ঢাকা ০৪:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪

ক্ষমতাসীনদেও হাতে নারীরা নির্যাতিত হচ্ছে: রিজভী

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:০০:৪৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৮ মার্চ ২০২৪ ১৪৬ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

বাংলাদেশে নারী দিবস এমন এক সময় পালিত হচ্ছে, যখন বাংলাদেশে নারীরা ঘরে-বাইরে-কর্মস্থলে সর্বত্রই ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের হাতে নির্যাতিত-নিপীড়িত-লাঞ্ছিত-খুন খারাবির শিকার হচ্ছেন।

শুক্রবার (৮ মার্চ) নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের প্রসঙ্গ টেনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী এমন মন্তব্য করেন।

এ সময় তিনি বলেন, কর্তৃত্ববাদী শেখ হাসিনার গত ১৬ বছরের কুশাসনে সবচেয়ে বেশি লাঞ্ছিত ও অপমানিত হয়েছেন নারীরা।

রাজনৈতিক চরিত্র হারিয়ে আওয়ামী লীগ এবং তাদের অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা সারাদেশে ভয়ংকর নারী নিপীড়কের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, রাষ্ট্রক্ষমতার আশ্রয়, প্ররোচনায় এদের অসভ্যতা রুচিহীন বর্বর শক্তিতে পরিণত করেছে। বর্তমান নৈরাজ্যকর পরিস্থিতিতে শুধু রাত-বিরেতে নয়, দিনে দুপুরে পথ চলতে নারীরাসহ সাধারণ মানুষের গা ছমছম করে। নবধারার আওয়ামী বাকশালরাজ্যে নারী ও শিশুদের ওপর সহিংসতার মাত্রায় এখনো কোন ছেদ যতি টানা হয়নি, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় তা দিন দিন বেড়েই চলেছে।

এসময় দেশের সর্বাধিক জনপ্রিয় নেত্রী দেশের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে একজন মহীয়সী নারী বলে আখ্যায়িত করেন। যিনি বাংলাদেশ নারী সমাজের অগ্রগতিতে অসামান্য অবদান রেখেছেন।

তিনি বলেন, ফ্যাসিস্ট সরকার কাউকে মানুষ বলেই গণ্য করছে না। শেখ হাসিনার থাবা থেকে বর্তমানে একজন নোবেল লরিয়েটেরও রেহাই মিলছে না।

গত ১৫ বছরে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর একটি হামলার ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত কিংবা বিচার হয়নি। দেশে সংঘটিত একটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনারও বিচার হয়নি। ব্যাংক খেকোদের বিচার হয়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ক্ষমতাসীনদেও হাতে নারীরা নির্যাতিত হচ্ছে: রিজভী

আপডেট সময় : ০৯:০০:৪৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৮ মার্চ ২০২৪

 

বাংলাদেশে নারী দিবস এমন এক সময় পালিত হচ্ছে, যখন বাংলাদেশে নারীরা ঘরে-বাইরে-কর্মস্থলে সর্বত্রই ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের হাতে নির্যাতিত-নিপীড়িত-লাঞ্ছিত-খুন খারাবির শিকার হচ্ছেন।

শুক্রবার (৮ মার্চ) নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের প্রসঙ্গ টেনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী এমন মন্তব্য করেন।

এ সময় তিনি বলেন, কর্তৃত্ববাদী শেখ হাসিনার গত ১৬ বছরের কুশাসনে সবচেয়ে বেশি লাঞ্ছিত ও অপমানিত হয়েছেন নারীরা।

রাজনৈতিক চরিত্র হারিয়ে আওয়ামী লীগ এবং তাদের অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা সারাদেশে ভয়ংকর নারী নিপীড়কের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, রাষ্ট্রক্ষমতার আশ্রয়, প্ররোচনায় এদের অসভ্যতা রুচিহীন বর্বর শক্তিতে পরিণত করেছে। বর্তমান নৈরাজ্যকর পরিস্থিতিতে শুধু রাত-বিরেতে নয়, দিনে দুপুরে পথ চলতে নারীরাসহ সাধারণ মানুষের গা ছমছম করে। নবধারার আওয়ামী বাকশালরাজ্যে নারী ও শিশুদের ওপর সহিংসতার মাত্রায় এখনো কোন ছেদ যতি টানা হয়নি, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় তা দিন দিন বেড়েই চলেছে।

এসময় দেশের সর্বাধিক জনপ্রিয় নেত্রী দেশের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে একজন মহীয়সী নারী বলে আখ্যায়িত করেন। যিনি বাংলাদেশ নারী সমাজের অগ্রগতিতে অসামান্য অবদান রেখেছেন।

তিনি বলেন, ফ্যাসিস্ট সরকার কাউকে মানুষ বলেই গণ্য করছে না। শেখ হাসিনার থাবা থেকে বর্তমানে একজন নোবেল লরিয়েটেরও রেহাই মিলছে না।

গত ১৫ বছরে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর একটি হামলার ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত কিংবা বিচার হয়নি। দেশে সংঘটিত একটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনারও বিচার হয়নি। ব্যাংক খেকোদের বিচার হয়নি।