ঢাকা ১০:৪৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

বিএনপি নেতাকর্মীদের স্থায়ী ঠিকানা কারাগার: রিজভী

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:২৮:১৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ৪৫ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

বিএনপি নেতাকর্মীদের স্থায়ী ঠিকানা কারাগার বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বিএনপির জন্য দিনের আলো যেন নিষিদ্ধ, বিএনপির নেতাকর্মীরা মুক্ত বাতাস গ্রহণ করা থেকে নিষিদ্ধ। বিনা কারণে কারাগার এখন বিএনপির নেতাকর্মীদের স্থায়ী ঠিকানায় পরিণত হয়েছে।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জিয়া প্রজন্মদল কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে বিএনপির সকল রাজবন্দিদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে অবস্থান কর্মসূচিতে একথা বলেন রিজভী।

রিজভী বলেন, শেখ হাসিনা যেভাবেই হোক ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। শেখ হাসিনা আজকে বলেছেন, রাজবন্দী কেউ নেই। রাজনৈতিক কারণে কেউ বন্দি নেই। যারা কারাগারে বন্দি, তারা বিভিন্ন মামলার আসামি।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, বিএনপির নেতাকর্মীদেরকে কারাগারে ঢুকানো, ধরে ফেলা এই কর্মসূচি যেন শেখ হাসিনার শেষই হচ্ছে না। আমার মনে হয় শেখ হাসিনা একটা আতঙ্কে ভুগছেন। কারণ, শেখ হাসিনা জানেন তার কোনও জনসমর্থন নেই। জনসমর্থন না থাকলে সেই সরকাররা প্রচন্ড স্বেচ্ছাচারী হয়, ফ্যাসিস্ট হয়ে উঠে।

রিজভী আরও বলেন, বিএনপির ২৫ থেকে ২৬ হাজার নেতাকর্মী ডামি নির্বাচনের সময় প্রায় চারমাস কারাগারে ছিলেন। এখনও কয়েক হাজার নেতাকর্মী কারাগারে বন্দি। এর জবাব কি শেখ হাসিনা দিতে পারবেন? এর জবাব যদি শেখ হাসিনা দিতে পারতেন তাহলে তিনি অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন দিতেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বিএনপি নেতাকর্মীদের স্থায়ী ঠিকানা কারাগার: রিজভী

আপডেট সময় : ০৬:২৮:১৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪

 

বিএনপি নেতাকর্মীদের স্থায়ী ঠিকানা কারাগার বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বিএনপির জন্য দিনের আলো যেন নিষিদ্ধ, বিএনপির নেতাকর্মীরা মুক্ত বাতাস গ্রহণ করা থেকে নিষিদ্ধ। বিনা কারণে কারাগার এখন বিএনপির নেতাকর্মীদের স্থায়ী ঠিকানায় পরিণত হয়েছে।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জিয়া প্রজন্মদল কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে বিএনপির সকল রাজবন্দিদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে অবস্থান কর্মসূচিতে একথা বলেন রিজভী।

রিজভী বলেন, শেখ হাসিনা যেভাবেই হোক ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। শেখ হাসিনা আজকে বলেছেন, রাজবন্দী কেউ নেই। রাজনৈতিক কারণে কেউ বন্দি নেই। যারা কারাগারে বন্দি, তারা বিভিন্ন মামলার আসামি।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, বিএনপির নেতাকর্মীদেরকে কারাগারে ঢুকানো, ধরে ফেলা এই কর্মসূচি যেন শেখ হাসিনার শেষই হচ্ছে না। আমার মনে হয় শেখ হাসিনা একটা আতঙ্কে ভুগছেন। কারণ, শেখ হাসিনা জানেন তার কোনও জনসমর্থন নেই। জনসমর্থন না থাকলে সেই সরকাররা প্রচন্ড স্বেচ্ছাচারী হয়, ফ্যাসিস্ট হয়ে উঠে।

রিজভী আরও বলেন, বিএনপির ২৫ থেকে ২৬ হাজার নেতাকর্মী ডামি নির্বাচনের সময় প্রায় চারমাস কারাগারে ছিলেন। এখনও কয়েক হাজার নেতাকর্মী কারাগারে বন্দি। এর জবাব কি শেখ হাসিনা দিতে পারবেন? এর জবাব যদি শেখ হাসিনা দিতে পারতেন তাহলে তিনি অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন দিতেন।