ঢাকা ০৩:৪৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪

রমজানের আগেই বাড়ানো হচ্ছে বিদ্যুতের দাম

গণমুক্তি রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ০৬:০২:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৬৭ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

চলতি বছর বিদ্যুতে ভর্তুকি পরিমাণ গুণতে হবে প্রায় ৪৩ হাজার কোটি টাকা

রমজানের আগেই বিদ্যুতের দাম বাড়াচ্ছে সরকার। উৎপাদন খরচার সঙ্গে বিক্রির তফাত কমিয়ে আনার লক্ষ্যে প্রতি ইউনিটে বিদ্যুতের দাম ৩৪ থেকে ৭০ পয়সা করা হচ্ছে। মার্চের প্রথম সপ্তাহ থেকেই তা কার্যকর করা হবে।

কম বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের জন্য প্রতি ইউনিটে ৩৪ পয়সা এবং সর্বোচ্চ ব্যবহারকারীদের জন্য প্রতি ইউনিটে ৭০ পয়সা বাড়ানো হবে।

দাম কার্যকরের বিষয়ে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, মার্চের প্রথম সপ্তাহ থেকে বিদ্যুতের দাম সমন্বয় শুরু করা হবে। পরবর্তীতে ২/৩ বারে অল্প অল্প করে বিদ্যুতের দাম সমন্বয় করবে সরকার। বিদ্যুতের দাম বাড়ার গেজেট মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) মধ্যে প্রকাশ করা হবে।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর এ ঘোষণা দেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী। প্রতিমন্ত্রী বলেন, চলতি বছর বিদ্যুতে ভর্তুকি পরিমাণ গুণতে হবে প্রায় ৪৩ হাজার কোটি টাকা।

বিদ্যুতের পাশাপাশি পাইকারি পর্যায়ে গ্যাসের দামও মার্চের প্রথম সপ্তাহ থেকে সমন্বয় করা হবে। তবে বাসা বাড়িতে গ্যাসের দাম বাড়বে না।

প্রতিমন্ত্রী জানান, লাইফ লাইন গ্রা কের সংখ্যা ১ কোটি ৪০ লাখ। যারা ইউনিট প্রতি ৪ টাকা বিল দিয়ে থাকেন। যারা ওপরের দিকে রয়েছেন তাদেরকে ৭ টাকা করে পরিশোধ করতে হচ্ছে। প্রতি ইউনিট গ্যাসের গড়ে উৎপাদন ব্যয় ১২ টাকা। কাজেই সরকারকে একটি বড় অংশ ভর্তুকি দিতে হচ্ছে। আর এই ভর্তুকির পরিমাণ আরও বেড়েছে ডলারের দামের কারণে।

সরকারের ভর্তুকি গত বছর থেকে লাফিয়ে বাড়ছে। সময়মতো ধীরে ধীরে এটি সমন্বয় করতে চাই। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে, আগামী ৩ বছরে আমরা বিদ্যুতের দাম সমন্বয় করব। তাই সহনীয় পর্যায়ে যেন বিদ্যুতের দাম সমন্বয় হয়, আমরা সেই ব্যবস্থাই নিয়েছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

রমজানের আগেই বাড়ানো হচ্ছে বিদ্যুতের দাম

আপডেট সময় : ০৬:০২:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

চলতি বছর বিদ্যুতে ভর্তুকি পরিমাণ গুণতে হবে প্রায় ৪৩ হাজার কোটি টাকা

রমজানের আগেই বিদ্যুতের দাম বাড়াচ্ছে সরকার। উৎপাদন খরচার সঙ্গে বিক্রির তফাত কমিয়ে আনার লক্ষ্যে প্রতি ইউনিটে বিদ্যুতের দাম ৩৪ থেকে ৭০ পয়সা করা হচ্ছে। মার্চের প্রথম সপ্তাহ থেকেই তা কার্যকর করা হবে।

কম বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের জন্য প্রতি ইউনিটে ৩৪ পয়সা এবং সর্বোচ্চ ব্যবহারকারীদের জন্য প্রতি ইউনিটে ৭০ পয়সা বাড়ানো হবে।

দাম কার্যকরের বিষয়ে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, মার্চের প্রথম সপ্তাহ থেকে বিদ্যুতের দাম সমন্বয় শুরু করা হবে। পরবর্তীতে ২/৩ বারে অল্প অল্প করে বিদ্যুতের দাম সমন্বয় করবে সরকার। বিদ্যুতের দাম বাড়ার গেজেট মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) মধ্যে প্রকাশ করা হবে।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর এ ঘোষণা দেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী। প্রতিমন্ত্রী বলেন, চলতি বছর বিদ্যুতে ভর্তুকি পরিমাণ গুণতে হবে প্রায় ৪৩ হাজার কোটি টাকা।

বিদ্যুতের পাশাপাশি পাইকারি পর্যায়ে গ্যাসের দামও মার্চের প্রথম সপ্তাহ থেকে সমন্বয় করা হবে। তবে বাসা বাড়িতে গ্যাসের দাম বাড়বে না।

প্রতিমন্ত্রী জানান, লাইফ লাইন গ্রা কের সংখ্যা ১ কোটি ৪০ লাখ। যারা ইউনিট প্রতি ৪ টাকা বিল দিয়ে থাকেন। যারা ওপরের দিকে রয়েছেন তাদেরকে ৭ টাকা করে পরিশোধ করতে হচ্ছে। প্রতি ইউনিট গ্যাসের গড়ে উৎপাদন ব্যয় ১২ টাকা। কাজেই সরকারকে একটি বড় অংশ ভর্তুকি দিতে হচ্ছে। আর এই ভর্তুকির পরিমাণ আরও বেড়েছে ডলারের দামের কারণে।

সরকারের ভর্তুকি গত বছর থেকে লাফিয়ে বাড়ছে। সময়মতো ধীরে ধীরে এটি সমন্বয় করতে চাই। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে, আগামী ৩ বছরে আমরা বিদ্যুতের দাম সমন্বয় করব। তাই সহনীয় পর্যায়ে যেন বিদ্যুতের দাম সমন্বয় হয়, আমরা সেই ব্যবস্থাই নিয়েছি।