ঢাকা ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

হয়রানী বন্ধে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেটকে দায়িত্ব পালন করতে হবে

রাজশাহী ব্যুরো
  • আপডেট সময় : ০৯:০১:১৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪ ১৬৪ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

বিচার প্রত্যাশি মানুষ যাতে হয়রানীর মুখোমুখি পড়তে না হয়, সেজন্য পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেটকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। মামলা নিষ্পত্তিতে বিদ্যমান প্রতিবন্ধকতা চিহ্নিত করে উত্তরণের উপায় বের করতে হবে।

রাজশাহীতে বিচার প্রার্থী মানুষের হয়রানী বন্ধ ও আসামীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত কল্পে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেট এর মাসিক কনফারেন্স এই তাগিদ দেন রাজশাহী জেলা জজ আদালতের সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান।

শনিবার (২৩ মার্চ) জেলার আট থানার অফিসার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও আদালতের বিচারকদের নিয়ে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়।

চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ইকবাল বাহার এতে সভাপতিত্ব করেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান মামলায় সাক্ষ্য গ্রহন ও সংশ্লিষ্টদের করণীয় এবং মামলার তদন্তে তদন্তকারী সংস্থাসমূহের ক্রটি-বিচ্যুতি এবং সংশোধনের বিষয়ে আলোচনা করেন।

এছাড়াও বিচার বিভাগের সঙ্গে সম্পৃক্ত সংশ্লিষ্টগণ মামলার বিভিন্ন পর্যায়ে উদ্ভূত বিভিন্ন সমস্যা থেকে উত্তরণের উপায় নিয়ে উন্মুক্ত আলোচনা হয়।

সভার মূল আলোচনার বিষয় ছিল পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্সে, সমনজারি ও পুলিশ কর্তৃক মামলার সাক্ষী উপস্থিতকরণ, সাক্ষীদের আদালতে আগমন ও ফিরে যাওয়ার নিরাপত্তা, আদালত প্রাঙ্গণে বিচারকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিরাপত্তা ইত্যাদি।

অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইসলাম, ম্যাজিস্ট্রেট ইনচার্জ ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুব আলম, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ আল্লামসহ রাজশাহী বিচার বিভাগের বিভিন্নস্তরের বিচারকবৃন্দ ও রাজশাহী জেলার সকল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

হয়রানী বন্ধে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেটকে দায়িত্ব পালন করতে হবে

আপডেট সময় : ০৯:০১:১৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪

 

বিচার প্রত্যাশি মানুষ যাতে হয়রানীর মুখোমুখি পড়তে না হয়, সেজন্য পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেটকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। মামলা নিষ্পত্তিতে বিদ্যমান প্রতিবন্ধকতা চিহ্নিত করে উত্তরণের উপায় বের করতে হবে।

রাজশাহীতে বিচার প্রার্থী মানুষের হয়রানী বন্ধ ও আসামীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত কল্পে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেট এর মাসিক কনফারেন্স এই তাগিদ দেন রাজশাহী জেলা জজ আদালতের সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান।

শনিবার (২৩ মার্চ) জেলার আট থানার অফিসার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও আদালতের বিচারকদের নিয়ে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়।

চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ইকবাল বাহার এতে সভাপতিত্ব করেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান মামলায় সাক্ষ্য গ্রহন ও সংশ্লিষ্টদের করণীয় এবং মামলার তদন্তে তদন্তকারী সংস্থাসমূহের ক্রটি-বিচ্যুতি এবং সংশোধনের বিষয়ে আলোচনা করেন।

এছাড়াও বিচার বিভাগের সঙ্গে সম্পৃক্ত সংশ্লিষ্টগণ মামলার বিভিন্ন পর্যায়ে উদ্ভূত বিভিন্ন সমস্যা থেকে উত্তরণের উপায় নিয়ে উন্মুক্ত আলোচনা হয়।

সভার মূল আলোচনার বিষয় ছিল পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্সে, সমনজারি ও পুলিশ কর্তৃক মামলার সাক্ষী উপস্থিতকরণ, সাক্ষীদের আদালতে আগমন ও ফিরে যাওয়ার নিরাপত্তা, আদালত প্রাঙ্গণে বিচারকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিরাপত্তা ইত্যাদি।

অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইসলাম, ম্যাজিস্ট্রেট ইনচার্জ ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুব আলম, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ আল্লামসহ রাজশাহী বিচার বিভাগের বিভিন্নস্তরের বিচারকবৃন্দ ও রাজশাহী জেলার সকল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসময় উপস্থিত ছিলেন।