২২ জিলহজ ১৪৪১ , ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ আগস্ট , ২০২০ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > বরগুনায় অগ্নিঝরা টাউনহল চত্বরে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের মানববন্ধন ও অবস্থান ধর্মঘট   > বন্যায় মৃতের সংখ্যা দুইশ ছাড়াল   > স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক হলেন সেব্রিনা ফ্লোরা   > বরিশাইল্লা ‘দাদো’র চরিত্রে মীর সাব্বির   > ২৪ ঘন্টায় আরো ৪৪ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬১৭   > ট্রেনের টিকিট হাতবদল হলেই সাজা   > মাদারীপুরের ডাসারে র‌্যাব-৮ এর অভিযানে দেশি-বিদেশী মদ উদ্ধার, আটক ১   > সুবিদখালী বাজার সড়কের বেহাল দশা, দুর্ভোগ চরমে !   > এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিচার শুরু   > ভূঞাপুরে ছাত্রলীগ নেতার গলাকাটা লাশ উদ্ধার  

   ময়মনসিংহ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ময়মনসিংহে পাউবোর উদ্যোগে গাছের চারা রোপণ

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি : ময়মনসিংহে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে নগরীর কাঠগোলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের কলোনীতে প্রায় দুই শত ফলজ, বনজ ও ঔষধী গাছের চারা রোপণ করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার দুপুরে এসব গাছের চারা রোপণ করা হয়। এ সময় পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মুসা. উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী শামসুদ্দোহা, উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. ইউনুস আলীসহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের সকল কর্মকর্তা কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উদ্যাপনের অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী ১৬ জুলাই জাতীয় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন। দেশে মোট বনভূমির পরিমান ২৫ শতাংশে উন্নীত করার জন্যে তিনি সদয় দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। বাংলাদেশে যাতে বনায়ন ও সবুজ বেষ্টনীর সৃষ্টি হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখেই ১ কোটি গাছের চারা রোপণের কার্যক্রম গৃহীত হয়। এই বৃক্ষরোপণের ফলে একদিকে যেমন দেশের প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষা পাবে, অন্যদিকে দেশের জনগণের খাদ্য ও পুষ্টি চাহিদা মেটাতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে।

ময়মনসিংহে পাউবোর উদ্যোগে গাছের চারা রোপণ
                                  

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি : ময়মনসিংহে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে নগরীর কাঠগোলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের কলোনীতে প্রায় দুই শত ফলজ, বনজ ও ঔষধী গাছের চারা রোপণ করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার দুপুরে এসব গাছের চারা রোপণ করা হয়। এ সময় পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মুসা. উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী শামসুদ্দোহা, উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. ইউনুস আলীসহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের সকল কর্মকর্তা কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উদ্যাপনের অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী ১৬ জুলাই জাতীয় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন। দেশে মোট বনভূমির পরিমান ২৫ শতাংশে উন্নীত করার জন্যে তিনি সদয় দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। বাংলাদেশে যাতে বনায়ন ও সবুজ বেষ্টনীর সৃষ্টি হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখেই ১ কোটি গাছের চারা রোপণের কার্যক্রম গৃহীত হয়। এই বৃক্ষরোপণের ফলে একদিকে যেমন দেশের প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষা পাবে, অন্যদিকে দেশের জনগণের খাদ্য ও পুষ্টি চাহিদা মেটাতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে।

ট্রাকে গাদাগাদি করে কর্মস্থলে ফিরছেন নিম্ন আয়ের মানুষ
                                  

ফারুক আল আজাদ, (ইসলামপুর) জামালপুর : প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদের ছুটি কাটিয়ে জীবিকার তাগিদে ফের কর্মস্থলে ফিরছেন মানুষ। ঢাকাসহ আশপাশের পোশাক কারখানাসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ কর্মস্থলে যেতে শুরু করেছেন। এতে তারা ব্যবহার করছেন বিভিন্ন ধরনের যানবাহন। তবে নিম্ন আয়ের বেশিরভাগ মানুষ ট্রাক ও মিনি পিকআপে গাদাগাদি করে ফিরছেন কর্মস্থলে। এক্ষেত্রে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব।
গত বৃহস্পতিবার রাতে সরেজমিনে জামালপুর জেলার বিভিন্ন সড়ক ঘুরে দেখা গেছে, প্রাইভেট কার, বাসের চাইতে ট্রাক ও মিনি পিকআপে করে যাত্রীরা বেশি যাচ্ছেন। প্রতিটি ট্রাকে ৩০ থেকে ৩৫ জন যাত্রী ও মিনি পিকআপে ২০ থেকে ২৫ জন যাত্রী বহন করা হচ্ছে।

ইসলামপুর উপজেলার গুঠাইল এলাকার রিকশাচালক ওয়াজেদ মিয়া বলেন, “আমরা গরীব মানুষ। ট্রেন ও বাসের টিকিটের দাম বেশি তাই কষ্ট করেই ট্রাকেই যাচ্ছি।”

ওই এলাকার এক গার্মেন্টস কর্মী মিজানুর রহমান বলেন, “উপায় নেই এভাবেই গাদাগাদি করে কাজে যেতে হবে। যে কয় টাকা বেতন পেয়েছি ঢাকা থেকে আসতেই শেষ হয়েছে।”

দেওয়ানগঞ্জের গামারিয়া এলাকার এক গার্মেন্টস কর্মী শাপলা বেগম বলেন , “যে কয় টাকা বেতন পাই, বাসা বাড়া দিতেই শেষ হয়ে যায়। এবার ঈদের বোনাস পাওয়ার কারণে বাড়িতে আসছিলাম। টাকা পয়সা সব শেষ, হাতে অল্প কিছু টাকা আছে। তাই ট্রাকেই গাজীপুর চৌরাস্তা যাচ্ছি।”

মহিজল নামে এক ট্রাক চালক বলেন, “৩০ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে যাচ্ছি। তাদের কাছ থেকে জন প্রতি ৩০০ টাকা করে ভাড়া নেওয়া হয়েছে।”

ধোবাউড়ায় একইদিনে পৃথকস্থানে ৩ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু
                                  

ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় হালুয়াঘাট-ধোবাউড়া রাস্তায় সদর ইউনিয়নের শিবানন্দখিলা চৌরাস্তা নামক স্থানে মটর সাইকেল দুর্ঘটনায় সাবেক ইউপি সদস্য এবং উপজেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি আবুল মুন্সুর তালুকদার নামে একজন নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, বুধবার বিকেলে বাড়ির পাশে মসজিদে আসরের নামাজ আদায় করে রাস্তা পার হওয়ার সময় ভুল পথে বেপরোয়াভাবে চালিয়ে আসা মুন্সরিহাটগামী একটি মটর সাইকেল ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। ঘাতক চালক ধোবাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পুলিশ হেফাজতে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এছাড়াও বানের পানি কেড়ে নিলো পৃথক গ্রামে দুই শিশুর তাজা প্রাণ। মর্মান্তিক এ ঘটনা ঘটেছে বুধবার দুপুরে সদর ইউনিয়নের হুজুরীদর্শা গ্রামে এবং গোয়াতলা ইউনিয়নের ঘোগরারপাড় গ্রামে। পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, উপজেলার পোড়াকান্দুলিয়া গ্রামের তোলা মিয়ার ছেলে আবু হানিফ(০২) নানার বাড়ি সদর ইউনিয়নের হুজুরী দর্শা গ্রামে বেড়াতে এসে, সবার অগোচরে সকালে বাড়ির পাশেই খেলা করার সময় বানের পানিতে পড়ে যায়। পরে ভাসমান মৃত অবস্থায় শিশুটির লাশ উদ্ধার করে পরিবারের লোকজন। একইদিনে দুপুরে গোয়াতলা ইউনিয়নে ঘোগরারপাড় গ্রামের সুমন মিয়ার ছেলে জুবায়ের হোসেন (০৫) বাড়ির পাশে খেলা করার সময় বানের পানিতে পড়ে ডুবে যায়। পরে মুমূর্ষ অবস্থায় পরিবারের লোকজন শিশুটিকে উদ্ধার করেলেও তাৎক্ষনিক শিশুটির মৃত্যু হয়।

বন্যায় গো-খাদ্যের তীব্র সংকটে ইসলামপুরে গরু নিয়ে দুশ্চিন্তায় বানভাসী
                                  

ফারুক আল আজাদ, ইসলামপুর : জামালপুরে বাহাদুরাবাদ ঘাট পয়েন্টে গত ২৪ ঘণ্টায় যমুনার পানি ৬ সেন্টিমিটার কমে এখনো বিপৎসীমার ১০৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যায় ইসলামপুর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের ৭৩টি গ্রামের প্রায় দেড় লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে আছে। চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বন্যা কবলিতদের। খাদ্য সংকটে রয়েছে হাজার হাজার দিনমজুর ও নিম্নআয়ের পরিবার। পাশাপাশি গো-খাদ্যের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে।
জানা গেছে, এ উপজেলায় ৫০ হাজার কৃষক (পশু লালন-পালনকারী) হয়েছেন। কোরবানির এ সময় কোরবানির পশুর জন্য অতিরিক্ত খাবার দরকার হয়ে থাকে। কিন্তু অতিরিক্ত খাবার তো দূরের কথা ন্যূনতম খাবারও পাচ্ছে না কোরবানির পশু। খড়ের গাদায় পানিতে ডুবে নষ্ট হয়ে গেছে। মাঠে আবাদি ঘাসও ডুবে গেছে। কোথাও কোন গো-চারণ ভূমিও জেগে নেই।
ফলে গো-খাদ্যের তীব্র সংকটে কোরবানির পশুর স্বাস্থ্যহানি ঘটছে। খাবার ঠিকমতো দিতে না পারায় গরু নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন উঁচু স্থানে আশ্রয় নেওয়া হাজার হাজার কৃষক। খাদ্য সংকটে গরুগুলোর ওজন কমে যাচ্ছে। এতে বড় অংকের লোকসান গুনতে হবে খামারিদের।
তবে উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা বলছেন, ক্ষতিগ্রস্থদের খোঁজখবর নেওয়ার জন্য আমাদের লোক মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে। এখন পর্যন্ত উপজেলায় ব্রিজসহ বিভিন্ন উঁচু স্থানে পশু নিয়ে ১২শত পরিবার আশ্রয় নিয়েছেন। তাদের উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গো-খাদ্য বিতরণ করা হচ্ছে।
উপজেলার নোয়ারপাড়া ইউনিয়নের কৃষক সোহাগ মিয়া জানান, আমরাতো নিজেরাই এক মাস থেকে পানিবন্দী হয়ে আছি। আমাদের কোন আয় রোজগারের পথ নেই বর্তমানে আমার এক মাত্র সম্পদ হলো এ দুটি গরু। তাও তাদের সঠিক ভাবে খাবার দিতে পারছিনা। ঠিক মতো খাবার না দিতে পারায় হাড্ডি ছারা হয়ে গেছে।
একই এলাকার সুলতান মিয়া বলেন, দেড় বছর আগে ৪৫ হাজার টাকা দিয়ে একটি দামরা (ষাঁড়) গরু কিনি। মোটাতাজা করে কোরবানির ঈদে বিক্রি করার আশায়। কিন্তু বন্যার পানিতে সকল মাঠ-ঘাটে পানি উঠায় গরুকে কোন কিছু খাইতে দিতে পারছি না। গত এক মাসে গরুটি অনেক শুকিয়ে গেছে।
ইসলামপুর উপজেলার চিনাডুলী ইউনিয়নের খামারি পাড়ার শহিজল মিয়া বলেন, সব যাইগাতেই শুধু পানি আর পানি। একবছর আগে আমি এ দামরা (ষাঁড়) গরুটি কিনি ৫০ হাজার টাকা দিয়ে। গত এক মাস থেকে গরুকে ঠিক মতো খাওন না দিতে পারায় শুকিয়ে গেছে, আমার একমাত্র সম্ভলটি (গরু)। টাকার অভাবে গরুকে হাটে নিতে পারছিনা।
গুনাপাড়ার বাঁধে আশ্রয় নেওয়া মুজা মিয়া বলেন, এ বছর বন্যায় গরুর খাদ্যর তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। ফলে এ বছর কোরবানির জন্য পোষা গরুগুলো শুকিয়ে ওজন কমে গেছে। খুব কষ্ট করে গরুটিকে হাটে তুলেছিলাম ৮০ হাজার দামরা (ষাাঁড়) ৪৫ হাজার টাকা দাম করেন ব্যাপারীরা। মনে হচ্ছে এবছর লছ (লোকসান) দিয়ে গরুটিকে বেছতে(বিক্রি) হবে।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা মো. সানোয়ার হোসেন বলেন, চরাঞ্চলের প্রায় সবগুলো গো-খাদ্যের মাঠ পানিতে ডুবে গেছে। আর বন্যার্ত এলাকায় আমাদের ৩টি মেডিক্যাল টিম কাজ করছে। গো-খাদ্য বাবদ উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৫০ হাজার টাকার গো-খাদ্য বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও তিনটি ইউনিয়নের ২৯২২জন কৃষককে জন প্রতি ৭৫ কেজি করে গো-খাদ্য দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

মোহনগঞ্জে আব্দুল মমিনের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত
                                  

মোহনগঞ্জ (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি : বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর, ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বঙ্গবন্ধু সরকারের সাবেক খাদ্য, ত্রাণ পূর্ণবাসন মন্ত্রী, সাবেক সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মরহুম আব্দুল মমিনের ১৬ তম মৃত্যুবার্ষিকী নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে পালিত হয়েছে । এ উপলক্ষে মোহনগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও আব্দুল মমিন স্মৃতি পরিষদ দিনব্যাপী পৃথক কর্মসূচী গ্রহন করেছে। দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, মরহুমের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, কালো ব্যাজ ধারণ, কবর জিয়ারত, মিলাদ মাহফিল, ও সীমিত আকারে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আলোচনা সভা। আলোচনা সভায় মরহুমের স্মৃতিচারণ করেন, শামছুর রহমান মাষ্টার, উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শহীদ ইকবাল, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য তোফায়েল আহম্মেদ, আব্দুল মমিন স্মৃতি পরিষদের সম্পাদক বিমল চন্দ্র পাল, ডা: আখলাকুল হোসাইন মেমোরিয়াল ট্রাস্টের সম্পাদক আকিকুন্নেছা বিউটি প্রমূখ । এসময় উপলো চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শহীদ ইকবাল বলেন, মরহুমের সহধর্মীণি নেত্রকোনা-৪ এর তিন বারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য রেবেকা মমিন মরহুমের জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন। তিনিও হাওরাঞ্চলের মানুষের করোনা ও বন্যাসহ সকল দুর্যোগ মোকাবেলায় তাদের পাশে রয়েছেন ও সকলের জন্য দোয়া রাখছেন। শহীদ ইকবাল আরো বলেন, মরহুম আব্দুল মমিনের পিতা মরহুম আব্দুল আজিজ খান সাহেব ছিলেন এক জন দানবীর। তিনি মোহনগঞ্জে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ অসংখ্য প্রতিষ্টানের জন্য তার নিজের জমি দান করে গেছেন। তার সন্তান আব্দুল মমিন, তিনিও ছিলেন একজন দানবীর। তিনিও অসংখ্য প্রতিষ্ঠানে নিজেদের সম্পদ দান করে গেছেন । তার সহধর্মীণী রেবেকা মমিন তিনিও একজন দানবীর। তিনি তিন বারের র্নিবাচিত সাংসদ হয়েও বিভিন্ন প্রতিষ্টানে দান করে তার সম্পদের পরিমান দিনদিন কমছে। তার একমাত্র কন্যা জয়া সেও অত্যন্ত ভালো মনের মানুষ, সেও মানুষকে দান করে খুশি হয়। আমরা এই দানবীর পরিবারের জন্য সকলেই দোয় করি।

মোহনগঞ্জে পুলিশ ও সাংবাদিকদের মাঝে পিপিই বিতরণ
                                  

মোহনগঞ্জ (নেত্রকোনা) : করোনা যুদ্ধে পুলিশ ও সাংবাদিকদের সুরক্ষিত হয়ে পেশাগত দায়িত্ব পালন করার নিমিত্তে মোহনগঞ্জ উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা শামছূল হক মাহবুব এর পক্ষ থেকে মোহনগঞ্জ থানা পুলিশ ও প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের পিপিই প্রদান করা হয়। সোমবার দুপুরে মোহনগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা কার্যালয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুজ্জামান এ পিপিই বিতরণ করেন। মোহনগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ খান ও প্রেসক্লাব সম্পাদক মাসুম আহম্মেদ পিপিইগুলো গ্রহণ করেণ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন,সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল হকসহ মক্তিযোদ্ধাগণ ও প্রেসক্লাবের সাংবাদিক বৃন্দ।

মোহনগঞ্জে সাংবাদিকদের মাঝে পিপিই বিতরণ
                                  

মোহনগঞ্জ (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি: সাংবাদিকদের সুরক্ষিত হয়ে পেশাগত দায়িত্ব পালন করার নিমিত্তে মোহনগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মোহনগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের পিপিই প্রদান করা হয়। রোববার দুপুরে উপজেলা চেয়ারম্যান. মো. শহীদ ইকবাল ও নির্বাহী অফিসার আরিফুজ্জামান মোহনগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাসুম আহম্মেদের কাছে পিপিইগুলো হস্তান্তর করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বাবু দীলিপ দত্ত ,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা আকন্দ, সাংবাদিক দোস মোহাম্মদ চৌধুরী, সাইফুল আরিফ জুয়েল, মেহেদী ইকবাল দোলন, মো.আব্দুর রব খান ঠাকুর ।

মোহনগঞ্জে জমির মালিককে বেদখল সংঘর্ষে আহত ৫
                                  

দোস মোহাম্মদ, মোহনগঞ্জ (নেত্রকোনা) : মোহনগঞ্জে জমির মালিক কে বেদখল দিতে গিয়ে দু পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়ে দু পক্ষের অন্তত ৫ জন আহত হয়েছে। আহতরা মোহনগঞ্জ হাসপাতালালে ভর্তি রয়েছেন । আহতরা হলেন , শফিকুল ইসলাম, কামরুজ্জামান, রহিছ মিয়া, আম্বিয়া খাতুন, পিয়াস । ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামে । এ নিয়ে মোহনগঞ্জ থানায় দু পক্ষের দুটি মামলা হয়েছে। বুধবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,দুর্গাপুর গ্রামের আ:আজিজের ১৯৬৮ ক্রয় কৃত জমিতে মামলা হলে ১৯৮৫ সালে ডিক্রি লাভ করে আ: আজিজ । ১৯৯৭ সালে কোর্ট মেজিস্ট্রেট ধারা ১ একর ১০ শতক জমি তাকে বুঝিয়ে দেন। আ: আজিজ ও তার ছেলে শফিকুল ইসলাম গত ৫২ বছর ধরে এ জমি নিজের দখলে রেখে ভোগ করে আসছেন। ২০১৯ সালে তার ভাইগ্না রহিছ মিয়া তার লোকজন নিয়ে এই জমি তাদের দাবী করে । জমিতে আ: আজিজের ছেলে শফিকুল ইসলামকে বেদখল চেষ্টা করে । পরে গ্রাম্য শালিসে রহিছ মিয়াকে অবৈধ ঘোষণা করে জমির মালিক আ:অজিজের ছেলে শফিকুলকে জমি বুঝিয়ে দেন। গত শুক্রবার রহিছ মিয়া তার লোকজন নিয়ে আবার জমি দখল করতে গেলে, শফিকুল ইসলাম বাধা দেন । পরে দু পক্ষের সংঘর্ষ হয় । শফিকুল ইসলাম আহত হয়ে হাসপাতালে থাকা অবস্থায় জমিতে শফিকুলের নির্মানাধীণ ঘর ভেঙ্গে নিয়ে যায় রহিছের লোকজন।


তাই শুধু ভাবছি
                                  

আহাদ আলী মোল্লা : অসময়ের ঝঞ্ঝা বাদল সবার হলো কাল

কাজ কামে নেই কারো গতি আহা রে জঞ্জাল

কোথায় পাবো পয়সা কড়ি বয় না মুনিসপাট

কী বেচে আর করবো বাজারহাট!

 

পাকা ধানের ব্যাপক ক্ষতি সবজি গেল ডুবে

রোদের দেখা পাইনে কোথাও আঁধারঘেরা পুবে

যায় না ফসল বোনা

চতুর্দিকে হুড়–মগুড়–ম মেঘের আনাগোনা।

 

হেমন্তের এই বাদলা দিনে যাচ্ছে না ধান কাটা

হাত গুটিয়ে বসে আছে সবখানে ইটভাটা

কামলা শ্রমিক গরিব ওদের দিন চলে না হায়

দোকানঘরে ধার দেনা বা কর্জ বাকি খায়।

 

আকাল বাড়ায় নিম্ন চাপের বৃষ্টি হঠাত এসে

কৃষক চাষীর ফসল গেল ভেসে

করবো এখন কী

কর্মবিহীন বসে বসে তাই শুধু ভাবছি!

   Page 1 of 1
     ময়মনসিংহ
ময়মনসিংহে পাউবোর উদ্যোগে গাছের চারা রোপণ
.............................................................................................
ট্রাকে গাদাগাদি করে কর্মস্থলে ফিরছেন নিম্ন আয়ের মানুষ
.............................................................................................
ধোবাউড়ায় একইদিনে পৃথকস্থানে ৩ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু
.............................................................................................
বন্যায় গো-খাদ্যের তীব্র সংকটে ইসলামপুরে গরু নিয়ে দুশ্চিন্তায় বানভাসী
.............................................................................................
মোহনগঞ্জে আব্দুল মমিনের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত
.............................................................................................
মোহনগঞ্জে পুলিশ ও সাংবাদিকদের মাঝে পিপিই বিতরণ
.............................................................................................
মোহনগঞ্জে সাংবাদিকদের মাঝে পিপিই বিতরণ
.............................................................................................
মোহনগঞ্জে জমির মালিককে বেদখল সংঘর্ষে আহত ৫
.............................................................................................
তাই শুধু ভাবছি
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন
বাণিজ্যিক কার্যালয় : "রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্লেক্স"
(৬ষ্ঠ তলা), ২৮/১ সি, টয়েনবি সার্কুলার রোড,
মতিঝিল বা/এ ঢাকা-১০০০| জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা
ফোন নাম্বার : ০২-৪৭১২০৮০৫/৬, ০২-৯৫৮৭৮৫০
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, 01731800427
E-mail: dailyganomukti@gmail.com
Website : http://www.dailyganomukti.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD