ঢাকা ১১:৩৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

সাবেক কৃষি মন্ত্রীর ভাইয়ের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগের পাহাড়

অলক কুমার, টাঙ্গাইল
  • আপডেট সময় : ০৩:০৮:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৬০ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

টাঙ্গাইল ধনবাড়ি উপজেলার মুশুদ্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ধনবাড়ি-মধুপুর আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক কৃষি মন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাকের আপন ছোট ভাই ও মুশুদ্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কায়সারুল ইসলামের বিরুদ্ধে জমি দখল করার অভিযোগ উঠেছে।

আজ শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে ধনবাড়ি উপজেলার মুশুদ্দি বাজারে কায়সারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করে স্থানীয় এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীরা। এসময় মোহাম্মদ রাজু মিয়া বলেন, আমার ৫২ শতাংশ জমি কৃষি মন্ত্রীর ভাই কায়সার জোরপূর্বক দখল করে রেখেছে। সে ড্রেজার দিয়ে বালু ফেলে দখল করেছে। কায়সার চেয়ারম্যান ও সাবেক কৃষিমন্ত্রীর ভাই হওয়ার সুবাধে এলাকায় তার ভয়ে কেউ কিছু বলতে পারে না। আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে এর সঠিক বিচার দাবী করছি।

মোস্তফা মিয়া নামে একজন বলেন,আমার পৈত্তিক সম্পত্তি ৪২ শতাংশ জমি দখল করেছে কায়সার চেয়ারম্যান, চেয়ারম্যানের যেন জমি দখল করাই নেশা। তার ক্ষমতার সামনে কেউ নাই। রাজ্জাক সাহেব যখন মন্ত্রী ছিল তখন ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিভিন্ন লোকের জমি দখল করেছে। প্রতিবাদ করার সাহস কেউ পায়না।

বলিভদ্র গ্রামের মৃত হাজী ফজর আলীর ছেলে মতিয়ার রহমান বলেন, ৬৬ শতাংশ জমি দখল করেছে কায়সার চেয়ারম্যান, সেখানে সে তার লোকজন নিয়ে বসে থাকে। যদি জমিতে যাই তাহলে মেরে ফেলার হুমকিও দেন চেয়ারম্যান। তার ভাই এমপি ও সাবেক মন্ত্রী ছিল যার ফলে কেউ কিছু বলার সাহস পায় না। তার বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করলেও তার উপর হামলা হয়।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল-১ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক কৃষি মন্ত্রী ড. আব্দর রাজ্জাকের মুঠোফোনে বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে মুশুদ্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক কৃষি মন্ত্রী ড.আব্দুর রাজ্জাক এমপির ভাই কায়সার ইসলাম বলেন, এসকল বিষয় অভিযোগ মিথ্যা বানোয়াট, আমার বিরুদ্ধে ও আমার ভাইয়ের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। আমার জমিতে মাটি ফেলতাছি অন্য কারো জমিতে না। ধনবাড়ি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা হারুনুর রশীদ বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই, শুনলাম আইন গত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

সাবেক কৃষি মন্ত্রীর ভাইয়ের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগের পাহাড়

আপডেট সময় : ০৩:০৮:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

টাঙ্গাইল ধনবাড়ি উপজেলার মুশুদ্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ধনবাড়ি-মধুপুর আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক কৃষি মন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাকের আপন ছোট ভাই ও মুশুদ্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কায়সারুল ইসলামের বিরুদ্ধে জমি দখল করার অভিযোগ উঠেছে।

আজ শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে ধনবাড়ি উপজেলার মুশুদ্দি বাজারে কায়সারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করে স্থানীয় এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীরা। এসময় মোহাম্মদ রাজু মিয়া বলেন, আমার ৫২ শতাংশ জমি কৃষি মন্ত্রীর ভাই কায়সার জোরপূর্বক দখল করে রেখেছে। সে ড্রেজার দিয়ে বালু ফেলে দখল করেছে। কায়সার চেয়ারম্যান ও সাবেক কৃষিমন্ত্রীর ভাই হওয়ার সুবাধে এলাকায় তার ভয়ে কেউ কিছু বলতে পারে না। আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে এর সঠিক বিচার দাবী করছি।

মোস্তফা মিয়া নামে একজন বলেন,আমার পৈত্তিক সম্পত্তি ৪২ শতাংশ জমি দখল করেছে কায়সার চেয়ারম্যান, চেয়ারম্যানের যেন জমি দখল করাই নেশা। তার ক্ষমতার সামনে কেউ নাই। রাজ্জাক সাহেব যখন মন্ত্রী ছিল তখন ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিভিন্ন লোকের জমি দখল করেছে। প্রতিবাদ করার সাহস কেউ পায়না।

বলিভদ্র গ্রামের মৃত হাজী ফজর আলীর ছেলে মতিয়ার রহমান বলেন, ৬৬ শতাংশ জমি দখল করেছে কায়সার চেয়ারম্যান, সেখানে সে তার লোকজন নিয়ে বসে থাকে। যদি জমিতে যাই তাহলে মেরে ফেলার হুমকিও দেন চেয়ারম্যান। তার ভাই এমপি ও সাবেক মন্ত্রী ছিল যার ফলে কেউ কিছু বলার সাহস পায় না। তার বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করলেও তার উপর হামলা হয়।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল-১ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক কৃষি মন্ত্রী ড. আব্দর রাজ্জাকের মুঠোফোনে বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে মুশুদ্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক কৃষি মন্ত্রী ড.আব্দুর রাজ্জাক এমপির ভাই কায়সার ইসলাম বলেন, এসকল বিষয় অভিযোগ মিথ্যা বানোয়াট, আমার বিরুদ্ধে ও আমার ভাইয়ের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। আমার জমিতে মাটি ফেলতাছি অন্য কারো জমিতে না। ধনবাড়ি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা হারুনুর রশীদ বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই, শুনলাম আইন গত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।