ঢাকা,বুধবার,১২ আষাঢ় ১৪২৭,২৪,ফেব্রুয়ারী,২০২১ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > বেইলি সেতু ধসে ৮ ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ   > কিশোরগঞ্জে কোভিড-১৯ টিকা গ্রহণ উদ্বুদ্ধকরণে আলোচনা সভা ও র‌্যালি   > অচল গাড়ির কারণে বিআরটিসির সচল গাড়ির জায়গা ডিপোর ভেতরে হচ্ছে না   > ‘নগদ’ অ্যাকাউন্টের সংখ্যা প্রতিনিয়তই বাড়ছে   > কলামিস্ট, গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ আর নেই   > টিকা কিনতে ৯৪০ মিলিয়ন ডলার সহায়তা দেবে এডিবি   > বিদেশি পর্যটক আকৃষ্টে পতেঙ্গায় হচ্ছে বিশ্বমানের ট্যুরিস্ট জোন   > বিএনপির অনেক নেতা গোপনে টিকা নিয়েছেন : তথ্যমন্ত্রী   > করোনায় একদিনে দেশে ১৮ মৃত্যু, ১০ জন পুরুষ   > ২১ আগস্ট মঞ্চে গ্রেনেড ছুড়েছিলেন ইকবাল: র‌্যাব ডিজি  

   রাজনীতি -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বিএনপির অনেক নেতা গোপনে টিকা নিয়েছেন : তথ্যমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার : তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বিএনপির কোনো কোনো নেতা গোপনেও টিকা নিয়েছেন। আমি অনুরোধ জানাবো- আপনারা এভাবে গোপনে লুকিয়ে লুকিয়ে না নিয়ে যেভাবে জনসম্মুখে কথা বলেন, ঠিক সেভাবে টিকাগ্রহণ করেন।’ গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে ‘বঙ্গবন্ধু : বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। ইন্ডিয়ান মিডিয়া করেসপন্ডেন্ট অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ইমক্যাব) এই সভার আয়োজন করে। হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আমাদের দেশে টিকা নিয়ে বিরূপ প্রচারণা চালানো হয়েছে। যারা এই বিরূপ প্রচারণা চালিয়েছিলেন, তারাও এখন টিকাগ্রহণ করছেন।’ বিএনপির মূল কাজ ভারত বিরোধিতা উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘১৯৭৫ সালে দেশ যখন উল্টো পথে হাঁটা শুরু করল, তখন ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলে ভোট নেয়ার চেষ্টা চালানো হয়েছে। সেই কারণে আমাদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। এই অঞ্চলের ক্ষতি হয়েছে। দেশে বিএনপিসহ কয়েকটি রাজনৈতিক দল আছে, যাদের মূল কাজ হচ্ছে ভারত বিরোধিতা। যখন নির্বাচন আসে, তখন তারা ভারত বিরোধিতাকে সামনে নিয়ে আসে।’ তিনি আরও বলেন, ‘ভারত আমাদের দেশের তিন দিকে পরিবেষ্টিত। যে দেশ আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় রক্ত ঝরিয়েছে, যাদের সহযোগিতা ছাড়া আমাদের নয় মাসের মধ্যে মুক্তি অর্জন সম্ভব ছিল না। আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে তাদের যে কূটনৈতিক তৎপরতা, এটি ছাড়া বঙ্গবন্ধুকে মুক্ত করাও সম্ভব ছিল না। সেই দেশের সঙ্গে বিরোধিতা করে আমাদের দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়, তারা এটি বুঝেও বুঝেনা।’ সভায় ইমক্যাবের সভাপতি বাসুদেব ধরের সভাপতিত্বে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ প্রমূখ।

বিএনপির অনেক নেতা গোপনে টিকা নিয়েছেন : তথ্যমন্ত্রী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বিএনপির কোনো কোনো নেতা গোপনেও টিকা নিয়েছেন। আমি অনুরোধ জানাবো- আপনারা এভাবে গোপনে লুকিয়ে লুকিয়ে না নিয়ে যেভাবে জনসম্মুখে কথা বলেন, ঠিক সেভাবে টিকাগ্রহণ করেন।’ গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে ‘বঙ্গবন্ধু : বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। ইন্ডিয়ান মিডিয়া করেসপন্ডেন্ট অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ইমক্যাব) এই সভার আয়োজন করে। হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আমাদের দেশে টিকা নিয়ে বিরূপ প্রচারণা চালানো হয়েছে। যারা এই বিরূপ প্রচারণা চালিয়েছিলেন, তারাও এখন টিকাগ্রহণ করছেন।’ বিএনপির মূল কাজ ভারত বিরোধিতা উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘১৯৭৫ সালে দেশ যখন উল্টো পথে হাঁটা শুরু করল, তখন ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলে ভোট নেয়ার চেষ্টা চালানো হয়েছে। সেই কারণে আমাদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। এই অঞ্চলের ক্ষতি হয়েছে। দেশে বিএনপিসহ কয়েকটি রাজনৈতিক দল আছে, যাদের মূল কাজ হচ্ছে ভারত বিরোধিতা। যখন নির্বাচন আসে, তখন তারা ভারত বিরোধিতাকে সামনে নিয়ে আসে।’ তিনি আরও বলেন, ‘ভারত আমাদের দেশের তিন দিকে পরিবেষ্টিত। যে দেশ আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় রক্ত ঝরিয়েছে, যাদের সহযোগিতা ছাড়া আমাদের নয় মাসের মধ্যে মুক্তি অর্জন সম্ভব ছিল না। আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে তাদের যে কূটনৈতিক তৎপরতা, এটি ছাড়া বঙ্গবন্ধুকে মুক্ত করাও সম্ভব ছিল না। সেই দেশের সঙ্গে বিরোধিতা করে আমাদের দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়, তারা এটি বুঝেও বুঝেনা।’ সভায় ইমক্যাবের সভাপতি বাসুদেব ধরের সভাপতিত্বে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ প্রমূখ।

যুব মহিলালীগের সভাপতি সোনিয়া সম্পাদক তানজিলা তৃষা
                                  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি : সখিপুর থানা যুব মহিলালীগের নব-নির্বাচিত সভাপতি সোনিয়া নাসির ও সাধারন সম্পাদক তানজিলা তৃষা। শুক্রবার বিকেলে সখিপুর হাজী শরীতুল্লাহ কলেজ মাঠে এক সভায় এ কমিটি ঘোষনা করা হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সখিপুর থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির মোল্লা,সাধারন সম্পাদক আতিকুর রহমান মানিক সরকার, জেলা যুব মহিলালীগের আহ্বায়ক ফাতেমা আক্তার শিল্পী, যুগ্ন-আহ্বায়ক আকলিমা খাতুন ও শাহিনা আক্তার। কর্মী সভা শেষে সোনিয়া নাসিরকে সভাপতি, তানজিলা তিষাকে সাধারন সম্পাদক করে মোট ৫১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষনা করা হয়। কমিটির নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দ প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

হঠাৎ এক মঞ্চে শামীম সেলিম ওসমান ও আইভীর চ্যালেঞ্জ
                                  

এ এইচ ইমরান : নারায়ণগঞ্জের তিন রাজনীতিক ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী, একেএম সেলিম ওসমান ও শামীম ওসমানকে এক মঞ্চে দেখা গেছে? রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে শহরের সিরাজউদ্দৌল্লা সড়কে কুমুদিনী কমপ্লেক্সে এক অনুষ্ঠানে তাদের একসাথে দেখা হলে ও কথা বলেনি কেউ কারো সাথে। সকলে নারায়ণগঞ্জে কুমুদিনী ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্স এন্ড ক্যান্সার রিসার্চ (কেআইএমএস কেয়ার) এর ভিস্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন তিনি। ভিত্তিপ্রস্তব উদ্বোধন অনুষ্ঠানে কুমুদিনী কমপ্লেক্সে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক? আরও উপস্থিত ছিলেন জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নায়োকি, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ নজরুল ইসলাম বাবু, নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা, জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ, জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম। এদিকে সকলে মঞ্চে আসার আগেই রাতে সরাসরি একেএম শামীম ওসমানকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন উপমন্ত্রীর পদমর্যাদার নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের জনপ্রিয় মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। শনিবার রাতে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে সাংসদ শামীম ওসমানের প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন সিটি মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী। তিনি শামীম ওসমানকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘শামীম ওসমান ছিঁচকে গুন্ডা। তার কোনো সাহস নাই। সাহস থাকলে আমার সাথে লড়ুক। কখনও আলেম, কখনও হিন্দুদের নিয়ে নাটক করে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করেন। এসব করে লাভ নাই নারায়ণগঞ্জবাসী সবই জানে। তার এতো ছোট মন-মানসিকতা কেন? সৎ সাহস থাকলে আসুক আমার সাথে। আমি তাকে ওপেন চ্যালেঞ্জ করছি, শামীম ওসমানের সৎ সাহস থাকলে নারায়ণগঞ্জে আসুক। কথা বলুক আমার সাথে। এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘এটা এখন শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ। আলেমদের নিয়ে হিন্দুদের দিয়ে জিউস পুকুর, ফতোয়া দিয়ে মাথায় সিঁদুর পড়েছি, হিন্দু হয়ে গিয়েছি এই ধরনের কথাবর্তা এখন এই যুগের মানুষ সবই বুঝে নাঠের গুরুকে। সারা দুনিয়া এখন হাতের মুঠোয়। সুতরাং দখলদারিত্ব আর দখলবাজদের জায়গা বাংলার মাটিতে নাই। নারায়ণগঞ্জে তো এই ওসমানের জায়গা হবেই না।’ সিটি মেয়র বলেন, ‘কাজ করতে গিয়ে, নারাণগঞ্জের মানুষের পক্ষে কথা বলতে গিয়ে কাফের উপাধি পেয়েছি। কথিত আলেম কত সহজে কত সুন্দর করে কুরআন পড়ে, হাদিস পড়ে কী সুন্দরভাবে বলে ফেললো, আইভী হিন্দু না হয় কাফের। কী অদ্ভুত এই দেশ! কী অদ্ভুত আমরা মানুষ! ভাড়া করা গুন্ডাদের মতো কথা বললো তারা। আমার কাছে আলেমদের কথা মনে হলো না। কুরআন হাদিস পড়া লোকজন তো কথা বলবে মানুষকে বিপদগামী হওয়া থেকে উদ্ধার করে আনার জন্য। তাদের কথা শুনে বিধর্মীরা ইসলাম ধর্মে রূপান্তরিত হবে। আর তারা এমনভাবে মঞ্চ কাপিয়ে গেলেন মনে হলো শামীম ওসমানের ভাড়া করা গুন্ডারা এখানে এসেছে।

বিএনপি একটি ব্যর্থ রাজনৈতিক দল : উপমন্ত্রী শামীম
                                  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি : পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও শরীয়তপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, বিএনপি একটি ব্যর্থ রাজনৈতিক দল। বিএনপি নির্বাচনে ব্যর্থ, আন্দোলনেও ব্যর্থ। নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতেই এখন আন্তর্জাতিকভাবে ষড়যন্ত্র করে সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার চেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষ এখন আর বিএনপিকে বিশ্বাস করেনা। কারন বাংলাদেশের মানুষ জানে বিএনপি ধোকাবাজীর রাজনীতি করে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে শরীয়তপুরের নড়িয়া মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে নড়িয়া পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী। উপমন্ত্রী শামীম বলেন, বাংলাদেশের মানুষ জননেত্রী শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রশ্নে ঐক্যবদ্ধ আছে। তাই বাংলাদেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছ। কোন ষড়যন্ত্র করে এই অগ্রযাত্রাকে থামানো যাবেনা। এ সময় নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ কে এম ফজলুল হক মালের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাস্টার হাসানুজ্জামান খোকনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি হাজী আঃ ওহাব বেপারী, নড়িয়া পৌরসভার নব নির্বাচিত মেয়র এ্যাড. মো. আবুল কালাম আজাদ, নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আনোয়ার হোসেন বাদশা শেখ, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক নাসির সরদার, স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক দেলোয়ার আকন ও উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আসাদুজ্জামান বিপ্লব প্রমুখ।

একটি চক্র দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত: ড. হাছান মাহমুদ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : আল জাজিরার প্রতিবেদনের প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, একটি চক্র সবসময় দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত, যারা যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর চেষ্টা করেছে। সেই চক্র এখন তাদের অর্থবিত্ত নিয়ে মানুষ ভাড়া করে এবং বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মিডিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করে দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। দেশের মানুষ সতর্ক আছে, সজাগ আছে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে এই সরকারের ভিত্তি তৃণমূল পর্যন্ত শক্তিশালী আছে। সুতরাং এই ছোটখাটো কাতুকুতু দিয়ে লাভ হবে না। মুজিববর্ষ উপলক্ষে গতকাল বুধবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) ‘একুশের চেতনায় বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদ এ সভার আয়োজন করে। তিনি আরও বলেন, দেশে সঠিকভাবে করোনা মোকাবিলা করতে শেখ হাসিনার সরকার সক্ষম হয়েছে। এই করোনাকালে পৃথিবীর সব দেশে যখন ঋণাত্মক জিডিপির প্রবৃদ্ধি সেখানে আমাদের পজিটিভ জিডিপি প্রবৃদ্ধি। এটি অনেকের সহ্য হচ্ছে না। সেই কারণে এখন নতুন খেলায় মেতে উঠেছে। এই খেলা খেলে কোনো লাভ হবে না। দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতি সমগ্র বিশ্বের কাছে প্রশংসিত। ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আজকে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি এখন সমগ্র বিশ্বের কাছে আজ প্রশংসিত। বাংলাদেশের উন্নয়ন নিয়ে আজ ভারতের গণমাধ্যমে আলোচনা হয়। বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার জাকির আহমদের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন- বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদের সভাপতি জিন্নাত আলী খান জিন্নাহ, সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান, হকার্স লীগের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আলী, অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, আওয়ামী লীগ নেতা এম এ করিম, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা, রফিকুল ইসলাম রনি, যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য মানিক লাল ঘোষসহ প্রমুখ।

বিএনপি জন্মলগ্ন থেকেই সন্ত্রাসের রাজনীতির উত্তরাধিকার: কাদের
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপি জন্মলগ্ন থেকেই হত্যা ও সন্ত্রাসের রাজনীতির উত্তরাধিকার বহন করে চলেছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। গতকাল রোববার রাজধানীর আজিমপুরে সেভেন মার্ডার দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে আলোচনা সভায় যুক্ত হন। এ সময় তিনি বলেন, নির্বাচনে জয়-পরাজয় থাকবে। কিন্তু বিএনপি পরাজয় মেনে নিতে চায় না বলেই ১৯৯৪ সালের আজকের দিনে ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের পরের দিন বিএনপির পরাজিত কাউন্সিলর আবদুল আজিজ পরাজয়ের প্রতিশোধ নিতে সশস্ত্র হামলা চালায়।
নৃশংস ব্রাশ ফায়ারে সেদিন লালবাগের মাটি রক্তে রঞ্জিত হয়েছিল। সেদিনের বিজয় আনন্দ বিষন্ন বেদনায় রূপ নেয়। যাতে সাতজন আওয়ামী লীগের নেতা প্রাণ হারায়। ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির অপরাজনীতি শুধু ১৯৯৪ সালেই নয়, ২০০১ সালেও তারা ক্ষমতায় এসে ২১ হাজার নেতাকর্মীর রক্তে রঞ্জিত করেছিলো বাংলার জনপদ।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমি বিশ্বাস করি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় মানুষ জেগে উঠেছে বলেই ভাস্কর্য ইস্যু নিয়ে বিএনপি মাঠ গরম করতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে। জনগণ বিএনপির অপরাজনীতি প্রত্যাখ্যান করেছে বলেই তাদের পৌরসভা নির্বাচনে এমন পরাজয়। অপরদিকে শেখ হাসিনার উন্নয়নের রাজনীতির প্রতি আস্থার বহিঃপ্রকাশই হচ্ছে আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের নিরঙ্কুশ বিজয়।
বিএনপি নির্বাচনে পরাজিত হয়ে শুধু নির্বাচন ব্যবস্থাকেই প্রশ্নবিদ্ধ করছে না, তারা প্রতিহিংসার আগুন জ্বালিয়ে দেয়, তাদের রাজনীতিতে পরমত সহিংসতা নেই।

ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে এমপি একরামুল করিমের ‘রাজাকার’ লাইভ বক্তব্য ভাইরাল
                                  

গণমুক্তি রিপোর্ট : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের পরিবারকে রাজাকারের পরিবার বলে আখ্যায়িত করেছেন নোয়াখালী-৪ (সদর ও সুবর্ণচর) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টা ১০ মিনিটের সময় তিনি তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে লাইভে এসে এ ব্যাপারে আরও কথা বলার হুমকি দেন। পরে ভিডিওটি ভাইরাল হয়। ২৭ সেকেন্ডের ওই ভিডিও ক্লিপে তিনি বলেন, ‘আমি তো মির্জা কাদেরের বিরুদ্ধে কথা বলবো না, আমি কথা বলবো ওবায়দুল কাদেরের বিরুদ্ধে। একটা রাজাকার ফ্যামিলির লোক এই পর্যায়ে আসেন। তার ভাইকে শাসন করতে পারেন না। এগুলো নিয়ে আমি আগামী কয়েক দিনের মধ্যে কথা বলবো। যদি আমার জেলা কমিটি না আসে, তবে এটা নিয়ে কথা বলা শুরু করবো।’ পরে তাৎক্ষণিকভাবে তিনি ফেসবুক আইডি থেকে লাইভ ভিডিওটি সরিয়ে নেন। লাইভ দেওয়ার কিছুক্ষণ পর তার আইডি থেকে ভিডিওটি ডিলিট করা হলেও মুহূর্তের মধ্যে এটির ডাউনলোড কপি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে এবং কয়েক মিনিটের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায়। ইতোমধ্যে একরামুল করিম চৌধুরীর এ বক্তব্যের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পক্ষে বিপক্ষে দেওয়া হচ্ছে নানা পোস্ট। একরামুল করিম গণমাধ্যমকে বলেন, ভিডিও সরিয়ে নিলেও তিনি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের পরিবারের বিরুদ্ধে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা সত্য এবং তিনি সত্য কথা বলেছেন। তিনি বলেন, ‘আপনারা গণমাধ্যমকর্মীরা খবর নিলে জানতে পারবেন তার পরিবারে কারা রাজাকার ছিলেন। তবে ওবায়দুল কাদের একজন মুক্তিযোদ্ধা। দীর্ঘদিন থেকে তার ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা বিভিন্ন পর্যায়ের আওয়ামী লীগ নেতাদের নিয়ে এলোমেলো বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু তিনি তার ভাইকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন না, এ জন্য কাদের মির্জা এসব কথা বলতে পরছেন।’ গতকাল শুক্রবার দুপুর ২টায় পুনরায় একরামুল করিম ফেসবুক লাইভে আসেন এবং একটি লেখা পোস্ট করেন। তাতে তিনি লেখেন, ‘মিডিয়ায় কেউ বিভ্রান্তি ছড়াবেন না। ওবায়দুল কাদের সাহেব নন, শুধু মির্জাকে বুঝিয়ে আমি গত রাতে ফেসবুকে পোস্ট করছি। তিনি আমার গালে জুতা মারার মিছিল করলেন। অথচ আমি ১৮ বছর ধরে নোয়াখালী আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করে যাচ্ছি দলীয় প্রধান ও ওবায়দুল কাদেরের দিকনির্দেশনায়। নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমি। মির্জা আমার বিরুদ্ধে জুতা মিছিল করায় আমি জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিচ্ছি, মির্জার বিরুদ্ধে রাজপথে আর কোনও বিক্ষোভ প্রতিবাদ করার দরকার নেই। সে এমন কোনও ফ্যাক্ট না যে তার বিরুদ্ধে ফাইটে নামতে হবে। শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও অর্জনের সুনাম ধরে রাখতে হবে। একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ওবায়দুল কাদের, তার প্রতি আমি এবং আমাদের শ্রদ্ধা আজীবন হৃদয় থেকে থাকবে। নোয়াখালী আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা শেখ হাসিনা ও ওবায়দুল কাদেরকে ভালোবাসেন। সুতরাং কোনও ঠেলাঠেলি নয়, সংগঠনকে গতিশীল করতে কাজ করুন সবাই।’ এদিকে, ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা গতকাল দুপুরে বসুরহাট পৌরসভার রুপালি চত্বরে অনশন করছেন বলে জানা যায়।

দ্বিতীয় ধাপের পৌর ভোটও সুষ্ঠু হবে: কাদের
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : আজকে অনুষ্ঠেয় দ্বিতীয় ধাপের পৌরসভা নির্বাচনও অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে সরকার কোনো প্রকার হস্তক্ষেপ করবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, অতীতের ধারাবাহিকতায় নির্বাচন কমিশনকে সরকার এ বিষয়ে সর্বাত্মক সহযোগিতা দেবে। এটি সরকারের দায়িত্ব। ওবায়দুল কাদের গতকাল শুক্রবার তার সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান। ভোটাররা যাতে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন, সে লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) পদ্ধতিতে ভোটার টার্নআউট (ভোটার উপস্থিতি) ৬০ ভাগের বেশি, যা অত্যন্ত ইতিবাচক। আওয়ামী লীগের উপকমিটি নিয়ে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ইতিমধ্যে কেন্দ্রসহ অন্যান্য পর্যায়ে বিভিন্ন কমিটি, উপকমিটি গঠন করেছে, অনুমোদন দিয়েছে। এসব কমিটির বিষয়ে কেউ কেউ সংক্ষুব্ধ হলে কিংবা কারো অভিযোগ থাকলে দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আপিলের সুযোগ থাকবে। ওবায়দুল কাদের বলেন, কমিটির বিষয়ে কারও কোনো অভিযোগ থাকলে তা ধানমণ্ডি ৩/এতে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে জমা দেওয়া যাবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দলকে আরও পরিচ্ছন্ন, আধুনিক গণতান্ত্রিক এবং স্মার্টার দলে রূপান্তর করতে চান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্রচর্চার ভীতকে আরও মজবুত করতে আওয়ামী লীগ সচেষ্ট। তিনি বলেন, দেশের রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে আওয়ামী লীগেই অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্রচর্চার সুযোগ সবচেয়ে বেশি।

সরকার উৎখাত করতে গিয়ে বিএনপিই উৎখাত হয়েছে: তথ্যমন্ত্রী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : আওয়ামী লীগ সরকারকে উৎখাত করতে গিয়ে বিএনপি নিজেরাই জনগণের কাছে থেক উৎখাত হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। গতকাল রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় এ মন্তব্য করেন তিনি। তথ্যমন্ত্রী বলেন, গত ১২ বছর ধরে তারা (বিএনপি) সরকারকে উৎখাত করতে গিয়ে নিজেরাই জনগণ থেকে উৎখাত হয়েছে। আমি তাদের অনুরোধ জানাব, সরকার উৎখাতের যে কথা আপনারা প্রতিনিয়ত বলছেন এতে জনগণের কাছে আগে যেমন হাস্যকর হয়েছেন, এখনও নিজেদের হাস্যকর করছেন। আমি আপনাদের কাছে অনুরোধ জানাবো, আপনার ইতিবাচক রাজনীতির ধারায় ফিরে আসুন। তিনি বলেন, এতদিন যে ধ্বংসাত্মক রাজনীতি করেছেন, মানুষকে জিম্মি করে রাজনীতি করেছেন, মানুষ হত্যার রাজনীতি করেছেন এবং মানুষকে পুড়িয়ে হত্যার রাজনীতি করেছেন- এগুলোর জন্য জনগণের কাছে ক্ষমা চান নতুন বছরে। ফকরুল সাহেব গতকালও কথা বলেছেন। আশা করেছিলাম বছরের প্রথম দিনে মির্জা ফখরুল ইসলাম তার কথাবার্তায় পরিবর্তন আনবেন। আমি তার প্রতি যথাযথ সম্মান রেখেই বলতে চাই, দুঃখজনক হলেও সত্য বছরের প্রথম কয়েকটা দিনে তার মধ্যে ভাষার কোনো পরিবর্তন আসেনি। তিনি যে ভাষায় কথা বলছেন, এ বছরেই তিনি নাকি সরকার উৎখাত করবেন। ‘বিএনপির রাজনীতিবিদরা রাজনীতির কাক’ মন্তব্য করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখল করে ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট বিলিয়ে দল গঠন করেছেন। খাবারের উচ্ছিষ্ট রাস্তায় বিলিয়ে যেমন প্রচুর কাকের সমাবেশ হয় তেমনি ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট বিলিয়ে দেওয়ার পর রাজনীতির কাকরা বিএনপিতে জড়ো হয়েছিলেন। আর যারা বড় বড় রাজনীতিবিদ বিএনপির মধ্যে, তারা সবাই রাজনীতির কাক। সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে স্মরণ করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আমাদের দলের ইতিহাসে অনেকেই সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। আমাদের দলের ইতিহাসে ভবিষ্যতেও অনেকেই সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করবেন। কিন্তু আশরাফ ভাইয়ের মতো এমন ভদ্রজন আমাদের দলের সাধারণ সম্পাদক খুব একটা পাইনি। তিনি রাজনীতিকে পেশা নয়, ব্রত হিসেবে গ্রহণ করেছিলেন। তিনি আরও বলেন, এ বছর আমাদের প্রত্যাশা থাকবে দুটি। একটি হচ্ছে দেশ করোনামুক্ত হবে এবং বিএনপির ইতিবাচক রাজনীতির ধারায় ফিরে আসবে। স্মরণসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাড. বলরাম পোদ্দার, আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা প্রমুখ।

এরশাদের কবরে বিদিশা ও এরিক
                                  

গণমুক্তি রিপোর্ট : জাতীয় পাটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সাবেক স্ত্রী বিদিশা এরশাদ বলেছেন, ‘জাতীয় পার্টি লাইফ সাপোর্টে চলে গেছে। এ দলের অস্তিত্ব এখন হুমকির মুখে। এখন যে জাতীয় পার্টি দেখছেন সেটি এরশাদের জাতীয় পার্টি না।’ জাতীয় পার্টির ৩৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার দুপুরে রংপুর নগরীর দর্শনা মোড়স্ক পল্লী নিবাসের পার্টির সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সমাধিতে পুস্পার্ঘ্য অর্পণ, কবর জিয়ারত ও ফাতেহা পাঠ শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। বিদিশা এরশাদ বলেন, ‘জাতীয় পার্টি লাইফ সার্পোটে চলে গেছে। জাতীয় পার্টিকে পুরনো রুপে ফিরিয়ে আনতে আমি এরিক এরশাদকে নিয়ে টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া, রুপসা থেকে পাটুরিয়া যাবো। দলকে সুসংগঠিত করতে সারাদেশে জাতীয় পার্টির সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দদের সাথে যোগাযোগসহ তাদের ডোর টু ডোর যাবো। দলকে আরো শক্তিশালী করবো।’ তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, ‘যে কোনো দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আসলে সেই দলের নেতাকর্মীরা দলের প্রধানদের কবর জিয়ারত করতে যান। অন্যরা এখানে কে কি করছে আমি জানি না। এরিকের ইচ্ছা অনুযায়ী আমরা রংপুরে এসে সাবেক রাষ্ট্রপতি জাপা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের কবর জিয়ারত করলাম।’ তিনি জিএম কাদেরকে দলের স্বঘোষিত চেয়ারম্যান আখ্যায়িত করে বলেন, ‘আমি যুব ও তৃণমূলের মানুষদের দলে আনতে কাজ করবো। এতে করে জাতীয় পার্টিতে স্বঘোষিত চেয়ারম্যান ঘোষণা দেয়ার আর জায়গা থাকবে না। আমরা ভবিষ্যতে পার্টিতে আর যেন স্বঘোষিত চেয়ারম্যান হতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখবো।’ জাতীয় পাটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের পুত্র এরিক এরশাদ কেঁদে কেঁদে বলেন, ‘আজ জাতীয় পার্টির ৩৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আমরা রংপুরে এসেছি, আব্বার কবর জিয়ারত করেছি। আপনারা সবাই আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন। মহান আল্লাহ তায়ালা আমার বাবাকে বেহেস্ত নসিব করুন আমিন।’ এদিকে এরশাদের কবর জিয়ারত শেষে বিদিশা এরশাদ ও পুত্র এরিক এরশাদ আবেগাল্পুত হয়ে কেঁদেছেন। বিদিশা এরশাদ ও পুত্র এরিক এরশাদ। এরিক তার বাবার করবের নাম ফলক মুছে পরিষ্কার করে কয়েক মিনিট নীরবে দাঁড়িয়ে চোখের পানি ফেলেন। এরপর এরশাদের পল্লী নিবাসে বাসভবনে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন– হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান জাপার সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী মামুনুর রশীদ, সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য জাফর আহমেদ সিদ্দিকী, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ট্রাস্টের পরিচালক অ্যাডভোকেট রুবায়েত হাসান, প্রেস সচিব এএসএম সায়েম সাকলায়েমসহ জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা।

আব্দুর রাজ্জাক ছিলেন বঙ্গবন্ধুর মানসপুত্র, গণমানুষের নেতা: শামীম
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম শীর্ষ সংগঠক, জাতীয় নেতা ও আওয়ামী লীগের দুই বারের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক ছিলেন বঙ্গবন্ধুর মানসপুত্র, গণমানুষের নেতা। তিনি ছিলেন একটি প্রতিষ্ঠান, কিংবদন্তী। ছাত্রজীবনে তিনি বাঙালি জাতির আত্মনিয়ন্ত্রণ এবং স্বাধীনতা আন্দোলনে জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে অসামান্য অবদান রেখেছেন।

গতকাল মঙ্গলবার (২২ ডিসেম্বর) সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে জাতীয় নেতা আব্দুর রাজ্জাকের নবম মৃত্যুবাষির্কী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান আলোচকের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন ডামুড্যা উপজেলা যুব কল্যাণ ট্রাস্ট, ঢাকা। সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ও যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আসাদুজ্জামান আজম।

আব্দুর রাজ্জাকের স্মৃতি চারণ করে এনামুল হক শামীম বলেন, আদর্শের রাজনীতি করে গেছেন আব্দুর রাজ্জাক। তিনি আপাদমস্তক একজন দেশপ্রেমিক ত্যাগী রাজনৈতিক ছিলেন। তিনি জাতির জন্য ত্যাগ স্বীকার করেছিলেন। আব্দুর রাজ্জাক ছিলেন মানুষ মানবতা ও উন্নয়নের আজন্ম সাধক। আমাদেরকে তার রাজনৈতিক আদর্শকে বুকে ধারণ করতে হবে।

বিএনপির সমালোচনা করে এনামুল হক শামীম এমপি বলেন, বিএনপি এখন মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী শক্তির মুখপাত্রে পরিণত হয়েছে। স্বাধীনতা বিরোধী ও দোসরদের আশ্রয়স্থল। আজকে তারা ৭১ এবং ৭৫’র প্রেতাত্মাদের নিয়ে নানা ভাবে ষড়যন্ত্র করছে। কোভিড ১৯ এর মধ্যে গুজব সন্ত্রাস করেছে। মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান সেখানে নেই, সেটা তাদের দলের নেতারাই বলছেন। তাই বীরমুক্তিযোদ্ধা যারা ঐ দলে আছেন, বেরিয়ে আসতে বলবো। কেননা মুক্তিযোদ্ধাদের যথাযথ সম্মান বঙ্গবন্ধু কন্যাই শুধু দিতে পারেন। মুক্তিযোদ্ধা যে কোন সময়ের চেয়ে এখন সম্মানিত হচ্চেন। আপনারাও আসেন সম্মান পাবেন।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু বিহীন বাংলাদেশে তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজকে উন্নয়নের মহাসড়কে। বাংলাদেশ আজকে উন্নয়নে বিশ্বের রোল মডেল। আজকে প্রতিটি সেক্টরে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে।

আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, প্রয়াত আব্দুর রাজ্জাকের জ্যৈষ্ঠপুত্র নাহিম রাজ্জাক এমপি, ঢাকা দক্ষিণ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আহমেদ মন্নাফী, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, শেরে বাংলা কৃষি বিশ^বিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর কামাল উদ্দিন আহমদ, জাতীয় শ্রমিক লীগের কার্যকরি সভাপতি আলাউদ্দিন মিয়া, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবি ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা ব্যারিস্টার জাকির আহাম্মদ, ঢাকা দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনের ৬২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ¦ মোস্তাক আহমেদ প্রমূখ।

বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্র এখনো অব্যাহত রয়েছে: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেলক হক এমপি বলেছেন, স্বাধীনতা বিরোধী নিয়ে বিএনপি জামায়াতের বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্র অব্যাহত রয়েছে। মহান বিজয়ের মাসেও তারা নানা ধরণের ষড়যন্ত্র করছে। মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিভ্রান্ত করার চেস্টা করছে। এব্যাপারে সকলতে সতর্ক থাকতে হবে।

আ.ক.ম মোজাম্মেলক হক বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের অব্যাহত এগিয়ে রুখতে বিএনপি স্বাধীনতা বিরোধীদের অপচেস্টা এখনো চলছে। নানা ধরণের গুজব ছড়াচ্ছেন। কিন্তু জনগণ এখন বুঝে গেছে, কোন ধরণের গুজবে কান দেয় না। বরং অপরাজনীতির কারণে বিএনপিকে ধিক্কার জানায়। সকল ষড়যন্ত্রকে মোকাবেলা করেই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠা করবো।

গতকাল মঙ্গলবার (২২ ডিসেম্বর) সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি-ডিআরইউতে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর, সাবেক সফল মন্ত্রী প্রয়াত জাতীয় নেতা আব্দুর রাজ্জাকের নবম মৃত্যুবাষির্কী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি কথা বলেন। অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন ডামুড্যা উপজেলা যুব কল্যাণ ট্রাস্ট, ঢাকা। সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ও যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আসাদুজ্জামান আজম।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, প্রয়াত আব্দুর রাজ্জাকের জ্যৈষ্ঠপুত্র নাহিম রাজ্জাক এমপি, ঢাকা দক্ষিণ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আহমেদ মন্নাফী, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, শেরে বাংলা কৃষি বিশ^বিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর কামাল উদ্দিন আহমদ, জাতীয় শ্রমিক লীগের কার্যকরি সভাপতি আলাউদ্দিন মিয়া, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবি ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা ব্যারিস্টার জাকির আহাম্মদ, ঢাকা দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনের ৬২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ¦ মোস্তাক আহমেদ।

প্রয়াত জাতীয় নেতা আব্দুর রাজ্জাকের স্মৃতিচারণ করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, আব্দুর রাজ্জাক ছিলেন কর্মীবান্ধব নেতা। সারাটি জীবন তিনি এদেশের জন্য মানুষের জন্য সংগ্রাম করেছেন। দেশের যত গনতান্ত্রিক আন্দোলন বলেন, রাজ্জাক ভাই অগ্রনী ভূমিকা রেখেছেন। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে আব্দুর রাজ্জাকের ছিলো অসামান্য অবদান। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তাকে ছাড়া অসম্পূর্ণ। বাংলাদেশ যতদিন থাকবে, ইতিহাসের বরপুত্র হিসেবে আব্দুর রাজ্জাকের নামও ততদিন থাকবে।

প্রধান আলোচকের বক্তব্যে পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এমপি বলেন, বিএনপি এখন মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী শক্তির মুখপাত্রে পরিণত হয়েছে। স্বাধীনতা বিরোধী ও দোসরদের আশ্রয়স্থল। আজকে তারা ৭১ এবং ৭৫’র প্রেতাত্মাদের নিয়ে নানা ভাবে ষড়যন্ত্র করছে। কোভিড ১৯ এর মধ্যে গুজব সন্ত্রাস করেছে। মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান সেখানে নেই, সেটা তাদের দলের নেতারাই বলছেন। তাই বীরমুক্তিযোদ্ধা যারা ঐ দলে আছেন, বেরিয়ে আসতে বলবো। কেননা মুক্তিযোদ্ধাদের যথাযথ সম্মান বঙ্গবন্ধু কন্যাই শুধু দিতে পারেন। মুক্তিযোদ্ধা যে কোন সময়ের চেয়ে এখন সম্মানিত হচ্চেন। আপনারাও আসেন সম্মান পাবেন।

আব্দুর রাজ্জাকের স্মৃতিচারণ করেন আওয়ামী লীগের সাবেক এ সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, দেশের জন্য আব্দুর রাজ্জাকের অবদান কখনো শেষ হবার নয়। তিনি ছিলেন বঙ্গবন্ধুর মানসপুত্র, গণমানুষের নেতা। আমি বোঝার পর হতে জননেতা আব্দুর রাজ্জাকের নামের সাথে পরিচিত। দেশের উন্নয়নে তার ছিলো অনবদ্য অবদান। শরীয়তপুরের উন্নয়নে তিনি ছিলেন নিবেদিত।

 

 

 

শরীয়তপুর পৌর নির্বাচনে আ. লীগের মনোনয়ন পেলেন পারভেজ
                                  

কাজী নজরুল ইসলাম : পৌরসভা নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে শরীয়তপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন লাভ করেছেন এ্যাডভোকেট পারভেজ রহমান জন (৩২)। শুক্রবার রাত সাড়ে নয়টা নাগাদ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের প্রধান আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে পারভেজ রহমানের নাম শরীয়তপুর পৌরসভার আওয়ামী লীগের দলীয় মেয়র প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেন। পারভেজ রহমান এর মনোনয়ন প্রাপ্তির সংবাদ মুহূর্তেই রাজধানী ঢাকা থেকে শুরু করে শরীয়তপুরের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে। মরহুম আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র জন মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছে এমন খবরে বাধ ভাঙ্গা আনন্দে উচ্ছোসিত হয়েছেন দলীয় সকল স্তরের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। শুক্রবার রাতেই জন`র মনোনয়ন প্রাপ্তির আনন্দে শরীয়তপুর পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় আনন্দ মিছিল বের করে মিষ্টি বিতরন করেছেন দলীয় সমর্থকরা।
এবারের পৌরসভা নির্বাচনে শরীয়তপুর সদর পৌরসভা থেকে পৌরসভা আওয়ামী লীগ ও জেলা আওয়ামী লীগ যৌথভাবে ৫ জন প্রার্থীর নাম কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের নিকট প্রেরণ করেন। এরা হলেন বর্তমান মেয়র রফিকুল ইসলাম কোতোয়াল, পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর মৃধা, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এ্যাডভোকেট আলমগীর মুন্সী, শরীয়তপুর পৌরসভার ১নং প্যানেল মেয়র মোঃ বাচ্চু বেপারী এবং শরীয়তপুর জজ কোর্টের এপিপি পারভেজ রহমান জন। এছাড়াও নিজস্ব মাধ্যমে দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমীন কোতোয়াল ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান পাহাড়। মনোনয়ন প্রত্যাশি সাতজন প্রার্থী থাকলেও ১৮ ডিসেম্বর রাতে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে, কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্তের দিকে না তাকিয়ে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা পারভেজ রহমান জন এর নাম নিজের পছন্দের প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেন। জানা গেছে, আজ ২০ ডিসেম্বর পারভেজ রহমান জন জেলা রিটার্নিং অফিসারের কাছে তার মনোনয়নপত্র দাখিল করবেন। আগামী ১৬ জানুয়ারী ২০২১ তারিখে পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহনের কথা রয়েছে।
শরীয়তপুর জেলা শহরের পালং বাজার এলাকার এ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান ও জিনাত রহমান দম্পতির প্রথম সন্তান পারভেজ রহমান জন। ১৯৮৮ সালের ১ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন জন। তিনি ঢাকাস্থ স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে আইন বিষয়ে স্নাতক সম্মান ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন জন। তিনি বর্তমানে শরীয়তপুর জজ কোর্টের একজন সুনামধন্য তরুন আইনজীবী ও সহকারি পাবলিক প্রোসিকিউটর। মহামান্য সুপ্রিম কোর্টেরও তালিকাভূক্ত একজন আইনজীবী জন।
পারভেজ রহমান জনের পরিবার আওয়ামী লীগের স্থানীয় রাজনীতিতে একটি ত্যাগী ও সমৃদ্ধ পরিবার। জন`র পিতা মরহুম এ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান ১৯৭৭ সালে শরীয়তপুর জেলা ছাত্রলীগের প্রথম আহ্বায়ক এবং ১৯৭৯ সালে জেলা যুবলীগের প্রথম সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়ন কালিন সময়ে সাংবাদিকতা পেশার সাথে জরিত ছিলেন জন`র পিতা হাবিবুর রহমান। ৮০’র দশকের মাঝামাঝি সময় থেকে শরীয়তপুরে আইন ব্যবসা শুরু করেন জনের প্রয়াত পিতা এ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান। তিনি দুই বার শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। একাধিকবার তিনি শরীয়তপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হন। আওয়ামী লীগের জন্য নিজের জীবন উৎসর্গ করে অনেক বড় ত্যাগ শিকার করে গেছেন এ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান।
২০০১ সালের ৫ অক্টোবর ৮ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় দলীয় প্রার্থীর পক্ষ্যে কাজ করতে গিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের সশস্ত্র হামলা ও সহিংসতায় নিজ বাড়িতে, স্ত্রী-সন্তানদের চোখের সামনে আপন ছোট ভাই মনির হোসেন মুন্সীসহ গুলিবিদ্ধ হয়ে নির্মমভাবে নিহত হন জনের পিতা হাবিবুর রহমান। হাবিবুর রহমান তখন একাধারে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি, জজ কোর্টের পিপি ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। জন`র বয়স তখন মাত্র ১২ বছর। জন`র মা জিনাত রহমান ২০০৩ সালে জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদিকা পদপ্রাপ্ত হন। ২০০৮ সালে তৃতীয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জিনাত হাবিব শরীয়তপুর সদর উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০১৬ সালে জেলা আওয়মী লীগের সম্মেলনে জিনাত হাবিবুর রহমানকে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভানেত্রী নির্বাচিত করা হয়। নানা রোগ ভোগের পর ২০১৮ সালের ১৯ আগষ্ট জন`র মমতাময়ী মা জিনাত হাবিব দুই পুত্র এবং এক কন্যা সন্তানকে এতিম করে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে মৃত্যুবরণ করেন।
এ্যাডভোকেট পারভেজ রহমান জন বলেন, ২০০১ সালে ৮ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হেমায়েত উল্লাহ আওরঙ্গের নির্দেশে আমার বাবা এবং চাচাকে আমাদের বসত ঘরের মধ্য, প্রকাশ্য দিবালোকে, আমাদের চোখের সামনে, নিমর্মভাবে গুলি করে হত্যা করা হয়। জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ পালন করতে গিয়ে, নৌকার প্রার্থীর পক্ষ্যে নির্বাচন করার অপরাধে আমার বাবা ও চাচাকে জীবন দিতে হয়েছিল। তখন আমার বয়স মাত্র ১২ বছর। আমার ছোট দু`জন ভাই বোন এবং আমার চাচার পরিবার নিয়ে আমরা ঘোর অন্ধকারে নিপতিত হই। ২০০১ সালে ১ নভেম্বর তৎকালিন বিরোধী দলীয় নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাদের বাড়িতে আসেন। আমার মাকে বুকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙ্গে পরেন তিনি। সেদিন থেকে তিনি আমাদের পরিবারের, আমাদের ভরণ-পোষণ ও লেখা পড়ার দায়িত্ব গ্রহন করেন। আমার বাবা ও চাচা হত্যা মামলা পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহন করেন। আমার মায়ের চিকিৎসার ব্যয় ভারও মমতাময়ী নেত্রী বহন করেন। তিনি আমাকে নিজের সন্তানের মত মানুষ করেছেন। এখন তিনি আমাকে শরীয়তপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছেন। আমি এবং পরিবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
আমি শরীয়তপুর পৌরবাসী সকলের কাছে দোয়া ও সমর্থন প্রার্থনা করছি। আমাকে সবাই ভোট দিবেন এবং দোয়া করবেন, আমি যেন নির্বাচিত হয়ে এলাকার উন্নয়ন ও জনসেবা করতে পারি এবং মাননীয়া সভানেত্রীর মুখ উজ্জল করতে পারি।
শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু বলেন, আমরা শরীয়তপুরবাসী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। তিনি শরীয়তপুর পৌরসভায় একজন দেশপ্রেমিক শহীদের এতিম সন্তানকে মনোনয়ন দিয়েছেন। মনোনয়নপ্রাপ্ত পারভেজ রহমান জনের পিতা এ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমানকে ২০০১ সালের সংসদ নির্বাচনে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে সেদিন আওয়ামী লীগের বিজয় ছিনিয়ে নিয়েছিল সন্ত্রাসীরা। তিনি বলেন, জনকে মনোনয়ন দেয়ায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী অপর চারজন প্রার্থীও প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে পারভেজ রহমানের প্রতি অকুন্ঠ সমর্থন জানিয়েছন। আমরা সবাই মিলে জনকে নির্বাচিত করে তার পিতার রক্তের ঋন কিছুটা হলেও শোধ করতে চাই।

বিএনপির ভিসি শওকত মাহমুদকে শোকজ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান (ভিসি), সাংবাদিক শওকত মাহমুদকে দলের পক্ষ থেকে গতকাল সোমবার শোকজ করা হয়েছে। সংগঠন পরিপন্থী কর্মকাণ্ডের কারণে কেন তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে। জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ বিএনপির ৫ম জাতীয় কাউন্সিলে চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা হিসেবে মনোনীত হন এবং ২০১৬ সালের ৬ষ্ঠ কাউন্সিলে তাকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান করা হয়। পরে তিনি কুমিল্লা-৫ আসনে (বুড়িচং-ব্রাক্ষনপাড়া) জাতীয় নির্বাচনের প্রার্থীতার জন্য চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। তাকে দলীয় প্রার্থী করা হয়নি।

সাবেক মন্ত্রী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ আর নেই
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : সাবেক মন্ত্রী ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ আর নেই। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। গতকাল বুধবার দুপুর সোয়া একটায় রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন। তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ ফরিদপুর জেলার বাঙালি জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৯ সালে প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) গঠিত হলে চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ যোগ দেন। ১৯৭৯ সালের জাতীয় নির্বাচনে তিনি সংসদে নির্বাচিত হন। ১৯৮১ সালে তিনি বিচারপতি আব্দুস সাত্তার সরকারের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেন। ১৯৯১ সালে তিনি আবার নির্বাচিত হন এবং প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মন্ত্রিসভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হন। তিনি ২০০১ সালের নির্বাচনেও জিতেছিলেন। সে সময় তিনি খাদ্য ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পান।

মৌলবাদী অপশক্তি মাঝে মাঝে ফণা তোলার চেষ্টা করে: হাছান মাহমুদ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : এক ধরনের মৌলবাদী গোষ্ঠী বাংলাদেশে ঘাপটি মেরে বসে আছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, দেশে সাম্প্রদায়িক ও মৌলবাদী অপশক্তি মাঝে মাঝে ফণা তোলার চেষ্টা করে। হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ ও খ্রিষ্টানদের রক্ত স্রোতের বিনিময়ে যে দেশ রচিত হয়েছে, সেখানে এই অপশক্তির কোনো স্থান হবে না। গতকাল সোমবার দুপুরে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ জার্নালিস্ট ফোরামের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। সম্প্রতি বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দেশে গণতন্ত্র নির্বাসিত এবং দেশকে কারাগার হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন। এ বিষয়ে মতামত জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, যারা অতীতে গণতন্ত্র হত্যা করেছিল, যাদের জন্ম অগণতান্ত্রিকভাবে সেনা ছাউনিতে, ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট বিলিয়ে তারা যখন গণতন্ত্রের কথা বলে তখন গণতন্ত্রমনা মানুষ ও দেশের মানুষ হাসে। জিয়াউর রহমান ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট বিলিয়েছেন। আর যে সব রাজনীতিবিদ সে সময় ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট নিতে সমবেত হয়েছিল আমি যথেষ্ট সম্মান রেখে বলছি তাদের মধ্যে একজন হলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেব। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি দিতে আইনের আওতায় আনা হবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এ ধরনের মৌলবাদী গোষ্ঠীকে একটি দল রাজনৈতিকভাবে পৃষ্ঠপোষকতা দেয়। তারা যদি এ পৃষ্ঠপোষকতা না পেত, তাহলে মাঝে মধ্যে এরকম ফণা তোলার অপচেষ্টা করা সম্ভবপর হতো না। ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনায় মামলা হয়েছে। এর মানেই আইনের আওতায় আনা। ‘ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর আত্মঘাতী হবে’ মির্জা ফখরুলের এমন মন্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানন্তর করা হচ্ছে এতে সমগ্র দেশের মানুষসহ রোহিঙ্গারাও স্বাগত জানিয়েছে। যে সব রোহিঙ্গা সেখানে গেছে তারা অত্যন্ত খুশি হয়ে বলেছে, দেশে ফেরত না যাওয়া পর্যন্ত তারা সেখানেই থাকতে চায়। এখন বিএনপির এই মন্তব্যে মনে হয় রোহিঙ্গারা ভালো থাকুক সেটা তারা চায় না। প্রকৃতপক্ষে রোহিঙ্গা ইস্যুটা টিকে থাকুক সেটা তারা চায়।


   Page 1 of 141
     রাজনীতি
বিএনপির অনেক নেতা গোপনে টিকা নিয়েছেন : তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
যুব মহিলালীগের সভাপতি সোনিয়া সম্পাদক তানজিলা তৃষা
.............................................................................................
হঠাৎ এক মঞ্চে শামীম সেলিম ওসমান ও আইভীর চ্যালেঞ্জ
.............................................................................................
বিএনপি একটি ব্যর্থ রাজনৈতিক দল : উপমন্ত্রী শামীম
.............................................................................................
একটি চক্র দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত: ড. হাছান মাহমুদ
.............................................................................................
বিএনপি জন্মলগ্ন থেকেই সন্ত্রাসের রাজনীতির উত্তরাধিকার: কাদের
.............................................................................................
ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে এমপি একরামুল করিমের ‘রাজাকার’ লাইভ বক্তব্য ভাইরাল
.............................................................................................
দ্বিতীয় ধাপের পৌর ভোটও সুষ্ঠু হবে: কাদের
.............................................................................................
সরকার উৎখাত করতে গিয়ে বিএনপিই উৎখাত হয়েছে: তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
এরশাদের কবরে বিদিশা ও এরিক
.............................................................................................
আব্দুর রাজ্জাক ছিলেন বঙ্গবন্ধুর মানসপুত্র, গণমানুষের নেতা: শামীম
.............................................................................................
বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্র এখনো অব্যাহত রয়েছে: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী
.............................................................................................
শরীয়তপুর পৌর নির্বাচনে আ. লীগের মনোনয়ন পেলেন পারভেজ
.............................................................................................
বিএনপির ভিসি শওকত মাহমুদকে শোকজ
.............................................................................................
সাবেক মন্ত্রী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ আর নেই
.............................................................................................
মৌলবাদী অপশক্তি মাঝে মাঝে ফণা তোলার চেষ্টা করে: হাছান মাহমুদ
.............................................................................................
২৫ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের চূড়ান্ত প্রার্থী যারা
.............................................................................................
আমরা শক্তিশালী বিরোধী দল চাই, বিএনপির ভোটে বিশ্বাস নাই: ড. হাছান মাহমুদ
.............................................................................................
বিএনপি’র রাজনীতির অপমৃত্যু ঘটবে: ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
২৭ উপজেলা, পৌরসভা ও ইউপিতে নৌকার প্রার্থী যারা
.............................................................................................
`বিএনপিকে বাতি জ্বালিয়েও খুঁজে পাওয়া যায় না`
.............................................................................................
নারী নির্যাতনকারীদের জন্য আ.লীগের দরজা বন্ধ: কাদের
.............................................................................................
জীবিত এরশাদের চেয়ে মৃত এরশাদ অনেক শক্তিশালী: নীলফামারীতে এমপি আদেল
.............................................................................................
আ:লীগের পায়ের নিচে মাটি নেই, তাদের সমালোচনায় জনমনে টিকে রয়েছে বিএনপি : মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর
.............................................................................................
নির্বাচন এখন একটি তামাশা: মির্জা ফখরুল
.............................................................................................
ইসি ও সরকারকে প্রশ্নবিদ্ধ করতেই নির্বাচনে বিএনপি: কাদের
.............................................................................................
ধর্ষকের ৫০ বছরের কারাদণ্ড চান জাফরুল্লাহ
.............................................................................................
কোনো অপরাধীকে সরকার কখনো ন্যূনতম ছাড় দেয়নি
.............................................................................................
দুর্যোগে আবারও প্রমাণিত আ.লীগ জনগণের দল: প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
সাহারার আসনে হাবিব, নাসিমের আসনে জয় নৌকার প্রার্থী
.............................................................................................
শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন আজ
.............................................................................................
বিএনপি জামায়াত সরকার দূর্নীতিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছিল : কুষ্টিয়ায় হানিফ
.............................................................................................
‘ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যেই গণস্বাস্থ্যের কিটের অনুমোদন দেয়নি সরকার’
.............................................................................................
দুর্নীতির কারণে নিত্যপণ্যের দাম আকাশচুম্বী: ফখরুল
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার আরও চার মামলার স্থগিতাদেশ আপিলে বহাল
.............................................................................................
‌`কমিটিতে ত্যাগীদের অগ্রাধিকার`
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ ৬ মাস বাড়ল
.............................................................................................
ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক ভবিষ্যৎমুখী: কাদের
.............................................................................................
বন্দুকের নল নয়, আ.লীগের শক্তির উৎস জনগণ : কাদের
.............................................................................................
`সরকার পরিবর্তন চাইলে আগামী নির্বাচন পর্যন্ত অপেক্ষা করুন`
.............................................................................................
ঢাকা-৫ আসনে নৌকার মাঝি মনিরুল, নওগাঁ-৬ এ হেলাল
.............................................................................................
পূর্ণিমার রাতে অমাবস্যার আঁধার দেখে বিএনপি: কাদের
.............................................................................................
আমি সর্বদলীয় জনগণের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছি : মেয়র আইভি
.............................................................................................
গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারই বিএনপির বড় চ্যালেঞ্জ: ফখরুল
.............................................................................................
প্রণব মুখার্জির মৃত্যুতে বাংলাদেশে একদিনের রাষ্ট্রীয় শোক
.............................................................................................
৪৩ বছরে বিএনপি
.............................................................................................
বিএনপি আন্দোলন ও নির্বাচন দুটিতেই পরাজিত: সেতুমন্ত্রী
.............................................................................................
আওয়ামীলীগ সরকার প্রবাসীদের স্বার্থ গুরুত্ব দেন: উপমন্ত্রী শামীম
.............................................................................................
১৫ ও ২১ আগস্ট উপলক্ষে কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী লীগের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
আ’লীগের ৩৪ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন
বাণিজ্যিক কার্যালয় : "রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্লেক্স"
(৬ষ্ঠ তলা), ২৮/১ সি, টয়েনবি সার্কুলার রোড,
মতিঝিল বা/এ ঢাকা-১০০০| জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা
ফোন নাম্বার : ০২-৪৭১২০৮০৫/৬, ০২-৯৫৮৭৮৫০
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, 01731800427
E-mail: dailyganomukti@gmail.com
Website : http://www.dailyganomukti.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop