ঢাকা ১২:৩৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo বাড্ডায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের Logo চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে সড়ক ও রেলপথ অবরোধ শিক্ষার্থীদের Logo কোটা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি Logo আতঙ্কে হল ছাড়ছেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা Logo কোটা সংস্কার আন্দোলনে সহিংসতা, যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ Logo নিউইয়র্কে সাবের চৌধুরী-মটোমে তাকিসাওয়ার বৈঠক Logo রাজাকার  স্লোগান দিলে আর ছাড় নয়: রাবি ছাত্রলীগ সভাপতি Logo ঢাবিতে সংঘর্ষে আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেলে ২২৬, আতঙ্ক Logo শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা: দেশজুড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে মঙ্গলবার বিক্ষোভের ডাক Logo শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার জন্য  প্রাধ্যক্ষরা রাতভর হলে অবস্থান করবেন: উপাচার্য 

প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা

সংবাদপত্র শিল্প টিকিয়ে রাখতে সংবাদপত্র শিল্প পরিষদের ১৪ দফা দাবি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫১:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪ ১৩৮ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

স্টাফ রিপোর্টার :
সংবাদপত্র শিল্প টিকিয়ে রাখার স্বার্থে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতা কামনা করে বাংলাদেশ সংবাদপত্র শিল্প পরিষদ। গতকাল শনিবার ডেইলী ইন্ডাস্ট্রি কার্যালয়ে পরিষদের এক জরুরী আলোচনা সভায় সংবাদপত্র শিল্পের বিরাজমান সমস্যা ও এর সমাধান করতে ১৪ দফা দাবি জানায় নেতৃবৃন্দ।
সংবাদপত্র শিল্প টিকিয়ে রাখার জন্য সরকারের বিশেষভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সরকারের সংশ্লিষ্ঠ বিভাগের সহযোগিতা কামনা করে জরুরী আলোচনা সভায় সংবাদপত্র মালিক ও প্রকাশকগণ বলেন, আমরা নিজেদের কোটি কোটি টাকা বিনিয়োগ করে সংবাদপত্র প্রকাশ করছি কিন্ত্র সরকারি সংস্থাগুলি আমাদের বকেয়া বিজ্ঞাপন বিল সময়মত পরিশোধ না করলে আমরা প্রকাশনা টিকিয়ে রাখবো কিভাবে? আর সাংবাদিক কর্মচারিদের বেতন-ভাতাই বা পরিশোধ করবো কোথা থেকে?
সংবাদপত্র শিল্পে বিরাজমান সংকট কাটিয়ে উঠতে ১৪ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে, ১। ডিএফপিসহ সকল সরকারী সংস্থার কাছে বকেয়া বিজ্ঞাপন বিল আগামী জুনের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে, ২। সরকারী বিজ্ঞাপনের সুষম বন্টন নীতিমালা প্রনয়ন করতে হবে এবং প্রতিটি বিজ্ঞাপণ কমপক্ষে ২টি ইংরেজী ও ৪টি বাংলা পত্রিকায় প্রদান করতে হবে, ৩। বিজ্ঞাপন বিলের উপর অগ্রীম আয়কর এবং সার্ভিস চার্জ বাতিল করতে হবে, ৪। ইংরেজী ও বাংলা পত্রিকার সরকারী বিজ্ঞাপনের মূল্য বৈষম্য দুর করতে হবে, ৫। নিবন্ধিত পত্রিকার অন-লাইন পোর্টালে সরকারী বিজ্ঞাপনের মূল্য নির্ধারন করে প্রচারের ব্যবস্থা করতে হবে, ৬। সরকারী বিজ্ঞাপনের মূল্য বাজার ভিত্তিক (মূল্যস্ফীতির ভিত্তিতে) বৃদ্ধি করতে হবে, ৭। সংবাদপত্র শিল্পের জন্য স্বল্প সুদে ঋণের ব্যবস্থা করতে হবে, ৮। সাংবাদিক কর্মচারীদের আবাসন ব্যবস্থা করতে হবে, ৯। সংবাদপত্র শিল্পের জন্য আসন্ন বাজেটে ৫,০০০ (পাঁচ হাজার) কোটি টাকার বিশেষ বরাদ্দ দিতে হবে, ১০। প্রকাশিত বিজ্ঞাপন বিল সর্বোচ্চ তিন মাসের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে, ১১।সংবাদপত্র কর্মীদের জন্য একটি বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মান করতে হবে, ১২। সংবাদকর্মীদের জন্য বিশেষ পেনশন স্কীম চালু করতে হবে, ১৩। ডিজিটাল সিকিউরিটি এ্যাক্টসহ সকল কালা-কানুন বাতিল করতে হবে, ১৪। সকল সম্পাদককে ভিআইপি মর্যাদা প্রদান করতে হবে।
পরিষদের সভাপতি ও ডেইলী ইন্ডাস্ট্রি’র সম্পাদক ও প্রকাশক ডক্টর এনায়েত করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সংগঠনের ৭ম সভার কার্যবিরণী পাঠ করেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক দৈনিক শেষ কথা ও দৈনিক সমাজ বাংলাদেশ সম্পাদক ও প্রকাশক ইউনুস সোহাগ। সভায় উপস্থিত সম্পাদক ও প্রকাশকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সংবাদপত্র শিল্পের বিরাজমান সমস্যা ও তার সমাধান নিয়ে ১৪ দফা দাবিগুলো উপস্থাপন করেন এবং দাবিগুলো ব্যাপারে সবাই একমত হয়। সংগঠনের উপদেষ্টা দৈনিক স্বপ্ন প্রতিদিন প্রকাশনা গ্রুপ চেয়ারম্যান মোঃ মমিনুর রশীদ মামুন, দৈনিক ভোরের ডাক সম্পাদক ও প্রকাশক কে এম বেলায়েত হোসেন, দৈনিক পাঞ্জেরী সম্পাদক ও প্রকাশক বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম তালুকদার, দৈনিক আলোর জগত প্রকাশক ও সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা ফারুক তালুকদার, ডেইলি বিজনেস ফাইল প্রকাশক ও সম্পাদক অভি চৌধুরী, দৈনিক তরুণ কণ্ঠ প্রকাশক রফিকুল ইসলাম শান্ত, দৈনিক মুক্ত তথ্য সম্পাদক ও প্রকাশক এডভোকেট এম এ মজিদ, দৈনিক মাতৃভূমির খবর সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ রেজাউল করিম, দৈনিক সময়ের চিত্র সম্পাদক ও প্রকাশক এ আর এম মামুন, দৈনিক সংবাদ প্রতিক্ষণ সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ আব্দুল আউয়াল, দৈনিক বিশ্ব মানচিত্র সম্পাদক ও প্রকাশক এডভোকেট মোঃ রাসেদ উদ্দিন, দৈনিক বন্ধুজন সম্পাদকম-লীর সভাপতি ও প্রকাশনা গ্রুপ পরিচালক আসিফ হাসান নবী, দৈনিক ব্যাংক বীমা অর্থনীতি প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশনা গ্রুপ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মুনীরুজ্জামান, দৈনিক আমাদের জাগরণ সম্পাদক ও প্রকাশক নূরুল আজিজ চৌধুরী, দৈনিক নববাণী সম্পাদক ও প্রকাশক এ এম এম সলিমউল্লাহ সরকার, দৈনিক ভোরের সময় প্রধান সম্পাদক মোঃ হাবিবুর রহমান, দৈনিক অগ্নিশিখা সম্পাদক ও প্রকাশক মোর্শেদ আলম, দৈনিক আজকের প্রভাত সম্পাদক ও প্রকাশনা গ্রুপ পরিচালক নেজামুল হক, ডেইলি ইভিনিং নিউজ সম্পাদক ও প্রকাশক এবিএম সেলিম আহমেদ, দৈনিক আলোর বার্তা ও দি ডেইলি স্টেট সম্পাদক ও প্রকাশক অধ্যাপক রফিকউল্লাহ শিকদার ও দি ডেইলি চ্যালেঞ্জ সম্পাদক ও প্রকাশক নাসির আল মামুন প্রমুখ জরুরী আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা

সংবাদপত্র শিল্প টিকিয়ে রাখতে সংবাদপত্র শিল্প পরিষদের ১৪ দফা দাবি

আপডেট সময় : ১১:৫১:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার :
সংবাদপত্র শিল্প টিকিয়ে রাখার স্বার্থে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতা কামনা করে বাংলাদেশ সংবাদপত্র শিল্প পরিষদ। গতকাল শনিবার ডেইলী ইন্ডাস্ট্রি কার্যালয়ে পরিষদের এক জরুরী আলোচনা সভায় সংবাদপত্র শিল্পের বিরাজমান সমস্যা ও এর সমাধান করতে ১৪ দফা দাবি জানায় নেতৃবৃন্দ।
সংবাদপত্র শিল্প টিকিয়ে রাখার জন্য সরকারের বিশেষভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সরকারের সংশ্লিষ্ঠ বিভাগের সহযোগিতা কামনা করে জরুরী আলোচনা সভায় সংবাদপত্র মালিক ও প্রকাশকগণ বলেন, আমরা নিজেদের কোটি কোটি টাকা বিনিয়োগ করে সংবাদপত্র প্রকাশ করছি কিন্ত্র সরকারি সংস্থাগুলি আমাদের বকেয়া বিজ্ঞাপন বিল সময়মত পরিশোধ না করলে আমরা প্রকাশনা টিকিয়ে রাখবো কিভাবে? আর সাংবাদিক কর্মচারিদের বেতন-ভাতাই বা পরিশোধ করবো কোথা থেকে?
সংবাদপত্র শিল্পে বিরাজমান সংকট কাটিয়ে উঠতে ১৪ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে, ১। ডিএফপিসহ সকল সরকারী সংস্থার কাছে বকেয়া বিজ্ঞাপন বিল আগামী জুনের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে, ২। সরকারী বিজ্ঞাপনের সুষম বন্টন নীতিমালা প্রনয়ন করতে হবে এবং প্রতিটি বিজ্ঞাপণ কমপক্ষে ২টি ইংরেজী ও ৪টি বাংলা পত্রিকায় প্রদান করতে হবে, ৩। বিজ্ঞাপন বিলের উপর অগ্রীম আয়কর এবং সার্ভিস চার্জ বাতিল করতে হবে, ৪। ইংরেজী ও বাংলা পত্রিকার সরকারী বিজ্ঞাপনের মূল্য বৈষম্য দুর করতে হবে, ৫। নিবন্ধিত পত্রিকার অন-লাইন পোর্টালে সরকারী বিজ্ঞাপনের মূল্য নির্ধারন করে প্রচারের ব্যবস্থা করতে হবে, ৬। সরকারী বিজ্ঞাপনের মূল্য বাজার ভিত্তিক (মূল্যস্ফীতির ভিত্তিতে) বৃদ্ধি করতে হবে, ৭। সংবাদপত্র শিল্পের জন্য স্বল্প সুদে ঋণের ব্যবস্থা করতে হবে, ৮। সাংবাদিক কর্মচারীদের আবাসন ব্যবস্থা করতে হবে, ৯। সংবাদপত্র শিল্পের জন্য আসন্ন বাজেটে ৫,০০০ (পাঁচ হাজার) কোটি টাকার বিশেষ বরাদ্দ দিতে হবে, ১০। প্রকাশিত বিজ্ঞাপন বিল সর্বোচ্চ তিন মাসের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে, ১১।সংবাদপত্র কর্মীদের জন্য একটি বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মান করতে হবে, ১২। সংবাদকর্মীদের জন্য বিশেষ পেনশন স্কীম চালু করতে হবে, ১৩। ডিজিটাল সিকিউরিটি এ্যাক্টসহ সকল কালা-কানুন বাতিল করতে হবে, ১৪। সকল সম্পাদককে ভিআইপি মর্যাদা প্রদান করতে হবে।
পরিষদের সভাপতি ও ডেইলী ইন্ডাস্ট্রি’র সম্পাদক ও প্রকাশক ডক্টর এনায়েত করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সংগঠনের ৭ম সভার কার্যবিরণী পাঠ করেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক দৈনিক শেষ কথা ও দৈনিক সমাজ বাংলাদেশ সম্পাদক ও প্রকাশক ইউনুস সোহাগ। সভায় উপস্থিত সম্পাদক ও প্রকাশকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সংবাদপত্র শিল্পের বিরাজমান সমস্যা ও তার সমাধান নিয়ে ১৪ দফা দাবিগুলো উপস্থাপন করেন এবং দাবিগুলো ব্যাপারে সবাই একমত হয়। সংগঠনের উপদেষ্টা দৈনিক স্বপ্ন প্রতিদিন প্রকাশনা গ্রুপ চেয়ারম্যান মোঃ মমিনুর রশীদ মামুন, দৈনিক ভোরের ডাক সম্পাদক ও প্রকাশক কে এম বেলায়েত হোসেন, দৈনিক পাঞ্জেরী সম্পাদক ও প্রকাশক বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম তালুকদার, দৈনিক আলোর জগত প্রকাশক ও সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা ফারুক তালুকদার, ডেইলি বিজনেস ফাইল প্রকাশক ও সম্পাদক অভি চৌধুরী, দৈনিক তরুণ কণ্ঠ প্রকাশক রফিকুল ইসলাম শান্ত, দৈনিক মুক্ত তথ্য সম্পাদক ও প্রকাশক এডভোকেট এম এ মজিদ, দৈনিক মাতৃভূমির খবর সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ রেজাউল করিম, দৈনিক সময়ের চিত্র সম্পাদক ও প্রকাশক এ আর এম মামুন, দৈনিক সংবাদ প্রতিক্ষণ সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ আব্দুল আউয়াল, দৈনিক বিশ্ব মানচিত্র সম্পাদক ও প্রকাশক এডভোকেট মোঃ রাসেদ উদ্দিন, দৈনিক বন্ধুজন সম্পাদকম-লীর সভাপতি ও প্রকাশনা গ্রুপ পরিচালক আসিফ হাসান নবী, দৈনিক ব্যাংক বীমা অর্থনীতি প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশনা গ্রুপ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মুনীরুজ্জামান, দৈনিক আমাদের জাগরণ সম্পাদক ও প্রকাশক নূরুল আজিজ চৌধুরী, দৈনিক নববাণী সম্পাদক ও প্রকাশক এ এম এম সলিমউল্লাহ সরকার, দৈনিক ভোরের সময় প্রধান সম্পাদক মোঃ হাবিবুর রহমান, দৈনিক অগ্নিশিখা সম্পাদক ও প্রকাশক মোর্শেদ আলম, দৈনিক আজকের প্রভাত সম্পাদক ও প্রকাশনা গ্রুপ পরিচালক নেজামুল হক, ডেইলি ইভিনিং নিউজ সম্পাদক ও প্রকাশক এবিএম সেলিম আহমেদ, দৈনিক আলোর বার্তা ও দি ডেইলি স্টেট সম্পাদক ও প্রকাশক অধ্যাপক রফিকউল্লাহ শিকদার ও দি ডেইলি চ্যালেঞ্জ সম্পাদক ও প্রকাশক নাসির আল মামুন প্রমুখ জরুরী আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন।