ঢাকা ০৪:২৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

খলিল ক্রেজের দিন শেষ, প্রতিকেজি মাংস ৬৯৫ টাকা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৩৪:৩৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪ ১৪২ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

২৫ রমজান পর্যন্ত ৫৯৫ টাকা কেজি দরে মাংস বিক্রির ঘোষণা দিলেও ১০ রমজান শেষ না হতেই ১০০ টাকা বাড়িয়ে প্রতিকেজি ৬৯৫ টাকা নির্ধারণ করেছে খলিলুর রহমান। বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সকাল থেকেই ৬৯৫ টাকা দরে গরুর মাংস বিক্রি করছে ঢাকার উত্তর শাহজাহানপুরের খলিলুর রহমান।

খলিলের দোকানে সরকারের নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে ৩০ টাকা বেশি ধরে মাংস বিক্রি করা হচ্ছে। সরকার নির্ধারিত খুচরা মূল্য ৬৬৪ দশমিক ৩৯ টাকা আর খলিলের দোকানে ৬৯৫ টাকা।

শুক্রবার (২২ মার্চ) ছটির দিনে উত্তর শাহজাহানপুরে খলিলের দোকানে সকাল থেকেই দীর্ঘ দেখা যায়। দূরদূরান্ত মাংস কিনতে আসা অনেক ক্রেতা মাংসের দাম ৬৯৫ টাকা হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেন।

গত ১৫ মার্চ গরুর মাংসসহ ২৯টি পণ্যের পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার। এতে বলা হয়েছে, প্রতি কেজি গরুর মাংসের উৎপাদন খরচ ৫৮৭ দশমিক ৫০ টাকা। উৎপাদক পর্যায়ে তা বিক্রি করতে হবে ৬০৫ দশমিক ১৩ টাকায়, পাইকারিতে ৬৩১ দশমিত ৬৯ টাকা এবং খুচরা বাজারে বিক্রি করতে হবে ৬৬৪ দশমিক ৩৯ টাকায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

খলিল ক্রেজের দিন শেষ, প্রতিকেজি মাংস ৬৯৫ টাকা

আপডেট সময় : ০৬:৩৪:৩৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪

 

২৫ রমজান পর্যন্ত ৫৯৫ টাকা কেজি দরে মাংস বিক্রির ঘোষণা দিলেও ১০ রমজান শেষ না হতেই ১০০ টাকা বাড়িয়ে প্রতিকেজি ৬৯৫ টাকা নির্ধারণ করেছে খলিলুর রহমান। বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সকাল থেকেই ৬৯৫ টাকা দরে গরুর মাংস বিক্রি করছে ঢাকার উত্তর শাহজাহানপুরের খলিলুর রহমান।

খলিলের দোকানে সরকারের নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে ৩০ টাকা বেশি ধরে মাংস বিক্রি করা হচ্ছে। সরকার নির্ধারিত খুচরা মূল্য ৬৬৪ দশমিক ৩৯ টাকা আর খলিলের দোকানে ৬৯৫ টাকা।

শুক্রবার (২২ মার্চ) ছটির দিনে উত্তর শাহজাহানপুরে খলিলের দোকানে সকাল থেকেই দীর্ঘ দেখা যায়। দূরদূরান্ত মাংস কিনতে আসা অনেক ক্রেতা মাংসের দাম ৬৯৫ টাকা হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেন।

গত ১৫ মার্চ গরুর মাংসসহ ২৯টি পণ্যের পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার। এতে বলা হয়েছে, প্রতি কেজি গরুর মাংসের উৎপাদন খরচ ৫৮৭ দশমিক ৫০ টাকা। উৎপাদক পর্যায়ে তা বিক্রি করতে হবে ৬০৫ দশমিক ১৩ টাকায়, পাইকারিতে ৬৩১ দশমিত ৬৯ টাকা এবং খুচরা বাজারে বিক্রি করতে হবে ৬৬৪ দশমিক ৩৯ টাকায়।