ঢাকা ০৯:৪৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::

রেললাইনে বাংলা ব্লকেড, ঢাকার সঙ্গে সারাদেশের ট্রেন যোগাযোগ অচল

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৩৯:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪ ৪৫ বার পড়া হয়েছে

কাওরান বাজারে রেললাইনে আন্দোলনকারীদের ব্লকেড

দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

সরকারি চাকরিতে সব গ্রেডে অযৌক্তিক ও বৈষম্যমূলক কোটা বাতিল করে এক দফা দাবি আদায়ে তৃতীয় দিনের মতো বাংলা ব্লকেড কর্মসূচি পালন করছে আন্দোলনকারীরা।

কাওরানবাজার রেলগেট ও মহাখালী রেলক্রসিংয়ে কাঠের গুঁড়ি ফেলে আন্দোলনকারীরা অবস্থানে নিলে ঢাকার সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

বুধবার (১০ জুলাই) বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন-এর ব্যানারে সকাল থেকে বিভিন্ন সড়ক ও রেলপথ ব্লক করেন শিক্ষার্থী এবং চাকরিপ্রার্থীরা।

কোটাবিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের চলমান বাংলা ব্লকেড কর্মসূচির মঙ্গলবার বিরতি দিয়ে বুধবার সকাল থেকে কর্মসূচি শুরু হয়। শাহবাগ, সায়েন্স ল্যাব, বাংলামোটর, ফার্মগেট, আগারগাঁও ও মহাখালীসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ব্লক করে দেয় শিক্ষার্থীরা।

কমলাপুর রেলস্টেশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফোরদৌস বলেন, দুপুর ১২টার পর কোটা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা রেললাইনে কাঠ ফেলে অবরোধ করে রেখেছে। রেললাইন অবরুদ্ধ থাকায় ঢাকার সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ সাময়িক বন্ধ রয়েছে।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা জানান, তাদের পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী আজ রেললাইন অবরুদ্ধ করা হয়েছে। দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। পর্যায়ক্রমে আন্দোলন আরও বেগবান হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ বিভাগের শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান তিশা বলেন, আমাদের যৌক্তিক আন্দোলন মানতে হবে। একটি স্বাধীন দেশে সরকারি চাকরিতে এত বৈষম্য থাকবে কেন? সংবিধান অনুযায়ী পিছিয়ে পড়া মানুষদের এগিয়ে নিতে কোটা পদ্ধতি। অথচ সরকার গোটা জাতিকে পিছিয়ে ফেলছে।

এদিন ঢাকার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ছাড়াও ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক ও দেশের বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়ক অবরোধ করে কর্মসূচি পালন করছে শিক্ষার্থীরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

রেললাইনে বাংলা ব্লকেড, ঢাকার সঙ্গে সারাদেশের ট্রেন যোগাযোগ অচল

আপডেট সময় : ০৪:৩৯:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪

 

সরকারি চাকরিতে সব গ্রেডে অযৌক্তিক ও বৈষম্যমূলক কোটা বাতিল করে এক দফা দাবি আদায়ে তৃতীয় দিনের মতো বাংলা ব্লকেড কর্মসূচি পালন করছে আন্দোলনকারীরা।

কাওরানবাজার রেলগেট ও মহাখালী রেলক্রসিংয়ে কাঠের গুঁড়ি ফেলে আন্দোলনকারীরা অবস্থানে নিলে ঢাকার সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

বুধবার (১০ জুলাই) বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন-এর ব্যানারে সকাল থেকে বিভিন্ন সড়ক ও রেলপথ ব্লক করেন শিক্ষার্থী এবং চাকরিপ্রার্থীরা।

কোটাবিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের চলমান বাংলা ব্লকেড কর্মসূচির মঙ্গলবার বিরতি দিয়ে বুধবার সকাল থেকে কর্মসূচি শুরু হয়। শাহবাগ, সায়েন্স ল্যাব, বাংলামোটর, ফার্মগেট, আগারগাঁও ও মহাখালীসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ব্লক করে দেয় শিক্ষার্থীরা।

কমলাপুর রেলস্টেশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফোরদৌস বলেন, দুপুর ১২টার পর কোটা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা রেললাইনে কাঠ ফেলে অবরোধ করে রেখেছে। রেললাইন অবরুদ্ধ থাকায় ঢাকার সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ সাময়িক বন্ধ রয়েছে।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা জানান, তাদের পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী আজ রেললাইন অবরুদ্ধ করা হয়েছে। দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। পর্যায়ক্রমে আন্দোলন আরও বেগবান হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ বিভাগের শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান তিশা বলেন, আমাদের যৌক্তিক আন্দোলন মানতে হবে। একটি স্বাধীন দেশে সরকারি চাকরিতে এত বৈষম্য থাকবে কেন? সংবিধান অনুযায়ী পিছিয়ে পড়া মানুষদের এগিয়ে নিতে কোটা পদ্ধতি। অথচ সরকার গোটা জাতিকে পিছিয়ে ফেলছে।

এদিন ঢাকার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ছাড়াও ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক ও দেশের বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়ক অবরোধ করে কর্মসূচি পালন করছে শিক্ষার্থীরা।