ঢাকা ১১:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

মোজাম্বিকের উত্তর উপকূলে নৌকা ডুবে ৯০ জনের মৃত্যু

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৪১:২২ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ এপ্রিল ২০২৪ ৯৬ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

কলেরার কবল থেকে বাচতে বাসাবাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে যাবার সময় মোজাম্বিকের উত্তর উপকূলে নৌকা ডুবে ৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কলেরার গুজব ছড়িয়ে পড়ায় তারা একটি দ্বীপে আশ্রয় নিতে নৌকা যেগে যাবার সময় দুর্ঘটনার কবলে পড়েন।

মোজাম্বিকের উত্তর উপকূলে নৌকা ডুবে ৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে নৌকাটিতে ১৩০ জন ছিলেন। এরমধ্যে পাঁচজনকে জীবীত উদ্ধারের কথা জানান নামপুলা প্রদেশের কর্মকর্তারা।

সেখানকার একজন মন্ত্রী জানিয়েছেন, কলেরার প্রাদুর্ভাব থেকে বাঁচতে নিহতরা অন্য কোথাও পালিয়ে যাচ্ছিলেন। নিহতদের মধ্যে অনেক শিশু রয়েছে। অতিরিক্ত যাত্রী তোলার কারণে নৌকাটি ডুবে যায়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিওতে দেখা যায়, একটি সৈকতে বেশ কজনের মরদেহ পড়ে দেখা যায়।

নাম্পুলা প্রদেশের মন্ত্রী জেইমে নেটো বলেন, নৌকাটি অতিরিক্ত যাত্রী বহনের জন্য অনুপযুক্ত হওয়ায় ডুবে গেছে। এ দুর্ঘটনায় সেখানে ৯০ জন প্রাণ হারিয়েছেন। ভুক্তভোগীদের মধ্যে অনেক শিশুও রয়েছে।

ইউনিসেফের হিসেবে, চলামন প্রাদুর্ভাব গত ২৫ বছরের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ। ২০২৩ সালের অক্টোবর থেকে মোজাম্বিকে অন্তত ১৩ হাজার ৭০০ জন কলেরায় আক্রান্ত হয়েছে। এরমধ্যে ৩০ জন মারা গেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মোজাম্বিকের উত্তর উপকূলে নৌকা ডুবে ৯০ জনের মৃত্যু

আপডেট সময় : ১২:৪১:২২ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ এপ্রিল ২০২৪

 

কলেরার কবল থেকে বাচতে বাসাবাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে যাবার সময় মোজাম্বিকের উত্তর উপকূলে নৌকা ডুবে ৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কলেরার গুজব ছড়িয়ে পড়ায় তারা একটি দ্বীপে আশ্রয় নিতে নৌকা যেগে যাবার সময় দুর্ঘটনার কবলে পড়েন।

মোজাম্বিকের উত্তর উপকূলে নৌকা ডুবে ৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে নৌকাটিতে ১৩০ জন ছিলেন। এরমধ্যে পাঁচজনকে জীবীত উদ্ধারের কথা জানান নামপুলা প্রদেশের কর্মকর্তারা।

সেখানকার একজন মন্ত্রী জানিয়েছেন, কলেরার প্রাদুর্ভাব থেকে বাঁচতে নিহতরা অন্য কোথাও পালিয়ে যাচ্ছিলেন। নিহতদের মধ্যে অনেক শিশু রয়েছে। অতিরিক্ত যাত্রী তোলার কারণে নৌকাটি ডুবে যায়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিওতে দেখা যায়, একটি সৈকতে বেশ কজনের মরদেহ পড়ে দেখা যায়।

নাম্পুলা প্রদেশের মন্ত্রী জেইমে নেটো বলেন, নৌকাটি অতিরিক্ত যাত্রী বহনের জন্য অনুপযুক্ত হওয়ায় ডুবে গেছে। এ দুর্ঘটনায় সেখানে ৯০ জন প্রাণ হারিয়েছেন। ভুক্তভোগীদের মধ্যে অনেক শিশুও রয়েছে।

ইউনিসেফের হিসেবে, চলামন প্রাদুর্ভাব গত ২৫ বছরের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ। ২০২৩ সালের অক্টোবর থেকে মোজাম্বিকে অন্তত ১৩ হাজার ৭০০ জন কলেরায় আক্রান্ত হয়েছে। এরমধ্যে ৩০ জন মারা গেছেন।