ঢাকা ০৩:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪

ঋণ খেলাপিদের বিচার চেয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ফটকে বিক্ষোভ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৪৬:২৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ২০২ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

এবারেই প্রথম বিক্ষোভ হলো ঋণখেলাপীদের বিচার চেয়ে। বাম গণতান্ত্রিক জোট খেলাপী ঋণ আদায় এবং দায়ীদের শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছে। এসময় বিদেশে পাচারের টাকা ফেরানোরও দাবি জানানো হয়।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধান ফটকের সামনে বিক্ষোভে সমাবেশে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি শাহ আলম, বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ও সিপিবির সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, বাসদের (মার্ক্সবাদী) সমন্বয়ক মাসুদ রানা, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) সাধারণ সম্পাদক বজলুর রশিদসহ বাম জোটের কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

ব্যাংকের টাকা লুটপাট ও অর্থ পাচারকারীদের শাস্তিসহ সরকারের পদত্যাগের দাবিতে নানা স্লোগান দেয়। এক ইসঙ্গে টাকার পাচারকারীর শাস্তি ও টাকা ফেরত আনা, বেনামি ঋণের সঙ্গে যুক্ত ব্যবসায়ী ও পরিচালকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা এবং আর্থিক ব্যবস্থাপনায় অনিয়ম দূর করার দাবি জানান।

এসময় রুহিন হোসেনের প্রিন্স বলেন, সরকার অনির্বাচিত। তারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়নি, এ সরকার পাল্টাতে হবে। সংসদে ব্যবসায়ীদের সংখ্যা বেড়েছে। তারা ক্ষমতায় থাকলে লুটপাট চালাবে। তাদের বিরুদ্ধে বিকল্প সংগ্রামের পথ তৈরি করতে হবে।

রুহীন বলেন, আগামী দুদক, এনবিআরের সামনে একই ধরণের সমাবেশ করার ঘোষণা দেন। একইভাবে নিত্যপণ্যসহ শিক্ষা, স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে বিকল্প পার্লামেন্ট বস নোর উদ্যোগের কথাও জানানো হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ঋণ খেলাপিদের বিচার চেয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ফটকে বিক্ষোভ

আপডেট সময় : ০৫:৪৬:২৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

এবারেই প্রথম বিক্ষোভ হলো ঋণখেলাপীদের বিচার চেয়ে। বাম গণতান্ত্রিক জোট খেলাপী ঋণ আদায় এবং দায়ীদের শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছে। এসময় বিদেশে পাচারের টাকা ফেরানোরও দাবি জানানো হয়।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধান ফটকের সামনে বিক্ষোভে সমাবেশে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি শাহ আলম, বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ও সিপিবির সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, বাসদের (মার্ক্সবাদী) সমন্বয়ক মাসুদ রানা, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) সাধারণ সম্পাদক বজলুর রশিদসহ বাম জোটের কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

ব্যাংকের টাকা লুটপাট ও অর্থ পাচারকারীদের শাস্তিসহ সরকারের পদত্যাগের দাবিতে নানা স্লোগান দেয়। এক ইসঙ্গে টাকার পাচারকারীর শাস্তি ও টাকা ফেরত আনা, বেনামি ঋণের সঙ্গে যুক্ত ব্যবসায়ী ও পরিচালকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা এবং আর্থিক ব্যবস্থাপনায় অনিয়ম দূর করার দাবি জানান।

এসময় রুহিন হোসেনের প্রিন্স বলেন, সরকার অনির্বাচিত। তারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়নি, এ সরকার পাল্টাতে হবে। সংসদে ব্যবসায়ীদের সংখ্যা বেড়েছে। তারা ক্ষমতায় থাকলে লুটপাট চালাবে। তাদের বিরুদ্ধে বিকল্প সংগ্রামের পথ তৈরি করতে হবে।

রুহীন বলেন, আগামী দুদক, এনবিআরের সামনে একই ধরণের সমাবেশ করার ঘোষণা দেন। একইভাবে নিত্যপণ্যসহ শিক্ষা, স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে বিকল্প পার্লামেন্ট বস নোর উদ্যোগের কথাও জানানো হয়।