ঢাকা ০৩:১৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪

আত্মসমর্পণের পরই ৩ কর্মকর্তাকে মৃত্যুদণ্ড মিয়ানমার জান্তার

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:২৬:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ২০৩ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

সামরিক সূত্র  সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছে, লাউকাই শহরের কমান্ডারসহ তিন ব্রিগেডিয়ার জেনারেলকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে

 অন্য তিন ব্রিগেডিয়ার জেনারেলকে আত্মসমর্পণে তাদের ভূমিকার জন্য যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে

মিয়ানমারের উচ্চপদস্থ তিন কর্মকর্তাকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে জান্তা সরকার। ৩ কর্মকর্তা গত মাসে চীন সীমান্তের একটি কৌশলগত শহর আত্মসমর্পণের তত্ত্বাবধানে ছিলেন। সামরিক একটি সূত্রের বলাত দিয়ে সংবাদ সংস্থা এ খবর দিয়েছে।

বিগত কয়েক মাসের লড়াইয়ে গত জানুয়ারিতে শত শত সৈন্য অস্ত্র জমা দিয়ে শান রাজ্যের লাউকাই শহরটি তথাকথিত থ্রি ব্রাদারহুড অ্যালায়েন্সের কাছে হস্তান্তর করে। লড়াইয়ে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী অনেক অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ হারায়।

এই আত্মসমর্পণ গত কয়েক দশকের মধ্যে সামরিক বাহিনীর জন্য সবচেয়ে বড় একক ক্ষতিগুলোর একটি। এ ঘটনা সমর্থকদের মধ্যে জান্তা নেতৃত্ব নিয়ে আরও সমালোচনার জন্ম দেয়। জানা গিয়েছে, আত্মসমর্পণের পর অ্যালায়েন্সের পক্ষ থেকে অফিসার ও তাদের সৈন্যদের এলাকা ছেড়ে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়।

সামরিক সূত্র পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছে, লাউকাই শহরের কমান্ডারসহ তিন ব্রিগেডিয়ার জেনারেলকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

অপর সামরিক সূত্র দণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে। সূত্র দুটি জানায়, অন্য তিন ব্রিগেডিয়ার জেনারেলকে আত্মসমর্পণে তাদের ভূমিকার জন্য যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

থ্রি ব্রাদারহুড অ্যালায়েন্সের দখল করা সবচেয়ে বড় শহর লাউকাই। এ ব্রাদারহুড অ্যালায়েন্সের মধ্যে রয়েছে মিয়ানমার ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স আর্মি (এমএনডিএএ), আরাকান আর্মি (এএ) ও তা আং ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি (টিএনএলএ)।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

আত্মসমর্পণের পরই ৩ কর্মকর্তাকে মৃত্যুদণ্ড মিয়ানমার জান্তার

আপডেট সময় : ০৬:২৬:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

সামরিক সূত্র  সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছে, লাউকাই শহরের কমান্ডারসহ তিন ব্রিগেডিয়ার জেনারেলকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে

 অন্য তিন ব্রিগেডিয়ার জেনারেলকে আত্মসমর্পণে তাদের ভূমিকার জন্য যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে

মিয়ানমারের উচ্চপদস্থ তিন কর্মকর্তাকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে জান্তা সরকার। ৩ কর্মকর্তা গত মাসে চীন সীমান্তের একটি কৌশলগত শহর আত্মসমর্পণের তত্ত্বাবধানে ছিলেন। সামরিক একটি সূত্রের বলাত দিয়ে সংবাদ সংস্থা এ খবর দিয়েছে।

বিগত কয়েক মাসের লড়াইয়ে গত জানুয়ারিতে শত শত সৈন্য অস্ত্র জমা দিয়ে শান রাজ্যের লাউকাই শহরটি তথাকথিত থ্রি ব্রাদারহুড অ্যালায়েন্সের কাছে হস্তান্তর করে। লড়াইয়ে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী অনেক অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ হারায়।

এই আত্মসমর্পণ গত কয়েক দশকের মধ্যে সামরিক বাহিনীর জন্য সবচেয়ে বড় একক ক্ষতিগুলোর একটি। এ ঘটনা সমর্থকদের মধ্যে জান্তা নেতৃত্ব নিয়ে আরও সমালোচনার জন্ম দেয়। জানা গিয়েছে, আত্মসমর্পণের পর অ্যালায়েন্সের পক্ষ থেকে অফিসার ও তাদের সৈন্যদের এলাকা ছেড়ে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়।

সামরিক সূত্র পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছে, লাউকাই শহরের কমান্ডারসহ তিন ব্রিগেডিয়ার জেনারেলকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

অপর সামরিক সূত্র দণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে। সূত্র দুটি জানায়, অন্য তিন ব্রিগেডিয়ার জেনারেলকে আত্মসমর্পণে তাদের ভূমিকার জন্য যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

থ্রি ব্রাদারহুড অ্যালায়েন্সের দখল করা সবচেয়ে বড় শহর লাউকাই। এ ব্রাদারহুড অ্যালায়েন্সের মধ্যে রয়েছে মিয়ানমার ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স আর্মি (এমএনডিএএ), আরাকান আর্মি (এএ) ও তা আং ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি (টিএনএলএ)।