| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > ভালুকায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত   > বান্দরবানে আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত   > ভারত-বাংলাদেশ চিত্র প্রদর্শনীতে বিপুল দর্শনার্থীর সমাগম   > যোগ্য পিতার যোগ্য সন্তান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সোহেল এম কম   > কাশ্মীর নিয়ে সর্বাত্মক যুদ্ধ শুরু হতে পারে : ইমরানের হুঁশিয়ারি   > তুরস্কে শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২১,আহত ১০০০   > সড়ক নিরাপত্তায় নারীদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে ব্র্যাক   > শুধুমাত্র অবকাঠামোগত উন্নয়ন দিয়ে ভালো স্কুল হয় না : তথ্যমন্ত্রী   > ইরানের হামলায় মার্কিন সেনাদের মস্তিষ্কে আঘাত   > খেলাধূলার মাধ্যমে যোগ্য নাগরিক গড়ে তুলতে চাই : প্রধানমন্ত্রী  

   খুলনা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতি নির্বাচন পালিত

বাগেরহাট ব্যুরো : বাগেরহাটে বাংলাদেশ অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতি বাগেরহাট জেলার শাখার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার সকাল ১১ থেকে সন্ধা ৬টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে ভোট গ্রহণ চলে।

ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠানে জেলার সকল উপজেলার অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী সমিতির সদস্যবৃন্দ অংশগ্রহণ করে।

১৭ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটিতে সাবেক ফরেষ্ট রেঞ্জ কর্মকর্তা গাজী মতিয়ার রহমান আনারস প্রতীকে ১৪৬ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

অপরদিকে বাগেরহাট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক এসএম শহিদুল্লাহ ছাতা প্রতীকে ১৩৬ ভোট পেয়ে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সাবেক প্রধান শিক্ষক (প্রাঃ বিঃ) মোঃ উমায়ুন কবির, সাবেক উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শেখ কামাল উদ্দিন,

যুগ্ম সাধারণ সাবেক প্রধান শিক্ষক (প্রাঃ বিঃ)সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ সাবেক প্রধান শিক্ষক (প্রাঃ বিঃ) সির্মল কান্তি সোম,

যুগ্ম কোষাধ্যক্ষ দেলদার মোঃ শহিদ হোসেন, সদস্য মোল্লা আঃ মালেক, আঃ রাজ্জাক, মোঃ আবুল বাসার খান,ফরিদা ইয়াসমিন,এস এম শহিদুল ইসলাম,

খান হাবিবুর রহমান, মোঃ আক্কেল আলী, মোঃ মোজাফ্ফর হোসেন, মোঃ সাফায়াত আলী,শেখ মোঃ মোহর আলী।

অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতি নির্বাচন পালিত
                                  

বাগেরহাট ব্যুরো : বাগেরহাটে বাংলাদেশ অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতি বাগেরহাট জেলার শাখার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার সকাল ১১ থেকে সন্ধা ৬টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে ভোট গ্রহণ চলে।

ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠানে জেলার সকল উপজেলার অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী সমিতির সদস্যবৃন্দ অংশগ্রহণ করে।

১৭ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটিতে সাবেক ফরেষ্ট রেঞ্জ কর্মকর্তা গাজী মতিয়ার রহমান আনারস প্রতীকে ১৪৬ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

অপরদিকে বাগেরহাট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক এসএম শহিদুল্লাহ ছাতা প্রতীকে ১৩৬ ভোট পেয়ে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সাবেক প্রধান শিক্ষক (প্রাঃ বিঃ) মোঃ উমায়ুন কবির, সাবেক উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শেখ কামাল উদ্দিন,

যুগ্ম সাধারণ সাবেক প্রধান শিক্ষক (প্রাঃ বিঃ)সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ সাবেক প্রধান শিক্ষক (প্রাঃ বিঃ) সির্মল কান্তি সোম,

যুগ্ম কোষাধ্যক্ষ দেলদার মোঃ শহিদ হোসেন, সদস্য মোল্লা আঃ মালেক, আঃ রাজ্জাক, মোঃ আবুল বাসার খান,ফরিদা ইয়াসমিন,এস এম শহিদুল ইসলাম,

খান হাবিবুর রহমান, মোঃ আক্কেল আলী, মোঃ মোজাফ্ফর হোসেন, মোঃ সাফায়াত আলী,শেখ মোঃ মোহর আলী।

বাগেরহাটে সড়ক দূর্ঘটনায় যুবদল নেতা নিহত
                                  

বাগেরহাট ব্যুরো : বাগেরহাটে সড়ক দূর্ঘটনায় জেলা যুবদলের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রকিবুল ইসলাম রকিব (৩৭) নিহত হয়েছেন।

গতকাল সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেলে মোটরসাইকেল যোগে মোংলা থেকে বাগেরহাটে আসার পথে খুলনা-মোংলা মহাসড়কের দিগরাজ বাজার এলাকায় পৌছালে একটি ট্রাকের ধাক্কায় সে গুরুত্বর আহত হয়।

স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মোংলা বন্দর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

নিহত রকিবুল ইসলাম রকিব বাগেরহাট জেলা যুবদলের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক এবং শহরের হরিণখানা এলাকার নুরুল হকের ছেলে।

মোংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, দিগরাজ এলাকায় সড়ক দূর্ঘটনায় রকিব (৩৭) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

আইনি প্রক্রিয়া শেষে নিহতের মরদেহ সজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

বাগেরহাট জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুজা উদ্দিন মোল্লা সুজন বলেন, রকিবুল ইসলাম রকিব মোংলায় ব্যবসা করতেন।

বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দূর্ঘটনায় তার অকাল মৃত্যু হয়। তার এই মৃত্যুতে আমরা একজন দক্ষ সাংগঠনিক কর্মীকে হারালাম। আমরা তার রুহের মাগফেরাত কামনা করি।

এদিকে যুবদল নেতার মৃত্যুতে জেলা বিএনপির আহবায়ক এটিএম আকরাম হোসেন তালিম ও সদস্য সচিব মোজাফফর রহমান আলমসহ দলীয় নেতাকর্মীরা শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

খুলনার বটিয়াঘাটায় গোপাল বিড়ি ফ্যাক্টরীতে অপ্রাপ্তদের শ্রম দেওয়ার অভিযোগ
                                  

খুলনা সংবাদদাতা : খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা থানার নারায়নপুর গ্রামের গোপাল বিড়ি ফ্যাক্টরীতে শ্রম আইন বহির্ভূত অপ্রাপ্ত বয়স্কদের শ্রম দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় এলাকার সচেতন নাগরিক সমাজের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে উৎকন্ঠা ও উদ্বেগ বিরাজ করছে।

অবিলম্বে এই বেআইনী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ের মাননীয় মন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপের দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

ব্যাপক তথ্য অনুসন্ধানের ভিত্তিতে সরেজমিনে জানা যায় বটিয়াঘাটা থানার নারায়নপুর গ্রামের লোকালয়ে দীর্ঘ অর্ধ শতাধিক বছরের অধিক সময় ধরে তামাকজাত পন্য উৎপাদনের কারখানা গোপাল বিড়ি ফ্যাক্টরীতে ঐ প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শ্রীমন্ত অধিকারী রাহুল বাবুর প্রভাবে পোপাল বিড়ি ফ্যাক্টরীতে অপ্রাপ্ত বয়স্ক শিশু কিশোর কিশোরীদের শ্রমিক হিসাবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

গ্রামীণ হত দরিদ্র পরিবারের অর্থনৈতিক সংকটকে হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার করে নির্ধারিত দৈনিক মজুরীর ৫ গুন কম পারিশ্রমিক দেওয়া হচ্ছে বলে ভুক্তভোগী শিশু শ্রমিকদের কাছ থেকে জানা গেছে।

বিজ্ঞ মহল মনে করেন, তামাক বিরোধী অভিযানে বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী গনমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যাপক প্রচার প্রচারনা চালানো সত্বেও গোপাল বিড়ি ফ্যাক্টরী বিড়ি উৎপাদন অব্যাহত রেখেছে।

বিড়ি সিগারেট স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এবং লিভার সিরোসিস, ক্যান্সার ইত্যাদির মরণ ব্যাধিতে আক্রান্ত হচ্ছে বিড়ি সিগারেটের তামাক সেবন করে।

আরও অভিযোগ রয়েছে ফ্যাক্টরীর শ্রমিকদের স্বাস্থ্য রক্ষার্থে বিষাক্ত তামাকের গ্যাস থেকে রক্ষা পেতে পৃথক ইউনিফর্ম বা বিশেষ ধরনের নিরাপদ পোষাকের ব্যবস্থা নেই।

ফলে শিশুরা জানা অজানা অনেক রোগ লালন করে জীবন বাচানোর তাগিদে দিনরাত এই কারখানাতে পরিশ্রম করে চলছে।

অবিলম্বে কারখানা বন্ধের দাবি জানিয়েছে এলাকার সচেতন নাগরিক সমাজ।

বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে খ্রীষ্টান মিশন
                                  

ইমদাদুল হক,পাইকগাছা (খুলনা) : পাইকগাছায় ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে উদযাপিত হতে যাচ্ছে খ্রীষ্টান সম্প্রদায়ের বড় দিন।

এ উপলক্ষে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে ক্যাথলিক মিশনগুলো। আয়োজন করা হয়েছে ৬ দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি।

মিশন গুলোতে সরকারের পক্ষ থেকে সহায়তা প্রদান করেছেন উপজেলা প্রশাসন। ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে বলে খ্রীষ্টান এ্যাসোসিয়শনের নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন।

সূত্রমতে, সারাদেশের ন্যায় আজ ২৫ ডিসেম্বর অত্র উপজেলায় উদযাপিত হচ্ছে খ্রীষ্টান ধর্মালম্বীদের বড় দিন।

প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও খ্রীষ্টান মিশন গুলোতে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। পৌর সদর সহ উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে এ বছর ২৮টি মিশনে বড় দিন উদযাপিত হচ্ছে।

বড় দিন উৎসব মুখর করতে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে প্রতিটি খ্রীষ্টান মিশন। মিশনের প্রবেশদ্বার ও সামনের সড়কে নির্মাণ করা হয়েছে বিশাল বিশাল গেট।

মিশন অভ্যান্তরে স্থাপন করা হয়েছে বড় বড় প্যান্ডেল। আলোক সজ্জায় সজ্জিত করা হয়েছে গোটা মিশন এলাকা। প্রতিটি বাড়ীর সামনে বিভিন্ন ডিজাইনের আল্পনার অংকন করা হয়েছে। পাইকগাছা কেন্দ্রীয় ক্যাথলিক খ্রীষ্টান মিশনের সভাপতি আগষ্টিন সরকার জানান, কেন্দ্রীয় মিশনে সব ধরণের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

বড় দিন উপলক্ষে ৬ দিনব্যাপী কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। যার মধ্য গতকাল মঙ্গলবার রাতে ধর্মীয় উপাসনা, কেক কাটা ও শোভাযাত্রা।

আজ বুধবার খেলাধূলা, পুরুষ্কার বিতরণ ও বিচিত্রানুষ্ঠান, বৃহস্পতিবার যাত্রাপালা, শুক্রবার সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠান, শনিবার যাত্রাপালা ও রোববার হ্যাপি কনসার্ট।

প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও বড় দিন উৎসবমূখর পরিবেশে উদযাপিত হবে বলে পাইকগাছা-কয়রা খ্রীষ্টান এ্যাসোসিয়শনের সভাপতি আন্দ্রীয় ডি-রোজারিও জানান।

খ্রীষ্টান সম্প্রদায়ের বড় দিন উৎসব মূখর করতে সরকার ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হচ্ছে উল্লেখ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুলিয়া সুকায়না জানান, এ বছর উপজেলায় ২৮টি স্থানে বড় দিন উদযাপন হচ্ছে।

এসব মিশন গুলোতে সরকারের পক্ষ থেকে ১৪ মেট্রিকটন খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

 

মোংলায় সবজী উৎপাদনে ঝুকছে কৃষক
                                  

মোংলা প্রতিনিধি : মোংলায় উপকুলীয় এলাকার সুবিধাবঞ্চিত জনগনের জীবনমান উন্নয়নে দীর্ঘদিন কাজ করে যাচ্ছে বেসরকারী উন্নয়নমূলক সংস্থা ‘বিএএসডি’।

সংস্থাটি মোংলা উপজেলার শহাস্রাধিক নারীদের বিভিন্নভাবে প্রশিক্ষন দিয়ে সাবলম্বী করেছেন।

এরই মধ্যে উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নের ২৪০জন নারীদের পরিবেশ বান্ধব রাসয়রিক সারের বিপরীতে জৈব সার উৎপাদনে প্রশিক্ষন ও সবজির বীজ বিতরন ছাড়াও সবজী ও ফলজ গাছের বাগান করে দিয়েছে ওই সংস্থাটি।

পুতুল মল্লিক, তাপস মল্লিক, সুচিত্রা গাইন, তাপসী গাইন, অরুন মন্ডল, গৌরী বিশ্বাস, সন্ধা বিশ্বাস, আল্পনা মন্ডল, সুচিত্রা রায় গায়ত্রি রায়, কানন মল্লিকসহ আরো অনেকে জানান, মোংলা উপজেলায় উন্নয়ন মূলক সংস্থা ‘বিএএসডি’ এর সহযোগিতায় তাদের ভাগ্য ফিরেছে।

তাদের কাছ থেকে প্রশিক্ষন নিয়ে এবং তাদের হাতে তৈরী জৈব সার দিয়ে উৎপাদিত কিটনাশক মুক্ত সবজী বাইরে থেকে আনা সবজীর স্বাদের চেয়ে অনেক ভাল, যা বাজারে ক্রেতাদের অভিমত।

এছাড়া ‘বিএএসডি’র দেওয়া প্রশিক্ষন নিয়ে সবজি ও ফলজ বীজ রোপন করে লবনাক্ত মাটিতে অনেক ফলনে কারনে তা বিক্রি করে জীবিকা চালাচ্ছেন তারা।

উন্নয়নমূলক সংস্থা “বিএএসডি”র প্রকল্প ব্যাবস্তাপক এ্যাডওয়ার্ড এ মধু জানান, সমাজে পিছিয়ে পড়া মানুষদের সাবলম্বী করতে তারা সব সময় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

যেসব বাড়ীতে খালী জায়গা পরে আছে এবং ওই সকল বাড়ীর নারীদের প্রশিক্ষন দিয়ে বিভিন্ন সবজীর বীজ বিতারণ করা হয়েছে, তা দিয়ে তাদের আয় রোজগারের মাধ্যমে অর্থনৈতিক উন্নয়ন, সম্পদবৃদ্ধি এবং সংসারে সচ্ছলতা ফিড়িয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে।

পৌরসভা, চিলা ও চাদঁপাই ইউনিয়নের শতাধিক পরিবার পরিবেশ ও স্বাস্থ্য বান্ধব প্রক্রিয়ায় সবজী চাষ করছে এবং ২২টি প্রদশনী জৈব সবজী চাষের বাগান রয়েছে।

তাই রাসয়নিক সার ও কীটনাশক ব্যাবহারে কমাও, জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশ বাচাও এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে কৃষি কাজে রাসয়নিক সার ও কীটনাশক ব্যাবহার, জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশর ক্ষেত্রে মারাত্নক হুমকি” বিষয়ক এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল সোমবার সকাল ১১টায় নিজেস্ব কার্যলয় প্রকল্প ব্যাবস্তাপক এ্যাডওয়ার্ড এ মধুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রাহাত মান্নান।

বিশেষ অতিথি চিলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গাজী আকবার হোসেন। এছাড়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা অনিমেষ বালা, প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা ওয়াসিম আকরাম, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার কমলেস শাহা, মৎস্য কর্মকর্তা তৈহিদুল ইসলাম, সমবায় কর্মকর্তা, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাসহ এলাকার শতাধকি কৃষক, নারী নেতৃরা ও সংস্থাটির গঠিত বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় তাদের পরিবেশ বান্ধব কীটনাশক মুক্ত ফলজ ও সবজী চাষে এ সাফল্লের কথা শুনে বভিস্যতে তাদের পাসে থেকে সহযোগিতা করার অঙ্গিকার করেন উপজেলা কর্মকর্তা ও এনজিও প্রতিনিধিরা।

পাইকগাছার রাড়ুলী আল-হেরা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসার বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল ও পুরস্কার বিতরন
                                  

ইমদাদুল হক,পাইকগাছা,(খুলনা) : পাইকগাছার রাড়ুলী আল-হেরা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসার বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান শনিবার সকালে মাদরাসা চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়।

মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি আলহাজ্ব ডাঃ মুহাম্মদ কওসার আলী গাজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগনেতা আরশাদ আলী বিশ্বাস।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন, প্রধান শিক্ষক মাহবুবা উম্মে নুরজাহান। বিশেষ অতিথি ছিলেন, আলহাজ্ব ডাঃ জিনাত গুলশান, ডাঃ শামছুর রহমান গাজী, মাস্টার শেখ তফিল উদ্দীন, হাফিজুর রহমান, সরদার কামাল উদ্দীন, অসীম কুমার দাস, ময়েজ উদ্দীন গাজী, এসএম শহীদুল ইসলাম, মাওঃ ক্বারী মনিরুল ইসলাম।

বক্তব্য রাখেন, শিক্ষক ফারুক হুসাইন, সালমা খাতুন, কামাল হোসেন, হাবিবুর রহমান, আবু মুসা, ক্বারী হাবিবুর রহমান, আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত হাফেজ গাজী আব্দুল্লাহ ও শিক্ষার্থী সুরাইয়া খাতুন। অনুষ্ঠানে বার্ষিক পরীক্ষার মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

দাকোপ উপজেলায় বেগম রোকেয়া দিবস
                                  

দেবাশীষ বাইন, দাকোপ, খুলনা ঃ “আমেরিকান সরকারের আন্তজার্তিক উন্নয়নসংস্থা (ইউএসএআইডি) এরফুড ফর পিস (টাইটেল-২) খাদ্য সহায়তা কার্যক্রমের অর্থায়নে‘নবযাত্রা’একটি পাঁচবছর মেয়াদী প্রকল্প; যা ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বওে শুরু হয়েছে এবং ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে শেষ হবে।

ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ এর নেতৃত্বে নবযাত্রা প্রকল্প অংশীদারিত্বেও ভিত্তিতে ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রাম, উননরক ইন্টারন্যাশনাল এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় বাস্তবায়িত হচ্ছে।

প্রকল্পটি বাংলাদেশের দক্ষিণ পশ্চিম উপকূলীয় সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ ও শ্যামনগর এবং খুলনা জেলার দাকোপ ও কয়রা উপজেলার ৮,৫৬,১১৬ জনউপকারভোগীরজন্য বাস্তবায়িত হচ্ছে। স্থানীয় বেসরকারিসংস্থা (এনজিও)সুশীলন নবযাত্রা কর্মসূচীর সুশাসন, জেন্ডার, এবং গ্র্যাজুয়েশন কার্যক্রমের সঞ্চয়ী দল সম্পর্কিত কার্যাবলী বাস্তবায়ন করছে।

গতকাল সোমবার (০৯/১২/১৯)সকাল ১০.১০ ঘটিকার সময় দাকোপ উপজেলায় আনÍর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস -২০১৯ উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানটি আয়োজন করেন উপজেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, সহযোগীতায় ইউএসএআইডি অর্থায়নে নবযাত্রা প্রকল্প।

উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন জনাব মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ , উপজেলা নির্বাহী অফিসার দাকোপ, খুলনা এবং উপজেলা প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকতাগন, সাংবাদিক ও সুশীল সমাজ সভায় উপস্থিত ছিলেন ।

আরও উপস্থিত ছিলেন নবযাত্রা প্রকল্পের ফিল্ড অফিস ম্যানেজার জনাব মো. মাহাবুবর রহমান, জেন্ডার অফিসার নাসরিন মনোয়ারা, টিও-জেন্ডার শুক্লা গোলদার ও অর্গানাইজারগন। সুরাইয়া সিদ্দিকা এর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন শচীন মন্ডল, সভাপতি, প্রেস ক্লাব, দাকোপ, খুলনা।

তিনি বলেন , আমাদের প্রত্যেকে জয়িতা হিসেবে নিজেকে তৈরী করতে হবে এবং দেশের ও সমাজের উন্নয়ন অংশগ্যহন করতে হবে। উক্ত অনুষ্ঠানে চারজন নারীকে তাদের সফলতার জন্য সম্মাননা দেওয়া হয় ।

সভাপতি বলেন,নারীরা কিভাবে পথ চলবে? কিভাবে পুরুষের সাথে তাল মিলিয়ে চলবে? এ সমস্ত জ্ঞান তিনি নারীদেরকে দেন এবং তাদেরকে ঘরে বসে না থাকার অনুপ্রেরনা প্রদান করেন।

আজ তারই অনুপ্রেরনায় নারীরা বিভিন্ন কার্যক্রমের সাথে জরিত হচ্ছেন।ক্রেষ্ট বিতরনের মাধ্যমে সভাপতি সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্ত ঘোষনা করেন।

 

 

 

খুলনা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন নেতা বিরুদ্ধে অভিযোগ
                                  

খুলনা প্রতিনিধি : খুলনা বিভাগীয় ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি আবুল হোসেন কার্ফুর বিরুদ্ধে সংগঠনের প্রায় দুই কোটি টাকা  লোপাট ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। 

সড়ক দূর্ঘটনায় আহত, পঙ্গু ও মৃত শ্রমিকদের নামে টাকা তুলে আত্নসাত করেছেন তিনি। এছাড়া খুলনার রেলীগেট জয়েন্ট ট্রান্সপোট শাখার বিল ভাউচার ছাড়া দৌলতপুরের বিভিন্ন কোম্পানীর কাছ থেকে অর্থ উত্তোলন করেছেন তিনি।

এভাবে ক্ষমতার অপব্যবহার করে গত ৪ বছরে ১ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা আত্মসাত করেছেন তিনি।

সড়ক দূর্ঘটনায় আহত, পঙ্গু ও মৃত শ্রমিক কল্যান সমিতির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় এসব অভিযোগ করেন শ্রমিক ইউনিয়নের নেতারা।

সমিতির নিজস্ব কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি মোঃ কবীর হাওলাদার। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন ফেরদাউস রহমান। 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ইউনিয়নের কয়েকজন সাধারন শ্রমিক বলেন, কার্ফুর শুধুমাত্র পৈত্রিকসূত্রে পাওয়া ছোট একটা একতলা বাড়ী ছাড়া উলেখযোগ্য কোন সম্পত্তি ছিল না। ক্ষমতার দাপটে কবরস্থানের জায়গা দখল করে সেখানে দোকানঘর তোলা থেকে শুরু করে রেল ও সড়ক বিভাগের জায়গা দখল করে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মান করে ভাড়া দিয়েছেন তিনি।

এভাবে ৪টি ট্রাক, ১টি স্কেভেটর, ১টি বালুর ডাম্প ট্রাক, রেলীগেট বাজারে ২টি দোকান এবং নামে-বেনামে কোটি কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক বনে গেছেন তিনি। 

সাধারণ শ্রমিকেরা আরো জানান, সুকৌশলে আবুল হোসেন কার্ফু তার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ ধামাচাপা দেয়ার জন্য মিথ্যা অসুস্থ্যতার অজুহাতে মিরেরডাঙ্গা বক্ষব্যাধি হাসপাতালে ভর্তি দেখিয়ে পার পাবার চেস্টা করছেন।

এছাড়া তার পালিত সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে।  গত ১৬ সেপ্টেম্বর রেলীগেট জয়েন্ট ট্রান্সপোট শাখা থেকে চিঠির মাধ্যমে খুলনা বিভাগীয় ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের নের্র্তৃবৃন্দকে জানানো হয় ১ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা ইউনিয়নের সহ-সভাপতি আবুল হোসেন কার্ফু আত্নসাৎ করে।

খুলনা বিভাগীয় ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজিঃ নং-৬২২) ১৬ অক্টোবর জরুরী সভায় কার্ফুকে ৪৫ দিনের সাময়িক বরখাস্ত করা সিদ্ধান্ত নেয়।

নোটিশ প্রেরন করে উক্ত টাকা ইউনিয়নে ফেরত দেয়ার জন্য সহ-সভাপতি আবুল হোসেন কার্ফু জানানো হয়। তাকে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘর করার দাবী গুারুদাসীর বাড়ি
                                  

ইমদাদুল,হক পাইকগাছা (খুলনা) : খুলনার পাইকগাছায় ১৯৭১’র বীরঙ্গনা গুরদাসীর বাড়ীটি দীর্ঘ দিন যাবৎ অরক্ষিত অবস্থায় পড়ে রয়েছে।
বাড়িটি সংরক্ষণের অভাবে বখাটেরা তাদের আস্তানা হিসেবে ব্যবহার করছে।
মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের বাড়িটি সংরক্ষণের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।
সূত্র জানায়, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকবাহিনী গুরুদাসীর উপর নির্মম নির্য়াতন চালায় এবং তার চোখের সামনে স্বামী, পুত্র ও কন্যাকে হত্যা করে।
স্বামী গুরুপদ মন্ডল ছিলেন পেশায় একজন দর্জী। স্বাধীনতা কামী অত্যান্ত সহজ সরল মানুষ ছিলেন তিনি, তার স্ত্রীর উপর পাকবাহিনীদের নির্মম অত্যাচার বাঁধা দিলে তাকে এবং তার দুই পুত্র ও বড় কন্যাকে গুলি করে হত্যা করে তারা।
গুরুদাসীর ছোট মেয়ে যখন মায়ের কোলে দুধ খাচ্ছিল তখন পাকদৌসরা ছিনিয়ে নিয়ে কাঁদা মাটিতে পুতে মারে। গুরুদাসী অতি সুন্দরী হওয়ায় পাকদৌসরা তার নিজ বাড়ীতে আটকে রেখে নির্যাতন চালাচ্ছিল।
স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা এ খবর টের পেয়ে তাকে উদ্ধার করেন।
কিন্তু তত ক্ষণ তিনি মানষিক ভার সাম্য হারিয়ে ফেলেন।
উপজেলার দেলুটি ইউনিয়নে স্বামী, পুত্র ও কন্যা মিলে ছিল তাদের সুখের পরিবার।
গুরুদাসী ছিলেন দু’পুত্র ও দু’কন্যা সন্তানের জননী। পাকদৌসদের লালসার শিকার গুরুদাসীকে ঐ সময় উদ্ধার করে মুক্তিযোদ্ধারা তাদের কাছেই রাখেন।
দেশ স্বাধীন হলে মানসিক ভারসাম্যহীন গুরদাসীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাবনার মেন্টাল হাসপাতালে ভর্তি করে দিলেও সেখান থেকে চলে আসেন তিনি।
বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে অবশেষে পাইকগাছার কপিলমুনিতে আসেন।
উপজেলা তথা দেশের অধিকাংশ অঞ্চল মানুষের কাছে তিনি ছিলেন প্রিয় মাসী।
ভিক্ষাই ছিল তার জীবন জীবিকা নির্বাহের একমাত্র অবলম্বন।
সারাদিন বিভিন্ন জায়গায় লাঠি হাতে মানুষকে ভয় দেখানো, হাত পেতে দু’টা টাকা চাওয়া এই মানুষটিকে মত্যুর আগে চিনতো না এমন মানুষ খুব কম ছিল। শুধু উপজেলায় নয় দেশে বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ তাকে চিনতেন।
কারন তিনি এক দন্ড কোথাও বসতেন না। শুধু ছুটে বেড়াতেন বিভিন্ন অঞ্চলে।
পাগল এই মানুষটি একটি কথা বেশি বলতেন “কবে তার স্বামী, সন্তাানদের হত্যাকারীদের বিচার হবে”?
তার নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য তৎকালীন উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট স, ম, বাবর আলী এবং নির্বাহী কর্মকর্তা (সাবেক সমবায় মন্ত্রণালয়ের সচিব) মিহির কান্তি মজুমদার স্থানীয় কপিলমুনিতে সরকারী জায়গায় তার বসবাসের জন্য একটি বাড়ী তৈরী করে মাথা গোজার ঠাই করে দেন।
বীরঙ্গনা গুরুদাসী মানবেতার জীবন যাপন করতে করতে ২০০৮ সালের ৮ ডিসেম্বর এ বাড়ীতেই মত্যু বরণ করেন।
তার মত্যুর খবর শুনে সে সময় ছুট আসেন এ অঞ্চলের মুক্তিযাদ্ধা, প্রশাসন সহ সর্ব স্তরের মানুষ।
সরকারী তালিকায় তার নাম না থাকায় সাধারণ মানুষের মত শেষকৃত্য অনুষ্ঠান করা হয়।
তার বসবাসের বাড়ীটি এখন রাত-দিন নেশাখোর ও অসামাজিক লোকদের আড্ডা স্থল হয়েছে।
তার শেষ কৃত্য অনুষ্ঠানে গঠন করা হয়ছিল বীরঙ্গনা গুরুদাসী স্মতি সংরক্ষণ পরিষদ।
ঐ সময় নেতৃবৃন্দ তার বসবাসের বাড়ীটি স্মৃতি যাদুঘর ও পাঠাগার তৈরীর ঘোষণা দেন।
আজও অবধি তার কোন বাস্তবায়ন হয়নি। অযত্নে আর অবহেলায় পড়ে আছে গুরুদাসী মাসির স্মৃতি বিজড়িত বাড়ীটি।
স্থানীয় কয়েকজন জানান, একটি কূচক্রীমহল গুরুদাসীর বাড়ীটি দখলের পায়তারা চালাচ্ছে।
বাড়ীটি সংরক্ষণের ব্যাপারে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট স.ম. বাবর আলী বলেন, গুরুদাসীর বাড়িটি লাইব্রেরী করার পরিকল্পনা ছিল।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অফিসার জুলিয়া সুকায়ানা বলেন, গুরুদাসীর স্মৃতি বিজড়িত বাড়িটি মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘর করার পরিকল্পনা রয়েছে।
মুক্তিযুদ্ধ চেতনাকে উদ্বুদ্ধ করতে বীরঙ্গনা গুরুদাসীর বাড়িটি সংরক্ষণ ও যাদুঘর করার দাবী জানিয়েছেন পাইকগাছাবাসী।

মোংলায় ন্যাচারাল হেলথ্ কেয়ার সেন্টারের উদ্বোধন
                                  

মনির হোসেন, মোংলা প্রতিনিধি ঃ মোংলায় ইউনানী চিকিৎসালয় ন্যাচারাল হেলথ্ কেয়ার সেন্টারের উদ্বোধন করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার সকাল ১১ মোংলার সিদ্দিক সুপার মার্কেট চত্বরে আয়োজিত বর্নাঢ্য অনুষ্ঠানের মধ্যেদিয়ে প্রতিষ্ঠানটির উদ্বোধন করেন খুলনা ইউনানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ হাকীম নৃপেন্দ্রনাথ বৈরাগী।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মোংলা পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ আব্দুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. ইস্রাফিল হাওলাদার, আওয়ামীলীগ নেতা উৎপল মন্ডল, প্রীতিশ চন্দ্র হালদার,কাজী গোলাম হোসেন বাবলু, আইয়ুব আলী শেখ, হাকীম মো. শরিফুল ইসলাম,হাকীম বাকওয়ালী মোল্লা, হাকীম কৃষ্ণপদ গায়েন, হাকীম, সাংবাদিক শেখ আসাদুজ্জামান দুলাল, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক সজীব খান, বণিক সমিতির সভাপতি হাবিবুর রহমান মাস্টার, সুষ্মিতা মন্ডল,বৈশাখী মন্ডল, অনিক, বেল্লাল হোসেন, বাবু ফিলিপ¯ বিশ্বাস, শিশির কুমার মন্ডল প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ন্যাচারাল হেলথ্ কেয়ার সেন্টারের কর্ণধার হাকীম বিপ্লব সরদার।

 

মোংলায় শিক্ষানবীশ ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রক্রিয়া সহজীকরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন
                                  

মনির হোসেন, মোংলা প্রতিনিধি ঃ মোংলা থানা পুলিশের আয়োজনে শিক্ষানবীশ ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রক্রিয়া সহজীকরন কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে।

মোংলা থানার অফিসার্স ইনচার্জ ইকবাল বাহার চৌধুরীর সভাপতিত্বে আজ সোমবার (২ ডিসেম্বর) সকাল ১১ টায় থানা চত্বরে অনুষ্ঠিত ড্রাইভিং লাইসেন্স সহজীকরণ প্রক্রিয়া কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন বাগেরহাট পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায়, পিপিএম।
অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাহাত মান্নান, আওয়ামীলীগের সভাপতি সুনীল কুমার বিশ্বাস, সাধারন সম্পাদক ইব্রাহিম হোসেন, পৌর আওয়ামীলাগের সভাপতি শেখ আব্দুর রহমান, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান শেখ আব্দুস সালাম, মিঠাখালি ইউপি চেয়ারম্যান ইস্রাফিল হাওলাদার, চাঁদপাই ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা তারিকুল ইসলাম ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, সুশীল সমাজের ব্যক্তিবর্গ সহ তিন শতাধিক শিক্ষানবীশ চালক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।
ড্রাইভিং লাইসেন্স সহজীকরণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় পিপিএম বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে দক্ষ চালক তৈরী করতে এবং সড়ক দূর্ঘটনা রোধে সারাদেশে ড্রাইভিং লাইসেন্স সহজীকরণ প্রক্রিয়া কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে।

প্রত্যেক যানবাহনের কাগজপত্র থাকা বাধ্যতামূলক। সবাইকে সড়ক আইন মেনে চলতে হবে।

বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানো যাবেনা। তিনি আরো বলেন, সবাই সড়ক আইন চললে সড়ক দূর্ঘটনা রোধ করা সম্ভব হবে।

অনুষ্ঠানে পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ড ও ৬ টি ইউনিয়নের ৫ শতাধিক মোটর সাইকেল ও অন্যান্য যানবাহনের ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রাপ্তিতে মোংলা থানা পুলিশের পক্ষ সব ধরনের সহযোগিতা করা হয়।

 

খুলনায় মার্কেটের আগুনে পুড়ল ৩৫ দোকান
                                  

ডেস্ক রির্পোট :  খুলনা মহানগরের ফেরিঘাট মোড়ের একটি মার্কেটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৩৫টি দোকান পুড়ে গেছে।

আজ মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) ভোর ৬টার দিকে আগুনের সূত্রপাত হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আধাঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মূলত শীতের পোশাকের একটি দোকান থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। শীতের পোশাকের দোকানে আগুনের ধোঁয়া দেখা যায়। মুহূর্তেই তা পুরো মার্কেটে ছড়িয়ে পড়ে।

খুলনা ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক ইকবাল বাহার বুলবুল জানান, ভোরে ফেরিঘাট মোড়ের পুরোনো কাপড়ের দোকানে তারা আগুন লাগার খবর জানতে পারেন।

পরে খবর পেয়ে বয়রা ও টুটপাড়া স্টেশন থেকে ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিট ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।

তারা আধাঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে ৩৫টি দোকান পুড়ে গেছে। তবে কীভাবে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

মোংলা বন্দর ৪৮ ঘণ্টা পর সচল
                                  

বাগেরহাট প্রতিনিধি : ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের দুর্যোগ কেটে যাওয়ায় প্রায় ৪৮ ঘণ্টা পর সচল হয়েছে বাগেরহাটের মোংলা সমুদ্র বন্দর।
গতকাল  রোববার  সন্ধ্যায় সচল হয়েছে বন্দরটি। সন্ধ্যা থেকেই বন্দর জেটিতে শুরু হয়েছে দেশি বিদেশি বাণিজ্যিক জাহাজ আগমন-নির্গমন।
গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুল ধেয়ে আসায় আবহাওয়া বিভাগ মোংলা বন্দরে ৭ নম্বার বিপদ সংকেত জারি করে।

সঙ্গে সঙ্গে জাহাজ আগমন-নির্গমনসজ পণ্য বোঝাই ও খালাসের কাজ পুরোদমে বন্ধ করে দেয়া হয়।

গতকাল রোববার দুপুরে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের দুর্যোগ কেটে যাওয়াসহ আবহাওয়ার সংকেত ৩ নম্বরে নামিয়ে আনে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ।

আর বন্দরে অপারেশনাল কার্যক্রম সন্ধ্যা থেকে পুরোদমে শুরু হয়েছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন জানান, দুর্যোগ কেটে যাওয়ায় কমানো হয়েছে বিপৎ সংকেত।

সেই সঙ্গে বন্দরের পশুর চ্যানেল ও জেটিতে অবস্থানরত ১৪টি বিদেশি জাহাজে পণ্য ওঠা নামার কাজ শুরু হয়েছে।

মোংলা বন্দরে আরও সাতটি বিদেশি বাণিজ্যিক জাহাজও আসছে।

সুন্দরবনে হরিণ শিকারে ট্রলারসহ ৬০ জন আটক
                                  

বাগেরহাট প্রতিনিধি : সুন্দরবনে হরিণ শিকারের ফাঁদ ট্রলারসহ ৬০ জনকে আটক করেছে বনবিভাগ।

আজ মঙ্গলবার সকালে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের জয়মনি এলাকা দিয়ে বনবিভাগ তাদের আটক করে।

এই সব চোরা শিকারী আগামী ১০ নভেম্বর দুবলার আলোরকোলে শুরু হতে যাওয়া রাস মেলা উপলক্ষে হরিণ শিকারের উদ্দেশ্যে এই দলটি সুন্দরবনে প্রবেশ করছিল বলে বনবিভাগ দাবি করছে।

আটককৃতদের বনবিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জ কার্যালয়ে রাখা হয়েছে।
এদের সবার বাড়ি বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার গৌরম্ভা ইউনিয়নে।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. মাহমুদুল হাসান সকালে এই প্রতিবেদককে বলেন,আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়েটার দিকে একদল চোরা শিকারী হরিণ শিকারের ফাঁদ নিয়ে সুন্দরবনে যাচ্ছে এই গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে বনবিভাগের একটি দল চাঁদপাই রেঞ্জের জয়মনি এলাকায় যায়।

সেখানে গিয়ে তিনটি ট্রলারে ৬০ জনকে দেখতে পায় বনকর্মীরা। পরে বনকর্মীরা তাদের ট্রলারে তল্লাসি চালিয়ে হরিণ শিকারের ফাঁদ, ধারালো দা, কুড়ালসহ নানা সরঞ্জাম উদ্ধার করে।

আগামী ১০ নভেম্বর থেকে ১২ নভেম্বর পর্যন্ত সুন্দরবনের দুবলারচরের আলোরকোলে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের রাস উৎসব হবে।

এই সব চোরা শিকারী আগামী ১০ নভেম্বর দুবলার আলোরকোলে শুরু হতে যাওয়া রাস মেলা উপলক্ষে হরিণ শিকারের উদ্দেশ্যে এই দলটি সুন্দরবনে প্রবেশ করছিল বলে বনবিভাগ দাবি করেন ওই বনকর্মকর্তা।
তিনি আরও বলেন, এই চোরা শিকারীদের কাছে বনবিভাগের কোন পাশ পারমিট নেই। আগামী ১০ তারিখ থেকে সুন্দরবনের দুবলারচরে যাওয়া পূর্ণার্থী ও ভক্তদের সুন্দরবনে ঢোকার অনুমতি দেবে বনবিভাগ।

চোরা শিকারীদের সবার বাড়ি রামপাল উপজেলার গৌরম্ভা ইউনিয়নে হওয়ায় আমরা ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে খবর পাঠিয়েছি। তিনি এদের সনাক্ত করার পর তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সুন্দরবনের আলোর কোলে শুরু হচ্ছে তিনদিনের রাস উৎসব
                                  


মংলা প্রতিনিধি : সুন্দরবনেরদুবলার চরের আলোর কোলে আগামী রবিবার (১০ নভেম্বর) থেকে শুরু হচ্ছে শতবছরের ঐতিহ্যবাহী তিন দিনের রাস উৎসব ।

দেশি-বিদেশি পুণ্যার্থী, ভক্ত ওপযর্টকদের স্বাগত জানাতে প্রতি বছরের মতো এবারও আয়োজন করা হয়েছে বর্ণাঢ্যঅনুষ্ঠানের।

তিনদিনব্যাপী রাস উৎসব উপলক্ষ্যে ইতিমধ্যেই  সবধরনের প্রস্তুতিসম্পন্ন করেছে মেলা উদযাপন কমিটি।

এ উৎসবকে ঘিরে দুবলার চরের আলোর কোলেবসছে রাস মেলা। সুন্দরবনে প্রবেশে বন বিভাগ ৮টি রুট নির্ধারণ করেছে।

এসবরুট দিয়ে নৌকা,  ট্রলার, লঞ্চ ও অন্যান্য নৌযানযোগে পুণ্যার্থী ওদর্শনার্থীরা যাত্রা করতে পারবেন।

তবে এবার এই উৎসবের সময় বন্যপ্রাণীবাঁচাতে তিনদিন সুন্দরবনে সব ধরণের পাস-পারমিট বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে বনবিভাগ।

পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) এ তথ্যনিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, প্রায় দুই শত বছরের পুরনো এই ঐতিহাসিক রাসউৎসবকে ঘিরে বঙ্গোপসাগর উপকূলে এবার সুন্দরবন বিভাগের ১৮টি টহল টিমেরপাশাপাশি কোস্টগার্ড বাহিনী, র‌্যাব, নৌ-বাহিনী ও পুলিশ নিয়োজিত থাকবে।

এবার রাস মেলা উপলক্ষে তিনদিন সুন্দরবনে মাছ শিকারসহ সকল ধরনের পাশ পারমিটবন্ধ থাকবে।

হরিণসহ বন্য প্রাণী শিকার রোধে ভ্রাম্যমান টিমকে শক্তিশালী করাহয়েছে।

পুণ্যার্থী ও দর্শনার্থীরা কোন প্রকার মাংস, এমনকি ছাগল-মুরগীওসাথে নিয়ে সুন্দরবনে ঢুকতে পারবে না।

এবারই প্রথম অন্য ধর্মেরদর্শনার্থীদের রাস উৎসবে যোগ দিতে পর্যটকদের ন্যায় রাজস্ব প্রদান করতে হবে।

এবারসুন্দরবনের রাস উৎসবে যেতে ৮টি রুট নির্ধারন করাছে সুন্দরবন বিভাগ।

এই ৮টিরুট হচ্ছে, ঢাংমারী স্টেশন হয়ে পশুর নদী দিয়ে দুবলারচর, বগি-বলেশ্বর হয়েদুবলারচর, শরণখোলা স্টেশন হয়ে দুবলারচর, বুড়িগোয়ালিনী থেকে বাটুলানদী-বলনদী হয়ে দুবলারচর, কদমতলা থেকে ইছামতি নদী হয়ে দুবলারচর, কৈখালী স্টেশন হয়েআড়পাঙ্গাসিয়া হয়ে দুবলারচর, কয়রা শিবসা হয়ে দুবলারচর ও নালিয়ান স্টেশন হয়েশিবসা-মরজাত নদী দিয়ে দুবলারচর।
সুন্দরবনেররাস উৎসবের আয়োজকরা জানান, প্রতি বছর অগ্রহায়ণ মাসের ভরা পূর্ণিমায় সাগরপাড়ের দুবলার চরে অনুষ্ঠিত হয় তিন দিনব্যাপী রাস উৎসব।

এ উপলক্ষ্যে দেশেরবিভিন্ন স্থান ও প্রতিবেশী দেশসহ দেশি-বিদেশি লক্ষাধিক দর্শনার্থী এবংতীর্থ যাত্রীর ঢল নামে সুন্দরবনের দুবলারচরে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে, মোংলা কোস্টগার্ড বাহিনী পশ্চিম জোন`র গোয়েন্দাকর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বলেন, সুন্দরবনে রাস মেলারদর্শনার্থীদের নিরাপত্তায় অন্যান্য বাহিনীর সাথে সমন্বয় রেখে কাজ করবেকোস্টগার্ড বাহিনীর কয়েকটি টিম। পর্যটকদের নিরাপত্তা নির্বিঘ্ন করতেকোস্টগার্ডের জাহাজ নিয়মিত টহলে থাকবে।

 

ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত বৃষ্টি বাঁচতে চায়
                                  

মোংলা প্রতিনিধি : ছোট্ট মেয়ে বৃষ্টি। বয়স ৯ বছর। সারাক্ষণ হেসে খেলে সময় কেটে যেত তার।

বাবা-মায়ের অতি আদরের কন্যা বৃষ্টি মোংলার ইসমাইল বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বিতীয় শ্রেণীতে পড়াশোনা করত। বাবা দিনমজুর, তাই কোনভাবে টেনেটুনে চলে তাদের সংসার।

সেই বৃষ্টি নামের ছোট্ট মেয়েটি বর্তমানে অন্ধকার জীবনের মূখোমূখি দাঁড়িয়ে আছে। তার শরীরে বাসা বেঁধেছে ব্রেন টিউমার নামক দূরারোগ্য ব্যাধী।

এখন সেই হাসি খুশি মাখা বৃষ্টির মূখের দিকে তাকালে যে কারোরই চোখে জল চলে আসবে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দ্বিতীয় তলার একটি বেডে তার প্রাথমিক চিকিৎসা চলছে।

আর পাশে বসে প্রতিনিয়ত চোখের জল ফেলছেন বৃষ্টির জন্মধাত্রী মা। বৃষ্টিকে নিয়ে অনেক স্বপ্ন তাদের। সেই স্বপ্ন এখন কালো মেঘে ছেয়ে গেছে।

বৃষ্টির বাবা দিনমজুরী করে কিছু টাকা সঞ্চয় করেছিলেন তা সবই ইতিমধ্য বৃষ্টির চিকিৎসায় খরচ করেছেন। এখন শূন্য হাতে তার কন্যাকে বাঁচাতে সবার কাছে সহযোগিতা চেয়েছেন। জানা গেছে,মোংলা পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের সিগনাল টাওয়ার এলাকার বাসিন্দা দিনমজুর শাহ আলম জোমাদ্দারের বড় মেয়ে বৃষ্টি। কয়েকদিন আগে বৃষ্টি অসুস্থ হয়ে পড়ে।

তার খাওয়া- দাওয়া একেবারেই বন্ধ হয়ে যায়। হাসপাতালে নিলে পরিক্ষা নিরীক্ষার পর তার শরীরে ব্রেন টিউমার ধরা পরে।
সাথে সাথে কর্তব্যরত ডাক্তার জানান, উন্নত চিকিৎসার জন্য বৃষ্টিকে দ্রুত ঢাকায় নিতে হবে, তার চিকিৎসা করা আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়।

বৃষ্টির চিকিৎসার জন্য করতে কমপক্ষে পাঁচ থেকে ছয় লক্ষ টাকার প্রয়োজন। দ্রুত চিকিৎসা করানো না হলে তাকে বাঁচানো সম্ভব হবে না।

ডাক্তারের কাছে এমন কথা শোনার পর আরো মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন বৃষ্টির বাবা-মা। কারন এত টাকার যোগান দেওয়া তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। তাই সমাজের সচ্ছল মানুষদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন বৃষ্টির বাবা।

বিকাশে সাহায্য পাঠাতে বৃষ্টির বাবা তার বিকাশ (পার্সোনাল নাম্বার) ০১৯৮৯-৭৮৮৭৬৯ পৌঁছে দিতে চায় বিত্তবান ব্যক্তিদের কাছে।
বৃষ্টির বাবা মোঃ শাহ আলম জোমাদ্দার বলেন, আমি অতি গরিব মানুষ, দিন আনি দিন খাই। আমার একার পক্ষে মেয়েকে বাঁচানোর টাকা জোগার সম্ভব হচ্ছেনা তাই আপনারা যে যা পারেন আমার মেয়েকে বাঁচাতে আমাকে সাহায্য করুন।

ইসমাইল বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ডালিম মোড়ল জানান, বৃষ্টি পড়াশোনায় খুবই মনোযোগী।

ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত হওয়ায় তার পরিবারের পক্ষে এত টাকা ম্যানেজ করা সম্ভব নয়। তাকে (বৃষ্টি) উন্নত চিকিৎসার জন্য সবার সহযোগীতা প্রয়োজন।

এখন একমাত্র সবার সহযোগিতাই পারে বৃষ্টিকে তার স্বাভাবিক জীবন ফিরিয়ে দিতে। তাই যে যার অবস্থান থেকে আমরা ওর পাশে দাঁড়াই।

সহযোগিতার হাত বাড়াই। আমাদের সকলের সহযোগিতায় পুরোপুরি সুস্থ হয়ে বৃষ্টি আবারো ফিরে যাবে স্কুলের আঙ্গিনায়।


   Page 1 of 2
     খুলনা
অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতি নির্বাচন পালিত
.............................................................................................
বাগেরহাটে সড়ক দূর্ঘটনায় যুবদল নেতা নিহত
.............................................................................................
খুলনার বটিয়াঘাটায় গোপাল বিড়ি ফ্যাক্টরীতে অপ্রাপ্তদের শ্রম দেওয়ার অভিযোগ
.............................................................................................
বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে খ্রীষ্টান মিশন
.............................................................................................
মোংলায় সবজী উৎপাদনে ঝুকছে কৃষক
.............................................................................................
পাইকগাছার রাড়ুলী আল-হেরা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসার বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল ও পুরস্কার বিতরন
.............................................................................................
দাকোপ উপজেলায় বেগম রোকেয়া দিবস
.............................................................................................
খুলনা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন নেতা বিরুদ্ধে অভিযোগ
.............................................................................................
মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘর করার দাবী গুারুদাসীর বাড়ি
.............................................................................................
মোংলায় ন্যাচারাল হেলথ্ কেয়ার সেন্টারের উদ্বোধন
.............................................................................................
মোংলায় শিক্ষানবীশ ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রক্রিয়া সহজীকরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন
.............................................................................................
খুলনায় মার্কেটের আগুনে পুড়ল ৩৫ দোকান
.............................................................................................
মোংলা বন্দর ৪৮ ঘণ্টা পর সচল
.............................................................................................
সুন্দরবনে হরিণ শিকারে ট্রলারসহ ৬০ জন আটক
.............................................................................................
সুন্দরবনের আলোর কোলে শুরু হচ্ছে তিনদিনের রাস উৎসব
.............................................................................................
ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত বৃষ্টি বাঁচতে চায়
.............................................................................................
উৎসবমুখর বাগেরহাটের মৎস্যপল্লী
.............................................................................................
বাগেরহাটের রামপাল উপজেলায় নদীর ভাঙ্গন, বাড়িঘর হুমকির মুখে
.............................................................................................
বাগেরহাট কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে
.............................................................................................
মোংলায় জাতীয় স্যানিটেশন মাস উদযাপন
.............................................................................................
খুলনায় ডেঙ্গুতে আরও একজনের মৃত্যু
.............................................................................................
মোংলায় টানা বৃষ্টিতে বইতে শুরু করেছে শীতের আগমনী হাওয়া
.............................................................................................
বাগেরহাটে বিএনপির প্রতিবাদ কর্মসূচী পালিত
.............................................................................................
মোংলায় কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় স্কুল শিক্ষিকাকে নির্যাতনের অভিযোগ
.............................................................................................
মৌলভীবাজারে অসময়ে খাসিয়া পানে আগুন
.............................................................................................
বাংলাদেশের জলসীমায় ভারতীয় জেলেদের তৎপরতা থামছেনা
.............................................................................................
বাগেরহাট ছুরিকাঘাতে এক ছাত্রলীগকর্মী খুন
.............................................................................................
২ হাজার কৃষকের মাঝে সার ও বীজ বিতরণ
.............................................................................................
আগামীকাল ভয়াল ১২ নভেম্বর
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম ।
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন ।
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন ।

সম্পাদক কর্তৃক শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত । সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্ল্যাক্স (৬ষ্ঠ তলা) । ২৮/১ সি টয়েনবি সার্কুলার রোড, মতিঝিল, বা/এ ঢাকা-১০০০ । জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা ।
ফোন নাম্বার : ০২-৯৫৮৭৮৫০, ০২-৫৭১৬০৪০৪
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, ০১৯১৬৮২২৫৬৬ ।

E-mail: dailyganomukti@gmail.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি