ঢাকা,মঙ্গলবার,১৩ মাঘ ১৪২৭,২৬,জানুয়ারী,২০২১ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > বাঁচতে চায় নীলফামারী আতোয়ারা বেগম   > কমলগঞ্জের তাঁতশিল্পে উৎপাদিত পণ্যের চাহিদা বাড়ছে বিশ্ববাজারে   > টুঙ্গিপাড়ায় সাড়ে ৩৫শ’ পরিবার পাচ্ছেন নিরাপদ পানি   > ধান সংগ্রহে লটারির মাধ্যমে কৃষক নির্বাচন করা হয়েছে : ইউএনও   > সরকারি খরচে আইনগত সহায়তা বিষয়ক লোক সংগীত ও পথ নাটক   > মেসিবিহীন বার্সেলোনার জয়   > সাতপাকে বাঁধা পড়লেন বরুণ-নাতাশা   > এসএসসির পাঠ্যসূচি কমিয়ে সিলেবাস প্রকাশ   > কুয়াশায় মাওয়ায় বিধ্বস্ত ৭ গাড়ী, আহত অনেকে   > রিমান্ডে পিকে হালদারের তিন সহযোগী  

   অন্যান্য -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
৭ কেজি স্বর্ণ নিয়ে গোপনে বিমানবন্দর ত্যাগ করছিলেন সারোয়ার

স্টাফ রিপোর্টার : হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মাসকাট থেকে আসা এক যাত্রীর কাছ থেকে ৬২টি বারসহ মোট ৭ কেজি ২৯০ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার করেছে কাস্টমস হাউস প্রিভেন্টিভ টিম। যাত্রী সারোয়ার গোপনে এই স্বর্ণ নিয়ে বিমানবন্দর ত্যাগ করছিলেন। যার বাজারমূল্য প্রায় ৫ কোটি টাকা। গতকাল শুক্রবার ২২ জানুয়ারি সকাল ১১টার দিকে মাসকাট থেকে আসা ফ্লাইট নম্বর বিএস ৩৩২-এর যাত্রী সারোয়ার উদ্দিনের কাছ থেকে ৬২টি স্বর্ণবার ও ৯৮ গ্রাম স্বর্ণের অলংকার উদ্ধার করেন ঢাকা কাস্টমস হাউসের কর্মকর্তারা। গতকাল ঢাকা কাস্টম হাউসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ঢাকা কাস্টমস হাউস কমিশনারের কাছে আসা এক গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চোরাচালান প্রতিরোধে প্রিভেন্টিভ টিমে কর্তব্যরত কর্মকর্তারা বিমানবন্দরের বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান করে নজরদারি করতে থাকেন। এ তথ্যের ভিত্তিতে এদিন সকাল ১১টা মাসকাট থেকে আসা ফ্লাইট বিএস ৩২২-এর যাত্রী সারোয়ার উদ্দিনের কাছে থাকা কালো রঙের ছোট একটি ব্যাগ থেকে মোট ৬২টি স্বর্ণবার এবং ৯৮ গ্রাম স্বর্ণের অলংকারসহ মোট ৭ কেজি ২৯০ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার করা হয় যার আনুমানিক বাজারমূল্য প্রায় ৫ কোটি টাকা। বিবৃতিতে বলা হয়, জব্দকৃত স্বর্ণ কাস্টমস আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন বলেও জানানো হয়েছে।

৭ কেজি স্বর্ণ নিয়ে গোপনে বিমানবন্দর ত্যাগ করছিলেন সারোয়ার
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মাসকাট থেকে আসা এক যাত্রীর কাছ থেকে ৬২টি বারসহ মোট ৭ কেজি ২৯০ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার করেছে কাস্টমস হাউস প্রিভেন্টিভ টিম। যাত্রী সারোয়ার গোপনে এই স্বর্ণ নিয়ে বিমানবন্দর ত্যাগ করছিলেন। যার বাজারমূল্য প্রায় ৫ কোটি টাকা। গতকাল শুক্রবার ২২ জানুয়ারি সকাল ১১টার দিকে মাসকাট থেকে আসা ফ্লাইট নম্বর বিএস ৩৩২-এর যাত্রী সারোয়ার উদ্দিনের কাছ থেকে ৬২টি স্বর্ণবার ও ৯৮ গ্রাম স্বর্ণের অলংকার উদ্ধার করেন ঢাকা কাস্টমস হাউসের কর্মকর্তারা। গতকাল ঢাকা কাস্টম হাউসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ঢাকা কাস্টমস হাউস কমিশনারের কাছে আসা এক গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চোরাচালান প্রতিরোধে প্রিভেন্টিভ টিমে কর্তব্যরত কর্মকর্তারা বিমানবন্দরের বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান করে নজরদারি করতে থাকেন। এ তথ্যের ভিত্তিতে এদিন সকাল ১১টা মাসকাট থেকে আসা ফ্লাইট বিএস ৩২২-এর যাত্রী সারোয়ার উদ্দিনের কাছে থাকা কালো রঙের ছোট একটি ব্যাগ থেকে মোট ৬২টি স্বর্ণবার এবং ৯৮ গ্রাম স্বর্ণের অলংকারসহ মোট ৭ কেজি ২৯০ গ্রাম স্বর্ণ উদ্ধার করা হয় যার আনুমানিক বাজারমূল্য প্রায় ৫ কোটি টাকা। বিবৃতিতে বলা হয়, জব্দকৃত স্বর্ণ কাস্টমস আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন বলেও জানানো হয়েছে।

সনদ দিতে ইউপি অফিসে ডেকে ধর্ষণ গ্রেফতার একজন
                                  

গণমুক্তি রিপোর্ট : জামালপুরের বকশীগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যলায়ে জন্ম নিবন্ধন সনদ নিতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক পোশাক শ্রমিক। এ ঘটনায় অভিযুক্ত নাজমুল হক বাবুকে সোমবার রাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বাবু উপজেলার নিলক্ষিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম নিলক্ষিয়া গ্রামের আবুল কালাম আজাদের ছেলে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বকশীগঞ্জ থানার এসআই আবু শরিফ এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, নাজমুল হক বাবু নিলক্ষিয়া ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তা। করোনার কারণে চাকরি হারান ধর্ষণের শিকার ওই পোশাক শ্রমিক। সম্প্রতি ঢাকায় অন্য পোশাক কারখানায় চাকরির জন্য চেষ্টা করছিলেন তিনি। সেজন্য জন্ম নিবন্ধনের প্রয়োজন হয় তার। জন্ম নিবন্ধনের সনদ নিতে তিনি নিলক্ষিয়া ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তা নাজমুল হক বাবুর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। গত বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) জন্ম নিবন্ধন করে দেওয়ার কথা বলে ওই নারীকে নিলক্ষিয়া ইউনিয়ন পরিষদের নিজ অফিস কক্ষে ডাকেন বাবু। তিনি সেখানে গেলে জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করে বাবু। এদিকে অপর এক ব্যাক্তি বাবুকে ধর্ষণে সহায়তা করে। গ্রেফতারের স্বার্থে তার নাম ও ঠিকানা জানায়নি পুলিশ। বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ধর্ষককে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় দুজনের নামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে।

হাজেরা বেগমের গড়া স্কুলে মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার
                                  

কূটনৈতিক রিপোর্টার : ঢাকার আদাবরে হাজেরা বেগমের গড়া স্কুল ‘শিশুদের জন্য আমরা’ পরিদর্শনে যান মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার। এসময় তিনি, মানব পাচার রোধে বাংলাদেশের সাথে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের অব্যাহত অংশীদারিত্বের বিষয়টি গুরুত্বের সাথে তুলে ধরেন। আর্ল মিলার বলেন, ‘যৌনকর্মীদের শিশুরা মানব পাচারের জন্য ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। শিশুদের শোষণ ও নির্যাতনের চেয়ে জঘন্য কোন অপরাধ নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।’ রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটি পরিদর্শনে গিয়ে পররাষ্ট্রসচিব বলেন, ‘বাংলাদেশে অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় কেউ যাতে পিছিয়ে না থাকে সে বিষয়ে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’ এ সময়ে তাঁরা এই প্রকল্পের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি হাজেরা বেগমের সাথে পথশিশুদের সহায়তা ও যৌনপাচার বন্ধে বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন। সাবেক যৌনকর্মী হাজেরা বেগম একটি আশ্রয়কেন্দ্র এবং দারিদ্র বিমোচনের মাধ্যমে অন্য পথশিশুদের জোরপূর্বক যৌনকর্মী হওয়া থেকে রক্ষায় তাঁর দর্শন নিয়েও আলোচনা করেন। শিশু নির্যাতনরোধে যে কোন ধরনের সন্দেহজনক তথ্য ৯৮৭ নম্বরে কল করে জাতীয় শিশু সহায়তা (ন্যাশনাল চাইল্ড হেল্পলাইন)-কে জানানোর অনুরোধ করা হয়।

এনআরবি ব্যাংকের পরিচালকসহ বাবার ব্যাংক হিসাব চেয়েছে দুদক
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : অবৈধ উপায়ে অর্জিত অর্থে ব্যাংকের শেয়ার কেনা এবং অর্থ পাচারের অভিযোগে এনআরবি ব্যাংক লিমিটেডের দুই পরিচালক নাফিহ রশিদ খান ও নাভিদ রশিদ খান এবং তাদের বাবা আমিনুর রশিদ খানের ব্যাংক হিসাবসহ বিভিন্ন তথ্য তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন, দুদক। বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক গোয়েন্দা ইউনিট, বিএফআইইউ`র কাছে পাঠানো চিঠিতে আগামী ৩০শে জানুয়ারির মধ্যে এসব তথ্য দিতে বলা হয়েছে। চিঠিতে তাদের নিজ নামে ও স্বার্থ সংশ্লিষ্ট হিসাবের তথ্য, কঙওঈ প্রোফাইল, টিন সার্টিফিকেটসহ বিভিন্ন বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য চাওয়া হয়। দুদকে আসা অভিযোগে উল্লেখ রয়েছে, ব্যাংকের শেয়ার হোল্ডার আমিনুর রশিদ খান ও তার দুই সন্তান নাফিহ ও নাভিদ অবৈধ অর্থে বিপুল শেয়ার কিনে এনআরবি ব্যাংকের মালিক হন। পরিবারের এ তিন সদস্যের দেশে ও দেশের বাইরে যে পরিমাণ সম্পদ রয়েছে, তার কোনো বৈধ উৎস নেই। ব্যাংকের দুই পরিচালকের নামে দুবাইয়ে বাল্ক ট্রেড ইন্টারন্যশনালসহ বেশ কিছু কোম্পানি রয়েছে। এছাড়া অর্থপাচারসহ বিভিন্ন অভিযোগ প্রাথমিকভাবে যাচাই করে পরে অনুসন্ধান শুরু করে দুদক।

সুন্দরবনে খনন করা হচ্ছে ৮৮ পুকুর
                                  

বাগেরহাট প্রতিনিধি : সব প্রাণীর মিঠাপানির চাহিদা মেটাতে বাগেরহাটে খনন ও পুনর্খনন করা হচ্ছে ৮৮টি পুকুর। ওয়ার্ল্ড হ্যারিটেজ সাইড সুন্দরবনের রয়েল বেঙ্গল টাইগার, মায়াবী হরিণসহ সব প্রাণীর মিঠাপানির চাহিদা মেটাতে এ পুকুর করা হবে। একই সঙ্গে ২৪ ঘণ্টায় দুবার সমুদ্রের জোয়ারের পানিতে প্লাবিত লবণাক্ত বনভূমিতে ৭০টি পুকুরে পাকা ঘাটও নির্মাণ করা হচ্ছে। জানা যায়, বন্যপ্রাণীর দীর্ঘদিনের সুপেয় পানির চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি সুন্দরবনে থাকা বন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বনজীবী ও পর্যটকদেরও সুপেয় পানির চাহিদা মেটাবে এসব পুকুর। জলবায়ু ট্রাস্ট ফান্ডের অর্থায়ানে পুকুর খনন ও পুনর্খননে ব্যয় হচ্ছে ৪ কোটি ৯৮ লাখ টাকা। সুন্দরবনের রয়েল বেঙ্গল টাইগার, মায়াবী হরিণসহ বন্যপ্রাণীর আধিক্য রয়েছে এমন এলাকাগুলোয় এসব পুকুর খনন ও পুনর্খননের কাজ আগামী জুন মাসের মধ্যে শেষ হলে প্রাণ বাঁচাতে বন্যপ্রাণীগুলোকে আর লবণাক্ত পানি পান করতে হবে না। বনবিভাগ সূত্র জানায়, সুন্দরবনের মধ্যে থাকা পুকুরগুলো ঝড়-জলোচ্ছ্বাসে ভরাট হয়ে যাওয়ায় বছরের পর বছর বাঘ-হরিণসহ বন্যপ্রাণীগুলো সুপেয় পানি সংকটের মধ্যে ছিল। এ অবস্থায় রয়েল বেঙ্গল টাইগার, মায়াবী হরিণসহ ৩৭৫ প্রজাতির বন্যপ্রাণীর দীর্ঘদিনের সুপেয় পানির চাহিদা মেটাতে খনন ও পুনর্খনন করা হচ্ছে ৮৮টি পুকুর। ৩০টি পুকুরের পাকা ঘাটও নির্মাণ করা হবে। এসব পুকুরের মধ্যে বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগে শরণখোলা রেঞ্জের দুবলায় দুটি ও বগীতে নতুন করে তিনটি পুকুর খনন করা হচ্ছে। এই রেঞ্জের ২৪টি পুকুর পুনর্খননের মধ্যে কচিখালী অভয়ারণ্যে চারটি, কটকা অভয়ারণ্যে চারটি, দুবলা এলাকায় তিনটি, শরণখোলা রেঞ্জ সদরে দুটি, দাশেরভারানীতে দুটি। এ ছাড়া একটি করে পুকুর পুনর্খনন করা হচ্ছে ডুমুরিয়া, চরখালী, তেরাবেকা, চান্দেশ্বর, শাপলা, ভোলা, শেলারচর, কোকিলমুনি ও সুপতিতে। চাঁপাই রেঞ্জে পুকুর পুনর্খনন করা হচ্ছে ২৬টি পুকুরের মধ্যে রয়েছে ধানসাগরে তিনটি, গুলিশাখালীতে দুটি, আমুরবুনিয়ায় দুটি। একটি করে পুকুর পুনর্খনন করা হচ্ছে চাঁদপাই, ঢাংমারী, লাউডোপ, জোংড়া, ঘাগড়ামারী, নাংলী, হরিণটানা, কলমতেজী, তাম্বুলবুনিয়া, জিউধরা, বরইতলা, কাটাখালী, শুয়ারমারা, মরাপশুর, বৈদ্যমারী, আন্ধারমানিক, হারবাড়িয়া, নন্দবালা ও চরাপুটিয়া। এ ছাড়া পশ্চিম সুন্দরবন বিভাগে একটি নতুন পুকুর খনন ও ৩৪টি পুকুর পুনর্খনন এবং ৩০টি পুকুরের পাকা ঘাট নির্মাণ করা হবে। এসব পুকুর খনন ও পুনর্খননের কাজ আগামী জুনের মধ্যে শেষ হবে। বাগেরহাট পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন জানান, বন্যপ্রাণীর আধিক্য রয়েছে এমন এলাকাগুলোয় এসব পুকুর খনন ও পুনর্খননের কাজ আগামী জুনের মধ্যে শেষ হবে।

দিহানের বাসার দারোয়ান আটক
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর কলাবাগানে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত ফারদিন ইফতেখার দিহানের বাসার দারোয়ান মো. দুলালকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার দুপুরে তাকে আটক করা হয়। ঘটনার পর থেকে দুলাল পলাতক ছিলেন। রমনা জোনের উপপুলিশ কমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদ হোসেন জানান, ‘এ ঘটনার তদন্তের স্বার্থেই দুলালকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার সময় তিনি দায়িত্বে ছিলেন। সেদিন ওই বাসায় আর কারা কারা এসেছিল তা জানতে দুলালকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।’ প্রসঙ্গত, গত ৭ জানুয়ারি দুপুরে ধানমন্ডিতে আনোয়ার খান মর্ডান হাসপাতাল থেকে ওই শিক্ষার্থীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক?্যাল কলেজ হাসপাতাল (ঢামেক) মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়। ময়নাতদন্ত শেষে চিকিৎসকরা জানান, ধর্ষণ ও অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মেয়েটি মারা যায়। ঘটনার পর পরই গ্রেফতার করা হয় দিহানকে। দোষ স্বীকার করে তিনি আদালতে জবানবন্দি দিলে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

অন লাইন ক্যাসিনো কারবারি সেলিম প্রধান ও তার স্ত্রীর ব্যাংক হিসাব জব্দ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : অনলাইন ক্যাসিনো ব্যবসায়ী সেলিম প্রধান এবং তার স্ত্রীরসহ ১৭টি ব্যাংক হিসাব জব্দ (ফ্রিজ) করা হয়েছে। সেলিম প্রধানের বিরুদ্ধে চলমান অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে আদালতের আদেশ অনুযায়ী এ ব্যবস্থা নিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন। গতকাল রোববার দুদক থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। ১৭টি ব্যাংক হিসাবের মধ্যে সিটি ব্যাংকের গুলশান এভিনিউ শাখার চারটি ব্যাংক হিসাব অবরুদ্ধ করা হয়েছে। এর মধ্যে তিনটি হিসাব প্রতিষ্ঠানের নামে। প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে প্রধান বিউটি কেয়ার লিমিটেড, পি২৪ ল ফার্ম লিমিটেড এবং জাপান বাংলাদেশ ট্রেডিং। এই তিনটি হিসাব পরিচালনাকারী হিসেবে ছিলেন সেলিম প্রধান নিজেই। একই শাখায় চতুর্থ হিসাবটি সেলিম প্রধানের নামেই। যার পরিচালনাকারী হিসেবে ছিলেন সেলিম ছাড়াও চৌধুরী আলম। এই চারটি হিসাবে জমা আছে দুই লাখ ৫৫ হাজার ৪৭০ টাকা। একই ব্যাংকের মূল শাখা এবং কাওরান বাজারে সেলিম প্রধানের নিজের হিসাব দুটিও অবরুদ্ধ করা হয়েছে। এই দুটি হিসাবে জমা আছে চারশ ৬ টাকা। এছাড়া তার স্ত্রী মাসুমা প্রধানের নামে সিটি ব্যাংকের গুলশান এভিনিউ এবং গুলশান উইমেন শাখায় তিনটিসহ চারটি ব্যাংক হিসাব অবরুদ্ধ করা হয়েছে। হিসাবগুলোতে মোট জমা আছে পাঁচ লাখ ৫৫ হাজার ৮১৪ টাকা। একই ব্যাংকের মূল শাখায় সুফিয়া আক্তার স্মৃতির নামে তিনটি ব্যাংক হিসাবও অবরুদ্ধ করা হয়েছে। এই হিসাবগুলোও সেলিম প্রধান বেনামে পরিচালনা করতেন। এই তিনটি হিসাবে মোট দুই লাখ ৯০ হাজার ১৯৯ টাকা জমা আছে। এর বাইরে সেলিম প্রধান, মাসুমা প্রধান, সুফিয়া আক্তার স্মৃতি এবং রিজিয়া সুলতানা ইরফান নামে পাঁচটি ক্রেডিট কার্ডও অবরুদ্ধ করেছে দুদক। এর মধ্যে মাসুম প্রধান যে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করতেন তার হিসাবের নাম মাহমুদা আক্তার প্রধান। দুদক জানায়, অবরুদ্ধ অবস্থায় এসব ব্যাংক হিসাব থেকে কোনো টাকা তোলা যাবে না। তবে টাকা জমা করা যাবে। গত বছরের ৮ই ডিসেম্বর সেলিম প্রধানের বিরুদ্ধে ৫৭ কোটি ৭৯ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন এবং ২২ কোটি টাকা থাইল্যান্ড ও যুক্তরাষ্ট্রে পাচারের অভিযোগে এক মামলার অভিযোগপত্র অনুমোদন দেয় দুদক। সংস্থাটির তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সেলিম প্রধান ৪৭ লাখ ৪৬ হাজার টাকার অবৈধ স্থাবর এবং ৫৭ কোটি ৩১ লাখ ৫৪ হাজার ২৮৮ টাকার অবৈধ অস্থাবর সম্পদসহ মোট ৫৭ কোটি ৭৯ লাখ ২৮৮ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের তথ্য পাওয়া যায়। যা তার আয়ের সঙ্গে সংগতি বিহীন জ্ঞাত আয় বহির্ভূত অবৈধ সম্পদ মর্মে তদন্তে প্রতিষ্ঠিত। এই অবৈধ সম্পদ থেকে ২১ কোটি ৯৯ লাখ ৫১ হাজার ১৪৫ টাকা সেলিম প্রধান থাইল্যান্ড ও যুক্তরাষ্ট্রে পাচার করে অবৈধ আয়ের উৎস গোপন করেছেন। ২০১৯ সালের ২৭শে অক্টোবর অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে সেলিম প্রধানের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। মামলাটি করেন উপপরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান। একই বছরের ৩০শে সেপ্টেম্বর অনলাইন জুয়ার কারবারে জড়িত থাকার অভিযোগে সেলিম প্রধানকে ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

দাম কমেছে চাল-পেঁয়াজের, বেড়েছে ভোজ্যতেলের : টিসিবি
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : গত এক সপ্তাহে চালে সাড়ে ৪ শতাংশ এবং পেঁয়াজে সাড়ে ১২ শতাংশ পর্যন্ত দাম কমেছে। বিপরীতে আরেক দফা বেড়েছে ভোজ্যতেল বা সয়াবিনের দাম। সেই সঙ্গে বেড়েছে দেশি আদা, এলাচ ও চিনির দাম। সরকারি প্রতিষ্ঠান ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে এসেছে। রাজধানীর শাহজাহানপুর, মালিবাগ বাজার, কারওয়ান বাজার, বাদামতলী বাজার, সূত্রাপুর বাজার, শ্যামবাজার, কচুক্ষেত বাজার, মৌলভীবাজার, মহাখালী বাজার, উত্তরা আজমপুর বাজার, রহমতগঞ্জ বাজার, রামপুরা এবং মিরপুর-১ নম্বর বাজারের পণ্যের দামের তথ্য নিয়ে গত শুক্রবার এ প্রতিবেদন তৈরি করেছে টিসিবি। প্রতিষ্ঠানটির তথ্য অনুযায়ী, গত এক সপ্তাহে নাজির ও মিনিকেট বা চিকন চালের দাম ৪ দশমিক ৭৬ শতাংশ কমে কেজিতে ৫৬ থেকে ৬৪ টাকায় নেমে এসেছে, যা আগে ছিল ৬০ থেকে ৬৬ টাকা। আর মাঝারি মানের পাইজাম ও লতা চালের দাম ৪ দশমিক ৪২ শতাংশ কমে কেজিতে ৫০ থেকে ৫৮ টাকা হয়েছে, যা আগে ছিল ৫৩ থেকে ৬০ টাকা। এদিকে, চালের পাশাপাশি গত এক সপ্তাহে কমেছে মসুর ডাল, আলু, পেঁয়াজ, রসুন, আদা ও জিরার দাম। এর মধ্যে সব থেকে বেশি কমেছে আলুর দাম। মানভেদে আলুর কেজি ২৫ থেকে ৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বলে জানিয়েছে টিসিবি। আগে আলুর কেজি ছিল ৪০ থেকে ৪৫ টাকা। অন্যদিকে, গত এক সপ্তাহে দেশি পেঁয়াজের দাম কমেছে ১২ দশমিক ৫০ শতাংশ। এতে প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৪০ টাকায়, যা আগে ছিল ৩৫ থেকে ৪৫ টাকা। আর আমদানি করা পেঁয়াজের দাম ৮ দশমিক ৩৩ শতাংশ কমে কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকায়, যা আগে ছিল ২৫ থেকে ৩৫ টাকা। দেশি রসুনের দাম ৫ দশমিক ২৬ শতাংশ কমে প্রতি কেজি ৮০ থেকে ১০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে, যা আগে ছিল ৯০ থেকে ১০০ টাকা। আমদানি করা রসুনের দাম কমেছে ৪ দশমিক ৭৬ শতাংশ। এতে প্রতি কেজি আমদানি করা রসুন বিক্রি হচ্ছে ৯০ থেকে ১১০ টাকার মধ্যে, যা আগে ছিল ১০০ থেকে ১১০ টাকা। এছাড়া জিরার দাম সপ্তাহের ব্যবধানে ১২ দশমিক ৫০ শতাংশ কমে প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৪০০ টাকার মধ্যে, যা আগে ছিল ৩৫০ থেকে ৪৫০ টাকা। আর আমদানি করা আদার দাম ৫ দশমিক ৮৮ শতাংশ কমে প্রতি কেজি ৭০ থেকে ৯০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে, যা আগে ছিল ৮০ থেকে ৯০ টাকা। আমদানি করা আদার দাম কমলেও গত এক সপ্তাহে দেশি আদার দাম বেড়েছে বলে জানিয়েছে টিসিবি। সরকারি এই প্রতিষ্ঠানটির তথ্য অনুযায়ী, ৫ দশমিক ৫৬ শতাংশ বেড়ে দেশি আদার কেজি বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১১০ টাকা দরে, যা আগে ছিল ৮০ থেকে ১০০ টাকা। এদিকে, দফায় দফায় বাড়তে থাকা সয়াবিন তেলের দাম গত এক সপ্তাহে আরও এক দফা বেড়েছে। লুজ সয়াবিন তেলের দাম দশমিক ৯৩ শতাংশ বেড়ে প্রতি লিটার ১০৮ থেকে ১১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে, যা আগে ছিল ১০৭ থেকে ১০৯ টাকা। বোতলের এক লিটার সয়াবিন তেলের দাম ২ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ বেড়ে ১২০ থেকে ১৩০ টাকা হয়েছে, যা আগে ছিল ১২০ থেকে ১২৫ টাকা। দাম বাড়ার এ তালিকায় থাকা ছোলার দাম সপ্তাহের ব্যবধানে ৩ দশমিক ২৩ শতাংশ বেড়ে কেজি ৭৫ থেকে ৮০ টাকা হয়েছে। ছোট এলাচ ৬ দশমিক ৯০ শতাংশ বেড়ে কেজি বিক্রি ২ হাজার ৬০০ থেকে ৩ হাজার ৬০০ টাকা হয়েছে। আর চিনির দাম ১ দশমিক ৫৭ শতাংশ বেড়ে কেজি ৬৪ থেকে ৬৫ টাকা হয়েছে।

ঢামেক হাসপাতাল মর্গে আড়াই বছর ধরে বিদেশির লাশ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ফরেনসিক বিভাগের রিপোর্ট অনুযায়ী এই ব্যক্তির নাম রবার্ট মাইরন বার্কার। তিনি একজন মার্কিন নাগরিক। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রায় আড়াই বছর ধরে পড়ে আছে। খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বী এই ব্যক্তি যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক বলে জানা গেছে। পাসপোর্টে তিনি ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যের একটি ঠিকানা দিয়েছেন। এতো বছর ধরে লাশটি মর্গে পরে থাকলেও এখন পর্যন্ত এর সৎকার বা যুক্তরাষ্ট্রে তার পরিবারের কাছে ফেরত পাঠানোর কোন ব্যবস্থা করা হয়নি। ঢাকার দক্ষিণ-খান থানা এলাকার বাসিন্দা এবং বেসরকারি হাসপাতালের কর্মী মাজেদা খাতুন নিজেকে মি. রবার্টের স্ত্রী দাবি করেন। যুক্তরাষ্ট্রে থাকা রবার্টের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেও তিনি ব্যর্থ হয়েছেন বলে জানান। রবার্ট পেশায় একজন বিদেশি উন্নয়নকর্মী হলেও তিনি কোন প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করতেন সেটা জানা যায়নি। তিনি মূলত যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফান্ড আনতেন এবং এখানকার গরিব মানুষদের মধ্যে বিলিয়ে দিতেন বলে জানান মিসেস খাতুন। শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে ২০১৮ সালের ১৫ই মে দক্ষিণ-খানের কেসি হাসপাতালে ভর্তি হন রবার্ট। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ দিন পর তিনি মারা যান। সে সময় তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। বিদেশি নাগরিক হওয়ায় তার লাশ এই দেশে সৎকার করা যাচ্ছিল না। এজন্য দূতাবাসের ছাড়পত্র প্রয়োজন, যেটা পাওয়া যাচ্ছিল না। তাছাড়া হাসপাতালের বিল দিতে না পারায় লাশ ছাড়িয়ে আনতে ঝামেলা পোহাতে হয় মিসেস খাতুনকে। পরে পুলিশকে খবর দেওয়া হলে তারা লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন ঢাকা মেডিকেলের মর্গে পাঠায়। লাশটি যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিতে দক্ষিণ-খান থানায় সাধারণ ডায়রিও করা হয়। এরপর থেকে আড়াই বছর ধরে মর্গে পড়ে রয়েছে রবার্টের মরদেহ। এরমধ্যে কেউ কোন খোঁজ নিতেও আসেনি বলে জানায় হাসপাতালটির ফরেনসিক বিভাগ। ঢাকা মেডিকেলের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান সোহেল মাহমুদ, এই মরদেহ যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানোর বিষয়ে থানায় লিখিতভাবে আবেদন জানিয়েছেন। কারণ দূতাবাসে লাশ হস্তান্তর পুলিশের মাধ্যমে হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে। মিসেস খাতুনও চান মার্কিন দূতাবাস এই লাশ যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানো বা সৎকারের দায়িত্ব নিক। স্ত্রী হিসেবে তার কোন স্বাক্ষর বা কাগজপত্র দেয়ার প্রয়োজন পড়লে তিনি সহায়তা করবেন বলে জানিয়েছেন। রবার্টের অসুস্থতা ও মৃত্যুর সংবাদ তার যুক্তরাষ্ট্রের পরিবারকে জানানো হলেও কেউ ফিরতি কোন যোগাযোগ করেনি, দূতাবাসে যোগাযোগ করলেও কেউ খোঁজ নেয়নি বলে তিনি অভিযোগ করেন। বিয়ের রেজিস্ট্রিতে দেয়া তথ্য অনুযায়ী ২০১৪ সালের ১লা এপ্রিল খ্রিষ্টান ধর্মমতে ঢাকার বাড্ডার একটি গির্জায় রবার্টের সঙ্গে মাজেদা খাতুনের বিয়ে হয়। এরপর মাজেদা খাতুন তার আগের সংসারের সন্তানদের সাথে রবার্টকে নিয়ে ঢাকার একটি বাসায় থাকতেন। সংসার খরচ চালানোর পাশাপাশি মিসেস খাতুনকে হাত খরচ দিতেন রবার্ট। এদিকে, রবার্টের যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম স্ত্রী, তিন ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে বলে জানিয়েছেন মিসেস খাতুন। ছেলে মেয়েদের সাথে রবার্ট নিয়মিত যোগাযোগ রাখতেন বলে তিনি জানান।

আহমদ শফী হত্যা মামলার বাদী ও পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ
                                  

গণমুক্তি রিপোর্ট : হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী হত্যা মামলা তুলে নেওয়ার জন্য প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন মামলার বাদী। চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে গতকাল শনিবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন মামলার বাদী ও আল্লামা শফীর শ্যালক মো. মঈনুদ্দিন। আল্লামা শফীকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে দাবি করে লিখিত বক্তব্যে মো. মঈনুদ্দিন জানান, তিনি মামলা করেছেন, যা আদালতের নির্দেশে এখন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) তদন্ত করছে। এ ঘটনায় হেফাজতের বর্তমান আমির মাওলানা জুনাইদ বাবুনগরীর পক্ষে একটি চিহ্নিত মহল মামলা প্রত্যাহারের জন্য চাপ দিচ্ছে বলে দাবি করেন মো. মঈনুদ্দিন। তিনি আরো বলেন, ‘মহলটি আহমদ শফীর পরিবার ও মামলার বাদী হিসেবে আমাকেও প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। এ বিষয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।’ হত্যা মামলাটির দ্রুতবিচার সম্পন্ন করাসহ আল্লামা শফীর পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তার দাবিও জানিয়েছেন বাদী। সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য দেন হেফাজতে ইসলামের সাবেক যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মঈনুদ্দিন রুহী। গত ১৭ সেপ্টেম্বর অসুস্থ অবস্থায় আল্লামা আহমদ শফীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে ১৯ সেপ্টেম্বর বিকেলে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে আহমদ শফীকে ঢাকায় আনা হয়। পরে সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়। পরদিন হাটহাজারীর আল জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে তাঁকে দাফন করা হয়। এরপর গত ১৭ ডিসেম্বর আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে হত্যার অভিযোগ এনে সংগঠনের যুগ্ম মহাসচিবসহ ৩৬ জন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা হয়। চট্টগ্রামের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৩ নম্বর আদালতের বিচারক শিবলু কুমার দে মামলাটি তদন্তের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন। এরপর গত বুধবার সংবাদ সম্মেলন করে আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যুকে ‘অস্বাভাবিক’ বলে দায়ের করা মামলাটি ‘রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র’ বলে উল্লেখ করেন হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী। তিনি সেখানে বলেন, ‘আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যু ছিল সম্পূর্ণ স্বাভাবিক। এ ঘটনায় করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার না করা হলে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’ জুনাইদ বাবুনগরী আরো বলেন, আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যুর তিন মাস পর তাঁর মৃত্যু অস্বাভাবিক বলে দাবি করে দায়ের করা মামলাটি ‘রাজনৈতিক দূরভিসন্ধিমূলক’ এবং দেশের স্থিতিশীল পরিবেশ বিনষ্ট করার চক্রান্ত। গত ১৬ সেপ্টেম্বর হাটহাজারী মাদ্রাসায় এক ছাত্র বিক্ষোভের মুখে আল্লামা আহমদ শফীর ছেলে ও মাদ্রাসার সহকারী পরিচালক পদ থেকে আনাস মাদানীকে মাদ্রাসা থেকে প্রত্যাহার করা হয়। পরের দিনও বিক্ষোভ অব্যাহত থাকলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে মাদ্রাসা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়। কিন্তু আন্দোলনরত ছাত্রদের বিক্ষোভ বন্ধ না হওয়ায় পরের দিন ১৭ সেপ্টেম্বর রাত ১২টার দিকে মহাপরিচালক আহমদ শফী নিজেই তাঁর পদ থেকে অব্যাহতির ঘোষণা দেন।

পারটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান এমএ হাসেম বনানী কবরস্থানে সমাহিত
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা পারটেক্স গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও সাবেক সংসদ সদস্য এমএ হাসেমকে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে সমাহিত করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বাদ জুমা রাজধানীর গুলশান আজাদ মসজিদে এমএ হাসেমের জানাজা সম্পন্ন হয়। এই জানাজায় কিছু লোক অংশ নিতে না পারায় পরে বেলা সোয়া দুইটায় দ্বিতীয় দফা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর ফুলে সজ্জিত একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে তার লাশ বনানী কবরস্থানে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাকে দাফন করা হয়। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর গত ১১ ডিসেম্বর রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয় শিল্পপতি এমএ হাসেমকে। সেখানে ১৬ ডিসেম্বর অক্সিজেন স্যাচুরেশন ১০০-র নিচে নেমে গেলে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়। পরে গত বুধবার রাত ১টা ২০ মিনিটে মারা যান তিনি। ১৯৫৯ সালে তামাক ব্যবসার মাধ্যমে ব্যবসা শুরু করেন এমএ হাসেম। এরপর ধীরে ধীরে গড়ে তোলেন পারটেক্স গ্রুপ। এ গ্রুপের খাদ্যপণ্য, হার্ডবোর্ড, ইন্স্যুরেন্স, আবাসন, শিক্ষা ও স্টিলের ব্যবসা রয়েছে। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সিটি ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিসের চেয়ারম্যান ও পরিচালক পদে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এ ছাড়া ইবাইস ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টি এবং নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে ২০০১ সালে নোয়াখালী-২ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এমএ হাসেম। ব্যক্তিজীবনে ৬ সন্তানের জনক এমএ হাসেম। তার স্ত্রীর নাম সুলতানা হাসেম।

কলেজ ছাত্রকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন
                                  

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : জেলার বাহুবল উপজেলার দ্বিমুড়া গ্রামে হবিগঞ্জ বৃন্দাবন সরকারি কলেজের অনার্স ৪র্থ বর্ষের ছাত্র ফয়সলকে গাছে বেধেঁ মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের মামলায় দুই আসামীর জামিন বাতিল করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আসামীরা হলেন, মাওলানা আসকর আলীর পুত্র মঈন উদ্দিন এমরান (৪৫)মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে মহিউদ্দিন (৪০)। গত মঙ্গলবার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিনা হক এ আদেশ দেন। আসামীদের উপস্থিতিতে বিচারক জামিন আবেদন বাতিল করেন। এছাড়া মামলায় জাহানারা আক্তার লিপি, মাহফুজা আক্তার লিজা, সাবেক ইউপি সদস্য কুতুব আলী, সালেহ উদ্দিন, আব্দুল হান্নান, আশিক মিয়া, বাহা উদ্দিনের জামিন বহাল রাখেন। এরমধ্য মামলার অন্যতম আসামী ফখরুল ইসলাম পলাতক রয়েছেন। আলোচিত মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী এডভোকেট শফিক আলম আজাদ ও বিবাদী পক্ষের আইনজীবি এডভোকেট জালাল উদ্দিন দীর্ঘ শুনানি শেষে বিচারক তাদের জামিন বাতিল করেন। প্রসঙ্গত, গত ৩০ অক্টোবর দিবাগত রাতে উপজেলার লামাতাসী ইউনিয়নের দ্বিমুড়া কুয়েত প্রবাসী আব্দুল হাইর বাড়িতে কলেজ ছাত্রকে চোর আখ্যা দিয়ে খুঁটিতে বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করা হয় । গত ১ নভেম্বর সকালে ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে সারাদেশ জুড়ে শুরু হয় তোলপাড়। ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন লোক ফয়সলকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন করছে। এ সময় ফয়সল বাঁচার জন্য আকুতি এবং বার বার আল্লাহ অল্লাহ বলে চিৎকার করছিল। কিন্তু এরপরও চলে বর্বর নির্যাতন । পরে ২ নভেম্বর ফয়সলের মা বাদী হয়ে দ্বিমুড়া গ্রামের আব্দুল হাইর স্ত্রী জাহানারা আক্তার লিপি ও মেয়ে লিজাকে আসামী করে ১০জনের নাম উল্লেখ করে বাহুবল থানায় মামলা করলে পুলিশ আব্দুল হাইর ভাতিজা এমরান সহ দুইজনকে তাৎক্ষণিক গ্রেফতার করেন। যার মামলা নং জিআর ১৪৫/ ২০ বাহু:। তবে ঘটনার মুল নায়ক ফখরুলকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

রূপগঞ্জের বীর মুক্তিযোদ্ধার সম্মান পেতে চান কামরুল হোসেন
                                  

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়া ইউনিয়নের মঙ্গলখালী এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. কামরুল হোসেন মৃত্যুর আগে মুক্তিযোদ্ধার সম্মান পেয়ে মরতে চান। তিনি সেনাবাহিনীর সৈনিক হিসাবে ২নং সেক্টরের মেজর এটিএম হায়দার ও মেজর খালেদ মোশারফের অধীনে পাক সেনাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেন। তাঁর সঙ্গীয় মুক্তিযোদ্ধারা হলেন ক্যাপ্টেন মাহবুবুর রহমান, সুবেদার তোফাজ্জল হোসেন ও সুবেদার আলী আকবর পাটোয়ারী। অনেক দেন দরবার আর আবেদন নিবেদন করে ব্যর্থ হয়ে তিনি এখন নিশ্চুপ হয়ে পড়েছেন। সম্প্রতি মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, ১৯৭১ এ পাক সেনাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার অন্তত একটি প্রমাণ আর তিন জন মুক্তিযোদ্ধার স্বাক্ষী পাওয়া গেলে সেই মুক্তিযোদ্ধার নাম অন্তর্ভুক্ত করা হবে। এ ঘোষণার পর থেকে কামরুল হোসেন বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার নতুন করে স্বপ্ন দেখছেন। স্বাধীনতার ৪৯ বছরেও স্বীকৃতি পায়নি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. কামরুল হোসেন। তাঁর তিন ছেলে এক মেয়ে ও স্ত্রী নিয়ে সংসার। বয়সের ভারে তিনি ন্যুব্জ। ছেলেরা দিন মজুর। এক ছেলের স্বল্প আয়ে তার সংসার চলে কোন রকম। অপর দুই ছেলে সংসারে কোন খরচ দেননা। তারা স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে আলাদা থাকেন। অতি কষ্টে সংসার চলে স্বীকৃতি না পাওয়া মুক্তিযোদ্ধা কামরুল হোসেনের। বীর মুক্তিযোদ্ধা কামরুল হোসেন বলেন, প্রত্যক্ষ যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি। কিন্তু আমি এখনো পরাধীন রয়ে গেছি। মৃত্যুর আগে আমি বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে সম্মান পেয়ে মরতে চাই।

মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে বৃদ্ধর বসবাস
                                  

রায়পুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরের রায়পুর ৭নং বামনী ৪ নং ওয়ার্ড সাইচা গ্রামে মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করছেন ৭০ উর্ধ্ব অচল এক বৃদ্ধ। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় সাইচা গ্রামে মতি মিয়া, পাটওয়ারি বাড়ির মৃত সৈয়দ আহম্মদের ছলে, বৃদ্ধ অচল শাহজান পাটওয়ারি।
একটি জরাজীর্ণ ঘরে ছোট এক ছেলে সন্তান ও তার স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করছেন। অনেক পুরনো একটি ঘর যে ঘরটির প্রায় সবগুলো খুঁটি নিচের অংশ পঁচে গেছে। এতে ঘরটি একদিকে হেলে পড়েছে। ঘরটির বাহিরে ২০ থেকে ২৫ টি সুপারি গাছের খুঁটি দিয়ে ঘরটিকে রক্ষা করার চেষ্টা করা হয়েছে। প্রতিবেশী ও স্থানীয়দের সাথে কথা ব?লে জানাযায়, তার নেই কোন সামর্থ্য কোন মতে বৃদ্ধ ভাতা ও মানুষের কিছ সহায়তায় কোনরকম খানা খরচ চালান তাতে ও মাঝে মাঝে না খেয়ে থাকতে হয়।
ঘরটি মেরামত করার মত তার কোন আর্থিক অবস্থা নেই। ঘরটির এক পাশে কোন বেড়া নেই। বৃদ্ধ শাহজান পাটওয়ারি বলেন সরকার ও সমাজের কোন ব্যক্তি আমার ঝুঁকিপূর্ণ ঘরটি মেরামত করে দিলে আমি উপকৃত হব। এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান তাফাজ্জল হোসেন বলেন, বিষয়টি আপনাদের মাধ্যমে জানতে পেরেছি সময় পেলে আমি পরিদর্শনে যাব।

বিমানবন্দরে মাটির নিচে ২৫০ কেজি ওজনের আরেকটি বোমা উদ্ধার
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্মাণাধীন তৃতীয় টার্মিনালে মাটি খোঁড়ার সময় আবারও ২৫০ কেজি ওজনের সিলিন্ডারসদৃশ বোমা উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ৮টা ৩৫ মিনিটে মাটি খোঁড়াখুঁড়ির সময় প্রায় ১০ ফুট মাটির নিচ থেকে আরও একটি জেনারেল পারপাস (জিপি) বোমাসদৃশ বস্তু পাওয়া যায়। বাংলাদেশ বিমানবাহিনী ঘাঁটি বঙ্গবন্ধুর প্রশিক্ষিত বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল আধুনিক যন্ত্রপাতি নিয়ে দ্রুততার সঙ্গে ঘটনাস্থলে পৌঁছে বোমাটি নিষ্ক্রিয় করে। পরে বোমাটি ধ্বংস করতে সতর্কতার সঙ্গে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়। আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের দায়িত্বশীল সূত্র খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন। সূত্র জানায়, বোমা বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছেন বোমাটি ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় ভূমিতে নিক্ষেপ করা হয়েছিল। বোমাটি পুরোপুরি নিষ্ক্রিয় করতে টাঙ্গাইলের রসুলপুরে ফায়ারিং রেঞ্জে পাঠানো হচ্ছে। এর আগে গত ৯ ডিসেম্বর একই ধরনের আরেকটি বোমা উদ্ধার করা হয়। পরে ১০ ডিসেম্বর দুপুরে টাঙ্গাইলের রসুলপুরে বিমানবাহিনীর ফায়ারিং রেঞ্জে বোমাটি ধ্বংস করা হয়। এ সময় বিকট শব্দে বোমাটি বিস্ফোরিত হয়। বিমানবাহিনীর সংশ্লিষ্ট সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করে।

স্মরণকালের চোখ ধাঁধানো উল্কা বৃষ্টি আগামীকাল
                                  

ডেইলি মেইল/বিবিসি : জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা বলছেন আগামীকাল ১৩ ডিসেম্বর ও ১৪ ডিসেম্বর যে উল্কা বৃষ্টি হতে যাচ্ছে সেটা হবে সব ‘উল্কা বৃষ্টির রাজা’। উল্কা যখন পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে ঢোকে তখন তার গতি থাকে প্রতি সেকেন্ডে ৩৫ কিলোমিটার। সেটা প্রতি ঘন্টায় ১ লাখ ৩০ হাজার কিলোমিটারের সামান্য কম! বলছেন প্যাট্রিশিয়া। ‘ধূমকেতুর রেখে যাওয়া ধুলিকণায় ভরা আস্তরণের মধ্যে দিয়ে যখন পৃথিবী প্রদক্ষিণ করে, তখনই সাধারণত উল্কা বৃষ্টি ঘটে থাকে," বলছেন ব্রিটেনে গ্রেনিচের মানমন্দির, রয়াল অবজারভেটরির জ্যোতির্বিজ্ঞানী প্যাট্রিশিয়া স্কেলটন। কিন্তু জেমিনিডস উল্কার বৃষ্টিপাত ভিন্ন ধরনের। জেমিনিডস উল্কার বৃষ্টি হয় যখন ৩২০০-ফিটন নামে একটি গ্রহাণুর ছেড়ে যাওয়া ধুলিকণার আস্তরের মধ্যে দিয়ে পৃথিবী যায়, প্যাট্রিশিয়া ব্যাখ্যা করেন। অর্থাৎ প্রতি বছর, আমাদের এই পৃথিবী গ্রহ তার কক্ষপথে ঘোরার সময় যখনই মহাজগতে গ্রহাণু বা ধূমকেতুর ছেড়ে যাওয়া নানা ধরনের বর্জ্য পদার্থের মধ্যে দিয়ে যায়, তখনই আমরা রাতের আকাশে নানাধরনের চোখ ধাঁধাঁনো আলোর ছটা দেখতে পাই। সেভাবেই আগামীকাল ১৩ ও ১৪ই ডিসেম্বর আমরা দেখতে চলেছি জেমিনিডসের উল্কা বৃষ্টি। এসময় প্রতি ঘন্টায় দেড়শর মত উল্কার ধারা বৃষ্টি হবে বলে জ্যোতির্বজ্ঞানীরা বলছেন। অর্থাৎ প্রতি ঘন্টায় আমরা ১৫০ আলোর ফোঁটার বিচ্ছুরণ দেখতে পাব। রাতের আকাশ যত অন্ধকার হবে, আলোর বিচ্ছুরণ তত চোখ ধাঁধাঁনো হবে। প্যাট্রিশিয়া বলছেন, ‘উল্কার কণাগুলো পুড়ে গিয়ে আকাশে এদিক ওদিক ছিটকে পড়ার কারণে এই আলোর রোশনাই আমরা দেখি।’ আকাশ যত অন্ধকার হবে, এই অসাধারণ সুন্দর আলোর রোশনাই তত বেশি উপভোগ করার সুযোগ হবে। এমনকি শহরে যারা থাকেন, কৃত্রিম আলোর কারণে আকাশের প্রাকৃতিক অন্ধকার যারা পুরো মাত্রায় পান না,তাদেরও এই আলোর ঝলকানি দেখার সুযোগ হবে। যারা এই অভিনব আলোর খেলা উপভোগ করতে চান, তাদের জন্য বাড়তি সুখবর এবছর এই সময়ে পড়েছে অমাবস্যা, ফলে আকাশ প্রাকৃতিক কারণেই থাকবে অন্ধকার। এর আগে উল্কা বৃষ্টির সময় পূর্ণিমার চাঁদ থাকায় আলোর সৌন্দর্য কম উপভোগ করা গিয়েছিল।


   Page 1 of 7
     অন্যান্য
৭ কেজি স্বর্ণ নিয়ে গোপনে বিমানবন্দর ত্যাগ করছিলেন সারোয়ার
.............................................................................................
সনদ দিতে ইউপি অফিসে ডেকে ধর্ষণ গ্রেফতার একজন
.............................................................................................
হাজেরা বেগমের গড়া স্কুলে মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার
.............................................................................................
এনআরবি ব্যাংকের পরিচালকসহ বাবার ব্যাংক হিসাব চেয়েছে দুদক
.............................................................................................
সুন্দরবনে খনন করা হচ্ছে ৮৮ পুকুর
.............................................................................................
দিহানের বাসার দারোয়ান আটক
.............................................................................................
অন লাইন ক্যাসিনো কারবারি সেলিম প্রধান ও তার স্ত্রীর ব্যাংক হিসাব জব্দ
.............................................................................................
দাম কমেছে চাল-পেঁয়াজের, বেড়েছে ভোজ্যতেলের : টিসিবি
.............................................................................................
ঢামেক হাসপাতাল মর্গে আড়াই বছর ধরে বিদেশির লাশ
.............................................................................................
আহমদ শফী হত্যা মামলার বাদী ও পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ
.............................................................................................
পারটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান এমএ হাসেম বনানী কবরস্থানে সমাহিত
.............................................................................................
কলেজ ছাত্রকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন
.............................................................................................
রূপগঞ্জের বীর মুক্তিযোদ্ধার সম্মান পেতে চান কামরুল হোসেন
.............................................................................................
মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে বৃদ্ধর বসবাস
.............................................................................................
বিমানবন্দরে মাটির নিচে ২৫০ কেজি ওজনের আরেকটি বোমা উদ্ধার
.............................................................................................
স্মরণকালের চোখ ধাঁধানো উল্কা বৃষ্টি আগামীকাল
.............................................................................................
‘বঙ্গবন্ধু অ্যাওয়ার্ড ফর ডিপ্লোম্যাটিক এক্সিলেন্স’ পাচ্ছেন যারা
.............................................................................................
ট্রপিক্যাল লায়ন্স ক্লাবের অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন
.............................................................................................
লালমনিরহাটে ১৩টি দোকান আগুনে পুড়ে ছাই
.............................................................................................
কুমারখালীতে অজ্ঞাত মহিলার লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় মামলা, গ্রেফতার ১
.............................................................................................
কুড়িগ্রামে সন্তানের পিতৃত্বের দাবী ও ধর্ষকের বিচারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন
.............................................................................................
সিদ্ধিরগঞ্জে ২ বোনকে ধর্ষণ, বাড়ির দারোয়ান গ্রেফতার।
.............................................................................................
অপহরণের তিনদিন পর ঠাকুরগাঁওয়ে এক ব্যক্তি উদ্ধার
.............................................................................................
বাংলাদেশ সফরে আসছেন মার্কিন উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
রাঙামাটি ও গাংনীতে অগ্নিকান্ডে ৪০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি
.............................................................................................
অর্থাভাবে অস্ত্রোপচার হচ্ছে না জোড়া লাগানো শিশুটির
.............................................................................................
ধামরাই‌য়ে চৌহাট ইউ‌নিয়‌নে জাতীয় পা‌র্টির চেয়ারম‌্যান প্রার্থী ইউসুফ এর নির্বাচনী উঠান বৈঠক অনু‌ষ্ঠিত
.............................................................................................
পা হারানো রাসেলকে আরও ২০ লাখ টাকা দেয়ার নির্দেশ
.............................................................................................
চাঁপাই গ্রামীণ পাবসস`র ত্রি-বার্ষিক নির্বাচনে সভাপতি জাকেরুল, সম্পাদক বাসির
.............................................................................................
মৎস্যজীবী লীগের উদ্যোগে শেখ হাসিনার জন্মদিন পালিত
.............................................................................................
মোংলায় বিশ্ব নদী দিবস পালন
.............................................................................................
ওয়াসা’র এমডি নিয়োগ প্রক্রিয়া চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট
.............................................................................................
সখিপুর থানা শুভ্রতা`র পুনর্গঠন
.............................................................................................
ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে ভিপি নুরের বিরুদ্ধে মামলা
.............................................................................................
কাল‌কি‌নিতে দুই ক‌লে‌জে একাদশ শ্রেনী ভ‌র্তিতে অ‌তি‌রিক্ত ফি নেওয়ার অ‌ভি‌যোগ
.............................................................................................
নরসিংদীতে ৪০ লাখ টাকার অনুমোদনহীন ঔষধ ধ্বংস
.............................................................................................
সরিষাবাড়ী প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন
.............................................................................................
ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হলেন কাজী শামসুল
.............................................................................................
দাগনভূঞায় আ`লীগ এর যুগ্ন সম্পাদক সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীর বিরুদ্ধে অপপ্রচার, থানায় জিডি
.............................................................................................
গাজীপুরে প্রতিমা ভাঙচুর
.............................................................................................
সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুলছাত্রসহ দুইজন নিহত
.............................................................................................
পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত
.............................................................................................
নির্যাতনের ঘটনায় ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা
.............................................................................................
ফিল্ম না থাকার অজুহাতে বন্ধ ডিজিটাল এক্স-রে মেশিন
.............................................................................................
মসজিদে এসি বিস্ফোরণ : নিহত বেড়ে ১৬
.............................................................................................
আজ গণমুক্তির নির্বাহী সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শাহীনের জন্মদিন
.............................................................................................
হারবাং ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা
.............................................................................................
সোনাইমুড়ীতে চুরি হওয়া গ্যাস সিলিন্ডারসহ আটক ১
.............................................................................................
করোনায় আক্রান্ত এমপি মনসুর
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন
বাণিজ্যিক কার্যালয় : "রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্লেক্স"
(৬ষ্ঠ তলা), ২৮/১ সি, টয়েনবি সার্কুলার রোড,
মতিঝিল বা/এ ঢাকা-১০০০| জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা
ফোন নাম্বার : ০২-৪৭১২০৮০৫/৬, ০২-৯৫৮৭৮৫০
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, 01731800427
E-mail: dailyganomukti@gmail.com
Website : http://www.dailyganomukti.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop