| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > এ শূণ্যতা কখনো পূরন হবার নয়   > প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার সফল বাস্তবায়নে ৩৬ বিসিএস আনসারের ১১জন কর্মকর্তার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ   > আমাদের দাবি , ‘জাতীয় দাম্পত্য দিবস’   > ৫০ দিনে ৪০ হাজার ক্ষুধার্ত পরিবারকে খাদ্য সহায়তা   > অসহায় দরিদ্র মানুষের মাঝে শরীয়তপুর পুলিশ সুপারের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ   > রাজশাহী জেলা আনসার ও ভিডিপি’র ত্রাণসামগ্রী বিতরণ   > গত ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনায় নতুন আক্রান্ত ৩০৯   > করোনায় মাদক-জঙ্গি রোধে কঠোরতর ব্যবস্থা : র‌্যাব ডিজি   > রাজশাহী জেলা আনসার ও ভিডিপি কার্যালয় করোনাভাইরাসের প্রভাব হ্রাসে নিরবে কাজ করছে   > ক্যামেরা জার্নালিস্টদের সহায়তা দিলো পারটেক্স গ্রুপ  

   সারা বাংলা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার সফল বাস্তবায়নে ৩৬ বিসিএস আনসারের ১১জন কর্মকর্তার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

এম সাদ্দাম হোসেন পবন
করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব মোকাবিলায় ঈদে সাধারন মানুষের সচেতনতায় ৩৬তম বিসিএস আনসারের ১১ জন কর্মকর্তার অংশগ্রহনে প্লে-কার্ড তৈরী করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশংসায় ভাসছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঈদে সরকারী দফতরের কর্মকর্তাদের কর্মস্থল ত্যাগ না করার নির্দেশ শতভাগ বাস্তবায়নে ৩৬ তম বিসিএস আনসার কর্মকর্তারা ঈদে কর্মস্থলে থাকার অঙ্গীকারে “এবারের ঈদ আনন্দ হোক ত্যাগেÑআমি আছি কর্মস্থলে,আপনি থাকুন ঘরে”শিরোনামে প্লে-কার্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আসায় সরকারের বিভিন্ন দফতরগুলোর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কর্মস্থলে থাকতে উৎসাহিত হচ্ছে এবং সাধারন মানুষ এই সচেতনতায় গুরুত্ব দিয়েছেন।
করোনাভাইরাসের এই পরিস্থিতিতে জন-সাধারনকে সচেতন করা,বিদেশ ফেরতদের বাড়িতে লাল নিশানা স্থাপন,সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে টহল পরিচালনা,প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কবল থেকে রক্ষা এবং শ্রমিকের সংকটের কারনে জমির ধান কেটে কৃষকদের ঘরে তুলে দেয়া এস কাজে সারাদেশে আনসার ও ভিডিপি সদস্যরা গৌরবময় ভূমিকায় প্রশংশা অর্জন করেছেন।
করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব মোকাবিলায় ফ্রন্ট লাইনে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরা মানবতার জয়গানে প্রশংসনীয় ভূমিকায় রয়েছে।
আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল কাজী শরীফ কায়কোবাদ এনডিসি-পিএসসি,জি নির্দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের শুরু থেকেই আনসার ও ভিডিপি সদস্যরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জাতির সেবায় নিরলস ভাবে কাজ করছেন।
চলামান করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব হ্রাসে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহা-পরিচালক মেজর জেনারেল কাজী শরীফ কায়কোবাদ এনডিসি,পিএসসি-জি এর দিক-নির্দেশনায় সারাদেশের প্রতিটি উপজেলার প্রতিটি উপজেলায় ৩’শ জন কর্মহীন অস্বচ্ছল ভিডিপি সদস্যদের প্রতিটি পরিবারের ১ সপ্তাহের খাদ্য ৫ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল,১ লিটার তৈল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি পিয়াজ, ১টি সাবান ও ১টি মাস্ক বিতরন কর্মসূচী অব্যাহত রয়েছে।
এই বাহিনীর ত্রান কর্মসূচীর আদলে সারাদেশে ১ লক্ষ ৪৯ হাজার ৯’শ ভিডিপি সদস্যর পরিবারকে ত্রান সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।
শফিপুর-গাজীপুরে অবস্থিত আনসার ও ভিডিপির সর্ববৃহৎ প্রশিক্ষন একাডেমীর সহকারী পরিচালক(ক্রীড়া ও সংস্কৃতি) মোছা: ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, ইউনিয়ন দলনেতা-নেত্রী,আনসার প্লাটুন কমান্ডার,আনসার সদস্য ও ভিডিপি সদস্যরা করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব মোকাবিলায় জন সচেতনতাসহ হাট ও বাজারগুলোর জনসমাগম বিচ্ছিন্ন করণে নিরলস ভাবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি আরও বলেন, আনসার ও ভিডিপি সদস্যরা প্রত্যকেই দেশ প্রেমিক হিসেবে কাজ করছে এবং এই সর্ব বৃহৎ দক্ষ জনবল সমৃদ্ধ বাহিনীর সদস্য হিসেবে আমি কাজ করতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করি।
ময়মনসিংহ সহকারী জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট মো. ইসমাঈল হোসেন জানান, করোনাভাইরাসের উপস্বর্গ নিয়ে যারা মৃত্যু বরণ করছে তাদের দাফন কার্যাদি সম্পাদনের কাজে আনসার ও ভিডিপি’র সদস্যরা সহায়ক ভূমিকায় সাড়া দিচ্ছেন।
দাফন কাজে সহায়তায় সম্পৃক্ত আনসার ও ভিডিপি’র সদস্যদের দক্ষতা বৃদ্ধিসহ পিপিই ,হ্যান্ডগ্লাভস,মাস্ক ও স্যানিটারাইজার প্রদান করা হয়েছে। ৩৬তম বিসিএস আনসার কর্মকর্তাদের “এবারের ঈদ আনন্দ হোক ত্যাগেÑআমি আছি কর্মস্থলে,আপনি থাকুন ঘরে” এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগের ফলে বাহিনীর সকল স্তরের কর্মকর্তারা কর্মস্থলে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।
নেত্রকোনা সহকারী জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট মো. মিজানুর রহমান বলেন, করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব মোকাবিলায় আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছি এবং প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে জন-সাধারনের সেবা নিশ্চিতরা আমাদের রাষ্ট্রীয় অর্পিত দায়িত্ব। তাই দেশের জন-সাধারনের নিরাপত্তা ও সেবাদানের কাজ নিরলস ভাবে করছি।
রাজশাহী সহকারী জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট মো. রবিউল ইসলাম বলেন, আমরা ৩৬ তম বিসিএস আনসার কর্মকর্তারা নিজ নিজ কর্মস্থলে ঈদ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং এরেই ধারাবাহিকতায় আমরা ১১ জনের “এবারের ঈদ আনন্দ হোক ত্যাগেÑআমি আছি কর্মস্থলে,আপনি থাকুন ঘরে”শিরোনামে প্লে-কার্ড তৈরী করেছি জন সাধারনের সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে। চলমান করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাবে রোগীদের চিকিৎসা সেবা ও মৃত্যু ঝুঁকি কমিয়ে আনতে হাসপাতালে নিরাপত্তায় নিয়োজিত আনসার সদস্যরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দায়িত্ব পালন করছে। ইউনিয়নের ভিডিপি দলনেতা-নেত্রী, আনসার প্লাটুন কমান্ডারসহ সদস্যরা করোনাভাইরাস মোকাবিলায় জন-সচেতনতা ও সামাজিক সুরক্ষায় ব্যাক্তি থেকে ব্যাক্তির দুরত্ব বজায় রেখে সচেতনতামূলক প্রচার কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হয়েছে।

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার সফল বাস্তবায়নে ৩৬ বিসিএস আনসারের ১১জন কর্মকর্তার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ
                                  

এম সাদ্দাম হোসেন পবন
করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব মোকাবিলায় ঈদে সাধারন মানুষের সচেতনতায় ৩৬তম বিসিএস আনসারের ১১ জন কর্মকর্তার অংশগ্রহনে প্লে-কার্ড তৈরী করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশংসায় ভাসছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঈদে সরকারী দফতরের কর্মকর্তাদের কর্মস্থল ত্যাগ না করার নির্দেশ শতভাগ বাস্তবায়নে ৩৬ তম বিসিএস আনসার কর্মকর্তারা ঈদে কর্মস্থলে থাকার অঙ্গীকারে “এবারের ঈদ আনন্দ হোক ত্যাগেÑআমি আছি কর্মস্থলে,আপনি থাকুন ঘরে”শিরোনামে প্লে-কার্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আসায় সরকারের বিভিন্ন দফতরগুলোর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কর্মস্থলে থাকতে উৎসাহিত হচ্ছে এবং সাধারন মানুষ এই সচেতনতায় গুরুত্ব দিয়েছেন।
করোনাভাইরাসের এই পরিস্থিতিতে জন-সাধারনকে সচেতন করা,বিদেশ ফেরতদের বাড়িতে লাল নিশানা স্থাপন,সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে টহল পরিচালনা,প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কবল থেকে রক্ষা এবং শ্রমিকের সংকটের কারনে জমির ধান কেটে কৃষকদের ঘরে তুলে দেয়া এস কাজে সারাদেশে আনসার ও ভিডিপি সদস্যরা গৌরবময় ভূমিকায় প্রশংশা অর্জন করেছেন।
করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব মোকাবিলায় ফ্রন্ট লাইনে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরা মানবতার জয়গানে প্রশংসনীয় ভূমিকায় রয়েছে।
আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল কাজী শরীফ কায়কোবাদ এনডিসি-পিএসসি,জি নির্দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের শুরু থেকেই আনসার ও ভিডিপি সদস্যরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জাতির সেবায় নিরলস ভাবে কাজ করছেন।
চলামান করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব হ্রাসে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহা-পরিচালক মেজর জেনারেল কাজী শরীফ কায়কোবাদ এনডিসি,পিএসসি-জি এর দিক-নির্দেশনায় সারাদেশের প্রতিটি উপজেলার প্রতিটি উপজেলায় ৩’শ জন কর্মহীন অস্বচ্ছল ভিডিপি সদস্যদের প্রতিটি পরিবারের ১ সপ্তাহের খাদ্য ৫ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল,১ লিটার তৈল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি পিয়াজ, ১টি সাবান ও ১টি মাস্ক বিতরন কর্মসূচী অব্যাহত রয়েছে।
এই বাহিনীর ত্রান কর্মসূচীর আদলে সারাদেশে ১ লক্ষ ৪৯ হাজার ৯’শ ভিডিপি সদস্যর পরিবারকে ত্রান সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।
শফিপুর-গাজীপুরে অবস্থিত আনসার ও ভিডিপির সর্ববৃহৎ প্রশিক্ষন একাডেমীর সহকারী পরিচালক(ক্রীড়া ও সংস্কৃতি) মোছা: ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, ইউনিয়ন দলনেতা-নেত্রী,আনসার প্লাটুন কমান্ডার,আনসার সদস্য ও ভিডিপি সদস্যরা করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব মোকাবিলায় জন সচেতনতাসহ হাট ও বাজারগুলোর জনসমাগম বিচ্ছিন্ন করণে নিরলস ভাবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি আরও বলেন, আনসার ও ভিডিপি সদস্যরা প্রত্যকেই দেশ প্রেমিক হিসেবে কাজ করছে এবং এই সর্ব বৃহৎ দক্ষ জনবল সমৃদ্ধ বাহিনীর সদস্য হিসেবে আমি কাজ করতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করি।
ময়মনসিংহ সহকারী জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট মো. ইসমাঈল হোসেন জানান, করোনাভাইরাসের উপস্বর্গ নিয়ে যারা মৃত্যু বরণ করছে তাদের দাফন কার্যাদি সম্পাদনের কাজে আনসার ও ভিডিপি’র সদস্যরা সহায়ক ভূমিকায় সাড়া দিচ্ছেন।
দাফন কাজে সহায়তায় সম্পৃক্ত আনসার ও ভিডিপি’র সদস্যদের দক্ষতা বৃদ্ধিসহ পিপিই ,হ্যান্ডগ্লাভস,মাস্ক ও স্যানিটারাইজার প্রদান করা হয়েছে। ৩৬তম বিসিএস আনসার কর্মকর্তাদের “এবারের ঈদ আনন্দ হোক ত্যাগেÑআমি আছি কর্মস্থলে,আপনি থাকুন ঘরে” এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগের ফলে বাহিনীর সকল স্তরের কর্মকর্তারা কর্মস্থলে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।
নেত্রকোনা সহকারী জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট মো. মিজানুর রহমান বলেন, করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব মোকাবিলায় আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছি এবং প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে জন-সাধারনের সেবা নিশ্চিতরা আমাদের রাষ্ট্রীয় অর্পিত দায়িত্ব। তাই দেশের জন-সাধারনের নিরাপত্তা ও সেবাদানের কাজ নিরলস ভাবে করছি।
রাজশাহী সহকারী জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট মো. রবিউল ইসলাম বলেন, আমরা ৩৬ তম বিসিএস আনসার কর্মকর্তারা নিজ নিজ কর্মস্থলে ঈদ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং এরেই ধারাবাহিকতায় আমরা ১১ জনের “এবারের ঈদ আনন্দ হোক ত্যাগেÑআমি আছি কর্মস্থলে,আপনি থাকুন ঘরে”শিরোনামে প্লে-কার্ড তৈরী করেছি জন সাধারনের সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে। চলমান করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাবে রোগীদের চিকিৎসা সেবা ও মৃত্যু ঝুঁকি কমিয়ে আনতে হাসপাতালে নিরাপত্তায় নিয়োজিত আনসার সদস্যরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দায়িত্ব পালন করছে। ইউনিয়নের ভিডিপি দলনেতা-নেত্রী, আনসার প্লাটুন কমান্ডারসহ সদস্যরা করোনাভাইরাস মোকাবিলায় জন-সচেতনতা ও সামাজিক সুরক্ষায় ব্যাক্তি থেকে ব্যাক্তির দুরত্ব বজায় রেখে সচেতনতামূলক প্রচার কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হয়েছে।

 

আমাদের দাবি , ‘জাতীয় দাম্পত্য দিবস’
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:
জাতীয় জীবন ও সামাজিক জীবনে একটি সুখী সুন্দর পরিবার ও  সুখী দাম্পত্য জীবনের প্রভাব অপরিসীম ও  ফলাফল সুদুর প্রসারী। মা-বাবা তথা পরিবারের সুখ স্বাচ্ছন্দের মধ্যে  বেড়ে ওঠা সন্তান সন্ততিদের জীবনে প্রতিষ্ঠা লাভ করা যত সহজ হয়ে উঠে, বাবা-মার অনাদর অবহেলায় গড়ে উঠা শিশুর পক্ষে সেটা ততটা সহজ হয়না।  সুখী দম্পতি  পরিবারে বেড়ে উঠা সন্তানদের  জীবন চলার পথ অনেক সহজে বিকশিত হয় এবং  তাদের জীবন প্রক্রিয়াও অনেক সহজ সরল ও মানবিক দৃষ্টিভংগি সম্পন্ন  হয়।
বিবাহিত নরনারীর মধ্যে  পরস্পর একটা নিবিড় মানবিক সম্পর্ক গড়ে  তোলার ক্ষেত্রে রাষ্ট্রেরও অনেকটা ভুমিকা আছে। রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় বিভিন্ন সভা সমাবেশ কিংবা দম্পতিদের কাউন্সিলিংয়ের মাধ্যমে প্রতিটি পরিবারে একটি শান্তির সুবাতাস বইয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে অনুঘটকের ভুমিকা পালন করতে পারে  যথাযথ উদ্যোগ। এর প্রকৃষ্ট উদাহরন শরীয়তপুর জেলা পুলিসের  উইমেন এন্ড চাইল্ড সাপোর্ট সেন্টার কর্তৃক আয়োজিত  সুখী দম্পতি মেলা -২০১৭। শরীয়তপুরে  দিনব্যাপী দম্পতি মেলায় জেলার তিন হাজার দম্পতি অংশগ্রহন করেন। জেলার তৎকালীন পুলিশ সুপার জনাব সাইফুল্লাহ আল মামুনের পরিকল্পনায় মেলাটি জেলার দম্পতিদের মধ্যে একটি সুদুর প্রসারী ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে । উইমেন সাপোর্ট সেন্টারের তথ্যমতে মেলা পরবর্তী দিনগুলোতে জেলার দম্পতিদের মধ্যে কলহ বিবাদ, বিবাহ বিচ্ছেদ রেকর্ড পরিমান হ্রাস পায়।  
একটি সুখী দাম্পত্য জীবন নির্মানে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে পারস্পরিক ভালবাসা, একে অন্যের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ, বিশ্বস্ততা, মনোযোগ, যত্ন ইত্যাদি  মুল নিয়ামক হিসাবে কাজ করে। পারস্পরিক ভালবাসায়  অনেক কষ্টসাধ্য কাজও সহজ হয়ে আসে। ভালবাসাই একজন নারী পুরুষের মাঝে হৃদয়ের অটুট বন্ধন সৃষ্টি করতে পারে এবং সংসার জীবনকে সুন্দর ও মজবুত করে গড়ে তুলতে পারে।
দাম্পত্য জীবনে  স্বামী স্ত্রী একে অন্যের পরিপুরক। একজন ছাড়া অন্যজন কখনই সম্পুর্ন সফল জীবন যাপন করতে পারেনা।
সুন্দর পরিবার এবং সুন্দর সমাজ বিনির্মানে একটি সুখী দম্পতির ভুমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন। প্রতিটি পরিবারের সুখ শান্তি ধরে রাখার জন্য প্রতিটি দম্পতির জীবন চলার পথে হিসেব করে পা ফেলতে হয়। আর তার জন্য চাই দু`জনের মধ্যে ভাল বোঝাপড়া ও সমঝোতা । দম্পতিদের মনে রাখতে হবে দু`টো মানুষ একহয়ে পথ চলা শুরু করলেও দু`জনের মনমানসিকতায়, আচার আচরনে, ভাবনাচিন্তায় সম্পুর্ন  আলাদা। দু`জনের মনের চাওয়াকে এক সরলরেখায় দাড় করাতে হলে অবশ্যই একে অন্যের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, আস্থাশীল ও মনোযোগী হতে হবে। একজন মানুষ সর্বগুনে গুনান্বিত হবেন এমনটি আশা করা বাতুলতা মাত্র। তবে যতটুকু গুন প্রয়োজন,  তারচেয়ে বেশী প্রয়োজন পারস্পরিক আস্থা, সততা ও  প্রচেষ্টা। আর এ প্রচেষ্টাই সম্পুর্ন আলাদা পরিবেশে বেড়ে উঠা দু`টো মানুষকে সুখের ঠিকানায় পৌঁছে দিবে।
একজন মানুষ তাঁর জীবন সংগীর কাছে কি চায়? সেটা কমবেশী আমরা সবাই জানি। সংগী একে অন্যের কাছে প্রত্যাশা করে সততা,বিশ্বস্ততা। এ দুটো থাকলে অনায়াসেই জীবন পার করে দেয়া যায়। একটি সুন্দর ও শক্তিশালী দাম্পত্য জীবন পেতে হলে একে অন্যের প্রতি মনোযোগী হতে হয়, একে অপরের ছোট কাজে প্রশংসাসুচক বাক্যগুলো ব্যবহার করতে হয়। প্রত্যেকেরই নিজস্ব ভাললাগা, মন্দ লাগার ব্যাপার থাকা বিচিত্র কিছু নয়। তবে, সেগুলির ব্যাপারে  পরস্পরকে  মনোযোগী হতে হবে, উদার হতে হবে। উভয়ের সন্মানের দিক বিবেচনা করে যথাসম্ভব ছাড় দিতে হবে। আর তাতেই একের প্রতি অন্যের নির্ভরতা বাড়বে এবং দাম্পত্যজীবনের দীর্ঘপথ পাড়ি দেয়া সহজতর হবে।
বিবাহিত জীবনে দম্পতিদের মাঝে ছোটখাট মামুলি বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি, হালকা মনেমালিন্য থাকতেই পারে তাই বলে সামান্য বিষয়ে কখনোই বাড়াবাড়ি কাম্য নয়। নিজেদের মধ্যে আলাপ আলোচনা, খোলামেলা কথাবার্তা- ভাল সমাধান বয়ে আনে। দাম্পত্যজীবনে সুখ শান্তির মুলে রয়েছে পারস্পরিক বোঝাপড়া, সহমর্মিতা। এতে করে স্বকীয়তা হারিয়ে ফেলার কোন ভয় থাকেনা। একথা ভুললে চলবেনা যে, প্রত্যেকটি নরনারীর ব্যক্তিত্ব ও চাহিদা আলাদা। সেটাকে অনুধাবন করার জন্য কিছুটা সময়ের প্রয়োজন। সময়ের সাথে সাথে সবকিছু ঠিক হয়ে আসে। একসাথে চলতে গিয়ে দুর্ভাগ্যক্রমে অনেকের পথ আলাদা হয়ে অনাকাংখিত বিচ্ছেদের মতে বিয়োগান্তক  ঘটনার জন্ম দেয়। যা কখনোই কাম্য নয়।
আমাদের সকলের এ কথাটি মনে রাখতে হবে, ছুরির আঘাতে কোন সম্পর্কের মৃত্যু ঘটেনা; সম্পর্কের জীবনমৃত্যু নির্ভর করে পারস্পরিক বোঝাপড়া ও সমঝোতার উপর। স্বামী স্ত্রী যদি নিজেদের একান্ত কথা খোলামনে একে অন্যের কাছে বলার পথ খুঁজে না পান তাহলে ভালবাসার বদলে সম্পর্কটি  তিক্ততায় ভরে উঠতে সময় লাগেনা। একজনের মনে যদি কোন অভিযোগ থাকে তাহলে তা` প্রকাশ করবেন অন্যের সন্মানটা রক্ষা করে। এতে নিজেদের বিবাদ, বিসংবাদ, কলহ কমে আসবে।
বর্তমান ভংগুর ও কলহ লিপ্ত দাম্পত্য জীবনে ছোট ছোট বিষয় গুলো মেনে চলা খুবই জরুরী। বর্তমান বিশ্বায়নের যুগে আধুনিকতার ছোঁয়ায় মানুষের জীবনমান, রুচিবোধ বদলে যাচ্ছে প্রতিনয়ত,  বদলে যাচ্ছে সামাজিকতা, আন্তরিকতা, প্রেম- প্রীতি ও ভালবাসার ধরন। বর্তমানে মানুষ দেশীয় ঐতিহ্য - সংস্কৃতির পরিবর্তে বিদেশী সংস্কৃতিকে অনুকরন অনুসরন করছে। তাই, আমাদের সমাজব্যবস্থায় প্রতিনিয়ত চলে আসছে বিদেশী অপসংস্কৃতি, সমাজে নেমে আসছে অনিয়ম অন্ধকার ও অশান্তি ।
সুন্দর পরিবার ও সুন্দর সমাজ বিনির্মানে  দম্পতিদের আরো নিষ্ঠাবান হতে হবে। দাম্পত্য জীবনে হতে হবে শ্রদ্ধাশীল ও যত্নবান।
কবি সাহিত্যিকগন একজন তাঁদের লেখনিতে একজন নারীকে মহিমান্বিত করে তুললেও জীবনের কঠিন বাস্তবতায়  একজন নারীকে আমরা আবিষ্কার করি --- একজন স্ত্রী হিসেবে, একজন পুত্রবধুঁ হিসেবে কিংবা একজন সন্তানের মা হিসেবে। প্রতিটা ক্ষেত্রে একজন সফলকাম হন তখনি দাম্পত্য সুখ নামক সোনার হরিন ধরা দেয়। এ এক কঠিন বাস্তবতা। এ প্রসংগে আমি একটি উক্তির অবতারনা করতে চাই----
" মানুষ তাঁর আশার সমান সুন্দর,
আর বিশ্বাসের সমান বড়।"
বাস্তব স্বপ্ন এবং চেষ্টা কখনো ব্যর্থ হয়না।

গত ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনায় নতুন আক্রান্ত ৩০৯
                                  

স্টাফ রিপোর্টার :

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৪১ জনে। একই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩০৯ জন। এ নিয়ে সর্বমোট আক্রান্ত চার হাজার ৯৯৮ জন।
এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কোনো করোনা রোগী সুস্থ হয়নি। ফলে সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা ১১২ জনই রয়েছে।
শনিবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য তুলে ধরেন অধিদফতরটির অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।
তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ হাজার ৪২২ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩ হাজার ৩৩৭ জনের পরীক্ষা করা হয়েছে। ৩০৯ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে।
ডা. নাসিমা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন ৯ জন। তবে নতুন করে কেউ সুস্থ হয়নি।
প্রসঙ্গত গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর চীনের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। দেশে প্রথম কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হন ৮ মার্চ এবং এ রোগে আক্রান্ত প্রথম রোগীর মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ।
২৫ মার্চ প্রথমবারের মতো রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) জানায়, বাংলাদেশে সীমিত পরিসরে ‘কমিউনিটি ট্রান্সমিশন বা সামাজিকভাবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হচ্ছে।

রাজশাহী জেলা আনসার ও ভিডিপি কার্যালয় করোনাভাইরাসের প্রভাব হ্রাসে নিরবে কাজ করছে
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:
চলামান করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব হ্রাসে রাজশাহী জেলা আনসার ও ভিডিপি কার্যালয়ের কর্মকর্তা,কর্মচারী ও সদস্যরা নিরবে নিরলস ভাবে দায়িত্ব পালন করছেন। চলমান করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাবে রোগীদের চিকিৎসা সেবা ও মৃত্যু ঝুঁকি কমিয়ে আনতে আনসার ও ভিডিপি’র ইউনিয়নের ভিডিপি দলনেতা-নেত্রী, আনসার প্লাটুন কমান্ডারসহ সদস্যরা করোনাভাইরাস মোকাবিলায় জন-সচেতনতা ও সামাজিক সুরক্ষায় ব্যাক্তি থেকে ব্যাক্তির দুরত্ব বজায় রেখে সচেতনতামূলক প্রচার কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হয়েছে।


রাজশাহী জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট ও উপ-পরিচালক মো. জাহিদ হোসেন এর দিক-নির্দেশনায় ৯টি উপজেলার প্রত্যকটি ইউনিয়নে ইউনিয়ন ভিডিপি দলনেতা-নেত্রী, আনসার প্লাটুন কমান্ডার, ভিডিপি সদস্যরা করোনাভাইরাসের প্রভাব মোকাবিলা ও নিয়ন্ত্রনে সচেতনতা বৃদ্ধিসহ গ্রাম-গঞ্জের হাট,বাজারগুলোতে জনসমাগম বিচ্ছিন্ন এবং ঢাকা,নারায়নগঞ্জসহ অন্যান্য জেলা থেকে প্রবেশ করা ব্যাক্তিদের হোম কোয়ারেন্টাইন ও বাড়ীতে লাল কাপড়ের পতাকা স্থাপন করছেন।


জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্টের কার্যালয় সূত্র জানায়- রাজশাহীর ৯ টি উপজেলার প্রত্যকটি উপজেলায় আনসার ও ভিডিপি’র ১৪ জন সদস্যর একটি করে টিম গঠন করা হয়েছে। করোনাভাইরাসের উপস্বর্গ নিয়ে যারা মৃত্যু বরণ করবে তাদের দাফন কার্যাদি সম্পাদনের কাজে আনসার ও ভিডিপি’র এই ১৪ জন সদস্য দায়িত্ব পালন করবে।
করোনাভাইরাসের উপস্বর্গ নিয়ে মৃত্যু ব্যাক্তিদের কফিনের কাপড় ও দাফন কাজ স্বপ্রনোদিত ভাবেই করতে আগ্রহী প্রতি উপজেলার ১৪জন আনসার ও ভিডিপি’র সদস্যকে নিয়ে এই বিশেষ টিম গঠন করা হয়। দাফন কাজে সহায়তা করার জন্য বাহিনীর এই ১৪ জন সদস্যর তালিকা জেলা প্রশাসকের প্রত্যক উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের কাছে পাঠানো হয়েছে। দাফন কাজে আগ্রহী আনসার ও ভিডিপি’র সদস্যদের দক্ষতা বৃদ্ধিসহ পিপিই ,হ্যান্ডগ্লাভস,মাস্ক ও স্যানিটারাইজার প্রদান করা হয়েছে। জেলা ও উপজেলা প্রশাসন তাদের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করলেই প্রত্যক উপজেলায় ১৪জন সদস্য সাড়া দিতে প্রস্তুত রয়েছে।


রাজশাহী সহকারী জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট মো. রবিউল ইসলাম জানান, জেলা কমান্ড্যান্ট মহোদয়ের দিক-নির্দেশনায় ইউনিয়ন দলনেতা-নেত্রী,আনসার প্লাটুন কমান্ডার,আনসার সদস্য ও ভিডিপি সদস্যরা করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব মোকাবিলায় জন সচেতনতাসহ হাট ও বাজারগুলোর জনসমাগম বিচ্ছিন্ন করণে নিরলস ভাবে দায়িত্ব পালন করছেন। এ ছাড়াও করোনাভাইরাসের উপস্বর্গ নিয়ে যারা মৃত্যু বরণ করবে তাদের বিনামূল্য কফিনসহ দাফন কার্যাদি সম্পাদনের জন্য প্রতি উপজেলায় ১৪ জন সদস্য প্রস্তÍত রয়েছেন।
রাজশাহী জেলা কমান্ড্যান্ট ও উপ-পরিচালক মো. জাহিদ হোসেন জানান, করোনাভাইরাসের প্রভাব হ্রাসে সামাজিক সুরক্ষায় আনসার ও ভিডিপি সদস্যরা সচেতনতা বৃদ্ধিসহ জনসমাগম বন্ধ করতে কাজ করছে। বাহিনীর সদর দফতরের নির্দেশনা অনুযায়ী আনসার ও ভিডিপি’র সদস্যদের সামাজিক দায়বদ্ধতার আলোকে করোনাভাইরাসের ঝুঁকি হ্রাসে কাজ করছে। বৃহৎ প্রশিক্ষিত বাহিনী আনসার ও ভিডিপি সদস্যরা বৈশি^ক সমস্যা করোনাভাইরাস মোকাবিলায় জনবসতিপূর্ন অঞ্চল ও প্রত্যন্ত এলাকায় স্বাস্থ্য সচেতনতা মাস্ক,লিফলেট বিতরন,ব্যানার ও ফেস্টুন লাগিয়ে সামাজিক সুরক্ষায় নিজ নিজ দুরত্ব বজায় রেখে প্রচার-প্রচারনা অব্যাহত রেখেছেন।

ক্যামেরা জার্নালিস্টদের সহায়তা দিলো পারটেক্স গ্রুপ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক
দেশের খ্যাতি সম্পন্ন ব্যবসায়িক শিল্প প্রতিষ্ঠান ‘পারটেক্স গ্রুপে’র পক্ষ থেকে টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের (টিসিএ) সদস্যদের সহায়তা দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে টিসিএ কার্যালয়ে পারটেক্স গ্রুপের দায়িত্বশিল কর্মকর্তা হেড অব পাবলিক রিলেশন্স রাশেদ চৌধুরী খাদ্য সামগ্রি হস্তান্তর করেন। পারটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এ হাসেম ও তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে চলমান করোনা সংকট মোকাবেলায় টিসিএর সদস্যদের জন্য এ খাদ্য সহায়তা ভবিষতেও অব্যাহত থাকবে বলে জানানো হয়। এ পর্যন্ত ১২ হাজার পরিবারকে বিভিন্ন মাধ্যমে সহায়তা দেয়া হয়েছে। এ সময়ে অন্যদের মধ্যে টিসিএ সভাপতি শেখ মাহবুব আলম, সহ-সভাপতি মোস্তাক জাহিদ, আকছানুর রশিদ খান, প্রচার সম্পাদক, রিয়ান মিঠুন, সহ-প্রচার সম্পাদকসহ টিসিএর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

 

করোনায় কর্মহীন মানুষের পাশে হিমু উদ্দিন
                                  

স্টাফ রিপোর্টার
করোনা পরিস্থিতিতে খাদ্য সংকটে দেশের বিভিন্ন জেলার মানুষ। উপার্জন ও খাদ্য নিরাপত্তায় প্রভাব ফেলেছে করোনাভাইরাস। দারিদ্র্যরেখার নিম্নসীমার নিচে নেমে গেছেন ৮৯ শতাংশ মানুষ। ১৪ ভাগ মানুষের ঘরে কোনো খাবারই নেই। কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরণ করেছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী ও বিভিন্ন ব্যক্তি ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। এরই ধারাবাহিকতায় মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান থানার ইছুপুরা গ্রামের আলহাজ্ব ডাঃ খবির উদ্দিন আহমেদের ছেলে জাপান প্রবাসী সফল ব্যবসায়ী, বিশিষ্ট সমাজসেবক হিমু উদ্দিনের উদ্যোগে প্রায় ৮০০ পরিবারকে দেয়া হলো খাদ্য-দ্রব্য ও উপহার সামগ্রী।


এছাড়া পার্শবর্তী বিভিন্ন গ্রাম ও ইউনিয়নেও ধারাবাহিকভাবে খাদ্যদ্রব্য ও উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। খাদ্যদ্রব্যে দেয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন পরিবারের ৬ মাসের ভরণ-পোষণের দায়িত্বও নিয়েছেন হিমু উদ্দিন ওরফে দাদা ভাই।
ব্যবসায়ী হিমু উদ্দিন বলেন, দেশের এই দুর্দিনে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের পাশে দাঁড়াতে পেরে খুবই ভাল লাগছে। আল্লাহর রহমতে ইছাপুর ইউনিয়নে প্রথম ধাপে প্রায় ৮০০ পরিবারকে খাদ্য ও উপহার সামগ্রী দেয়া হয়েছে। তাছাড়া আশপাশের আরো বিভিন্ন ইউনিয়নের কয়েকশ মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী দেয়া হয়েছে।


হিমু উদ্দিন আরো জানান, আত্মীয়-স্বজনসহ বিভিন্ন পরিবারের পুরো দায়িত্ব নিয়েছি। কারো তিন মাস কারো ছয়মাসের সংসার খরচ চালানোর দায়িত্ব নিয়েছি। এই ক্রান্তিলগ্নে কোনো পরিবারের কারো যাতে কোনো প্রকার সমস্যায় পরতে না হয় সেই ব্যাপারেও আমি সবসময় নজর রাখছি। ইনশাহ্ আল্লাহ্ এই ক্রান্তিকাল শেষ না হওয়া পযন্ত আমি সবার পাশে থাকবো। সবাই দোয়া করবেন এবং সবাই সবার পাশে এগিয়ে আসবেন সাধ্যমত।

গাইবান্ধার এসকেএস ফাউন্ডেশন কর্তৃক করোনা সংকটে দু:স্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য নিরাপত্ততা প্যাকেজ বিতরন
                                  

গাইবান্ধা অফিস
ইউকে-এইড ও স্টার্ট ফান্ডের সহায়তায় এসকেএস ফাউন্ডেশন কর্তৃক গাইবান্ধা সদর ও সাদুল্ল্যাপুর দু’টি উপজেলার করোনা সংকটে ৫৫০টি দু:স্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য নিরাপত্ততা প্যাকেজ বিতরন করা হয়েছে।
গতকাল সোমবার সকালে গাইবান্ধা সদরের কামারজানী মার্চেন্টস উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে কর্মহীন দু:স্থ পরিবারগুলোর মাঝে প্রতিটি পরিবারকে ৫৫ কেজি চাল,১৫ কেজি ডাল, ৬ লিটার সয়াবিন তৈল, ২ কেজি চিনি,১ কেজি লবনসহ হাইজিন কিট প্রদান করা হয়েছে।
সামাজিক দুরত্ব বা শরীর থেকে শরীরের দুরত্ব বজায় রেখে দরিদ্র পরিবার গুলো ত্রানের এই প্যাকেজ গ্রহন করেছে। ত্রান নিতে আসা পরিবার গুলোকে সামাজিক দুরত্ব এবং স্বাস্থ্য সচেতনতায় বৃদ্ধি করা হয় ।
এসময় উপস্থিত ছিলেন কামারজানী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ¦ আবদুস ছালাম জাকির, এসকেএস ফাউন্ডেশনের প্রকল্প সমন্বয়কারী মো.আশরাফুল আলম, প্রমূখ।
কামারজানী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ¦ আবদুস ছালাম জাকির বলেন, করোনাভাইরাসের চলমান পরিস্থিতি মোকাবিলায় ইউনিয়নের ২ হাজার পরিবার কর্মহীন হয়ে পড়েছে। এই ইউনিয়নের প্রায় ৮০ ভাগ মানুষ দিন মজুরি করে জীবিকা নির্বহ করে। এই দূর্বিসহ পরিস্থিতিতে ইউকে-এইড ও স্টার্ট ফান্ডের সহায়তায় এসকেএস ফাউন্ডেশন কর্তৃক করোনা সংকটে দু:স্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য নিরাপত্ততা প্যাকেজ সহায়ক ভূমিকা রাখবে।
এসকেএস ফাউন্ডেশনের প্রকল্প সমন্বয়কারী মো.আশরাফুল আলম, করোনাভাইরাসের চলমান পরিস্থিতিতে মোকাবেলায় করোনা সংকটে দু:স্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য নিরাপত্ততা প্যাকেজ বিতরন অব্যাহত রয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি ত্রান সামগ্রীর বরাদ্দ বাড়িয়ে কর্মহীন মানুষদের সাময়িক কষ্ট লাঘব করতে।

শরীয়তপুরে ৪০০ ভিক্ষুকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ
                                  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:

গতকাল সোমবার সকাল ১১ টায় পালং মডেল থানা চত্ত্বরে শরীয়তপুর জেলা পুলিশ ও কমিউনিটি পুলিশিং এর উদ্যোগে পুলিশ সুপার, শরীয়তপুর এস. এম. আশরাফুজ্জামানের সভাপতিত্বে শরীয়তপুরে তালিকাভুক্ত ৪০০ (চারশত) জন ভিক্ষুকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। এ সময় পুলিশ সুপার বলেন করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা নিশ্চিতের লক্ষ্যে দেশব্যাপী ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। পাশাপাশি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হয়েছে। প্রতিটি পরিবার ঘর বন্দি হয়ে পরেছে। এতে ভিক্ষুকরা উপার্জনহীন হয়ে পড়েছেন। আর সমাজে এই সকল ভিক্ষুকরাই সবথেকে অবহেলিত, এজন্য আমরা জেলা পুলিশ ও জেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর আয়োজনে আজ ৪০০ (চারশত) জন ভিক্ষুকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করছি এবং পর্যায়ক্রমে শরীয়তপুরে আরোও যত ভিক্ষুক আছে আমরা তাঁদের সকলের কাছে ত্রাণ পৌছে দিবো, এ ত্রাণ সহায়তার মধ্যে রয়েছে ১০ কেজি চাল, ৩ কেজি আলু, ১ কেজি ডাল ও একটি সাবান।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ আল মামুন শিকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ), শরীয়তপুর, এস. এম. মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নড়িয়া সার্কেল), শরীয়তপুর, তানভীর হায়দার শাওন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারর (সদর), শরীয়তপুর, সহকারী পুলিশ সুপার (শিক্ষানবিশ) আদনান, অনল কুমার দে, সাধারণ সম্পাদক, শরীয়তপুর জেলা আওয়ামীলীগ, নুর মোহাম্মদ কোতয়াল, সভাপতি, শরীয়তপুর জেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম ও সাবেক মেয়র, শরীয়তপুর পৌরসভা, এ্যাডঃ আলমগীর হোসেন মুন্সী, বিজ্ঞ পিপি, শরীয়তপুর কোর্ট ও সাধারণ সম্পাদক, শরীয়তপুর জেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম, আজহারুল ইসলাম, ডিআইও-১, জেলা বিশেষ শাখা, শরীয়তপুর, মোঃ কবিরুল ইসলাম, অফিসার ইনচার্জ, জেলা গোয়েন্দা শাখা, শরীয়তপুর, আসলাম উদ্দিন, অফিসার ইনচার্জ, পালং মডেল থানা, শরীয়তপুরসহ উপস্থিত জেলা পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ, বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ ও অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত
                                  

কুষ্টিয়া ব্যুরো : আজ রোববার ০৫ এপ্রিল সকালে কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশের সহায়তায় বিপজ্জনক করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সঙ্গনিরোধ এবং আইন অনুযায়ী দোকান ও যানবাহন চলাচল নিশ্চিত করার লক্ষে  ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করেছে।
ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রাজীবুল ইসলাম খান। ভ্রাম্যমাণ আদালত সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে গণজামায়েত করা, দোকান খোলা রাখা, যানবাহনে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করা ইত্যাদি অপরাধে কুমারখালীর উপজেলা মোড়, ময়েন মোড় এবং সাঁওতা বাজারে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করে ১২ টি মামলায় মোট ২৬৫০/- টাকা জরিমানা করা হয়। ১ টি মামলায় ১ জন দোকানীকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয় (এই দোকানীকে আগে ৪ বার সতর্ক করা হয়েছিল)।
দুপুরে সহকারি কমিশনার (ভূমি) কুমারখালী, এম এ মুহাইমিন আল জিহান সরকারি নির্দেশ অমান্য করে অপ্রয়োজনে বাইরে ঘোরাঘুরি, গনজমায়েত, চায়ের দোকানে টিভি, বেঞ্চসহ লোকসমাগম করে বসার ব্যবস্থা করা, মোটরসাইকেলে একাধিক যাত্রী আরোহন, সামাজিক দূরত্ব বজায় না রাখার কারণে কুমারখালী উপজেলার পৌরসভা, জগ্ননাথপুর এবং সদকী ইউনিয়নে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। এসময় ১০ টি মামলায় দন্ডবিধির ১৮৬০এর ২৬৯ ধারায় ৩২৫০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয় এবং অন্যদের কঠোরভাবে সতর্ক এবং বাজারে জমায়েত কমানোর জন্য সচেতন করা হয়। এসময় মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহায়তা করেন কুমারখালী থানা পুলিশ এবং বেঞ্চ সহকারীবৃন্দ। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কাউকে বিনা প্রয়োজনে ঘোরাঘুরি করতে দেখা গেলেই এখন থেকে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। জনকল্যাণে ও জনসচেতনতায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে।

 

 

রাণীশংকৈলে ছাত্রলীগ নেতার খাদ্য সামগ্রী বিতরণ
                                  

রাণীশংকৈল(ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মোঃতামিম হোসেন এর নিজ উদ্যোগে অসহায় ও কর্মহীন হয়ে পড়া ৫০টি পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

গতকাল শনিবার (৪ এপ্রিল) সকালে পৌর শহরের ঈদগা পাড়া,কুলিক পাড়া এবং মুক্তা পাড়ায় অভাব অনটনে থাকা ৫০টি পরিবারের মাঝে এ খাদ্যসামগ্রীর প্যাকেট বিতরণ করেন ছাত্রলীগের সাবেক এই নেতা।
খাদ্যসামগ্রীর প্রতিটি প্যাকেটে ছিলো আটা,আলু, পিয়াজ ও সাবান। খাদ্যসামগ্রী বিতরণের সময় তিনি বলেন, সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সব কিছু বন্ধ থাকায় কর্মহীন হয়ে পড়ে দিনমজুর শ্রেণির মানুষ। তাই আমি নিজ উদ্যোগে পৌর শহরের অসহায় ও কর্মহীন হয়ে পড়া ৫০টি পরিবারের মাঝে খাদ্যসমাগ্রী প্রদান করি । এবং এ খাদ্য সহায়তার ধারা অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

 

সাপাহারে ৫০ পরিবারের পাশে ছাত্রলীগের অপু রাসেল
                                  

সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁর সাপাহার উপজেলার কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কর্মী অপু রাসেল নিজের জন্মদিনে কর্মহীন অসহায় ৫০ পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন।

জানাগেছে, বর্তমানে বিশ্বে করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মক্ষম হয়ে পড়েছে অনেকে এরই পরিপেক্ষিকে নিজ উদ্যােগে নিজের জন্মদিনে এলাকার ৫০ জন অসহায় হত দরিদ্রের মাঝে ১টি আটার প্যাকেট, ১কেজি আলু, ২ শত ৫০ গ্রাম ডাল, ১টি সাবান ও ১টি করে মাস্ক বিতরণ করেন। এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন তার বাবা সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোকছেদুল হক ও তার মা সদর ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফাইমা বেগম ও ছাত্রলীগের সহকর্মীগণ।
তার এই মহুতি উদ্যােগকে অনেকে সাধুবাদ জানিয়েছে। এবং তার বাবা মা তার জন্য দোয়া চেয়েছেন।

 

নড়াইল পৌর মেয়র কর্মহীন মানুষের ঘরে পৌঁছে দিলেন খাদ্যসামগ্রী
                                  

কাজী আনিস, নড়াইল : নড়াইল এর পৌর মেয়র কর্মহীন মানুষের ঘরে ঘরে পৌছেদিলেন খাদ্যসামগ্রী । প্রাণঘাতি করোনা প্রতিরোধ করতে বিশেষ এক পদক্ষেপ গ্রহণ করেন তিনি। গত মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় নড়াইল শহরের বিভিন্ন এলাকার কর্মবিমুখ মানুষের বাড়ী এ খাদ্য সামগ্রী পৌছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন । বিদেশ থেকে আসা মানুষের মাধ্যমেই এ করোনা ভাইরাস ক্রমেই ছড়িয়ে লোকালয়ে পৌছে যাচ্ছে। করোনা ভাইরাস যেন কোনো ভাবেই একে অপরের মাধ্যমে সংক্রমিত না হয় সে জন্য সরকার নির্দেশিত ঘোষনা মতে কর্মজীবি সহ সকলকে ঘরে থাকার নির্দেশ দেন ।

এ কারনে কর্মজীবী মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়ায় তাদের সাময়িক চলার মতো নড়াইল পৌর পিতা মোঃ জাহাঙ্গীর বিশ্বাস ৩ হাজার পরিবারকে খাদ্যসহায়তা দেয়ার কাজ শুরু করেছেন বলে জানিয়েছেন । তিনি আরো বলেন শহরের রাস্তাসহ বিভিন্ন ছোট বড় গলি, ড্রেন এবং আরোও গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় জীবানু নাশক ঔষধ ,পানি আর ব্লিচিং পাউডার মিশিয়ে জনসাধারনের চলাচলের প্রধান সড়ক থেকে করোনা নামক জীবানু যাতে ধংস হয় তার পদক্ষেপ নেন তিনি । পৌর ৩নং ওয়ার্ড কমিশনার কাজী জহিরুল হক বলেন যতোদিন করোনা পাদূর্ভাব থাকবে ততোদিন পৌরসভা তার নিজেস্ব অর্থায়নে এ কার্যক্রম চালিয়ে যাবে বলে আশ্বাস দেন । খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কালে উপস্থিত ছিলেন ৯ নং ওয়ার্ড কমিশনার সহ একদল সেচ্ছাসেবী কর্মী বাহিনী।

 

খানসামা প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান
                                  

দিনাজপুর ব্যুরো : দিনাজপুরের খানসামায় প্রাণঘাতী করোনায় কর্মহীন ও শ্রমজীবি মানুষদের সহায়তার জন্য উপজেলা প্রশাসনের ত্রাণ তহবিলে প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

গতকাল ৪ এপ্রিল শনিবার দুপুর ১২ টায় খানসামা প্রেসক্লাব (পাকেরহাট) এর উদ্যোগে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কক্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান আবু হাতেম ও ইউএনও আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলামের হাতে আর্থিক সহায়তার খাম হস্তান্তর করেন খানসামা প্রেসক্লাব (পাকেরহাট) এর সভাপতি তাজ ফারাজুল ইসলাম চৌধুরী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন খানসামা প্রেসক্লাব (পাকেরহাট) এর সহ-সভাপতি ভূপেন্দ্রনাথ রায়, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোঃ নুরনবী ইসলাম, সাংগাঠনিক সম্পাদক শাহীন ইসলাম, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নুপুর নাহার তাজ, দপ্তর সম্পাদক তারিকুল চৌধুরী, প্রচার সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম, ফটোগ্রাফার লায়ন ইসলাম প্রমুখ।

 

কোটচাঁদপুরের দয়ারামপুর গ্রাম ৫ দিন ধরে লকডাউন
                                  

গিয়াস উদ্দীন(সেতু) ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার দয়ারামপুর গ্রাম লকডাউন ঘোষনাা করলো গ্রামের ৬০ যুবক। আর এই লকডাউনের পিছনে যার অক্লান্ত পরিশ্রম তিনি হলেন সমন্বয়কারী মোঃ তারিক হাসান। বাইরের কাউকে গ্রামে প্রবেশ করতে পারছেন না। স্থানীয়রা লকডাউন করায় দুস্থ ও দরিদ্র মানুষের তালিকা করে বাড়িতে পাঠানো হচ্ছে চাল, ডাল ও লিটার তেলসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র। প্রয়োজন নিশ্চিত করে গ্রাম থেকে বাইরে এবং বাইরে থেকে গ্রামে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে। বাইরে থেকে প্রবেশের সময় সমস্ত শরীরে জীবানুনাশক স্প্রে করে দেওয়া হচ্ছে।
লকডাউন সমন্বয়কারী মোঃ তারিক হাসান জানান, গ্রামের ৬০ জন সেবচ্ছাসেবক নিয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। যেখানে তারা তিন শিফটে কাজ করছে। গ্রামের ৫টি মোড়ে কাজ করছে। আর সেখানে বসানো হয়েছে টহল। পুরো গ্রামটিকে নজদারিতে রাখা হয়েছে। গ্রামের মোড়ের রাস্তাায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও জীবানুনাশক স্প্রে নিয়ে বসে থাকে যুবকেরা। কেউ আসলে তাদেরকে দেওয়া হচ্ছে। লকডাউন করার ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসনের কাছ থেকে অনুমতি নিয়েই করা হয়েছে। করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত এভাবে চলবে। গ্রামের সকলে মিলে চেষ্টা করা হচ্ছে গ্রামটিকে সুরক্ষিত রাখার জন্য। গত ১ এপ্রিল থেকে দয়ারামপুর গ্রামে লকডাউন করা হয়েছে। এখন খুব প্রয়োজন ছাড়া কেউ গ্রামের বাইরে যেতে পারছে না। সবাইকে আমরা নজরদারিতে রাখছি। লকডাউন করায় গ্রামের গরীব মানুষদের কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। গরীবদের চাল, ডাল, তেলসহ আনুষাঙ্গিক দেওয়া হচ্ছে। গ্রামের প্রতিটি দোকান বন্ধ রাখা হয়েছে। তাদেরকে দেওয়া হচ্ছে। খাদ্য সামগ্রী। তাছাড়া বিতরন করা হয়েছে ৩ হাজার মাস্ক।করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষিত রাখতেই আমরা এমন উদ্যোগ নিয়েছি।
দোড়া ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিউলর মহিদুল ইসলাম জানান, তারেকের নেতৃত্বে ৬০ জন যুবক এমন কাজ করছে তা প্রশংসনীয়। এভাবে চলতে থাকলে গ্রামটি সুরক্ষিত থাকবে। দোড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাবিল উদ্দীন বিশ্বাস জানান, স্বেচ্ছা সেবকদের সম্পুর্ন নিজস্ব অর্থায়নের মাধ্যমেকার্যক্রমটি পরিচালিত হচ্ছে। গ্রামবাসীর এই উদ্যোগ অবশ্যই প্রশংসনীয়।

 

ঘরবন্ধী মানুষের ঘরে ঘরে ত্রাণ দিল উপজেলা আওয়ামীলীগ
                                  

হরিণাকুণ্ডু(ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলা আওয়ামীলীগ চাউল ডাউল,ময়দা,তৈল,সাবান,লবণ,আলুসহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পৌছে দিলো করোনা ভাইরাসে ঘরবন্ধী ১ হাজার অসহায় হতদরিদ্র মানুষের ঘরেঘরে। আজ ৫ এপ্রিল রবিবার সকাল হতে শুরু হয়ে দিনব্যাপী এ কর্মসূচি চলবে বলে জানান, উপজেলা আ"লীগের সংগ্রামী সভাপতি মশিউর রহমান জোয়ার্দ্দার ও সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আ"লীগের সিনিয়র নেতা রবিউল ইসলাম পিলু মল্লিক,তাহেরহুদা ইউনিয়ন আ"লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম , সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম , চাঁদপূর ইউনিয়ন আ"লীগের সভাপতি মোঃ ফজলুর রহমান মালিতা,উপজেলা যুবলীগে আহবায়ক মোঃ আশরাফুল হক জুয়েল , সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগে সভাপতি রফিকুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক রিগ্যান আলী সহ আ"লীগের ইউনিয়ন ও উপজেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ ।

৬০২ পরিবারে খাদ্য সামগ্রী দিলেন ঠাকুরগাঁওয়ের ডিসি
                                  

রাণীশংকৈল(ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধি : করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনা মেনে ঘরে থাকা কর্মহীন হয়ে পড়া ব্যক্তি এবং ৮টি গুচ্ছগ্রাম ও নেকমরদ হাটের উচ্ছেদকৃত মহেষ ডোবা বালিয়া দিঘি সরকারি খাস জমিতে পুর্নবাসনকৃত পরিবারসহ ৬০২টি পরিবারের বাড়ি বাড়ি এবং এতিমখানায় গিয়ে নিজ হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম।
গতকাল শনিবার বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈলে উপজেলার হতদরিদ্র দিনমজুর মোট ৬৪০ টি পরিবারের মাঝে এই খাদ্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। খাদ্যসামগ্রীগুলোর মধ্যে ছিলো ১০ কেজি চাল,২ কেজি আলু ও ১ কেজি মসুর ডাল।
এ সময় জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, এই করোনা ভাইরাস থেকে আমাদের বাঁচতে হলে নিজ নিজ জায়গা থেকে নিজের পরিবারকে সচেতন রাখতে হবে তাহলে আমরা এ করোনাকে প্রতিহত করতে পারব। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই খাদ্য সামগ্রী পাঠিয়েছেন আপনাদের জন্য। আপনারা এই খাদ্য সামগ্রী খাবেন এবং বাড়ির বাইরে অপ্রয়োজনে যাবেন না।
এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আমিনুল ইসলাম, উপজেলা চেয়ারম্যান শাহরিয়ার আজম মুন্না, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌসুমি আফরিদা, রাণীশংকৈলের অতিরিক্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহাগ চন্দ্র সাহা,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শেফালী বেগম, ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ এবং প্রেসক্লাব সভাপতি ফারুক আহমেদ সরকার প্রমুখ।

 

 


   Page 1 of 941
     সারা বাংলা
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার সফল বাস্তবায়নে ৩৬ বিসিএস আনসারের ১১জন কর্মকর্তার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ
.............................................................................................
আমাদের দাবি , ‘জাতীয় দাম্পত্য দিবস’
.............................................................................................
গত ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনায় নতুন আক্রান্ত ৩০৯
.............................................................................................
রাজশাহী জেলা আনসার ও ভিডিপি কার্যালয় করোনাভাইরাসের প্রভাব হ্রাসে নিরবে কাজ করছে
.............................................................................................
ক্যামেরা জার্নালিস্টদের সহায়তা দিলো পারটেক্স গ্রুপ
.............................................................................................
করোনায় কর্মহীন মানুষের পাশে হিমু উদ্দিন
.............................................................................................
গাইবান্ধার এসকেএস ফাউন্ডেশন কর্তৃক করোনা সংকটে দু:স্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য নিরাপত্ততা প্যাকেজ বিতরন
.............................................................................................
শরীয়তপুরে ৪০০ ভিক্ষুকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ
.............................................................................................
করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত
.............................................................................................
রাণীশংকৈলে ছাত্রলীগ নেতার খাদ্য সামগ্রী বিতরণ
.............................................................................................
সাপাহারে ৫০ পরিবারের পাশে ছাত্রলীগের অপু রাসেল
.............................................................................................
নড়াইল পৌর মেয়র কর্মহীন মানুষের ঘরে পৌঁছে দিলেন খাদ্যসামগ্রী
.............................................................................................
খানসামা প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান
.............................................................................................
কোটচাঁদপুরের দয়ারামপুর গ্রাম ৫ দিন ধরে লকডাউন
.............................................................................................
ঘরবন্ধী মানুষের ঘরে ঘরে ত্রাণ দিল উপজেলা আওয়ামীলীগ
.............................................................................................
৬০২ পরিবারে খাদ্য সামগ্রী দিলেন ঠাকুরগাঁওয়ের ডিসি
.............................................................................................
আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে কোনো গরিব না খেয়ে কষ্ট পায় না: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী
.............................................................................................
লকডাউনের ফলে খাদ্য সংকটে শরীয়তপুরের নিম্ন আয়ের মানুষ
.............................................................................................
ঠাকুরগাঁওয়ে স্কুলছাত্রী অপহরনের চেষ্টা গ্রেফতার-১
.............................................................................................
গফরগাঁওয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা
.............................................................................................
করোনা প্রতিরোধে ইসলামপুর পৌর মেয়রের হ্যান্ডরাইজার বিতরন
.............................................................................................
সরিষাবাড়ীতে চাচা-ভাতিজায় সংঘর্ষ! আহত ৫
.............................................................................................
কুড়িগ্রামে স্ত্রীকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন
.............................................................................................
কুড়িগ্রামের করোনা রোধে আনসার ও ভিডিপির মাক্স ও লিফলেট বিতরণ
.............................................................................................
করোনা নয় কিস্তি নিয়ে চিন্তিত নিম্ন আয়ের মানুষ
.............................................................................................
ঝিনাইদহে বালি উত্তলনের সময় গর্তে পড়ে বৃদ্ধের মৃত্যু
.............................................................................................
ঝিনাইদহে নসিমন উল্টে নিহত ২
.............................................................................................
ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে ১০২ বছরের বৃদ্ধার মৃত্যু
.............................................................................................
গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যানের মাস্ক ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরণ
.............................................................................................
বাগেরহাট যৌনপল্লীর কার্যক্রম বন্ধ, প্রয়োজনীয় পন্য বিতরণ
.............................................................................................
বোয়ালমারীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ছাত্র নিহত
.............................................................................................
মানিকছড়িতে ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
চাঁপাইনবাবগঞ্জে নদীতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু
.............................................................................................
আক্কেলপুরে রাস্তার কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ
.............................................................................................
করোনা ভাইরাস সচেতনতায় লিফলেট বিতরণ
.............................................................................................
জবর দখল করে ফসলি জমিতে পুকুর খনন
.............................................................................................
দূর্বিত্ত্বদের আগুনে দুটি ঘরসহ শতাধিক ফল গাছ ভস্মীভূত
.............................................................................................
এসি ল্যান্ডকে উৎকোচ প্রদানের চেষ্টা, মুচলেকা দিয়ে মুক্তি
.............................................................................................
কোম্পানীগঞ্জে চার্জার বিস্ফোরণে বসতঘর ভস্মীভূত
.............................................................................................
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় প্রাণ গেলো এক ট্রলি চালকের
.............................................................................................
ভাণ্ডারিয়ায় মালবাহী ট্রাকটরের চাপায় নিহত-১
.............................................................................................
কালিয়াকৈরে শিশুকে নিয়ে বিপাকে পুলিশ ও এলাকাবাসী
.............................................................................................
জলঢাকায় ধর্মপালে‘করোনা ভাইরাস’প্রতিরোধে সচেতনতামূলক লিফলেট
.............................................................................................
শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলায় খাল ইজারা নিয়ে বেদখলের পাঁইতারা
.............................................................................................
চালের বাজার স্থীতিশীল রাখতে ভ্রাম্যমাণ আদালতে অভিযান
.............................................................................................
ঠাকুরগাঁওয়ে অগ্নিকান্ডে ৪টি দোকান পুড়ে ছাই
.............................................................................................
ঠাকুরগাঁওয়ে যাত্রাপালার জোকারের মৃত্যু
.............................................................................................
জামালপুরে মালিকের বিরুদ্ধে ভাড়াটিয়ার সংবাদ সম্মেলন
.............................................................................................
ভাণ্ডারিয়ায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা হতদরিদ্রের
.............................................................................................
গৌরীপুরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মিটিং
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম ।
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন ।
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন ।

সম্পাদক কর্তৃক শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত । সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্ল্যাক্স (৬ষ্ঠ তলা) । ২৮/১ সি টয়েনবি সার্কুলার রোড, মতিঝিল, বা/এ ঢাকা-১০০০ । জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা ।
ফোন নাম্বার : ০২-৯৫৮৭৮৫০, ০২-৫৭১৬০৪০৪
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, ০১৯১৬৮২২৫৬৬ ।

E-mail: dailyganomukti@gmail.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD