ঢাকা ০৩:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪

অর্থনৈতিক সংকট নেই, আশার বাণী শোনালেন অর্থমন্ত্রী

গণমুক্তি রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ১১:২৪:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪ ১৪০ বার পড়া হয়েছে

অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী (ফাইল ছবি)

দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সংকট কেটে গেছে, এমন আশার বাণী শোনালেন বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হবে এমনটি যারা ভেবেছিল, তাদের ধারণাও ভুল প্রমাণ করে অর্থনৈতিক পরিস্থিতির সকল দ্বিধাদ্বন্দ্ব কেটে গেছে।

রোববার (৩১ মার্চ) সচিবালয়ে ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ) সঙ্গে প্রাক বাজেট বৈঠকে অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে এমন আশার বাণী শোনালেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

বৈঠকে ইআরএফ সভাপতি রেফায়েত উল্লা মৃধা ও সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম বেশ কিছু বাজেট প্রস্তাব তুলে ধরেন। প্রস্তাবগুলো বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

অর্থমমন্ত্রী বলেন, এশীয় অবকাঠামো বিনিয়োগ ব্যাংক (এআইআইবি) প্রতিনিধি এসেছিল। বলেছেন, তারা আমাদের প্রপোজালের জন্য অপেক্ষা করছে। তোমরা একটা প্রপোজাল দাও, টাকা আমরা দেবো, টাকার কোনও অভাব নেই। কাজেই এরকম নিশ্চয়তা পাওয়ার পর আর তো কোনও সন্দেহ নেই। কোনও দ্বিধাদ্বন্দ্ব নেই। যেভাবে বাজেট তৈরি হয়, সেভাবেই তৈরি হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

অর্থনৈতিক সংকট নেই, আশার বাণী শোনালেন অর্থমন্ত্রী

আপডেট সময় : ১১:২৪:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪

 

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সংকট কেটে গেছে, এমন আশার বাণী শোনালেন বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা হবে এমনটি যারা ভেবেছিল, তাদের ধারণাও ভুল প্রমাণ করে অর্থনৈতিক পরিস্থিতির সকল দ্বিধাদ্বন্দ্ব কেটে গেছে।

রোববার (৩১ মার্চ) সচিবালয়ে ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ) সঙ্গে প্রাক বাজেট বৈঠকে অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে এমন আশার বাণী শোনালেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

বৈঠকে ইআরএফ সভাপতি রেফায়েত উল্লা মৃধা ও সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম বেশ কিছু বাজেট প্রস্তাব তুলে ধরেন। প্রস্তাবগুলো বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

অর্থমমন্ত্রী বলেন, এশীয় অবকাঠামো বিনিয়োগ ব্যাংক (এআইআইবি) প্রতিনিধি এসেছিল। বলেছেন, তারা আমাদের প্রপোজালের জন্য অপেক্ষা করছে। তোমরা একটা প্রপোজাল দাও, টাকা আমরা দেবো, টাকার কোনও অভাব নেই। কাজেই এরকম নিশ্চয়তা পাওয়ার পর আর তো কোনও সন্দেহ নেই। কোনও দ্বিধাদ্বন্দ্ব নেই। যেভাবে বাজেট তৈরি হয়, সেভাবেই তৈরি হচ্ছে।