ঢাকা ০৫:০৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪

নগরবাসীর আকাঙ্ক্ষা পূরণের দীপ্ত শপথ টিটুর

গণমুক্তি রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৯:২৮:০৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১০ মার্চ ২০২৪ ১৮৯ বার পড়া হয়েছে

ফের ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত ইকরামুল হক টিটু : ছবি সংগ্রহ

দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

ময়মনসিংহ নগরবাসিন্দারা প্রাণ উজার করা ভালোবাসা দিয়েছেন। এই ভালোবাসার বন্ধনে চির ঋণী আমি। যে আশা-আকাক্সক্ষা নিয়ে আমাকে তারা নির্বাচিত করেছেন, নগরবাসীর সেই আশা পূরণে সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে কাজ করে যাবো, ইনশাল্লাহ।

টিটু মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সদ্য বিদায়ী মেয়র।

শনিবার ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে জয়লাভের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় একথা বলেন, নবনির্বাচিত মেয়র ইকরামুল হক টিটু। তার এই বিজয় নগরবাসীকে উৎসর্গ করেন।

এবারের ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচনে প্রচারণার শুরু থেকেই টিটুর জয়ের সম্ভবনা উঁকি দিয়েছিলো। নির্বাচনী প্রচারণায় নেমে মানুষের সঙ্গে মিশে গিয়ে তাদের নানা রকমের দাবি, পরামর্শ মাথা পেতে নিয়েছেন। শুধু একটি কথাই বলেছেন, নির্বাচিত হলে আপনাদের প্রত্যাশিত কাজ করতে চাই।

নারী-পুরুষ সবাই তাকে কায়মনোবাক্যে আর্শিবাদ করেছেন, পাশের থাকার অঙ্গিকার করে শক্তি যুগিয়েছেন।

অবশেষে শনিবার (৯ মার্চ) সেই দায়িত্বই পালন করলেন তারা। টিটুর গলায় পড়িয়ে দিলেন বিজয় মালা।

শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর টাউন হলে আঞ্চলিক নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন চৌধুরী ইভিএমে ১২৮ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শেষে ফলাফল ঘোষণা করেন।

তাতে ১২৮ কেন্দ্রে ইকরামুল হক টিটু টেবিল ঘড়ি প্রতীকে ১ লাখ ৩৯ হাজার ৬০৪ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হাতি প্রতীকের সাদেকুল হক খান মিল্কী টজু পেয়েছেন ৩৫ হাজার ৭৬৩ ভোট।

অপর তিন প্রার্থী ঘোড়া প্রতীকের এহতেশামুল আলম পেয়েছেন ১০ হাজার ৭৭৩ ভোট, হরিণ প্রতীকের রেজাউল হক পেয়েছেন ১ হাজার ৪৮৭ এবং জাতীয় পার্টির শহীদুল ইসলাম লাঙল প্রতীকে পেয়েছেন ১ হাজার ৩২১ ভোট।

বিজয়ের পর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী তার সর্বপ্রথম কাজ হবে যানজট নিরসন, সড়ক প্রশস্থকরণ এবং বাসস্ট্যান্ড স্থানান্তর। নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসন এবং টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনার উদ্যোগ নেবার কথা জানান নবনির্বাচিত মেয়র।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

নগরবাসীর আকাঙ্ক্ষা পূরণের দীপ্ত শপথ টিটুর

আপডেট সময় : ০৯:২৮:০৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১০ মার্চ ২০২৪

 

ময়মনসিংহ নগরবাসিন্দারা প্রাণ উজার করা ভালোবাসা দিয়েছেন। এই ভালোবাসার বন্ধনে চির ঋণী আমি। যে আশা-আকাক্সক্ষা নিয়ে আমাকে তারা নির্বাচিত করেছেন, নগরবাসীর সেই আশা পূরণে সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে কাজ করে যাবো, ইনশাল্লাহ।

টিটু মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সদ্য বিদায়ী মেয়র।

শনিবার ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে জয়লাভের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় একথা বলেন, নবনির্বাচিত মেয়র ইকরামুল হক টিটু। তার এই বিজয় নগরবাসীকে উৎসর্গ করেন।

এবারের ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচনে প্রচারণার শুরু থেকেই টিটুর জয়ের সম্ভবনা উঁকি দিয়েছিলো। নির্বাচনী প্রচারণায় নেমে মানুষের সঙ্গে মিশে গিয়ে তাদের নানা রকমের দাবি, পরামর্শ মাথা পেতে নিয়েছেন। শুধু একটি কথাই বলেছেন, নির্বাচিত হলে আপনাদের প্রত্যাশিত কাজ করতে চাই।

নারী-পুরুষ সবাই তাকে কায়মনোবাক্যে আর্শিবাদ করেছেন, পাশের থাকার অঙ্গিকার করে শক্তি যুগিয়েছেন।

অবশেষে শনিবার (৯ মার্চ) সেই দায়িত্বই পালন করলেন তারা। টিটুর গলায় পড়িয়ে দিলেন বিজয় মালা।

শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর টাউন হলে আঞ্চলিক নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন চৌধুরী ইভিএমে ১২৮ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শেষে ফলাফল ঘোষণা করেন।

তাতে ১২৮ কেন্দ্রে ইকরামুল হক টিটু টেবিল ঘড়ি প্রতীকে ১ লাখ ৩৯ হাজার ৬০৪ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হাতি প্রতীকের সাদেকুল হক খান মিল্কী টজু পেয়েছেন ৩৫ হাজার ৭৬৩ ভোট।

অপর তিন প্রার্থী ঘোড়া প্রতীকের এহতেশামুল আলম পেয়েছেন ১০ হাজার ৭৭৩ ভোট, হরিণ প্রতীকের রেজাউল হক পেয়েছেন ১ হাজার ৪৮৭ এবং জাতীয় পার্টির শহীদুল ইসলাম লাঙল প্রতীকে পেয়েছেন ১ হাজার ৩২১ ভোট।

বিজয়ের পর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী তার সর্বপ্রথম কাজ হবে যানজট নিরসন, সড়ক প্রশস্থকরণ এবং বাসস্ট্যান্ড স্থানান্তর। নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসন এবং টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনার উদ্যোগ নেবার কথা জানান নবনির্বাচিত মেয়র।