ঢাকা,বৃহস্পতিবার,৩১০ ভাদ্র ১৪২৮,১৩,মে,২০২১ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : > সাধারণ মানুষকে অবাক করে খাবার তুলে দিচ্ছেন ইউএনও তানভীর   > করোনা ভাইরাসের মধ্যেও দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রয়েছে: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী শামীম   > শ্রীনগরে চাঁদা না দেওয়ায় প্রবাসীকে মারধরের অভিযোগ   > গাইবান্ধায় বেড়েছে কাউন চাষ   > সিরাজদিখানে দেড় হাজার পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার   > সিলেটে আতিকুর রহমানের সমর্থনে দক্ষিণ সুরমা জাতীয় পার্টির কর্মীসভা   > অপরিপক্ক ফলে ঝালকাঠির বাজার সয়লাব   > বান্দরবানে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে দু:স্থ ও অসহায়দের উপহার দিল শ্রমিক লীগ   > অনুশীলনে বাধা নেই টাইগারদের   > বলিউড সিনেমায় অভিনয় প্রসঙ্গে যা বললেন নানি  

   জেলা-উপজেলা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
শ্রীনগরে চাঁদা না দেওয়ায় প্রবাসীকে মারধরের অভিযোগ

শহীদ শেখ, শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) : শ্রীনগরে মাদকসেবী ও সন্ত্রাসী বাহিনীকে চাঁদা না দেওয়ায় সম্রাট (৩০) নামের এক সৌদি প্রবাসীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার বাঘড়া ইউনিয়নের পূর্ব বাঘড়ায় গত রবিবার বিকাল ৫ টার দিকে প্রবাসীর বাড়ির সামনে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা দেয়। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার ডান হাতে বাহুতে কেটে গভীর ক্ষত হয় ও বামপায়ের পাতায় গুরুতর জখম হয়। সে পূর্ব বাঘড়া গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে। তার বড় ভাই আক্তার হোসেন বাদী হয়ে ৭ জনের নাম ও অজ্ঞাত ৪/৫ জনকে আসামী করে শ্রীনগর থানায় রবিবার রাতেই একটি লিখিত অভিযোগ করেন। সম্রাটের বোন বাঘড়া ইউনিয়ন আওয়ামী মহিলা যুবলীগ সভাপতি লাকি বেগম জানান, আমার ভাই আড়াই মাস আগে সৌদি আরব থেকে বাড়িতে ছুটিতে এসেছে। আসার পর থেকেই বিভিন্ন অজুহাতে সম্রাটের নিকট ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। গত শনিবার বিকালে চাঁদার দাবীতে একই এলাকার রুবেল (৩০), সুমন (৩২), সবুজ (৩৪), বাবু (২৮), সাকিল চৌকিদার (২৯), রাসেল (২৮), রাব্বি (২৪) সহ অজ্ঞাত আরো ৪/৫ জন বাড়ির সামনে এসে ধরে নিয়ে যেতে চায়। সে না যেতে চাইলে তাকে লাঠিসোট, দা দিয়ে মারধর করে। তখন উপায় না পেয়ে বেশ কিছু দুরে একটি বাড়িতে আমার ভাই দৌড়ে আশ্রয় নেয়। পরে শনিবার বিকালে আমার বাড়ির পাশে ৪০/৫০ ফুট দূরত্বে একটি ক্লাবের সামনে তারা আমার কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। আমি প্রতিবাদ করলে মুহুত্বের মধ্যে ১০/১২ জনের একটি সন্ত্রাসী গ্রপ দেশীয়অশ্রসস্ত্র নিয়ে আমার ওপর হামলা চালায়। সম্রাটের বৃদ্ধ পিতা আলহাজ আব্দুল সালাম (৭৫) দূষিদের দৃষ্টান্ত শাস্তির দাবী করেছেন। অভিযুক্ত সুমনের কাছে এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সম্রাট আমাদের প্রতিবেশী। তার সাথে সখ্যতা থাকায় একটি মেয়েলী সংক্রান্ত বিষয়ে জানতে তাকে ডাক দেই। তখন সে দ্রুত স্থান ত্যাগ করতে গিয়ে পরে যায় এবং পায়ে ব্যাথা পায়। এখানে কেউ চাঁদা দাবী ও মারধর করেনি। এব্যাপারে শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হেদায়াতুল ইসলাম ভূইয়া জানান, অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তাদের মধ্যে পূর্ব শত্রুতা আছে। আর মেয়েলী একটি ঘটনাও জরিত রয়েছে। তদন্ত চলছে, তদন্ত রিপোর্ট পেলে বিস্তারিত বলা যাবে ও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শ্রীনগরে চাঁদা না দেওয়ায় প্রবাসীকে মারধরের অভিযোগ
                                  

শহীদ শেখ, শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) : শ্রীনগরে মাদকসেবী ও সন্ত্রাসী বাহিনীকে চাঁদা না দেওয়ায় সম্রাট (৩০) নামের এক সৌদি প্রবাসীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার বাঘড়া ইউনিয়নের পূর্ব বাঘড়ায় গত রবিবার বিকাল ৫ টার দিকে প্রবাসীর বাড়ির সামনে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা দেয়। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার ডান হাতে বাহুতে কেটে গভীর ক্ষত হয় ও বামপায়ের পাতায় গুরুতর জখম হয়। সে পূর্ব বাঘড়া গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে। তার বড় ভাই আক্তার হোসেন বাদী হয়ে ৭ জনের নাম ও অজ্ঞাত ৪/৫ জনকে আসামী করে শ্রীনগর থানায় রবিবার রাতেই একটি লিখিত অভিযোগ করেন। সম্রাটের বোন বাঘড়া ইউনিয়ন আওয়ামী মহিলা যুবলীগ সভাপতি লাকি বেগম জানান, আমার ভাই আড়াই মাস আগে সৌদি আরব থেকে বাড়িতে ছুটিতে এসেছে। আসার পর থেকেই বিভিন্ন অজুহাতে সম্রাটের নিকট ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। গত শনিবার বিকালে চাঁদার দাবীতে একই এলাকার রুবেল (৩০), সুমন (৩২), সবুজ (৩৪), বাবু (২৮), সাকিল চৌকিদার (২৯), রাসেল (২৮), রাব্বি (২৪) সহ অজ্ঞাত আরো ৪/৫ জন বাড়ির সামনে এসে ধরে নিয়ে যেতে চায়। সে না যেতে চাইলে তাকে লাঠিসোট, দা দিয়ে মারধর করে। তখন উপায় না পেয়ে বেশ কিছু দুরে একটি বাড়িতে আমার ভাই দৌড়ে আশ্রয় নেয়। পরে শনিবার বিকালে আমার বাড়ির পাশে ৪০/৫০ ফুট দূরত্বে একটি ক্লাবের সামনে তারা আমার কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। আমি প্রতিবাদ করলে মুহুত্বের মধ্যে ১০/১২ জনের একটি সন্ত্রাসী গ্রপ দেশীয়অশ্রসস্ত্র নিয়ে আমার ওপর হামলা চালায়। সম্রাটের বৃদ্ধ পিতা আলহাজ আব্দুল সালাম (৭৫) দূষিদের দৃষ্টান্ত শাস্তির দাবী করেছেন। অভিযুক্ত সুমনের কাছে এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সম্রাট আমাদের প্রতিবেশী। তার সাথে সখ্যতা থাকায় একটি মেয়েলী সংক্রান্ত বিষয়ে জানতে তাকে ডাক দেই। তখন সে দ্রুত স্থান ত্যাগ করতে গিয়ে পরে যায় এবং পায়ে ব্যাথা পায়। এখানে কেউ চাঁদা দাবী ও মারধর করেনি। এব্যাপারে শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হেদায়াতুল ইসলাম ভূইয়া জানান, অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তাদের মধ্যে পূর্ব শত্রুতা আছে। আর মেয়েলী একটি ঘটনাও জরিত রয়েছে। তদন্ত চলছে, তদন্ত রিপোর্ট পেলে বিস্তারিত বলা যাবে ও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মোংলায় নৌবাহিনীর মানবিক সহায়তা অব্যাহত
                                  

মনির হোসেন, মোংলা : বর্তমানে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রভাবে চলমান লকডাউনে কর্মহীন ও দুস্থ মানুষের জীবিকা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী। গত ২৩ এপ্রিল থেকে দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের উপকূলীয় এলাকা বিশেষ করে বরিশাল পটুয়াখালী, বাগেরহাট, খুলনা জেলা এবং সুন্দরবনের জেলেদের মাঝে বা নৌ জা মংলায় অবস্থিত কমান্ডার ফ্লোটিলা ওয়েস্ট আর্তমানবতার সেবায় কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত রোববার সকালে কমান্ডার ফ্লোটিলা ওয়েস্ট এর নিজ ব্যবস্থাপনায় বাগেরহাট জেলার মোংলা উপজেলার বাসষ্ট্যান্ড, দিগরাজ বাজার ও রামপালে বাড়ি বাড়ি গিয়ে অসহায় দিনমজুর, রিকসা/ ভ্যানচালক ও নিম্মবিত্ত ৩০০ পরিবারকে সাত দিনের খাবার ও নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়েছে। খাদ্য সামগ্রীর মধ্য ছিল চাল, ডাল, আটা, চিনি, লবন,ছোলা ও সেমাই ইত্যাদি।
খুলনা অঞ্চলে করোনা পরিস্থিতি উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশ নৌবাহিনী কর্তৃক ত্রাণ কার্যক্রম চলমান থাকবে। এছাড়াও চলতি বছরের ২৩ এপ্রিল থেকে বাংলাদেশ নৌ বাহিনী মোংলাসহ উপকূলীয় বিভিন্ন এলাকায় করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষের পাশে থেকে সহায়তার হাত প্রসারিত করেছে।
উল্লেখ্য, গত বছর করোনা মহামারির সময়ে সরকার ঘোষিত লকডাউনকালীন সময়ে নৌবাহিনী বিভিন্ন জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম এর পাশাপাশি ত্রাণ বিতরণ পরিচালনা করেছিল। বর্তমান লকডাউনেও নৌবাহিনী কর্মহীন ও অসহায় জনগণের মাঝে ত্রাণ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে।

কুমারখালীতে ভর্তুকি মূল্যে হারভেস্টার বিতরণ
                                  

জাকের আলী শুভ, কুষ্টিয়া ব্যুরো : কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৫০%ভর্তুকি মূল্যে কৃষকদের মাঝে কম্বাইন হারভেস্টার বিতরণ করা হয়েছে। অল্প সময়ে কম খরচে অধিক জমিতে ধান কাটা, মাড়াই এবং পরিষ্কার করে বস্তাবন্দী করার একটি আধুনিক যন্ত্র হচ্ছে এই কম্বাইন হারভেস্টার। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে পরিচালন বাজেটের আওতায় উন্নয়ন সহায়তার মাধ্যমে ৫০% ভর্তুকিতে এটি প্রদান করা হলো। শনিবার উপজেলা পরিষদ চত্বরে ১টি কম্বাইন হারভেস্টার বিতরণ করা হয় সদকী ইউনিয়নের তারাপুর গ্রামের মোঃ আলমগীর হোসেন’র নিকট। এর মূল্য ২৩ লাখ ৫০ হাজার। ৫০% ভর্তুকি মূল্যে এই কৃষককে ধান কাটার আধুনিক এই যন্ত্র বিতরণ করা হয়। উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ দেবাশীষ কুমার দাস’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান খান। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উদ্ভিদ সংরক্ষণ অফিসার স্বপন সিংহ রায় সহ আরও অনেকে।

শরীয়তপুর ধানের বাম্পার ফলন হলেও শঙ্কায় কৃষকরা
                                  

নড়িয়া (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি : এক বুক আশা নিয়ে সোনালি ধান রোপন করেন বাংলার মেহনতি কৃষকরা। ঘাম ঝড়ানো শ্রমের বিনিময়ে উৎপাদিত এসব ধানের ন্যায্য মূল্য পেলে ঋণ শোধ করে আপনজন নিয়ে কিছুটা স্বাচ্ছন্দে থাকবেন এমনটাই কৃষকের প্রত্যাশা। শরীয়তপুর নড়িয়ার কৃষকরাও এর ব্যতিক্রম নয়। তবে এ বছর নড়িয়ার কৃষকদের এই স্বচ্ছলতার স্বপ্নের বিপরীতে বড় হতাশার কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে ধানের বাজার মূল্য। চলতি বছরে শরীয়তপুর নড়িয়ার সর্বত্র ধানের বাম্পার ফলন হলেও বাজার দর নিয়ে শঙ্কায় দিন কাটাচ্ছেন এখানকার কৃষকরা। তারা বলছেন, ফলন ভালো বাজার মুল্য কমে গেলে লোকসান হবে। গত বছর প্রথম দিগে ধানের দাম কম থাকায় কৃষকদের লোকসান দিয়ে ধান বিক্রি করতে হয়েছে। বর্তমান ধানের বাজার মূল্য ভালো যদি কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হয় তাহলে অন্যন্য বছরের তুলনায় এবছর কৃষকরা লাভবান হবে। চলতি বছরে নড়িয়া উপজেলায় ৫ হাজার ৯৪০ হেক্টর জমিতে ইরি-বোরো চাষাবাদ হয়। কৃষি অফিসের সহযোগিতায় বোরো ধানের ফলনও হয়েছে বাম্পার। ইতিমধ্যে নিচু এলাকার ৩০ ভাগ ও উচু এলাকাার ১০ ভাাগ জমির ধান কর্তন হয়েছে। তবে ধান উৎপাদনে কলচার্জ, শ্রমিক মজুরি, সার ও কীটনাশকের দাম বেড়ে যাওয়ায় কৃষকের উৎপাদন খরচও বেড়ে গেছে। নড়িয়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা রোকনুজ্জামান জানান, নড়িয়া উপজেলায় এ বছর ইরি বুরো আবাদের লক্ষমাত্রা ৫ হাজার ৯৪০ হেক্টর নির্ধারণ করা হয়েছে। কৃষি অফিসের সহযোগিতায় বাম্পার ফলন হয়েছে। সরকার নির্ধারিত বাজার মূল্যে খাদ্য বিভাগ ধান সংগ্রহ শুরু করলে বাজারে ধানের মূল্য আরো বাড়বে এবং কৃষকরাও লাভবান হবেন। কৃষক সিরাজ সরদার বলেন অন্যান্য বছরের তুলনায় এবছর আমাদের জমিতে ইরি-বোরোর বাম্পার ফলন হয়েছে। আবহাওয়া ভালো থাকার কারণে ধান কর্তন করে ঘরে তুলতে কোন সমস্যা হচ্ছে না। ধানের দাম টা মোটামুটি ভালো আছে। আরএক কৃষক আক্তার হোসেন বলেন এবছর আমরা লাভবান হবো ধানের দাম ভালো জমিতে ফলনও ভালো এখন বৃষ্টি না হলে ধানের দামটা আরো বাড়বে। কৃষক বাঁচলে দেশ বাঁচবে।

ফরিদপুর উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র জনবল সংকট দুর্ভোগে এলাকাবাসী
                                  

ফরিদপুর প্রতিনিধি : ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়নে অবস্থিত উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটির অবস্থা বেহাল। ভবনগুলোর ছাদ চুইয়ে পানি পড়ে। বিভিন্ন স্থানের ছাদ ও দেয়াল খসে পড়েছে। পরিস্থিতি এতটাই নাজুক, যে কোনও সময় ধসে পড়তে পারে ভবনটি। চারপাশের ঝোঁপঝাড় আর জরাজীর্ণ অবস্থা দেখে অনেকেই মনে করেন এটি পরিত্যক্ত কোনও ভবন। উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটি বন্ধ থাকায় এলাকাবাসীকে দূর-দূরান্তে গিয়ে চিকিৎসাসেবা নিতে হয়। এই দুর্ভোগ থেকে পরিত্রাণ পেতে চান তারা। কর্তৃপক্ষের কোনও তদারকি না থাকায় মাদকসেবীদের নিরাপদ আড্ডাস্থলে পরিণত হয়েছে ভবনটি। নষ্ট হতে বসেছে ভবনসহ মূল্যবান আসবাবপত্র। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৮৪ সালে নেদারল্যান্ড সরকারের অনুদানে কৃষ্ণপুর এলাকায় ৪০ শতাংশ জায়গার ওপর উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটি নির্মাণ এবং পরিচালিত হয়ে আসছিল। মূল ভবন ও স্টাফদের থাকার জন্য আরও ২টি ভবনসহ মোট তিনটি ভবন এবং চারদিকে সীমানা প্রাচীর করা হয়। দীর্ঘদিন ধরে ওই অঞ্চলের মানুষ এখানে স্বাস্থ্যসেবা পেয়ে আসছে। কিন্তু নেদারল্যান্ড সরকার অনুদান বন্ধ করে দেওয়ায় বিগত কয়েক বছর ধরে এ উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটি জনবল সংকটে পড়েছে। দিনের পর দিন বন্ধ থাকার কারণে ভবনগুলো রীতিমতো জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, বর্তমানে ভবনটিতে মাদকসেবীরা আড্ডা দিচ্ছে। উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটি বন্ধ থাকায় এ অঞ্চলের প্রায় ৬০ থেকে ৬৫ হাজার মানুষকে ১৫ কিলোমিটার দূরে সদরপুরে গিয়ে স্বাস্থ্যসেবা নিতে হচ্ছে। ফলে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন তারা। বিশেষ করে নারী, শিশু ও বয়স্করা স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে বেশি ভোগান্তির মধ্যে পড়ছেন। জরুরি ভিত্তিতে পুনর্সংস্কার করে জনবল নিয়োগ দিয়ে কেন্দ্রটি দ্রুত চালু করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। সদরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. ওমর ফয়সাল বলেন, ‘ভবনটি পরিত্যক্ত হয়ে গেছে। ছাদের প্লাস্টার ধসে পড়েছে। যে কোনও সময় ধসে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। জোড়াতালি দিয়ে দুই বছর চালানো হয়েছে। এখন আর মোটেই সম্ভব নয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘একজন মেডিক্যাল সহকারী ও একজন ভিজিটর দিয়ে পরিচালনা করছিলাম। ভিজিটর অবসরে গেছেন এবং মেডিক্যাল সহকারী উপজেলায় করোনা সেবায় কর্মরত আছেন। তবে সরকার উদ্যোগ নিলে স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি চালু করা সম্ভব।

রূপগঞ্জে কর্মহীনদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ
                                  

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় লকডাউন ও করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত দরিদ্র, অসহায়, অটো-রিক্সা-ভ্যান চালক, মাঝি, প্রতিবন্ধী ও দিনমজুর সহ পাঁচ শতাধিক কর্মহীন মানুষের মধ্যে গতকাল ২৬ এপ্রিল সোমবার মাস্ক, হ্যান্ডস্যানিটাইজার, সাবান সহ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীকের নির্দেশে রূপগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে এ বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শীতলক্ষ্যা নদীর রূপগঞ্জ-মুড়াপাড়া খেয়াঘাটে আয়োজিত বিতরণী সভায় সভাপতিত্ব করেন রূপগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এম.এ মোমেন। সভায় বক্তব্য রাখেন রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ শাহজাহান ভুঁইয়া, রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ্ নুসরাত জাহান, মুড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ তোফায়েল আহমেদ আলমাছ, রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ ছালাউদ্দিন ভুঁইয়া, ঢাকা দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কে.এম আবু হানিফ হৃদয়, দৈনিক সংবাদচর্চা পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ আব্দুল্লাহ খান মুন্না, রূপগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মকবুল হোসেন, কবি ও সাহিত্যিক আলহাজ্ব আলম হোসেন, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল মান্নান মুন্সী, কায়েতপাড়া ইউনিয় আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ জাহেদ আলী, রূপগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ মশিউর রহমান তারেক, পিতলগঞ্জ দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি ওবায়দুল মজিদ জুয়েল, সাংবাদিক শফিকুল আলম মামুন, মাসুদ ভুঁইয়া, রাসেল মাহমুদ, রোবেল মাহমুদ, ইমদাদুল হক দুলাল, শাহেল মাহমুদ ও এস এম আবু কাওছার প্রমুখ। পরে কর্মহীনদের মাঝে মাস্ক, হ্যান্ডস্যানিটাইজার, সাবান ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

খরস্রাতায় ঐতিহ্য হারাচ্ছে নাটোরের বড়াল নদ
                                  

আফরোজা ইয়াসিন, নাটোর : নাটোরে কালের খরস্রোতায় বড়াল নদ শুকিয়ে তার ঐতিহ্য হারাতে বসেছে। নদটি নাব্যতা হারিয়ে এখন ফসলের মাঠে পরিনত হয়েছে। নদের বুকে ধানসহ বিভিন্ন ফসলের জন্য হালচাষ করা হচ্ছে। উজানে বাঁধ দিয়ে ইরিগেশনের জন্য সেচ দেয়া, অপরিকল্পিত বাঁধ নির্মান এবং যাতায়াতের জন্য নদের বুকে একাধিক ব্রীজ নির্মান করে নদের স্বাভাবিক প্রবাহ বাধা গ্রস্থ করার কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তাছাড়া প্রমত্ত পদ্মায় পানি প্রবাহ স্বাভাবিক না থাকায় পদ্মার শাখা বড়াল নদের এ অবস্থা হয়েছে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন। নদের বুকে পলি জমে জমে উঁচু হয়েছে, দু’পাড় চেপে গেছে এবং নদের পাড়ে বিভিন্ন স্থাপনা তৈরী করা হয়েছে। নদের চর ভূমি গ্রাসীরা দখল করে নিয়েছে।
রাজশাহী জেলার চারঘাট নামক স্থান থেকে পদ্মার শাখা হিসেবে বড়াল নদের উৎপত্তি হয়ে বাঘা, বাগাতিপাড়া, বড়াইগ্রাম, চাটমোহর, ভাংগুড়া ও ফরিদপুর উপজেলার মধ্য দিয়ে বাঘাবাড়ী হয়ে হুড়া সাগরের বুকে মিশে নাকালিয়ায় যমুনা নদীতে পড়েছে। শুধু বাগাতিপাড়া উপজেলার বুক চিরে প্রায় ২২ কিঃ মিঃ পথ অতিক্রম করেছে। এক সময় যোগাযোগের সুবিধার কারনে বড়াল নদের দুই পাড়ে জামনগর বাজার, তমালতলা বাজার, বাগাতিপাড়া থানা ভবন, দয়ারামপুর সেনানিবাসসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা গড়ে উঠেছে। এছাড়া অসংখ্য জেলে পল্লী জীবিকার প্রয়োজনে গড়ে উঠেছে। কিন্তু পানি উন্নয়ন বোর্ড ১৯৮১-৮২ অর্থ বছরে নদের তীরবর্তী উপজেলাগুলোকে বন্যামুক্ত করার জন্য উৎসমুখ চারঘাটে বাঁধ নির্মানের মাধ্যমে পানির স্বাভাবিক গতি প্রবাহ বন্ধ করে দেয়।
এছাড়াও বিভিন্ন স্থানে সুইসগেট ও বাঁধ নির্মানের মাধ্যমে পানির স্বাভাবিক গতি প্রবাহ বন্ধ করে দেয়। এছাড়াও বিভিন্ন স্থানে সুইসগেট ও বাঁধ নির্মানের ফলে ক্রমান্বয়ে বড়াল নদ শুকিয়ে শীর্ণ খালে পরিনত হয়েছে। বর্ষায় নদে কিছু পানি জমলেও শুষ্ক মৌসুমের শুরুতেই শুকিয়ে মরা নদে পরিনত হয়। এ সুযোগে এ সময়ে এলাকার কৃষকরা নদের বুক জুড়ে ফসলের আবাদ করেন। পরিনত হয় গবাদী পশুর চারন ক্ষেত্রে। এক সময় যে বড়ালের পানির সেচে নদের তীরবর্তি মানুষ তাদের জমিতে ফসল ফলাত এখন সে নদের বুকে অগভীর নলকূপ বসিয়ে চলে ইরি চাষ। নদ আছে, নৌকা আছে, নেই শুধু পানি। নদে পানি না থাকায় এ নদকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠা ব্যবসা বানিজ্যের কেন্দ্রগুলো তার ঐতিহ্য হারাতে বসেছে। প্রতিদিনের প্রয়োজনের অতিরিক্ত ভূগর্ভস্থ পানি ব্যবহার করায়।

শ্রমজীবী মানুষকে খাবার দিলেন শরীয়তপুরের ডিসি
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : শ্রমজীবী মানুষের হাতে রান্না করা খাবার তুলে দিলেন শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসান। শুক্রবার জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে ১১০ শ্রমজীবী মানুষের মাঝে ‘শৈশব’ ও ‘তারুণ্য’ নামে দুটি সংগঠনের সহযোগিতায় খাবারগুলো বিতরণ করে জেলা প্রশাসন। এ সময় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মনদীপ ঘরাই, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অভিজিৎ সূত্রধর, মো. বাসিত সাত্তার, শৈশবের সম্পাদক পারভেজ সাইম, তারুণ্যের আহবায়ক আব্দুর রহমান রিয়ান তালুকদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসান বলেন, বর্তমানে লকডাউনের কারণে চলাচলে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। একারণে যারা প্রতিদিন কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকেন তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য জেলা প্রশাসন অনেকগুলো উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। ত্রাণ কর্মসূচি চলছে। পাশাপাশি রিকশা-অটোরিকশা, ভ্যানচালকসহ শ্রমজীবীদের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করলাম। করোনাকালীন পুরো সময়টায় আমরা এ কর্মসূচি চালিয়ে যাব। মনে হয় এটা ভালো মানবতার কাজ। তিনি বলেন, শুধু তাই নয় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো আমাদের সকলের নৈতিক দায়িত্ব। দেশের এই ক্রান্তিকালে সমাজের এ মানুষগুলোর সহযোগিতায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

নিয়ম বহির্ভূতভাবে চলছে পশ্চিমাঞ্চল রেলের জিএম দপ্তর
                                  

মাজহারুল ইসলাম চপল, ব্যুরো : পশ্চিমাঞ্চল রেলের ইঞ্জিনিয়ারিং সেকশনের মাস্টাররোলের চাকরি করা এক মহিলা খালাসিকে নিজ অফিসে বসিয়ে রেখে বেতন দিচ্ছেন দপ্তরের জেনারেল ম্যানেজার (জিএম)। আবার অলৌকিক ক্ষমতার বলে অবসর প্রাপ্ত পিএসকে স্বপদে বহাল রয়েছেন জিএম এর পিএস কাওসার আলীকে। তার এমনই কার্যক্রমের অভিযোগে ক্ষুব্ধ জিএম অফিস ও ইঞ্জিনিয়ারিং সেকশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও রেল অঙ্গনে অভিযোগ উঠেছে জিএম এর আস্থাভাজন এই পিএস কাউসার আলী জিএমর নানা অনিয়মের স্বক্ষী। আর ইঞ্জিনিয়ারিং সেকশনের মাস্টাররোলের একজন মহিলা খালাসিকে দিয়ে তার ব্যক্তিগত সকল কাজ করিয়ে নেন। কাজ না থাকলে জিএম অফিসে বসে থেকে বেতন নিচ্ছেন মহিলা খালাসী মনিরা রানী রায়। নির্ভরযোগ্য একটি সুত্র নিশ্চিত করেন, জিএমের নানা অনিয়ম দুর্নীতি লেনদেন করে থাকেন এই দুইজন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইঞ্জিনিয়ারিং সেকশনের এক কর্মকর্তা বলেন, এই মনিরা রানী রায়ের দাপটে আমরা অতিষ্ঠ। তার বেতনটাও তাকে জিএম অফিসে গিয়ে দেওয়া লাগে। কাজ তো করেই না উল্টো জিএমের ভয় দেখায়। কাজ করেন ইঞ্জিনিয়ারিং সেকশনের খালাসি পদে, অথচ বসে থাকেন জিএম দপ্তরে। সূত্র আরও জানায় , পশ্চিমাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মিহির কান্তি গুহ`র পিএস হিসাবে বর্তমানে আছেন কাওসার আলী। তিনি পুর্ন অবসরে গেলেও ক্ষমতাবলে জিএম তাকে এখনও স্বপদে বহাল রেখেছেন। অত্যন্ত ‘গোপনীয়’ এই শাখায় অবসরপ্রাপ্ত একজন কর্মকর্তাকে নিয়মবহির্ভূতভাবে বহাল রাখায় রেল ভবনে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টিকে তারা ‘রহস্যজনক’ বলেই মনে করছেন। অবসরের আগেও রাজশাহীতে জিএম এর পিএস হিসাবে ৮ বছর যাবত কর্মরত ছিলেন এই কাওসার। সূত্রটি জানান, ইতোপূর্বে রেলওয়ের জিএম-এর পিএস হিসেবে নতুন একজনকে নিয়োগ দেয়া প্রয়োজন বলে সংশ্লিষ্ট দফতরের নথিতে উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু পদায়ন করে পিএস হিসেবে এখনো কাউকেই নিয়োগ দেয়া হয়নি। কারণ হিসেবে সূত্রটি বলছে, অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাওসার আলী রেলওয়ের বর্তমান জিএম মিহির কান্তি গুহ’র অত্যন্ত আস্থাভাজন হিসেবে পরিচিত। জিএম-এর দায়িত্বপ্রাপ্ত পিএস কাওসার আলীর মুঠোফোনে জানতে চাইলে সাংবাদিক পরিচয় জেনে তিনি বলেন, "আমি কাওসার না তার ছোট ভাই, কিছু জানতে চাইলে পরে ফোন দিয়েন আবার,বলেই ফোন কেটে দেন । কিন্তু পরবর্তীতে তাকে বার বার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি। এ বিষয়ে পশ্চিম রেলের জেনারেল ম্যানেজার মিহির কান্তি গুহ বলেন, পিএস কাউছার আলী তো কনট্যাক্ট বেসিসে কল্যাণ ট্রাস্টের এডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার। পিএস হিসেবে একজন এসিসট্যান্ট অফিসার লাগবে, কিন্তু এখানে চার-পাঁচজন এসিসট্যান্ট অফিসার নাই, জুনিয়র পার্সোনাল অফিসার একজনও নাই, ওয়েলফেয়ার অফিসার নাই টোটালি রেলভবনে ৭ / ৮ জন নাই, থাকলে তাদের থেকে কাউকে নেয়া যেত "। কিছু দুষ্ট লোক আছে, তারে পছন্দ করে না, সে এখানে আছে এটা সহ্য হচ্ছে না। তারে খোঁচায়ে কিছু সুবিধা আদায় করতে পারে না। সে রিটায়ার্ড, অনেষ্ট আর আন ম্যারিড। মনিরা রাণী রয় সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি, প্রথমে না চিনতে না পারলেও পরে বলেন এরকম একটা আছে ঐযে মন্ত্রী মহোদয়ের একটা সুপারিশে একটা বোধহয় আছে, এগুলি দপ্তরে জিগ্যাসা করুন। উল্লেখ্য যে, আর্থিক অনিয়ম-দুর্নীতির সঙ্গে সরাসরি জড়িত থাকার অভিযোগে পশ্চিমাঞ্চল রেলের তিন কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তারা হলেন- সাবেক কন্ট্রোলার অব স্টোরস (সিওএস) প্রকৌশলী মো. বেলাল হোসেন সরকার, সাবেক চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার (সিসিএম) এএমএম শাহনেওয়াজ, সাবেক সহকারী কন্ট্রোলার অব স্টোরস (এসিওএস) মো. জাহিদ কাওছার। দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত আরও এই জিএম সহ ১০ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়েরসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে রেলের জন্য ২০টি আইটেম কেনায় ব্যাপক দুর্নীতি হয়েছে বলে তদন্তে বেরিয়ে এসেছে। এতে সরকারের কোটি কোটি টাকা যেমন ক্ষতি হয়, তেমনি ট্রেন পরিচালনায়ও ঝুঁকি বাড়ে। কেনাকাটার ঘটনা তদন্তে ২০ সেপ্টেম্বর রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. ভুবন চন্দ্র বিশ্বাসকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছিল। কমিটি গত বছরের ৯ ডিসেম্বর রেলপথমন্ত্রীর কাছে তদন্ত রিপোর্ট জমা দেয়। রিপোর্টে ১৭ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করা হয়েছিল।

মেহেরপুরে লকডাউন মানছে না কেউ
                                  

মেহেরপুর প্রতিনিধি : প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস সংক্রমণ মোকাবেলায় সমগ্র বাংলাদেশকে ঝুকিপূর্ণ ঘোষণা করার পরেও মেহেরপুরের গাংনীর বিভিন্ন অযুহাতে বাড়ির বাইরে ঘোরাফেরা করছে অনেকে। মানছে না লকডাউন। শহরের বিভিন্ন এলাকায় পায়ে হেটে ও মোটরসাইকেলে চড়ে ঘোরাফেরা করছেন অনেকেই। আবার অটোরিক্সা ভ্যানে যাত্রী পরিবহনও করছে। প্রথম দিকে লকডাউন মেনে চলতে পুলিশের পক্ষ থেকে কড়াকড়ি ব্যবস্থা নেওয়া হলেও উপজেলা প্রশাসনের কোন পদক্ষেপ চোখে পড়ার মতো নয়। এতে করোনা সংক্রমণের হার আশংকাজনক হারে বাড়তে পারে বলে মনে করছেন সচেতন মহল। মেহেরপুরের বিভিন্ন স্থানে গিয়ে দেখা গেছে, কাঁচা বাজারের পাশাপাশি খুলতে শুরু করেছে বিভিন্ন দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। মার্কেটের শার্টার ফেলে ভেতরে দোকান খোলা রেখে অভিনব পন্থায় কেনাবেচা শুরু হয়েছে বিভিন্ন কাপড়ের দোকানে।
শুক্রবার বামন্দী বাজারে দেখা গেছে সেই পুরনো চিত্র। সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এমনকি পশু হাটও খোলা ছিল । চলেছে নিত্য দিনের মতো কেনা বেচা। ওষুধ এবং মুদি দোকান ব্যতিত এই মুহূর্তে অন্যান্য দোকান খোলা রাখতে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও ইলেক্ট্রনিক, কসমেটিক্স, হার্ডওয়্যারসহ অন্যান্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রয়েছে।
একই অবস্থা দেখা গেছে মঙ্গলবার গাংনী বাজারে। সকাল ১১ টা পর্যন্ত বাজার পুলিশের নিয়ন্ত্রণে থাকলেও পরে চলে যায় নিয়ন্ত্রণের বাইরে। দেদারসে লোকজন চলা ফেরা করছে। সকল দোকান পাট খোলা। পুলিশের টহল নজরে পড়লেও নেই উপজেলা প্রশাসনের পদক্ষেপ। এদিকে জেলা সদরের আমঝুপি বারাদিসহ বিভিন্ন বাজারে লকডাউনের কোন কিছুই লক্ষ্য করা যায়নি। সব ধরণের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা।
লোকজন গাদাগাদি করে কেনাকাটা করছেন। বেশির ভাগ দোকানি ও ক্রেতার মুখে মাস্ক নেই। বাজারে যেন ক্রেতা-বিক্রেতার মিলনমেলা। চায়ের দোকানে মানুষ গাঁ ঘেঁষে বসে গল্প গুজব করছেন। চায়ের দোকানে বলতে শোনা গেছে, ’আমাদের করোনা টরোনা হবে না‘ শহরাঞ্চলে সরকারের নির্দেশনা কিছুটা মানা হলেও গ্রামাঞ্চলে বলতে গেলে কেউই তা মানছেন না। সরকারিভাবেও প্রচারণা নেই। ফলে গ্রামের মানুষ বিষয়টির গুরুত্ব তেমন বুঝতে পারছেন না। ক্ষুদ্র ব্যবসায়িরা জানান, ‘দোকান খোলা না রাখলে আমাদের সংসার চালাবো কি করে। আমরা চাইতে পারিনা নিতেও পারি না। তাই দোকান খোলা ছাড়া উপায় নেই। মাস্ক পরেন নি কেন ? এ প্রশ্নের জবাবে বলেন, পকেটে আছে। বেশি ভিড় দেখলেই পড়ি।আমরা আগে কখনও মাস্ক ব্যবহার করেনি। করোনা আসাতে মাস্ক ব্যবহার করতে হচ্ছে।

কুমারখালীতে ভর্তুকি মূল্যে হারভেস্টার বিতরণ
                                  

জাকের আলী শুভ, কুষ্টিয়া ব্যুরো : কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৫০%ভর্তুকি মূল্যে কৃষকদের মাঝে কম্বাইন হারভেস্টার বিতরণ করা হয়েছে। অল্প সময়ে কম খরচে অধিক জমিতে ধান কাটা, মাড়াই এবং পরিষ্কার করে বস্তাবন্দী করার একটি আধুনিক যন্ত্র হচ্ছে এই কম্বাইন হারভেস্টার। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে পরিচালন বাজেটের আওতায় উন্নয়ন সহায়তার মাধ্যমে ৫০% ভর্তুকিতে এটি প্রদান করা হলো। শনিবার উপজেলা পরিষদ চত্বরে ১টি কম্বাইন হারভেস্টার বিতরণ করা হয় বাগুলাট ইউনিয়নের মধুপুরের দহকুলা গ্রামের মোঃ হিসাব উদ্দিন সোনার নিকট। এর মূল্য ২৩ লাখ ৫০ হাজার। ৫০% ভর্তুকি মূল্যে এই কৃষককে ধান কাটার আধুনিক এই যন্ত্র বিতরণ করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজীবুল ইসলাম খান’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান খান। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ দেবাশীষ কুমার দাস, উদ্ভিদ সংরক্ষণ অফিসার স্বপন সিংহ রায় সহ আরও অনেকে।

টাকা দিয়েও ঘর মেলেনি ভূমিহীন ফাতেমার
                                  

খুরশিদ আলম শাওন, রাণীশংকৈল : আপনি টাকা দেন, চা খরচের জন্য লাগবে, তাহলে আগামীকালই আপনাকে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর দেওয়া হবে। এমন কথায় তড়িঘড়ি করে একটি ছাগল দুই হাজার টাকাই বিক্রি করে এবং তিন হাজার টাকা সুদের উপর নিয়ে দেওয়া হয় ভুমি অফিসের এক কর্মচারীকে। এ টাকাটি দেওয়ার বয়স প্রায় এক বছর। টাকা নিয়েও ঘর না দেওয়ার অভিযোগটি উঠে ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈল উপজেলা ভুমি অফিসের অফিস সহায়ক রবি চন্দ্র। টাকা দিয়েও ঘর না পাওয়ার ভুক্তভোগী হলেন পৌর শহরের ভান্ডারা গ্রামের তকদির আলী ওরফে লেদু’র স্ত্রী ফাতেমা (৪৫)। গত রোববার ফাতেমার একজন আত্নীয় উপজেলা পরিষদের সামনের মার্কেটে রবি চন্দ্রকে বলে টাকা নিয়ে এক বছরেও ঘর দিলি না। টাকাটা দে, প্রতি উত্তরে রবি বলেন, উপজেলা ভুমি অফিসের নাজিরের কাছে যা চার হাজার টাকা দিবে, এ কথায় ফাতেমার ঐ আত্নীয় বলে তুমি টাকা নিলা ৫ হাজার আর টাকা এক বছর পর ফেরত দিবা ৪ হাজার এ নিয়ে তর্ক হচ্ছিল দুই জনের মধ্যে। সেখানে উপস্থিত এ প্রতিবেদক বিষয়টি জানতে চাইলে সটকে পড়ে ভুমি অফিসের রবি। পড়ে ফাতেমার আত্নীয়’র কাছে ফাতেমার নাম্বার নিয়ে মুঠোফোনে কথা বললে এ প্রতিবেদককে ভুক্তভোগী জানান, ছাগল বিক্রি করে ও সুদের উপর টাকা নিয়ে রবিকে টাকা দিয়েছিলাম। টাকা দিলেই সে আমাকে নেকমরদ এলাকার কুমরগঞ্জ গ্রামের একটি খাস জায়গায় আমাকে ঘরসহ বুঝিয়ে দিবে। টাকাটা ভালোই ভালো নিয়ে পরে আজকাল করে বিগত এক বছর সে-আমাকে হয়রানী করেছে। ফাতেমা আরো জানান, এখন শুনছি সে আমাকে টাকা ফেরত দিবে যা দিয়েছি তার থেকে এক হাজার কম। ফাতেমা আক্ষেপ করে বলেন, পৌরশহরের একটি বে-সরকারী ক্লিনিকে দুই হাজার টাকা বেতনের আয়া’র চাকুরী করে জীবিকা নির্বাহ করছি। নিজস্ব কোন জায়গা জমিও নেই। যদি সরকারীভাবে এ ঘরটি পেতাম তাহলে উপকৃত হতাম। এখন ভুমি অফিসের রবি আমাকে ঘর না দিয়ে টাকা ফেরত দিচ্ছে। এখন আমি কথায় এ দুঃখের কথা বলি কে আমার মত অসহায়ের পাশে দাড়াবে আমাকে একটি মাথা গোজার ঠায় করে দিবে। এদিকে ফাতেমার ঐ আত্নীয় আব্দুল করিম জানান, গত রোববার রাতে উপজেলা ভুমি অফিসের নাজির শাকিব আমাকে ডেকে ৪ হাজার টাকা ফেরত দিয়েছেন। এর সত্যতা স্বীকার করে উপজেলা ভুমি অফিসের নাজির শাকিব মুঠোফোনে জানান, এসিল্যান্ডের নির্দেশে আমি টাকা দিয়েছে। তবে টাকাটা কিসের টাকা সেটা আমি জানিনা। উপজেলা ভুমি অফিসের অফিস সহায়ক রবি চন্দ্রের বক্তব্য নিতে তার মুঠোফোনে সোমবার ফোন দিলে তা বন্ধ পাওয়া যায়। উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভুমি) প্রীতম সাহা সোমবার মুঠোফোনে জানান, বিষয়টি আমাকে উপজেলা কৃষি অফিসের ড্রাইভার জানালে আমি তাকে বলেছিলাম এই রকম হলে, ঐ ভুক্তভোগী টাকা ফেরত পাবে, সে মোতাবেক টাকা রবি’র বেতন থেকে কেটে মহিলাকে দেওয়া হয়েছে।

রাজনগরে মন্দিরের নাম ফলক ভাংচুর
                                  

চিনু রঞ্জন তালুকদার, মৌলভীবাজার : রাজনগরের কামারচাক তারাপাশা বিষ্ণুপদ ধাম মন্দিরের নাম ফলক, মন্দিরের ভিতরে অলিলা সাইনবোর্ড ও সভাপতিকে মারধরের ঘটনায় সৃষ্ট উত্তেজনা রাজনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিয়াঙ্কা পালের হস্তক্ষেপে প্রশমিত হয়েছে। গত ৯ এপ্রিল রাজনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিয়াঙ্কা পাল, রাজনগর থানার অফিসার্স ইনচার্জ আবুল হাশেম ও মন্দির কমিটির সদস্যবৃন্দ ও এলাকার গন্যমাণ্য ব্যাক্তিবর্গকে নিয়ে মন্দিরে দীর্ঘ ৪ঘন্টা ব্যাপি বৈঠকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহ্বায়ক ও পূজা উদযাপন কমিটির সহ-সভাপতি কেতকি রঞ্জন ভট্রাচার্য্যকে সদস্য সচিব করে ২০ সদস্য বিশিস্ট আহব্বায়ক কমিটি গঠন করা হয় এবং বর্তমান কমিটি নতুন কমিটি করার পূর্ব পর্যন্ত যাবতীয় দায়িত্ব পালন করবে বলে সিন্ধান্ত হয়েছে। রাজনগর থানায় লিখিত অভিযোগে সুত্রে জানা যায়- গত ৮ এপ্রিল ৭নং কামারচাক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজমুল হক সেলিম, শিবুল দত্ত, সঞ্জয় দত্ত, সনাতন দে (শাওন )সহ ৩০ /৪০ জন লোক দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে মন্দিরে প্রবেশ করে মন্দিরের নাম ফলক ও অলিলা নামের একটি সাইনবোর্ড ভেঙে ফেলে। হঠাৎ করে এ ঘটনার কারন জিজ্ঞেস করলে তারা জানায়, মন্দিরের বর্তমান কমিটিকে মানবে না নতুন কমিটি গঠন করবে। সভাপতি মন্দির কমিটির মেয়াদ আরো ৮ মাস রয়েছে বলে প্রতিবাদ করলে উল্লেখিত ব্যক্তিরা গলায় ছুরি ধরে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেন এবং মারধোর করেন। ঘটনা জনাজানি হলে এলাকায় চরম উওেজনা বিরাজ করতে থাকে। রাজনগর থানার পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রাজনগর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল হাসেম বলেন- কমিটি নিয়ে এখানে একটি বিরোধ চলে আসছিল। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা স্থানীয় চেয়ারম্যানসহ বৈঠকে বসে রাজনগরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে আহব্বায়ক ও পুজা উৎযাপন কমিটির সহ-সভাপতি কেতকি রঞ্জনকে সদস্য সচিব করে ২০ সদস্য বিশিষ্ট আহব্বায়ক কমিটি করা হয়েছে। পূর্বের কমিটি ও গত ৮ এপ্রিল করা কমিটি ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে। এ ব্যপারে জানতে চাইলে রাজনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিয়াঙ্কা পাল বলেন, বিষ্ণুপদ ধাম মন্দিরের কমিটি নিয়ে জটিলতা তৈরী হওয়ায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে আহব্বায়ক ও পুজা উদযাপন কমিটির সহ-সভাপতি কেতকি রঞ্জনকে সদস্য সচিব করে আহব্বায়ক কমিটি ঘোষনা করেছি। পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠন করা পর্যন্ত এ কমিটি সকল দায়িত্ব পালন করবে।

তাড়াশে কষ্ঠিপাথরের মূর্তি বিক্রি : আটক ৩
                                  

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি : সিরাজগঞ্জের তাড়াশে কয়েক কোটি টাকা মূল্যের প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক মূর্তি কষ্ঠিপাথরসহ ৩ জনকে আটক করেছে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ান র‍্যাব-১২ সদস্যরা। গত বুধবার তাড়াশ উপজেলার বৈদ্যনাথপুর গ্রাম থেকে প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক (কষ্ঠিপাথর সাদৃশ্য) এ বিষ্ণুমূর্তি সহ ৩ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।
আটক কৃতরা হলেন, উপজেলার বৈদ্যনাথপুর গ্রামের মফিজ উদ্দিনের ছেলে সাদেক হোসেন (৫০), কুসুমদী এলাকার শ্রী অন্তিম সরকারের ছেলে শ্রী রাম সরকার (৩৮), পেঙ্গুগুয়ারী এলাকার নিজাম উদ্দিনের ছেলে গোলাম সাকলাইন (৪০)।

ডিমলায় বিনামূল্যে সার ও বীজ বিতরণ
                                  

ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধি : নীলফামারীর ডিমলায় গত বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা পরিষদ মাঠে ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে খরিপ-১ মৌসুমে আউশ প্রনোদনা কর্মসূচীর আওতায় উপজেলার ৫০০ জন কৃষকের প্রত্যেকের মাঝে বিনামুল্যে ২০কেজি ডিএপি সার, ১০কেজি এমওপি সার ও ৫কেজি করে আউশ ধানের বীজ বিতরন করা হয়।বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা তবিবুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জয়শ্রী রানী রায়, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নিরেন্দ্রনাথ রায় নিরু, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সেকেন্দার আলী ও সুবিধাভোগী কৃষকগণ।

গোপালগঞ্জে জমি দখল করে বাড়ি নির্মাণ
                                  

ফকির মিরাজ আলী শেখ, গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলার বাটিকামারী ইউনিয়নের সাব-পোষ্ট অফিসের জায়গায় অবৈধ ঘরবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। দীর্ঘদিন ধরে এই বেআইনি কাজটি করা হচ্ছে, আর তা প্রতিরোধ কারতে গেলে ডাকবিভাগের লোকেদের হতে হচ্ছে হয়রানির শিকার। সরজমিনে দেখা যায়, বাটিকামারী গ্রামে ডাক বিভাগের জমিতে অনেক দিন ধরে অবৈধভাবে ঘরবাড়ি নির্মাণ করা হচ্ছে। তবে কিছুদিন হলো জায়গায় দখল ও ঘর তোলার সংখ্যা বেড়েছে। জানা যায়, বাটিকামারী উপ-ডাকঘরটি ১০৩ নং বাটিকামারী মৌজায় মোট ৩৭ শতাংশ জায়গায় অবস্থিত। এ জায়গার একপাশে হাবিবুর রহমান (হবি) দখলকরে ভাঙ্গরি ব্যবসা করছেন । অন্যপাশে আব্দুল কুদ্দুস খন্দকার দখল করে বহুতল ভবন সহ নতুন করে পাকা বাড়ি নির্মান করছেন। এ ব্যাপারে বাটিকামারী সাব-পোষ্ট মাষ্টার আলমগীর হোসেনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, পোষ্ট অফিসের জায়গা এলাকার লোক বহুদিন ধরে অবৈধ দখল করে আসছে । আমরা সম্প্রতি এই জায়গায় বাউন্ডারী ওয়াল নির্মান করতে গেলে অবৈধ দখলদার দের বাধার মুখে পরে কাজ বন্ধ করে দেই। শুধু তাই নয় আমাদের এই জায়গার মধ্যে বহুতল ভবন সহ নতুন পাকা বাড়ি ও নির্মাণ হচ্ছে।


   Page 1 of 17
     জেলা-উপজেলা
শ্রীনগরে চাঁদা না দেওয়ায় প্রবাসীকে মারধরের অভিযোগ
.............................................................................................
মোংলায় নৌবাহিনীর মানবিক সহায়তা অব্যাহত
.............................................................................................
কুমারখালীতে ভর্তুকি মূল্যে হারভেস্টার বিতরণ
.............................................................................................
শরীয়তপুর ধানের বাম্পার ফলন হলেও শঙ্কায় কৃষকরা
.............................................................................................
ফরিদপুর উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র জনবল সংকট দুর্ভোগে এলাকাবাসী
.............................................................................................
রূপগঞ্জে কর্মহীনদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ
.............................................................................................
খরস্রাতায় ঐতিহ্য হারাচ্ছে নাটোরের বড়াল নদ
.............................................................................................
শ্রমজীবী মানুষকে খাবার দিলেন শরীয়তপুরের ডিসি
.............................................................................................
নিয়ম বহির্ভূতভাবে চলছে পশ্চিমাঞ্চল রেলের জিএম দপ্তর
.............................................................................................
মেহেরপুরে লকডাউন মানছে না কেউ
.............................................................................................
কুমারখালীতে ভর্তুকি মূল্যে হারভেস্টার বিতরণ
.............................................................................................
টাকা দিয়েও ঘর মেলেনি ভূমিহীন ফাতেমার
.............................................................................................
রাজনগরে মন্দিরের নাম ফলক ভাংচুর
.............................................................................................
তাড়াশে কষ্ঠিপাথরের মূর্তি বিক্রি : আটক ৩
.............................................................................................
ডিমলায় বিনামূল্যে সার ও বীজ বিতরণ
.............................................................................................
গোপালগঞ্জে জমি দখল করে বাড়ি নির্মাণ
.............................................................................................
ঝিনাইগাতীতে কম্বাইন হারভেস্টার মেশিন বিতরণ
.............................................................................................
গনপরিবহন বন্ধে ভোগান্তি, গন্তব্যে যেতে অতিরিক্ত ভাড়ায় বিকল্প পরিবহন
.............................................................................................
বশির আহাম্মদকেই চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় জনগণ
.............................................................................................
নারায়ণগঞ্জ সরকারের ১৮ দফা বাস্তবায়নে ক্যাম্পেইন
.............................................................................................
মোংলায় করোনায় ক্ষতিগ্রস্থদের খাদ্য সহায়তা দিলো সালোম
.............................................................................................
বাগেরহাটে সেতু ভেঙ্গে ট্রাক খালে
.............................................................................................
পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় আমাদের বেশী করে গাছ লাগাতে হবে : একেএম রুহুল আমীন
.............................................................................................
বেনাপোল বন্দর দিয়ে পেয়াজ আমদানি শুরু
.............................................................................................
ফটিকছড়িতে সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন
.............................................................................................
ফেনী সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের যাত্রা শুরু
.............................................................................................
শরীয়তপুরে নির্মাণ হবে ভাষা সৈনিক গোলাম মাওলা উড়াল সেতু
.............................................................................................
নীলফামারীর ডিমলায় জেলা পরিষদের অর্থায়নে জোড়া ব্রেঞ্চ ও টিউবওয়েল বিতরন
.............................................................................................
রাসিকের ফোরলেন রাস্তার উদ্বোধন
.............................................................................................
৩০ পরিবার পাচ্ছে আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাড়ি
.............................................................................................
নরসিংদীর বেলাবতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৫০ লাখ টাকার মালামাল ভষ্মিভূত
.............................................................................................
ঝিনাইগাতীর মদিনাবাগ রাস্তাটি কাটা দুর্ভোগে এলাকাবাসী
.............................................................................................
দৌলতদিয়ায় ফেরি ও ঘাট সংকটে যানবাহন পারাপার ব্যাহত
.............................................................................................
বীরগঞ্জে দাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে নিষিদ্ধ ট্রাক্টর, ধবংস হচ্ছে রাস্তাঘাট
.............................................................................................
রাজশাহীতে ইএএলজির মোড়ক উন্মোচন
.............................................................................................
মহিলা মসজিদ পরিদর্শন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান
.............................................................................................
দাগন ভূঞায় রিপোর্টার্স ইউনিটির মানববন্ধন
.............................................................................................
ঝুঁকিপূর্ণ হাওয়ার বাঁধ হুমকির মুখে কালিকোটা হাওর
.............................................................................................
মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলে কয়লা বোঝাই কার্গো ডুবি
.............................................................................................
দিনাজপুরে বঙ্গবন্ধু ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট-২০২১ উদ্বোধন
.............................................................................................
শায়েস্তাগঞ্জে বাস ও টমটমের মুখোমুখি সংঘর্ষ ১ জন নিহত
.............................................................................................
নন্দীগ্রামে জায়গা কিনে বিপদে এক অসহায় পরিবার
.............................................................................................
বাগেরহাটে পুলিশ সুপারকে বিদায়ী সংবর্ধনা
.............................................................................................
শরীয়তপুরে মাকে হত্যার দায়ে বাবার ফাঁসি চেয়ে ছেলের মানববন্ধন
.............................................................................................
অযত্নে পড়ে আছে বিরামপুর কারাগার
.............................................................................................
কমলগঞ্জে বন কর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষ
.............................................................................................
ভোলায় ঝুঁকিপূর্ণ চরবাসীর সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ
.............................................................................................
শায়েস্তাগঞ্জ জরাজীর্ণ ভবনেই চলছে পোষ্ট অফিসের কার্যক্রম
.............................................................................................
পাইকগাছায় পৃথক প্রস্তুতিমূলক সভা
.............................................................................................
নাটোরে বিশ্ব জলাভূমি দিবস পালিত
.............................................................................................

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মো: রিপন তরফদার নিয়াম
প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক : মফিজুর রহমান রোকন
নির্বাহী সম্পাদক : শাহাদাত হোসেন শাহীন
বাণিজ্যিক কার্যালয় : "রহমানিয়া ইন্টারন্যাশনাল কমপ্লেক্স"
(৬ষ্ঠ তলা), ২৮/১ সি, টয়েনবি সার্কুলার রোড,
মতিঝিল বা/এ ঢাকা-১০০০| জিপিও বক্স নং-৫৪৭, ঢাকা
ফোন নাম্বার : ০২-৪৭১২০৮০৫/৬, ০২-৯৫৮৭৮৫০
মোবাইল : ০১৭০৭-০৮৯৫৫৩, 01731800427
E-mail: dailyganomukti@gmail.com
Website : http://www.dailyganomukti.com
   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop