ঢাকা ১২:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::

কেএনএফ তাণ্ডব, বান্দরবানের পর্যটন ব্যবসায় ধ্বস

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৩৪:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০২৪ ১৩৯ বার পড়া হয়েছে

ফাইল ছবি

দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

কেএনএফের তান্ডবে স্থবির হয়ে গেছে বান্দরবানের পর্যটন বাণিজ্য। মোটা দাগের টাকা ব্যয় করে নানা রকমের স্থাপনা গড়ে তোলেন ব্যবসায়ীরা। এবারের লম্বা ছুটিতে বান্দরবান পর্যটকের পদচারণায় মুখ হয়ে ওঠবে এমন বুক ভরা প্রত্যাশা ছিল স্থানীয় পর্যটনশিল্পের সঙ্গে যুক্ত মানুষগুলোর।

কিন্তু সবুজ অরণ্যে তান্ডব চালাচ্ছে সশস্ত্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ)। এ কারণে পাহাড়ে তেমন জমবে না পহেলা বৈশাখ আর পার্বত্য এলাকার ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীদের সাংগ্রাইয়ের উৎসব। ঈদ ও পহেলা বৈশাখ মিলিয়ে লম্বা ছুটিতে প্রচুর পর্যটকের সমাগমের যে সম্ভাবনা উঁকি দিয়েছিলো বান্দরবানে সম্প্রতি কেএনএফের তান্ডবতায় সেই সম্ভাবনা আর থাকলো না।

 

নিরাপত্তার কারণে বান্দরবান বেড়ানোর পরিকল্পনা ছেঁটে ফেলে অন্যত্র যাবার পরিকল্পনা করেন পর্যটকরা। কবে নাগাদ বান্দরবানে পর্যটন পরিবেশ স্বাভাবিক হবে তা এখনই বলতে পারছে না সংশ্লিষ্টরা।

বিভিন্ন পার্বনের ছুটিতে সবুজ অরণ্য বান্দরবানে বেড়ানোর একটা প্যাকেজ আগে ভাগেই ঠিক করা থাকে। সে অনুযয়ী বিভিন্ন হোটেল-মোটেল আর রির্সোটগুলোয় বুকিং থাকে শতভাগ। গত ২ এপ্রিল থেকে বান্দরবানের একাধিক উপজেলায় সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) ব্যাংকে ডাকাতি, হামলা, অস্ত্র ও টাকা লুটের ঘটনায় দেশজুড়ে আতঙ্ক দেখা দেয়।

পাহাড়ে সাঁড়াশি অভিযান চালাচ্ছে যৌথ বাহিনী। এরই মধ্যে নারীসহ প্রায় অর্ধশতাধিক কেএনএফ সান্ত্রাসী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে।

এমন একটা টান টান উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে বান্দরবানের পর্যটন শিল্পের দরজা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। বরং পূর্ব থেকে যারা হোটেল বুকিং করেছেন, তারা বাতিল করে দিয়েছেন। যদিও প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, দীর্ঘ এই ছুটিতে পর্যটকদের ভ্রমণের জন্য নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা। এরপরও নৈসর্গিক সৌন্দর্যের বান্দরবানে পা বাড়ানোর সাহস পাচ্ছেন না পর্যটকরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

কেএনএফ তাণ্ডব, বান্দরবানের পর্যটন ব্যবসায় ধ্বস

আপডেট সময় : ০৩:৩৪:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০২৪

 

কেএনএফের তান্ডবে স্থবির হয়ে গেছে বান্দরবানের পর্যটন বাণিজ্য। মোটা দাগের টাকা ব্যয় করে নানা রকমের স্থাপনা গড়ে তোলেন ব্যবসায়ীরা। এবারের লম্বা ছুটিতে বান্দরবান পর্যটকের পদচারণায় মুখ হয়ে ওঠবে এমন বুক ভরা প্রত্যাশা ছিল স্থানীয় পর্যটনশিল্পের সঙ্গে যুক্ত মানুষগুলোর।

কিন্তু সবুজ অরণ্যে তান্ডব চালাচ্ছে সশস্ত্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ)। এ কারণে পাহাড়ে তেমন জমবে না পহেলা বৈশাখ আর পার্বত্য এলাকার ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীদের সাংগ্রাইয়ের উৎসব। ঈদ ও পহেলা বৈশাখ মিলিয়ে লম্বা ছুটিতে প্রচুর পর্যটকের সমাগমের যে সম্ভাবনা উঁকি দিয়েছিলো বান্দরবানে সম্প্রতি কেএনএফের তান্ডবতায় সেই সম্ভাবনা আর থাকলো না।

 

নিরাপত্তার কারণে বান্দরবান বেড়ানোর পরিকল্পনা ছেঁটে ফেলে অন্যত্র যাবার পরিকল্পনা করেন পর্যটকরা। কবে নাগাদ বান্দরবানে পর্যটন পরিবেশ স্বাভাবিক হবে তা এখনই বলতে পারছে না সংশ্লিষ্টরা।

বিভিন্ন পার্বনের ছুটিতে সবুজ অরণ্য বান্দরবানে বেড়ানোর একটা প্যাকেজ আগে ভাগেই ঠিক করা থাকে। সে অনুযয়ী বিভিন্ন হোটেল-মোটেল আর রির্সোটগুলোয় বুকিং থাকে শতভাগ। গত ২ এপ্রিল থেকে বান্দরবানের একাধিক উপজেলায় সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) ব্যাংকে ডাকাতি, হামলা, অস্ত্র ও টাকা লুটের ঘটনায় দেশজুড়ে আতঙ্ক দেখা দেয়।

পাহাড়ে সাঁড়াশি অভিযান চালাচ্ছে যৌথ বাহিনী। এরই মধ্যে নারীসহ প্রায় অর্ধশতাধিক কেএনএফ সান্ত্রাসী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে।

এমন একটা টান টান উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে বান্দরবানের পর্যটন শিল্পের দরজা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। বরং পূর্ব থেকে যারা হোটেল বুকিং করেছেন, তারা বাতিল করে দিয়েছেন। যদিও প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, দীর্ঘ এই ছুটিতে পর্যটকদের ভ্রমণের জন্য নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা। এরপরও নৈসর্গিক সৌন্দর্যের বান্দরবানে পা বাড়ানোর সাহস পাচ্ছেন না পর্যটকরা।