ঢাকা ০৫:৩৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

মধুপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হলেন বিশিষ্ট সমাজসেবী অ্যাডভোকেট ইয়াকুব আলী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৩০:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ মে ২০২৪ ৭৪ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

মোঃ রুবেল মিয়া

অ্যাডভোকেট ইয়াকুব আলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচনের আগে চার বার শোলাকুড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন। এবারে ইউপি চেয়ারম্যান পদ ছেড়ে উপজেলা নির্বাচনে অংশ নিয়ে জয়লাভ করেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি শিক্ষকতাও করেছেন।

উপজেলা নির্বাচনের ১ম ধাপে টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় বুধবার। এদিন সকাল ৮টা থেকে টানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

নির্বাচনে আনারস প্রতীক নিয়ে অ্যাডভোকেট ইয়াকুব আলী পেয়েছেন ৭৩ হাজার ৩২৮ ভোট এবং নিকটতম প্রদিদ্বন্দ্বি মোঃ সরোয়ার আলম খান দোয়াত-কলম প্রতীকে পেয়েছেন ৫১ হাজার ৮৭ ভোট। ২২ হাজার ২৪১ ভোট বেশি পেয়ে অ্যাডভোকেট ইয়াকুব আলী বিজয়ী হয়েছেন।

৯০ দশকে বৃহত্তর মধুপুর-ধনবাড়ী নিয়ে গঠিত উপজেলায় পাহাড়ি অঞ্চলের সরকার পরিবার থেকে প্রথমবারের মতো আব্দুল বাছিদ সরকার মোমবাতি প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয় লাভ করেন।

নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তিনজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ছয়জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এ উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ৫৫ হাজার ২১৮ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের একজন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ২৭ হাজার ৪১৯ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ২৭ হাজার ৭৯৮ জন। মোট ভোটকেন্দ্র ছিল ৯০টি এবং ভোটকক্ষ ৬০৪টি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মধুপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হলেন বিশিষ্ট সমাজসেবী অ্যাডভোকেট ইয়াকুব আলী

আপডেট সময় : ০৫:৩০:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ মে ২০২৪

 

মোঃ রুবেল মিয়া

অ্যাডভোকেট ইয়াকুব আলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচনের আগে চার বার শোলাকুড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন। এবারে ইউপি চেয়ারম্যান পদ ছেড়ে উপজেলা নির্বাচনে অংশ নিয়ে জয়লাভ করেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি শিক্ষকতাও করেছেন।

উপজেলা নির্বাচনের ১ম ধাপে টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় বুধবার। এদিন সকাল ৮টা থেকে টানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

নির্বাচনে আনারস প্রতীক নিয়ে অ্যাডভোকেট ইয়াকুব আলী পেয়েছেন ৭৩ হাজার ৩২৮ ভোট এবং নিকটতম প্রদিদ্বন্দ্বি মোঃ সরোয়ার আলম খান দোয়াত-কলম প্রতীকে পেয়েছেন ৫১ হাজার ৮৭ ভোট। ২২ হাজার ২৪১ ভোট বেশি পেয়ে অ্যাডভোকেট ইয়াকুব আলী বিজয়ী হয়েছেন।

৯০ দশকে বৃহত্তর মধুপুর-ধনবাড়ী নিয়ে গঠিত উপজেলায় পাহাড়ি অঞ্চলের সরকার পরিবার থেকে প্রথমবারের মতো আব্দুল বাছিদ সরকার মোমবাতি প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয় লাভ করেন।

নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তিনজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ছয়জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এ উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ৫৫ হাজার ২১৮ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের একজন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ২৭ হাজার ৪১৯ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ২৭ হাজার ৭৯৮ জন। মোট ভোটকেন্দ্র ছিল ৯০টি এবং ভোটকক্ষ ৬০৪টি।