×
  • প্রকাশিত : ২০২২-০৮-০৮
  • ৭৪ বার পঠিত
সংবাদ বিজ্ঞপ্তি : বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে শোকাবহ আগষ্ট উপলক্ষে মাসব্যাপী ‘শোক থেকে শক্তির অভ্যুদয়, সপ্নপূরণের দৃড়প্রত্যয়’ এর শিল্পের আলোয় শ্রদ্ধাঞ্জলি: রবীন্দ্রনাথ ও বঙ্গবন্ধু শিরোনামে 7ম দিনের অনুষ্ঠান ৭ আগষ্ট ২০২২, সন্ধ্যা 6.30 টায় একাডেমির জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে আলোচনা করেন বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক জাকির তালুকদার।

অনৃষ্ঠানের শুরুতেই ড. জাহিদুল কবির লিটন এর ‘বুকের মাঝে জ্বলে আগুন নিভাই বলো কি দিয়া, কোথায় আমার বঙ্গবন্ধু দরদিয়া’ শিরোনামে একক সংগীত পরিবেশিত হয়। পর্যায়ক্রমে পরিবেশিত হয় ‘নূরজাহান আলীম এর কন্ঠে ‘জয় বাংলার জয়, জয় বঙ্গবন্ধুর জয়’; আলম আরা মিন এর ‘আজি হতে শতবর্ষ আগে সবুজ শ্যামল টুঙ্গিপাড়ায় জন্মেছিলে তুম’; ডঃ মাহজাবিন শাওলীর ‘আমি দেখেছি তোমার দুচোখের স্বপ্ন’; শাহজামাল সাগর এর ‘মুক্ত স্বাধীন স্বদেশ ভূমি, এনেছো মুজিব তুমি’; কাওসার বেগম নিশির ‘মধুমতীর ঘাট পেরিয়ে ধান সবুজের মাঠ’; রাজিব দাসের  ‘সেদিন আকাশে শ্রাবণের মেঘ ছিলো’; শবনম মুস্তারী প্রিয়াংকার ‘স্বাধীনতা মানে তুমি’; নাহিদ আক্তার শাম্মী ‘বঙ্গবন্ধু ফিরে এলে’; মোঃ রবিউল ইসলাম এর ‘ডাক দিয়াছে মুজিব আমায়’ ; মেহেরুন নেসা পূর্ণিমার ‘যদি রাত পোহালে’ শিরোনামে এবং পুলক এর কন্ঠে পরিবেশিত হয় একক সংগীত। ইনায়া মাহমুদ এর কন্ঠে ‘শোন একটি মুজিবরের থেকে এবং নাবিদ রহমান তুর্য কন্ঠে ‘হায়রে আমার মন মাতানো দেশ’ শিরোনামে পরিবেশিত হয় দুটি শিশু সংগীত।

সংগীতের পাশাপাশি পরিবেশিত হয় কবিতা আবৃত্তি। কবি কামাল চৌধুরীর ‘সেই মুখখানি কবিতার বড় ছিল’ কবিতা আবৃত্তি করেন মাহমুদা আক্তার। এছাড়াও কবিতা আবৃত্তি করেন গোলাম সারোয়ার এবং কবি অসীম সাহা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন জান্নাতুল ফেরদৌস বন্যা। বাদ্যে যন্ত্রে ছিলেন মোঃ শফিউজ্জামান সাজু , তাপস, অন্তু গুলন্দাজ, জিয়া এবং কামরুল।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat