ঢাকা ০১:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪

বিনা অর্থে মালদ্বীপ সামরিক সহায়তা দেবে চীন

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১২:৫৮:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪ ২০৬ বার পড়া হয়েছে

ছবি: এক্সের সৌজন্যে

দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

চীনের সঙ্গে নতুন চুক্তি করলো মালদ্বীপ। সোমবার করা চুক্তি অনুযায়ী বিনা অর্থে মালদ্বীপকে সামরিক সহায়তা দেবে চীন। দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক আরও গভীর করতেই এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ভারতের সঙ্গে দ্বন্দ্বের মধ্যেই প্রতিরক্ষা সহায়তা পেতে চীনের সঙ্গে নতুন চুক্তি করলো দেশটি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট হওয়ার পরই মোহামেদ মুইজ্জু প্রতিশ্রুতি দেন মালদ্বীপ থেকে দ্রুত ভারতীয় সেনাদের বের করার প্রক্রিয়া শুরু করবেন। এ জন্য সময়সীমাও বেঁধে দেন। সেই সময়সীমা না পেরুতেই চীন-মালদ্বীপের মধ্যে প্রতিরক্ষা চুক্তি হলো।

জানা গেছে, মালদ্বীপের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহামেদ ঘাসান মাউমুন চীনের আন্তর্জাতিক সামরিক সহায়তা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মেজর জেনারেল ঝাং বাউকুনের সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় সামরিক সহায়তা নিয়ে আলাপ হয় দুজনের মধ্যে। তখনই সহায়তা চুক্তিতে সই করেন তারা।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে এক টুইটের মাধ্যমে এই তথ্য শেয়ার করেন মালদ্বীপের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহামেদ ঘাসান মাউমুন। চুক্তিতে কী রয়েছে, তা প্রকাশ করা করেননি তিনি।

মালদ্বীপকে ১২টি পরিবেশবান্ধব অ্যাম্বুলেন্স উপহার দিয়েছে চীন। রোববার এই উপহারের সঙ্গে একটি চিঠিও পাঠানো হয়। মালদ্বীপে চীনের এসব কার্যক্রম নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি ভারত।

তবে মালদ্বীপের সঙ্গে টানাপোড়েনের মধ্যেই নিরাপত্তা বাড়াতে লাক্ষাদ্বীপে নতুন নৌঘাঁটি বানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। সম্প্রতি এক বিবৃতিতে ভারতের নৌবাহিনী জানায়, মালদ্বীপে চীনের ক্রমবর্ধমান উপস্থিতি নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। নতুন ঘাঁটিটি এই অঞ্চলে দিল্লির নজরদারি বাড়াতে সহায়তা করবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

বিনা অর্থে মালদ্বীপ সামরিক সহায়তা দেবে চীন

আপডেট সময় : ১২:৫৮:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪

 

চীনের সঙ্গে নতুন চুক্তি করলো মালদ্বীপ। সোমবার করা চুক্তি অনুযায়ী বিনা অর্থে মালদ্বীপকে সামরিক সহায়তা দেবে চীন। দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক আরও গভীর করতেই এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ভারতের সঙ্গে দ্বন্দ্বের মধ্যেই প্রতিরক্ষা সহায়তা পেতে চীনের সঙ্গে নতুন চুক্তি করলো দেশটি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট হওয়ার পরই মোহামেদ মুইজ্জু প্রতিশ্রুতি দেন মালদ্বীপ থেকে দ্রুত ভারতীয় সেনাদের বের করার প্রক্রিয়া শুরু করবেন। এ জন্য সময়সীমাও বেঁধে দেন। সেই সময়সীমা না পেরুতেই চীন-মালদ্বীপের মধ্যে প্রতিরক্ষা চুক্তি হলো।

জানা গেছে, মালদ্বীপের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহামেদ ঘাসান মাউমুন চীনের আন্তর্জাতিক সামরিক সহায়তা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মেজর জেনারেল ঝাং বাউকুনের সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় সামরিক সহায়তা নিয়ে আলাপ হয় দুজনের মধ্যে। তখনই সহায়তা চুক্তিতে সই করেন তারা।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে এক টুইটের মাধ্যমে এই তথ্য শেয়ার করেন মালদ্বীপের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহামেদ ঘাসান মাউমুন। চুক্তিতে কী রয়েছে, তা প্রকাশ করা করেননি তিনি।

মালদ্বীপকে ১২টি পরিবেশবান্ধব অ্যাম্বুলেন্স উপহার দিয়েছে চীন। রোববার এই উপহারের সঙ্গে একটি চিঠিও পাঠানো হয়। মালদ্বীপে চীনের এসব কার্যক্রম নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি ভারত।

তবে মালদ্বীপের সঙ্গে টানাপোড়েনের মধ্যেই নিরাপত্তা বাড়াতে লাক্ষাদ্বীপে নতুন নৌঘাঁটি বানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। সম্প্রতি এক বিবৃতিতে ভারতের নৌবাহিনী জানায়, মালদ্বীপে চীনের ক্রমবর্ধমান উপস্থিতি নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। নতুন ঘাঁটিটি এই অঞ্চলে দিল্লির নজরদারি বাড়াতে সহায়তা করবে।