ঢাকা ০৩:১৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪

অবন্তিকার আত্মহত্যা: জবির সেই সহকারী প্রক্টর দ্বীন ও আম্মান গ্রেপ্তার

গণমুক্তি রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ১০:৫২:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ মার্চ ২০২৪ ১৫৭ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি করা অবন্তি আত্মহননের ঘটনায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের তার সহপাঠী আম্মান সিদ্দিকী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৬ মার্চ) রাতে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার হাবিবুর রহমান। আম্মান সিদ্দিকী আর দ্বীন ইসলামকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তাদের কুমিল্লা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

শুক্রবার রাতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী ফাইরুজ অবন্তিকা তাদের কুমিল্লার বাসভবনে আত্মহত্যা করেন। আত্মহননের আগে নিজের ফেসবুক পেজে দীর্ঘ একটি লেখা পোস্ট করেন অবন্তিকা। সেখানে সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম ও সহপাঠী আম্মান সিদ্দিকীকে মৃত্যুর জন্য দায়ী করেন।

অবন্তি লেখেন, আমি যদি কখনো সুইসাইড করে মারা যাই তবে আমার মৃত্যুর জন্য একমাত্র দায়ী থাকবে আমার ক্লাসমেট আম্মান সিদ্দিকী, আর তার সহকারী হিসেবে তার সাথে ভালো সম্পর্ক থাকার কারণে তাকে সাপোর্টকারী জগন্নাথের সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম।

অবন্তিকার মৃত্যুর খবরের পর থেকে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। শনিবার সকাল থেকে ক্যাম্পাসে ছিলো উত্তাল। প্রতিবাদ মুখর ক্যাম্পাসে আম্মার ও সহকারী প্রক্টরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়ে বিক্ষোভ দেখানো হজয়।

এ ঘটনায় জবির সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামকে সাময়িক অব্যাহতি ও শিক্ষার্থী আম্মান সিদ্দিকীকে সাময়িক বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

অবন্তিকার আত্মহত্যা: জবির সেই সহকারী প্রক্টর দ্বীন ও আম্মান গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : ১০:৫২:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ মার্চ ২০২৪

 

দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি করা অবন্তি আত্মহননের ঘটনায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের তার সহপাঠী আম্মান সিদ্দিকী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৬ মার্চ) রাতে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার হাবিবুর রহমান। আম্মান সিদ্দিকী আর দ্বীন ইসলামকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তাদের কুমিল্লা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

শুক্রবার রাতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী ফাইরুজ অবন্তিকা তাদের কুমিল্লার বাসভবনে আত্মহত্যা করেন। আত্মহননের আগে নিজের ফেসবুক পেজে দীর্ঘ একটি লেখা পোস্ট করেন অবন্তিকা। সেখানে সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম ও সহপাঠী আম্মান সিদ্দিকীকে মৃত্যুর জন্য দায়ী করেন।

অবন্তি লেখেন, আমি যদি কখনো সুইসাইড করে মারা যাই তবে আমার মৃত্যুর জন্য একমাত্র দায়ী থাকবে আমার ক্লাসমেট আম্মান সিদ্দিকী, আর তার সহকারী হিসেবে তার সাথে ভালো সম্পর্ক থাকার কারণে তাকে সাপোর্টকারী জগন্নাথের সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম।

অবন্তিকার মৃত্যুর খবরের পর থেকে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। শনিবার সকাল থেকে ক্যাম্পাসে ছিলো উত্তাল। প্রতিবাদ মুখর ক্যাম্পাসে আম্মার ও সহকারী প্রক্টরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়ে বিক্ষোভ দেখানো হজয়।

এ ঘটনায় জবির সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামকে সাময়িক অব্যাহতি ও শিক্ষার্থী আম্মান সিদ্দিকীকে সাময়িক বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।