ঢাকা ১১:১৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

মানসিক ভারসাম্যহীন রোগীকে বাড়ি পৌঁছার দায়িত্ব নিলেন আব্দুল গনি ফিটু

আবুল হোসেন, নাচোল চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি 
  • আপডেট সময় : ০৪:১০:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৪৭ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আলহামদুলিল্লাহ্ গত চার বছরে শত শত বেওয়ারিশ রাস্তায় থাকা অসহায় মানসিক ভারসাম্যহীণ মানুষের সেবা দিয়ে আসছি l মানবিক বন্ধুদের সহযোগিতায় রাস্তায় থাকা অসহায় মানুষকে তুলে এনে তাদের পরিবারের খোঁজ করার পর ৪৭৫ জন শিশু সহ নারী পুরুষ কে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় তাদের পরিবারের আপনজনের কাছে পৌঁছে দিয়েছি।
রাস্তায় থাকা ঘা পচন ধরা পোকায় খাওয়া মানুষগুলিকে 20/25 দিন নিজের হেফাজতে রেখে পরম মমতায় পরিচর্যার মাধ্যমে পরিবারের খোঁজ না পাওয়া পর্যন্ত সেবা দিয়ে এখন পর্যন্ত ৪৭৫ জন মানুষকে পরিবারের কাছে পৌছে দেওয়া আমাদের জন্য বিশাল পাওয়া।আলহামদুলিল্লাহ ।

বাংলাদেশের বিভিন্ন শহর থেকে বাসা বাড়িতে কাজ করতে গিয়ে ছোট্ট ছোট্ট মেয়েগুলির হারিয়ে যাওয়ার সংখ্যা হাজার হাজার তাদের মধ্যে থেকে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার ১২ জন হারিয়ে যাওয়া বোনের পরিবারের খোঁজ পাওয়ার পর তাদের আপনজনের কাছে হস্তান্তর করেছি এরা ৩০ বছর ৪০ বছর ৫০ বছর পর্যন্ত হারিয়ে ছিল আরো ৫০ জন বোনের পরিবারের খোঁজ চলমান রয়েছে। বাংলাদেশের গ্রামগঞ্জ শহর থেকে হাজার হাজার মানসিক ভারসাম্যহীণ নারী পুরুষ হারিয়ে আছে এদের মধ্যে থেকে প্রায় ৬০০ জনের বেশী মানসিক ভারসাম্যহীণ মানুষকে আমরা দিনরাত খুঁজে চলেছি। আমাদের আশ্রয়ে সব সময় ৮/১০ জন বেওয়ারিশ মানসিক ভারসামহীন নারী পুরুষ থাকে তাদের পরিবারের খোঁজ চলমান।
৭ জন শারীরিক প্রতিবন্ধী ভাই বোনের কৃতিম পা সংযুক্ত করে দিয়েছি আলহামদুলিল্লাহ্।

আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানায় ( বেওয়ারিশ সেবা ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্টাতা) আমার মানবিক গুরু মানবিক শওকত ভাইকে।
আপনারা জেনে খুশী হবেন যে এই অসহায় মানসিক ভারসাম্যহীণ মানুষগুলোর জন্য অস্থায়ী ভাবে চারটি টিনসেড ঘর নির্মান করেছিলাম সেখানেই এই অসহায় মানুষগুলিকে রেখে সেবা দিয়ে আসছি কিন্তু এই টিনসেড ঘরে অসহায় মানসিক ভারসাম্যহীণ মানুষের সেবাদানে ভীষণ অসুবিধা হচ্ছে তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি পাঁচকাঠা জমি ক্রয় করবো এই মর্মে সহযোগিতা চেয়ে ফেসবুকে পোস্ট করি সেই পোস্ট ফেসবুকে দেখে আমাদের মানবিক কাজের খোঁজ খবর নিয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন একজন অষ্ট্রেলিয়া প্রবাসী মানবিক মহোদ্বয় স‍্যারের দেওয়া টাকায় দুইকাঠা জমি ক্রয় ও রেজিষ্টার সমপুর্ন করা হয়েছে গত২৫/০১/২০২৪তারিখে আলহামদুলিল্লাহ্।।

আরও তিনকাঠা জমি ক্রয় করতে মানবিক ভাই বোন বন্ধুদের সহযোগিতা কামনা করছি। আপনি/ আপনারা চাইলে এই মানবিক কাজে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। এখন পর্যন্ত যে সকল ভাই বোন বন্ধু এই আশ্রয়কেন্দ্র পরিচালনার জন্য অর্থ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন আপনাদের সকলের কাছে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাই মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে দোয়া করি যেন আপনাদের এই মানবিক কাজের সহযোগিতাকে কবুল করেন আমিন।
রাস্তায় থাকা এইসব ভাসমান মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষদের জন্য একটি আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণে আপনার/আপনাদের সহযোগিতা কামনা করছি। সবার প্রতি অনুরোধ যদি আপনার এলাকায় এমন কোন মানসিক ভারসাম্যহীণ মানুষকে দেখতে পেলে কিছু খাবার ও পোশাক দিবেন এবং তার বাড়ি পর্যন্ত পৌঁছে দিতে চেষ্টা করুন অথবা আমার সাথে যোগাযোগ করুন। রাস্তায় থাকা ভাসমান মানুষের জন্য মানবিক কাজে আপনাদের সাধ‍্যমত সহযোগিতা পাঠাইতে বিনিত অনুরোধ করা হ‌ইলো।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

মানসিক ভারসাম্যহীন রোগীকে বাড়ি পৌঁছার দায়িত্ব নিলেন আব্দুল গনি ফিটু

আপডেট সময় : ০৪:১০:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আলহামদুলিল্লাহ্ গত চার বছরে শত শত বেওয়ারিশ রাস্তায় থাকা অসহায় মানসিক ভারসাম্যহীণ মানুষের সেবা দিয়ে আসছি l মানবিক বন্ধুদের সহযোগিতায় রাস্তায় থাকা অসহায় মানুষকে তুলে এনে তাদের পরিবারের খোঁজ করার পর ৪৭৫ জন শিশু সহ নারী পুরুষ কে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় তাদের পরিবারের আপনজনের কাছে পৌঁছে দিয়েছি।
রাস্তায় থাকা ঘা পচন ধরা পোকায় খাওয়া মানুষগুলিকে 20/25 দিন নিজের হেফাজতে রেখে পরম মমতায় পরিচর্যার মাধ্যমে পরিবারের খোঁজ না পাওয়া পর্যন্ত সেবা দিয়ে এখন পর্যন্ত ৪৭৫ জন মানুষকে পরিবারের কাছে পৌছে দেওয়া আমাদের জন্য বিশাল পাওয়া।আলহামদুলিল্লাহ ।

বাংলাদেশের বিভিন্ন শহর থেকে বাসা বাড়িতে কাজ করতে গিয়ে ছোট্ট ছোট্ট মেয়েগুলির হারিয়ে যাওয়ার সংখ্যা হাজার হাজার তাদের মধ্যে থেকে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার ১২ জন হারিয়ে যাওয়া বোনের পরিবারের খোঁজ পাওয়ার পর তাদের আপনজনের কাছে হস্তান্তর করেছি এরা ৩০ বছর ৪০ বছর ৫০ বছর পর্যন্ত হারিয়ে ছিল আরো ৫০ জন বোনের পরিবারের খোঁজ চলমান রয়েছে। বাংলাদেশের গ্রামগঞ্জ শহর থেকে হাজার হাজার মানসিক ভারসাম্যহীণ নারী পুরুষ হারিয়ে আছে এদের মধ্যে থেকে প্রায় ৬০০ জনের বেশী মানসিক ভারসাম্যহীণ মানুষকে আমরা দিনরাত খুঁজে চলেছি। আমাদের আশ্রয়ে সব সময় ৮/১০ জন বেওয়ারিশ মানসিক ভারসামহীন নারী পুরুষ থাকে তাদের পরিবারের খোঁজ চলমান।
৭ জন শারীরিক প্রতিবন্ধী ভাই বোনের কৃতিম পা সংযুক্ত করে দিয়েছি আলহামদুলিল্লাহ্।

আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানায় ( বেওয়ারিশ সেবা ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্টাতা) আমার মানবিক গুরু মানবিক শওকত ভাইকে।
আপনারা জেনে খুশী হবেন যে এই অসহায় মানসিক ভারসাম্যহীণ মানুষগুলোর জন্য অস্থায়ী ভাবে চারটি টিনসেড ঘর নির্মান করেছিলাম সেখানেই এই অসহায় মানুষগুলিকে রেখে সেবা দিয়ে আসছি কিন্তু এই টিনসেড ঘরে অসহায় মানসিক ভারসাম্যহীণ মানুষের সেবাদানে ভীষণ অসুবিধা হচ্ছে তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি পাঁচকাঠা জমি ক্রয় করবো এই মর্মে সহযোগিতা চেয়ে ফেসবুকে পোস্ট করি সেই পোস্ট ফেসবুকে দেখে আমাদের মানবিক কাজের খোঁজ খবর নিয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন একজন অষ্ট্রেলিয়া প্রবাসী মানবিক মহোদ্বয় স‍্যারের দেওয়া টাকায় দুইকাঠা জমি ক্রয় ও রেজিষ্টার সমপুর্ন করা হয়েছে গত২৫/০১/২০২৪তারিখে আলহামদুলিল্লাহ্।।

আরও তিনকাঠা জমি ক্রয় করতে মানবিক ভাই বোন বন্ধুদের সহযোগিতা কামনা করছি। আপনি/ আপনারা চাইলে এই মানবিক কাজে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। এখন পর্যন্ত যে সকল ভাই বোন বন্ধু এই আশ্রয়কেন্দ্র পরিচালনার জন্য অর্থ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন আপনাদের সকলের কাছে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাই মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে দোয়া করি যেন আপনাদের এই মানবিক কাজের সহযোগিতাকে কবুল করেন আমিন।
রাস্তায় থাকা এইসব ভাসমান মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষদের জন্য একটি আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণে আপনার/আপনাদের সহযোগিতা কামনা করছি। সবার প্রতি অনুরোধ যদি আপনার এলাকায় এমন কোন মানসিক ভারসাম্যহীণ মানুষকে দেখতে পেলে কিছু খাবার ও পোশাক দিবেন এবং তার বাড়ি পর্যন্ত পৌঁছে দিতে চেষ্টা করুন অথবা আমার সাথে যোগাযোগ করুন। রাস্তায় থাকা ভাসমান মানুষের জন্য মানবিক কাজে আপনাদের সাধ‍্যমত সহযোগিতা পাঠাইতে বিনিত অনুরোধ করা হ‌ইলো।