| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > করোনা ভাইরাসে লোকসানে তথ্যপ্রয্ক্তুরি বিনিয়োগকারীরা   > সারাবিশ্বে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৩৭৬৮৬   > নববর্ষের সব অনুষ্ঠান বন্ধ: প্রধানমন্ত্রী   > আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে কোনো গরিব না খেয়ে কষ্ট পায় না: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী   > সৌদিতে ৩ দফা ক্ষেপণাস্ত্র হামলা   > তিন হাজার শয্যার হাসপাতাল হচ্ছে মহাখালীর ডিএনসিসি মার্কেটে   > পরিস্থিতি দেখে সিদ্ধান্ত নেবেন প্রধানমন্ত্রী: স্বাস্থ্যমন্ত্রী   > করোনাভাইরাসে সারা বিশ্বে মৃত্যুর সংখ্যা ৩০৮৮০   > করোনাভাইরাসের প্রকোপের মাঝেই ইসরাইল থেকে অস্ত্র কিনছে ভারত   > করোনা সন্দেহে চিকিৎসায় অবহেলা  

   ধর্ম -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বোয়ালমারীতে মসজিদ ও বাজার উদ্বোধন

ফরিদপুর প্রতিনিধি : ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার পরমেশ্বরর্দী ইউনিয়নের পরমেশ্বরদী নাদু মিয়া পাড়া জামে মসজিদ ও নাদু মিয়া পাড়া বাজার উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় এই উদ্বোধন করা হয়।

জানা যায়, পরমেশ্বরদী গ্রামের মরহুম মুক্তার মিয়ার ছেলে জাসুদ মিয়া নিজের অর্থায়নে মসজিদের একতলা ভবন নির্মাণ করেন। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জাসুদ মিয়াসহ তার পরিবারের সকলের জন্য দোয়া করা হয়। এ সময় মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে তার (জাসুদ মিয়ার) ক্রেস্ট তার পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেন কমিটির সদস্যরা।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, পরমেশ্বরদী ইউপি আ’লীগের সহসভাপতি এবং পরমেশ্বদী গ্রাম সভাপতি আব্দুল হান্নান মোল্যা, ৩নং ওয়ার্ড আ’লীগ সভাপতি মো. কাঞ্চন খালাসী, ইউপি স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আবুল কালাম মোল্যা, ৩নং ওয়ার্ড কৃষকলীগের সভাপতি মো. আইয়ুব খন্দকার, ৩নং ইউপি সদস্য শাহজাহান মোল্যা সমাজসেবক রিপন মিয়া প্রমুখ।

 

বোয়ালমারীতে মসজিদ ও বাজার উদ্বোধন
                                  

ফরিদপুর প্রতিনিধি : ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার পরমেশ্বরর্দী ইউনিয়নের পরমেশ্বরদী নাদু মিয়া পাড়া জামে মসজিদ ও নাদু মিয়া পাড়া বাজার উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় এই উদ্বোধন করা হয়।

জানা যায়, পরমেশ্বরদী গ্রামের মরহুম মুক্তার মিয়ার ছেলে জাসুদ মিয়া নিজের অর্থায়নে মসজিদের একতলা ভবন নির্মাণ করেন। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জাসুদ মিয়াসহ তার পরিবারের সকলের জন্য দোয়া করা হয়। এ সময় মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে তার (জাসুদ মিয়ার) ক্রেস্ট তার পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেন কমিটির সদস্যরা।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, পরমেশ্বরদী ইউপি আ’লীগের সহসভাপতি এবং পরমেশ্বদী গ্রাম সভাপতি আব্দুল হান্নান মোল্যা, ৩নং ওয়ার্ড আ’লীগ সভাপতি মো. কাঞ্চন খালাসী, ইউপি স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আবুল কালাম মোল্যা, ৩নং ওয়ার্ড কৃষকলীগের সভাপতি মো. আইয়ুব খন্দকার, ৩নং ইউপি সদস্য শাহজাহান মোল্যা সমাজসেবক রিপন মিয়া প্রমুখ।

 

মালয়েশিয়ায় সবচেয়ে ‘বড় মাহফিলে’ আজহারী
                                  

ডেস্ক রিপোর্ট : স্মরণকালের সবচেয়ে ‘বড় তাফসির মাহফিলে’ বয়ান করলেন আলোচিত ইসলামী বক্তা মিজানুর রহমান আজহারী। এ মাহফিল হয়েছে মালয়েশিয়ায়। গত রোববার (০৮ মার্চ) স্থানীয় সময় বিকেল ৪টায় রাজধানী কুয়ালালামপুর আমপাং পার্কের উইসমা এমসিএ কনভেনশন সেন্টারে এ তাফসির মাহফিল হয়। মালয়েশিয়া প্রবাসী কমিউনিটি এ মাহফিলের আয়োজন করে বলে জানা গেছে।এদিন আজহারীর মাহফিলে প্রবাসীদের ঢল নামে। মাহফিলে আগত প্রবাসীদের সামাল দিতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হয় আয়োজকদের। ভিড় সামাল দিতে পুলিশের পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবীরাও কাজ করেন।

জানা গেছে, বিকেল ৪টা থেকে মাহফিলের কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সকাল ১০টা থেকে মালয়েশিয়ার বিভিন্ন প্রান্তে থেকে হাজার হাজার প্রবাসী বাংলাদেশি এসে হলে জমায়েত হন। বিকেল নাগাদ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় পুরো হল কক্ষ। হলে ঢুকতে না পেরে অনেকেই মিজানুর রহমান আজহারীকে একনজর দেখার অপেক্ষায় রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকেন। মাগরিবের নামাজ শেষে তাফসির পেশ করেন মিজানুর রহমান আজহারী।

মাহফিলে আজহারী সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কোরআন সুন্নাহর পতাকাতলে আসার আহ্বান জানান। পরে মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।আয়োজদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, জায়গা সংকুলান না থাকায় দ্বিগুণ প্রবাসী চলে গেছে। আগামীতে আমরা আরো বড় পরিসরে প্রোগ্রাম করার চেষ্টা করব। তবে মালয়েশিয়ার ইতিহাসে এটাই প্রবাসীদের স্মরণকালের সবচেয়ে বড় ওয়াজ মাহফিল বলে মনে করেন তারা।

কাঁঠালিয়ায় চিশতীয়ায় বার্ষিক ওরশ শরীফ বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন
                                  

কাঁঠালিয়া (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি : ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলা সদরের বড় কাঠালিয়া খাজা শাহসুফি সোহরাফ চিশতীর চিশতীয়া দরবার শরীফের ৩৫তম মহাপবিত্র বার্ষিক ওরশ শরীফ বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন। গতকাল ৮ মার্চ রোববার থেকে দুইদিন ব্যাপি বার্ষিক ওরশ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।  

এলাকাবাসীর পক্ষে কয়েকজন জেলা প্রশাসকের নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে সন্ধ্যায় থানা পুলিশ ওরশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে তা বন্ধ করে দেয়।
গতকাল রোববার বিকেল থেকে দুইদিন ব্যাপি বার্ষিক ওরশ শরীফ ও তরিকত ফেডারেশনের উপজেলা সম্মেলন শুরু হয়। চিশতীয়া দরবার শরীফের গদীনশীন পীর শাহজাদা মো.আবদুর রহমান চিশতীর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন তরিকত ফেডারেশন (বিটিএফ) জেলা কমিটির আহবায়ক মো.জাকির হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন যুগ্ন আহবায়ক ডাঃ মো.হুমায়ুন কবির, মো.রাজু আহম্মেদ সবুর ও শফিকুল ইসলাম গোলাপ। সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা কমিটির মো. আবু বকর সিদ্দিক, মো.মধু মিয়া, আবু আসাদ, মো.রুহুল আমিন, মো.বাদশা বেপারী ও মো.আঃ বারেক জমাদ্দার প্রমূখ। সভাশেষে ওরশ শরীফ শুরু হলে পুলিশ গিয়ে ওরশ অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয়। এতে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন আগত তরীকত পন্থীরা।
থানার এসআই মো.মাহমুদ হোসেন জানান, জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ওরশ অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

 

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে কালীমন্দিরে দুর্বৃত্তদের হামলা
                                  

টাঙ্গাই্ল প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে কালী মন্দিরের প্রতিমা মাথা ভেঙ্গে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার নাগবাড়ী ইউনিয়নের ঘোনাবাড়ী গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, রোববার ৮ মার্চ সকালে মন্দিরে দেখাশোনার সময় হন্দিু সম্প্রদায়রা মন্দিরের প্রতিমা মাথা ভাঙ্গা দেখতে পান। পরে স্থানীয় ও প্রশাসনকে জানানো হয়। খবর পেয়ে সংসদ সদস্য হাছান ইমাম খান সোহলে হাজারী,কালিহাতীর এএসপি র্সাকেল রাসেল মনির, কালিহাতী থানা ওসি হাসান আল মামুন, নাগবাড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাকছুদুর রহমান মিল্টন সিদ্দিকী, উপজলো আওয়ামী লীগরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল জলিল, আওয়ামী লীগ নেতা খন্দকার আব্দুল মাতিন, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি পরিতোষ সেন প্রমুখ ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন।

এ বিষয়ে সংসদ সদস্য হাসান ইমাম খান সোহলে হাজারী বলনে,মুজিববর্ষ উপলক্ষে বন্ধুপ্রতি রাষ্ট্র ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে বাংলাদেশে আমন্ত্রন জানোনো হয়েছে ও সরকারে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বাঁধাগ্রস্থ করার জন্য একটি অপশক্তীর চক্রন্তকারীরা এ ঘটনা ঘটাতে পারেন।

এ বিষয়ে ঘোনাবাড়ি কালী মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক স্বপন পাল দোষীদের শাস্তির দাবি করে জানান, রাতের আঁধারে র্দুবৃৃত্তরা কালী মন্দিরের প্রতিমার মাথা ভেঙ্গে নিয়ে গেছে। এ বিষয়ে কালিহাতী থানার ওসি হাসান আল মামুন জানান, এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে তদন্ত র্পূবক দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

হোসেনপুরে আ : রহিম ফকির স্মরণে ওরশ মোবারকে দুই পক্ষের দ্বিধাদ্বন্দ্ব
                                  

হোসেনপুর প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার গোবিন্দপুর ইউনিয়নের ডাংরি গ্রামে আব্দুর রহিম ফকির স্মরণে দ্বিতীয় বার্ষিক ওরশ মোবারক উপলক্ষে দুই পক্ষের দ্বিধা-দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় গত ফেব্রুয়ারি ২২/২৩ তারিখে রহিম ফকির স্মরণে দ্বিতীয় বার্ষিক ওরস দিন ধার্য করা হয়েছিল। এলাকাবাসীর মধ্যে এই ওরস নিয়ে পক্ষে বিপক্ষে মতবিরোধের কারণে ৯৯৯ পুলিশি সাহায্যের মাধ্যমে স্থগিত করা হয়।

রহিম ফকিরের ওরস স্থগিত হওয়া কারণ হিসেবে জানা যায় ওরশে নামে অশ্লীল গান নিত্য মদ গাজার আসর বসানো হয় এলাকার শান্তিপ্রিয় ধর্মপ্রাণ মুসলিম ওলামা সমাজ এ ধরনের অশালীন অসহনীয় অনুষ্ঠান করতে দিবেনা বলে জানান। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ডাংরি গ্রামের একজন জানান কিছুদিন আগে আমাদের গ্রামে আলম নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয় এই হত্যাকান্ডের রেশ এখনো গ্রামে লেগে আছে তাই এ ধরনের অনুষ্ঠান নামে আইন-শৃংখলার অবনতি হোক গ্রামের শান্তি প্রিয় মানুষ হিসেবে আমরা চাইনা।

আব্দুর রহিম ফকির মাজারের বর্তমান সভাপতি ফাইজুল হক বাউল জানান গত ২২/২৩ ফেব্রুয়ারি দুই দিনব্যাপী মাজারের ওরস অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ছিল এলাকাবাসীর দ্বিমত হওয়ার কারণে স্থগিত হয়ে যায়। আগামী ৬ মার্চ আবারও অনুষ্ঠানটি করতে এলাকার কিছু লোক প্রস্তুতি গ্রহণ করে। গোবিন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ওরশ উপলক্ষে বাউল গানের অনুষ্ঠানের সভাপতি শফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া হিমেল জানান এই অনুষ্ঠানটি নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে এলাকাবাসীর মতবিরোধ রয়েছে। ধরনের অশালীন ও সামাজিক অনুষ্ঠান স্থগিত চেয়ে ঐ গ্রামের শামসুল হুদা সহ বেশকিছু এলাকাবাসী স্বাক্ষরিত লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর, হোসেনপুর থানা অফিসার ইনচার্জ শেখ মোস্তফিজুর রহমান জানান ধরনের অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের অনুমতি লাগবে।

 

গৌরীপুরে একসঙ্গে তিন হিন্দু যুবকের ইসলাম ধর্ম গ্রহন
                                  

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের গৌরীপুরে একই গ্রামের প্রতিবেশী তিন যুবক আদালতে এফিডেবিটের মাধ্যমে হিন্দু ধর্ম পরিত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেছেন। ইসলাম ধর্ম গ্রহনের পর উসমান, উমর ও আবু বক্কর নাম ধারন করেন তারা। ইসলাম ধর্ম গ্রহনকারী যুবকরা হলেন, এ উপজেলা রামগোপালপুর ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়া গ্রামের অজয় চন্দ্র বর্মণের ছেলে হৃদয় চন্দ্র বর্মণ (১৯) বর্তমান নাম উসমান, দীলিপ চন্দ্র বর্মণের ছেলে প্রদীপ চন্দ্র বর্মণ (২১) বর্তমান নাম উমর ও শশী বর্মণের ছেলে অমল চন্দ্র বর্মণ (১৯) বর্তমান নাম আবু বক্কর।
উল্লেখিত তিন যুবকের সাথে কথা বলে জানা যায়, তার দীর্ঘদিন ধরে ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন বই পাঠ করে ও বিভিন্ন দিক দিয়ে এ ধর্ম সম্পর্কে অবগত হয়ে তারা ইসলাম ধর্মের প্রতি আকৃষ্ট হন। ইসলাম ধর্মের প্রতি তাদের মন আকৃষ্ট হলেও নানা প্রতিবন্ধকতার কারনে এতদিন নিজ ধর্ম পরিত্যাগ করতে পারেননি তারা।

অবশেষে ৬ ফেব্রুয়ারী ময়মনসিংহের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিট্রেট সম্মুখে এফিডেবিটের মাধ্যমে হিন্দু ধর্ম পরিত্যাগ করে একসঙ্গে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেন ওই তিন যুবক।
স্থানীয় কয়েকজন জানান, ইসলাম ধর্ম গ্রহনের বিষয়টি জানাজানা হলে উল্লেখিত তিন যুবকের পরিবারের লোকজন তা মেনে নেননি। তাই বাড়ি ছেড়ে এখন এ তিন যুবক রাজধানীর একটি বেসরকারি কোম্পানীতে চাকুরিতে যোগদান করেছেন বলে তারা জানতে পেরেছেন।
এফিডেবিটে প্রকাশ, স্থানীয় এক মসজিদের জনৈক ইমামের সম্মুখে ‘লা-ইলাহা ইল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসুল্লাহ (সাঃ) পাঠ করে তারা ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত হয়ে পবিত্র গ্রন্থ আল কোরআনের উপর বিশ্বাস স্থাপন করেন। 

আনোয়ারার বরুমচড়া মাদ্রাসার সভা ও পুরস্কার বিতরণী
                                  

আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার বরুমচড়া বড়পীর আবদুল কাদের জিলানী (রহ.) সুন্নিয়া মাদ্রাসা, হেফজখানা ও এতিমখানার বার্ষিক সভা এবং কোরান হাফেজদের পাগড়ি বিতরণী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারী) রাতে মাদ্রাসা মাঠে মাদ্রাসার তত্ত্বাবধায়ক মাওলানা মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসাইনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন ছোবহানিয়া আলিয়া মাদ্রাসার শায়খুল হাদীস আল্লামা কাযী মঈন উদ্দিন আশরাফী, উদ্বোধক বারখাইন জামেয়া জমহুরিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আবদুল খালেক শওকী, প্রধান বক্তা মাওলানা মুহাম্মদ আশেকুর রহমান, মাওলানা আবুল কাশেম আনোয়ারী, স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও বরুমচড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন আমজাদী।
অনুষ্ঠানে মাদ্রাসা থেকে কোরান হাফেজ মোহাম্মদ ইয়াসিন আরাফাত, মোহাম্মদ সাব্বির, সাইফুল হক ও সাইফুল ইসলামের মাথায় পাগড়ি পড়িয়ে দেন এবং শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।


পবিত্র হজ্ব ও মক্কা-মদিনা নিয়ে কটুক্তিকারী আবুল বাসারের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ
                                  

ভৈরব প্রতিনিধি :  পবিত্র হজ্ব ও ওমরাহ নিয়ে কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার তথাকথিক পীর দাবিদার

আবুল বাশার আল কাদেরীর কটুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে সর্বস্তরের তাওহীদী জনতা।

গতকাল রবিবার (২ফেব্রুয়ারী ) ভৈরব সিলেট বাসট্যান্ড চত্বরে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় বক্তারা বলেন, ভন্ডপীর আবুল বাশার আল কাদেরী পবিত্র হজ্ব ও মক্কা মদিনা নিয়ে কটুক্তি করে মুসলমানদের অন্তরে রক্তক্ষরণ করেছে।

অবিলম্বে তাকে গ্রেফতার করে তার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

সমাবেশ থেকে অভিযুক্ত ভন্ডপীরকে গ্রেফতার ও তার গুলে মদিনা নামের আস্তানার সকল কার্যক্রম বন্ধের

দাবি জানিয়ে আগাম জামিনের সময় শেষে দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে সমাবেশ শেষ করা হয়।

ভৈরব বাজার জামেমসজিদের খতিব হাফেজ জামাল উদ্দীনের সভাপতিত্বে মাওলানা সাইফুল ইসলাম সাহেলের পরিচালনায় এ

বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন কমলপুর মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা মাহমুদুল হাসান,মাওলানা আব্দুল আহাদ,

মাওলানা জহিরুল ইসলাম,মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন,মাওলানা আব্দুল্লাহ আলামিন,

মাওলানা আতাউল্লাহ আমিন , মাওলানা এনায়েতুল্লাহ ভৈরবী ও মাওলানা মুক্তার হোসেন রায়পুরী প্রমুখ।

 

 

দেশ বরেণ্য আলেম আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের দাফন সম্পন্ন
                                  

বিশেষ প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শহীদি মসজিদের খতিব ও আল- জামিয়াতুল ইমদাদিয়ার

কিশোরগঞ্জের মহাপরিচালক দেশ বরেণ্য আলেমে দ্বীন আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের নামাজে

জানাজা আজ বৃহস্পতিবার ৩০ জানুয়ারি ২ টায় আমজাদ শাহ তানিম হুজুরের ইমামতিতে

ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ময়দানে লাখো লাখো মুসল্লির উপস্থিতিতে সম্পন্ন হওয়ার পর।

পারিবারিক কবর স্থান শোলাকিয়ার বাগে জান্নাতে দাফন করা হয়।

এর আগে রাজধানীর ধানমন্ডি ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায়

গতকাল বুধবার ২৯ জানুয়ারি বিকাল ৫ টার কিছু পর আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

গত মঙ্গলবার ২৮ জানুয়ারি শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়।

কৃত্রিম উপায়ে শ্বাসপ্রশ্বাসের ব্যবস্থা করা হলেও শেষ পর্যন্ত তিনি চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ সিলেট হযরত শাহজালাল দরগা মসজিদের ও খতিব ছিলেন।

তিনি দেশে বিদেশে বিভিন্ন সময়ে ওয়াজ মাহফিলে হাদিস-কোরআনের আলোকে গুরুত্বপূর্ণ বয়ান রাখতেন।

হুজুরের প্রতিটি বয়ান মুসলিম উম্মাহর জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

দেশবরেণ্য আলেম আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের মৃত্যুতে পরিবারসহ

কিশোরগঞ্জের সর্বস্তরের মানুষের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মৃত্যুকালে হুজুরের বয়স হয়েছিল ৭০ বছর।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ২ ছেলে ২ মেয়ে আত্মীয়-স্বজন সহ বহু গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

মরহুমের ভাই কিশোরগঞ্জ আল জামিয়াতুল এমদাদিয়ার ভাইস প্রিন্সিপাল

সাব্বির হোসেন রশিদ দেশবাসীসহ সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের মৃত্যুতে মহামান্য রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এডভোকেট শোক বার্তা জানিয়ে বলেন,

দেশ একজন প্রখ্যাত আলেম কে হারালো ও পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশেষ সহকারীর মাধ্যমে গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা: সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি এমপি আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের মৃত্যুতে গভীর শোক সমবেদনা জানিয়েছেন।

ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ময়দানে এযাবৎ কালের সবচাইতে বেশি মুসুল্লিদের উপস্থিতিতে

আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের জানাজা স্বরণীয় হয়ে থাকবে ।

 

ধর্মান্তরিত ১২ সদস্যের পরিবারটিকে ভারতে ফেরত পাঠানোর নেপথ্যে
                                  

ডেস্ক রিপোর্ট :বিতর্কিত ধর্মীয় বক্তা মিজানুর রহমান আজহারীর ওয়াজ মাহফিলে যে পরিবারটির ধর্মান্তকরণ নিয়ে বিতর্ক চলছে,

তাদের সবাইকে ভারতে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

গত ২৪শে জানুয়ারী লক্ষীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার পানপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছিল।

সেখানে একই পরিবারের মোট ১২ জন সদস্য এক সঙ্গে ইসলামে দীক্ষা নেয়ার পর এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়।

আলোচিত এই পরিবারটি এসেছিল ভারত থেকে। সেখানে হিন্দু ধর্মের অনুসারী ছিলেন তারা।

বাংলাদেশের পুলিশ এই পরিবারের ১২ জনকেই আটক করে। তাদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

তবে পুলিশ বলছে, ভারতীয় নাগরিক হিসেবে যে ভিসা নিয়ে তারা বাংলাদেশে ঢুকেছিলেন তার মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে,

সে কারণেই তাদের ভারতে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

লক্ষীপুরে কী ঘটেছিল:

লক্ষীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার পানপাড়া গ্রামে ২৪শে জানুয়ারির মাহফিলটির আয়োজন করে স্থানীয় মসজিদ কমিটি।

সেখানে ওয়াজ করেন মিজানুর রহমান আজহারী। তিনি বাংলাদেশে এখন বেশ জনপ্রিয় একজন ধর্মীয় বক্তা।

একই সঙ্গে তাকে নিয়ে বিতর্কও আছে। তার মাহফিলে প্রচুর লোকসমাগম হয়।

সেদিন তার উপস্থিতিতে একটি পরিবারের মোট ১২ জন সদস্য ইসলামে দীক্ষা নেন।

এর আগেও মিজানুর রহমান আজহারীর মাহফিলে ধর্মান্তকরণের ঘটনা ঘটেছে।

এ নিয়ে বাংলাদেশে সোশ্যাল মিডিয়ায় তার পক্ষে-বিপক্ষে অনেক বিতর্ক চলছে।

তবে লক্ষীপুরের এই ঘটনাটির ব্যাপারে পুলিশ কিছু অনুসন্ধান চালিয়ে বলছে,

এই পরিবারটি বাংলাদেশি নয়, এরা সবাই এসেছে ভারত থেকে।

তবে ওয়াজ মাহফিলের আয়োজকরা বলছেন, এরা যে ভারতীয় নাগরিক, সেটি তাদের জানা ছিল না।

পরিবারটির পরিচয় কী?

১২ সদস্যের ধর্মান্তরিত পরিবারটির প্রধান হচ্ছেন মনির হোসেন। এর আগে ভারতে তিনি পরিচিত ছিলেন শংকর অধিকারী নামে।

পুলিশ জানিয়েছে, গত বছরের অগাষ্ট মাসে দুই মাসের ভিসা নিয়ে তারা বাংলাদেশে এসেছিল এবং

ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পর তারা অবৈধভাবে বাংলাদেশে অবস্থান করছিল।

লক্ষীপুর জেলার পুলিশ সুপার এ এইচ এম কামরুজ্জামান জানিয়েছেন,

ধর্মান্তরের ঘটনার পর তদন্ত করে পরিবারটির কর্তাব্যক্তি সম্পর্কে তারা বিভিন্ন তথ্য জানতে পারেন।

"এই পরিবারটির কর্তা বাংলাদেশ জন্ম গ্রহণ করেছিলেন। তার নাম মনির হোসেন।

তাদের পরিবারের ভাষ্য অনুযায়ী, উনি ছোটবেলায় হারিয়ে যান। পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে উনি কিভাবে ভারতে গেছেন, তা তার জানা নাই।

ভারতে হিন্দু পরিবারে বড় হয়েছেন এবং হিন্দু নারী বিয়ে করে সংসার করছিলেন। তিনি ভারতে নাম নিয়েছিলেন শংকর অধিকারী।"

পুলিশ সুপার আরও জানিয়েছেন, "এই ব্যক্তির স্ত্রী দু`জন এবং দুই ঘরে সন্তান সংখ্যা আটজন। একজন নাতিও আছেন।

তাদের সবাইকে আমরা পাই ভারতীয় পাসপোর্টসহ। বেনাপোল বন্দর দিয়ে এরা বাংলাদেশে এসেছিলেন। সেদিক দিয়েই তারা আবার ফেরত গেছেন।"

মনির হোসেন বা শংকর অধিকারীর মা ফাতেমা বেগমের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়,লক্ষীপুরের রামগঞ্জের চন্ডীপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য তিনি।

ফাতেমা বেগম বলছিলেন, তার ছেলে হারিয়ে যাওয়ার ২৫ বছর পর তাদের মধ্যে যোগাযোগ হয় গত বছরের জুলাই মাসে।

ঘটনাটি ছিল নাটকীয়। সে সময় শুধু গ্রামের নামে বা ঠিকানায় একটি চিঠি পাঠিয়েছিল মোবাইল নাম্বার দিয়ে।

একজন পোস্টমাস্টারের চেষ্টায় সেই নাম্বারের মাধ্যমে তাদের যোগাযোগ হয়।

এরপর তার ছেলে পরিবার নিয়ে গত বছরের অগাষ্টে দেশে আসে।

ফাতেমা বেগম জানিয়েছেন, তার ছেলে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে বাংলাদেশেই থাকতে চেয়েছিল।

তবে তিনি বলেছেন, মাহফিলে তার ছেলে কিভাবে গিয়ে ধর্মান্তরিত হয়েছে তা তার জানা নাই।

তিনি আরও বলেছেন, "আমার ছেলে দুই বউসহ সন্তানদের নিয়ে আসার পর

তারা হিন্দু হওয়ায় আমি তাদের আমার সাথে না থেকে অন্য এলাকায় থাকতে বলেছিলাম।

তারা কেরানীগঞ্জে বসবাস করছিল ছয় সাত মাস ধরে।

তারা মক্তবে গিয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছিল এবং এরপর তাদের ঐ মাহফিলে নিয়া কালিমা পড়ায়।"

ধর্মান্তকরণ নিয়ে বিতর্ক

পরিবারটিকে ধর্মান্তরিত করার ক্ষেত্রে জোর করা হয়েছে কিনা বা এটি সাজানো ঘটনা ছিল কিনা--এসব নানা প্রশ্ন অনেকে তুলেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

তবে মাহফিলে আয়োজকদের অন্যতম একজন মোহাম্মদউল্লাহ দাবি করেছেন,

পরিবারটিকে ধর্মান্তরিত করার ক্ষেত্রে তারা জোর করেন নি। তাদের নাগরিকত্বের ব্যাপারেও জানা ছিল না বলে তিনি উল্লেখ করেছেন।

"পরিবারটির কর্তা মাহফিলের একদিন আগে আমাদের সাথে যোগাযোগ করেছিল।

এরপর মাহফিলের দিন তারা এফিডেভিট এর কপি সহ আইনজীবী নিয়ে এসেছিলেন।

তাদের আইনজীবী ধর্মান্তরিত হওয়া সর্ম্পকিত সেই এফিডেভিট মাহফিলে পড়ে শোনান।"

"তারা মিজানুর রহমান আজহারীর কাছে ধর্মান্তরিত হতে চেয়েছিলেন।

কিন্তু আজহারী সাহেবকে যখন আমরা প্রস্তাব দেই, তখন উনি অপারগতা প্রকাশ করেন।

কারণ কিছুদিন আগেও এরকম একজন বোন ধর্মন্তরিত হয়েছিলেন এবং তা নিয়ে আজহারী সাহেবের বিরুদ্ধে অপপ্রচার হয়েছিল।

সেজন্য আমরা মঞ্চে থাকা আরেকজন আলমকে দিয়ে ঐ পরিবারকে কালিমা পড়ানো হয়েছিলো।"

পুলিশ সুপার এ এইচ এম কামরুজ্জামান বলেছেন, "কেউ তাদের জোর করে ধর্মান্তরিত করেছে, এমনটা আমরা পাই নি।

কেউ বাধ্য করলে তখন আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিতে পারতাম। এখানে তাদের ধর্মান্তরিত হওয়া না হওয়া আমাদের কাছে বিষয় ছিল না।

আমাদের বিষয় ছিল, তারা ভারতীয় নাগরিক হয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশে ছিল।"

আগামীকাল আখেরি মোনাজাত
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : টঙ্গীর তুরাগতীরে গতকাল শুক্রবার শুরু হয়েছে দাওয়াতে তাবলিগের ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব।

বাদ ফজর মদিনা নিবাসী মাওলানা মুফতি ওসমানের আম বয়ানের মধ্য দিয়ে ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়।

এরপর দিনভর চলে বয়ান, তালিম, তাশকিলসহ বিভিন্ন আমল। দুপুরে জুমার জামাতে শরিক হন কয়েক লাখ মানুষ।

জুমায় ইমামতি করেন বাংলাদেশের মাওলানা মোশাররফ হোসেন। কাল দুপুরের আগে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে ইজতেমা।

এদিন ময়দানে জুমার জামাতে শরিক হন ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বি মিয়া, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক,

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম,

হেফাজতে ইসলামের সহসভাপতি মুফতি ইজাহারুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ।

ইজতেমায় অংশ নেয়া মুসল্লিরা ছাড়াও ঢাকা ও গাজীপুরসহ আশপাশের এলাকার বহু মানুষ এদিন জুমার জামাতে শরিক হন।

ময়দানের মিডিয়া সমন্বয়কারী মো. সায়েম জানান, বাদ ফজর মদিনা নিবাসী মাওলানা মুফতি ওসমান আম বয়ান করেন,

তা বাংলায় তরজমা করে মাওলানা আবদুল্লাহ মনসুর। সকাল সাড়ে ৯টায় তালিমের বয়ান করেন ভারতের মাওলানা মুফতি আসাদুল্লাহ,

বাংলায় তরজমা করেন বাংলাদেশের মাওলানা মুফতি ওসামা ইসলাম।

জুমার নামাজের আগে সালাতুত তাসবিহ নামাজের ফাজায়েল সম্পর্কে বয়ান করেন মাওলানা মুফতি ফয়জুর রহমান।

বাদ জুমা বয়ান করেন দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের মুরুব্বি মাওলানা চেরাগ উদ্দিন,

তার বয়ান বাংলায় ভাষান্তর করেন বাংলাদেশের মাওলানা আশরাফ আলী।

বাদ আসর বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা খান শাহাবুদ্দিন নাসিম।

বাদ মাগরিব বয়ান করেন দিল্লির মাওলানা জামশেদ, তা বাংলায় অনুবাদ করেন বাংলাদেশের মাওলানা মুনির বিন ইউসুফ।

মো. সায়েম আরও জানান, বৃহস্পতিবারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাদ ফজর মাওলানা চেরাগ উদ্দিনের বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়ার কথা বিশ্ব ইজতেমা।

তবে অসুস্থতাজনিত কারণে মাসোহারার মাধ্যমে তাকে জুমার পর বয়ান দেন মুরুব্বিরা।

মূল বয়ান উর্দুতে হলেও বাংলা, ইংরেজি, আরবি, তামিল, মালয়, তুর্কি ও ফরাসি ভাষায় তাৎক্ষণিক অনুবাদ করা হচ্ছে।

বিদেশি মেহমানরা মূল বয়ান মঞ্চের উত্তর, দক্ষিণ ও পূর্বপাশে হোগলা পাটিতে বসেন।

বিভিন্ন ভাষাভাষী মুসল্লিরা আলাদা আলাদা বসেন এবং তাদের মধ্যে একজন মূল বয়ানকে তাৎক্ষণিক অনুবাদ করেন।

বধিরদের জন্য তাৎক্ষণিকভাবে অনুবাদ করা হয় ইশারা ভাষায়।

এ ছাড়াও গতকাল শুক্রবার সকালে বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়

ও মাদ্রাসার শিক্ষক ও ছাত্রদের উদ্দেশে খাস বয়ান করা হয়।

নামাজের মিম্বার থেকে ছাত্রদের উদ্দেশে খুসুশি বয়ান এবং ময়দানে আগত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ,

ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীদের জন্য উত্তর-পূর্ব পাশের টিনশেড মসজিদে খাওয়াজের বয়ান করা হয়।

বয়ানে যা বলা হল : মাওলানা মুফতি ওসমান বলেন, ইজতেমাওয়ালাদের কাজ হল পরিপূর্ণভাবে দিনের দাওয়াত মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়া।

নবী করিম (সা.) দাওয়াতের মেহনতের জন্যও মদিনা মনোয়ারায় হিজরত করেছিলেন।

তারপর আবার নিজ এলাকায় এসে দাওয়াতের কাজ জিন্দা করেছিলেন।

দাওয়াতের মাধ্যমে ইমানওয়ালা জিন্দেগি, আমলওয়ালা এবং সত্য ও সুন্দর জিন্দেগি তৈরি করতে হবে

মুফতি ওসমান বলেন, দাওয়াতের কাজে জান ও মাল কোরবান করতে হবে

দাওয়াত গ্রহণকারী যত নেক আমল করবেন, সমান সওয়াব দাওয়াতদাতাও পাবেন

তিনি বলেন, দুনিয়ার জিন্দেগি অনিশ্চিত জিন্দেগি, অক্ষম জিন্দেগিদুনিয়ার জিন্দেগি হল ধোঁকার জিন্দেগি

আর হাকিকতে জিন্দেগি হল আখেরাতের জিন্দেগিআখেরাতের জিন্দেগি হল চিরস্থায়ী জিন্দেগি

অবশ্যই প্রত্যেক মানুষকে আখেরাতের জিন্দেগিতে যেতে হবেএকমাত্র হুজুর (সা.)-এর বাতানো তরিকায় দুনিয়া ও আখেরাতের শান্তি ও কামিয়াবি

বিদেশি মুসল্লি : ৩১ দেশের ১ হাজার ৪৪১ জন বিদেশি মেহমান এ পর্বে গতকাল (শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত)

ইজতেমায় অংশ নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন এক গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য

তবে আয়োজকদের দাবি এ সংখ্যা আরও অনেক বেশিদেশি মুসল্লিদের মতো বিদেশি মুসল্লিরাও আখেরি মোনাজাতের আগ পর্যন্ত আসতে থাকবেন

তিন মুসল্লির মৃত্যু : দুদিনে ইজতেমা ময়দানে তিন মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে

তারা হলেন- সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার থানার চানপুর লক্ষ্মীপুর গ্রামের মৃত হজরত আলীর ছেলে কাজী আলাউদ্দিন (৬৫),

নরসিংদীর বেলাব থানার বিরবাঘরের চন্দনপুর গ্রামের মৃত আবদুর রহমানের ছেলে সুরুজ মিয়া (৬০)

ও গাইবান্ধার ফুলছড়ি থানার টেংরাকান্দি গ্রামের রমজান আলীর ছেলে গোলজার হোসেন (৪০)

চিকিৎসাসেবা : গতকাল শুক্রবার বেলা ৩টা পর্যন্ত ঠাণ্ডাজনিত কারণে দুই শতাধিক মুসল্লি টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন

এ ছাড়া টঙ্গী ওষুধ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি, হামদর্দ ল্যাবরেটরিজ, যমুনা ব্যাংক ফাউন্ডেশন,

ইসলামিক ফাউন্ডেশন, আঞ্জুমানে মুফিদুল ইসলাম, র‌্যাব, ইবনে সিনাসহ ফ্রি-মেডিকেল ক্যাম্পগুলোতে কয়েক হাজার মুসল্লি বিনা মূল্যে প্রাথমিক চিকিৎসা ও ওষুধ নিয়েছেন

চিকিৎসা নিতে আসা পঞ্চগড়ের বোদা থানার বোয়ালমারী গ্রামের নূর মোহাম্মদ বলেন, সর্দি, কাশি ও মাথাব্যথায় ভুগছি

শরীর দুর্বল লাগেঢাকার কেরানীগঞ্জের বশির উদ্দিন (৪৫) জানান, মাথাব্যথা ও জ্বরের ওষুধ নিতে এসেছেন

ময়দানের জিম্মাদার প্রকৌশলী শাহ মো. মুহিবুল্লাহ বলেন, মুসল্লিরা নির্ধারিত খিত্তায় অবস্থান নিয়ে ইবাদত-বন্দেগিতে মশগুল রয়েছেন

আগামীকাল রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে বিশ্ব ইজতেমা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

দাওয়াতের মাধ্যমে ইমানওয়ালা জিন্দেগি, আমলওয়ালা এবং সত্য ও সুন্দর জিন্দেগি তৈরি করতে হবে।

মুফতি ওসমান বলেন, দাওয়াতের কাজে জান ও মাল কোরবান করতে হবে।

দাওয়াত গ্রহণকারী যত নেক আমল করবেন, সমান সওয়াব দাওয়াতদাতাও পাবেন।

তিনি বলেন, দুনিয়ার জিন্দেগি অনিশ্চিত জিন্দেগি, অক্ষম জিন্দেগি। দুনিয়ার জিন্দেগি হল ধোঁকার জিন্দেগি।

আর হাকিকতে জিন্দেগি হল আখেরাতের জিন্দেগি। আখেরাতের জিন্দেগি হল চিরস্থায়ী জিন্দেগি।

অবশ্যই প্রত্যেক মানুষকে আখেরাতের জিন্দেগিতে যেতে হবে।

একমাত্র হুজুর (সা.)-এর বাতানো তরিকায় দুনিয়া ও আখেরাতের শান্তি ও কামিয়াবি।

বিদেশি মুসল্লি : ৩১ দেশের ১ হাজার ৪৪১ জন বিদেশি মেহমান এ পর্বে (শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত)

ইজতেমায় অংশ নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন এক গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য।

তবে আয়োজকদের দাবি এ সংখ্যা আরও অনেক বেশি।

দেশি মুসল্লিদের মতো বিদেশি মুসল্লিরাও আখেরি মোনাজাতের আগ পর্যন্ত আসতে থাকবেন।

তিন মুসল্লির মৃত্যু : দু’দিনে ইজতেমা ময়দানে তিন মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে।

তারা হলেন- সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার থানার চানপুর লক্ষ্মীপুর গ্রামের মৃত হজরত আলীর ছেলে কাজী আলাউদ্দিন (৬৫),

নরসিংদীর বেলাব থানার বিরবাঘরের চন্দনপুর গ্রামের মৃত আবদুর রহমানের ছেলে সুরুজ মিয়া (৬০)

ও গাইবান্ধার ফুলছড়ি থানার টেংরাকান্দি গ্রামের রমজান আলীর ছেলে গোলজার হোসেন (৪০)।

চিকিৎসাসেবা : শুক্রবার বেলা ৩টা পর্যন্ত ঠাণ্ডাজনিত কারণে দুই শতাধিক মুসল্লি টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। এ

ছাড়া টঙ্গী ওষুধ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি, হামদর্দ ল্যাবরেটরিজ, যমুনা ব্যাংক ফাউন্ডেশন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, আঞ্জুমানে মুফিদুল ইসলাম, র‌্যাব,

ইবনে সিনাসহ ফ্রি-মেডিকেল ক্যাম্পগুলোতে কয়েক হাজার মুসল্লি বিনা মূল্যে প্রাথমিক চিকিৎসা ও ওষুধ নিয়েছেন।

চিকিৎসা নিতে আসা পঞ্চগড়ের বোদা থানার বোয়ালমারী গ্রামের নূর মোহাম্মদ বলেন, সর্দি, কাশি ও মাথাব্যথায় ভুগছি।

শরীর দুর্বল লাগে। ঢাকার কেরানীগঞ্জের বশির উদ্দিন (৪৫) জানান, মাথাব্যথা ও জ্বরের ওষুধ নিতে এসেছেন।

ময়দানের জিম্মাদার প্রকৌশলী শাহ মো. মুহিবুল্লাহ বলেন,

মুসল্লিরা নির্ধারিত খিত্তায় অবস্থান নিয়ে ইবাদত-বন্দেগিতে মশগুল রয়েছেন।

আগামীকাল রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে বিশ্ব ইজতেমা।

ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক অনেক গভীর-অনিন্দ্য ব্যানার্জী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যকার সম্পর্ক অনেক গভীর বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রামস্থ ভারতীয় দূতাবাসের সহকারী হাইকমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জী।

গতকাল শুক্রবার সকালে চট্টগ্রামের নাসিরাবাদ উচ্চবিদ্যালয় মাঠে মাইজভান্ডারী একাডেমির উদ্যোগে

আয়োজিত ত্রয়োদশ শিশু কিশোর সমাবেশ ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ত্বরিকা-ই-মাইজভান্ডারীয়ার প্রবর্তক গাউসুল আযম হযরত মাওলানা শাহসূফি সৈয়দ আহমদ উল্লাহ মাইজভান্ডারী (ক.)

এর পবিত্র ১১৪তম ওরশ উপলক্ষে শাহানশাহ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভান্ডারী ট্রাস্টের ১০ দিনব্যাপী

কর্মসূচির অংশ হিসাবে মাইজভান্ডারী একাডেমি এ আয়োজন করে। অনিন্দ্য ব্যানার্জী বলেন, ভারত বাংলাদেশের অকৃত্রিম পরম বন্ধু।

মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে ভারতীয় সৈন্যরা বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য প্রাণ দিয়েছেন। বাংলাদেশের প্রতি ভারতের সেই সহযোগিতার হাত এখনো চলৎ রয়েছে।

গত কয়েক দশকে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়েছে। অর্থনৈতিক ও উন্নয়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অগ্রগতি সকলকে বিস্মিত করেছে।

আমরা চাই বাংলাদেশের এ অগ্রগতি অব্যাহত থাকুক।

বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি আছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ভারতের মতো বাংলাদেশেও হিন্দু-মুসলমান ও

অন্যান্য ধর্মের মানুষরা শান্তিপূর্ণভাবে ও সৌহার্দপূর্ণ পরিবেশে বসবাস করে। মাইজভান্ডার দরবার শরীফ অসাম্প্রদায়িক মিলনক্ষেত্র।

এই দরবার শরীফের যিনি প্রবর্তক তিনি ছিলেন অসাম্প্রদায়িক।

এ ছাড়া হযরত জিয়াউল হক মাইজভান্ডারীও অসাম্প্রদায়িক চেতনার জন্য কাজ করেছেন।

সহকারী হাই কমিশনার বলেন, আজকের শিশুরা আগামি দিনের ভবিষ্যত।

 তাদের মধ্যেই লুকিয়ে আছে অনেক কিছু। শিশুদেরকে শুধু পড়ালেখার চাপ দিলে হবে না।

শিশুদের মধ্যে মানবিকতা, মানবতা, অসাম্প্রদায়িকতা ও মানবিক গুণাবলি সৃষ্টি করতে হবে। সত্যিকারের মানুষে পরিণত করতে হবে।

কারণ পড়ালেখা করে শিক্ষিত হওয়া যায়, তবে মানুষ হতে হলে মানবিক গুণাবলি প্রয়োজন। শিশুদেরকে ঘরের মধ্যে আটকে রাখবেন না।

তাদেরকে প্রকৃতির সঙ্গে মিশতে এবং খেলাধুলা করতে সুযোগ দিতে হবে।

ট্রাস্টের ভারপ্রাপ্ত সচিব অধ্যাপক এ ওয়াই এম জাফরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উদ্বোধক ছিলেন

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. অঞ্জন কুমার চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বিআরটিসির চেয়ারম্যান মো. এহসানে এলাহী, কপিরাইট রেজিস্ট্রার জাফর রাজা চৌধুরী।

বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী,

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জননেত্রী শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্ট ড. হেলাল উদ্দিন চৌধুরী,

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহসভাপতি দিদারুল আলম চৌধুরী, কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন,

আলোকধারা সম্পাদক ড. সৈয়দ আবদুল ওয়াজেদ, ইঞ্জিনিয়ার কামালুর রহমান।

উপস্থিত ছিলেন উদযাপন পরিষদের প্রধান সমন্বয়ক এইচ এম রাশেদ খান, অধ্যাপক মির মোহাম্মদ তরিকুল আলম,

শাহনেওয়াজ চৌধুরী, মুহাম্মদ মঈনউদ্দিন ইমন, এম মাকসুদুর রহমান হাসনু, বিপ্লব পার্থ, মুহাম্মদ আশরাফুজ্জামান আশরাফ,

এইচ আর মেহবুব জিকু, নুরুল করিম নুরু, আবুল মনসুর, মেজবাহ উদ্দিন প্রমুখ।

বান্দরবানের লামা উপজেলার জীনামেজু রাজামুনি বুদ্ধমূর্তির অভিষেক ও উৎসর্গ অনুষ্ঠান সম্পন্ন
                                  

বাসুদেব বিশ্বাস,বান্দরবান প্রতিনিধি : বান্দরবানের লামা উপজেলায় ৩৫ ফুট উচ্চতা সম্পন্ন জীনামেজু রাজামুনি বুদ্ধমূর্তির অভিষেক ও বুদ্ধমূর্তি উৎসর্গ করা হয়েছে।

বুদ্ধমুর্তির অভিষেক ও উৎসর্গ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা।

৭ম তম সংঘনায়ক, বাংলাদেশ তংশৈরোওয়া সংঘনিকায়া ভদন্ত উঃ চাইন্দা মহাথের এর সভাপতিত্বে আয়োজিত

অনুষ্ঠানে এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম,

পুলিশ সুপার জেরিন আখতার, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ,

পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, সদস্য ক্যসাপ্রু, সদস্য ফাতেমা পারুল,

লামা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তফা জামাল, লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুর-এ- জান্নাত রুমি,

সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মিল্টন মুহুরী, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন মোহাম্মদ ইয়াছির আরাফাত,

লামা পৌর মেয়র জহিরুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের আহবায়ক কেলুমং সহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন। 

উক্ত ধর্মীয় অনুষ্ঠানে পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেছেন,

জীনামেজু অনাথ আশ্রম অনাথ শিশুদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে।

শিক্ষাকে গুরুত্ব দিয়েছে বলেই এই আশ্রম প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে। একটি জাতি ও সমাজ গঠনে শিক্ষার কোন বিকল্প নাই।

যেহেতু শিক্ষার ক্ষেত্রে অবদান রেখে চলেছে এই প্রতিষ্ঠান সেহেতু এই আশ্রমের জন্য যা প্রয়োজন পর্যায়ক্রমে সব ধরনের সহযোগিতা দেয়া হবে। 

এসময় পার্বত্য মন্ত্রী আরো বলেন, আমি বীর বাহাদুর কোন একটি জাতির মন্ত্রী নই।

আমি পাহাড়ে বসবাসরত প্রতিটি মানুষের মন্ত্রী।

সরকারীভাবে বরাদ্দ যাই আসুক তা সকল সম্প্রদায়ের মধ্যে সমবন্টন করে দেয়া হয়।

অনাথ আশ্রমের জন্য তিনি ১ লক্ষ টাকা অনুদান এবং ১০ মেট্রিকটন খাদ্যশষ্য ঘোষনা দেন।

এদিকে মন্ত্রীর আহবানে সাড়া দিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ প্রতি বছর এই অনাথ আশ্রমের জন্য ৫০ হাজার টাকা অনুদান ঘোষনা দেন।

পরে ৩০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে নির্মিত ৪ কক্ষ বিশিষ্ট অনাথ আশ্রমের ছাত্রাবাসের শুভ উদ্বোধন করা হয়। 

এদিকে জীনামেজু রাজামুনি বুদ্ধমূর্তির অভিষেক ও উৎসর্গ অনুষ্ঠানকে ঘিরে ৩দিন ব্যাপী সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানের প্রথম দিন মারমা সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহি লোকনাট্য “জ্যাহ” এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়।

অনুষ্ঠানের ২য় দিন সকালে শোভাযাত্রা, ভিক্ষুসংঘের পিন্ডদান, ধর্মীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন,

ভিক্ষুসংঘ কর্তৃক বুদ্ধমুর্তির অভিষেক ও উৎসর্গ এবং ধর্মীয় সভার আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানটি আগামীকাল রোববার শেষ দিন সকালে ভিক্ষুসংঘের পিন্ডদান এবং

রাতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ঐতিহ্যবাহী লোকনাট্য “জ্যাহ” অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে সম্পন্ন হবে।

উল্লেখ্য জীনামেজু রাজামুনি বুদ্ধমূর্তিটি জেলার সবচেয়ে উচ্চতা সম্পন্ন একটি বুদ্ধমুর্তি।

এটি লামা উপজেলার ইয়াংছা নামক এলাকায় জীনামেজু অনার্থ আশ্রমে প্রতিষ্ঠা করা হয়।

জীনামেজু অনাথ আশ্রমের অধ্যক্ষ উ নন্দমালা থের বলেন, নব উৎসর্গকৃত বুদ্ধমুর্তিটি আশ্রম পরিচালনায় একটি অনন্য ভুমিকা রাখবে।

বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা ও তার সহধর্মিনী কি কি এ এর সার্বিক সহযোগিতা ও দিকনির্দেশনায় এই রাজামুনি বুদ্ধমুর্তি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

আজ বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু আম বয়ানে
                                  

ডেস্ক রিপোর্ট : আম বয়ানের মধ্য দিয়ে টঙ্গীর তুরাগ তীরে আজ শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি)

শুরু হলো বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় ও শেষ পর্ব।

আগামী রোববার (১৯ জানুয়ারি) আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের ২০২০ সালের বিশ্ব ইজতেমা।

টঙ্গীর তুরাগ তীরে জড়ো হয়েছেন মুসল্লিরা।

ইজতেমা ময়দানসহ টঙ্গী আব্দুল্লাহপুরের আশপাশের এলাকায় মুসল্লিদের ভীড় বাড়ছে।

ফজরের নামাজের পর শুরু হয়, ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা।

সকালে ভারতের প্রখ্যাত আলেম আম বয়ান করেছেন। তা অনুবাদ করে ইজতেমা ময়দানে প্রচার করা হচ্ছে। 

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) আছর নামাজের পর থেকে শুরু হয় দ্বিতীয় পর্বের প্রাক প্রস্তুতি বয়ান।

বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের মতোই কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা রয়েছে দ্বিতীয় পর্বেও।

এরইমধ্যে ইজতেমা ময়দান ও আশপাশের এলাকায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কড়া নজরদারি শুরু হয়েছে।

দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমার আয়োজক তাবলিগ জামাতের সাবেক আমির মাওলানা সাদ কান্ধলভীর অনুসারীরা।

 

আখেরি মোনাজাতে মুসলিম জাতির শান্তি-ঐক্য কামনা
                                  

ডেস্ক রিপোর্ট : টঙ্গীর তুরাগতীরে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের আখেরি মোনাজাতে মুসলিম জাতির শান্তি-ঐক্য কামনা করে দোয়া করা হয়েছে।

অ্যাজ রোববার বেলা ১১টা ১০ মিনিটে মোনাজাত শুরু হয়ে শেষ হয় ১১টা ৪০ মিনিটে।

মোনাজাত পরিচালনা করেন কাকরাইল জামে মসজিদের খতিব ও তাবলীগ জামাতের কেন্দ্রীয় শূরা সদস্য হাফেজ মাওলানা জুবায়ের আহমেদ।

আখেরি মোনাজাতে লাখ লাখ মুসল্লি মুখর করে তোলেন টঙ্গীর তুরাগ নদের তীর।

কনকনে শীত ও হিমেল হাওয়া উপেক্ষা করে তুরাগতীরে সমবেত হয়ে চোখের জলে মুসল্লিরা দেশ জাতি এবং মুসলিম উম্মাহর শান্তি এবং সমৃদ্ধি কামনা করেন।

মুসল্লিদের ভিড়ে ইজতেমা ময়দানে তিল ধারণের ঠাঁই ছিল না। ভেতরে ঠাঁই না পেয়ে তাদের অবস্থান নিতে হয়েছে বিভিন্ন সড়ক ও আশপাশের এলাকার মাঠে।

মোনাজাতে কয়েক লাখ মুসল্লির সমাগমে শিল্পনগরী টঙ্গী পরিণত হয় ধর্মীয় নগরীতে।

আজকের আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয় ৫৫তম আয়োজনের প্রথম পর্ব।

এর আগে ফজরের নামাজের পর শুরু হয় নির্দেশনামূলক বয়ান। ১১টার পর জনসমুদ্রে হঠাৎ নেমে আসে নীরবতা, এরপরই শুরু হয় আখেরি মোনাজাত।

মোনাজাতে গোটা দুনিয়ায় পথভ্রষ্ট মুসলমানের সঠিক পথের দিশা এবং তাবলীগের কাজে সবাইকে নিয়োজিত হওয়ার তওফিক কামনা করে মহান আল্লাহর রহমত,

মাগফিরাত ও নাজাত প্রার্থনা করা হয়।

ইহলৌকিক ও পারলৌকিক কল্যাণ কামনায় দেশ-বিদেশের লাখ লাখ মুসল্লি আল্লাহর দরবারে কান্নাকাটি করেন।

এসময় ‘আমিন, আল্লাহুম্মা আমিন’ বলে আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের সন্তুষ্টি লাভের আশায় লাখ লাখ মুসল্লি আকুতি জানান।

এর আগে গতকাল শনিবার বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দিন বয়ান-মোজাকেরা, তালিম-তাশকিল, নামাজ-রোনাজারি ও তাসবিহ-তাহলিলে কেটেছে।

এবার কনকনে শীতের মধ্যেই ইজতেমায় যোগ দিয়েছেন মুসল্লিরা। এতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ঠাণ্ডায় অসুস্থ হয়ে পড়েছেন অনেকেই।

বার্ধক্য ও অসুস্থতাজনিত কারণে গত শুক্রবার রাত থেকে শনিবার বিকাল পর্যন্ত মারা যান আরও পাঁচ মুসল্লি। এ নিয়ে ময়দানে ৯ মুসল্লি ইন্তেকাল করলেন।

ইজতেমার রেওয়াজ অনুযায়ী দ্বিতীয় দিনে অনুষ্ঠিত হয় যৌতুকবিহীন বিয়ে। মাঝে কয়েক বছর বন্ধ থাকার পর শনিবার আবারও এ ঐতিহ্যে ফিরল ইজতেমা।

এদিন বয়ানমঞ্চে ১০০ জোড়া যৌতুকবিহীন বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এসব বিয়ে পড়ান মাওলানা জোহায়েরুল হাসান।

আগামী শুক্রবার শুরু হবে ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। আগামী ১৯ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হবে এবারের বিশ্ব ইজতেমা।

এবার বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব পরিচালনা করেন মাওলানা জোবায়েরের অনুসারী মুরুব্বিরা। দ্বিতীয় পর্ব পরিচালনা করবেন সাদ অনুসারীরা।

আরও ৪ জনের মৃত্যু ইজতেমায়
                                  

ডেস্ক রিপোর্ট : টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে আসা আরও চারজন মারা গেছেন।

গতকাল শুক্রবার রাত থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত এই চারজন মারা যান বলে জানান ,গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার মো. মনজুর রহমান ।

তারা হলেন কুমিল্লার দেবিদ্বার থানার ডিমলা এলাকার তমিজ উদ্দিন (৬৫), ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ থানার বড়তোল্লা এলাকার মো. শাহজাহান (৬০),

বরিশালের গৌরনদী থানার খালিজপুর এলাকার আলী আজগর (৭০) ও নারয়ণগঞ্জের বন্দর থানার দক্ষিণ কলাবাগান এলাকার মো. ইউসুফ আলী মেম্বার (৪৫)।

এই নিয়ে ইজতেমায় আসা আটজন মারা গেলেন।

পুলিশ কর্মকর্তা মনজুর বলেন, “অসুস্থতাসহ বিভিন্ন কারণে তারা মারা গেছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।”

শীতের ভোরে গতকাল শুক্রবার ফজরের নামাজের পর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে টঙ্গীর তুরাগ তীরে শুরু হয়েছে ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা।

মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম এই বিশ্ব সম্মিলনের প্রথম পর্ব আগামী রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে।

আগামী ১৭ থেকে ১৯ জানুয়ারি হবে দ্বিতীয় পর্ব।

এবার প্রথম পর্বের ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন মাওলানা জুবায়েরের অনুসারীরা।

মাওলানা সাদ কান্ধলভীর অনুসারীরা  অংশ নেবেন দ্বিতীয় পর্বে।

 


   Page 1 of 16
     ধর্ম
বোয়ালমারীতে মসজিদ ও বাজার উদ্বোধন
.............................................................................................
মালয়েশিয়ায় সবচেয়ে ‘বড় মাহফিলে’ আজহারী
.............................................................................................
কাঁঠালিয়ায় চিশতীয়ায় বার্ষিক ওরশ শরীফ বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন
.............................................................................................
টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে কালীমন্দিরে দুর্বৃত্তদের হামলা
.............................................................................................
হোসেনপুরে আ : রহিম ফকির স্মরণে ওরশ মোবারকে দুই পক্ষের দ্বিধাদ্বন্দ্ব
.............................................................................................
গৌরীপুরে একসঙ্গে তিন হিন্দু যুবকের ইসলাম ধর্ম গ্রহন
.............................................................................................
আনোয়ারার বরুমচড়া মাদ্রাসার সভা ও পুরস্কার বিতরণী
.............................................................................................
পবিত্র হজ্ব ও মক্কা-মদিনা নিয়ে কটুক্তিকারী আবুল বাসারের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ
.............................................................................................
দেশ বরেণ্য আলেম আযহার আলী আনোয়ার শাহ হুজুরের দাফন সম্পন্ন
.............................................................................................
ধর্মান্তরিত ১২ সদস্যের পরিবারটিকে ভারতে ফেরত পাঠানোর নেপথ্যে
.............................................................................................
আগামীকাল আখেরি মোনাজাত
.............................................................................................
ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক অনেক গভীর-অনিন্দ্য ব্যানার্জী
.............................................................................................
বান্দরবানের লামা উপজেলার জীনামেজু রাজামুনি বুদ্ধমূর্তির অভিষেক ও উৎসর্গ অনুষ্ঠান সম্পন্ন
.............................................................................................
আজ বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু আম বয়ানে
.............................................................................................
আখেরি মোনাজাতে মুসলিম জাতির শান্তি-ঐক্য কামনা
.............................................................................................
আরও ৪ জনের মৃত্যু ইজতেমায়
.............................................................................................
আজ বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শুরু
.............................................................................................
আগামী শুক্রুবার থেকে বিশ্ব ইজতেমা শুরু
.............................................................................................
১০-১২ জানুয়ারির ৫৬তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথমপর্ব
.............................................................................................
৭৯ সালে কাবা শরিফ অবরোধ : সৌদি আরবের ইতিহাস পাল্টে দেয়া ঘটনা
.............................................................................................
আজ সারা দেশে শুভ বড়দিন উদযাপিত
.............................................................................................
বাংলাদেশে পীর-সুফিদের রাজনৈতিক দলগুলোর উদ্দেশ্য আসলে কী?
.............................................................................................
হজ কোটা বিভিন্ন দেশের জন্য যেভাবে নির্ধারিত হয়
.............................................................................................
শুরু হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমা
.............................................................................................
আজ বাংলাদেশ-সৌদি হজ চুক্তি
.............................................................................................
মার্কিন গবেষণায় পাঁচওয়াক্ত নামাজে সুস্থ থাকা সম্ভব
.............................................................................................
তাফসীরুল কুরআন মাহফীল
.............................................................................................
কুমিল্লায় তিনজন মাওলানা নিষিদ্ধ, কিন্তু বয়ান নিয়ে এখনো কোন নীতিমালা নেই
.............................................................................................
মুন্সীগঞ্জে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী পালিত
.............................................................................................
ওজনে কম দেয়া, ঠকবাজি, প্রতারণায় দুনিয়া-আখিরাতে শাস্তি
.............................................................................................
নামাজে মনোযোগী হওয়ার উপায়
.............................................................................................
নামাজ না পড়ার শাস্তি
.............................................................................................
কুরআনের আলোকে মুমিনের বৈশিষ্ট্যগুলো কি কি?
.............................................................................................
এবার একটাই হবে বিশ্ব ইজতেমা
.............................................................................................
স্থিরতা নামাজের প্রাণ
.............................................................................................
মিসরের সর্ববৃহৎ মসজিদ উদ্বোধন
.............................................................................................
চাঁদ দেখা কমিটির বৈঠক আজ
.............................................................................................
শীতকালে রয়েছে বিশেষ ইবাদত
.............................................................................................
জুম্মার আগে ও পরের বিশেষ আমলসমূহ
.............................................................................................
আজ দানবীর হাজী মুহাম্মদ মহসিনের জন্মদিন
.............................................................................................
শুভ বড়দিন
.............................................................................................
অজুর পর নামাজের ফজিলত
.............................................................................................
অবৈধ উপার্জন সম্পর্কে ইসলাম কী বলে
.............................................................................................
জুম্মার নামাজে হেঁটে যাওয়ার ফজিলত
.............................................................................................
জামাতে নামাজ আদায়ে সওয়াব ২৭ গুণ বেশি
.............................................................................................
পরনিন্দার ৩টি অপূরণীয় ক্ষতির কথা জানিয়েছেন রাসুল সা.
.............................................................................................
উপমহাদেশে ইসলামের আগমন
.............................................................................................
সালাম দিলে নব্বই নেকি আর জবাব দিলে দশ নেকি
.............................................................................................
মসজিদে প্রবেশ ও বের হওয়ার সুন্নতসমূহ
.............................................................................................
আজ পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম ।
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন ।
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন ।

সম্পাদক কর্তৃক শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত । সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্ল্যাক্স (৬ষ্ঠ তলা) । ২৮/১ সি টয়েনবি সার্কুলার রোড, মতিঝিল, বা/এ ঢাকা-১০০০ । জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা ।
ফোন নাম্বার : ০২-৯৫৮৭৮৫০, ০২-৫৭১৬০৪০৪
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, ০১৯১৬৮২২৫৬৬ ।

E-mail: dailyganomukti@gmail.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD