ঢাকা ০৪:০২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

নাটোরে আহত উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে আইসিইউতে

স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় : ০৫:৩৯:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪ ৫৯ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

নাটোরে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে অপহরছ করে প্রচন্ড মারপিট করা হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) তার জ্ঞান ফেরেনি।

এদিন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আহত দেলোয়ার হোসেনের বড় ভাই এমদাদুল হক সাংবাদিকদের জানান, সোমবার দিবাগত রাত ২টা নাগাদ দেলোয়ার হোসেনকে আইসিইউতে নেওয়া হয়।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) রাতে দেলোয়ারের ভাই মজিবুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাত ২০-২৫ জনের বিরুদ্ধে নাটোর সদর থানায় মামলা করেন। এ ঘটনায় দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

সোমবার বিকেলে জেলা নির্বাচন অফিসের ভেতর থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে টেনেহিঁচড়ে বের করে একটি মাইক্রোবাসে তুলে অপহরণ করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। আশপাশ থেকে পাওয়া বেশ কয়েকটি সিসিটিভি ফুটেজ পুলিশ পর্যবেক্ষণ করছে।

অপর দিকে সোমবার সন্ধ্যায় এমদাদুল হক জানান, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলকের শ্যালক লুৎফুল হাবীব রুবেলের সন্ত্রাসী বাহিনীর মোহন ও তার লোকজন নির্বাচন অফিসের সামনে থেকে তার ভাই দেলোয়ারকে তুলে নিয়ে যায়। সেখান থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে দেলোয়ারকে প্রচন্ড মারপিট করে। শারীক অবস্থা অবণতি হলে প্রথমে নাটোর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউ বিভাগের প্রধান ডা. মো. আ. হ. ম. মোস্তফা কামাল বলেন, জানান আহত দেলোয়ার হোসেন আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন।

নাটোরের পুলিশ সুপার মোঃ তারিকুল ইসলাম পিপিএম বলেন, গতরাতে ভুক্তভোগীর ভাই মজিবর রহমান বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। সিসিটিভি ফুটেজ অ্যানালাইসিস করে রাতেই অভিযান চালিয়ে বাবু ও সুমন নামের দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অপহরণের কাজে ব্যবহৃত মাইক্রোবাসটির সন্ধান পাওয়া গেল কি না জানতে চাইলে পুলিশ সুপার বলেন, এখনো মাইক্রোবাসটিকে আমরা জব্দ করতে পারিনি। তবে লোকমুখে শোনা যাচ্ছে, গাড়িটি লুৎফুল হাবীব রুবেলের (একমাত্র প্রতিপক্ষ প্রার্থী)। গাড়িটি উদ্ধার করতে পারলে আমরা সত্যতা যাচাই করব।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

নাটোরে আহত উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে আইসিইউতে

আপডেট সময় : ০৫:৩৯:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

 

নাটোরে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে অপহরছ করে প্রচন্ড মারপিট করা হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) তার জ্ঞান ফেরেনি।

এদিন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আহত দেলোয়ার হোসেনের বড় ভাই এমদাদুল হক সাংবাদিকদের জানান, সোমবার দিবাগত রাত ২টা নাগাদ দেলোয়ার হোসেনকে আইসিইউতে নেওয়া হয়।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) রাতে দেলোয়ারের ভাই মজিবুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাত ২০-২৫ জনের বিরুদ্ধে নাটোর সদর থানায় মামলা করেন। এ ঘটনায় দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

সোমবার বিকেলে জেলা নির্বাচন অফিসের ভেতর থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে টেনেহিঁচড়ে বের করে একটি মাইক্রোবাসে তুলে অপহরণ করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। আশপাশ থেকে পাওয়া বেশ কয়েকটি সিসিটিভি ফুটেজ পুলিশ পর্যবেক্ষণ করছে।

অপর দিকে সোমবার সন্ধ্যায় এমদাদুল হক জানান, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলকের শ্যালক লুৎফুল হাবীব রুবেলের সন্ত্রাসী বাহিনীর মোহন ও তার লোকজন নির্বাচন অফিসের সামনে থেকে তার ভাই দেলোয়ারকে তুলে নিয়ে যায়। সেখান থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে দেলোয়ারকে প্রচন্ড মারপিট করে। শারীক অবস্থা অবণতি হলে প্রথমে নাটোর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউ বিভাগের প্রধান ডা. মো. আ. হ. ম. মোস্তফা কামাল বলেন, জানান আহত দেলোয়ার হোসেন আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন।

নাটোরের পুলিশ সুপার মোঃ তারিকুল ইসলাম পিপিএম বলেন, গতরাতে ভুক্তভোগীর ভাই মজিবর রহমান বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। সিসিটিভি ফুটেজ অ্যানালাইসিস করে রাতেই অভিযান চালিয়ে বাবু ও সুমন নামের দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অপহরণের কাজে ব্যবহৃত মাইক্রোবাসটির সন্ধান পাওয়া গেল কি না জানতে চাইলে পুলিশ সুপার বলেন, এখনো মাইক্রোবাসটিকে আমরা জব্দ করতে পারিনি। তবে লোকমুখে শোনা যাচ্ছে, গাড়িটি লুৎফুল হাবীব রুবেলের (একমাত্র প্রতিপক্ষ প্রার্থী)। গাড়িটি উদ্ধার করতে পারলে আমরা সত্যতা যাচাই করব।