ঢাকা,মঙ্গলবার,১৩ মাঘ ১৪২৭,২৬,জানুয়ারী,২০২১ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > বাঁচতে চায় নীলফামারী আতোয়ারা বেগম   > কমলগঞ্জের তাঁতশিল্পে উৎপাদিত পণ্যের চাহিদা বাড়ছে বিশ্ববাজারে   > টুঙ্গিপাড়ায় সাড়ে ৩৫শ’ পরিবার পাচ্ছেন নিরাপদ পানি   > ধান সংগ্রহে লটারির মাধ্যমে কৃষক নির্বাচন করা হয়েছে : ইউএনও   > সরকারি খরচে আইনগত সহায়তা বিষয়ক লোক সংগীত ও পথ নাটক   > মেসিবিহীন বার্সেলোনার জয়   > সাতপাকে বাঁধা পড়লেন বরুণ-নাতাশা   > এসএসসির পাঠ্যসূচি কমিয়ে সিলেবাস প্রকাশ   > কুয়াশায় মাওয়ায় বিধ্বস্ত ৭ গাড়ী, আহত অনেকে   > রিমান্ডে পিকে হালদারের তিন সহযোগী  

   অপরাধ জগত -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ডিবি পরিচয়ে স্বর্ণ লুটের ঘটনায় মাদক নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা কারাগারে

স্টাফ রিপোর্টার : নিজেকে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ পরিচয় দিয়ে ৯০ ভরি স্বর্ণ লুটের অভিযোগে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক এস এম সাকিব হোসেনসহ পাঁচজনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল শনিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাস এই আদেশ দেন। আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আসামি পাঁচজনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড শেষে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক আসামিদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। গত ৭ জানুয়ারি পুরান ঢাকা তাঁতীবাজার থেকে স্বর্ণ কিনে ফিরছিলেন মুন্সীগঞ্জের লাকী জুয়েলার্সের কর্ণধার ব্যবসায়ী সিদ্দিকুর রহমান। তারপর কয়েক ব্যক্তি রাস্তা থেকে ব্যবসায়ীকে তুলে নিয়ে ৯০ ভরি স্বর্ণ লুট করে। অজ্ঞাত ব্যক্তিরা নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দেয় বলে মামলার নথি থেকে জানা গেছে। এ ঘটনায় রাজধানীর কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করা হয়। পুলিশ প্রথমে স্বর্ণের দোকানের দুই কর্মচারীকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। তারা জিজ্ঞাসাবাদে এ ঘটনায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সাকিব হোসেনের নাম বলে।
এরপর সিপাহি আমিনুল, সোর্স হারুনসহ সাকিব হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। ১৯ জানুয়ারি সাকিব হোসেন, সোর্স হারুন ও সিপাহি আমিনুলের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ২০ জানুয়ারি এই মামলায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের গাড়িচালক ইব্রাহিম শিকদার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এরপরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এ ছাড়া আসামি পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) এমদাদুল ও সিপাহি আলমগীরকে দুদিন করে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়। আসামি সাকিব হোসেন মুন্সীগঞ্জ জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। তবে মাসখানেক ধরে তিনি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের একটি প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করার জন্য রাজধানী ঢাকায় অবস্থান করছেন।

ডিবি পরিচয়ে স্বর্ণ লুটের ঘটনায় মাদক নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা কারাগারে
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : নিজেকে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ পরিচয় দিয়ে ৯০ ভরি স্বর্ণ লুটের অভিযোগে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক এস এম সাকিব হোসেনসহ পাঁচজনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল শনিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাস এই আদেশ দেন। আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আসামি পাঁচজনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড শেষে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক আসামিদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। গত ৭ জানুয়ারি পুরান ঢাকা তাঁতীবাজার থেকে স্বর্ণ কিনে ফিরছিলেন মুন্সীগঞ্জের লাকী জুয়েলার্সের কর্ণধার ব্যবসায়ী সিদ্দিকুর রহমান। তারপর কয়েক ব্যক্তি রাস্তা থেকে ব্যবসায়ীকে তুলে নিয়ে ৯০ ভরি স্বর্ণ লুট করে। অজ্ঞাত ব্যক্তিরা নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দেয় বলে মামলার নথি থেকে জানা গেছে। এ ঘটনায় রাজধানীর কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করা হয়। পুলিশ প্রথমে স্বর্ণের দোকানের দুই কর্মচারীকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। তারা জিজ্ঞাসাবাদে এ ঘটনায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সাকিব হোসেনের নাম বলে।
এরপর সিপাহি আমিনুল, সোর্স হারুনসহ সাকিব হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। ১৯ জানুয়ারি সাকিব হোসেন, সোর্স হারুন ও সিপাহি আমিনুলের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ২০ জানুয়ারি এই মামলায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের গাড়িচালক ইব্রাহিম শিকদার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এরপরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এ ছাড়া আসামি পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) এমদাদুল ও সিপাহি আলমগীরকে দুদিন করে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়। আসামি সাকিব হোসেন মুন্সীগঞ্জ জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। তবে মাসখানেক ধরে তিনি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের একটি প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করার জন্য রাজধানী ঢাকায় অবস্থান করছেন।

উত্তরা থেকে গ্রেফতার ‘হেলিকপ্টার রুবেল’
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : কানাডিয়ান কাউন্সিল ফর ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন (সিসিআইসি) নামক একটি বিদেশি এনজিও সংস্থার কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে মো. রুবেল আহম্মেদ ওরফে হেলিকপ্টার রুবেল-কে (৩৬) গ্রেফতার করেছে রাজধানীর কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের ইকোনমিক ক্রাইম অ্যান্ড হিউম্যান ট্রাফিকিং ডিভিশন। নিজেকে প্রমাণ ও মানুষের মনে বিশ্বাস স্থাপন করতে তিনি ঢাকা থেকে যাতায়াতে সব সময় হেলিকপ্টার ব্যবহার করতেন বলে তার নাম হয়ে যায় হেলিকপ্টার রুবেল। হেলিকপ্টার  দেখিয়ে তিনি লাখ লাখ টাকা প্রতারণা করতেন। গতকাল সোমবার সিটিটিসি থেকে দেওয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। কর্মকর্তারা জানান, রাজধানীর উত্তরার ১৮ নম্বর সেক্টরের একটি বাসা থেকে রুবেলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সেখানেই তিনি আত্মগোপনে ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি শরীয়তপুরে। বিমানবন্দর থানায় হওয়া একটি মামলার সূত্র ধরে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  মামলার বিবরণী থেকে জানা গেছে, রুবেল আহম্মেদ নিজেকে সিসিআইসি নামক একটি বিদেশি এনজিও সংস্থার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে পরিচয় দিতেন। তিনি সাত থেকে আট জন সহযোগী নিয়ে কুষ্টিয়া জেলার খোকসা থানাধীন তিন নম্বর বেতবাড়ীয়া ইউপি এলাকা পরিদর্শন করে জলবায়ুজনিত কারণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার, দরিদ্র মানুষের তালিকা প্রস্তুত ও তাদের আবাসন প্রদান, স্কুল নির্মাণ, নদীভাঙন রক্ষায় বাঁধ নির্মাণ, কৃষকদের মাঝে ডিপ টিউবওয়েল প্রদান এবং দুস্থদের চিকিৎসা সাহায্যসহ বিভিন্ন সেবামূলক আর্থিক অনুদানের ব্যবস্থাপূর্বক ১৭ কোটি ৩৩ লাখ টাকার প্রজেক্ট প্রস্তুত এবং এ সংক্রান্ত প্রজেক্ট পার্টনার, প্রজেক্ট ও স্কুলে শিক্ষক নিয়োগসহ নানা রকম প্রলোভনের ফাঁদে এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের ভুয়া ফান্ডের টাকা ছাড়ের জন্য আড়াই শতাংশ হিসেবে ট্যাক্স ও বিভিন্ন খরচ বাবদ ৪৩ লাখ টাকাসহ কোটি টাকার বেশি পরিমাণ অর্থের প্রতারণা করে নিজেকে আত্মগোন করেন। প্রাথমিক তদন্তে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করাই তার পেশা বলে জানা গেছে। নিজেকে প্রমাণ ও মানুষের মনে বিশ্বাস স্থাপন করতে তিনি ঢাকা থেকে যাতায়াতে হেলিকপ্টার ব্যবহার করতেন। কুষ্টিয়া, মাগুরা, খাগড়াছড়িসহ কয়েক জেলা থেকে তিনি কয়েক কোটি টাকা প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নিয়েছেন বলে প্রাথমিক তথ্য পাওয়া গেছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা আরও হয়েছে, অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের সময় প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ল্যাপটপ, একাধিক মোবাইল সিমকার্ড, ভ্যাট প্রদানের নির্দেশপত্র, কোটেশন গ্রহণপূর্বক কাজের অনুমোদন প্রদানের কপি, অনলাইনে কর পরিশোধ পদ্ধতি সংক্রান্ত ভুয়া কাগজপত্র, বিভিন্ন মানুষের ছবি ও এনআইডির ফটোকপি সংযুক্ত করা অনুদানপ্রাপ্তির ফাঁকা আবেদন ফরম ও চিকিৎসার জন্য সাহায্যের আবেদন, দুস্থদের ঘর প্রদানের নামের তালিকা, সিসিআইসি প্রজেক্ট বাস্তবায়ন কমিটির তালিকা, ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য ক্রয়ের অনুমোদনপত্র ও বিল ভাউচার, সিসিআইসির ফাইন্যান্সিয়াল স্টেটমেন্টসহ বিভিন্ন কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

ঢাকায় কাচের জারে ৭৫ কোটি টাকার সাপের বিষ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর দক্ষিণখান থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৭৫ কোটি টাকা মূল্যের সাপের বিষসহ আন্তর্জাতিক চোরাচালান চক্রের ৬ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব। গ্রেফতার ব্যক্তিদের কাছে কাচের জারে ৮ কেজি ৯৬ গ্রাম (জারসহ) সাপের বিষ পাওয়া যায় বলে জানায় র‌্যাব। যার আনুমানিক মূল্য ৭৫ কোটি টাকা। ইউএনবি জানায়, শুক্রবার র‌্যাব-২ এর সিনিয়র এএসপি আবদুল্লাহ আল মামুন স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। র‌্যাব জানিয়েছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার র‌্যাব-২ এর একটি দল জানতে পারে রাজধানীর দক্ষিণখান থানাধীন ৫০ নম্বর ওয়ার্ড গুলবার মুন্সি সরণিতে আন্তর্জাতিক চোরাচালান চক্রের কয়েকজন সদস্য বিপুল পরিমাণ সাপের বিষ নিয়ে অবস্থান করছে। এই সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের দল বৃহস্পতিবার বিকালে সেখানে অভিযান চালায়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় র‌্যাব তাদের আটক করে। এ সময় আটক ব্যক্তিদের সঙ্গে থাকা ব্যাগ তল্লাশি করে সাপের বিষসংক্রান্ত সিডি এবং সাপের বিষের ম্যানুয়াল বই উদ্ধার করা হয়। র‌্যাব জানতে পারে, নির্দিষ্ট গোষ্ঠীর কাছে সাপের বিষের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বেশি মুনাফার লোভে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সাপের বিষ সংগ্রহ করে চোরাচালান করা হয়। গ্রেফতার আসামিরা আন্তর্জাতিক সাপের বিষ চোরাচালান চক্রের সক্রিয় সদস্য বলে জানায় র‌্যাব। আটকদের জিজ্ঞাসাবাদে আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে এবং এগুলো যাচাই-বাছাই করে ভবিষ্যতে র‌্যাবের এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানানো হয় সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।  আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ঝিকরগাছায় এক রাতে ২০ বিঘা জমির গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা
                                  

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোরের ঝিকরগাছায় এক রাতে ২০ বিঘা জমির ৮শ’ আম গাছ কেটে সাবাড় করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার খরুষা গ্রামে। এ ব্যাপারে কৃষক মওদুদ আহম্মেদ দিপু বাদি হয়ে ঝিকরগাছা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ পেয়ে থানার পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে এ ঘটনার সাথে জড়িত অভিযোগে কাউকে আটক করতে পারেনি। সূত্রে জানা গেছে, দুর্বৃত্তরা গত বৃহস্পতিবার রাতে খরুষা মাঠে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে ১৬জন কৃষকের ২০ বিঘা জমির প্রায় ৮শ’ আম গাছ কেটে দিয়েছে। যার ক্ষতির পরিমান প্রায় ১ কোটি টাকা। এ ঘটনায় খরুষা গ্রামের সাধারণ কৃষকদের মাঝে চরম আতংক বিরাজ ক্রছে। অন্য আতঙ্কিত কৃষকদের ভাবনা, যে কোন রাতে তাদেরও আম, পেয়ারা, কুল বাগানের গাছ কেটে দিতে পারে হয়তো দুর্বৃত্তরা। রাতের আঁধারে ফলের গাছ কাটায় কৃষকেরা ভেঙ্গে পড়েছেন। তারা জানান, গত ৩ বছর ধরে আম বাগান পরিচর্যা করছেন। অনেক টাকা বাগানে খরচ করেছেন। এ বছর আম ধরবে তাদের বাগানে। অনেক গাছে মুকুল আসতে শুরু করেছে। এমন সময় দুর্বৃত্তরা ক্ষতি করলো। এ ক্ষতি পুষিয়ে নেয়ার কোনো মতা তাদের নেই বলে জানান কৃষকেরা। খরুষা গ্রামের কৃষক মওদুদ আহম্মেদ দিপু জানান, সকালে মাঠে গিয়ে দেখেন তার তিন বিঘা জমির ১২০টি আম গাছ ধারালো অস্ত্র দিয়ে গোড়া থেকে কেটে দিয়েছে। সে সময় তিনি মাঠে থেকে আরও জানতে পারেন তার মতো কৃষক আব্দুল খালেক, আব্দুল মালেক, মুনছুর ধাবক, মুহদুল ইসলাম,আব্দুল মান্নান, ফজলুর রহমান, মনিরুল ইসলাম, মিজাক আলী, আতাউর রহমান, তাহাজ্জত আলী, তোফাজ্জেল হোসেন, আলতাফ হোসেন, আতিয়ার রহমান, আব্দুল করিম, মশিয়ার রহমান ও শাহাজান আলীর জমির আমগাছ একই ভাবে কেটে দিয়েছে।
কৃষকদের ধারণা ২০/২৫জন দুর্বৃত্ত গভীর রাতে অনেক সময় ধরে এ গাছ কাটার কাজ করেছে। এ ঘটনায় এলাকায় সাধারণ চাষিদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। অনেকের ধারণা একটি কুচক্রি মহল এলাকায় অশান্তি সৃষ্টি করতে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে।

এমসি কলেজে ধর্ষকদের ডিএনএ রিপোর্ট, চার্জশিট প্রস্তুতি চলছে
                                  

গণমুক্তি রিপোর্ট : সিলেটের মুরারিচাঁদ কলেজের (এমসি) ছাত্রাবাসে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনাস্থলের ডিএনএ নমুনার রিপোর্ট তদন্ত কর্মকর্তার কাছে দেয়া হয়েছে। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম) বিএম আশরাফ উল্যাহ তাহের এ তথ্য গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করে জানান শিগগিরই তদন্তকারী কর্মকর্তা এ মামলার চার্জশিট দিবেন। এ মামলায় গ্রেফতারকৃত আট আসামির ডিএনএ নমুনা গত ১ ও ৩ অক্টোবর সংগ্রহ করে ঘটনাস্থলের নমুনার সঙ্গে মেলানোর জন্য ঢাকার পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়। নমুনা পরীক্ষা শেষে রিপোর্ট আদালতে প্রেরণ করা হয় এবং পরে আজ সোমবার এ রিপোর্ট তদন্তকারী কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করেন আদালত। ডিএনএ রিপোর্টে আসামিদের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়ার বিষয় নিশ্চিত করলেও এ বিষয়ে বিস্তারিত জানায়নি পুলিশ। গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাত ৮টার দিকে কলেজের ফটকের সামনে বেড়াতে যাওয়া এক তরুণী ও তার স্বামীকে জোরপূর্বক কলেজের ছাত্রাবাসে নিয়ে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে ধর্ষণ করেন একদল তরুণ। এ ঘটনায় সেদিন রাতেই ভুক্তভোগীর স্বামী বাদী হয়ে সিলেটের শাহ পরান থানায় ছয় জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত তিন জনকে সহযোগী হিসেবে উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেন। পরে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পৃথক অভিযানে নামোল্লেখ করা ছয় জনসহ আরও দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাদের সবার রিমান্ড শেষে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

দুই শতাধিক প্লটসহ হাজার কোটি টাকার সম্পদ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : স্বর্ণ চোরাচালানের কারণে নিজের আসল নাম মনিরুল ইসলাম মনিরের পরিবর্তে ‘সোনা মনির’ নামেই তিনি বেশি পরিচিত ছিলেন। এক সময় ঢাকার গাউছিয়া মার্কেটে কাপড়ের দোকানের সেলসম্যান হিসেবে জীবন শুরু করেন। মার্কেটের স্বর্ণ ব্যবসায়ির সঙ্গে পরিচয়ের সূত্র ধরে স্বর্ণ চোরাকারবারিদের সাথে হিসেবে জড়িয়ে যান। সম্পদ বাড়াতে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)-এর দুর্নীতিবাজ সিন্ডিকেটের সহযোগিতায় জালিয়াতির মাধ্যমে হাতিয়ে নেয় ২ শতাধিক প্লট। অবৈধ পথে স্বর্ণ চোরাচালান এবং ভূমি দখল বাণিজ্য করে সোনা মনির এখন হাজার কোটি টাকার বেশি মূল্যের সম্পদের মালিক বনেছেন। রাজউকের কিছু অসাধু কর্মকর্তার সহায়তায় শুধু সিল নকল করে রাজধানীতেই ২০০টির বেশি প্লট কব্জা করেছেন তিনি। গোয়েন্দা সংস্থার তথ্যের ভিত্তিতে অনুসন্ধানে নেমে ঘটনার সত্যতা পেয়েছে র‌্যাব। তার সহযোগি রাজউকের দুর্নীতিবাজদের তালিকা এখন র‌্যাবের হাতে। শুক্রবার রাত থেকে গতকাল শনিবার সকাল পর্যন্ত অবিরাম অভিযানে বাড্ডা থেকে সোনা মনিরকে অস্ত্র, মাদক, দামী গাড়ী এবং বিপুল পরিমাণ বিদেশি মুদ্রাসহ গ্রেফতার করা হয়। অভিযান শেষে ঘটনাস্থলে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জনিয়েছেন র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ। তিনি বলেন, স্বর্ণ চোরাচালানের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে ২০০৭ সালে বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা হয়।  সোনা মনিরের আরও একটি পরিচয় রয়েছে। তিনি ভূমিদস্যু। রাজউকের কতিপয় কর্মকর্তার সঙ্গে যোগসাজশে ভুয়া সিল বানিয়ে বিপুল পরিমাণ ভূমি দখল করে অর্থ-সম্পদের মালিক হয়েছেন। ডিআইটি প্রজেক্ট ছাড়াও বাড্ডা, নিকুঞ্জ, উত্তরা ও কেরানীগঞ্জে তার ২০০টির বেশি প্লট আছে বলে র‌্যাব জানতে পেরেছে। রাজউকের সম্পত্তি বেদখল করে এবং স্বর্ণ চোরাচালান করে বর্তমানে তার সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় ১ হাজার ৫০ কোটি টাকারও বেশি।পাশাপাশি তার কার সিলেকশন থেকেও তিনটি বিলাসবহুল অনুমোদহীন গাড়ি জব্দ করা হয়েছে।’ লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেন, ‘মনিরের স্বর্ণ চোরাচালানের রুট ছিল ঢাকা-সিঙ্গাপুর এবং ভারত। এই সব দেশ থেকে তিনি ট্যাক্স ফাঁকি দিয়ে বিপুল পরিমাণ স্বর্ণ বাংলাদেশে আমদানি করেছেন। যার ফলশ্রুতিতে তার নাম হয়ে যায় সোনা মনির।’ গতকাল মনির ৩০টি প্লটের কথা প্রাথমিকভাবে র‌্যাবের কাছে স্বীকার করেছেন বলেও জানান তিনি। আশিক বিল্লাহ বলেন, ‘তার বিরুদ্ধে তদন্ত করার জন্য দুদক, বিআরটিএ, মানিলন্ডারিংয়ের জন্য সিআইডি এবং ট্যাক্স ফাঁকি বা এ সংক্রান্ত বিষয়ে এনবিআরকে আনুষ্ঠানিকভাবে অনুরোধ জানাবে র‌্যাব।’ এই র‌্যাব কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা তার বাসা থেকে দুটি বিলাসবহুল অনুমোদনহীন বিদেশি গাড়ি জব্দ করেছি। যার একেকটির মূল্য প্রায় তিন কোটি টাকা। পাশাপাশি তার কার সিলেকশন থেকেও তিনটি বিলাসবহুল অনুমোদহীন গাড়ি জব্দ করা হয়েছে।’ লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেন, ‘মনিরের স্বর্ণ চোরাচালানের রুট ছিল ঢাকা-সিঙ্গাপুর এবং ভারত। এই সব দেশ থেকে তিনি ট্যাক্স ফাঁকি দিয়ে বিপুল পরিমাণ স্বর্ণ বাংলাদেশে আমদানি করেছেন। যার ফলশ্রুতিতে তার নাম হয়ে যায় সোনা মনির।’ গতকাল মনির ৩০টি প্লটের কথা প্রাথমিকভাবে র‌্যাবের কাছে স্বীকার করেছেন বলেও জানান তিনি। আশিক বিল্লাহ বলেন, ‘তার বিরুদ্ধে তদন্ত করার জন্য দুদক, বিআরটিএ, মানিলন্ডারিংয়ের জন্য সিআইডি এবং ট্যাক্স ফাঁকি বা এ সংক্রান্ত বিষয়ে এনবিআরকে আনুষ্ঠানিকভাবে অনুরোধ জানাবে র‌্যাব।’

লক্ষ্মীপুরে পরিবার কল্যাণ সহকারী বিলকিসের বাসায় অবৈধ হাসপাতাল
                                  

মো. নজরুল ইসলাম দিপু, লক্ষ্মীপুর : লক্ষ্মীপুরে বাসাকে হাসপাতাল বানিয়ে অবৈধভাবে প্রসূতি মায়েদের ডেলিভারী ও সর্বরোগের চিকিৎসা চালানোর অভিযোগ উঠেছে পরিবার কল্যান সহকারী বিলকিস বেগমের উপর। আইনকে তোয়াক্কা না করে জন্ম নিয়ন্ত্রণ ইনজেকশান ও অন্যান্য পদ্ধতিও দিচ্ছেন তিনি। চিকিৎসা বিজ্ঞানে কোন ডিগ্রী না থাকলেও অবৈধভাবে গাইনী ও প্রসূতি রোগী দেখছেন ও চিকিৎসা দিচ্ছেন হরহামেশা।
সরেজমিনে দেখা যায়, জেলার কমলনগর উপজেলার চরলরেঞ্চ ইউনিয়নের লরেঞ্চ দক্ষিন বাজারের আউয়াল মেম্বারের বাড়িতে নিজ বাসায় ৩টি রুমকে হাসপাতাল বানিয়ে নিয়মিত রোগী চিকিৎসা দিয়ে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করে আসছেন একই ইউনিয়নে দায়িত্বপ্রাপ্ত পরিবার কল্যাণ সহকারী বিলকিস বেগম। ওয়ার্ড পর্যায়ে গর্ভবতী মায়েদের তালিকা করা, নিয়মিত চেকআপ নিশ্চিত করা ও হাসপাতালে নিরাপদ ডেলিভারী করতে সহায়তা করা ও টিকা নিশ্চিত করার কাজের দায়িত্বপালন করা এই পরিবার কল্যাণ সহকারীর কোন ডিগ্রী না থাকলেও তিনি প্রতিদিন চেম্বার করছেন। নিজের হাসপাতালে তিনি নিজেই করছেন ডেলিভারী। এছাড়াও স্ত্রী রোগ, কিশোরী, প্রসূতি ও মহিলাদের বিভিন্ন গাইন রোগের চিকিৎসা করছেন। জন্ম নিয়ন্ত্রন ইনজেকশান ও বিভিন্ন প্রদ্ধতি দিয়ে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। জানা যায়, সরকারী ভাবে ইউনিয়ন ও উপজেলা পর্যায়ে হাসপাতালগুলোতে বিনামূল্যে প্রসূতি মায়েদের ডেভিভারীসহ সকল রোগের চিকিৎসার জন্য আধুনিক ব্যবস্থা রয়েছে। পরিবার কল্যাণ সহকারী হওয়ার সুবাধে বিলকিস গ্রামের প্রসূতিদের তালিকা প্রণয়ন করে থাকেন। ঠিক তখনই কেউ ডেলিভারীর জন্য আসলে সরকারি হাসপাতালে না পাঠিয়ে নিজের চেম্বারে ডেলিভারী করে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। এছাড়াও হাসপাতালের পাশেই নিজের নামেই দিয়েছেন ফার্মেসী। অধিকমূল্যে ওষুধ বিক্রি করেও করছেন প্রতারণা। ডিগ্রী না থাকার পরেও অবৈধভাবে বাসাকে হাসপাতাল বানিয়ে ডেলিভারী ও রোগী দেখছেন মর্মে জানতে চাইলে বিলকিস বেগম চেঁছিয়ে বলেন, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের ডিজি তাকে ট্রেনিং দিয়েছেন। এছাড়াও তাকে ঘরে বসে না থেকে রোগী সেবা দিতে বলছেন। ডিজির অনুমতিতেই তিনি এই হাসপাতাল বানিয়েছেন এবং সেবা দিচ্ছেন। হাসপাতালের অনুমোদন আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন তার ড্রাগ লাইসেন্স আছে। জানা যায়, লক্ষ্মীপুর-কমলনগর মহাসড়কের পাশেই ডা: বিলকিস বেগম লেখা বিশাল সাইনবোর্ড ইতোমধ্যে জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের উপ-পরিচালকের নির্দেশে সরাতে বাধ্য হয় তিনি। এছাড়াও বাসায় অবৈধ হাসপাতাল কার্যক্রম বন্ধ করতে তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়।

বগুড়ায় গাঁজার চালানসহ তিন জন আটক
                                  

বগুড়া অফিস : বগুড়ার আদমদিঘি থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৬০ কেজি গাঁজাসহ তিন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে। সেই সাথে আটক করা হয়েছে গাঁজা বহনকাজে ব্যবহৃত একটা গাড়ী (ঢাকা মেট্রো ঘ- ১১- ৩৩৫৬) উদ্ধার করেছে। এটি বগুড়ায় স্মরনকালে সবচেয়ে বড় চালান। গ্রেফতারকৃতরা হলো, কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ি থানার অনন্তপুরের অলি উদ্দিনের ছেলে। আলমগীর (২৮), টাংগাইল জেলার কালীহাটা থানার চর দুগাপুরের আব্দুর রশিদের ছেলে মো. আব্দুর রহিম (৩০), বরিশাল জেলার বানারিপাড়া থানার আহমেদাবাদের ইলিয়াস উদ্দিনের ছেলে মো. রিপন(৫২)।
বগুড়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( সদর) সনাতন চকবত্তী জানান, নারায়ণগঞ্জ থেকে গাঁজা বহনকারী একটি জিপ নওগাঁর বদলগাছি যাচ্ছে গোপন সূত্রে এমন সংবাদ পেয়ে পুলিশ আদমদিঘি থানা বাসস্ট্যান্ডে অবস্থান নেয়। গতকাল শনিবার দুপুরে এ জিপটি এলে সেটাকে চ্যালেঞ্জ করে তল্লাশি করে উক্ত গাঁজা পাওয়া যায়। এর সাথে জড়িত ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

সুন্দরবনে হরিণের মাংস ও চামড়াসহ দুই পাচারকারী আটক
                                  

মোংলা প্রতিনিধি : সুন্দরবনের হড্ডা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১০ কেজি হরিণের মাংস, দুটি মাথা ও ৪শ মিটার ফাঁদ ও একটি মোটর সাইকেলসহ দুই পাচারকারীকে আটক করেছে মোংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের আওতাধীন বিসিজি নলিয়ান স্টেশানের অপারেশন দল। আজ রবিবার ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এসব উদ্ধার করা হয়।
কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের স্টাফ অফিসার (অপারেশন) লেফটেন্যান্ট কমান্ডার ইমতিয়াজ আলম বলেন, সুন্দরবনে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার সুযোগে একদল পাচারকারী গোপনে বনে প্রবেশ করে হরিণসহ অন্যান্য বণ্যপ্রাণী শিকার করে দেশের বিভিন্ন স্থানে পাচার করে আসছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে অবিযান চালায় কোস্টগার্ড সদস্যরা। আটকরা হলেন- খুলনার কয়রা এলাকার হড্ডা গ্রামের অরবিন্দু রায়ের পুত্র জামিনী রায় ও একই এলাকার সুরিন্দ্রনাথ মন্ডলের পুত্র অরুন মন্ডল।

গাংনী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দালালদের তৎপরতা বন্ধে কঠোর পদক্ষেপ
                                  

নুহু বাঙ্গালী, মেহেরপুর : মেহেরপুর গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দালালদের তৎপরতা ও রোগীর টেস্ট করানো নিয়ে কঠোর অবস্থানে কর্তৃপক্ষ। দালাল রুখতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং পুলিশ বিভাগে লিখিত আবেদন করা হয়েছে। অপরদিকে, চিকিৎসক, স্যাকমো, এমআরদের জন্য নতুন নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
অভিযোগ রয়েছে, গাংনীর চিহ্নিত কয়েকটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিক তাদের দালাল নিয়োজিত রেখেছে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। তারা প্রতিনিয়ত রোগীদেরকে তাদের স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানে নিয়ে টেস্ট করায়। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেও কর্মরত কয়েকজনের বিরুদ্ধে দালালদের সহায়তায় সম্পৃক্ততার অভিযোগ রয়েছে। ফলে দালালদের অপতৎপরতা ঠেকাতে কঠোর অবস্থান নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তাদেরকে গ্রেফতার ও ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা নিশ্চিত করণের জন্য ইতোমধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও গাংনী থানায় লিখিতভাবে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এম রিয়াজুল আলম।
এদিকে গাংনী হাসপাতালে চিকিৎসক, স্যাকমো, ফার্মাসিস্ট ও এমআরদের বিষয়ে জারিকৃত নির্দেশনায় বলা হয়েছে, সরকারি সরবরাহ নেই এমন কোন ওষুধ চিকিৎসা ব্যবস্থাপত্রে লেখা যাবে না। অফিস চলাকালিন সময়ে হাসপাতালে হয় এমন কোন টেস্ট করানোর জন্য রোগিকে বাইরে পাঠানো যাবে না। বাইরে করাতে হলে তা অত্যন্ত প্রয়োজনীয় ও যৌক্তিকভাবে করা যাবে। টিকিট ছাড়া কোন ওষুধ হাসপাতাল ফার্মেসী থেকে নেওয়া যাবে না এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ক্ষেত্রে অবশ্যই টিকিট কাটতে হবে।
অপরদিকে ওষধ বিপণন কর্মকর্তাদের (এমআর) জন্য নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, শুধুমাত্র বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে ২টা পর্যন্ত চিকিৎসকদের সাথে এমআরগন সাক্ষাত করতে পারবেন। এ সময়ের বাইরে তারা হাসপাতালে অবস্থান করতে পারবে না। এমআররা কোন প্রেসক্রিপশনের ছবি তুলতে পারবেন না। কোন ওষুধ কোম্পানির প্রডাক্ট প্রমোশনের অনুষ্ঠান আয়োজন করতে চাইলে প্রতিষ্ঠান প্রধানের সঙ্গে আলোচনা ও অনুমতি নিতে হবে কিন্তু কোন অর্থ লেনদেন করতে পারবে না এবং বিষয়টি সিভিল সার্জনকে অবহিত করতে হবে।
এ বিষয়ে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এম রিয়াজুল আলম বলেন, নির্দেশনার বিষয়টি কঠোরভাবে প্রতিপালন করার জন্য সংশ্লিষ্ঠদের বলা হয়েছে। অপরদিকে অন্যান্য যে বিষয়গুলো রয়েছে তাও কঠোরতার সাথে দেখা হচ্ছে। মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষের যা যা করণীয় সে বিষয়ে কোন প্রকার ছাড় দেওয়া হবে না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

বান্দরবানে ধর্ষণের অভিযোগে এক যুবক গ্রেফতার
                                  

বান্দরবান প্রতিনিধি : বান্দরবানে এক মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২৭ সেপ্টেম্বর ভোর রাতে বান্দরবান সদরের বাজার এলাকার মসজিদ মার্কেটের গলিতে এক ভারসাম্যহীন নারীকে ধর্ষণ করে জামাল হোসেন নামের এক যুবক। এরপর সকালে বাজারের সিসিটিভি ফুটেজ এ এক ভারসাম্যহীন নারীকে ধর্ষণ এর ভিডিও প্রকাশিত হলে বাজারের ব্যবসায়ী ও স্থানীয় জনসাধারণ জামাল হোসেনকে খোঁজাখুজি করতে থাকে।
এদিকে গেল রাতে জামাল হোসেনকে হাতেনাতে পায় বাজার এলাকার বাসিন্দারা। এ সময় জামাল হোসেন (২০) তার দোষ স্বীকার করলে উপস্থিত জনতা তাকে গণধোলাই দেয়। পরে বান্দরবান সদর থানা পুলিশের একটি টিম আসামী জামাল হোসেনকে গ্রেফতার করে বান্দরবান সদর হাসপাতালে ভর্তি করে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে আসে।
বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, বান্দরবানে মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে ধর্ষনের অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ, তার বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে একটি ধর্ষন মামলা দায়েরের প্রস্তুতি গ্রহণ করছে। এদিকে বান্দরবানে ভারসাম্যহীন নারীকে ধর্ষণ এর ঘটনায় স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে এবং দোষীকে যথাযথ শাস্তি প্রদানের দাবি ওঠেছে।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশে অস্ত্র কারখানার সন্ধান, আটক ২
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজারের উখিয়ার মধুরছড়ার গহীন পাহাড়ে অস্ত্র তৈরির কারখানার সন্ধান পেয়েছে র‌্যাব। অভিযানে দুইজন অস্ত্রের কারিগরকে আটক করা হয়। জব্দ করা হয় তিনটি অস্ত্র, দুই রাউন্ড গুলি ও বিপুল অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম।

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় মধুরছড়া পাহাড়ে অভিযান চালানো হয় বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-১৫ কক্সবাজার ব্যাটালিয়ানের উপ-অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসান।

আটকরা হলেন- মহেশখালী উপজেলার বাসিন্দা আবু মজিদ ওরফে কানা মজিদ ও রবি আলম। তারা অস্ত্র তৈরির কারিগর।

র‌্যাব জানিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে আটকরা মধুরছড়া গহীন পাহাড়ি এলাকায় অবস্থান করে অস্ত্র তৈরি করে রোহিঙ্গাদের মাঝে সরবরাহ করে আসছিল। গতকাল বিকালে কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন সংরক্ষিত গহীন পাহাড়ে কিছু অস্ত্র ব্যবসায়ী অবস্থান করছে বলে খবর পায় র‌্যাব। এরপর র‌্যাবের একটি দল অভিযান চালায়। এক পর্যায়ে মধুরছড়া নামে একটি পাহাড় থেকে দুইজনকে আটক করা হয়। পরে তাদের অবস্থান নেয়া একটি কুড়ে ঘর থেকে দেশীয় তৈরি ২টি বন্দুক, ২টি গুলি ও বেশ কিছু অস্ত্র তৈরির সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়েছে।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, আটকরা মহেশখালী থেকে এসে মধুরছড়া গহীন পাহাড়ি এলাকায় অবস্থান করে অস্ত্র তৈরি করে রোহিঙ্গাদের কাছে সরবরাহ করত। তারা দীর্ঘদিন ধরে অস্ত্র তৈরি করে এই কাজ করে আসছিল। অভিযান স্থলের দু’পাশে কয়েকটি রোহিঙ্গা ক্যাম্প রয়েছে।

ফেনীতে ৩ প্রতিষ্ঠানকে ৩১ লাখ টাকা জরিমানা
                                  

দাগনভূঞা প্রতিনিধি : ফেনীতে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে খাদ্যে ভেজালের অভিযোগে ৩ প্রতিষ্ঠানের ৩১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গত বুধবার র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিট্রেট পলাশ কুমার বসুর নেতৃত্ব এই অভিযান পরিচালিত হয়।
ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্র জানায়, র‌্যাব-৭ এর একটি টিম বুধবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে কালিপাল দশমীঘাটের পাশে অবস্থিত রসমেলা কারখানাকে ১৩ লাখ টাকা, যমুনা বেকারী কারখানাকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা এবং ফেনীর বিজয় সিংহ সোনিয়া আইসক্রিম ফ্যাক্টরী কারখানাকে ৮ লাখ টাকা জরিমানা করে। সর্বমোট তিন প্রতিষ্ঠান ভেজাল খাদ্য তৈরির অভিযোগে ৩১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এরমধ্যে সোনিয়া আইসক্রিম কারখানায় মালিক মো. কামরুল হক নগদ আট লাখ টাকা প্রদান করেন।
অপরদিকে, যমুনা ও রসমেলা কারখানার জরিমানা বকেয়া রয়েছে। দুই প্রতিষ্ঠানের তিন কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম, মিলন কান্তি ভৌমিক ও মো. ফজলুল করিমকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের প্রত্যেকে জরিমানা অনাদায়ে আরো তিন মাসের কারাভোগের সাজা প্রদান করা হয়। যমুনা ও রসমেলা কারখানাকে সিলগালা করা হয়। এ সময় জেলা স্যানিটারী পরিদর্শক অমলেন্দু ভান্দারীসহ র‌্যাব-৭ একটি বিশেষ টিম অভিযানে যুক্ত ছিলেন।

নকল মাস্ক সরবরাহের অভিযোগে জেএমআই চেয়ারম্যান গ্রেফতার
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে নিম্নমানের মাস্ক, পিপিই ও অন্যান্য স্বাস্থ্য সরঞ্জাম কেনাকাটায় দুর্নীতির অভিযোগে জেএমআই হসপিটাল রিক্যুইজিট ম্যানুফ্যাকচারিং লিমিটেডের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাককে গ্রেপ্তার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। রাজধানীর সেগুনবাগিচা এলাকা থেকে আজ মঙ্গলবার দুপুরে তাকে গ্রেপ্তার করে দুর্নীতিবিরোধী সংস্থাটি।

দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সেগুনবাগিচা এলাকা থেকে আব্দুর রাজ্জাককে গ্রেপ্তার করা। গ্রেপ্তারের পর তাকে দুদক কার্যালয়ে নেয়া হয়েছে।

করোনা শুরুর পর মার্চের শেষ ভাগে কেন্দ্রীয় ঔষধাগার থেকে বিভিন্ন হাসপাতালে যেসব মাস্ক পাঠানো হয়, তার প্যাকেটে ‘এন-৯৫’ লেখা থাকলেও ভেতরে ছিল সাধারণ সার্জিক্যাল মাস্ক।

রাজধানীর মুগদা জেনারেল হাসপাতাল, মহানগর জেনারেল হাসপাতালে এন-৯৫ মাস্কের মোড়কে সাধারণ মাস্ক দেওয়ার ঘটনায় তোপের মুখে পড়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও কেন্দ্রীয় ঔষধাগার।

রাজধানীর হাসপাতালগুলোতেও ভুল মাস্ক সরবরাহে নাম আসে জেএমআই হসপিটাল রিকুইজিট ম্যানুফ্যাকচারিংয়ের। এ ঘটনায় জেএমআই হসপিটাল রিক্যুইজিট ম্যানুফ্যাকচারিং লিমিটেডের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাককে তলব করে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল দুদক। গত ১ জুলাই সংশ্লিষ্ট নথিপত্রসহ তাকে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে আসতে নোটিস দিয়েছিল দুদকের এই অনুসন্ধান দল।

অনুসন্ধান দলের প্রধান দুদক পরিচালক মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলীর নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি দল ৮ জুলাই জেএমআই হাসপাতাল রিক্যুইজিট ম্যানুফ্যাকচারিং লিমেটেডের চেয়ারম্যানকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের মধ্যে এন-৯৫ মাস্ক ও পিপিইসহ অন্যান্য স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী কেনাকাটায় দুর্নীতির অভিযোগ অনুসন্ধানে গত ১৫ জুন জয়নুল আবেদীন শিবলীকে প্রধান করে চার সদস্যের এই অনুসন্ধান টিম গঠন করে দুদক।

সুন্দরবনে বিষ দিয়ে মাছ শিকারকালে ৩ জেলে আটক
                                  

মনির হোসেন, মোংলা : পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের করমজল অফিস এলাকায় মাছ আহরণ নিষিদ্ধ চাড়াখালী খালে বিষ দিয়ে মাছ শিকারকালে তিন জেলেকে আটক করা হয়েছে। আজ সোমবার সকালে তাদের আটক করা হয়।
এ সময় বিষ দিয়ে আহরিত ১২ কেজি মাছ, এক বোতল বিষ, একটি হাত করাত, দুটি দা ও একটি ডিঙ্গি নৌকা জব্দ করা হয়েছে। আটক জেলেরা হলেন-খুলনার দাকোপ উপজেলার পূর্ব ঢাংমারী গ্রামের নূর মোহাম্মদ ঢালির ছেলে বেল্লাল ঢালি (৪০), একই উপজেলার উত্তর কালাবগী গ্রামের বাবর ঢালীর দুই ছেলে মনিরুল ঢালি (৪২) ও মাসুম ঢালি (৩৫)।
পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন জানান, সুন্দরবন বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের করমজল অফিসের বনরক্ষীরা সোমবার সকালে নিয়মিত টহল দেয়ার সময় মাছ আহরণ নিষিদ্ধ চাড়াখালী খালে একটি ডিঙ্গি নৌকা দেখতে পেয়ে নৌকাটিতে তল্লাশি চালায়।
এসময়ে বিষ দিয়ে আহরিত ১২ কেজি মাছ, এক বোতল বিষ, একটি হাত করাত, দুটি দা ও একটি ডিঙ্গি নৌকা জব্দ করা হয়। আটক করা তিন জেলেকে। আটক জেলেদের নামে বন আইনে মামলা দায়ের করে বিকালে খুলনা জেলা আদালতে পাঠানো হবে।

পানগাঁও কাষ্টম কর্তৃক ৩২ লক্ষ টাকার শুল্ক ফাঁকি উৎঘাটন
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : পানগাঁও কাষ্টমস হাউসের মাধ্যমে চায়না থেকে আমদানীকৃত একটি পণ্য চালানে কাষ্টমস কর্তৃক ৩২ লক্ষ টাকার শুল্ক ফাঁকি উৎঘাটিত হয়েছে। কাষ্টমস সূত্র মতে M/s. N. Rayhan Plastic Shop নামের আমদানীকারক B/E No. 1728 dated 20.09.2020 এর মাধ্যমে ফ্যান- মোটর ঘোষণায় একটি পণ্য চালানে প্রায় ২৯ মে. টন এর শুল্ক ফাঁকি কাষ্টমস কর্তৃক উৎঘাটিত হয়েছে। যাতে জাতীয় শুল্ক করাদি ফাঁকির পরিমাণ প্রতিরোধ করা হয়েছে প্রায় ৩২ লক্ষ টাকা। এ ছাড়া উক্ত ৩২ লক্ষ টাকা ও জরিমানা বাবদ অন্যান্য প্রযোজ্য শুল্ককরাদিসহ আনুমানিক ৯০ লক্ষ টাকা সরকারি কোষাগারে অতিরিক্ত আদায় হবে মর্মে কাষ্টমস সূত্রে জানা গেছে।
প্রসঙ্গতঃ উল্লেখ্য যে, বর্তমানে কাষ্টম হাউস কমলাপুর (ICD) ঢাকা এর কমিশনার মোবারা খানম অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসাবে কাষ্টম হাউস (ICT) পানগাঁও, ঢাকা এর কমিশনারের দায়িত্ব পালন করছেন।


   Page 1 of 33
     অপরাধ জগত
ডিবি পরিচয়ে স্বর্ণ লুটের ঘটনায় মাদক নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা কারাগারে
.............................................................................................
উত্তরা থেকে গ্রেফতার ‘হেলিকপ্টার রুবেল’
.............................................................................................
ঢাকায় কাচের জারে ৭৫ কোটি টাকার সাপের বিষ
.............................................................................................
ঝিকরগাছায় এক রাতে ২০ বিঘা জমির গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা
.............................................................................................
এমসি কলেজে ধর্ষকদের ডিএনএ রিপোর্ট, চার্জশিট প্রস্তুতি চলছে
.............................................................................................
দুই শতাধিক প্লটসহ হাজার কোটি টাকার সম্পদ
.............................................................................................
লক্ষ্মীপুরে পরিবার কল্যাণ সহকারী বিলকিসের বাসায় অবৈধ হাসপাতাল
.............................................................................................
বগুড়ায় গাঁজার চালানসহ তিন জন আটক
.............................................................................................
সুন্দরবনে হরিণের মাংস ও চামড়াসহ দুই পাচারকারী আটক
.............................................................................................
গাংনী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দালালদের তৎপরতা বন্ধে কঠোর পদক্ষেপ
.............................................................................................
বান্দরবানে ধর্ষণের অভিযোগে এক যুবক গ্রেফতার
.............................................................................................
রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশে অস্ত্র কারখানার সন্ধান, আটক ২
.............................................................................................
ফেনীতে ৩ প্রতিষ্ঠানকে ৩১ লাখ টাকা জরিমানা
.............................................................................................
নকল মাস্ক সরবরাহের অভিযোগে জেএমআই চেয়ারম্যান গ্রেফতার
.............................................................................................
সুন্দরবনে বিষ দিয়ে মাছ শিকারকালে ৩ জেলে আটক
.............................................................................................
পানগাঁও কাষ্টম কর্তৃক ৩২ লক্ষ টাকার শুল্ক ফাঁকি উৎঘাটন
.............................................................................................
টাঙ্গাইলে ট্রান্সফর্মারের ভিতরে ফেন্সিডিল পাঁচার, আটক ২
.............................................................................................
রামগতিতে ৬ জেলে আটক
.............................................................................................
পিবিআই এর অভিযানে অপহৃত আজিজ উদ্ধার, গ্রেফতার ৩
.............................................................................................
লক্ষ্মীপুর মাতৃমঙ্গলে ডেলিভারী চিকিৎসা না দিয়ে স্বজনের সাথে ডাক্তারের দূর্ব্যবহার
.............................................................................................
ডা. সাবরিনার বিরুদ্ধে ইসির মামলা
.............................................................................................
কয়েদি পালিয়ে যাওয়ায় তিন কারারক্ষী বরখাস্ত
.............................................................................................
নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসে অভিযান, ৭ দালাল গ্রেফতার
.............................................................................................
১৯ মাস পর শাকিল হত্যার রহস্য উদঘাটন, গ্রেফতার ৩
.............................................................................................
সন্ধান মেলেনি কারাগার থেকে পালানো কয়েদির
.............................................................................................
জঙ্গিদের হামলার টার্গেট ছিল হজরত শাহজালাল মাজার : সিটিটিসি প্রধান
.............................................................................................
চাঞ্চল্যকর নুর বানু হত্যাকান্ডের রহস্য উদ্ঘাটন করল পিবিআই নারায়ণগঞ্জ
.............................................................................................
কমলগঞ্জে চা বাগান থেকে ৭৪ লিটার চোলাই মদসহ ৫ জন আটক
.............................................................................................
হাসপাতাল প্রতারণা : প্যাথলজি রিপোর্টে মৃত চিকিৎসকের স্বাক্ষর!
.............................................................................................
নরসিংদীর শীর্ষ সন্ত্রাসী বিল্লাল অস্ত্রসহ গ্রেফতার
.............................................................................................
নন্দীগ্রামের বিভিন্ন হাট বাজারে প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল
.............................................................................................
নরসিংদী জেলা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ
.............................................................................................
৬০ বোতল ফেন্সিডিলসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার
.............................................................................................
গাজীপুরে দুইবস্তা জাল টাকা ও ৭শ’ পিস ইয়াবা উদ্ধার
.............................................................................................
সেনবাগে প্রতিবন্ধী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি বন্দুক যুদ্ধে নিহত
.............................................................................................
কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবা ট্যাবলেট সহ ০১ জন গ্রেফতার
.............................................................................................
ফটিকছড়িতে বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্রসহ যুবক আটক
.............................................................................................
বাড়ি নির্মাণের টাকা না দেওয়ায় শাশুড়িকে গুলি, জামাতা আটক, পিস্তল ও গুলি জব্দ
.............................................................................................
শ্রীপুরে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে ভুয়া সাংবাদিকসহ সহযোগী আটক
.............................................................................................
গাজীপুর মহানগরে দুই খুন!
.............................................................................................
সখিপুরে শ্বশুরের ধর্ষণে বাকপ্রতিবন্ধী পুত্রবধূ অন্তসত্ত্বা
.............................................................................................
নীলফামারীতে জাল টাকার নোটসহ প্রতারক চক্রের ৫ সদস্য গ্রেফতার
.............................................................................................
নৈশপ্রহরীকে শ্বাসরোধে হত্যার পর পুলিশের গুলিতে দুই ডাকাত নিহত
.............................................................................................
রূপগঞ্জে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সন্ত্রাসীদের হামলা, দুই নারীর শ্লীলতাহানি!
.............................................................................................
শরীয়তপুরে ডামুড্যায় ইয়াবা ও নগদ টাকাসহ বেদে সম্প্রদায়ের ০১ জন গ্রেফতার
.............................................................................................
আক্কেলপুরে শশুর বাড়িতে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার অভিযোগ, স্বামী আটক
.............................................................................................
ঝিনাইদহে কৃষকের বাড়িতে ডাকাতি, গরু-নগদ টাকাসহ স্বর্ণালংকার লুট
.............................................................................................
মোহনগঞ্জে ব্যবসায়ীদে কাছ থেকে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ
.............................................................................................
আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মুন্সীগঞ্জের চরাঞ্চলে হামলা, ককটেল বিস্ফোরণ, গুলি আহত ১০
.............................................................................................
আক্কেলপুরে তিন অপহরণকারীকে আটক করেছে পুলিশ
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন
বাণিজ্যিক কার্যালয় : "রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্লেক্স"
(৬ষ্ঠ তলা), ২৮/১ সি, টয়েনবি সার্কুলার রোড,
মতিঝিল বা/এ ঢাকা-১০০০| জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা
ফোন নাম্বার : ০২-৪৭১২০৮০৫/৬, ০২-৯৫৮৭৮৫০
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, 01731800427
E-mail: dailyganomukti@gmail.com
Website : http://www.dailyganomukti.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop