ঢাকা ১১:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

এ মাসটিই দুর্দশার শেষ মাস: পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:৫৭:২৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২ ১৫০ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, অন্যান্য দেশের কারণে আমাদের তেল আমদানিতে অসুবিধা হচ্ছে। বিদ্যুতের ঘাটতি আছে। তবে এই মাসটিই দুর্দশার শেষ মাস। আগামী মাস থেকে আমরা উন্নয়নের পথে যাবো।

শুক্রবার দুপুরে সুনামগঞ্জ কেন্দ্রীয় কালীবাড়ি মন্দিরে শ্রীকৃষ্ণের শুভ আবির্ভাব তিথি ও জন্মাষ্টমীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী এ সময় বলেন, সংখ্যালঘু শব্দ আমরা ব্যবহার করি না। তবে বাস্তবিক কারণে এটা ব্যবহার করতে হয়। সংখ্যালঘু, সংখ্যাগুরু বলতে কিছু নাই। আমরা সবাই বাঙালি এবং বাংলাদেশের নাগরিক। ধর্ম যেমন প্রতিষ্ঠা পাবে, তেমনি সততা ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা পাবে। ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় অসাম্প্রদায়িকতা একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। জাতির পিতার নেতৃত্বে আমরা যেমন ঐক্যবদ্ধ ছিলাম। সেইভাবে বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাবো।

জেলা জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট গৌরাঙ্গ পদ দাসের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক চন্দন প্রসাদ রায়ের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, জেলা পরিষদের প্রশাসক নুরুল হুদা মুকুট, পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

এ মাসটিই দুর্দশার শেষ মাস: পরিকল্পনামন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৮:৫৭:২৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, অন্যান্য দেশের কারণে আমাদের তেল আমদানিতে অসুবিধা হচ্ছে। বিদ্যুতের ঘাটতি আছে। তবে এই মাসটিই দুর্দশার শেষ মাস। আগামী মাস থেকে আমরা উন্নয়নের পথে যাবো।

শুক্রবার দুপুরে সুনামগঞ্জ কেন্দ্রীয় কালীবাড়ি মন্দিরে শ্রীকৃষ্ণের শুভ আবির্ভাব তিথি ও জন্মাষ্টমীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী এ সময় বলেন, সংখ্যালঘু শব্দ আমরা ব্যবহার করি না। তবে বাস্তবিক কারণে এটা ব্যবহার করতে হয়। সংখ্যালঘু, সংখ্যাগুরু বলতে কিছু নাই। আমরা সবাই বাঙালি এবং বাংলাদেশের নাগরিক। ধর্ম যেমন প্রতিষ্ঠা পাবে, তেমনি সততা ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা পাবে। ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় অসাম্প্রদায়িকতা একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। জাতির পিতার নেতৃত্বে আমরা যেমন ঐক্যবদ্ধ ছিলাম। সেইভাবে বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাবো।

জেলা জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট গৌরাঙ্গ পদ দাসের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক চন্দন প্রসাদ রায়ের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, জেলা পরিষদের প্রশাসক নুরুল হুদা মুকুট, পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন প্রমুখ।