ঢাকা,শনিবার,৯ মাঘ ১৪২৭,২৩,জানুয়ারী,২০২১ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > ১১ হাজার মেট্রিক টন খাদ্রশস্য মজুদ রয়েছে সংসদে জানালেন খাদ্যমন্ত্রী   > কুড়িগ্রামে কম্বল বিতরণ   > থামছেই না টাঙ্গুয়ায় পাখি শিকার   > মুজিববর্ষে ঘর পাচ্ছে নওগাঁর ১১০ পরিবার   > লক্ষ্মীপুরে উৎপাদিত ৬০ পণ্য বিশ্ববাজারে   > ‘নির্ধারিত সময়েই হবে অলিম্পিক’   > অপেক্ষায় ঐশী   > জাতীয় সংসদে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি   > ৪২ হাজার রোহিঙ্গা শনাক্ত মিয়ানমারের এপ্রিলে প্রত্যাবাসনের আশা   > রাজউকে প্রভাবশালি শফিউল্লাহ বাবু নকল, জাল-জালিয়াতির প্রধান কারিগর  

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
১১ হাজার মেট্রিক টন খাদ্রশস্য মজুদ রয়েছে সংসদে জানালেন খাদ্যমন্ত্রী

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : বর্তমানে দেশে সাত লাখ ১১ হাজার মেট্রিক টন খাদ্যশস্য মজুদ রয়েছে। অভ্যন্তরীণভাবে কাঙ্খিতমাত্রায় খাদ্যশস্য সংগ্রহ না হওয়ায় সরকার ১৪ লাখ মেট্রিক টন আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গতকাল বুধবার জাতীয় সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এসব তথ্য জানান। স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপিত হয়। ভোলা-২ আসনের আলী আজমের প্রশ্নে সাধন চন্দ্র মজুমদার জানান, দেশে বর্তমানে (১৪ জানুয়ারি) পাঁচ লাখ ৩৮ হাজার মেট্রিক টন চাল এবং এক লাখ ৭৩ হাজার মেট্রিক টন গমসহ সাত লাখ ১১ হাজার মেট্রিক টন খাদ্যশস্য মজুদ রয়েছে। “চলতি আমন মৌসুমে ছয় লাখ মেট্রিক টন সিদ্ধ চাল ও ৫০ হাজার মেট্রিক টন আতপ চাল ও দুই দশমিক শূন্য সাত মেট্রিক টন সংগ্রহ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত সংগ্রহ আশানুরূপ না হওয়ায় সরকার মজুদ বৃদ্ধির জন্য দশ লাখ মেট্রিক টন চাল ও চার লাখ মেট্রিক টন গম আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই আমদানি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এছাড়া বাজার স্থিতিশীল রাখতে বেসরকারি চাল আমদানির শুল্ক ৬২.৫% থেকে ২৫% এ হ্রাস করা হয়েছে।” বিএনপির আমিনুল ইসলামের প্রশ্নে তিনি জানান, সরকার চলতি অর্থবছরে জি টু জি ভিত্তিতে রাশিয়া থেকে দুই দশমিক ১৬ মেট্রিক টন গম আমদানি করেছে। এছাড়া ভারত থেকে তিন লাখ মেট্রিক টন সিদ্ধ চাল ও এক লাখ মেট্রিক টন আতপ চাল এবং আর্জেন্টিনা থেকে ৫০ হাজার মেট্রিক টন গম আমদানির সিদ্ধান্ত হয়েছে। চলতি অর্থ বছরের অক্টোবর পর্যন্ত চিনি, ভোজ্য তেল, ফলমুল, মসলা, পেঁয়াজ, ডালসহ দুই হাজার ৩৮ দশমিক ৬ মিলিয়ন ডলারের খাদ্যদ্রব্য আমদানি করা হয়েছে বলে মন্ত্রী জানান। চট্টগ্রাম-১১ আসনের এম আবদুল লতিফের প্রশ্নে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানান, জুলাই ২০২০ থেকে বাংলাদেশ থেকে চীনের বাজারে আট হাজার ২৫৬টি পণ্য (দেশটিতে রপ্তানি পণ্যের ৯৭%) শুল্কমুক্তভাবে প্রবেশ করতে পারছে। বিএনপির গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের প্রশ্নে তিনি আরও জানান, ২০১৯-২০ অর্থবছরে রপ্তানি আয় ছিল ৩৯ হাজার ৭৫৫ দশমিক ২৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। আমদানি ব্যয় ছিল ৫৫ হাজার ৬৩৪ দশমিক ৮৩ মার্কিন ডলার। মোট বাণিজ্য ঘাটতি ১৫ হাজার ৮৭৯ দশমিক ৫৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। মহামারীর কারণে পূর্ববর্তী অর্থবছরের তুলনায় গত অর্থ বছরে ১৫ দশমিক ৪৬ শতাংশ কমেছে। গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের প্রশ্নে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান বিষয়ক মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেন, “করোনাকালীন (এপ্রিল ২০২০ থেকে ৩০ ডিসেম্বর ২০২০) সময়ে বিদেশ থেকে মোট চার লাখ ৮ হাজার ৪০৮ জন কর্মী ফেরত এসেছেন। এদের মধ্যে নারী ৪৯ হাজার ৯২৪ জন। ফেরত কর্মীদের মধ্যে যেমন কর্মহীন হয়ে পড়া রয়েছে, তেমনি চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে স্বাভাবিকভাবে ফেরতও রয়েছেন।

১১ হাজার মেট্রিক টন খাদ্রশস্য মজুদ রয়েছে সংসদে জানালেন খাদ্যমন্ত্রী
                                  

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : বর্তমানে দেশে সাত লাখ ১১ হাজার মেট্রিক টন খাদ্যশস্য মজুদ রয়েছে। অভ্যন্তরীণভাবে কাঙ্খিতমাত্রায় খাদ্যশস্য সংগ্রহ না হওয়ায় সরকার ১৪ লাখ মেট্রিক টন আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গতকাল বুধবার জাতীয় সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এসব তথ্য জানান। স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপিত হয়। ভোলা-২ আসনের আলী আজমের প্রশ্নে সাধন চন্দ্র মজুমদার জানান, দেশে বর্তমানে (১৪ জানুয়ারি) পাঁচ লাখ ৩৮ হাজার মেট্রিক টন চাল এবং এক লাখ ৭৩ হাজার মেট্রিক টন গমসহ সাত লাখ ১১ হাজার মেট্রিক টন খাদ্যশস্য মজুদ রয়েছে। “চলতি আমন মৌসুমে ছয় লাখ মেট্রিক টন সিদ্ধ চাল ও ৫০ হাজার মেট্রিক টন আতপ চাল ও দুই দশমিক শূন্য সাত মেট্রিক টন সংগ্রহ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত সংগ্রহ আশানুরূপ না হওয়ায় সরকার মজুদ বৃদ্ধির জন্য দশ লাখ মেট্রিক টন চাল ও চার লাখ মেট্রিক টন গম আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই আমদানি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এছাড়া বাজার স্থিতিশীল রাখতে বেসরকারি চাল আমদানির শুল্ক ৬২.৫% থেকে ২৫% এ হ্রাস করা হয়েছে।” বিএনপির আমিনুল ইসলামের প্রশ্নে তিনি জানান, সরকার চলতি অর্থবছরে জি টু জি ভিত্তিতে রাশিয়া থেকে দুই দশমিক ১৬ মেট্রিক টন গম আমদানি করেছে। এছাড়া ভারত থেকে তিন লাখ মেট্রিক টন সিদ্ধ চাল ও এক লাখ মেট্রিক টন আতপ চাল এবং আর্জেন্টিনা থেকে ৫০ হাজার মেট্রিক টন গম আমদানির সিদ্ধান্ত হয়েছে। চলতি অর্থ বছরের অক্টোবর পর্যন্ত চিনি, ভোজ্য তেল, ফলমুল, মসলা, পেঁয়াজ, ডালসহ দুই হাজার ৩৮ দশমিক ৬ মিলিয়ন ডলারের খাদ্যদ্রব্য আমদানি করা হয়েছে বলে মন্ত্রী জানান। চট্টগ্রাম-১১ আসনের এম আবদুল লতিফের প্রশ্নে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানান, জুলাই ২০২০ থেকে বাংলাদেশ থেকে চীনের বাজারে আট হাজার ২৫৬টি পণ্য (দেশটিতে রপ্তানি পণ্যের ৯৭%) শুল্কমুক্তভাবে প্রবেশ করতে পারছে। বিএনপির গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের প্রশ্নে তিনি আরও জানান, ২০১৯-২০ অর্থবছরে রপ্তানি আয় ছিল ৩৯ হাজার ৭৫৫ দশমিক ২৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। আমদানি ব্যয় ছিল ৫৫ হাজার ৬৩৪ দশমিক ৮৩ মার্কিন ডলার। মোট বাণিজ্য ঘাটতি ১৫ হাজার ৮৭৯ দশমিক ৫৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। মহামারীর কারণে পূর্ববর্তী অর্থবছরের তুলনায় গত অর্থ বছরে ১৫ দশমিক ৪৬ শতাংশ কমেছে। গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের প্রশ্নে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান বিষয়ক মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেন, “করোনাকালীন (এপ্রিল ২০২০ থেকে ৩০ ডিসেম্বর ২০২০) সময়ে বিদেশ থেকে মোট চার লাখ ৮ হাজার ৪০৮ জন কর্মী ফেরত এসেছেন। এদের মধ্যে নারী ৪৯ হাজার ৯২৪ জন। ফেরত কর্মীদের মধ্যে যেমন কর্মহীন হয়ে পড়া রয়েছে, তেমনি চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে স্বাভাবিকভাবে ফেরতও রয়েছেন।

জাতীয় সংসদে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি
                                  

সংসদ রিপোর্টার : সাবেক প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোতাহার হোসেন জাতীয় সংসদে বলেছেন, করোনাকালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষাব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। ভার্চুয়াল ক্লাস হলেও গ্রামের শিক্ষার্থীরা খুব বেশি উপকৃত হতে পারছে না। তাই যত দ্রুত সম্ভব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হোক। জাতীয় সংসদের অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণে ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের এই সংসদ সদস্য বুধবার এ দাবি করেন। সাবেক গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ছাড়াও সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি জানান। এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সভাপতিত্ব করেন। লালমনিরহাট-১ আসনের এমপি মোতাহার হোসেন আরও বলেন, তিস্তা নদী তার এলাকার দুঃখের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। নদীতে পানি নেই। হেঁটেই নদী পার হওয়া যায়। ভারত থেকে যে পানি আসে তা খুবই সামান্য। এতে আবাদের কাজ হয় না। তাই যত দ্রুত সম্ভব এই চুক্তি করা গেলে ওই অঞ্চলের মানুষ যথেষ্ট উপকৃত হবে। সরকারি দলের আরেক সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দার বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত।

৪২ হাজার রোহিঙ্গা শনাক্ত মিয়ানমারের এপ্রিলে প্রত্যাবাসনের আশা
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশের দেয়া তালিকা থেকে মাত্র ৪১ হাজার ৭১৯ জন রোহিঙ্গাকে শনাক্ত করেছে মিয়ানমার। এই তালিকা ধরে আগামী মার্চ-এপ্রিলে প্রত্যাবাসন শুরু হতে পারে বলে আশা করছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান। গতকাল বুধবার সচিবালয়ে বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিক রোহিঙ্গাদের জন্য চীন সরকারের ‘ইর্মাজেন্সি রাইস এইড’ হস্তান্তর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এ কথা জানান। গত মঙ্গলবার বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভাইস মিনিস্টার লু জাওহুই এবং মিয়ানমারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী সচিব উচানের অংশগ্রহণে ত্রিপক্ষীয় সভা হয়। রোহিঙ্গাদের জন্য চাল হস্তান্তরে ভ্র্চাুয়াল চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি ঝিমিং অনলাইনে যুক্ত ছিলেন। চলমান আলোচনা অনুযায়ী রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের অগ্রগতির বিষয়ে জানতে চাইলে ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, গতকাল (১৯ জানুয়ারি) বাংলাদেশ, মিয়ানমার ও চীনের সচিব পর্যায়ে বৈঠক হয়েছে। সেখানে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। সব বিষয়ে পজিটিভ আলোচনা হয়েছে। মিয়ানমার রিয়ালাইজ করেছে তাদের ফিরিয়ে নেয়া দরকার। বাংলাদেশও ফিল করে তারা (রোহিঙ্গা) সম্মানের সঙ্গে নাগরিক অধিকার নিয়ে ফিরে যাক। চীন সরকারও চায় বাংলাদেশের উন্নয়নের স্বার্থে তাদের ফিরে যাওয়া উচিত। তিনি বলেন, বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের গ্রামভিত্তিক রিপ্যাট্রিয়েশনটা চায়। কিন্তু মিয়ানমার সরকার চায় বাংলাদেশ সরকার যে তালিকা দিয়েছে এবং যে তালিকাটা তারা ভেরিফাইড হয়েছে সেই তালিকা অনুযায়ী ফেরত নিতে চায়। এই জায়গায় গতকালের মিটিং শেষ হয়েছে। আশা করি, পরবর্তী মিটিংয়ে আরও অ্যামিকেবল সলিউশন আসবে। আমরা গতকাল চীন ও মিয়ানমারের যে সদিচ্ছা দেখেছি, সবাই প্রত্যাশা করছে, তিনটি পক্ষই আশা করছে আগামী মার্চ-এপ্রিলের মধ্যে প্রত্যাবাসানটা শুরু হবে। আমরা ভালো ফলাফলের অপেক্ষায় আছি যোগ করেন তিনি। এনামুর রহমান বলেন, আমাদের বক্তব্য ও গতকালের মিটিংয়ের পরিপ্রেক্ষিতে চীনের রাষ্ট্রদূত বলেন, শতভাগ ইচ্ছা বাংলাদেশের সঙ্গে তাদের যে গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্ক সেটা তারা বজায় রাখবেন, বাংলাদেশের সব সমস্যা সমাধানের জন্য তারা আমাদের পাশে থাকবেন। স্পেশালি রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে তারা কাজ করে যাবেন।

অভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলু আর নেই
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : বিশিষ্ট অভিনেতা, নাট্য পরিচালক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজিবুর রহমান দিলুর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গণমাধ্যমে পাঠানো এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৬টা ৪৬ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে বাংলাদেশ টেলিভিশনে সম্প্রচারিত জনপ্রিয় ‘সংশপ্তক’ ধারাবাহিক নাটকে ‘মালু’ চরিত্রে অভিনয় করা বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজিবুর রহমান দিলু মারা যান। সকাল ৯টার দিকে এনটিভি অনলাইনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন হাসপাতালটির ডিউটি ম্যানেজার সানাউল করিম। তিনি বলেন, ‘সবশেষ তিনি আইসিইউতে (নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র) ছিলেন। নিউমোনিয়ার লক্ষণ ছিল, তবে তাঁর করোনার ফল নেগেটিভ ছিল।’ ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন মুজিবুর রহমান দিলু। মুজিবুর রহমান দিলু ছিলেন টেলিভিশন ও মঞ্চ অভিনেতা, পরিচালক, থিয়েটারকর্মী এবং নাট্যকার। ঢাকা ড্রামা থিয়েটার গ্রুপের মালিক দিলু ছোটদের সংগঠন ‘টুনটুনি’র সমন্বয়কারী ছিলেন। এ ছাড়া তিনি শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজির নির্বাহী পরিচালক পদে কর্মরত ছিলেন। ২০০৫ সালে গুলেনবারি সিনড্রোমে আক্রান্ত হয়ে দীর্ঘদিন কোমায় ছিলেন দিলু।

বান্ধবিকে উপহার দেন ধানমন্ডির সাড়ে ৪ কোটি টাকা দামের ফ্ল্যাট
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মেয়ে অবন্তিকা ধীরে ধীরে ঘনিষ্ঠ হন পি কে হালদারের সাথে। তিনি কোটি নয়, শত কোটি টাকা নিয়ে নাড়াচাড়া করতেন। ফলে বান্ধবির সাড়ে ৪ কোটি টাকা দামের ফ্ল্যাট উপহার পাওয়া ছিল সামান্য ব্যাপার। কিন্তু এক সময় সবকিছু প্রকাশ হয়ে যায়। সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে বিদেশে পলাতক পিকে হালদারের ব্যাপারে দুদক নতুন তথ্য জানতে পেরেছে। পিকে হালদার তার ঘনিষ্ঠ বান্ধবি অবন্তিকাকে সাড়ে ৪ কোটি টাকা দামের একটি ফ্ল্যাট উপহার দেন। এটি ধানমন্ডিতে অবস্থিত। এই ফ্ল্যাট থেকে অবন্তিকাকে গ্রেফতার করা হয়। অর্থপাচারে অভিযুক্ত বিদেশে পালাতক প্রশান্ত কুমার হালদারের উপহার দেয়া সাড়ে চার কোটি টাকার ফ্ল্যাটেই থাকতেন তার ব্যবসায়িক অংশীদার ও ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচিত অবন্তিকা বড়াল। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অনুসন্ধানে এ তথ্য উঠে এসেছে। গত ১৩ জানুয়ারি পিকে হালদার সংশ্লিষ্টতায় বিভিন্ন অবৈধ ব্যবসা ও কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ অবন্তিকা বড়ালকে গ্রেপ্তার করে দুদক। জানা গেছে, ২০১৬ সালে চার কোটি ৩৫ লাখ টাকায় ধানমন্ডির ১০নং রোডে প্রায় তিন হাজার বর্গফুটের একটি ফ্ল্যাট কিনে অবান্তিকাকে উপহান দেন পিকে হালদার। বিল্ডিং টেকনোলজি অ্যান্ড আইডিয়াস লিমিটেড (বিটিআই) থেকে ক্রয় করা ফ্ল্যাটটির মূল্য পরিশোধ করা হয় নগদ ও পে-অর্ডারের মাধ্যমে। পুরো অর্থই আসে পিকে হালদারের বিভিন্ন হিসাব থেকে। পিকে হালদারের সুখাদা লিমিটেড ও হাল ইন্টারন্যাশনাল নামে দুটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। সেখানে গ্রেফতার অবন্তিকা বড়ালের বিনিয়োগ আছে। এ বিষয়ে দুদক সচিব ড. মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার জানান, পিকে হালদারের ইস্যুটা অনেক বড়। বিভিন্ন জনের মাধ্যমে তার বিভিন্ন দিকে সূত্র আছে। ইতোমধ্যে অনেককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। মোটামুটি ৬২ জনের সঙ্গে পিকে হালদারের যুক্ততা পাওয়া গেছে। এসব তথ্য আমাদের তদন্তকারী কর্মকর্তা জানিয়েছেন। বিভিন্ন ব্যাংকে রাখা পিকে হালদারের প্রায় এক হাজার ৫৭ কোটি ৮০ লাখ টাকা ফ্রিজ করা হয়েছে। পিকে হালদারের ঘনিষ্ঠজন শংখ বেপারীকে জিজ্ঞাসাবাদে অবান্তিকা বড়াল বিষয়ে তথ্য বের হয়ে আসে। এরপরই তার বিষয়ে ব্যাপক অনুসন্ধান শুরু হয়। অবান্তিকা ও পিকে হালদার উভয়ের বাড়ি পিরোজপুর। পিকে হালদারের বাড়ি জেলার নাজিরপুরের দিঘিরজান গ্রামে। এলাকার মেয়ে হিসেবে অবান্তিকার সঙ্গে পরিচয় তার। অবন্তিকার বাবা ছিলেন কলেজ শিক্ষক। তিনি মারা হওয়ার পর অবন্তিকা ও তার পরিবার জেলা শহর ছেড়ে ঢাকায় চলে আসেন। এরপরই অবন্তিকার সঙ্গে পিকে হালদারের ঘনিষ্টতা হয়। পিকে হালদারের কাছ থেকে অনেক সুবিধা নিয়েছেন তিনি। একইভাবে নিজের অবৈধ সম্পদ আড়াল করেছেন এই অবন্তিকার মাধ্যমে। পিকে হালদারের অর্থপাচার ও প্রতারণার মামলায় সম্পৃক্ততার অভিযোগে গ্রেফতার অবন্তিকা বড়াল বর্তমানে কারাগারে আছেন।

হাসানুল হক ইনু করোনায় আক্রান্ত
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : জাসদ সভাপতি ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। গত এক সপ্তাহ ধরে তিনি ভাইরাসটিতে আক্রান্ত বলে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় দলীয় নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে গণমাধ্যমকে জানানো হয়েছে। সূত্র জানায়, এক সপ্তাহ আগে করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে হাসানুল হক ইনুর। এরপর তাকে রাজধানীর শ্যামলী স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন। জাসদের একাধিক সূত্র জানায়, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেও হাসানুল হকের শারীরিক অবস্থা অনেকটাই ভালো আছে। তার সুস্থতার জন্য সকলের কাছে দোয়া চাওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশে এভিয়েশন মার্কেট
                                  

কামরুল ইসলাম, ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স : বাংলাদেশ এভিয়েশন ইন্ডাস্ট্রিজে অসংখ্য অভিজ্ঞ কর্মী বাহিনী রয়েছে কিন্তু বিশেষজ্ঞ জনের অভাব অনুধাবন করছে। উল্লেখযোগ্য এই সেক্টর স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরেও খুব বেশী অগ্রসর হতে পারেনি। যুদ্ধ বিধ্বস্থ বাংলাদেশে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐকান্তিক ইচ্ছের ফসল বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর যাত্রা। নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে বিজয় লাভের এক মাসের মধ্যেই ৪ জানুয়ারী ১৯৭২-এ বঙ্গবন্ধু বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স প্রতিষ্ঠা করেন। জাতীয় পতাকাবাহী এয়ারলাইন্সটি ৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৭২ প্রথম বারের মতো ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করে। বিমান বাংলাদেশ এর বয়স প্রায় ৪৯ বছর। বর্তমানে জাতীয় বিমান সংস্থার বহরে রয়েছে ১৯ টি এয়ারক্রাফট এবং বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ১৬টি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। যা সময়ের তুলনায় খুবই কম। অথচ বাংলাদেশের সাথে ৪২ দেশের বিমান চলাচলের জন্য এয়ার সার্ভিস এগিমেন্ট আছে। এক যুগ পূর্বেও ২৭/২৮টি গন্তব্যে বিমান যোগাযোগ ছিলো। কয়েকটি আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থার কথা উল্লেখ করলেই আমরা কতুটুকু অগ্রসর হয়েছি কিংবা পিছিয়েছি তা অনুধাবন করা সহজ হবে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের এমিরেটস ১৯৮৫ সালে যাত্রা শুরু করে বিশ্বের অন্যতম বিমান সংস্থা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছে। প্রতিষ্ঠার ৩৫ বছর পর বর্তমানে ১৫৭ টি গন্তব্য ও বিমান বহরে ২৫৪টি এয়ারক্রাফট রয়েছে তাদের প্রতিষ্ঠানে। মাত্র ২৬ বছর আগে ১৯৯৩ তে যাত্রা আরম্ভ করা কাতার এয়ারওয়েজ ২৩৭ টি এয়ারক্রাফট দিয়ে ১৭২ টি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। ১৯৬৫ সালে মালয়শিয়া থেকে স্বাধীন হওয়ার ৭ বছর পর ১৯৭২ সালে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স একক ভাবে যাত্রা শুরু করে। ৪৮ বছর পর বর্তমানে ১৪২ টি এয়ারক্রাফট নিয়ে বিশ্বের অন্যতম সেরা এয়ারলাইন্স হিসেবে ১৩৭ টি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স। তেমনিভাবে থাই এয়ারওয়েজ ১৯৬০ সালে যাত্রা শুরু করে গত ৬০ বছরে ৬১টি এয়ারক্রাফট নিয়ে ৬২ টি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। সার্কভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে শ্রীলংকান এয়ারলাইন্স মাত্র ২২ বছরে ২৪ টি উড়োজাহাজ দিয়ে ৯৬ টি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। যা সত্যিই প্রেরণা দায়ক। মাত্র ৮ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত মালিন্দো এয়ারের বর্তমানে উড়োজাহাজের সংখ্যা ২৬ আর গন্তব্য ৬৯ টি। সেই সঙ্গে এয়ার এশিয়া এশিয়ার অন্যতম এয়ারলাইন্স হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছে। মাত্র ২৭ বছরে বিশ্বের প্রায় ১৬৫ গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। এত অল্প সময়ের মধ্যে ২৫৫ টি উড়োজাহাজ সংযুক্ত করতে সক্ষম হয়েছে। উড়োজাহাজ ও গন্তব্য উভয়েই বৃদ্ধি করার মধ্যে দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে এয়ার এশিয়া। গত ৮ বছর পূর্বে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের অন্যতম বেসরকারী এয়ারলাইন্স নভো এয়ার এর বহরে রয়েছে ৭ টি উড়োজাহাজ আর আন্তর্জাতিক গন্তব্য মাত্র একটি, তা হচ্ছে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের কলকাতা এবং ঢাকা থেকে ৭টি অভ্যন্তরীণ গন্তব্য। যা সময়ের তুলনায় খুব বেশী বিস্তার লাভ করতে পারেনি।
এখানে উল্লেখ্য যে, ৬ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের সবচেয়ে নবীনতম এয়ারলাইন্স ইউএস-বাংলার বহরে রয়েছে মোট ১৩টি এয়ারক্রাফট আর ৯টি আন্তর্জাতিক গন্তব্য। খুব সহসাই আরো ৩টি আন্তর্জাতিক গন্তব্য ও বহরে চারটি উড়োজাহাজ যোগ হতে যাচ্ছে। সেই সঙ্গে ৭টি অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স।
স্বাধীনতার পর বাংলাদেশে নতুন কোনো বিমানবন্দর প্রতিষ্ঠা পায়নি কিন্তু পূর্বের চালু কিছু বিমানবন্দর বন্ধ হয়ে গেছে। তার মধ্যে রয়েছে ঠাকুরগাঁও, কুমিল্লা, ঈশ্বরদীসহ আরো বেশ কয়েকটি স্টল এয়ারপোর্ট। যাত্রী চাহিদার কথা বিবেচনা করে প্রায় সবগুলো বিমানবন্দরকে আধুনিকায়ন করার কাজ করছে বর্তমান সরকার। সময়ের পরিক্রমায় গত ছয় বছরে অভ্যন্তরীণ রুটে যাত্রী সংখ্যা বেড়েছে প্রায় তিনগুন। ২০১৩ সালে যেখানে অভ্যন্তরীণ রুটে যাত্রী সংখ্যা ছিলো প্রায় সাড়ে ছয় লক্ষ সেখানে ২০১৮/২০১৯ সালে যাত্রী সংখ্যা প্রায় বিশ লক্ষের কাছাকাছি। যা এভিয়েশনের প্রতি যাত্রীদের আকর্ষণ বৃদ্ধির ধারাবাহিকতাই স্পষ্ট।
বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ বিমানসংস্থাগুলো বিশেষ করে এমিরেটস, কাতার এয়ারওয়েজ, টার্কিশ এয়ারওয়েজ, সৌদি এয়ারলাইন্স, ইত্তেহাদ, সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স, মালয়শিয়ান এয়ারলাইন্স, থাই এয়ারওয়েজ, গালফ এয়ার, কুয়েত এয়ারওয়েজসহ অনেক নামকরা এয়ারলাইন্স এর অন্যতম গন্তব্য বাংলাদেশ। বাংলাদেশের এভিয়েশন মার্কেটের প্রায় ৭০ ভাগই বিদেশী এয়ারলাইন্স এর কাছে। আর বাংলাদেশী বিমান সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সসহ দেশীয় এয়ারলাইন্স এর কাছে মাত্র ৩০ শতাংশ। যা সত্যিই ভাববার বিষয়। শুধু যাত্রী পরিবহন নয় কার্গো খাতের ও একই দশা। প্রতি বছরই অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটেই যাত্রী বাড়ছে। যাত্রী বৃদ্ধির হারকে পরিপূর্ণ সেবা দেয়ার লক্ষ্যেই হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তৈরী হচ্ছে থার্ড টার্মিনাল। বর্তমান টার্মিনালদ্বয়ের থেকে যে সেবা যাত্রী সাধারণ পাচ্ছে তার প্রায় চারগুন সেবা দেয়ার জন্যই প্রস্তুত হচ্ছে থার্ড টার্মিনাল। ২০২৩ সাল এর মধ্যে এই টার্মিনাল পরিপূর্ণতা পেলে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে একটি অন্যতম সেরা বিমানবন্দর হিসেবে পরিগণিত হবে। যা বাংলাদেশ এভিয়েশনে একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে। বাংলাদেশ বিমান এক সময় নিউইয়র্ক, টরেন্টো, আমস্টারডাম, রোম, টোকিও, হংকংসহ বিশ্বের অনেক উল্লেখযোগ্য গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করতো যা দেশের ও জাতীয় বিমানসংস্থার জন্য ছিলো ভাবমূর্তি উজ্জ্বল রাখার মতো। কিন্তু সময় যত এগিয়ে গেছে ততই একে একে উল্লেখযোগ্য রুটগুলো লোকসানের অযুহাতে বন্ধ করা হয়েছে। যা দেশের জন্য বিশেষ করে বাংলাদেশ এভিয়েশন ইন্ডাস্ট্রিজ এর জন্য অত্যন্ত বেদনাদায়ক।
সমসাময়িক কালে বিশ্বের বিভিন্ন বিমান সংস্থা যেখানে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখেছে সেখানে বাংলাদেশের বিমান সংস্থাগুলো কেনো পারছিলো না তা পরিপূর্ণভাবে এভিয়েশন বিশেষজ্ঞদের দিয়ে যথার্থতা যাচাই করতে ব্যর্থ হয়েছে বলেই প্রতীয়মান হয়েছে। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর বাংলাদেশ বিমানকে নতুন নতুন আধুনিক উড়োজাহাজ ক্রয় করে ব্যবসায় এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। যা বাংলাদেশের এভিয়েশনের ইতিহাসে নজিরবিহীন। এর কৃতিত্বের সিংহভাগই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। বাংলাদেশের প্রাইভেট এয়ারলেইন্সের বয়স প্রায় ২৫ বছর। এই সময়ের মধ্যে জিএমজি এয়ারলাইন্স, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ, বেস্ট এয়ারসহ ৭/৮টি এয়ারলাইন্স বন্ধ হয়ে গিয়েছে। সম্প্রতি ১০ বছর বয়সী রিজেন্ট এয়ারওয়েজ সাসপেনশনে আছে। কবে নাগাদ এয়ারলাইন্সটি বাণিজ্যিকভাবে প্রত্যাবর্তন করবে কিংবা আদৌ প্রত্যাবর্তন করবে কিনা তা নিয়েও যথেষ্ট আলোচনা আছে এভিয়েশন মার্কেটে।
বন্ধ হয়ে যাওয়া ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের এভিয়েশন খাতের একমাত্র প্রতিষ্ঠান। কিন্তু অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় পুঁজিবাজারে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজে বিনিয়োগ করে নিঃস্ব হয়ে গেছে অনেকে। আবার পরিত্যাক্ত এয়ারক্রাফটগুলো বিমান বন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে গলারকাঁটা হয়ে দাড়িয়ে আছে যা, বছরের পর বছর বিমানবন্দরের টারমাকের অনেক জায়গা দখল করে আছে। যার ফলে চলমান এয়ারলাইন্সগুলোর এয়ারক্রাফটগুলোকে রক্ষণাবেক্ষণ করার জন্যও পর্যাপ্ত জায়গার ও সংকুলান হচ্ছে না।
প্রাইভেট এয়ারলাইন্স বিশেষ করে প্যাসেঞ্জার এয়ারলাইন্স এর জন্য গত ২৫ বছরে হ্যাংগার সুবিধা ছিলো না। সম্প্রতি হ্যাংগার তৈরির কাজ চলছে, এতে বেসরকারী এয়ারলাইন্স তাদের উড়োজাহাজগুলোকে রক্ষণাবেক্ষন করতে পারবে সহজেই। বেসরকারী এয়ারলাইন্সের বহুদিনের দাবী এ্যারোনোটিক্যাল ও নন-এ্যারোনটিক্যাল চার্জগুলো অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটের জন্য যৌক্তিক হারে নির্ধারণ করলে বাংলাদেশের বিমান সংস্থাগুলো বিদেশী এয়ারলাইন্সগুলোর সাথে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে সহজ হবে। সেই সংগে জেট ফুয়েল এর দামও আন্তর্জাতিক বাজারের সাথে সামঞ্জস্য রেখে নির্ধারণ করলে দেশীয় এয়ারলাইন্স এর অগ্রযাত্রায় সহায়ক হবে।
সম্প্রতি ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ সহ ইরাক, ইরান, দক্ষিণ কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়ার এয়ারলাইন্সগুলো বাংলাদেশে ফ্লাইট পরিচালনার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছে। দেশের এভিয়েশন মার্কেট বড় হচ্ছে কিন্তু বাংলাদেশের এয়ারলাইন্সগুলোর মার্কেট শেয়ার আশানুরূপ অগ্রসর হচ্ছে না। অথচ বাংলাদেশের যাত্রীদের নিয়ে সব বিদেশী এয়ারলাইন্সই ব্যবসা করে যাচ্ছে। সেখানে দেশীয় এয়ারলাইন্সগুলো প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে যাচ্ছে। বিশেষজ্ঞ জনের সহায়তার মাধ্যমে সমস্যার যথার্থতা নিরূপন করে দেশীয় এয়ারলাইন্সকে বিদেশী এয়ারলাইন্স এর সাথে যেন প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে পারে, সেই কার্যক্রম হাতে নেয়া খুবই জরুরী।
এভিয়েশন সেক্টরের উন্নয়ন ঘটানো গেলে দেশের পর্যটন শিল্পের বিকাশ ঘটানো সহজতর হবে, হোটেল ইন্ডাস্ট্রিজ বেগবান হবে। এ শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট প্রত্যেকটি খাত বিশেষ করে ট্রাভেল এজেন্ট, ট্যুর অপারেটর কোম্পানীতে অধিক সংখ্যক কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে, বেকারত্বের হার কমাতে সহায়তা করবে।

পরিবার নিয়ে দেখা যায় এমন সিনেমা নির্মাণ করুন
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : পরিবার-পরিজন নিয়ে দেখা যায় এমন চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, সিনেমাগুলো সেভাবেই তৈরি করতে হবে, যেন পরিবার-পরিজন নিয়ে দেখা যায়। গতকাল রোববার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ২০১৯ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের চলচ্চিত্রশিল্প নষ্ট হয়ে যাক- সেটি সরকার কখনও চায় না। একসময় টেলিভিশন যুগের আবির্ভাবে সিনেমাশিল্প থমকে গেলেও এখন আবার সিনেমার যুগ ফিরে এসেছে। তিনি বলেন, শুধু বাংলাদেশেই নয়, এখন পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে মানুষ সিনেমা দেখছে। হয়তেহা হলে যায় না, ঘরে বসে দেখে। কিন্তু হলেও আমাদের মানুষ টানতে হবে। আর মানুষ যাতে আসে, তার ব্যবস্থা করতে হবে। করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সচেতন করতে দায়িত্ব পালন করায় চলচ্চিত্রশিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান শেখ হাসিনা। সমাজে শিল্পীদের একটি ‘আলাদা সম্মান আছে’ মন্তব্য করে সরকারপ্রধান বলেন, আমি আলোচনা করে দেখব যে, অন্তত যারা আজীবন সম্মাননা পাচ্ছেন, তাদের সম্মানটা যেন তারা সবসময় পান, সেই ব্যবস্থাটা করার জন্য যা করণীয়, আমরা তা করব। তিনি শিশুদের জন্য অনুপ্রেরণামূলক চলচ্চিত্র নির্মাণের আহ্বান জানান। বলেন, শিশুদের জন্য এমনভাবে চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে হবে, যাতে তারা সেখান থেকে ভবিষ্যৎ জীবন গড়ার অনুপ্রেরণা পায়।

বিপুল ব্যয়ে দেশে বিদ্যুৎচালিত বুলেট ট্রেন চালানোর উদ্যোগ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা-কক্সবাজার রুটে চলাচল করবে বুলেট ট্রেন। ওই লক্ষ্যে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ প্রায় শেষ। বুলেট ট্রেনটি প্রায় সাড়ে ৩শ কিলোমিটার উড়ালপথ দিয়ে যাতায়াত করবে। ব্যালাস্টলেস (পাথরবিহীন) হবে এর ট্র্যাক। আর তেল বা কয়লার বদলে ট্রেনটি বিদ্যুতে চলবে। ওই রেলপথে ৫টি অত্যাধুনিক উড়াল স্টেশন নির্মাণ করা হবে। সেজন্য প্রাথমিক ব্যয় ধরা হচ্ছে ১৫০ হাজার কোটি টাকা। প্রথমে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত বুলেট ট্রেন চলানোর প্রকল্প নেয়া হয়েছিল। কিন্তু প্রকল্পটি সংশোধন করে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে কক্সবাজার পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। অতিসম্প্রতি রেলপথমন্ত্রীর উপস্থিতিতে এক বৈঠকে ঢাকা থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত দ্রুতগতির রেলপথ নির্মাণের সম্ভাব্যতা সমীক্ষা এবং ওই প্রকল্পের বিশদ ডিজাইনের হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে। তাতে বলা হয়, সম্ভাব্যতা যাচাই এবং নকশা তৈরির কাজ প্রায় শেষ। রেলপথ মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়। সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, চায়না রেলওয়ে ডিজাইন করপোরেশন (চীন) ও বাংলাদেশ রেলওয়ে এবং মজুমদার এন্টারপ্রাইজ এদেশে বুলেট ট্রেন চলাচলের সম্ভাব্যতা যাচাই ও নকশা তৈরির কাজ যৌথভাবে করেছে। এর আওতায় বিভিন্ন অবকাঠামোর বিশদ ডিজাইন তৈরি, দরপত্রের দলিলাদি প্রস্তুকরণ, নতুন রেললাইন পরিচালন প্রক্রিয়া নির্ধারণ করা হচ্ছে। তাছাড়া প্রাথমিক পরিবেশ পরীক্ষা প্রতিবেদন তৈরি, প্রকল্পের পরিবেশগত প্রভাব মূল্যায়ন, পরিবেশ ব্যবস্থাপনা ও মনিটরিং, ভূমি অধিগ্রহণ ও পুনর্বাসন পরিকল্পনাও তৈরি করে দেয়া হবে। কয়েকদিনের মধ্যেই ঢাকা-চট্টগ্রাম পর্যন্ত প্রকল্পের চূড়ান্ত নকশা জমা দেয়া হবে।
সূত্র জানায়, বুলেট ট্রেন প্রকল্পে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লা, ফেনী ও চট্টগ্রামের পাহাড়তলীতে ইউরোপের আদলে ৫টি স্টেশন নির্মাণ হবে। প্রতিটি স্টেশন ঘিরেই থাকবে একেকটি মাল্টি মোডাল ট্রানজিট হাব। পাহাড়তলী থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত মাঝপথে কোনো স্টেশন থাকবে না। ওই প্রকল্পের সবচেয়ে অত্যাধুনিক স্টেশনটি কক্সবাজারে নির্মাণ হবে।

ভোটের মাঠে বিচ্ছিন্ন সংঘাত
                                  

সাঈদ আহমেদ খান : নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার গতকাল শনিবার সাংবাদিকদের জানান এই পৌর নির্বাচনকে অংশগ্রহণমূলক বলে তিনি মনে করেন না। ভোটের মাঠে বিচ্ছিন্ন সংঘাত ও সহিংসতার মধ্য দিয়ে ৬০ পৌর সভা নির্বাচন গতকাল শনিবার শেষ হয়েছে। এই নির্বাচনে বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে প্রার্থীদের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতি, মারামারি, গাড়ি ভাঙচুর ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। তবে এসব বিচ্ছিন্ন সহিংসতার ঘটনা ছাড়া বেশির ভাগ পৌরসভায় শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণের খবর পাওয়া গেছে। তবে অনিয়মের অভিযোগ এনে রাজশাহীর ভবানীগঞ্জ, বাগেরহাটের মোংলা, কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর ও পাবনার ঈশ্বরদীর বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা বেলা ১১টার পর ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। ভোট বর্জন করেন মেহেরপুরের গাংনীর স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী। পাবনার ঈশ্বরদীতে ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির প্রার্থী রফিকুল ইসলাম। বেলা দেড়টার দিকে পৌরসভার পূর্ব টেংরি এলাকায় নিজ বাড়ি থেকে তিনি এই ঘোষণা দেন। এ সময় তিনি প্রতিটি কেন্দ্র থেকে তার এজেন্টদের বের করে দেওয়া ও ভোট কারচুপির অভিযোগ করেন।
ককটেল বিস্ফোরণে আনসার সদস্যসহ আহত ৪
ফেনীর দাগনভূঁঞা পৌরসভা নির্বাচনে একটি কেন্দ্রে ককটেল বিস্ফোরণে এক আনসার সদস্যসহ চারজন আহত হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ১০টার দিকে পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডে গণিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। আহতদেরকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়। ঘটনার পরপর র‌্যাব, বিজিবির অভিযান অব্যাহত রাখে। এই কেন্দ্রের টেবিল ল্যাম্প প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী কামরুল ইসলাম ক্লাইব জানান, সরকার দল সমর্থিত উট পাখি প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী ছালাউদ্দিন রুবেলের সমর্থকরা কেন্দ্রে ভোটের আগের দিন রাত থেকে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে প্রভাব বিস্তার করছে। সকাল সোয়া ১০টার দিকে কেন্দ্রে একটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটলে এক আনসার সদস্যসহ চারজন আহত হয়। থেমে থেমে ককটেল বিস্ফোরণ হচ্ছে। আহতরা হচ্ছে আনসার সদস্য মো. আরিফ, সিন্দুরপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আনোয়ার হোসেন সুজন। অপর দুইজনের নাম তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। গণিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মো. ইসমাইল পূর্বপশ্চিমকে জানান, বাইরে বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটলেও ভিতরে ভোট গ্রহণ চলমান রয়েছে। দাগনভূঞা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) পার্থ প্রতিম দেব জানান, সকাল থেকে কেন্দ্রের আশপাশে বিচ্ছিন্নভাবে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। ঘটনার পর পর পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি ও র?্যাব পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।
২ কাউন্সিলর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ১
কুমিল্লার চান্দিনা পৌরসভায় দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পৌরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ডের হারং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের পাশে সকাল সাড়ে ৯টায় এই সংঘর্ষ হয়। চান্দিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সামছুদ্দিন মো. জানান, ভোটকেন্দ্রে যাওয়া নিয়ে কাউন্সিলর প্রার্থী বিল্লাল হোসেন ও নাজমুল হাসানের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে একজন আহত হয়েছেন। তবে, কাউন্সিলর প্রার্থী বিল্লাল হোসেনের ভাই ইব্রাহিম খলিল জানান, অপর প্রার্থী নাজমুলের সমর্থকরা তাদের তিন সমর্থককে কুপিয়ে আহত করেছেন। এর মধ্যে মহসিন নামের একজনকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে পাঠানো হয়েছে।
শৈলকুপায় সমর্থককে কুপিয়ে আহত
ঝিনাইদহের শৈলকূপা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী তৈয়েবুর রহমানের গাড়ি ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল শনিবার সকালে পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের ঝাউদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের সামনে এ ঘটনা ঘটে। বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হলে তৈয়েবুর রহমান কেন্দ্রের ভেতরে আটকে পড়েন। হামলাকারীরা গাড়ির কাঁচ ভেঙে ফেলে। তিনি অভিযোগ করেন, ‘প্রকাশ্যে ভোটারদের কাছ থেকে জোরপূর্বক নৌকায় ভোট নেওয়া হচ্ছে এমন কথা শুনে ১৪ নং ঝাউদিয়া কেন্দ্রে এসেছিলাম। নৌকার প্রার্থী কাজী আশরাফুল আলমের সমর্থকরা হামলা করে আমার গাড়ি ভাঙচুর করেছে। প্রাণ রক্ষার্থে আমি কেন্দ্রের ভেতরে আশ্রয় নিই। স্ট্রাইকিং ফোর্স এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।’
কাজী আশরাফুল আলম বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না। দলীয় কোনো নেতাকর্মীকে বিশৃঙ্খলা করার নির্দেশ দেওয়া হয়নি।’ সকালে ভুলটিয়া এলাকায় আলাউদ্দিন নামে তৈয়েবুর রহমানের এক সমর্থককে কুপিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। আলাউদ্দিন খুলনা বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে ভোট দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আলাউদ্দিন বলেন, ‘ভোট দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে ভুলটিয়া এলাকায় পৌঁছালে কাউন্সিলর প্রার্থী মন্নু হোসেনের নেতৃত্বে ১০ থেকে ২ জন আমাকে আক্রমণ করে। তারা চাপাতি দিয়ে আমার মাথায় কোপ দেয়।’
পাবনায় ২ মেয়র প্রার্থীর ওপর হামলার অভিযোগ
পাবনার ঈশ্বরদী পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম নয়নের ওপর হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। তিনি দাবি করেন, হামলায় জড়িত সবাই স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী। শনিবার দুপুরে তিনি বলেন, ‘সকালে কর্মীদের নিয়ে পৌরসভার ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসা কেন্দ্রে ভোট পরিদর্শনে গেলে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আমার ওপর হামলা চালায়। তারা আমার ব্যবহৃত মাইক্রোবাস ছিনিয়ে নিয়ে গেছে।’ এ বিষয়ে ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাসির উদ্দিন বলেন, ‘বিএনপির প্রার্থী পুরুষ সদস্যদের নিয়ে মহিলা কেন্দ্রে প্রবেশের চেষ্টা করলে স্থানীয়রা বাধা দেয়। এতে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়, পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।’ সাঁথিয়া পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মোল্লা অভিযোগ করেছেন, ‘সকালে কর্মীদের নিয়ে সাঁথিয়া পাইলট স্কুল কেন্দ্র পরিদর্শনে গেলে তার ওপর হামলা চালানো হয়।’ তবে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহাবুবুর রহমান জানিয়েছেন, শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
জাল ভোট দেয়ার সময় একজনের ৭ দিনের জেল
বগুড়ার শেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে জাল ভোট দেওয়ার চেষ্টা করায় আবু সাঈদ (৩৮) নামে একজনকে সাত দিনের জেল দিয়েছেন নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শেরপুর ডিজে উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে পুলিশ তাকে আটক করে। সূত্র জানায়, সকালে মাস্ক পরে সাঈদ ভোট দিতে আসেন। সন্দেহজনক আচরণের দেখে কেন্দ্রের এজেন্টরা দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের জানায়। এরপর পুলিশ তাকে আটক করে। আবু সাঈদ শেরপুর উপজেলার গারুদা এলাকার বাসিন্দা। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শারমিন আক্তার বলেন, ‘আটকের পরে আবু সাঈদ নামে ওই ব্যক্তি স্বীকার করেছেন, তিনি বিধান চন্দ্র নামে জাল ভোট দিতে এসেছিলেন। তাকে সাত দিনের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।’

মেজর মঞ্জুর হত্যায় এরশাদকে অব্যাহতি দিয়ে সিআইডির অভিযোপত্র দায়ের
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আবুল মঞ্জুর হত্যা মামলায় সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদকে অব্যাহতি দিয়ে অভিযোপত্র দাখিল করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডি। একইসঙ্গে, অব্যাহতি দেয়া হয়েছে অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল আবদুল লতিফকেও। তারা মারা যাওয়ায় মামলার দায় থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। এছাড়া অবসরপ্রাপ্ত মেজর কাজী এমদাদুল হক, লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোস্তফা কামাল উদ্দিন ভূইঞা ও শামসুর রহমানকে অভিযুক্ত করে সম্পূরক অভিযোগপত্র দিয়েছে সিআইডি। ঢাকার প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক দিলারা আলো চন্দনার আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন, তদন্তকারী কর্মকর্তা সিআইডির পুলিশ সুপার কুতুব উদ্দিন। ঢাকার প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পেশকার নুর মোহাম্মদ খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ২৫ জানুয়ারি শুনানির দিন ধার্য করা রয়েছে। ১৯৮১ সালের ৩০ মে চট্টগ্রামে এক সেনা অভ্যুত্থানে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান নিহত হন। তখন চট্টগ্রামে অবস্থিত সেনাবাহিনীর ২৪তম পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার স্টাফ ছিলেন আবুল মঞ্জুর। জিয়াউর রহমান নিহত হওয়ার পর আত্মগোপনে যাওয়ার পথে মেজর জেনারেল মঞ্জুরকে আটক করে পুলিশ। এরপর ওই বছরের ২ জুন তাকে পুলিশ হেফাজত থেকে সেনানিবাসে নিয়ে হত্যা করা হয়।

খোকনের বিরুদ্ধে মামলায় আমার সম্পৃক্ততা নেই, এ নিয়ে আর মন্তব্য নয় : তাপস
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে গত সোমবার যে মামলা হয়েছে তার সঙ্গে বর্তমান মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসের কোনো সম্পৃক্ততা নেই বলে জানিয়েছেন তিনি। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র জানান, কিছু অতি উৎসাহীরা এ মামলা করেছেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে নগর ভবনে আয়োজিত সাকরাঈন উৎসবের উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। মেয়র বলেন, গতকাল যে দুটি মামলা হয়েছে, তার সঙ্গে আমার কোনো সম্পৃক্ততা নেই। দু’জন আইনজীবী অতি উৎসাহী হয়ে মামলা করেছে? আমি তাদেরকে আনুরোধ করব, তারা যেন মামলা প্রত্যাহার করে নেন। তিনি আরও বলেন, সাবেক মেয়র মহোদয় আমাকে ব্যক্তিগতভাবে আক্রোশের বশবর্তী হয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা মানহানীকর হয়েছে বলে প্রতীয়মান হয়। সে প্রেক্ষিতে আমরা পর্যালোচনা করেছি। ভবিষ্যৎতে মামলা হলেও হতে পারে।
সাবেক ও বর্তমান মেয়রের মধ্যে এ ধরণের বাকবিতন্ডা জনগণ খুব হাস্যকর হিসেবে নিচ্ছে বলে মন্তব্য করেন শেখ তাপস। সাংবাদিকদের স্পষ্ট জানিয়ে দেন, এ বিষয়টি নিয়ে তিনি আজকের পর আর কোনো মন্তব্য করবেন না। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের টাকা শেখ তাপসের মালিকানাধীন মধুমতি ব্যাংকে রাখার বিষয়ে সাঈদ খোকনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সাংবাদিকদের করা এক প্রশ্নের জবাবে তাপস বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক এবং সরকারের নিয়ম মেনেই মধুমতি ব্যাংকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের টাকা রাখা হয়েছে। এখানে আইনের কোনো ব্যত্যয় ঘটেনি। আমি মেয়র পদে আসার আগে থেকে মধুমতি ব্যাংকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের টাকা রাখা হচ্ছে।

আল্লামা শফী হত্যার তদন্তে নেমেছে পিবিআই
                                  

গণমুক্তি রিপোর্ট : হেফাজতে ইসলামের সাবেক আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে হত্যার অভিযোগে আদালতে দায়ের করা মামলার তদন্তকাজ শুরু করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। গতকাল মঙ্গলবার সকালে হাটহাজারী মাদ্রাসায় পিবিআই টিম সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলেন। গত ১৭ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শিবলু কুমার দে এর আদালতে মামলাটি দায়ের করেন আল্লামা শফীর শ্যালক মোহাম্মদ মাঈনুদ্দিন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছেন। এক মাসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। মামুনুল হক ছাড়াও মামলায় অন্য অভিযুক্তরা হলেন- নাছির উদ্দিন মুনির, আজিজুল হক ইসলামাবাদী, মীর ইদ্রিস, হাবিব উল্লাহ, আহসান উল্লাহ, জাকারিয়া নোমান ফয়েজী, নুরুজ্জামান নোমানী, আব্দুল মতিন, মো. শহীদুল্লাহ, মো. রিজওয়ান আরমান, মো. নজরুল ইসলাম, হাসানুজ্জামান, এনামুল হাসান ফারুকী, মীর সাজেদ, জাফর আহমদ, মীর জিয়াউদ্দিন, আহমদ, মাহমুদ, আসাদউল্লাহ, জোবায়ের মাহমুদ, এইচ এম জুনায়েদ, আনোয়ার শাহ, আহমদ কামাল, নাছির উদ্দিন, কামরুল ইসলাম কাসেমী, মোহাম্মদ হাসান, ওবায়দুল্লাহ ওবাইদ, জুবায়ের, মোহাম্মদ, আমিনুল হক, রফিক সোহেল, মোবিনুল হক, নাঈম, হাফেজ সায়েম উল্লাহ ও হাসান জামিল। এছাড়া মামলায় অজ্ঞাতনামা আরো ৮০-৯০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

দিহানের বাসার সিসিটিভি ফুটেজে আনুশকাহ দেড় ঘন্টা ছিলেন
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ‘ও’ লেভেলের শিক্ষার্থী আনুশকা নূর আমিনকে ধর্ষণ ও খুনের দায়ে গ্রেফতার করা হয়েছে ইফতেখার ফারদিন দিহানকে। আর এ ঘটনায় আটক করে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে দিহানে কলাবাগান বাসার দারোয়ান দুলালকেও। উদ্ধার করা হয়েছে বাসাটির সিসি ক্যামেরার ফুটেজ। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে রমনা জোনের উপপুলিশ কমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদ হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, তদন্তের স্বার্থে ওই বাসার সিসি ক্যামেরার ফুটেজেসহ অনেক কিছুই জব্দ করা হয়েছে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, সেদিন বাসাটিতে প্রায় দেড় ঘণ্টা অবস্থান করছিলেন আনুশকাহ। এ সময় রহস্যজনক গতিবিধির উপস্থিতি পাওয়া গেছে তিন ব্যক্তির। পুলিশের ধারণা, সর্বগ্রাসী মাদকের পরিণতিতেই এমন ঘটনা ঘটতে পারে। সিসিটিভি বিশ্লেষণ করে পুলিশ আরও জানায়, ঘটনার দিন দুপুর ১২টা ১২ মিনিটে ধর্ষণ ও হত্যার শিকার ওই শিক্ষার্থী প্রবেশ করে। বাসার সিঁড়ি ঘরের দিকে সে যায়। দুপুর ১টার দিকে বাসার সামনে তিন ব্যক্তির রহস্যজনক গতিবিধি লক্ষ্য করা যায়। ১টা ৩৬ মিনিটে গাড়িতে করে দিহান বাসা থেকে বের হন। ওই তিন ব্যক্তি বাসার সামনে নজরদারি করেন। পুলিশ আরও জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই তিনজনের দেয়া তথ্য ও আটক দিহানের বাসার দারোয়ান দুলালের দেয়া তথ্েযর মিল রয়েছে। তদন্তের স্বার্থে প্রয়োজনে তাদের আবারও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। গত ৭ জানুয়ারি দুপুরে দিহান ওই ছাত্রীকে মৃত অবস্থায় আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। তখন কিশোরীর প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। খবর পেয়ে দিহানের তিন বন্ধু হাসপাতালে গেলে পুলিশ তাদের হেফাজতে নেয়। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে কলাবাগান থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। মামলার একমাত্র আসামি করা হয় দিহানকে। যেখানে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ আনা হয়।

তাপসের মান সম্মানের বাজারমূল্য রাজপথে হিসাব হবে: সাঈদ খোকন
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসকে নিয়ে ‘মানহানিকর বক্তব্য’ দেওয়ার অভিযোগে দুইটি মামলা হওয়ার পর ডিএসসিসির সাবেক মেয়র সাঈদ খোকন বলেছেন, ‘তাপসের মান-সম্মানের বাজারমূল্য কত? মামলার পূর্ণাঙ্গ বিবরণী পাওয়ার পর সেটা আমি জানতে পারব। এ মামলার আইনি মোকাবিলার পাশাপাশি রাজপথে দেনা-পাওনার হিসাব হবে, ইনশাআল্লাহ।’ গতকাল সোমবার দেওয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা সাঈদ খোকন এ কথা বলেন। এর আগে, ‘মানহানিকর বক্তব্য’ দেওয়ার অভিযোগে ডিএসসিসির সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে বলে গতকাল সকালে জানিয়েছিলেন বর্তমান মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। পরে ঢাকা মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরীর আদালতে খোকনের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দুটি করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন ওই আদালতের ক্লার্ক রিপন মিয়া। তিনি জানান, মামলা দুটির মধ্যে একটির বাদী অ্যাডভোকেট সারোয়ার আলম এবং অপরটির বাদী আনিসুর রহমান। আদালত বাদীদের জবানবন্দি গ্রহণ করে মামলা দুটির বিষয়ে পরে আদেশ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন।

সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে মেয়র তাপসের ২ মামলা
                                  

কোর্ট রিপোর্টার : ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করা হয়েছে। ডিএসসিসি’র মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসকে নিয়ে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে মামলা দুটি করা হয়েছে। গতকাল ঢাকা মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরীর আদালতে মামলা দুটি দায়ের করা হয়। এক মামলার বাদী কাজী আনিসুর রহমান। অপর মামলাটির বাদী অ্যাডভোকেট মো. সারওয়ার আলম। এর আগে সকালে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস সাংবাদিকদের বলেছিলেন, সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করা হবে।
উল্লেখ্য, গত শনিবার প্রেসক্লাব এলাকায় এক মানববন্ধনে সাবেক মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেন, মেয়র তাপস দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের শত শত কোটি টাকা তার নিজ মালিকানাধীন মধুমতি ব্যাংকের স্থানান্তরিত করেছেন। এই শত শত কোটি টাকা বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করার মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা লাভ হিসেবে গ্রহণ করছেন। অন্যদিকে, অর্থের অভাবে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের গরিব কর্মচারীরা মাসের পর মাস বেতন পাচ্ছেন না। সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প অর্থের অভাবে বন্ধ হয়ে গেছে। এসব কারণে তাপস মেয়র পদে থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন দাবি করে সাবেক মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, এ ধরণের কর্মকাণ্ডের দায়ে সিটি করপোরেশন আইন ২০০৯, দ্বিতীয় ভাগের দ্বিতীয় অধ্যায়ের অনুচ্ছেদ ৯ (২) (জ) অনুযায়ী তিনি মেয়র পদে থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন।


   Page 1 of 382
     জাতীয়
১১ হাজার মেট্রিক টন খাদ্রশস্য মজুদ রয়েছে সংসদে জানালেন খাদ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
জাতীয় সংসদে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি
.............................................................................................
৪২ হাজার রোহিঙ্গা শনাক্ত মিয়ানমারের এপ্রিলে প্রত্যাবাসনের আশা
.............................................................................................
অভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলু আর নেই
.............................................................................................
বান্ধবিকে উপহার দেন ধানমন্ডির সাড়ে ৪ কোটি টাকা দামের ফ্ল্যাট
.............................................................................................
হাসানুল হক ইনু করোনায় আক্রান্ত
.............................................................................................
বাংলাদেশে এভিয়েশন মার্কেট
.............................................................................................
পরিবার নিয়ে দেখা যায় এমন সিনেমা নির্মাণ করুন
.............................................................................................
বিপুল ব্যয়ে দেশে বিদ্যুৎচালিত বুলেট ট্রেন চালানোর উদ্যোগ
.............................................................................................
ভোটের মাঠে বিচ্ছিন্ন সংঘাত
.............................................................................................
মেজর মঞ্জুর হত্যায় এরশাদকে অব্যাহতি দিয়ে সিআইডির অভিযোপত্র দায়ের
.............................................................................................
খোকনের বিরুদ্ধে মামলায় আমার সম্পৃক্ততা নেই, এ নিয়ে আর মন্তব্য নয় : তাপস
.............................................................................................
আল্লামা শফী হত্যার তদন্তে নেমেছে পিবিআই
.............................................................................................
দিহানের বাসার সিসিটিভি ফুটেজে আনুশকাহ দেড় ঘন্টা ছিলেন
.............................................................................................
তাপসের মান সম্মানের বাজারমূল্য রাজপথে হিসাব হবে: সাঈদ খোকন
.............................................................................................
সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে মেয়র তাপসের ২ মামলা
.............................................................................................
চির নিদ্রায় শায়িত প্রাইম ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ও নাহিম রাজ্জাকের শ্বশুর
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু ম্যারাথনে দৌড়ালো ২০০ জন অ্যাথলেট
.............................................................................................
সাঈদ খোকনের বক্তব্যে মেয়র তাপসের পাল্টা জবাব
.............................................................................................
এক বছরে ধর্ষণের শিকার ৬২৬ শিশু
.............................................................................................
৩ তরুণকে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ
.............................................................................................
ডিসিসির শত শত কোটি টাকা তার মধুমতি ব্যাংকে
.............................................................................................
শাহ মখদুমে দুর্ঘটনার কবলে উড়োজাহাজ : আহত ২
.............................................................................................
পত্রপত্রিকায় পুলিশের নিষ্ঠুরতার খবর দেখতে চাই না
.............................................................................................
অতিরিক্ত রক্তক্ষরণেই আনুশকাহর মৃত্যু : ময়নাতদন্ত রিপোর্ট
.............................................................................................
আনুশকাহ ধর্ষণ-হত্যা: আদালতে দিহানের স্বীকারোক্তি
.............................................................................................
এমপি নাহিম রাজ্জাকের শ্বশুরের মৃত্যু
.............................................................................................
দুই মামলায় হাজী সেলিমপুত্র ইরফানের জামিন
.............................................................................................
বার বার প্রকল্প মেয়াদ বাড়ানোয় ক্ষুব্ধ প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
রাজউকের সাবেক পরিচালক ও বিআরটিএ সচিব করোনায় মৃত্যু
.............................................................................................
পিকে হালদারের সহকারী শংখ ব্যাপারী রিমান্ডে
.............................................................................................
জাতীয় সমাজসেবা দিবস পালিত
.............................................................................................
বীর মুক্তিযোদ্ধা আয়েশা খানম আর নেই
.............................................................................................
ভাসানচরে পৌঁছলো রোহিঙ্গা বহর
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রী দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন: পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম
.............................................................................................
করোনারুদ্ধ পরিবেশে বড়দিন উদযাপনের আনন্দ ম্লান
.............................................................................................
জাতীয় নেতা আব্দুর রাজ্জাকের সমাধীতে নেতাকর্মীদের শ্রদ্ধা
.............................................................................................
প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের সহায়তায় ৫০ লাখ টাকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
আ.লীগ নেতা আব্দুর রাজ্জাকের ৯ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ
.............................................................................................
আসামে বিজিবি-বিএসএফ ডিজি পর্যায়ের সীমান্ত সম্মেলন শুরু
.............................................................................................
দুদকের রিমান্ডে পাপিয়া দম্পতি
.............................................................................................
থার্টি ফার্স্টে কোনো ডিজে পার্টি করা যাবে না, বার বন্ধ থাকবে
.............................................................................................
জুনের মধ্যে আরও ৬ কোটি ডোজ করোনার টিকা
.............................................................................................
ইসি’র বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপতির কাছে অভিযোগ উদ্দেশ্য প্রণোদিত
.............................................................................................
মাদক নিয়ে গ্রেফতার উপসচিব নূরুজ্জামান জেলহাজতে
.............................................................................................
বাস-ট্রেনের সংঘর্ষে নিহত ১২
.............................................................................................
ই-ফাইল চালুর উদ্যোগ সরকারি সকল দফতরে
.............................................................................................
এসটিআই আন্তর্জাতিক সম্মেলন গ্রিণ ইউনিভার্সিটিতে আজ শুরু
.............................................................................................
বাংলাদেশেই করোনার ভ্যাকসিন উৎপাদন করা হবে: ডিজি, ওষুধ প্রশাসন
.............................................................................................
বাঘা যতিনের ভাস্কর্য ভাঙচুর, ৪ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন
বাণিজ্যিক কার্যালয় : "রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্লেক্স"
(৬ষ্ঠ তলা), ২৮/১ সি, টয়েনবি সার্কুলার রোড,
মতিঝিল বা/এ ঢাকা-১০০০| জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা
ফোন নাম্বার : ০২-৪৭১২০৮০৫/৬, ০২-৯৫৮৭৮৫০
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, 01731800427
E-mail: dailyganomukti@gmail.com
Website : http://www.dailyganomukti.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop