ঢাকা,সোমবার,৫ আশ্বিন ১৪২৮,২০,সেপ্টেম্বর,২০২১ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > টাঙ্গাইলে এক বিদ্যালয়ের ৬০ ছাত্রীর বাল্যবিয়ে   > নয় বছর ধরে একজন শিক্ষক দ্বারা চলছে প্রাথমিক বিদ্যালয়!   > ফুলতলা-গুনাহার সংযোগ সড়কের বন্ধ থাকা নির্মাণ কাজ শুরু   > ভাঙন আতঙ্কে রাত কাটে তিস্তাপাড়ের বাসিন্দাদের   > বার্সার ক্ষতি ৪৮১ মিলিয়ন ইউরো   > ‘আমি সেই যথাযোগ্য মেয়ে হতে পারিনি’   > গোপালগঞ্জে দিনব্যাপী ওরিয়েন্টাল কর্মশালা   > সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের প্রতিবাদে সমাবেশ আজ   > নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আজ সংবর্ধনা   > ডেঙ্গুতে ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৩২ জন হাসপাতালে ভর্তি  

   খেলাধূলা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বার্সার ক্ষতি ৪৮১ মিলিয়ন ইউরো

স্পোর্টস ডেস্ক : গত দুই মৌসুম ধরেই বড় অঙ্কের আর্থিক ক্ষতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে ইউরোপিয়ান ক্লাবগুলো। তবে অন্য ক্লাবগুলোর তুলনায় স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনার দেনা একটু বেশিই। ২০২০/২১ মৌসুমেই প্রায় ৪৮১ মিলিয়ন ইউরো ক্ষতির কথা স্বীকার করেছে বার্সেলোনার পরিচালনা পর্ষদ। বাংলাদেশি টাকার হিসাবে যার পরিমাণ প্রায় ৪ হাজার ৮২৫ কোটি ৮১ লাখ ৫১ হাজার ৭২৫ টাকা। মূলত মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে সবচেয়ে বড় ক্ষতিটা হয়ে গেছে বার্সেলোনার। স্টেডিয়ামগুলো বন্ধ থাকায় মাঠে দর্শক যেতে পারেনি। পাশাপাশি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলো থেকে বিদায়ের কারণে উয়েফা থেকে প্রাপ্ত আয় কমে যায় দলটির। একই সঙ্গে লা লিগাতেও ভালো করতে পারেনি দলটি। ক্লাব সদস্যদের অধিবেশন শেষে ২০২১-২২ মৌসুমের বাজেট প্রকাশ করেছে বার্সেলোনা পরিচালক বোর্ড। নতুন মৌসুমে তাদের বাজেটের আকার ৭৬৫ মিলিয়ন ইউরো। একই সঙ্গে নতুন মৌসুমের লাভ-ক্ষতির হিসাব প্রকাশ করা তারা। সভায় দলের প্রধান কোচ রোনাল্ড কোমানের ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত হয়নি। তবে সভায় ক্লাব সভাপতি হিসেবে হুয়ান লাপোর্তার চলমান প্রক্রিয়া নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে সদস্যরা। আর্থিক সংকটে চলতি মৌসুমে নিজেদের সেরা খেলোয়াড় লিওনেল মেসিকে হাতছাড়া করেছে বার্সেলোনা। এমনকি আতোঁয়ান গ্রিজম্যানকেও হারায় দলটি। পাশাপাশি এমারসন রয়েল ও ইলাইশ মোরিবাদের মতো তারকাদের বিক্রি করে দিয়েছে তারা। ভঙ্গুর আর্থিক কাঠামোর মতো বার্সেলোনার বর্তমান পারফরম্যান্সও ভালো নয়। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শুরুতে ঘরের মাঠে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছে দলটি। লা লিগাতেও অবস্থা ভালো নয় তাদের।

বার্সার ক্ষতি ৪৮১ মিলিয়ন ইউরো
                                  

স্পোর্টস ডেস্ক : গত দুই মৌসুম ধরেই বড় অঙ্কের আর্থিক ক্ষতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে ইউরোপিয়ান ক্লাবগুলো। তবে অন্য ক্লাবগুলোর তুলনায় স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনার দেনা একটু বেশিই। ২০২০/২১ মৌসুমেই প্রায় ৪৮১ মিলিয়ন ইউরো ক্ষতির কথা স্বীকার করেছে বার্সেলোনার পরিচালনা পর্ষদ। বাংলাদেশি টাকার হিসাবে যার পরিমাণ প্রায় ৪ হাজার ৮২৫ কোটি ৮১ লাখ ৫১ হাজার ৭২৫ টাকা। মূলত মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে সবচেয়ে বড় ক্ষতিটা হয়ে গেছে বার্সেলোনার। স্টেডিয়ামগুলো বন্ধ থাকায় মাঠে দর্শক যেতে পারেনি। পাশাপাশি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলো থেকে বিদায়ের কারণে উয়েফা থেকে প্রাপ্ত আয় কমে যায় দলটির। একই সঙ্গে লা লিগাতেও ভালো করতে পারেনি দলটি। ক্লাব সদস্যদের অধিবেশন শেষে ২০২১-২২ মৌসুমের বাজেট প্রকাশ করেছে বার্সেলোনা পরিচালক বোর্ড। নতুন মৌসুমে তাদের বাজেটের আকার ৭৬৫ মিলিয়ন ইউরো। একই সঙ্গে নতুন মৌসুমের লাভ-ক্ষতির হিসাব প্রকাশ করা তারা। সভায় দলের প্রধান কোচ রোনাল্ড কোমানের ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত হয়নি। তবে সভায় ক্লাব সভাপতি হিসেবে হুয়ান লাপোর্তার চলমান প্রক্রিয়া নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে সদস্যরা। আর্থিক সংকটে চলতি মৌসুমে নিজেদের সেরা খেলোয়াড় লিওনেল মেসিকে হাতছাড়া করেছে বার্সেলোনা। এমনকি আতোঁয়ান গ্রিজম্যানকেও হারায় দলটি। পাশাপাশি এমারসন রয়েল ও ইলাইশ মোরিবাদের মতো তারকাদের বিক্রি করে দিয়েছে তারা। ভঙ্গুর আর্থিক কাঠামোর মতো বার্সেলোনার বর্তমান পারফরম্যান্সও ভালো নয়। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শুরুতে ঘরের মাঠে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছে দলটি। লা লিগাতেও অবস্থা ভালো নয় তাদের।

নতুন রাজা মেদভেদেভ
                                  

স্পোর্টস ডেস্ক : ইউএস ওপেনের ফাইনালে দুটি ইতিহাস গড়ার মিশনে কোর্টে নেমেছিলেন নোভাক জকোভিচ। ডানিল মেদভেদেভকে হারিয়ে ফাইনাল জিততে পারলে রজার ফেদেরার ও রাফায়েল নাদালকে পেছনে ফেলে রেকর্ড ২১তম গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের আনন্দে ভাসতে পারতেন। সুযোগ ছিল এই ফাইনাল জিতে ৫২ বছরের ইতিহাস ভেঙে এক মৌসুমে চার-চারটি গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের। তবে ইতিহাসের পাতায় সবাইকে ছাড়িয়ে যাওয়ার অপেক্ষা বাড়ল জকোভিচের। আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় বাছাই রাশিয়ার ডানিল মেদভেদেভের মুখোমুখি হন জকোভিচ। চলতি বছরের শুরুতে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে এই জোকোভিচের কাছেই হেরেছিলেন মেদভেদেভ হাতছাড়া হয়েছিল গ্র্যান্ডস্লাম। সেই ক্ষত পুষিয়ে নিতে এদিন জোকোভিচকে ফাইনালে সুযোগই দিলেন না তিনি। ৬-৪, ৬-৪ ও ৬-৪ সেটে জিতে প্রথমবারের মতো গ্র্যান্ডস্লাম শিরোপা জয়ের স্বাদ পেলেন ২৫ বছর বয়সী এই টেনিস তারকা। ইতিহাস গড়ার খুব কাছে গিয়েও এ যাত্রায় আক্ষেপ নিয়ে কোর্ট ছাড়তে হয় জকোভিচকে।

শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে টি-টোয়েন্টিতে দারুণ শুরু দক্ষিণ আফ্রিকার
                                  

স্পোর্টস ডেস্ক : ওয়ানডেতে আশা জাগিয়েও ২-১ ব্যবধানে সিরিজ খুইয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে টি টোয়েন্টি-সিরিজটা দারুণভাবেই শুরু করেছে দলটি। সিরিজের প্রথম ম্যাচে সফরকারীরা ২৮ রানে হারিয়েছে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কাকে। কলম্বোয় শুক্রবার বিকেলে টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। নিয়মিত অধিনায়ক টেম্বা বাভুমার অনুপস্থিতিতে অধিনায়ক কেশভ মহারাজের সিদ্ধান্তটা যে ভুল ছিল না তা বুঝিয়ে দিয়েছিলেন দুই ওপেনার। কুইন্টন ডি কক আর রিজা হেনড্রিকসের কল্যাণে পাওয়ার প্লেতে দলটি যোগ করে ৪৭ রান। আগের ম্যাচে রেকর্ড গড়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে জিতিয়েছিলেন মাহীশ থিকশানা। তবে টি-টোয়েন্টিতে তার জাদুর দেখাই মিলল না, উল্টো আক্রমণে এসে টানা তিনটি চার হজম করেন তিনি। সঙ্গে অন্য লঙ্কান বোলাররাও ছিলেন নিস্প্রভ। ডি কক আর হেনড্রিকসের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে দশম ওভারে গিয়ে। ওয়ানিন্দু হাসরাঙ্গার বলে ডি ককের বিদায়ের আগে দু’জনে অবশ্য তুলে ফেলেছিলেন ৭৩ রান। নিজের পরের ওভারে হেনড্রিকসকেও সাজঘরের পথ দেখান হাসারাঙ্গা। বিদায়ের আগে অবশ্য হেনড্রিকস ৩০ বলে ৩৮ রানের ইনিংস খেলে গেছেন। তাতে দক্ষিণ আফ্রিকাও পেয়ে যায় লড়াকু পুঁজির রসদ। এরপর হাইনরিখ ক্লাসেন বিদায় নেন দ্রুতই, তখন প্রোটিয়া শিবিরে শঙ্কা প্রত্যাশিত সংগ্রহ না পাওয়ার। চতুর্থ উইকেট জুটিতে এইডেন মারক্রাম আর ডেভিড মিলার অবশ্য সে শঙ্কাকে বিদায় করেন দ্রুতই। দু’জনের ব্যাটে চড়েই দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ পেরোয় ১৫০ রান। শেষ দুই ওভারে দু’জন বিদায় নেন; মারক্রাম ৩৩ বলে ৪৮ রানের ইনিংস খেলেন, আর চোট কাটিয়ে মাঠে ফেরা মিলার করেন ১৫ বলে ২৬। তাতেই দক্ষিণ আফ্রিকা পেয়ে যায় ১৬৩ রানের পুঁজি। জবাবে পাওয়ার প্লেতে উইকেট হারায়নি শ্রীলঙ্কা, তবে রানও তুলতে পারেনি পাল্লা দিয়ে। ষষ্ঠ ওভারে রান আউটের কাটায় পড়ে যখন আভিষ্কা ফার্নান্দো ফিরছেন, তখন দলের রান মাত্র ৩৪ রান। পরের ওভারে ভানুকা রাজাপাকসাকে নিজের প্রথম বলেই ফেরান কেশভ, যা আবার ছিল তার আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে প্রথম বল।

ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় মাহমুদউল্লাহর
                                  

স্পোর্টস রিপোর্টার : অস্ট্রেলিয়াকে ৬২ রানে, নিউ জিল্যান্ডকে ৬০ রানে গুটিয়ে দিয়ে কী বিব্রতকর স্বাদই না দিয়েছে বাংলাদেশ। এবার নিজেদের মাঠে নিজেরাই সেই দুঃস্বপ্নের শিকার। তবে হতাশার এই ঘোর দ্রুত কাটিয়ে পরের ম্যাচেই জয়ে ফিরতে চান অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে রোববার ৭৬ রানেই অলআউট হয়ে বাংলাদেশ হেরেছে ৫২ রানে। টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন রান এটি, দেশের মাঠে সর্বনিম্ন। অথচ লক্ষ্য ছিল না খুব একটা কঠিন। উইকেট ছিল না ভয়ঙ্কর। ১২৯ রান তাড়ায় প্রয়োজন ছিল স্রেফ মিরপুরের স্বাভাবিক ব্যাটিং। কিন্তু বাংলাদেশ উইকেট হারিয়েছে অস্বাভাবিকভাবে। বিনা উইকেটে ২৩ থেকে ৩ উইকেটে ২৫। ৪ উইকেটে ৪৩ থেকে ৬ উইকেটে ৪৩। এভাবে একটির পর একটি উইকেট হারানোকেই দলের হারের কারণ বলছেন মাহমুদউল্লাহ। “ওদেরকে ১৩০ রানে (১২৮) আটকে রেখে বোলাররা দারুণ করেছে। আমরা ব্যাটিংয়ে শুরুটা ভালো করেছিলাম। কিন্তু সেই শুরু ধরে রাখতে পারিনি। ঝাঁক ধরে উইকেট হারিয়েছি। আশা করি আমরা ঘুরে দাঁড়াব এবং আরও শক্তভাবে ফিরব।” “এমনিতে আমাদের মিডল অর্ডার ভালো ব্যাট করছে। টপ অর্ডার গত ম্যাচে এবং আজকেও ভালো করেছে। আজকে যেখানে ঘাটতি ছিল, তা হলো জুটি। আশা করি আমরা ইতিবাচক দিকগুলো নিতে পারব এবং দেখব কোথায় কাজ করতে হবে।” সিরিজ জয়ের লড়াইয়ে এখনও যে বাংলাদেশই এগিয়ে, তা মনে করিয়ে দিয়েছেন অধিনায়ক। “আমরা এখনও এগিয়ে (সিরিজে)।
দুটি ম্যাচ এখনও বাকি। পরের ম্যাচ জিতে আমরা সিরিজ জয়ের চেষ্টা করব।” কোচ রাসেল ডমিঙ্গোও এই ম্যাচের হতাশা নিয়ে পড়ে না থেকে তাকাতে চান সামনে। “জানি, আজকের দিনটি আমাদের জন্য ভালো ছিল না। তবে এটা নিয়ে খুব বেশি ভাবনায় ডুবে থাকার সুযোগ নেই। ইতিবাচক দিকগুলোয় মনোযোগ দিতে হবে এবং সেগুলো দুই দিন পরের ম্যাচে বয়ে নিতে হবে। কারণ, ম্যাচটি গুরুত্বপূর্ণ।”

ফুটবলকে মানজুকিচের বিদায়
                                  

স্পোর্টস ডেস্ক : আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় বলেছেন দুই বছর আগে। খেলা চালিয়ে যাচ্ছিলেন ক্লাবের হয়ে। এবার সব কিছুর ইতি টেনে দিলেন মারিও মানজুকিচ। পেশাদার ফুটবল থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন বায়ার্ন মিউনিখ ও ইউভেন্তুসের সাবেক এই ফরোয়ার্ড। ইনস্টাগ্রামে শুক্রবার সব ধরনের পেশাদার ফুটবল থেকে অবসরের ঘোষণা দেন ৩৫ বছর বয়সী এই ক্রোয়াট। জাতীয় দলের হয়ে ৮৯ ম্যাচে ৩৩ গোল করা মানজুকিচ ক্লাব ফুটবলে সবচেয়ে লম্বা সময় কাটান ইউভেন্তুসে। ২০১৫ সালে আতলেতিকো মাদ্রিদ থেকে তুরিনের দলটিতে যোগ দিয়ে সেখানে খেলেন পাঁচ বছর। এরপর ছয় মাস কাতারের ক্লাব আল দুহাইলে খেলে চলতি বছরের জানুয়ারিতে যোগ দেন সেরি আর আরেক দল এসি মিলানে। ইতালিতে সব মিলিয়ে চারটি লিগ, তিনটি ইতালিয়ান কাপ ও দুটি ইতালিয়ান সুপার কাপ জেতেন মানজুকিচ। তবে মিলানে সময়টা ভালো কাটেনি তার। শেষ পর্যন্ত তাই বিদায় বলে দিলেন পেশাদারী ফুটবলকেই। ২০১২ থেকে দুই বছরের বায়ার্ন মিউনিখ অধ্যায়ে জেতেন দুটি বুন্ডেসলিগা, একটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও একটি ক্লাব বিশ্বকাপ। রাশিয়া বিশ্বকাপের রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়া দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন তিনি।

রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে হারাল বাংলাদেশ
                                  

স্পোর্টস রিপোর্টার : ১৪২ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই জোড়া ধাক্কা খেয়ে বসে নিউজিল্যান্ড। সেখান থেকে দলকে এগিয়ে নেন কিউই অধিনায়ক টম ল্যাথাম। দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে লড়াই জমিয়ে তোলেন তিনি। শেষ ওভারে জয়ের আশাও জাগিয়ে তোলেন তিনি। কিন্তু শেষ করতে পারলেন না। অতিথি অধিনায়কের প্রতিরোধ ছাপিয়ে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৪ রানে জিতেছে বাংলাদেশ।
এই জয়ের সুবাদে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে বাংলাদেশ। আর এক ম্যাচ জিতলেই নিউইজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথমবার টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের কীর্তি গড়বে বাংলাদেশ। সিরিজের পরের ম্যাচ আগামী রোববার। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৪১ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ। ব্যাট হাতে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৯ রান করেছেন ওপেনার নাঈম শেখ। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে শেষ সাত টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ রান এটি। তাড়া করতে নেমে নির্ধারিত ওভারে ১৩৭ রানে থামে নিউজিল্যান্ড।
জবাব দিতে নেমে দুই ওপেনারে ভালো শুরুর আভাস দেয় নিউজিল্যান্ড। তবে কিউইদের ওপেনিং জুটি স্থায়ী হতে দেননি সাকিব আল হাসান। নিজের প্রথম স্পেলের বল করতে এসেই নিউজিল্যান্ডের ওপেনিং জুটি ভাঙেন সাকিব। বোল্ড করে ফিরিয়ে দেন রাচিন রবীন্দ্রকে। ১০ রানে ফেরেন অতিথি ওপেনার।
আরেক ওপেনার টম ব্লান্ডেলকে আউট করেন শেখ মেহেদী হাসান। তরুণ এই অফ স্পিনারের বল ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে এসে খেলতে চেয়েছিলেন ব্লান্ডেড। স্পিন আশা করে ব্যাট চালিয়েছিলেন কিন্তু সোজা চলে যায় কিপার নুরুল হাসান সোহানের গ্লাভসে।
পাওয়ার প্লেতে ২ উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ২৮ রান তোলে নিউজিল্যান্ড। অবশ্য এরপর উইল ইয়ংকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন অধিনায়ক টম ল্যাথাম। দ্বিতীয় উইকেটে দুজন মিলে গড়েন ৪৩ রানের জুটি।
জমে যাওয়া এই জুটিও ভাঙেন সাকিব। নিজের পরের স্পেলে এসে ফেরান ইয়ংকে। বাঁহাতি স্পিনারের অফ স্টাম্পের বাইরের বল মোকাবিলা করতে গিয়ে শর্ট থার্ড ম্যানে ক্যাচ দিয়ে দেন অতিথি ক্রিকেটার। ২৮ বলে ২২ রান করেন তিনি।
সতীর্থরা ফিরলেও উইকেট থিতু হয়ে যান অধিনায়ক ল্যাথাম। মাঝে আউট হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হলেও রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান। অধিনায়কের ব্যাটে চড়ে জয়ের আশা জাগিয়ে তোলে নিউজিল্যান্ড। তবে শেষ পর্যন্ত হয়নি। ডেথ ওভারে সাইফউদ্দিন-মুস্তাফিজের বোলিংয়ে স্বস্তির জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। ম্যাচ শেষে ৬৫ রানে অপরাজিত ছিলেন ল্যাথাম।
গত ম্যাচে স্পিনের উইকেট রান বেশি হয়নি। ওইম্যাচ নিয়ে বেশ সমালোচনাও হয়েছে। তবে এই ম্যাচে কিছুটা স্বস্তি দিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাটসম্যানরা। আগে ব্যাটিং করে টিকে ছিলেন ২০ ওভার পর্যন্ত। তাতে লড়াইয়ের পুঁজি পায় বাংলাদেশ।
সাবধানী ব্যাটিংয়ে ইনিংসের শুরুতে শুরুটা ভালো করেন দুই ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম ও লিটন দাস। আগের ম্যাচে মাত্র এক রানে আউট হওয়া দুই ওপেনার এবার টিকে ছিলেন লম্বা সময়।
যদিও শুরুতেই বিপদে পড়তে পারতেন লিটন দাস। ১.৩ ওভারের সময় ক্যাচ তুলে দিয়েছেন তিনি। ওই সহজ ক্যাচ মিস করে লিটনকে বাঁচিয়ে দেন ডি গ্র্যান্ডহোম।
জীবন পেয়ে উইকেটে থিতু হয়ে যান লিটন। যদিও পাওয়ার প্লেতে বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে খুব একটা রান আসেনি। এরপর অবশ্য দুজনই হাতখুলে খেলার চেষ্টা করেন। বেশ সময় পর্যন্ত টিকেও যান। কিন্তু থিতু হয়ে স্টাম্প হন লিটন। দশম ওভারে রবীন্দর অফ স্টাম্পের বাইরে পড়ে বেরিয়ে যাওয়া বল অফে সরে গিয়ে খেলতে চেয়েছিলেন লিটন। কিন্তু ব্যাটে-বলে মেলেনি। ব্যাটের কানায় লেগে বল আঘাত হানে স্টাম্পে। ২৯ বলে তিন চার ও এক ছক্কায় ৩৩ রান করেন লিটন । ৫৭ বলে ভাঙে ৫৯ রানের ওপেনিং জুটি। ওপেনিং জুটি ভাঙার পরপর দ্রুত তিন উইকেট হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। লিটন ফেরার পর টপ অর্ডারে ব্যাট করতে নেমে হতাশ করেন মুশফিক। রাচিন রবীন্দ্রর বলেই গোল্ডেন ডাকে ফেরেন অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান। চারে নেমে আজ থিতু হতে পারেননি সাকিব আল হাসান। ১২ রানের মাথায় ক্যাচ তুলে দেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। অবশ্য অল্পের জন্য বেঁচে যেতে পারতেন সাকিব। তাঁর উড়িয়ে মারা বল লং অফে ক্যাচ ধরতে গিয়ে তালগোল পাকিয়েছিলেন বেন সিয়ার্স। ভাগ্যভালো থাকায় ক্যাচ মিস হয়ে যাননি। এত ভালো শুরুর পর ১৩ রানের মধ্যে তিন উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে যায় বাংলাদেশ। উইকেটে থেকে চাপ সামলানোর চেষ্টা করেন ওপেনার নাঈম। ১৬তম ওভারে নাঈমের প্রতিরোধ ভাঙেন সেই রবীন্দ্র। ৩৯ বলে তিন বাউন্ডারিতে ৩৯ রান করে ফেরেন নাঈম। বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হওয়া রবীন্দ্র নাঈমেরসহ মোট তিনটি উইকেট নেন। নাঈম ফেরার পর দায়িত্ব নেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। অধিনায়কের ব্যাটে চড়ে শেষ পর্যন্ত ১৪১ রানে থামে বাংলাদেশ। ইনিংস শেষে ৩৭ রানে অপরাজিত ছিলেন মাহমুদউল্লাহ। অধিনায়কের সঙ্গে ১৩ রান করেন নুরুল হাসান সোহান।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
বাংলাদেশ: ২০ ওভারে ১৪১/৬ (লিটন ৩৩, নাঈম ৩৯, মুশফিক ০, সাকিব ১২, মাহমুদউল্লাহ ৩৭, আফিফ ৩, সোহান ১৩; রবীন্দ্র ৪-০-২২-৩ , ম্যাকনকি ৪-০-২৪-১, বিন ১-০-১১-২, বেনেট ৪-০-৩২-১, অ্যাজাজ প্যাটেল ৪-০-২০-১, ব্রেসওয়েল ৩-০-৩০-০)।
নিউজিল্যান্ড : ২০ ওভারে ১৩৭/৫(ব্লান্ডেল ৬, রবীন্দ্র ১০, ডি গ্র্যান্ডহোম ৮, নিকোলস ৬, ল্যাথাম ৬৫, ইয়ং ২২, ম্যাকনকি ১৫ ; সাকিব ৪-০-২৯-২, মেহেদী ৪-০-১২-২, সাইফউদ্দিন ৪-০-৩৬-০, মুস্তাফিজ ৪-০৩৪-০, নাসুম ৩-০-১৭-১, মাহমুদউল্লাহ ১-০-৭-০)।
ফল : ৪ রানে জয়ী বাংলাদেশ।

মুস্তাফিজের জন্য ছক আকছে নিউজিল্যান্ড
                                  

স্পোর্টস রিপোর্টার : বাংলাদেশকে হারাতে হলে কাকে সামলানো জরুরি, সেই গবেষণা করেই এসেছে নিউ জিল্যান্ড। তাদের অ্যানালিস্টের পরীক্ষাগারে প্রবল কাটাছেঁড়া হয়েছে মুস্তাফিজুর রহমানের বোলিং নিয়ে। বিশ্লেষণ করা হয়েছে বিস্তর। বাংলাদেশের বাঁহাতি পেসারকে নিষ্ক্রিয় করার উপায়ও বের করেছে কিউইরা। তাদের কোচ গ্লেন পকন্যাল জানালেন, ভিন্ন কিছু করে মুস্তাফিজকে পাল্টা চাপে ফেলে দেওয়ার চেষ্টা করবেন তারা। মুস্তাফিজকে নিয়ে প্রতিপক্ষের ভাবনা কিংবা দুর্ভাবনা, নতুন নয় মোটেও। তবে সেসব আরও বেড়ে গেছে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের সবশেষ সিরিজের পর। শুধু উইকেট শিকারই নয়, অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানদের বলতে গেলে বিব্রত করে ছাড়েন এই বাঁহাতি পেসার। উইকেট ছিল মন্থর ও টার্নিং, বল গ্রিপ করে দারুণ। সহায়ক উইকেট ও পরিবেশ পেয়ে তিনি হয়ে উঠেছিলেন ভয়ঙ্কর। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষেও একইরকম উইকেট থাকলে মুস্তাফিজকে সামলানো দুরূহ হওয়ারই কথা। উইকেটে অতটা সহায়তা না মিললেও অবশ্য মিরপুরে বরাবরই কার্যকর তিনি। এই সফরে নিউ জিল্যান্ডের কোচের দায়িত্ব পাওয়া পকন্যাল ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে জানালেন মুস্তাফিজকে নিয়ে তাদের ভাবনা। “সে অসাধারণরকম ভালো বোলিং করেছে (অস্ট্রেলিয়া সিরিজে)। ডেলিভারিগুলো সে যেভাবে করেছে, তা দেখাটা ছিল স্পেশাল। আমার মতে, সে অবশ্যই হুমকি, পাশাপাশি বাংলাদেশের অন্যরাও।” “আমরা তার বোলিং খুব ভালোভাবে দেখেছি এবং আলোচনা করেছি, কোথায় তাকে টার্গেট করা যায়। তবে, দিনশেষে ব্যাপারটি হলো, মাঠে করে দেখাতে পারা। তাকে চাপে ফেলার চেষ্টা করা এবং তার বিরুদ্ধে ভিন্ন কিছু করাই থাকবে লক্ষ্য।” নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে মুস্তাফিজের একটি সুখস্মৃতিও আছে। টি-টোয়েন্টিতে তার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে। ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কলকাতায় ৫ উইকেট শিকার করেছিলেন তিনি ২২ রানে।

ইপিএল খেলবেনা রিয়াল মাদ্রিদ
                                  

স্পোর্টস ডেস্ক : কয়েক মাস আগে সুপার লিগ নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছিল ফুটবল বিশ্বের। ইউরোপের বিভিন্ন লিগের ১২টি ক্লাবকে নিয়ে এই টুর্নামেন্ট আয়োজনের মূল উদ্যোক্তা ছিল রিয়াল মাদ্রিদ। ওই রেশ না কাটতেই ক্লাবটিকে নিয়ে শুরু হয়েছে নতুন গুঞ্জন। স্প্যানিশ ক্লাবটি যোগ দিতে পারে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে, এমন খবর দেয় সংবাদ মাধ্যম মুন্দো দিপার্তিভো। কিন্তু ওই খবরকে পুরোপুরি ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। নিজেদের ওয়েবসাইটে এমন খবরের প্রতিবাদ জানিয়েছে তারা। রিয়াল মাদ্রিদ লিখেছে, ‘মুন্দো দেপোর্তিভোয় প্রতিবেদনে লেখা হয়েছে, আমাদের ক্লাব লা লিগা ছেড়ে প্রিমিয়ার লিগে যোগ দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করছে। এ বিষয়ে রিয়াল মাদ্রিদ নিশ্চিত করে বলতে চায় যে, এসব তথ্য পুরোপুরি মিথ্যা, হাস্যকর ও অবাস্তব। আমাদের ক্লাবের পথচলাকে কঠিন করে তুলতেই এসব বলা হচ্ছে।’ লা লিগার সঙ্গে সম্পর্কটা এমনিতে ভালো যাচ্ছে না রিয়াল মাদ্রিদের। শুরুতে ১২ দলকে নিয়ে সুপার লিগ আয়োজনের ব্যর্থ চেষ্টা চালায় ক্লাবটি। যেটি থেকে এখনো সরে আসেনি তারা। পরে লা লিগার ব্যবসায়িক স্বত্ত্ব বিক্রির চেষ্টায়ও বিপরীত অবস্থান নেয় রিয়াল। সবকিছু মিলিয়ে লা লিগার সঙ্গে রিয়ালের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হওয়ার ব্যাপারটি স্পষ্ট। এমন সময়ই গুঞ্জন ছড়ায় লা লিগা ছেড়ে প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেন্তিনো পেরেজের পছন্দের ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে যাচ্ছে রিয়াল। তবে সেটি একরকম উড়িয়েই দিলো মাদ্রিদের ক্লাবটি।

অশ্রুসিক্ত নয়নে মেসি বার্সাকে বিদায় জানালেন
                                  

স্পোর্টস রিপোর্টার : ২০০০ সাল থেকে ২০২১ সাল, মাঝে কেটে গেছে ২১টি বছর। দুই দশকেরও বেশি সময়ে বার্সেলোনাকে আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি এনে দিয়েছেন অনেক অর্জন। শেষ ১৭ মৌসুমে ৩৫টি শিরোপা জিতেছেন বার্সার পক্ষে। চারটি চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ে রয়েছে তার অবদান। লা লিগা ট্রফিতে চুমু দিয়েছেন দশবার। কোপা দেল রে সাতটি এবং আটবার স্প্যানিশ সুপার কাপে নিজের নাম লিখিয়েছেন। তিনটি করে উয়েফা সুপার কাপ ও ক্লাব বিশ্বকাপের খেতাব জিতেছেন। দীর্ঘ এই সম্পর্কের ইতি ঘটেছে গত ৫ আগস্ট। এরপর থেকে মেসি আর খেলবেন না বার্সেলোনার হয়ে। গত কদিন ধরে ভক্তরা অধীর অপেক্ষায় ছিলেন, মেসির বার্সা ছেড়ে যাচ্ছেন না এই কথাটা শোনার। তবে সব কিছুকে পেছনে ফেলে মেসি ছুটছেন নতুন গন্তব্যে, নতুন কিছু অর্জনের লক্ষ্যে। আজ রোববার বার্সেলোনায় শেষবারের মতো সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হয়েছেন এই কিংবদন্তী ফুটবলার। অশ্রুসিক্ত নয়নে বিদায়ী স্বারক পড়ে শুনিয়েছেন উপস্থিত সাংবাদিক, ক্লাব কর্তৃপক্ষ, পরিবার এবং টিভিসেটের সামনে থাকা কোটি সমর্থককে। এসময় অশ্রুসিক্ত নয়নে মঞ্চে প্রবেশ করেন। প্রথম সারিতে বসা স্ত্রীর কাছ থেকে টিস্যু নিয়ে চোখ মুছতে মুছতে শুরু করেন শেষ বার্তা। মেসি বলেছেন, “আমার জন্য বেশ কঠিন দিন। মোটেও প্রস্তুত ছিলাম না। আমার পরিবারও চাচ্ছিল, যেন আমি এখানেই থাকি। বার্সেলোনাতে শহরের সব কিছু অসাধারণ। আমাদের সব কিছু এখানটা ঘিরেই। জীবনের বেশিরভাগ সময় এখানে কাটিয়েছি। ২১ বছর। স্ত্রী ও ছোট তিনটি কাতালান আর্জেন্টাইন সন্তান নিয়ে চলে যাচ্ছি। এখন সময় এসেছে বিদায় বলার। ক্লাবের জন্য আমার অনেক শ্রদ্ধা-সম্মান রয়েছে। ভক্তদের থেকে অনেক ভালোবাসা পেয়েছি। মহামারীর কারণে ঠিক মতো সবাইকে বিদায় জানাতে পারছি না। তবে সবার প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। ক্লাবের জন্য আমি সব সময় নিজের সবটুকু দিতে প্রস্তুত আছি। যেকোনো পরিস্থিতিতে আমাকে পাশে পাবে।”

অলিম্পিকে ডাবল স্বর্ণ জিতলেন থম্পসন হেরা
                                  

স্পোর্টস রিপোর্টার : চলমান অলিম্পিক গেমসের ১০০ মিটার স্প্রিন্টে রেকর্ড গড়েই স্বর্ণপদক জিতেছিলেন এলেইন থম্পসন-হেরা। অসাধারণ পারফরম্যান্সের এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছেন ২০০ মিটার স্প্রিন্টেও। তাই অলিম্পিকে ‘ডাবল’এর দেখা পেলেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার ২১.৫৩ সেকেন্ড সময় নিয়ে ২০০ মিটারে দৌড় শেষ করেন তিনি। এই ইভেন্টে এটি তাঁর ব্যক্তিগত সেরা টাইমিং। রুপা জিতেছেন নামিবিয়ার ক্রিস্টিয়ান এমবোম্বা ২১.৮১ সেকেন্ড সময় নিয়ে। ব্রোঞ্জ জিতেছেন যুক্তরাষ্ট্রের গ্যাব্রিয়েলে টমাসের। আর জ্যামাইকার শেলি অ্যান ফ্রেজার চতুর্থ হয়েছেন। এর আগে ১০.৬১ সেকেন্ড সময় নিয়ে অলিম্পিকের ৩৩ বছরের পুরান রেকর্ড ভেঙে ১০০ মিটারে স্বর্ণ জিতেছিলেন থম্পসন-হেরা। ১০.৭৪ সেকেন্ড সময় নিয়ে রুপা জেতেন বেইজিং ও লন্ডন অলিম্পিকের দ্রুততম মানবী ফ্রেজার-প্রাইস। ১০০ মিটারে পদক বাইরে যেতে দেয়নি জ্যামাইকা। ব্রোঞ্জও জিতেছে তারা। জ্যামাইকান স্প্রিন্টার শেরিকা জ্যাকসন ১০.৭৬ সেকেন্ড সময় নিয়ে জিতেছেন ব্রোঞ্জ। এই ইভেন্টের তিনটি পদকই পায় জ্যামাইকা। তৃতীয় হয়েছেন শেরিকা জ্যাকসন। ২০০৮ সালে মেয়েদের এই ইভেন্টে তিনটি পদক পেয়েছিল জ্যামাইকা। ১৯৮৮ সালের সিউল অলিম্পিকে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরেন্স গ্রিফিথ-জয়নার ১০.৬২ সেকেন্ড সময় নিয়ে এতদিন অলিম্পিকসের রেকর্ড টাইমিংয়ের মালিক ছিলেন। জ্যামাইকার ম্যানচেস্টার প্যারিসে জন্ম থম্পসন-হেরাহর। প্রথমে ক্রিস্টিয়ানা হাইস্কুল এবং পরে ম্যানচেস্টার হাইস্কুলে পড়াকালীন দৌড়ে হাতেখড়ি। প্রথমে তিনি স্প্রিন্টার ছিলেন না, দূরপাল্লার দৌড়েই বেশি আগ্রহ ছিল তাঁর। পরে স্প্রিন্টার হিসেবে গড়ে ওঠেন তিনি।

শ্রীলঙ্কা দলে নতুন ৩ মুখ
                                  

স্পোর্টস ডেস্ক : এক বছর পর সীমিত ওভারের দলে ডাক পেয়েছেন পেসার লাহিরু কুমারা। ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য শ্রীলঙ্কা দলে ডাক পেয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা লাহিরু উদারা, শিরান ফার্নান্দো ও ইশান জয়ারত্নে। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু হবে আগামী রোববার। এরপর মাঠে গড়াবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ। দুটি সিরিজের জন্য শুক্রবার ২৪ সদস্যের দল ঘোষণা করে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড। দলে জায়গা ধরে রেখেছেন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে অভিষিক্ত ধনাঞ্জয়া লাকশান ও প্রাভিন জয়াবিক্রমা। লাহিরু কুমারা শ্রীলঙ্কার হয়ে সবশেষ সাদা বলের ক্রিকেটে খেলেছেন গত বছরের মার্চে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে। এছাড়াও দলে ফিরেছেন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ভানুকা রাজাপাকসে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার সবশেষ ম্যাচটিও ছিল গত বছরের শুরুতে, ভারতের বিপক্ষে। দুই ফরম্যাটেই দলকে নেতৃত্ব দিবেন দাসুন সানাকা। সহ-অধিনায়ক হিসেবে থাকবেন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। চোটের কারনে ছিটকে গেছেন কুসল পেরেরা। গোড়ালির চোট থেকে সেরে ওঠার পথে থাকা বাঁহাতি পেসার বিনুরা ফার্নান্দো খেলবেন শুধুমাত্র টি-টোয়েন্টি সিরিজে। প্রাথমিক সূচি অনুযায়ী, গত ১৩ জুলাই প্রথম ওয়ানডে হওয়ার কথা ছিল। তবে শ্রীলঙ্কা দলের ব্যাটিং কোচ গ্রান্ট ফ্লাওয়ার ও অ্যানালিস্ট জিটি নিরোশানের শরীরে কোভিড-১৯ শনাক্ত হওয়ার পর দুটি সিরিজ পিছিয়ে যায়।সবকটি ম্যাচ হবে কলম্বোতে। ওয়ানডে সিরিজ শেষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে শুরু হবে ২৫ জুলাই থেকে।

‎র‍্যাঙ্কিংয়ে টাইগারদের উন্নতি
                                  

স্পোর্টস রিপোর্টার : জিম্বাবুয়ে সফরে একমাত্র টেস্টে বড় জয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মেহেদী হাসান মিরাজ। তাদেরকে যোগ্য সঙ্গ দেন লিটন দাস আর তাসকিন আহমেদও। দারুণ পারফরম্যান্সের স্বীকৃতি বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা পেয়েছেন র‍্যাঙ্কিংয়ে। সদ্য প্রকাশিত আইসিসি ‎র‍্যাঙ্কিংয়ে টেস্ট ব্যাটসম্যানদের তালিকায় ১৯ ধাপ এগিয়েছেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ। হারারেতে প্রথম ইনিংসে দল যখন মহাবিপাকে ছিল, তখন আট নম্বরে নেমে ক্যারিয়ারের সেরা ইনিংস খেলেন তিনি। ২৭৮ বলে অপরাজিত ১৫০ রানের সুবাদে তিনি আছেন ৪৪ নম্বরে। ওই ইনিংসেই অল্পের জন্য সেঞ্চুরি পাননি উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান লিটন। ১৪৭ বলে ৯৫ রান করায় ১৫ ধাপ উন্নতি হয়েছে তার।
তিনি আছেন ৫৫তম স্থানে। দ্বিতীয় ইনিংসে অভিষেক টেস্ট সেঞ্চুরির স্বাদ নেন ওপেনার সাদমান ইসলাম, টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান নাজমুল ইসলাম শান্ত পান ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। তবে তারা কেউই এখনও র‍্যাঙ্কিংয়ের সেরা একশতে ঢুকতে পারেননি।হারারে টেস্টে বাংলাদেশের পক্ষে বিদেশের মাটিতে সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড গড়েন মিরাজ। এই অফ স্পিনার ১৪৮ রানে শিকার করেন ৯ উইকেট (প্রথম ইনিংসে ৮২ রানে ৫ উইকেট, দ্বিতীয় ইনিংসে ৬৬ রানে ৪ উইকেট)। তাতে ছয় ধাপ এগিয়ে বোলারদের তালিকায় ২৪ নম্বরে উঠেছেন তিনি। নজরকাড়া বোলিংয়ে ৫ উইকেট নিয়ে ডানহাতি পেসার তাসকিনেরও উন্নতি হয়েছে ছয় ধাপ। তিনি আছেন ৮৯ নম্বরে। টেস্টে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ পাঁচে নেই কোনো পরিবর্তন। স্থানগুলো নিজেদের দখলে রেখেছেন যথাক্রমে কেইন উইলিয়ামসন, স্টিভেন স্মিথ, মার্নাস লাবুশেন, বিরাট কোহলি ও জো রুট। বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়েও প্যাট কামিন্স, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, টিম সাউদি, জশ হ্যাজেলউড ও নিল ওয়াগনার আগের মতোই আছেন সেরা পাঁচে। অলরাউন্ডারদের র‍্যাঙ্কিংয়েও শীর্ষস্থান নড়চড় হয়নি জেসন হোল্ডারের। বাংলাদেশের বাঁহাতি তারকা সাকিব আল হাসান আছেন পাঁচে।

মাহমুদউল্লাহর জন্য আলাদা চেষ্টা
                                  

স্পোর্টস রিপোর্টার : হারারে টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা শেষে ড্রেসিংরুমে আকস্মিক অবসরের ঘোষণা দেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তার এই ইচ্ছার কথা জেনে দলের সবাই চমকে গিয়েছিলেন বলে দেশে ফিরে জানান ওপেনার সাদমান ইসলাম। এই টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে সেঞ্চুরি করা ব্যাটসম্যান বলেন, ম্যাচের পরের দিকে মাহমুদউল্লাহর জন্যই ভালো করার তাগিদ কাজ করেছে সবার ভেতর।একমাত্র টেস্টের সিরিজ শেষে সীমিত ওভারের সংস্করণে না থাকা ক্রিকেটাররা ফেরেন দেশে। সাদমান ছাড়াও ফিরেছেন টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক, নাজমুল হোসেন শান্ত, ইয়াসির আলি চৌধুরী, নাঈম হাসান ও সাইফ হাসান। তবে দুই পেসার আবু জায়েদ চৌধুরী রাহি আর ইবাদত হোসেনকে নেট বোলিংয়ে সহায়তার জন্য রেখে দেওয়া হয়েছে দলের সঙ্গে। হারারে টেস্টে প্রথম ইনিংসে ১৯২ রানে এগিয়ে থাকার পর ব্যাট করতে নেমে ১ উইকেটে আরও ২৮৪ রান করে ইনিংস ছেড়ে দেয় বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে ব্যর্থ টপ অর্ডার থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে আসে সব রান। প্রথম ইনিংসে ২৩ রান করা সাদমান দ্বিতীয় ইনিংসে অপরাজিত থাকেন ১১৫ রানে। পরে দল জিতেছে বড় ব্যবধানেই।
নিজের এই অর্জনকে দেখছেন স্বপ্ন পূরণের মতো, ‘সব ব্যাটসম্যানেরই তো স্বপ্ন থাকে প্রথম ১০০। ওইরকম প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম, আশায় ছিলাম যে ইনশাল্লাহ একদিন হবে। জিম্বাবুয়েতে সেরাটা দিতে পেরেছি তাই একটা ভালো ফল এসেছে। এটা দলের জন্যও ভালো হয়েছে, দল জিতেছে। জয় নিয়ে দেশে ফিরেছি।’এই টেস্টে বাংলাদেশের শুরুটা হয় বিপর্যয়ে। পরে ঘুরে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশই দেখায় দাপট।
শেষ দিনের শেষ সেশনের খানিক আগে আসে জয়। দলকে বিপর্যয় থেকে টেনে তোলার নায়ক মাহমুদউল্লাহ আচমকা নিজের বিদায় বলার পর পুরো ড্রেসিংরুমের আবহ বদলে যায়, সাদমান জানান পরে নিজেদের করণীয় ঠিক করেন তারা, ‘আমরা জানতাম না যে রিয়াদ ভাই এমন কিছু বলবেন। উনি বলার পর আমাদের ভালো করার ইচ্ছাটা আরও বেড়ে গিয়েছিল।

শিরোপা ম্যারাডোনাকে উৎসর্গ মেসির
                                  

স্পোর্টস ডেস্ক : ২৮ বছর পর কোপা আমেরিকা জিতে দীর্ঘ শিরোপা খরা ঘুচিয়েছে আর্জেন্টিনা। অনেক ব্যর্থতা, হতাশা, দুঃখ আর অপেক্ষার পর তারা আনন্দের অশ্রুতে ভেসেছে। ভীষণ আকাক্সিক্ষত এই অর্জনের পথে দলটিকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন লিওনেল মেসি। বাঁধভাঙা উল্লাস প্রকাশ করতে তিনি বেছে নিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইন্সটাগ্রামকে। সেখানে পরম ভালোবাসা ও শ্রদ্ধায় তিনি স্মরণ করেছেন প্রয়াত কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনাকেও। ১৯৮৬ সালে আর্জেন্টিনাকে একক নৈপুণ্যে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন বানিয়েছিলেন ম্যারাডোনা। সর্বকালের অন্যতম সেরা এই ফুটবলার গত ২৫ নভেম্বর পাড়ি জমান না ফেরার দেশে। কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে মাত্র ৬০ বছর বয়সে নিভে যায় তার জীবনপ্রদীপ। ম্যারাডোনার কথা উল্লেখের পাশাপাশি মেসি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তাদের প্রতি, যারা কঠিন সময়ে তাকে ও আর্জেন্টিনাকে সমর্থন যুগিয়েছেন। সতীর্থদের নৈপুণ্য নিয়ে গর্বিত রেকর্ড ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী এই তারকা আনন্দকে করোনাভাইরাস মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে শক্তিতে পরিণত করতেও চাইছেন। রবিবার মারাকানা স্টেডিয়ামে কোপার ফাইনালে স্বাগতিক ব্রাজিলকে ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় আর্জেন্টিনা। এতে অধরা আন্তর্জাতিক শিরোপা জয়ের স্বাদ পেয়েছেন বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে অজস্র রেকর্ডের মালিক মেসি। ইন্সটাগ্রামে তিনি লিখেছেন, ‘এটা ছিল অসাধারণ এক কোপা আমেরিকা। আমরা জানি, আমাদের আরও অনেক উন্নতি করার বাকি। তবে সত্যিটা হলো, ছেলেরা নিজেদের নিংড়ে দিয়েছে। দুর্দান্ত এই দলের অধিনায়ক হওয়ার সৌভাগ্য অর্জনের চেয়ে বেশি গর্বিত আমি আর হতে পারি না। এই সাফল্য আমি উৎসর্গ করতে চাই আমার পরিবারকে যারা আমাকে সবসময় এগিয়ে যাওয়ার শক্তি দিয়েছে, আমার বন্ধুদেরকে যাদের আমি অনেক বেশি ভালোবাসি এবং সর্বোপরি আর্জেন্টিনার সাড়ে চার কোটি মানুষকে যারা (করোনা) ভাইরাসের কারণে কঠিন সময় পার করছেন, বিশেষ করে, তাদেরকে যারা নিজেরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। এটা আপনাদের সবার জন্য। আর অবশ্যই এটা ডিয়েগোর জন্যও, তিনি যেখানেই থাকুন না কেন আমাদের সমর্থন দিয়েছেন। উদযাপনের মাঝে নিজেদের খেয়ালও রাখতে হবে আমাদের। ভুলে গেলে চলবে না যে, স্বাভাবিকতায় ফিরতে আরও অনেক সময় লাগবে। আমি আশা করছি, ভাইরাসটির বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়াই করার শক্তি অর্জনে আমরা এই আনন্দের সদ্ব্যবহার করতে পারব।’

ইউরোর রাজা এখন ইতালি
                                  

রাজিবুল ইসলাম : লুক শয়ের গোলে শুরুতেই এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড। তাদের জমাট রক্ষণ ভেঙে দ্বিতীয়ার্ধের মাঝামাঝি সময়ে লিওনার্দো বোনুচ্চির লক্ষ্যভেদে সমতা ফিরল ম্যাচে। বাকি সময়ে বারবার চেষ্টা চালিয়েও ইতালি গোল না পাওয়ায় ম্যাচ গড়াল টাইব্রেকারে। সেখানে গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি দোন্নারুমার বীরত্বে ইংলিশদের স্বপ্ন ভেঙে ৫৩ বছর পর ইউরো ২০২০-এর শিরোপা আজ্জুরিরা। ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে আসরের ফাইনালে পেনাল্টি শ্যুটআউটে ৩-২ ব্যবধানে জিতেছে রবার্তো মানচিনির দল। তিন বছর আগে বিশ্বকাপে উঠতে ব্যর্থ হওয়া দলটি ইউরোপের সেরা ফুটবল আসরে হয়েছে চ্যাম্পিয়ন। নির্ধারিত ৯০ মিনিটের পর অতিরিক্ত ৩০ মিনিটের খেলাও শেষ হয়েছিল ১-১ সমতায়।টাইব্রেকারে ইতালির পক্ষে প্রথম শট নিয়ে জালে পাঠান দমেনিকো বেরার্দি। ইংল্যান্ডের হয়েও সফল কিক নেন হ্যারি কেইন। এরপর আন্দ্রেয়া বেলোত্তির শট ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক জর্ডান পিকফোর্ড। হ্যারি ম্যাগুইয়ার দ্বিতীয় শটেও গোল করলে এগিয়ে যায় ইংলিশরা। কিন্তু এই সুবিধা ধরে রাখতে পারেনি তারা। ইতালির বোনুচ্চি ও ফেদেরিকো বার্নারদেস্কি নিজ নিজ শটে নিশানা ভেদ করেন। এরপর জর্জিনহোর নেওয়া শেষ শটও আটকে দেন পিকফোর্ড। তবে তার দুটি সেভও ইংল্যান্ডকে জেতাতে পারেনি। কারণ, শেষ তিনটি স্পট-কিকেই গোল করতে ব্যর্থ হন তার সতীর্থরা।পেনাল্টি নিতেই নামা মার্কাস র?্যাশফোর্ডের শট দুর্ভাগ্যজনকভাবে পোস্টে লাগার পর দোন্নারুমা প্রথমে রক্ষা করেন একই কারণে মাঠে নামা জ্যাডন স্যাঞ্চোর শট। সবশেষে বুকায়ো সাকার শটও তিনি ঠেকিয়ে দিলে উল্লাসে মাতে ইতালিয়ানরা।ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ইতালির এটি দ্বিতীয় শিরোপা। শেষবার তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ১৯৬৮ সালে। মাঝে ২০০০ ও ২০১২ সালে ফাইনাল খেললেও রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল তাদের।অন্যদিকে, প্রথমবারের মতো আসরের ফাইনালে উঠেছিল ইংল্যান্ড। তবে ঘরের মাঠে (লন্ডনের ওয়েম্বলি) গ্যালারি ভর্তি দর্শকদের সামনে শেষ হাসি হাসতে পারেনি গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যরা। ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই এগিয়ে যায় ইংল্যান্ড। শুরুটা হয়তো এর চেয়ে ভালো হতে পারত না তাদের। পাল্টা আক্রমণে ডান প্রান্ত থেকে কিয়েরান ট্রিপিয়ার ক্রস ফেলেন ডি-বক্সের বামদিকে। ফাঁকায় থাকা আরেক ফুলব্যাক শ বল জালে জড়ান জোরালো শটে। ইউরোর ইতিহাসে ফাইনালের দ্রুততম গোল এটি (এক মিনিট ৫৭ সেকেন্ড)। পিছিয়ে পড়ে গুছিয়ে নেওয়ার চেষ্টায় থাকা ইতালি অষ্টম মিনিটে ভালো জায়গায় ফ্রি-কিক পায়। তবে ফরোয়ার্ড লরেঞ্জো ইনসিনিয়ে পরীক্ষায় ফেলতে পারেনি পিকফোর্ডকে। ২৮তম মিনিটে তার আরেকটি শট লক্ষ্য থাকেনি। ৩৫তম মিনিটে ডেকলান রাইসের চাপ এড়িয়ে একক নৈপুণ্যে আক্রমণে ওঠেন ইতালির ফেদেরিকো কিয়েসা। প্রতিপক্ষের আরেকটি চ্যালেঞ্জ সামলে ডি-বক্সের বাইরে থেকে তিনি যে শট নেন, তা অল্পের জন্য জালে পৌঁছায়নি। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে চিরো ইম্মোবিলের শট আটকে দেন ইংল্যান্ডের সেন্টার-ব্যাক জন স্টোনস। মার্কো ভেরাত্তির ফিরতি শট অনায়াসে লুফে নেন পিকফোর্ড। রক্ষণাত্মক কৌশল বেছে নেওয়া ইংল্যান্ড বিরতির পরও একই ধাঁচে খেলতে থাকে। ধার বাড়ানো ইতালির একের পর এক আক্রমণ রুখে দিতে থাকে তারা। তবে দ্বিতীয়ার্ধে স্কোরলাইনে ঠিকই সমতা ফেরে। ৫১তম মিনিটে ইনসিনিয়ে আরেকটি বিপজ্জনক ফ্রি-কিক কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন। ছয় মিনিট পর দুরূহ কোণ থেকে তার নেওয়ার শট ফিরিয়ে দেন ইংলিশ গোলরক্ষক। অসাধারণ খেলতে থাকা কিয়েসা বারবারই ভীতি ছড়াচ্ছিলেন। ৬২তম মিনিটে তার বাঁকানো গড়ানো শট ঝাঁপিয়ে রক্ষা করেন পিকফোর্ড। দুই মিনিট পর ম্যাচে প্রথমবার সামর্থ্যের ছাপ রাখতে হয় দোন্নারুমাকে। তিনি স্টোনসের হেড প্রতিহত করেন। ৬৭তম মিনিটে বোনুচ্চি শোধ করে দেন গোল। কর্নারে ভেরাত্তির হেড পিকফোর্ড পুরোপুরি বিপদমুক্ত করতে পারেননি। বল পোস্টে লেগে ফিরে আসার সময় গোলমুখ থেকে জালে জড়িয়ে ইতিহাসে ঠাঁই নেন বোনুচ্চি। ইউরোর ফাইনালে সবচেয়ে বেশি বয়সী গোলদাতা তিনি (৩৪ বছর ৭১ দিন)। নির্ধারিত সময়ের বাকি অংশে এবং অতিরিক্ত সময়ে ইতালি আক্রমণে এগিয়ে থাকলেও গোল আর করতে পারেনি। ইংল্যান্ড খোলস ছেড়ে পাল্টা আক্রমণে উঠলেও বিপজ্জনক পরিস্থিতি তৈরি করতে ব্যর্থ হয়। দুই দল একাধিক খেলোয়াড় বদল করলেও তাই স্কোরলাইনে পরিবর্তন আসেনি। পরে টাইব্রেকারে নায়ক বনে যান দোন্নারুমা।

সাকিবকে পেয়ে উচ্ছ্বসিত কোচ
                                  

স্পোর্টস রিপোর্টার : সাকিব আল হাসান দলে থাকা মানেই টিম ম্যানেজমেন্টের বড় স্বস্তি। অন্তত একাদশ বাছাইয়ে দলীয় সমন্বয়ের ভাবনায় গলদঘর্ম হতে হবে না! এবার সেই স্বস্তির সঙ্গে উচ্ছ্বাসও আছে রাসেল ডমিঙ্গোর। সাকিবের ভেতর যে তাড়না ও ক্ষুধা দেখতে পাচ্ছেন বাংলাদেশ কোচ, তাতে দারুণ কিছুর আশায় বুক বাঁধছেন তিনি। জিম্বাবুয়ে সফরের বাংলাদেশ দল ঘোষণার আগ পর্যন্ত ছিল কৌতূহল, সাকিব টেস্ট খেলবেন তো! গত এপ্রিলে শ্রীলঙ্কা সফরে টেস্ট সিরিজ খেলতে যাননি তিনি আইপিএল খেলার কারণে। আগেও টেস্ট থেকে বিরতি চেয়েছেন, টেস্টের প্রতি তার অনীহা নিয়ে নানা সময়ে শোনা গেছে অনেক গুঞ্জন। সেই কৌতূহল মিটেছে বেশ আগেই, এবার তিনি টেস্ট খেলছেন। সাকিব না থাকা মানে একই সঙ্গে একজন স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান ও স্পেশালিস্ট বোলারের অনুপস্থিতি।
একাদশ সাজানোয় তাই ভোগান্তি হয় বিস্তর। হারারে টেস্টে সেই ঝামেলায় পড়তে হচ্ছে না দলকে। তবে সাকিব এবার শুধু দলেই আছেন না, টেস্টের জন্য দারুণ মুখিয়ে আছে বলেও জানালেন ডমিঙ্গো। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সুপার লিগে না খেলে সাকিব যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে। সেখান থেকে দেশে না ফিরে সরাসরি যোগ দেন দলের সঙ্গে হারারেতে। বাংলাদেশ কোচ বললেন, দারুণ চাঙ্গা মনে হচ্ছে এই অলরাউন্ডারকে। “আবার টেস্ট ক্রিকেট খেলতে সাকিবকে ক্ষুধার্ত মনে হচ্ছে। বড় ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রে এটা সবসময় গুরুত্বপূর্ণ, টেস্টে ম্যাচে তাদের তাড়না ও মানসিকতা। তাকে ফিরে পাওয়া দারুণ।” “সে থাকলে দলের ব্যালান্স খুব ভালো হয়। সে শীর্ষ ছয়ে ব্যাট করে, মূল বোলারদেরও একজন। সব আন্তর্জাতিক দলই এমন একজনকে চায়। তাকে পাওয়া তাই সত্যিই দারুণ। এই সফরে সে প্রাণশক্তি ও মানসিকতা নিয়েও এসেছে।” জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের একমাত্র টেস্ট শুরু বুধবার থেকে।


   Page 1 of 192
     খেলাধূলা
বার্সার ক্ষতি ৪৮১ মিলিয়ন ইউরো
.............................................................................................
নতুন রাজা মেদভেদেভ
.............................................................................................
শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে টি-টোয়েন্টিতে দারুণ শুরু দক্ষিণ আফ্রিকার
.............................................................................................
ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় মাহমুদউল্লাহর
.............................................................................................
ফুটবলকে মানজুকিচের বিদায়
.............................................................................................
রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে হারাল বাংলাদেশ
.............................................................................................
মুস্তাফিজের জন্য ছক আকছে নিউজিল্যান্ড
.............................................................................................
ইপিএল খেলবেনা রিয়াল মাদ্রিদ
.............................................................................................
অশ্রুসিক্ত নয়নে মেসি বার্সাকে বিদায় জানালেন
.............................................................................................
অলিম্পিকে ডাবল স্বর্ণ জিতলেন থম্পসন হেরা
.............................................................................................
শ্রীলঙ্কা দলে নতুন ৩ মুখ
.............................................................................................
‎র‍্যাঙ্কিংয়ে টাইগারদের উন্নতি
.............................................................................................
মাহমুদউল্লাহর জন্য আলাদা চেষ্টা
.............................................................................................
শিরোপা ম্যারাডোনাকে উৎসর্গ মেসির
.............................................................................................
ইউরোর রাজা এখন ইতালি
.............................................................................................
সাকিবকে পেয়ে উচ্ছ্বসিত কোচ
.............................................................................................
কোপায় শিরোপায় নজর মেসির
.............................................................................................
মেসি জাদুতে সেমি-ফাইনালে আর্জেন্টিনা
.............................................................................................
জুভেন্টাসেই থাকছেন রোনালদো
.............................................................................................
কঠোর বিধিনিষেধেও চলবে ফুটবল
.............................................................................................
চিলিকে নিয়ে সতর্ক ব্রাজিল
.............................................................................................
পর্তুগালকে নিয়ে গর্বিত রোনালদো
.............................................................................................
মেসিকে চাপ দিচ্ছে বার্সা
.............................................................................................
বাছাই পর্বেই ব্যর্থ ফারাহ
.............................................................................................
মোরাতার পরিবারকে হুমকি
.............................................................................................
অলিম্পিকে রোমানের সঙ্গে দিয়াও
.............................................................................................
ওয়েলসকে হারিয়েই গ্রুপ সেরা ইতালি
.............................................................................................
জার্মানির কাছে হারল পর্তুগাল
.............................................................................................
উরুগুয়েকে হারালো আর্জেন্টিনা
.............................................................................................
অনিশ্চিত বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজ
.............................................................................................
আম্পায়ারিং তদন্তের নির্দেশ পাপনের
.............................................................................................
তুরস্ককে উড়িয়ে রেকর্ড গড়া জয়ে যাত্রা শুরু ইতালির
.............................................................................................
মুশফিক-মোসাদ্দেকে জয় আবাহনীর
.............................................................................................
হেরেও বুক চিতিয়ে খেলেছে বাংলাদেশের দল
.............................................................................................
দৈনিক পৌনে ২ লাখ চান হেরাথ
.............................................................................................
শেষ ষোলোতে জোকোভিচ
.............................................................................................
আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে জামাল ভূঁইয়ারা
.............................................................................................
বিশ্বকাপ আয়োজন করবে বাংলাদেশ
.............................................................................................
বৃষ্টিতে মাঠে জমলো হাঁটু পানি
.............................................................................................
ঝড়ো ব্যাটিংয়ে তামিমদের জয়
.............................................................................................
কাতারে গরমের সাথে যুদ্ধ ফুটবলারদের
.............................................................................................
শাস্তি পেলেন তামিম
.............................................................................................
অলিম্পিক নিশ্চিত হলো বাকীর
.............................................................................................
বড় ব্যবধানে শেষ ওয়ানডে হেরেছে টাইগাররা
.............................................................................................
সুপার লিগে শীর্ষে বাংলাদেশ
.............................................................................................
সৌদি সফর আটকে গেলো ফুটবলারদের
.............................................................................................
লা লিগা চ্যাম্পিয়ন আতলেতিকো
.............................................................................................
ফর্মে ফিরতে মরিয়া সাকিব
.............................................................................................
ফিলিস্তিনিদের পক্ষে দাঁড়ালেন মুশফিক
.............................................................................................
বাঁধন স্পোর্টিং ক্লাবের আয়োজনে ৪ দলীয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন
বাণিজ্যিক কার্যালয় : "রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্লেক্স"
(৬ষ্ঠ তলা), ২৮/১ সি, টয়েনবি সার্কুলার রোড,
মতিঝিল বা/এ ঢাকা-১০০০| জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা
ফোন নাম্বার : ০২-৪৭১২০৮০৫/৬, ০২-৯৫৮৭৮৫০
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, 01731800427
E-mail: dailyganomukti@gmail.com
Website : http://www.dailyganomukti.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop