×
  • প্রকাশিত : ২০২২-০৬-২০
  • ৪৬ বার পঠিত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক : তীব্র তাপপ্রবাহের মধ্যেই ইউরোপের দেশ স্পেন ও জার্মানিতে ভয়াবহ দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। জঙ্গলের আগুন নিয়ন্ত্রণে হিমশিম খাচ্ছে কর্মীরা। বলা হচ্ছে, বছরের এই সময়ে এমন দাবানল খুবই অস্বাভাবিক। কারণ অঞ্চলটিতে কেবল গ্রীষ্ম শুরু হয়েছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
জানা গেছে, স্পেনের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় জামোরা প্রদেশে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে। সেখানের ২৫ হাজারের বেশি হেক্টর জমিতে দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে।

জার্মানির কর্মকর্তারা জানিয়েছে, আগুনের তীব্রতা বাড়ায় বার্লিনের কাছের তিনটি গ্রামের বাসিন্দাদের বাড়ি ছেড়ে সরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে এই অসময়ে তীব্র তাপপ্রবাহ বইছে। এতেই দাবানলের ঘটনা ঘটছে।
স্পেনের বিভিন্ন শহরে সপ্তাহজুড়েই ৪০ ডিগ্রির বেশি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। এ ধরনের আবহাওয়া মূলত আগস্টে প্রত্যাশা করা হয়। তাছাড়া এবছর একদিকে কম বৃষ্টি অন্যদিকে দমকা হাওয়া। এতে পরিস্থিতি আরও খারাপ হচ্ছে।
গ্রীষ্মের শুরুতেই তীব্র তাপপ্রবাহের সম্মুখীন হয়েছে পশ্চিম ইউরোপের দেশগুলো। এতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। অঞ্চলটির একটি সমৃদ্ধশালী দেশ স্পেন। দেশটির একটি অংশে যেকোনো ধরনের আউটডোর ইভেন্ট বাতিল করা হয়েছে। ইতালি, ফ্রান্স ও যুক্তরাজ্যেও একই ধরনের আবহাওয়া বিরাজ করছে।


তাপপ্রবাহের প্রভাব এতো বেশি যে ইংল্যান্ডের উচ্চতর রয়্যাল অ্যাসকট রেসকোর্সের প্রোটোকলেও একটি বিরল পরিবর্তন আনা হয়েছে। অতিথিদের মাথায় টুপি ও জ্যাকেট ব্যবহার করার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে, যা শুধু রাজ পরিবারের জন্য নির্ধারিত ছিল।
স্পেনের জাতীয় আবহাওয়া সংস্থা এইএমইটি জানিয়েছে, শুক্রবার (১৭ জুন) মাদ্রিদে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা ১০৪ ফারেনহাইটে পৌঁছায়। ১৯৮১ সাল থেকে বছরের এত প্রথম দিকে এমন তাপমাত্রা দেখা যায়নি।
তাপপ্রবাহ তীব্র হওয়ায় দেশগুলোতে জ্বালানির চাহিদা বেড়েছে। কারণ শীততাপ যন্ত্রের ব্যবহার ক্রমেই বাড়ছে। অন্যদিকে ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলাকে কেন্দ্র করে ইউরোপজুড়ে সংকট দেখা দিয়েছে। নিয়ন্ত্রণে রাখা যাচ্ছে না মূল্যস্ফীতি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat