ঢাকা,শুক্রবার,৮ কার্তিক ১৪২৭,২৩,অক্টোবর,২০২০ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > দেশে ফেরামাত্র পি কে হালদারকে গ্রেফতারের নির্দেশ   > করোনায় একদিনে আরো ২৪ মৃত্যু   > গাইবান্ধার সাঘাটার রামনগর গ্রাম নদীভাঙন হতে রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান   > আ:লীগের পায়ের নিচে মাটি নেই, তাদের সমালোচনায় জনমনে টিকে রয়েছে বিএনপি : মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর   > নাসিকের প্রকল্প অনুমোদন হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে মেয়র আইভীর ধন্যবাদ   > এনু-রুপমের জামিন হাইকোর্টেও নামঞ্জুর   > মাধ্যমিকের বার্ষিক পরীক্ষা বাতিল   > কুয়েতে নতুন ‘আইন পাস’, কমবে বাংলাদেশি শ্রমিক   > শাহরুখের লন্ডনের বাড়ি আর অক্ষয়ের টাকা চান কারিনা!   > হারলে বিদায়, জিতলেও অনিশ্চিত তামিমদের ভাগ্য  

   রাজধানী -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
নভেম্বর পর্যন্ত ঝুলন্ত তার অপসারণের অভিযান বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক : ইন্টারনেট ও কেবল টিভির ঝুলন্ত তার মাটির নিচে প্রতিস্থাপনে নভেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়ে আপাতত তার অপসারণের অভিযান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)।

রোববার ডিএসসিসির নগরভবনে মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসের সঙ্গে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) ও কেবল অপারেটর্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (কোয়াব) নেতাদের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়।

এর আগে ঝুলন্ত তার অপসারণের প্রতিবাদে আজ থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সংযোগ বিচ্ছিন্ন রাখার কর্মসূচি ঘোষণা করেছিল আইএসপিএবি এবং কোয়াব।

গত সোমবার (১২ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে স্থায়ী সমাধান না করা পর্যন্ত কোনো ঝুলন্ত ক্যাবল অপসারণ না করাসহ পাঁচ দফা দাবি জানায় আইএসপিএবি ও কোয়াব। তাদের দাবির মধ্যে রয়েছে- আইএসপিএপি, কোয়াব, বিটিআরসি, এনটিটিএন এবং সিটি করপোরেশন সমন্বয়ে ‘লাস্ট মেইল ক্যাবল’ স্থাপন করা হয়েছে কি না- তা নিশ্চিত করার জন্য একটি কমিটির মাধ্যমে সরেজমিনে তদন্তের ব্যবস্থা করা; সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বাসাবাড়ি, অফিস ও ব্যাংকসহ সব পর্যায়ে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সেবার মূল্য নির্ধারণ করা; গ্রাহক পর্যায়ে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সেবা স্বল্পমূল্যে দেয়ার লক্ষ্যে এনটিটিএনের মূল্য সরকারের মাধ্যমে নির্ধারণ করা এবং গ্রাহক পর্যায়ে নিরবচ্ছিন্ন সেবা প্রদানে নিশ্চয়তার পক্ষে এনটিটিএনগুলো সার্বিক সক্ষমতা আছে কি-না তা যাচাইয়ের ব্যবস্থা করা।

এই পরিস্থিতিতে গতকাল শনিবার বিকেলে আইএসপিএবির নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জাব্বার এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমদ পলক।

সেই বৈঠকে মন্ত্রীর আশ্বাস মেলার পর আপাতত কর্মসূচি স্থগিত করার কথা জানান আইএসপিএবি সভাপতি আবদুল হাকিম।

নভেম্বর পর্যন্ত ঝুলন্ত তার অপসারণের অভিযান বন্ধ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : ইন্টারনেট ও কেবল টিভির ঝুলন্ত তার মাটির নিচে প্রতিস্থাপনে নভেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়ে আপাতত তার অপসারণের অভিযান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)।

রোববার ডিএসসিসির নগরভবনে মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসের সঙ্গে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) ও কেবল অপারেটর্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (কোয়াব) নেতাদের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়।

এর আগে ঝুলন্ত তার অপসারণের প্রতিবাদে আজ থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সংযোগ বিচ্ছিন্ন রাখার কর্মসূচি ঘোষণা করেছিল আইএসপিএবি এবং কোয়াব।

গত সোমবার (১২ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে স্থায়ী সমাধান না করা পর্যন্ত কোনো ঝুলন্ত ক্যাবল অপসারণ না করাসহ পাঁচ দফা দাবি জানায় আইএসপিএবি ও কোয়াব। তাদের দাবির মধ্যে রয়েছে- আইএসপিএপি, কোয়াব, বিটিআরসি, এনটিটিএন এবং সিটি করপোরেশন সমন্বয়ে ‘লাস্ট মেইল ক্যাবল’ স্থাপন করা হয়েছে কি না- তা নিশ্চিত করার জন্য একটি কমিটির মাধ্যমে সরেজমিনে তদন্তের ব্যবস্থা করা; সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বাসাবাড়ি, অফিস ও ব্যাংকসহ সব পর্যায়ে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সেবার মূল্য নির্ধারণ করা; গ্রাহক পর্যায়ে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সেবা স্বল্পমূল্যে দেয়ার লক্ষ্যে এনটিটিএনের মূল্য সরকারের মাধ্যমে নির্ধারণ করা এবং গ্রাহক পর্যায়ে নিরবচ্ছিন্ন সেবা প্রদানে নিশ্চয়তার পক্ষে এনটিটিএনগুলো সার্বিক সক্ষমতা আছে কি-না তা যাচাইয়ের ব্যবস্থা করা।

এই পরিস্থিতিতে গতকাল শনিবার বিকেলে আইএসপিএবির নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জাব্বার এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমদ পলক।

সেই বৈঠকে মন্ত্রীর আশ্বাস মেলার পর আপাতত কর্মসূচি স্থগিত করার কথা জানান আইএসপিএবি সভাপতি আবদুল হাকিম।

মধ্যরাতে হয়ে গেলো ‘শেকল ভাঙ্গার পদযাত্রা’
                                  

আমজাদ হোসেন : চলমান নারী নির্যাতন ও সহিংসতার প্রতিবাদের মধ্যেই মধ্যরাতে হয়ে গেলো ‘শেকল ভাঙ্গার পদযাত্রা’। ১২টি দাবি নিয়ে আজ বুধবার (১৪ অক্টোবর) মধ্যরাতে সারাদেশে ধর্ষণ ও সহিংসতার প্রতিবাদে ও অপরাধীদের শাস্তির দাবিতে শাহবাগ থেকে মশাল হাতে পদযাত্রাটি শুরু হয়ে রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মানিক মিয়া এভিনিউ গিয়ে শেষ হয়। একদল শিক্ষার্থীর আয়োজনে মধ্যরাতের এই পদযাত্রায় অংশ নেন অসংখ্য নারী শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবকসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ। 

আন্দোলনকারীরা সমাজে নারীর প্রতি বিরুপ দৃষ্টি ও পুরুষতান্ত্রীক বেড়াজাল ভেঙ্গে ফেলাকে প্রতিপাদ্য করে নানা শ্লোগানে মুখরিত করে তোলে রাতের রাজপথ। ‘পুরুষের ক্ষমতা, ভেঙ্গে হোক সমতা’, ‘দিনে হোক রাতে হোক, সামলিয়ে রাখো চোখ’, ‘আমার বোন কবরে ধর্ষক কেন বাইরে’সহ নানা শ্লোগানে পদযাত্রাটি রাতের শহর প্রদক্ষিণ করে।

পদযাত্রায় অংশগ্রহণ করা এক শিক্ষার্থী জানান, পুরুষতান্ত্রিকতার প্রচলিত প্রথা ভেঙে একটা দেশের নাগরিক হিসেবে, মানুষ হিসেবে নারীদের স্বাধীনভাবে চলাফেরা করার যে অধিকার তার কার্যকরী প্রয়োগ না করার প্রতিবাদে এবং নাগরিক হিসেবে নারীদের নিরাপত্তা রাষ্ট্র নিশ্চিত করতে না পারার প্রতিবাদে আমাদের এ পদযাত্রা।

আরেক আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী বলেন, নারী পুরুষের সমানাধীকার এদেশে কেবল বইয়ের পাতাতেই সীমাবদ্ধ। আজও রাষ্ট্র প্রতিমুহূর্তে ব্যর্থ হয় একজন নারীর সুরক্ষার যথাযথ প্রযোগ এবং নারীর নিরাপত্তা বিধানে। ধর্ষণ, নির্যাতন, যৌন হয়রানি এবং নিপীড়ন যখন দেশের প্রতিটি জেলায় নিত্যদিন ঘটে চলেছে, তখনও রাষ্ট্র অপরাধীদের বিচারের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করতে ব্যর্থ।

পদযাত্রা শেষে সংসদ ভবনের সামনে আন্দোলনকারীরা অবস্থান কর্মসূচির আয়োজন করেন এবং ১২ দফা দাবিগুলো তুলে ধরেন। দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে-
১. সারাদেশে অব্যাহত ধর্ষণ-যৌন সহিংসতার সাথে যুক্তদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে দৃষ্টান্তমূলক ও ন্যায্য শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।
২. আন্তর্জাতিক মানবাধিকার মানদন্ডের সাথে সামঞ্জস্য রেখে আইনে ও সামাজিকভাবে ধর্ষণের সংজ্ঞায়ন সংস্কার করতে হবে।
৩. পাহাড় ও সমতলের সকল নারীদের ওপর সকল প্রকার যৌন এবং সামাজিক নিপীড়ন বন্ধ করতে হবে।
৪. জাতি-ধর্ম-বর্ণ-বয়স-লৈঙ্গিক পরিচয় নির্বিশেষে যৌন সহিংসতার ক্ষেত্রে যেকোনোভাবেই `ভিক্টিম ব্লেমিং` (দোষারোপ করা/নিন্দা জানানো) বন্ধ করতে হবে। গ্রামীণ সালিশ/পঞ্চায়েতের মাধ্যমে ধর্ষণের অভিযোগ ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টাকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে গণ্য করতে হবে।
৫. প্রাথমিক লেভেল থেকেই পাঠ্যপুস্তকে যৌন শিক্ষা (গুড টাচ ব্যাড টাচের শিক্ষা, সম্মতি বা কন্সেন্ট এর গুরুত্ব, প্রাইভেট পার্টস সম্পর্কে অবহিত করা) যোগ করতে হবে।
৬. ধর্ষণ মামলার ক্ষেত্রে সাক্ষ্য আইন, ১৮৭২ এর ১৫৫(৪) ধারা বিলোপ করতে হবে এবং মামলার ডিএনএ আইনকে সাক্ষ্য প্রমাণের ক্ষেত্রে কার্যকর করতে হবে।
৭. হাইকোর্টের নির্দেশানুযায়ী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ সরকারি, বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠানে নারী নির্যাতন বিরোধী সেল কার্যকর ও পূর্ণ বাস্তবায়ন করতে হবে। সিডো সনদে বাংলাদেশকে স্বাক্ষর ও তার পূর্ণ বাস্তবায়ন করতে হবে। নারীর প্রতি বৈষম্যমূলক সকল আইন ও প্রথা বিলোপ করতে হবে।
৮. মাদ্রাসার শিশুসহ সকল শিশুর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং কোন শিশু যৌন নির্যাতনের শিকার হলে ৯০ দিনের মাঝে দ্রুততম ট্রাইব্যুনালে অভিযোগের সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত করা।
৯. জাতীয় শিক্ষাক্রম অনুমোদিত পাঠ্যপুস্তকে নারী অবমাননাকর বার্তা প্রকাশ ও প্রচার করা নিষিদ্ধ করতে হবে।
১০. রাস্তাঘাটে নারীদের অযথা পুলিশি ও অন্যান্য হয়রানি বন্ধ করতে হবে। গণপরিবহনে নারীদের সুরক্ষা এবং নিরাপত্তার ব্যাপারে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করতে হবে।
১১. ধর্মীয় বক্তব্যের নামে অনলাইনে ও অফলাইনে নারী অবমাননাকর বক্তব্য প্রচার বন্ধ করতে হবে।
১২. যৌন সহিংসতা প্রতিরোধে প্রান্তিক অঞ্চলের নারীদের সুবিধার্থে হটলাইনের ব্যবস্থা চালু করতে হবে।

ঢাকার প্রায় অর্ধেক মানুষ করোনায় আক্রান্ত
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর ৪৫ শতাংশ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং বস্তি অঞ্চলে এই হার প্রায় ৭৪ শতাংশ বলে একটি গবেষণায় বলা হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্য ২৪ শতাংশের বয়স ৬০ বছরের বেশি। করোনাভাইরাসের জিন বিশ্লেষণ করে গবেষকেরা অনুমান করছেন, ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি দেশে প্রথম করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছিল।

গতকাল সোমবার বিকেলে গুলশানের লেইক শোর হোটেলে ঢাকায় কোভিড-১৯ এর প্রার্দুভাব ও বিস্তৃতি নিয়ে আয়োজিত এক সেমিনারে এসব তথ্য প্রকাশ করা হয়। সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি ভার্চুয়াল মাধ্যমে সেমিনারে যুক্ত হন।

গবেষণায় দেখা গেছে, ঢাকা শহরের বস্তির প্রায় তিন চতুর্থাংশ মানুষ ইতিমধ্যে সংক্রমিত হয়েছেন। করোনার কোনো লক্ষণ ছিল না এমন ৪৫ শতাংশ নগরবাসী করোনায় আক্রান্ত হয়েছে বলে রক্ত পরীক্ষায় ধরা পড়েছে।

গবেষণার জন্য ঢাকা উত্তর ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১২৯টি ওয়ার্ডের মধ্য থেকে দৈবচয়ন ভিত্তিতে ২৫টি ওয়ার্ড বেছে নেওয়া হয়। প্রতি ওয়ার্ড থেকে একটি মহল্লা বাছাই করা হয়। প্রতি মহল্লা থেকে ১২০টি খানা জরিপে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এ ছাড়া ৮টি বস্তিকে এ জরিপে যুক্ত করা হয়। ঢাকা শহরের সাধারণ খানার নমুনা সংগ্রহ করা হয় মধ্য এপ্রিল থেকে মধ্য জুলাই পর্যন্ত। আর বস্তির মানুষের নমুনা সংগ্রহ করা হয় মধ্য জুলাই থেকে আগস্টের শেষ পর্যন্ত।

গবেষকেরা বলছেন, সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ, চিকিৎসা ও টিকা দেওয়ার ব্যাপারে এসব তথ্য কাজে লাগবে। গবেষণার তথ্য এমন সময় প্রকাশ করা হলো যখন দেশে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ে আলোচনা চলছে। আসন্ন শীত মৌসুমে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার ঝুঁকির কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অন্যদিকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি তাদের আছে।

দেশের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) ও বেসরকারি আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ (আইসিডিডিআরবি) যৌথভাবে এই গবেষণা করেছে। গবেষণাটিতে আর্থিক সহায়তা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের দাতা সংস্থা ইউএসএআইডি এবং বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন।

ঢামেক ওসিসিতে চিকিৎসাধীন ২৩ জনের ১৭ জনই শিশু!
                                  

গণমুক্তি ডেস্ক : পল্লবীর কালশীতে নির্যাতনের শিকার ১৩ বছরের কিশোরীকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস (ওসিসি) সেন্টারে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। সোমবার (১২ অক্টোবর) বিকালে ঢামেকের ওসিসির সমন্বয়ক ডা. বিলকিস বেগম এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। আজকে এই সংশ্লিষ্ট যে রুটিন টেস্ট আছে সেগুলো দিয়েছি। রিপোর্ট এলে নিশ্চিত হওয়া যাবে। তবে এমনিতে কিশোরীটি সুস্থ আছে।

ডা. বিলকিস বেগম আরও বলেন, ঢামেকের ওসিসি সেন্টারে আটটি বেড রয়েছে। তবে আজকের হিসাব মোট ২৩ জন ভিকটিম ভর্তি আছেন। এরমধ্যে ১৭ জনই শিশু। যাদের বয়স চার থেকে ১৫ বছর। তাদের সবাই নানাভাবে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে। তবে গুরুতর কেউ নেই, মোটামুটি সবাই সুস্থ।

এদিকে পুলিশ জানায়, মিরপুরের পল্লবীর কালশী এলাকায় তিন দিন আগে নোয়াখালী থেকে বাবার কাছে বেড়াতে এসেছিল ১৩ বছরের এক কিশোরী। সেখানে আগে থেকে তার বোনও থাকতো। তিনি একজন গার্মেন্টকর্মী। গত রবিবার রাতে বাবা আর বোনের সঙ্গে অভিমান করেই বাসা থেকে বেরিয়ে যায় মেয়েটি। এরপর বাসা থেকে দূরে একটি দোকানের পাশে বসে ছিল সে। পরে বাসায় ফিরতে চাইলেও বাসা চিনতে না পারায় ফেরা হয়নি তার। এ সময় আবদুর রহমান মিন্টু ও আলামিন নামের দুই বখাটে তরুণ তাকে বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে কালশী এলাকার মেসে নিয়ে যায়। এরপর মিন্টু খবর দেয় তার বখাটে বন্ধু হৃদয় খান ও মোহাম্মদ জুয়েলকে। তারা একত্রিত হওয়ার পর মেয়েটিকে পরিকল্পিতভাবে ঘুমের ওষুধ খাওয়ানো হয়। এরপর শারীরিক নির্যাতন করা হয়। ভোরে অচেতন ওই কিশোরীকে মেসে রেখেই পালিয়ে যায় বখাটেরা। জ্ঞান ফেরার পর মেয়েটির কান্নাকাটি শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে গিয়ে তাকে বিধ্বস্ত অবস্থায় দেখতে পায়।

খবর পেয়ে পল্লবী থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে প্রথমে মিন্টু ও পরে তার সহযোগীদেরকে গ্রেফতার করে। জড়িত চার জনই মাদকাসক্ত বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মেয়র আতিক সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত
                                  

গণমুক্তি ডেস্ক : ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম ও তার স্ত্রী ডা. শায়লা সাগুফতা ইসলাম কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন। আজ সোমবার মেয়রের এপিএস এ তথ্য জানিয়েছেন। মোর্শেদ নিজেও করোনায় আক্রান্ত। করোনা শনাক্ত হওয়ার পর মেয়র আতিক ও তার স্ত্রী হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন।

জানা গেছে, রোববার থেকে আতিকুল ইসলামের শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। পরে রাতে করোনা পরীক্ষায় তার পজিটিভ আসে।

সিটি কপোরেশন সূত্রে জানা গেছে, ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, সিটি কর্পোরেশনের সচিব রবীন্দ্র শ্রী বড়ুয়াও কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন।
ডিএনসিসি কর্মকর্তারা ধারণা করছেন, বুধবার দুপুরে ডিএনসিসির উদ্যোগে চলমান খাল পরিষ্কার কার্যক্রম এবং বিভিন্ন খাল থেকে প্রাপ্ত মালামাল প্রদর্শনী পরিদর্শনে সময় জনসমাগম হয়। সেখান থেকে তিনি সংক্রমিত হতে পারেন।

এবার ঢাকায় মেসে কিশোরীকে দলবেঁধে ধর্ষণ!
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে দলবেঁধে ধর্ষণের রেশ কাটতে না কাটতেই এবার ঢাকায় মেসে নিয়ে এক কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। কয়েকজন মিলে মেসে ১৫ বছর বয়সী ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেছেন মর্মে ভুক্তভোগী কিশোরী নিজেই পল্লবী থাকায় একটি অভিযোগ করেছেন।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। এছাড়া মেয়েটিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

গত শনিবার রাতে ওই কিশোরী দলবেঁধে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে পল্লবী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়। আটক চারজনের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

জানা গেছে, ১৫ বছর বয়সী ওই কিশোরী গত শনিবার নোয়াখালী থেকে ঢাকায় আসে। এরপর বাবার পল্লবীর বাসায় ওঠেন। পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বাবা-মেয়ের মধ্যে মনোমালিন্য দেখা দিলে মেয়েটি বাসা থেকে রাগ করে বেরিয়ে যায়। পরে তার স্বজনেরা সম্ভাব্য অনেক স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার খোঁজ পায়নি। বাসা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর কয়েকজন ফুঁসলিয়ে মেয়েটিকে কালশীর একটি মেসে নিয়ে যায়। পরে ৬ থেকে ৭ জন তাকে ধর্ষণ করে বলে মেয়েটি পুলিশের কাছে অভিযোগ করে। খবর পেয়ে তার পরিবারের লোকজন হাসপাতালে ছুটে যায়।

পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ওয়াজেদ মিয়া অভিযোগ করার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ওই কিশোরী থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। এরপরই আমরা তৎক্ষণাৎ সেখানে অভিযান পরিচালনা করে চারজনকে আটক করেছি। কিশোরীটি ধর্ষণের শিকার হয়েছেন মর্মে অভিযোগ করলে তাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

শাহবাগে ধর্ষণবিরোধী গণজমায়েত শুরু
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর শাহবাগে ধর্ষণবিরোধী গণজমায়েত শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার (০৬ অক্টোবর) দুপুর ১২টা থেকে ‘ধর্ষকের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ’ ব্যানারে ধর্ষণবিরোধী কোনো জমায়েত শুরু হয়েছে। গণজমায়েতে যোগ দিয়েছেন ছাত্র ইউনিয়ন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টসহ প্রগতিশীল বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের কর্মী, লেখক-কবি ও ব্লগাররা।

শাহবাগ মোড় থেকে নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে কালো পতাকা মিছিল বের করা হবে। জমায়েত থেকে ‘আমার মাটি আমার মা, ধর্ষকদের হবে না’, ‘যে রাষ্ট্র ধর্ষকের, সে রাষ্ট্র মানি না’, ‘যে রাষ্ট্র ধর্ষককে পুষে, সে রাষ্ট্র মানিনা’ সহ ধর্ষণবিরোধী নানা স্লোগান নিয়ে আন্দোলনকারীরা মাঠে রয়েছেন।

আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টা থেকে ‘ধর্ষণের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ’ ব্যানারে তাদের গণজমায়েত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বৃষ্টির কারণে কিছুটা দেরিতে ধর্ষণবিরোধী গণজমায়েত শুরু হয়েছে।

সোমবার (০৫ অক্টোবর) সকাল থেকেই নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে এক নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনসহ সাম্প্রতিক সময়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে সংঘটিত ধর্ষণের ঘটনার প্রতিবাদে শাহবাগে মোড়ে অবস্থান নিতে শুরু করে ছাত্র ইউনিয়নের কর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। সেখান থেকেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দেওয়া ‘পৃথিবীর সব জায়গায় ধর্ষণ হয়’ বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানান তারা। এর পাশাপাশি দ্রুততম সময়ে ধর্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিরও দাবি জানান।

ধর্ষকদের শাস্তির দাবিতে শাহবাগ অবরোধ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূ নির্যাতনসহ সারাদেশে সংঘটিত ধর্ষণ-নিপীড়নের ঘটনায় বিচার দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করেছে সম্মিলিত ছাত্র-জনতা।

আজ সোমবার বেলা ১১টায় বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ ও প্রগতিশীল ছাত্রজোটের আহ্বানে শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে গণঅবস্থান কর্মসূচির ডাক দেয়া হয়। এতে ছাত্র-জনতা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নিলে জাদুঘরের সামনে থেকে সরে শাহবাগ মোড় অবরোধ করে স্লোগান দেন তারা।

এই গণঅবস্থান কর্মসূচিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর বক্তব্য রাখবেন বলে জানিয়েছেন ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতারা।

এদিকে একই দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে ছাত্রদলের বিক্ষোভ সমাবেশ চলছে।

সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে সংঘটিত ধর্ষণ-নির্যাতনের কয়েকটি ঘটনায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। সর্বশেষ নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ভিডিও রবিবার ফেসবুকে ভাইরাল হবার পর দেশজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে।

ভিডিও চিত্রে দেখা যায়, ওই গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে তার মুখমন্ডলে লাথি দেয় এবং বেধড়ক মারধর করে বখাটেরা। নিজের সম্ভ্রম রক্ষার চেষ্টার পাশাপাশি ওই গৃহবধূ বখাটেদের বহুবার পায়ে ধরে এবং বাবা-বাবা বলে ডাকলেও নির্যাতন বন্ধ হয়নি।

ওই নারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়েছে, গোপনে সাবেক স্বামী তার সঙ্গে দেখা করতে এসেছেন। এরপরই অনৈতিক কাজের অপবাদ দিয়ে ওই নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন করা হয়।

এদিকে ওই ঘটনায় নির্যাতিত গৃহবধূ রবিবার রাতে বেগমগঞ্জ থানায় নয়জনের নামে মামলা করেছেন। পুলিশ ইতোমধ্যে এ মালার প্রধান আসামি বাদলসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

সোনারগাঁওয়ের গেট ভেঙে সৌদি প্রবাসীদের বিক্ষোভ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : টোকেন নিতে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে সাউদিয়া এয়ারলাইন্সের সামনে কয়েক হাজার সৌদী প্রবাসী ভিড় জমিয়েছেন। আজ রোববার (০৪ অক্টোবর) সকাল থেকেই ভিড় জমান প্রবাসীরা। টোকেনের জন্য ভিড় ঠেলে এবং ধাক্কাধাক্কি করে একপর্যায়ে সোনারগাঁ হোটেলের গেট ভেঙে সহস্রাধিক প্রবাসী হোটেলের বাউন্ডারির ভেতরে অবস্থান নিয়েছেন।

পরে প্রবাসীদের স্রোতে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় হোটেলের আশপাশ। এক পর্যায়ে হোটেলের প্রবেশমুখ পর্যন্ত মানুষের ঢল নামে। ঢল ঠেকাতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হলেও স্রোত ঠেকানো যায়নি। টোকেন প্রত্যাশীদের ধাক্কাধাক্কি ও স্লোগানে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে সোনারগাঁও হোটেল। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এ সময় পুলিশ তাদের উপর লাঠি চার্জ করে। এ পরিস্থিতিতে টোকেন বিতরণ নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা।

এদিকে, কয়েক হাজার প্রবাসীর চাপে কারওয়ান বাজার এলাকার রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়। এতে, অফিসগামী যাত্রীদের পড়তে হয় চরম বিপাকে।

বনানীর বহুতল ভবনের আগুন নিয়ন্ত্রণে
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর বনানীর ১১ নম্বর রোডের এফআর টাওয়ারের পাশে আহমেদ টাওয়ারের ১৬ তলায় লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছে ফায়ার সার্ভিস। সংস্থাটির আটটি ইউনিট প্রায় আধাঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুন লাগার কারণ এবং ক্ষয়ক্ষতি পরিমাণ সম্পর্কে এখনো জানা যায়নি।

আজ রবিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আগুনের সূত্রপাত হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ফায়ার সার্ভিসের কন্ট্রোল রুমের অপারেটর শাহাদাত হোসেন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, ২২ তলা ভবনের ১৬ তলায় আগুন লাগে। তবে তেমন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। পুলিশের গুলশান বিভাগের উপকমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আগুন নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।’

২০১৯ সালের ২৮ মার্চ বহুতল বাণিজ্যিক ভবন এফআর টাওয়ারে আগুন লেগে ২৬ জনের মৃত্যু হয়। আহত হন ৭০ জন। এছাড়া ভবনটির ব্যাপক ক্ষতি হয়। সেই ভবনের পাশের ভবনেই এবার আগুনের ঘটনা ঘটল।

বাজার ভরা ইলিশে, দামেও সস্তা
                                  

গণমুক্তি ডেস্ক : জেলেদের জালে ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ। এতে রাজধানীর বাজারগুলোতে সরবরাহ বেড়েছে রুপালি ইলিশের। সরবরাহ বেশি থাকায় বাজারে আসা ইলিশের দামও বেশ সস্তা। অতি স্বাদের এই ইলিশের দাম নাগালের মধ্যে থাকায় ক্রেতারাও বেশ সন্তুষ্ট।

আজ শনিবার (১৫ আগস্ট ) রাজধানীর ইলিশ মাছের বাজার ঘুরে দেখা যায় এ চিত্র। বরিশাল, চাঁদপুরসহ বিভিন্ন আড়ত থেকে বাজারে আসছে রুপালি ইলিশ। করোনার এই সময় মাছ কিনতে আসা ক্রেতার সংখ্যাও নেহাত কম না।

বর্তমান বাজারে প্রতিকেজি ইলিশ বিক্রি হচ্ছে, বড় সাইজের ইলিশ অর্থাৎ এক কেজি বা তার চেয়ে বড় মাছ বিক্রি হচ্ছে ৯০০-১০০০ টাকায়, ৮০০ থেকে ৯০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ৭০০-৮০০ টাকায়, এর চেয়ে ছোট সাইজের ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ৪০০-৬০০ টাকার মধ্যে।

ইলিশ মাছ ব্যবসায়ী মো. হারুনুর রশিদ বলেন, যেহেতু এখন ইলিশের মৌসুম আর বাজারেও পর্যাপ্ত মাছ আছে সুতরাং দাম কিছুটা কম রয়েছে। তবে সাগরে গত সপ্তাহের তুলনায় মাছ কিছুটা কম ধরা পড়ছে ফলে মাছের আড়ত গুলোতেও বর্তমানে মাছ কিন্তু কম আসছে।

তিনি আরো বলেন, বাজারে ইলিশের সরবরাহ যথেষ্ট আছে এবং করোনার কারণে ক্রেতাদের চাহিদাও খুব বেশি লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। বর্তমানে ইলিশের যে দাম রয়েছে সামনের দিকে মাছের দাম আরও কিছুটা কমবে বলে আশা করছি।

ইলিশ মাছের ক্রেতাদের উদ্দেশ্যে এই বিক্রেতা বলেন, বাজারে চাঁদপুর, বরিশাল এবং চট্টগ্রামের মাছ পাওয়া যাচ্ছে। একেক মাছের দাম একেক রকম। তাই ক্রেতাদের বলবো দেখে শুনে ভালো ইলিশ কেনার জন্য।

ইলিশ মাছ কিনতে আসা এক ক্রেতা বলেন, বাজারে ইলিশ মাছের সরবরাহ যথেষ্ট বেড়েছে। দাম কম হওয়ায় ইলিশের বাজারে কিছুটা স্বস্তি আছে। তবে চাহিদা বৃদ্ধির সাথে সাথে বিক্রেতারা যেন দাম বাড়াতে না পারে সে ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের নজর দিতে হবে।

বাজার করতে আসা আরেক ক্রেতা বলেন, মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বাজারে আসা আমাদের জন্য একটু ঝুঁকিপূর্ণ। কিন্তু বাজারে এখন পর্যাপ্ত রূপালী ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে এজন্য ইলিশের লোভেই বাজারে এসেছি। দাম কিছুটা সস্তা, তবে মাছের বিক্রেতারা দাম বেশি চাইছেন বার্গেনিং করলে কম দামে কিনতে পারছি রূপালী ইলিশ।

এ বছরের মধ্যে তারের জঞ্জালমুক্ত হবে ডিএসসিসি : তাপস
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে (ডিএসসিসি) সড়কের ওপর ঝুলে থাকা তার-ক্যাবল সরানো হবে বলে জানিয়েছেন মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস।

সোমবার দুপুরে ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজের গভর্নিং বডির সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ সময়সীমা নির্ধারণের কথা বলেন।

মেয়র বলেন, আবশ্যকীয়তা ছাড়া সকল ধরনের তার আমরা অপসারণ করব। এই কার্যক্রম চলমান থাকবে। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটিকে তারের জঞ্জালমুক্ত করা হবে।

এর আগে গত ৫ আগস্ট ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) পক্ষ থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার মাধ্যমে অবৈধ ক্যাবল সংযোগ উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইন, ২০০৬ এর ২৫ নম্বর ধারা অনুযায়ী সেবাপ্রদানকারী ক্যাবল সংযোগের কাজে কোনো সরকারি, আধা-সরকারি বা স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার স্থানীয় কার্যালয়ের লিখিত অনুমোদন ব্যতীত কোনো স্থাপনা ব্যবহার বা সুবিধা নেয়া যাবে না।

আইনের উপ-ধারা ২৮ (২) অনুসারে, যদি কোনো ব্যক্তি এই আইনের অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তা হলে তিনি অনধিক ২ (দুই) বৎসর সশ্রম কারাদণ্ড বা অনধিক ১ (এক) লাখ টাকা কিন্তু অন্যূন ৫০ (পঞ্চাশ) হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ডে দণ্ডনীয় হবেন এবং অপরাধ পুনরাবৃত্তির ক্ষেত্রে তিনি অনধিক ৩ (তিন) বছর সশ্রম কারাদণ্ড বা অনধিক ২ (দুই) লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডনীয় হবেন।

ডুবে যাচ্ছে ঢাকার নিম্নাঞ্চল
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : বন্যার পানি ঢুকে পড়ছে ঢাকার নিম্নাঞ্চলের বাসাবাড়িগুলোতে। পূর্বাঞ্চলের বালু নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বইছে। এরই মধ্যে শহরের পূর্বাঞ্চলে বসবাসরত সাধারণ মানুষের ঘরবাড়ি তলিয়ে গেছে। রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে সব কিছুই পানির নিচে। ফলে নৌকা দিয়েই যোগাযোগ করতে হচ্ছে স্থানীয় বাসিন্দাদের। বাসা বাড়িতে পানি উঠে যাওয়ায় ঘরের মধ্যে মাচা কিংবা নৌকায় রান্না হচ্ছে। অনেকেই বাড়ি-ঘরও ছেড়েছেন।

গত এক মাসের বেশি সময় ধরে এমন চিত্র বিরাজ করছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৭০, ৭১, ৭৩ ও ৭৫ নম্বর ওয়ার্ডে। সদ্য যুক্ত হওয়া ওয়ার্ডগুলোর বাসিন্দাদের কাছে কোনও খাদ্য বা ত্রাণ সহায়তাও পৌঁছেনি।

ঢাকা পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত বালু নদীকে ঘিরেই কয়েকটি এলাকা রয়েছে। যে এলাকাগুলো ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে নতুন যুক্ত হওয়া ৭০, ৭১, ৭৩ ও ৭৫ ওয়ার্ড। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের তথ্যমতে, বর্তমানে বালু নদীতে বন্যা পরিস্থিতি বিরাজ করছে। নদীতে পানির সর্বোচ্চ স্তর ৭ দশমিক ১৩ মিটার। এই নদীর পানির সমতল ৫ দশমিক ৮৭ মিটার। আর ৫ দশমিক ৭৫ মিটারের ওপরে গেলে বিপৎসীমা ধরা হয়ে থাকে।

সরেজমিন দেখা গেছে, এসব ওয়ার্ডের বিস্তীর্ণ এলাকায় পানি ঢুকে পড়েছে। চারদিকে পানি আর পানি। কোথাও মাটি দেখা যাচ্ছে না। মানুষের বাসাবাড়ি, রস্তাঘাট ও দোকানপাটসহ সব কিছুই পানিতে ডুবে গেছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, পানির কারণে তাদের স্বাভাবিক কাজকর্ম ব্যহত হচ্ছে। তারা কাজে যোগ দিতে পারছেন না। বাসাবাড়ির সবজি বাগান ডুবে যাওয়ায় উপার্জনের পথও বন্ধ হয়ে গেছে। হাঁস-মুরগিসহ গবাদি পশু নিয়ে বিপাকে পড়েছেন তারা। কর্মহীন হয়ে পড়েছেন অনেকেই। যাতায়াতের কোনও ব্যবস্থা না থাকায় শহরের সঙ্গেও তারা যোগাযোগ করতে পারছেন না। এ অবস্থায় সিটি করপোরেশন থেকেও তারা কোনও সহযোগিতা পাচ্ছেন না।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৭০ নম্বর ওয়ার্ড ডেমরা। এরই এলাকার দেইল্লা, পাইটি, কায়েতপাড়া, ঠুলঠুলিয়া, খলাপাড়া, তাম্বুরাবাদ, নলছাটা, ধীৎপুর, মেন্দিপুর, আমুলিয়া ও শূন্যা টেংরা এলাকার নিম্নাঞ্চল বালু নদের পানিতে প্লাবিত হয়েছে। এলাকায় বসবাসরত মানুষের বাসাবাড়িতে পুনি ঢুকে পড়েছে।

খিলগাঁও থানাধীন ডিএসসিসির ৭৫ নম্বর ওয়ার্ডের বিচ্ছিন্ন বিভিন্ন এলাকায় দেড় থেকে আড়াই ফুট পানি বেড়েছে। এসব এলাকার বসবাসরত মানুষের ঘরবাড়িতে পানি উঠে পড়েছে। তাদের নৌকায় করে পানির ভেতর দিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে।

ডিএসসিসির ৭৩ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণগাঁও, ভাইগদিয়া ও মানিকদিয়া খালের তীরবর্তী নিম্নাঞ্চল তলিয়ে গেছে। এসব এলাকার মানুষও কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। অনেকের সংসারে দেখা দিয়েছে অভাব। ঘরবাড়ি ছেড়েও কেউ কেউ অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছেন। কাজের সন্ধানে বেরিয়ে পড়েছেন অনেক পরিবারের কর্মঠ মানুষ।

একই চিত্র দেখা গেছে, ডিএসসিসির ৭১ নম্বর ওয়ার্ডের মাণ্ডা, কদমতলী, ঝিলপাড়া ও উত্তর মাণ্ডা এলাকায়। এই এলাকাগুলোতে বালু নদীর পানি অভ্যন্তরির খালগুলো দিয়ে প্রবেশ করে এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে। এতে খাল তীরবর্তী বেশির ভাগ বাড়িতেই পানি ঢুকে পড়েছে।

এদিকে রাজধানীর সবুজবাগ, বাড্ডা, বেরাইদ, ডুমনি, সাঁতারকুল, দক্ষিণখানসহ বালু নদের তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলগুলোও প্লাবিত হয়েছে। এ ছাড়া বালু নদ তীরবর্তী নগরীর বিভিন্ন এলাকায় শাখা নদের সংযোগ ও ছোট-বড় সংযোগ খালেও বানের পানি ঢুকেছে।

রাজধানীর ওয়ারী থেকে লকডাউন প্রত্যাহার
                                  

গণমুক্তি ডেস্ক : কার্যকর হওয়ার ২১ দিন পর রাজধানীর ওয়ারী থেকে লকডাউন তুলে নিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের হার বেশি হওয়ায় ওয়ারী অঞ্চলকে ‘রেড জোন’ হিসেবে চিহ্নিত করে ৪ জুলাই থেকে শুরু হওয়া লকডাউন শুক্রবার মধ্যরাতে তুলে নেওয়া হয়।

ডিএসসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাসের বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) থেকে এ বিষয়ে নতুন কোনো নির্দেশনা না পাওয়ায় লকডাউন প্রত্যাহার করা হয়েছে। ওই এলাকায় করোনা সংক্রমণের হার তুলনামূলকভাবে হ্রাস পেয়েছে বলেও জানান তিনি। তবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিশ্চিত করতে আগের মতো লাউডস্পিকারে জনসচেতনামূলক মাইকিং অব্যাহত থাকবে।

লকডাউন এলাকায় করোনা পরীক্ষার বুথ ও ই-কমার্সের মাধ্যমে খাদ্যসামগ্রী সরবরাহসহ অন্যান্য সেবাও অব্যাহত থাকবে ৩০ জুলাই পর্যন্ত।

যৌতুকের কারণে স্ত্রীকে নিজ হাতে হত্যা করেন নিরঞ্জন
                                  

চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি : পাবনার চাটমোহরে গৃহবধূ কল্পনা রানী পাল (৩৮) কে গলা কেটে হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। যৌতুকের কারণে স্ত্রীকে নিজের হাতে ধারালো ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে তার স্বামী। ঘটনায় জড়িত নিহত গৃহবধূর স্বামী নিরঞ্জন পাল ওরফে নিরু (৪৫) কে আটক করা হয়েছে। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকান্ডের বিষয়টি স্বীকারও করেছেন তিনি। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, প্রায় ২৬ বছর আগে কল্পনা রানীর সাথে বিয়ে হয় নিরঞ্জন ওরফে নিরু’র। দুই ছেলে দিনাজপুরে বসবাস করায় তারা স্বামী-স্ত্রী বাড়িতে থাকতেন। চায়ের দোকানের আয় দিয়ে চলে তাদের সংসার। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী কল্পনা রানীকে বেধড়ক মারধর করতেন নিরঞ্জন। রোববার (১৯ জুলাই) এনিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নিরঞ্জন পুলিশকে জানিয়েছে, স্ত্রীর উপর ক্ষোভ থেকে রোববার রাত সাড়ে আটটার দিকে প্রবল বৃষ্টির মধ্যে নিজের চায়ের দোকান থেকে গোপনে বাড়িতে যান নিরঞ্জন। শোবার ঘরে ঢুকেই স্ত্রী কল্পনা রানীকে মারধর করেন। পরে মুখ চেপে ধরে ধারালো ছুরি দিয়ে জবাই করে হত্যা করে নিজের চা দোকানে ফিরে যান তিনি। পরে রাত পৌনে ১১টার দিকে বাড়ি ফিরে নিরঞ্জন স্থানীয়দের ডেকে জানায় কল্পনা রানীকে হত্যা করেছে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার ও স্বামী নিরঞ্জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে।

চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম জানান, নিরঞ্জন পাল খুব বদমেজাজী টাইপের লোক। তার হাতে কাটা চিহ্ন দেখে সন্দেহজনকভাবে আটক করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে সে অকপটে স্ত্রী হত্যার কথা স্বীকার করেছে। এ ঘটনায় থানায় ওই গৃহবধুর বাবা মনোরঞ্জন পাল বাদী হয়ে নিরঞ্জন ওরফে নিরুকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নাম্বার ১২। সোমবার (২০ জুলাই) মামলায় নিরঞ্জনকে গ্রেফতার দেখিয়ে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

আশুলিয়ায় হেরোইনসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী আটক
                                  

হাসান ভূঁইয়া, আশুলিয়া (ঢাকা) : আশুলিয়ায় হেরোইনসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের নিকট তল্লাশী চালিয়ে ২ হাজার ৩০৫ পুরিয়া হেরোইন উদ্ধার করা হয়।
সোমবার সকালে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন আশুলিয়া থানার উপ-পরির্দশক (এসআই) হারুন-অর-রশিদ। এর আগে রোববার রাতে আশুলিয়ার জিরানী টেঙ্গুরি এলাকার মান্নান কলেজের সামনে থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।
আটককৃতরা হলো- ঢাকার আশুলিয়া থানাধীন ঘুগুদিয়া টেকপাড়া গ্রামের মৃত মকছেদ আলীর ছেলে মানিক হোসেন (৩১), টাঙ্গাইল জেলার দেলদুয়ার থানার মাদারকুল পূর্বপাড়া গ্রামের ইব্রাহিম মিয়ার ছেলে সানোয়ার হোসেন (৩৮) ও গাইবান্ধা জেলার সদর থানার হাট লক্ষীপুর ইউনিয়নের সরকার পাড়া গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে রুপ শাহ্ (২১)। তারা সকলেই আশুলিয়ার টেঙ্গুরি পুকুরপাড় এলাকায় ভাড়া বাসা থেকে টেঙ্গুরিসহ আশপাশের এলাকায় দীর্ঘদিন যাবৎ মাদক সরবারহ ও বিক্রয় করে আসছিলো বলে জানায় পুলিশ।
এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন-অর-রশিদ জানান, রোববার রাতে আশুলিয়ার জিরানী টেঙ্গুরি এলাকায় মাদক ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ২ হাজার ৩০৫ পুরিয়া হেরোইনসহ তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। যার আনুমানিক বাজার মূল্য ২ লক্ষ ৩০ হাজার ৫০০টাকা।
তিনি আরও জানান আটকদের মধ্যে মানিক হোসেন মাদক মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত পলাতক আসামি। তার বিরুদ্ধে চারটি মাদক মামলাসহ বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে।
আটককৃত মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান আশুলিয়া থানা পুলিশের এই চৌকস অফিসার।


   Page 1 of 81
     রাজধানী
নভেম্বর পর্যন্ত ঝুলন্ত তার অপসারণের অভিযান বন্ধ
.............................................................................................
মধ্যরাতে হয়ে গেলো ‘শেকল ভাঙ্গার পদযাত্রা’
.............................................................................................
ঢাকার প্রায় অর্ধেক মানুষ করোনায় আক্রান্ত
.............................................................................................
ঢামেক ওসিসিতে চিকিৎসাধীন ২৩ জনের ১৭ জনই শিশু!
.............................................................................................
মেয়র আতিক সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত
.............................................................................................
এবার ঢাকায় মেসে কিশোরীকে দলবেঁধে ধর্ষণ!
.............................................................................................
শাহবাগে ধর্ষণবিরোধী গণজমায়েত শুরু
.............................................................................................
ধর্ষকদের শাস্তির দাবিতে শাহবাগ অবরোধ
.............................................................................................
সোনারগাঁওয়ের গেট ভেঙে সৌদি প্রবাসীদের বিক্ষোভ
.............................................................................................
বনানীর বহুতল ভবনের আগুন নিয়ন্ত্রণে
.............................................................................................
বাজার ভরা ইলিশে, দামেও সস্তা
.............................................................................................
এ বছরের মধ্যে তারের জঞ্জালমুক্ত হবে ডিএসসিসি : তাপস
.............................................................................................
ডুবে যাচ্ছে ঢাকার নিম্নাঞ্চল
.............................................................................................
রাজধানীর ওয়ারী থেকে লকডাউন প্রত্যাহার
.............................................................................................
যৌতুকের কারণে স্ত্রীকে নিজ হাতে হত্যা করেন নিরঞ্জন
.............................................................................................
আশুলিয়ায় হেরোইনসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী আটক
.............................................................................................
বৃষ্টি ও জলাবদ্ধতায় নাকাল রাজধানীবাসী
.............................................................................................
যশোর-৬ আসনে বিপুল ভোটে নৌকার মাঝি হলেন শাহীন
.............................................................................................
সাবেক বন ও পরিবেশ মন্ত্রী শাহজাহান সিরাজের মৃত্যু
.............................................................................................
ওয়ারীতে লকডাউনের মধ্যেও দ্বিগুণ লোকের চলাচল
.............................................................................................
করোনায় হাঁসফাঁস করছে মধ্যবিত্ত
.............................................................................................
২১ দিনের জন্য `অবরুদ্ধ` ওয়ারী
.............................................................................................
২০ কোটি টাকা খাবার বিলের অভিযোগ সত্য নয়: ঢামেক পরিচালক
.............................................................................................
রাজধানীতে ট্রেনে কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু
.............................................................................................
নীলফামারী জেলা সদর ভুমি অফিসে নেই ভোগান্তি
.............................................................................................
শনিরআখড়া আন্ডারপাসের ময়লা পরিষ্কার করে লাইটিং করলেন কুয়াশা
.............................................................................................
লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি হত্যা: রাজধানীতে গ্রেপ্তার ৪
.............................................................................................
এ বছর ডেঙ্গুর প্রকোপ থেকে ঢাকাবাসীকে মুক্ত রাখতে পারবো: তাপস
.............................................................................................
কাশিমপুর কারাগারের হাজতির মৃত্যু
.............................................................................................
ভিডিপির সদস্যর ২৬শে মার্চ প্যারেডে অংশগ্রহন করার অনুরোধ
.............................................................................................
আজ রাত ১২টা থেকে ৪টি বাদে সব দেশে বিমান চলাচল বন্ধ
.............................................................................................
যানজট নিরসনে কাজ করছেন ছাত্রলীগ নেতা রুমান
.............................................................................................
সকাল সকাল বৃষ্টি রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে
.............................................................................................
দেশের অখন্ডতা রক্ষা ও আগ্রাসী কর্মকান্ড প্রতিরোধে সেনাবাহিনীর সম্পূর্ণ সক্ষমতা রয়েছে-সেনা প্রধান
.............................................................................................
আজ ফাগুনে একাকার ভালোবাসা দিবস
.............................................................................................
লেবানন থেকে সেচ্ছায় দেশে ফিরছেন ৪৭১ জন অবৈধ প্রবাসী
.............................................................................................
রেলের সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করা হবে : রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
সিলেট-ছাতক রেলপথ সুনামগঞ্জ পর্যন্ত দ্রুত কাজ শুরু হবে : রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
দক্ষিনের নব নির্বাচিত মেয়র তাপসকে ফুলেল শুভেচ্ছা
.............................................................................................
করোনা ভাইরাস রুখতে চীনা নাগরিকদের ভিসা স্থগিত সতর্কতা জারি সমুদ্র বন্দরেও
.............................................................................................
আজ বিকালে একুশের বইমেলা উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
হরতালে যানবাহন চালানোর সিদ্ধান্ত মালিক সমিতির
.............................................................................................
ভোটকেন্দ্রে ছবি তোলায় সাংবাদিককে কুপিয়ে রক্তাক্ত
.............................................................................................
দেশ ও জনগণের কল্যাণে আমাদের কাজ করতে হবে- প্রধান প্রকৌশলী, গণপূর্ত অধিদপ্তর
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে ভোট দেবেন সিটি কলেজ কেন্দ্রে
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীর দোয়া নিলেন আতিকুল
.............................................................................................
ভোটার ছাড়া কেন্দ্রের আশপাশে বহিরাগত দেখলেই আটক
.............................................................................................
ক্রসফায়ারের হুমকি দিয়ে টাকা নেয়ার দায়ে ৭ ডিবি পুলিশ ক্লোজড
.............................................................................................
কূটনীতিকরা যেন বাড়াবাড়ি না করে : এইচটি ইমাম
.............................................................................................
৫ বছরে এক কোটির বেশি লোকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে -অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন
বাণিজ্যিক কার্যালয় : "রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্লেক্স"
(৬ষ্ঠ তলা), ২৮/১ সি, টয়েনবি সার্কুলার রোড,
মতিঝিল বা/এ ঢাকা-১০০০| জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা
ফোন নাম্বার : ০২-৪৭১২০৮০৫/৬, ০২-৯৫৮৭৮৫০
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, 01731800427
E-mail: dailyganomukti@gmail.com
Website : http://www.dailyganomukti.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD