ঢাকা ০৩:৫৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

প্রচন্ড গরমে নিজেকে সুস্থ থাকতে কি যা করবেন, চলুন জেনে নিই

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:৫৪:৫৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল ২০২৪ ১১৫ বার পড়া হয়েছে

গরমের এসব খাবার শরীর ঠাণ্ডা রাখতে সহায়তা করে : ছবি সংগ্রহ

দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

কাঁচা আম খুবই ভালো পানিশূন্যতা দূর করার জন্য

আখের রস শরীরকে ঠান্ডা রাখতে খুবই কার্যকরী

বেলের শরবত পাকস্থলী ঠান্ডা রাখতে খুব কার্যকর

 

তীব্র গরমে বিপর্যস্ত জনজীবন। এ সময় শরীর থেকে অতিরিক্ত পানি ঘাম হয়ে বের হয়ে যায়। একারণে শরীরে সোডিয়াম ও পটাশিয়ামের ভারসাম্য দেখা দেয়। শরীরে অস্বস্তি, ক্লান্তির মতো একাধিক উপসর্গ দেখা দিয়ে থাকে। শরীর হাইড্রেটেড রাখতে পানি ও পানিযুক্ত খাবার কাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন পুষ্টিবিদরা।

এই খাবার গুলো শরীর ঠান্ডা রাখে এবং পানিশূণ্য দূর করতে সাহায্য করে। এর মধ্যে কাঁচা পেঁপে, পটোল, ধুন্দল, শসা, চিচিঙ্গা, গাজর, লাউ, পেঁপে, পালংশাক, টমেটো, শসায় পানির পরিমাণ বেশি থাকে।

পানি

পূর্ণবয়স্ক একজন নারী দিনে কমপক্ষে ২.৫-৩ লিটার, পূর্ণবয়স্ক পুরুষ ৩-৩.৫ লিটার সুপেয় পানের পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। এ ক্ষেত্রে কিডনি রোগীদের অবশ্যই ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করে পানির পরিমাণ নির্ধারণ করতে হবে।

গরমে লেবু বা ফলের শরবত খাওয়া উপকারী। ডাবের পানিও খুব দারুণ কার্যকর। এসব পানীয় খুব সহজেই শরীরের পানির চাহিদা পূরণ কওের থাকে। ডাবের পানি ও ফলের শরবত খেলে পানির পাশাপাশি প্রয়োজনীয় খনিজ লবণের চাহিদাও পূরণ হয়।

সবজি

কাঁচা পেঁপে, পটোল, ধুন্দল, শসা, চিচিঙ্গা, গাজর, লাউ, পেঁপে, পালংশাক, টমেটো, শসা ইত্যাদি সব্জিতে পানির পরিমাণ বেশি থাকে। এ কারণে পানিশূন্যতা দূর করতে পাতে রাখুন এই খাবার। এই গরমে পাতলা করে রান্না করা টক ডাল ও শজনে ডাল শরীর ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে।

মৌসুমি ফল

পানিশূন্যতা দূর করার কারিগর কাঁচা আম। কাঁচা আমে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম পাওয়া যায়। রয়েছে ভিটামিন সি ও ম্যাগনেশিয়ামও। এটি শরীর ঠান্ডা রাখতে সহায়তা করে।

ভিটামিন ও খনিজ লবণ থাকায় তরমুজ গরমে শরীর ঠান্ডা করতে সাহায্য করে। সঙ্গী করতে পারেন বাঙ্গিও। এটি খুবই পুষ্টিকর ফল, যা খুবই সহজলভ্য এবং দামেও তুলনামূলক হাতের নাগালে। শরীর ঠান্ডা রাখার অন্যতম হচ্ছে বাঙ্গি।

আখের রস

আখের রস শরীরের জন্য খুবই কার্যকরী। এটি শরীর ঠান্ডা রাখতে সহায়তা করে। আখের রসের সঙ্গে বিট লবণ, পুদিনাপাতা এবং লেবুর রস মিশিয়ে খেলে আরও বেশি স্বাদ ও পুষ্টি পাওয়া যায়।

বেলের শরবত কোষ্ঠকাঠিন্য দূর থেকে শুরু করে পাকস্থলী ঠান্ডা রাখতে বেলের শরবত খুব কার্যকর। এতে রয়েছে, বিটা-ক্যারোটিন, প্রোটিন, রিবোফ্লাভিন, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি১ এবং বি২, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম ও ফাইবার।

পুদিনার শরবত

শরীরকে ভেতর থেকে ঠান্ডা রাখতে এবং সতেজ অনুভূতির জন্য পুদিনার শরবত অতুলনীয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

প্রচন্ড গরমে নিজেকে সুস্থ থাকতে কি যা করবেন, চলুন জেনে নিই

আপডেট সময় : ০৭:৫৪:৫৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল ২০২৪

 

কাঁচা আম খুবই ভালো পানিশূন্যতা দূর করার জন্য

আখের রস শরীরকে ঠান্ডা রাখতে খুবই কার্যকরী

বেলের শরবত পাকস্থলী ঠান্ডা রাখতে খুব কার্যকর

 

তীব্র গরমে বিপর্যস্ত জনজীবন। এ সময় শরীর থেকে অতিরিক্ত পানি ঘাম হয়ে বের হয়ে যায়। একারণে শরীরে সোডিয়াম ও পটাশিয়ামের ভারসাম্য দেখা দেয়। শরীরে অস্বস্তি, ক্লান্তির মতো একাধিক উপসর্গ দেখা দিয়ে থাকে। শরীর হাইড্রেটেড রাখতে পানি ও পানিযুক্ত খাবার কাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন পুষ্টিবিদরা।

এই খাবার গুলো শরীর ঠান্ডা রাখে এবং পানিশূণ্য দূর করতে সাহায্য করে। এর মধ্যে কাঁচা পেঁপে, পটোল, ধুন্দল, শসা, চিচিঙ্গা, গাজর, লাউ, পেঁপে, পালংশাক, টমেটো, শসায় পানির পরিমাণ বেশি থাকে।

পানি

পূর্ণবয়স্ক একজন নারী দিনে কমপক্ষে ২.৫-৩ লিটার, পূর্ণবয়স্ক পুরুষ ৩-৩.৫ লিটার সুপেয় পানের পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। এ ক্ষেত্রে কিডনি রোগীদের অবশ্যই ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করে পানির পরিমাণ নির্ধারণ করতে হবে।

গরমে লেবু বা ফলের শরবত খাওয়া উপকারী। ডাবের পানিও খুব দারুণ কার্যকর। এসব পানীয় খুব সহজেই শরীরের পানির চাহিদা পূরণ কওের থাকে। ডাবের পানি ও ফলের শরবত খেলে পানির পাশাপাশি প্রয়োজনীয় খনিজ লবণের চাহিদাও পূরণ হয়।

সবজি

কাঁচা পেঁপে, পটোল, ধুন্দল, শসা, চিচিঙ্গা, গাজর, লাউ, পেঁপে, পালংশাক, টমেটো, শসা ইত্যাদি সব্জিতে পানির পরিমাণ বেশি থাকে। এ কারণে পানিশূন্যতা দূর করতে পাতে রাখুন এই খাবার। এই গরমে পাতলা করে রান্না করা টক ডাল ও শজনে ডাল শরীর ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে।

মৌসুমি ফল

পানিশূন্যতা দূর করার কারিগর কাঁচা আম। কাঁচা আমে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম পাওয়া যায়। রয়েছে ভিটামিন সি ও ম্যাগনেশিয়ামও। এটি শরীর ঠান্ডা রাখতে সহায়তা করে।

ভিটামিন ও খনিজ লবণ থাকায় তরমুজ গরমে শরীর ঠান্ডা করতে সাহায্য করে। সঙ্গী করতে পারেন বাঙ্গিও। এটি খুবই পুষ্টিকর ফল, যা খুবই সহজলভ্য এবং দামেও তুলনামূলক হাতের নাগালে। শরীর ঠান্ডা রাখার অন্যতম হচ্ছে বাঙ্গি।

আখের রস

আখের রস শরীরের জন্য খুবই কার্যকরী। এটি শরীর ঠান্ডা রাখতে সহায়তা করে। আখের রসের সঙ্গে বিট লবণ, পুদিনাপাতা এবং লেবুর রস মিশিয়ে খেলে আরও বেশি স্বাদ ও পুষ্টি পাওয়া যায়।

বেলের শরবত কোষ্ঠকাঠিন্য দূর থেকে শুরু করে পাকস্থলী ঠান্ডা রাখতে বেলের শরবত খুব কার্যকর। এতে রয়েছে, বিটা-ক্যারোটিন, প্রোটিন, রিবোফ্লাভিন, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি১ এবং বি২, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম ও ফাইবার।

পুদিনার শরবত

শরীরকে ভেতর থেকে ঠান্ডা রাখতে এবং সতেজ অনুভূতির জন্য পুদিনার শরবত অতুলনীয়।