েকজন জেলা প্রশাসকের নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে সন্ধ্যায় থানা পুলিশ ওরশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে তা বন্ধ করে দেয়।
গতকাল রোববার বিকেল থেকে দুইদিন ব্যাপি বার্ষিক ওরশ শরীফ ও তরিকত ফেডারেশনের উপজেলা সম্মেলন শুরু হয়। চিশতীয়া দরবার শরীফের গদীনশীন পীর শাহজাদা মো.আবদুর রহমান চিশতীর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন তরিকত ফেডারেশন (বিটিএফ) জেলা কমিটির আহবায়ক মো.জাকির হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন যুগ্ন আহবায়ক ডাঃ মো.হুমায়ুন কবির, মো.রাজু আহম্মেদ সবুর ও শফিকুল ইসলাম গোলাপ। সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা কমিটির মো. আবু বকর সিদ্দিক, মো.মধু মিয়া, আবু আসাদ, মো.রুহুল আমিন, মো.বাদশা বেপারী ও মো.আঃ বারেক জমাদ্দার প্রমূখ। সভাশেষে ওরশ শরীফ শুরু হলে পুলিশ গিয়ে ওরশ অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয়। এতে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন আগত তরীকত পন্থীরা।
থানার এসআই মো.মাহমুদ হোসেন জানান, জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ওরশ অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

 

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে কালীমন্দিরে দুর্বৃত্তদের হামলা
                                  

টাঙ্গাই্ল প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে কালী মন্দিরের প্রতিমা মাথা ভেঙ্গে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার নাগবাড়ী ইউনিয়নের ঘোনাবাড়ী গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, রোববার ৮ মার্চ সকালে মন্দিরে দেখাশোনার সময় হন্দিু সম্প্রদায়রা মন্দিরের প্রতিমা মাথা ভাঙ্গা দেখতে পান। পরে স্থানীয় ও প্রশাসনকে জানানো হয়। খবর পেয়ে সংসদ সদস্য হাছান ইমাম খান সোহলে হাজারী,কালিহাতীর এএসপি র্সাকেল রাসেল মনির, কালিহাতী থানা ওসি হাসান আল মামুন, নাগবাড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাকছুদুর রহমান মিল্টন সিদ্দিকী, উপজলো আওয়ামী লীগরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল জলিল, আওয়ামী লীগ নেতা খন্দকার আব্দুল মাতিন, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি পরিতোষ সেন প্রমুখ ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন।

এ বিষয়ে সংসদ সদস্য হাসান ইমাম খান সোহলে হাজারী বলনে,মুজিববর্ষ উপলক্ষে বন্ধুপ্রতি রাষ্ট্র ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে বাংলাদেশে আমন্ত্রন জানোনো হয়েছে ও সরকারে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বাঁধাগ্রস্থ করার জন্য একটি অপশক্তীর চক্রন্তকারীরা এ ঘটনা ঘটাতে পারেন।

এ বিষয়ে ঘোনাবাড়ি কালী মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক স্বপন পাল দোষীদের শাস্তির দাবি করে জানান, রাতের আঁধারে র্দুবৃৃত্তরা কালী মন্দিরের প্রতিমার মাথা ভেঙ্গে নিয়ে গেছে। এ বিষয়ে কালিহাতী থানার ওসি হাসান আল মামুন জানান, এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে তদন্ত র্পূবক দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

হোসেনপুরে আ : রহিম ফকির স্মরণে ওরশ মোবারকে দুই পক্ষের দ্বিধাদ্বন্দ্ব
                                  

হোসেনপুর প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার গোবিন্দপুর ইউনিয়নের ডাংরি গ্রামে আব্দুর রহিম ফকির স্মরণে দ্বিতীয় বার্ষিক ওরশ মোবারক উপলক্ষে দুই পক্ষের দ্বিধা-দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় গত ফেব্রুয়ারি ২২/২৩ তারিখে রহিম ফকির স্মরণে দ্বিতীয় বার্ষিক ওরস দিন ধার্য করা হয়েছিল। এলাকাবাসীর মধ্যে এই ওরস নিয়ে পক্ষে বিপক্ষে মতবিরোধের কারণে ৯৯৯ পুলিশি সাহায্যের মাধ্যমে স্থগিত করা হয়।

রহিম ফকিরের ওরস স্থগিত হওয়া কারণ হিসেবে জানা যায় ওরশে নামে অশ্লীল গান নিত্য মদ গাজার আসর বসানো হয় এলাকার শান্তিপ্রিয় ধর্মপ্রাণ মুসলিম ওলামা সমাজ এ ধরনের অশালীন অসহনীয় অনুষ্ঠান করতে দিবেনা বলে জানান। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ডাংরি গ্রামের একজন জানান কিছুদিন আগে আমাদের গ্রামে আলম নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয় এই হত্যাকান্ডের রেশ এখনো গ্রামে লেগে আছে তাই এ ধরনের অনুষ্ঠান নামে আইন-শৃংখলার অবনতি হোক গ্রামের শান্তি প্রিয় মানুষ হিসেবে আমরা চাইনা।

আব্দুর রহিম ফকির মাজারের বর্তমান সভাপতি ফাইজুল হক বাউল জানান গত ২২/২৩ ফেব্রুয়ারি দুই দিনব্যাপী মাজারের ওরস অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল এলাকাবাসীর দ্বিমত হওয়ার কারণে স্থগিত হয়ে যায়। আগামী ৬ মার্চ আবারও অনুষ্ঠানটি করতে এলাকার কিছু লোক প্রস্তুতি গ্রহণ করে। গোবিন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ওরশ উপলক্ষে বাউল গানের অনুষ্ঠানের সভাপতি শফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া হিমেল জানান এই অনুষ্ঠানটি নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে এলাকাবাসীর মতবিরোধ রয়েছে। ধরনের অশালীন ও সামাজিক অনুষ্ঠান স্থগিত চেয়ে ঐ গ্রামের শামসুল হুদা সহ বেশকিছু এলাকাবাসী স্বাক্ষরিত লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর, হোসেনপুর থানা অফিসার ইনচার্জ শেখ মোস্তফিজুর রহমান জানান ধরনের অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের অনুমতি লাগবে।

 

গৌরীপুরে একসঙ্গে তিন হিন্দু যুবকের ইসলাম ধর্ম গ্রহন
                                  

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের গৌরীপুরে একই গ্রামের প্রতিবেশী তিন যুবক আদালতে এফিডেবিটের মাধ্যমে হিন্দু ধর্ম পরিত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেছেন। ইসলাম ধর্ম গ্রহনের পর উসমান, উমর ও আবু বক্কর নাম ধারন করেন তারা। ইসলাম ধর্ম গ্রহনকারী যুবকরা হলেন, এ উপজেলা রামগোপালপুর ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়া গ্রামের অজয় চন্দ্র বর্মণের ছেলে হৃদয় চন্দ্র বর্মণ (১৯) বর্তমান নাম উসমান, দীলিপ চন্দ্র বর্মণের ছেলে প্রদীপ চন্দ্র বর্মণ (২১) বর্তমান নাম উমর ও শশী বর্মণের ছেলে অমল চন্দ্র বর্মণ (১৯) বর্তমান নাম আবু বক্কর।
উল্লেখিত তিন যুবকের সাথে কথা বলে জানা যায়, তার দীর্ঘদিন ধরে ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন বই পাঠ করে ও বিভিন্ন দিক দিয়ে এ ধর্ম সম্পর্কে অবগত হয়ে তারা ইসলাম ধর্মের প্রতি আকৃষ্ট হন। ইসলাম ধর্মের প্রতি তাদের মন আকৃষ্ট হলেও নানা প্রতিবন্ধকতার কারনে এতদিন নিজ ধর্ম পরিত্যাগ করতে পারেননি তারা।

অবশেষে ৬ ফেব্রুয়ারী ময়মনসিংহের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিট্রেট সম্মুখে এফিডেবিটের মাধ্যমে হিন্দু ধর্ম পরিত্যাগ করে একসঙ্গে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেন ওই তিন যুবক।
স্থানীয় কয়েকজন জানান, ইসলাম ধর্ম গ্রহনের বিষয়টি জানাজানা হলে উল্লেখিত তিন যুবকের পরিবারের লোকজন তা মেনে নেননি। তাই বাড়ি ছেড়ে এখন এ তিন যুবক রাজধানীর একটি বেসরকারি কোম্পানীতে চাকুরিতে যোগদান করেছেন বলে তারা জানতে পেরেছেন।
এফিডেবিটে প্রকাশ, স্থানীয় এক মসজিদের জনৈক ইমামের সম্মুখে ‘লা-ইলাহা ইল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসুল্লাহ (সাঃ) পাঠ করে তারা ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত হয়ে পবিত্র গ্রন্থ আল কোরআনের উপর বিশ্বাস স্থাপন করেন। 

আনোয়ারার বরুমচড়া মাদ্রাসার সভা ও পুরস্কার বিতরণী
                                  

আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার বরুমচড়া বড়পীর আবদুল কাদের জিলানী (রহ.) সুন্নিয়া মাদ্রাসা, হেফজখানা ও এতিমখানার বার্ষিক সভা এবং কোরান হাফেজদের পাগড়ি বিতরণী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারী) রাতে মাদ্রাসা মাঠে মাদ্রাসার তত্ত্বাবধায়ক মাওলানা মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসাইনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন ছোবহানিয়া আলিয়া মাদ্রাসার শায়খুল হাদীস আল্লামা কাযী মঈন উদ্দিন আশরাফী, উদ্বোধক বারখাইন জামেয়া জমহুরিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আবদুল খালেক শওকী, প্রধান বক্তা মাওলানা মুহাম্মদ আশেকুর রহমান, মাওলানা আবুল কাশেম আনোয়ারী, স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও বরুমচড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন আমজাদী।
অনুষ্ঠানে মাদ্রাসা থেকে কোরান হাফেজ মোহাম্মদ ইয়াসিন আরাফাত, মোহাম্মদ সাব্বির, সাইফুল হক ও সাইফুল ইসলামের মাথায় পাগড়ি পড়িয়ে দেন এবং শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।


পবিত্র হজ্ব ও মক্কা-মদিনা নিয়ে কটুক্তিকারী আবুল বাসারের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ
                                  

ভৈরব প্রতিনিধি :  পবিত্র হজ্ব ও ওমরাহ নিয়ে কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার তথাকথিক পীর দাবিদার

আবুল বাশার আল কাদেরীর কটুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে সর্বস্তরের তাওহীদী জনতা।

গতকাল রবিবার (২ফেব্রুয়ারী ) ভৈরব সিলেট বাসট্যান্ড চত্বরে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় বক্তারা বলেন, ভন্ডপীর আবুল বাশার আল কাদেরী পবিত্র হজ্ব ও মক্কা মদিনা নিয়ে কটুক্তি করে মুসলমানদের অন্তরে রক্তক্ষরণ করেছে।

অবিলম্বে তাকে গ্রেফতার করে তার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

সমাবেশ থেকে অভিযুক্ত ভন্ডপীরকে গ্রেফতার ও তার গুলে মদিনা নামের আস্তানার সকল কার্যক্রম বন্ধের

দাবি জানিয়ে আগাম জামিনের সময় শেষে দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে সমাবেশ শেষ করা হয়।

ভৈরব বাজার জামেমসজিদের খতিব হাফেজ জামাল উদ্দীনের সভাপতিত্বে মাওলানা সাইফুল ইসলাম সাহেলের পরিচালনায় এ

বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন কমলপুর মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা মাহমুদুল হাসান,মাওলানা আব্দুল আহাদ,

মাওলানা জহিরুল ইসলাম,মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন,মাওলানা আব্দুল্লাহ আলামিন,

মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন , মাওলানা এনায়েতুল্লাহ ভৈরবী ও মাওলানা মুক্তার হোসেন রায়পুরী প্রমুখ।

 

 

দেশ বরেণ্য আলেম আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের দাফন সম্পন্ন
                                  

বিশেষ প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শহীদি মসজিদের খতিব ও আল- জামিয়াতুল ইমদাদিয়ার

কিশোরগঞ্জের মহাপরিচালক দেশ বরেণ্য আলেমে দ্বীন আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের নামাজে

জানাজা আজ বৃহস্পতিবার ৩০ জানুয়ারি ২ টায় আমজাদ শাহ তানিম হুজুরের ইমামতিতে

ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ময়দানে লাখো লাখো মুসল্লির উপস্থিতিতে সম্পন্ন হওয়ার পর।

পারিবারিক কবর স্থান শোলাকিয়ার বাগে জান্নাতে দাফন করা হয়।

এর আগে রাজধানীর ধানমন্ডি ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায়

গতকাল বুধবার ২৯ জানুয়ারি বিকাল ৫ টার কিছু পর আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

গত মঙ্গলবার ২৮ জানুয়ারি শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়।

কৃত্রিম উপায়ে শ্বাসপ্রশ্বাসের ব্যবস্থা করা হলেও শেষ পর্যন্ত তিনি চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ সিলেট হযরত শাহজালাল দরগা মসজিদের ও খতিব ছিলেন।

তিনি দেশে বিদেশে বিভিন্ন সময়ে ওয়াজ মাহফিলে হাদিস-কোরআনের আলোকে গুরুত্বপূর্ণ বয়ান রাখতেন।

হুজুরের প্রতিটি বয়ান মুসলিম উম্মাহর জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

দেশবরেণ্য আলেম আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের মৃত্যুতে পরিবারসহ

কিশোরগঞ্জের সর্বস্তরের মানুষের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মৃত্যুকালে হুজুরের বয়স হয়েছিল ৭০ বছর।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ২ ছেলে ২ মেয়ে আত্মীয়-স্বজন সহ বহু গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

মরহুমের ভাই কিশোরগঞ্জ আল জামিয়াতুল এমদাদিয়ার ভাইস প্রিন্সিপাল

সাব্বির হোসেন রশিদ দেশবাসীসহ সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের মৃত্যুতে মহামান্য রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এডভোকেট শোক বার্তা জানিয়ে বলেন,

দেশ একজন প্রখ্যাত আলেম কে হারালো ও পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশেষ সহকারীর মাধ্যমে গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা: সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি এমপি আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের মৃত্যুতে গভীর শোক সমবেদনা জানিয়েছেন।

ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ময়দানে এযাবৎ কালের সবচাইতে বেশি মুসুল্লিদের উপস্থিতিতে

আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের জানাজা স্বরণীয় হয়ে থাকবে ।

 


   Page 1 of 16
     ধর্ম
মুমিনের যে আমল আল্লাহর কাছে সবচেয়ে উত্তম
.............................................................................................
এবার বাংলাতেও হবে হজের খুতবা
.............................................................................................
এবারের হজে কাবা ছোঁয়া নিষিদ্ধ
.............................................................................................
মহামারী বা দূরারোগ্য ব্যধি থেকে পরিত্রাণের দোয়া
.............................................................................................
সীমিত আকারের হজে সুযোগ নেই বিদেশীদের
.............................................................................................
আবারও আইসিইউতে আল্লামা আহমদ শফী
.............................................................................................
তাবলিগের নিজামুদ্দিন মারকাজ নিয়ে বিশেষ বার্তা দিল দেওবন্দ মাদ্রাসা
.............................................................................................
বোয়ালমারীতে মসজিদ ও বাজার উদ্বোধন
.............................................................................................
মালয়েশিয়ায় সবচেয়ে ‘বড় মাহফিলে’ আজহারী
.............................................................................................
কাঁঠালিয়ায় চিশতীয়ায় বার্ষিক ওরশ শরীফ বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন
.............................................................................................
টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে কালীমন্দিরে দুর্বৃত্তদের হামলা
.............................................................................................
হোসেনপুরে আ : রহিম ফকির স্মরণে ওরশ মোবারকে দুই পক্ষের দ্বিধাদ্বন্দ্ব
.............................................................................................
গৌরীপুরে একসঙ্গে তিন হিন্দু যুবকের ইসলাম ধর্ম গ্রহন
.............................................................................................
আনোয়ারার বরুমচড়া মাদ্রাসার সভা ও পুরস্কার বিতরণী
.............................................................................................
পবিত্র হজ্ব ও মক্কা-মদিনা নিয়ে কটুক্তিকারী আবুল বাসারের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ
.............................................................................................
দেশ বরেণ্য আলেম আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের দাফন সম্পন্ন
.............................................................................................
ধর্মান্তরিত ১২ সদস্যের পরিবারটিকে ভারতে ফেরত পাঠানোর নেপথ্যে
.............................................................................................
আগামীকাল আখেরি মোনাজাত
.............................................................................................
ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক অনেক গভীর-অনিন্দ্য ব্যানার্জী
.............................................................................................
বান্দরবানের লামা উপজেলার জীনামেজু রাজামুনি বুদ্ধমূর্তির অভিষেক ও উৎসর্গ অনুষ্ঠান সম্পন্ন
.............................................................................................
আজ বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু আম বয়ানে
.............................................................................................
আখেরি মোনাজাতে মুসলিম জাতির শান্তি-ঐক্য কামনা
.............................................................................................
আরও ৪ জনের মৃত্যু ইজতেমায়
.............................................................................................
আজ বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শুরু
.............................................................................................
আগামী শুক্রুবার থেকে বিশ্ব ইজতেমা শুরু
.............................................................................................
১০-১২ জানুয়ারির ৫৬তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথমপর্ব
.............................................................................................
৭৯ সালে কাবা শরিফ অবরোধ : সৌদি আরবের ইতিহাস পাল্টে দেয়া ঘটনা
.............................................................................................
আজ সারা দেশে শুভ বড়দিন উদযাপিত
.............................................................................................
বাংলাদেশে পীর-সুফিদের রাজনৈতিক দলগুলোর উদ্দেশ্য আসলে কী?
.............................................................................................
হজ কোটা বিভিন্ন দেশের জন্য যেভাবে নির্ধারিত হয়
.............................................................................................
শুরু হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমা
.............................................................................................
আজ বাংলাদেশ-সৌদি হজ চুক্তি
.............................................................................................
মার্কিন গবেষণায় পাঁচওয়াক্ত নামাজে সুস্থ থাকা সম্ভব
.............................................................................................
তাফসীরুল কুরআন মাহফীল
.............................................................................................
কুমিল্লায় তিনজন মাওলানা নিষিদ্ধ, কিন্তু বয়ান নিয়ে এখনো কোন নীতিমালা নেই
.............................................................................................
মুন্সীগঞ্জে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী পালিত
.............................................................................................
ওজনে কম দেয়া, ঠকবাজি, প্রতারণায় দুনিয়া-আখিরাতে শাস্তি
.............................................................................................
নামাজে মনোযোগী হওয়ার উপায়
.............................................................................................
নামাজ না পড়ার শাস্তি
.............................................................................................
কুরআনের আলোকে মুমিনের বৈশিষ্ট্যগুলো কি কি?
.............................................................................................
এবার একটাই হবে বিশ্ব ইজতেমা
.............................................................................................
স্থিরতা নামাজের প্রাণ
.............................................................................................
মিসরের সর্ববৃহৎ মসজিদ উদ্বোধন
.............................................................................................
চাঁদ দেখা কমিটির বৈঠক আজ
.............................................................................................
শীতকালে রয়েছে বিশেষ ইবাদত
.............................................................................................
জুম্মার আগে ও পরের বিশেষ আমলসমূহ
.............................................................................................
আজ দানবীর হাজী মুহাম্মদ মহসিনের জন্মদিন
.............................................................................................
শুভ বড়দিন
.............................................................................................
অজুর পর নামাজের ফজিলত
.............................................................................................
অবৈধ উপার্জন সম্পর্কে ইসলাম কী বলে
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন
বাণিজ্যিক কার্যালয় : "রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্লেক্স"
(৬ষ্ঠ তলা), ২৮/১ সি, টয়েনবি সার্কুলার রোড,
মতিঝিল বা/এ ঢাকা-১০০০| জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা
ফোন নাম্বার : ০২-৪৭১২০৮০৫/৬, ০২-৯৫৮৭৮৫০
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, 01731800427
E-mail: dailyganomukti@gmail.com
Website : http://www.dailyganomukti.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD