ঢাকা ০২:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪

পোস্তগোলা সেতুর সংস্কার শুরু, বিকল্প পথে যান চলাচলের পরামর্শ

গণমুক্তি রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ১১:৩৮:২২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৯৯ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

২৪, ২৬ ফেব্রুয়ারি ও ১, ৪ ও ৮ মার্চ যান চলাচল পুরোপুরি বন্ধ থাকবে। সংস্কার কাজ চলাকালীন সময়ে ঢাকাসহ দেশের ২১ জেলায় যাতায়াতে যানজটের আশঙ্কা করা হচ্ছে

পোস্তগোলা সেতুর ক্ষতিরগ্রস্ত গাডারের সংস্কার কাজ শুরু করেছে সড়ক ও জনপদ। সেতুর প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ রফিক সংবাদমাধ্যমকে জানান, ১৬ দিনব্যাপী সংস্কার কাজ চলাকালীন সময়ে উভয় পাশে চলাচলকারী যানবাহন নিয়ন্ত্রণে রাত ১২টার পর সড়কে ডাইভারশন করা হবে। সংস্কার কাজ উপলক্ষে বাংলাদেশ রোডস অ্যান্ড হাইওয়ে এই সড়কে চলাচলকারী যানবাহনকে বিকল্প সড়ক ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছে।

২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৮ মার্চ ১৬ দিন সেতু দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। বাস ও হালকা যানবাহনের জন্য বন্ধ থাকবে পাঁচ দিন। এই সময়ে বিকল্প পথ ব্যবহার করতে হবে। ২৪, ২৬ ফেব্রুয়ারি ও ১, ৪ ও ৮ মার্চ যান চলাচল পুরোপুরি বন্ধ থাকবে। সংস্কার কাজ চলাকালীন সময়ে ঢাকাসহ দেশের ২১ জেলায় যাতায়াতে যানজটের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয়ের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত পোস্তগোলা সেতুর দুটি গাডার ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

সওজ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৮ মার্চ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়কের তৃতীয় কিলোমিটারে অবস্থিত বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী বুড়িগঙ্গা সেতু-১ এর (পোস্তগোলা সেতু) দুটি গার্ডারের মেরামত ও রেট্রোফিটিং কাজ করা হবে। এজন্য ভারী যানবাহনসমূহ (ট্রাক-পিকআপ ভ্যান, কাভার্ডভ্যান, কনটেইনারবাহী লরি) ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৮ মার্চ পর্যন্ত এবং হালকা যানবাহনকে (বাস, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, সিএনজি, অটোরিকশা ইত্যাদি) ২৪ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি এবং ১, ৪ ও ৮ মার্চ- এই পাঁচদিন বিকল্প সড়ক ব্যবহার করতে বলা হলো।

ভারী যানবাহন ও বড় বাসের জন্য নির্দেশনা বিকল্প সড়ক

যাত্রাবাড়ী থেকে ছেড়ে আসা যানবাহন ধোলাইপাড় বাসস্ট্যান্ড ও বাবুবাজার সেতু ব্যবহার করে তেঘড়িয়া ইন্টারসেকশন হয়ে মহাসড়কে প্রবেশ করবে। যাত্রাবাড়ীগামী যানবাহন তেঘড়িয়া ইন্টারসেকশন-বাবুবাজার সেতু ব্যবহার করে ধোলাইপাড় হয়ে যাত্রাবাড়ী প্রবেশ করতে বলা হয়েছে।

গাবতলী থেকে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলগামী যানবাহনগুলো পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরিঘাট হয়ে যাতায়াত করবে।
দেশের পূর্বাঞ্চল/দক্ষিণ পূর্বাঞ্চল থেকে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চল/দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলগামী যানবাহনগুলো চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরিঘাট হয়ে যাতায়াত করবে।

দেশের উত্তরাঞ্চল হতে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলগামী যানবাহনগুলো বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে যাতায়াত করবে। পদ্মা সেতু থেকে নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামমুখী যানবাহন শ্রীনগর-মুন্সিগঞ্জ-মুক্তারপুর সেতু-তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু-মদনপুর সড়ক ব্যবহার যাতায়ত করবে।

সিলেট, চট্টগ্রাম থেকে পদ্মা সেতুমুখী যানবাহন মদনপুর থেকে তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু-মুক্তারপুর সেতু মুন্সিগঞ্জ-শ্রীনগর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে। পদ্মা সেতু থেকে ঢাকাগামী যানবাহন শ্রীনগর দোহার-নবাবগঞ্জ-কেরানীগঞ্জ (আর-৮২০) সড়ক, তুরাগ-রোহিতপুর (জেড-৫০৬৯), আব্দুল্লাহপুর-রাজাবাড়ী বাজার-কোনাখোলা মোড়-বছিলা সেতু-মোহাম্মদপুর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পোস্তগোলা সেতুর সংস্কার শুরু, বিকল্প পথে যান চলাচলের পরামর্শ

আপডেট সময় : ১১:৩৮:২২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

২৪, ২৬ ফেব্রুয়ারি ও ১, ৪ ও ৮ মার্চ যান চলাচল পুরোপুরি বন্ধ থাকবে। সংস্কার কাজ চলাকালীন সময়ে ঢাকাসহ দেশের ২১ জেলায় যাতায়াতে যানজটের আশঙ্কা করা হচ্ছে

পোস্তগোলা সেতুর ক্ষতিরগ্রস্ত গাডারের সংস্কার কাজ শুরু করেছে সড়ক ও জনপদ। সেতুর প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ রফিক সংবাদমাধ্যমকে জানান, ১৬ দিনব্যাপী সংস্কার কাজ চলাকালীন সময়ে উভয় পাশে চলাচলকারী যানবাহন নিয়ন্ত্রণে রাত ১২টার পর সড়কে ডাইভারশন করা হবে। সংস্কার কাজ উপলক্ষে বাংলাদেশ রোডস অ্যান্ড হাইওয়ে এই সড়কে চলাচলকারী যানবাহনকে বিকল্প সড়ক ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছে।

২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৮ মার্চ ১৬ দিন সেতু দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। বাস ও হালকা যানবাহনের জন্য বন্ধ থাকবে পাঁচ দিন। এই সময়ে বিকল্প পথ ব্যবহার করতে হবে। ২৪, ২৬ ফেব্রুয়ারি ও ১, ৪ ও ৮ মার্চ যান চলাচল পুরোপুরি বন্ধ থাকবে। সংস্কার কাজ চলাকালীন সময়ে ঢাকাসহ দেশের ২১ জেলায় যাতায়াতে যানজটের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয়ের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত পোস্তগোলা সেতুর দুটি গাডার ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

সওজ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৮ মার্চ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়কের তৃতীয় কিলোমিটারে অবস্থিত বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী বুড়িগঙ্গা সেতু-১ এর (পোস্তগোলা সেতু) দুটি গার্ডারের মেরামত ও রেট্রোফিটিং কাজ করা হবে। এজন্য ভারী যানবাহনসমূহ (ট্রাক-পিকআপ ভ্যান, কাভার্ডভ্যান, কনটেইনারবাহী লরি) ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৮ মার্চ পর্যন্ত এবং হালকা যানবাহনকে (বাস, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, সিএনজি, অটোরিকশা ইত্যাদি) ২৪ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি এবং ১, ৪ ও ৮ মার্চ- এই পাঁচদিন বিকল্প সড়ক ব্যবহার করতে বলা হলো।

ভারী যানবাহন ও বড় বাসের জন্য নির্দেশনা বিকল্প সড়ক

যাত্রাবাড়ী থেকে ছেড়ে আসা যানবাহন ধোলাইপাড় বাসস্ট্যান্ড ও বাবুবাজার সেতু ব্যবহার করে তেঘড়িয়া ইন্টারসেকশন হয়ে মহাসড়কে প্রবেশ করবে। যাত্রাবাড়ীগামী যানবাহন তেঘড়িয়া ইন্টারসেকশন-বাবুবাজার সেতু ব্যবহার করে ধোলাইপাড় হয়ে যাত্রাবাড়ী প্রবেশ করতে বলা হয়েছে।

গাবতলী থেকে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলগামী যানবাহনগুলো পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরিঘাট হয়ে যাতায়াত করবে।
দেশের পূর্বাঞ্চল/দক্ষিণ পূর্বাঞ্চল থেকে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চল/দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলগামী যানবাহনগুলো চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরিঘাট হয়ে যাতায়াত করবে।

দেশের উত্তরাঞ্চল হতে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলগামী যানবাহনগুলো বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে যাতায়াত করবে। পদ্মা সেতু থেকে নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামমুখী যানবাহন শ্রীনগর-মুন্সিগঞ্জ-মুক্তারপুর সেতু-তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু-মদনপুর সড়ক ব্যবহার যাতায়ত করবে।

সিলেট, চট্টগ্রাম থেকে পদ্মা সেতুমুখী যানবাহন মদনপুর থেকে তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু-মুক্তারপুর সেতু মুন্সিগঞ্জ-শ্রীনগর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে। পদ্মা সেতু থেকে ঢাকাগামী যানবাহন শ্রীনগর দোহার-নবাবগঞ্জ-কেরানীগঞ্জ (আর-৮২০) সড়ক, তুরাগ-রোহিতপুর (জেড-৫০৬৯), আব্দুল্লাহপুর-রাজাবাড়ী বাজার-কোনাখোলা মোড়-বছিলা সেতু-মোহাম্মদপুর সড়ক ব্যবহার করতে পারবে।