×
  • প্রকাশিত : ২০২২-০৭-০৩
  • ৮২ বার পঠিত
দিনাজপুর চীফ ব্যুরো প্রধান : শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা মহোৎসব-২০২২ হাজার হাজার ভক্তবৃন্দদের অংশগ্রহণে পালিত হয়েছে। গতকাল ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ শুক্রবার দিনাজপুর গুঞ্জাবাড়ী শ্রী শ্রী রাধাকৃষ্ণ মন্দির (ইস্কন)প্রাঙ্গনে শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা মহোৎসব উদ্বোধনের আলোচনা সভাতে প্রধান অতিথি দিনাজপুর সদর উপজেলার চেয়ারম্যান ইমদাদ সরকার বলেন দিনাজপুর জেলায় হিন্দু,মসুলমান,বৌদ্ধ-খ্রিস্টান বিভিন্ন ধর্মের লোকদের একত্রে বসবাস বৃটিশদের আগে থেকে। একজনের অনুষ্ঠানে আরেকজনের অংশগ্রহন সম্প্রীতির মিলন মেলার দর্শন অনেক সময় থেকে এই সমাজে পরীলক্ষিত হয়ে আসছে। এখনও এই জেলায় সামাজিক রীতিনীতিতে তা বহাল রয়েছে। এটা সম্ভব হয়েছে আমাদের মাটি ও মানুষের নেতা হুইপ ইকবালুর রহিম এমপির সুযোগ্য নেতৃত্বে। সাম্প্রদায়িক সমপ্রীতিকে সমুন্নত রাখতে দিনাজপুর জেলায় নিজেকে কঠোরতর থেকে কঠোরতর ভূমিকা পালন করছেন তিনি।


দিনাজপুর গুঞ্জাবাড়ী শ্রী শ্রী রাধাকৃষ্ণ মন্দিরের অধ্যক্ষ শ্রীমান বিক্রমী রাম দাসের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর বাস মালিক সমিতির সভাপতি ভবানী শংকর আগরওয়াালা।অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া ইসকন মন্দিরের ব্রহ্মচারী শ্যাম নিত্যানন্দ দাস। আলোচনা সভাতে আরও অংশগ্রহণ করেন দিনাজপুর জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বুনু বিশ্বাস, চিরিরবন্দর গভিরা হাট উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক রঘুপতি নারায়ন দাসসহ প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে হাজার হাজার সনাতন ধর্মাবলম্বী ভক্তবৃন্দদের স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণে জগন্নাথের রথযাত্রার র‌্যালীটি শুভ উদ্বোধনের ঘোষণা দেন দিনাজপুর সদর উপজেলার চেয়ারম্যান ইমদাদ সরকার। র‌্যালীটি দিনাজপুর শহরের প্রধান প্রধান সড়কের সিংহভাগ প্রদক্ষিণ শেষে জগন্নাথের মাসির বাড়িতে অবস্থান করে। উল্লেখ্য যে জগন্নাথ বড়বন্দর হরিসভার মাসির বাড়িতে আট দিন অবস্থান করে উল্টো রথযাত্রা অনুষ্ঠানটি পালিত হবে। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সার্বিক দায়িত্বে ছিলেন পরিচালক (ইস্কন ইউয়ুদ ফোরাম) ব্রক্ষচারী সর্বাত্মা বলরাম দাস।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat