ঢাকা ০২:৫৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪

গণমানুষের স্বার্থ বিবেচনা করে কর্মসূচী দেবে জাতীয় পার্টি: জিএম কাদের

স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ০৭:২৯:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪ ১৬৩ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

সংসদে বিরোধী দলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, গণমানুষের স্বার্থ বিবেচনা করে কর্মসূচী দেবে জাতীয় পার্টি। কোন বিশেষ দলকে বাঁচাতে জাতীয় পার্টির রাজনীতি নয়। জাতীয় পার্টি নিজস্ব দর্শনে এগিয়ে যাবো। জনগণের আহিদা অনুযায়ী কর্মসূচী ঘোষণা করবো।

বুধবার জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে পার্টির প্রেসিডিয়াম ও সংসদ সদস্যদের যৌথ সভায় তিনি একথা বলেন।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই জাতীয় পার্টির কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। তবে এর আগেই জেলা ও উপজেলার কাউন্সিল সম্পন্ন করতে হবে। জাতীয় পার্টি বর্ধিত সভা, পার্টির ইফতার মাহফিল এবং বিভাগীয় পর্যায়ে সমাবেশ করবে করার কথাও জানান কাদের।

জাতীয় পার্টি মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় চীফ হুইপ মোঃ মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, জেলা-উপজেলার নেতৃবৃন্দ উপস্থিতে আগামী এপ্রিল মাসের মধ্যে কেন্দ্রীয় বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে জাতীয় পার্টির সার্বিক রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হবে।

আগামী আগস্টের মধ্যে ৩ থেকে ৫ সদস্যের ছোট ছোট কমিটি করে জেলায় জেলায় পাঠানো হবে। এসব কমিটি সাংগঠনিক শক্তি পর্যালোচনা করে কেন্দ্রে রিপোর্ট দেবে। আগস্টের মধ্যেই সকল জেলার সম্মেলন সম্পন্ন করা হবে। ১২ অক্টোবর জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত করার জন্য সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

অমার্জনীয় অপরাধের জন্য যারা বহিস্কার হয়েছেন তারা ব্যতিত অন্য বহিস্কৃতরা ক্ষমা চাইলে পার্টি চেয়ারম্যান যেন সহানুভূতির দৃষ্টিতে বিবেচনা করেন সে ব্যাপারে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানকে অনুরোধ করেন চুন্নু।

সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান, এই দলের রেজিস্ট্রিশন নম্বর ১২। এই দলের মার্কা লাঙ্গল। তথাকথিত সম্মেলন যারা করছে তারা ইতোমধ্যেই নির্বাচন কমিশনে চিঠি দিয়েছিল যে, জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও মহাসচিব কে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

নির্বাচন কমিশন তাদের চিঠিকে নাকোচ করে দিয়েছে। আমাদের দলের বাইরে কেউ যদি মহাসম্মেলনও করে সে বিষয়ে আমাদের বলার কিছু নেই। জাতীয় পার্টির নামে ব্রাকেটে যদি কেউ মই মার্কা, আম মার্কা, জাম মার্কা, বেগুন মার্কা করে, তাহলে করতেই পারে। সে ব্যাপারে আমাদের কোন বক্তব্য নেই।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

গণমানুষের স্বার্থ বিবেচনা করে কর্মসূচী দেবে জাতীয় পার্টি: জিএম কাদের

আপডেট সময় : ০৭:২৯:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪

 

সংসদে বিরোধী দলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, গণমানুষের স্বার্থ বিবেচনা করে কর্মসূচী দেবে জাতীয় পার্টি। কোন বিশেষ দলকে বাঁচাতে জাতীয় পার্টির রাজনীতি নয়। জাতীয় পার্টি নিজস্ব দর্শনে এগিয়ে যাবো। জনগণের আহিদা অনুযায়ী কর্মসূচী ঘোষণা করবো।

বুধবার জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে পার্টির প্রেসিডিয়াম ও সংসদ সদস্যদের যৌথ সভায় তিনি একথা বলেন।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই জাতীয় পার্টির কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। তবে এর আগেই জেলা ও উপজেলার কাউন্সিল সম্পন্ন করতে হবে। জাতীয় পার্টি বর্ধিত সভা, পার্টির ইফতার মাহফিল এবং বিভাগীয় পর্যায়ে সমাবেশ করবে করার কথাও জানান কাদের।

জাতীয় পার্টি মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় চীফ হুইপ মোঃ মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, জেলা-উপজেলার নেতৃবৃন্দ উপস্থিতে আগামী এপ্রিল মাসের মধ্যে কেন্দ্রীয় বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে জাতীয় পার্টির সার্বিক রাজনীতি নিয়ে আলোচনা হবে।

আগামী আগস্টের মধ্যে ৩ থেকে ৫ সদস্যের ছোট ছোট কমিটি করে জেলায় জেলায় পাঠানো হবে। এসব কমিটি সাংগঠনিক শক্তি পর্যালোচনা করে কেন্দ্রে রিপোর্ট দেবে। আগস্টের মধ্যেই সকল জেলার সম্মেলন সম্পন্ন করা হবে। ১২ অক্টোবর জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত করার জন্য সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

অমার্জনীয় অপরাধের জন্য যারা বহিস্কার হয়েছেন তারা ব্যতিত অন্য বহিস্কৃতরা ক্ষমা চাইলে পার্টি চেয়ারম্যান যেন সহানুভূতির দৃষ্টিতে বিবেচনা করেন সে ব্যাপারে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানকে অনুরোধ করেন চুন্নু।

সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান, এই দলের রেজিস্ট্রিশন নম্বর ১২। এই দলের মার্কা লাঙ্গল। তথাকথিত সম্মেলন যারা করছে তারা ইতোমধ্যেই নির্বাচন কমিশনে চিঠি দিয়েছিল যে, জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও মহাসচিব কে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

নির্বাচন কমিশন তাদের চিঠিকে নাকোচ করে দিয়েছে। আমাদের দলের বাইরে কেউ যদি মহাসম্মেলনও করে সে বিষয়ে আমাদের বলার কিছু নেই। জাতীয় পার্টির নামে ব্রাকেটে যদি কেউ মই মার্কা, আম মার্কা, জাম মার্কা, বেগুন মার্কা করে, তাহলে করতেই পারে। সে ব্যাপারে আমাদের কোন বক্তব্য নেই।