ঢাকা ১১:৪৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

চুক্তির পরও বাংলাদেশিদের হত্যা করা হচ্ছে: রিজভী

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:২৩:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ মার্চ ২০২৪ ১০০ বার পড়া হয়েছে

ছবি: সংগৃহীত

দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

তিন মাসে যে আমদানি করবেন, সেই আমদানি করার ক্ষমতা বাংলাদেশের এখন আর নেই। বাংলাদেশের মানুষ না খেয়ে থাকবে, খেতে পারবে না

সীমান্তে প্রতিদিন মৃত্যুর খবর পাওয়া যাচ্ছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রতিবাদ তো দূরে থাক, মাথা উঁচু করে কথা বলতে পারেন না। ভারতকে সব দেওয়া হলেও ন্যায্য অধিকার তিস্তার পানি, গঙ্গার পানি সেটা আনা সম্ভব হয়নি। তারপরও এত নতজানু কেন?

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী শনিবার (৩০ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মাননববন্ধনে এই মন্তব্য করেন। এসময় তিনি বলেন, সীমান্ত চুক্তির পরও ভারতের বিএসএফের সদস্যরা বাংলাদেশিদের হত্যা অব্যাহত রেখেছে।

যুবদল ও ছাত্রদলের সাবেক নেতাদের মানববন্ধনের আয়োজন করে।

এসময় রিজভী আরও বলেন, ব্রিকসের সদস্য হওয়ার জন্য ভারত বাংলাদেশকে নিয়ে কোনো কথা বলেনি। অথচ ভারত কথা বললেই বাংলাদেশ সদস্য হতে পারতো।

দেশের রিজার্ভের কথা উল্লেখ করে রিজভী বলেন, রিজার্ভ এখন ১৭ বিলিয়ন ডলার। যদিও কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে বলা হচ্ছে ১৯ বিলিয়ন ডলার। কিন্তু আইএমএফকে গোপনে একটি রিপোর্ট করতে হয়, সেখানে বলা হচ্ছে ১৭ বিলিয়ন ডলার।

রিজভী বলেন, তিন মাসে যে আমদানি করবেন, সেই আমদানি করার ক্ষমতা বাংলাদেশের এখন আর নেই। বাংলাদেশের মানুষ না খেয়ে থাকবে, খেতে পারবে না।

যুবদলের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা মোরতাজুল করিমের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বিএনপির চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান, যুবদলের সাবেক সহসভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর প্রমুখ বক্তব্য দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

চুক্তির পরও বাংলাদেশিদের হত্যা করা হচ্ছে: রিজভী

আপডেট সময় : ০৯:২৩:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ মার্চ ২০২৪

 

তিন মাসে যে আমদানি করবেন, সেই আমদানি করার ক্ষমতা বাংলাদেশের এখন আর নেই। বাংলাদেশের মানুষ না খেয়ে থাকবে, খেতে পারবে না

সীমান্তে প্রতিদিন মৃত্যুর খবর পাওয়া যাচ্ছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রতিবাদ তো দূরে থাক, মাথা উঁচু করে কথা বলতে পারেন না। ভারতকে সব দেওয়া হলেও ন্যায্য অধিকার তিস্তার পানি, গঙ্গার পানি সেটা আনা সম্ভব হয়নি। তারপরও এত নতজানু কেন?

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী শনিবার (৩০ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মাননববন্ধনে এই মন্তব্য করেন। এসময় তিনি বলেন, সীমান্ত চুক্তির পরও ভারতের বিএসএফের সদস্যরা বাংলাদেশিদের হত্যা অব্যাহত রেখেছে।

যুবদল ও ছাত্রদলের সাবেক নেতাদের মানববন্ধনের আয়োজন করে।

এসময় রিজভী আরও বলেন, ব্রিকসের সদস্য হওয়ার জন্য ভারত বাংলাদেশকে নিয়ে কোনো কথা বলেনি। অথচ ভারত কথা বললেই বাংলাদেশ সদস্য হতে পারতো।

দেশের রিজার্ভের কথা উল্লেখ করে রিজভী বলেন, রিজার্ভ এখন ১৭ বিলিয়ন ডলার। যদিও কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে বলা হচ্ছে ১৯ বিলিয়ন ডলার। কিন্তু আইএমএফকে গোপনে একটি রিপোর্ট করতে হয়, সেখানে বলা হচ্ছে ১৭ বিলিয়ন ডলার।

রিজভী বলেন, তিন মাসে যে আমদানি করবেন, সেই আমদানি করার ক্ষমতা বাংলাদেশের এখন আর নেই। বাংলাদেশের মানুষ না খেয়ে থাকবে, খেতে পারবে না।

যুবদলের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা মোরতাজুল করিমের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বিএনপির চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান, যুবদলের সাবেক সহসভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর প্রমুখ বক্তব্য দেন।