ঢাকা ০৩:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪

ঢাকায় ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের নির্দেশ মন্ত্রীর

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:০৩:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০২৪ ১১৬ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

রাতারাতি হাজারো ব্যাচারি চালিত রিকশা এবং ইজিবাইক ঢাকা শহর ছেয়ে গেছে। অথচ এসব অবৈধ যান চালানো হচ্ছে ডলার আনা বিদ্যুৎ দিয়ে

অবৈধ যানবাহন বন্ধে দুই সিটি মেয়র একমত হয়েছেন এবং এসব যানবাহনকে বিপদজ্জনক হিসাবে চিহ্নিক করেন

 

দেশের ২২টি মহাসড়কে নিষিদ্ধ থাকলেও রাজধানী ঢাকা এখন ছেয়ে গেছে ব্যাটারি চালিত অবৈধ রিকশায়। এক একটি রিকশা ১৯ ভোল্ট ব্যাটারি। যা চার্জ দিতে সময় লাগে কম পক্ষে ৬ ঘন্টা। এসব রিকশার অধিকাংশই চলে চোরাই বিদ্যুৎ দিয়ে। বিভিন্ন কায়দা-কানুন করে রাতের হাজারো রিকশা এবং ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক চার্জ দেওয়া হয়।

রাতারাতি হাজার হাজার ব্যাচারি চালিত রিকশা এবং ইজিবাইক ঢাকা শহরে ছেয়ে গেছে। অথচ এসব অবৈধ যান চালানো হচ্ছে ডলার আনা বিদ্যুৎ দিয়ে। রিকশা চালকেরা জানান, তারা এসব অবৈধ রিকশার চালানোর জন্য এলাকার প্রভাবশালীদের প্রতি মাসে ১২শ’ থেকে ১৫শ’ টাকা দিয়ে কার্ড নিতে থাকেন। এসব কার্ড থাকলে ট্রাফিক পুলিশ এসব অবৈধ যানবাহন আটক করে না।

ফলে ঢাকার অলিগলি নয়, সন্ধ্যার পর প্রধান রাস্তা দিয়েও অবৈধ এসব যান চলাচল করলেও ট্রাফিক পুলিশ কিছুই বলছে না।

অবশেষে এই বিপজ্জনক অবৈধ যানবাহন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন স্বয়ং সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, শুধু নিষেধাজ্ঞা নয়, এসব যানবাহন যেন চলতে না পারে, সেই ব্যবস্থা নিতে হবে।

এসব বিপদজনক ব্যাটারি চাীরত রিকশা প্রায় সময় ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটাচ্ছে। সব চেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এসবের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়ে বলেন, ব্যাটারিচালিত কোনও গাড়ি (তিন চাকার) যেন ঢাকা সিটিতে না চলে।

বুধবার (১৫ মে) ঢাকার বনানীতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কার্যালয়ে সড়ক পরিবহন উপদেষ্টা পরিষদের সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র ঢাকার মধ্যে অটোরিকশা বন্ধে সম্মতি জানান। সভায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, ভয়াবহ ব্যাপার যখন রিকশা চালকরা দুই পা উপরে তুলে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালায়। অনেক প্রতিবন্ধী আছেন, যারা চোখে কিছুটা কম দেখেন, তারাও এই রিকশা নিয়ে নেমে পড়েন।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম, সিদ্ধান্তে আসা দরকার যে, ঢাকায় ইজিবাইক বা অটোরিকশা চলবে না। এটি অত্যান্ত ঝুঁকিপূর্ণ।

সভায় বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাজাহান খান, সড়ক ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নূরী, বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ঢাকায় ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের নির্দেশ মন্ত্রীর

আপডেট সময় : ০৩:০৩:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০২৪

 

রাতারাতি হাজারো ব্যাচারি চালিত রিকশা এবং ইজিবাইক ঢাকা শহর ছেয়ে গেছে। অথচ এসব অবৈধ যান চালানো হচ্ছে ডলার আনা বিদ্যুৎ দিয়ে

অবৈধ যানবাহন বন্ধে দুই সিটি মেয়র একমত হয়েছেন এবং এসব যানবাহনকে বিপদজ্জনক হিসাবে চিহ্নিক করেন

 

দেশের ২২টি মহাসড়কে নিষিদ্ধ থাকলেও রাজধানী ঢাকা এখন ছেয়ে গেছে ব্যাটারি চালিত অবৈধ রিকশায়। এক একটি রিকশা ১৯ ভোল্ট ব্যাটারি। যা চার্জ দিতে সময় লাগে কম পক্ষে ৬ ঘন্টা। এসব রিকশার অধিকাংশই চলে চোরাই বিদ্যুৎ দিয়ে। বিভিন্ন কায়দা-কানুন করে রাতের হাজারো রিকশা এবং ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক চার্জ দেওয়া হয়।

রাতারাতি হাজার হাজার ব্যাচারি চালিত রিকশা এবং ইজিবাইক ঢাকা শহরে ছেয়ে গেছে। অথচ এসব অবৈধ যান চালানো হচ্ছে ডলার আনা বিদ্যুৎ দিয়ে। রিকশা চালকেরা জানান, তারা এসব অবৈধ রিকশার চালানোর জন্য এলাকার প্রভাবশালীদের প্রতি মাসে ১২শ’ থেকে ১৫শ’ টাকা দিয়ে কার্ড নিতে থাকেন। এসব কার্ড থাকলে ট্রাফিক পুলিশ এসব অবৈধ যানবাহন আটক করে না।

ফলে ঢাকার অলিগলি নয়, সন্ধ্যার পর প্রধান রাস্তা দিয়েও অবৈধ এসব যান চলাচল করলেও ট্রাফিক পুলিশ কিছুই বলছে না।

অবশেষে এই বিপজ্জনক অবৈধ যানবাহন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন স্বয়ং সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, শুধু নিষেধাজ্ঞা নয়, এসব যানবাহন যেন চলতে না পারে, সেই ব্যবস্থা নিতে হবে।

এসব বিপদজনক ব্যাটারি চাীরত রিকশা প্রায় সময় ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটাচ্ছে। সব চেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এসবের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়ে বলেন, ব্যাটারিচালিত কোনও গাড়ি (তিন চাকার) যেন ঢাকা সিটিতে না চলে।

বুধবার (১৫ মে) ঢাকার বনানীতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কার্যালয়ে সড়ক পরিবহন উপদেষ্টা পরিষদের সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র ঢাকার মধ্যে অটোরিকশা বন্ধে সম্মতি জানান। সভায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, ভয়াবহ ব্যাপার যখন রিকশা চালকরা দুই পা উপরে তুলে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালায়। অনেক প্রতিবন্ধী আছেন, যারা চোখে কিছুটা কম দেখেন, তারাও এই রিকশা নিয়ে নেমে পড়েন।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম, সিদ্ধান্তে আসা দরকার যে, ঢাকায় ইজিবাইক বা অটোরিকশা চলবে না। এটি অত্যান্ত ঝুঁকিপূর্ণ।

সভায় বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাজাহান খান, সড়ক ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নূরী, বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার উপস্থিত ছিলেন।