ঢাকা ০৪:০১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪

বান্দরবানে পর্যটকদের ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:২৮:০২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪ ৯৮ বার পড়া হয়েছে

ছবি সংগ্রহ

দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

সম্প্রতি বান্দরবানের রুমা ও থানচিতে তিন ব্যাংক ও অস্ত্র লুট, ব্যাংক ম্যানেজার অপহরণের ঘটনায় জেলার রুমা, থানচি ও রোয়াংছড়িতে ডৌথবাহিনীর অভিযান চলছে। এই সময় উক্ত তিন উপজেলা তথা বান্দারবানে পর্যটকদের ভ্রমণ নিরুৎসাহিত করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন শুক্রবার (১২ এপ্রিল) বিকালে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান। ব্যাংক ডাকাতি, অস্ত্র ও অর্থ লুটের ঘটনায় বান্দরবানে সশস্ত্র সংগঠন কেএনএফের বিরুদ্ধে যৌথ বাহিনী এ অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

জেলা প্রশাসক বলেন, যৌথ বাহিনীর সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে। এসব এলাকার সব পর্যটন স্পটগুলোতে পর্যটকদের ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। রুমা উপজেলা প্রশাসন থেকে পর্যটক গাইড, পরিবহন মালিক ও হোটেল-মোটেল মালিক সমিতিকেও এ বিষয়ে নির্দেশনায় দেওয়া হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, যৌথ বাহিনীর অভিযানকালে রুমা উপজেলার পর্যটন এলাকাসমূহে যে কোনো ধরনের পর্যটক ভ্রমণ নিরুৎসাহিত করা হলো। ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করার পাশাপাশি পর্যটন সংশ্লিষ্টদের চারটি বিষয় মেনে চলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

রুমা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ দিদারুল আলমের স্বাক্ষর করা নির্দেশনায় বলা হয়েছে, যৌথ বাহিনীর অভিযানকালে কোনো হোটেল-মোটেলে পর্যটককে কক্ষ ভাড়া দেওয়া যাবে না। কোনো ট্যুরিস্ট গাইড পর্যটকদের কোনো পর্যটন কেন্দ্রে নিয়ে যেতে পারবে না। কোনো জিপ গাড়ি পর্যটকদের পর্যটক কেন্দ্রে নিয়ে যেতে পারবে না এবং নৌপথে কোনো পর্যটকদের পর্যটন কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া যাবে না।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বান্দরবানে পর্যটকদের ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে

আপডেট সময় : ১১:২৮:০২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪

 

সম্প্রতি বান্দরবানের রুমা ও থানচিতে তিন ব্যাংক ও অস্ত্র লুট, ব্যাংক ম্যানেজার অপহরণের ঘটনায় জেলার রুমা, থানচি ও রোয়াংছড়িতে ডৌথবাহিনীর অভিযান চলছে। এই সময় উক্ত তিন উপজেলা তথা বান্দারবানে পর্যটকদের ভ্রমণ নিরুৎসাহিত করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন শুক্রবার (১২ এপ্রিল) বিকালে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান। ব্যাংক ডাকাতি, অস্ত্র ও অর্থ লুটের ঘটনায় বান্দরবানে সশস্ত্র সংগঠন কেএনএফের বিরুদ্ধে যৌথ বাহিনী এ অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

জেলা প্রশাসক বলেন, যৌথ বাহিনীর সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে। এসব এলাকার সব পর্যটন স্পটগুলোতে পর্যটকদের ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। রুমা উপজেলা প্রশাসন থেকে পর্যটক গাইড, পরিবহন মালিক ও হোটেল-মোটেল মালিক সমিতিকেও এ বিষয়ে নির্দেশনায় দেওয়া হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, যৌথ বাহিনীর অভিযানকালে রুমা উপজেলার পর্যটন এলাকাসমূহে যে কোনো ধরনের পর্যটক ভ্রমণ নিরুৎসাহিত করা হলো। ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করার পাশাপাশি পর্যটন সংশ্লিষ্টদের চারটি বিষয় মেনে চলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

রুমা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ দিদারুল আলমের স্বাক্ষর করা নির্দেশনায় বলা হয়েছে, যৌথ বাহিনীর অভিযানকালে কোনো হোটেল-মোটেলে পর্যটককে কক্ষ ভাড়া দেওয়া যাবে না। কোনো ট্যুরিস্ট গাইড পর্যটকদের কোনো পর্যটন কেন্দ্রে নিয়ে যেতে পারবে না। কোনো জিপ গাড়ি পর্যটকদের পর্যটক কেন্দ্রে নিয়ে যেতে পারবে না এবং নৌপথে কোনো পর্যটকদের পর্যটন কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া যাবে না।