ঢাকা ০৩:১৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪

প্রস্তুত জাতীয় ঈদগাহ, প্রধান জামাত ৭.৩০

গণমুক্তি রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ১১:৩৪:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪ ৯৫ বার পড়া হয়েছে

জাতীয় ঈদগাহের সুসজ্জিত প্রধান ফটক

দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

ঢাকায় ঈদের প্রধানজামাত অনুষ্ঠিত হবে জাতীয় ঈদগাহে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে। একসঙ্গে ৩৫ হাজার ধর্মপ্রাণ মুসল্লি ঈদের জামাতে অংশগ্রহণ নিতে পারবেন।

জাতীয় ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাত ঘিরে নেওয়া হয়েছে নিবচ্ছিন্ন নিরাপত্তা ব্যবস্থা। মুসলমানদের দ্বিতীয় সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা। জাতীয় ঈদগাহের প্রধান ফটক এবং অভ্যন্তর সাজানো হয়েছে সুসজ্জিত সাজে।

বাংলাদেশে সোমবার (১৭ জুন) পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিত হবে। জামাতে রাষ্ট্রপতি, প্রধান বিচারপতি, মন্ত্রিসভার সদস্য, সংসদ সদস্য, রাজনীতিবিদ, কূটনীতিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ঈদের জামাতে অংশ নেবেন। সেজন্য প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা প্রস্তুতি শেষ করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

জাতীয় ঈদগাহে ঈদুল আজহার প্রথম জামাতে প্রায় ২৫০ জন অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও ৮০ জন গুরুত্বপূর্ণ নারী অংশ নেবেন। সাধারণ পুরুষ প্রায় ৩১ হাজার এবং নারী ৩ হাজার ৫০০ জন মিলিয়ে প্রায় ৩৫ হাজার জন মানুষ ঈদ নামাজে অংশ নেবেন।

ঈদের জামাতে মূল ইমামের দায়িত্ব পালন করবেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা মুফতি রুহুল আমিন। বিকল্প ইমাম হিসেবে থাকবেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম মুফতি হাফেজ মাওলানা মিজানুর রহমান। মূল উপস্থাপক হিসেবে থাকবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের দীনি দাওয়াত ও সংস্কৃতি বিভাগের পরিচালক মো. আনিছুর রহমান সরকার।

জাতীয় ঈদগাহর নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার হাবিবুর রহমান এবং র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ানের মহাপরিচালক হারুন অর রশিদ।

ঈদের জামাতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিতের কথা জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) হাবিবুর রহমান। বলেন, পুরো ঈদগাহকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে। পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে। আমাদের সাধারণ ইউনিফর্ম পুলিশ প্যাট্রোলিং, চেকপোস্ট, সাইবার প্যাট্রোলিং, সিসিটিভি ক্যামেরা থাকছে।

ছাড়াও পুলিশ, র‌্যাবসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা ও স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স-এসএসএফ এবং ভিভিআইপিদের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা সেখানে দায়িত্ব পালন করবেন। আমরা আশা করি ঈদের এই জামাত সুষ্ঠুভাবে সুন্দরভাবে অনুষ্ঠিত হবে।

ডগ স্কোয়াড, সিসি ক্যামেরা, মেটাল ডিটেকটর, ওয়াচ টাওয়ার ব্যবহারসহ সব ধরনের প্রস্তুতির কথা জানিয়ে র‌্যাব মহাপরিচালক বলেন, আমাদের গোয়েন্দারা যেমন মাঠে থেকে কাজ করছে, তেমনই সাইবার ওয়ার্ল্ডে সার্বক্ষণিক নজরদারি হচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করে কেউ উসকানিমূলক বক্তব্য দিলে তাকে দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।

ঈদুল আযাহা উপলক্ষ্যে ঢাকার বিভিন্ন রাস্তা ও সড়ক দ্বীপ ঈদ মোবারক খচিত পতাকায় সজ্জিত করা হয়েছে। ঈদগাহের প্রধান ফটক সাজানো হয়েছে দৃষ্টি নন্দন সাজে। অজুর ব্যবস্থা ছাড়াও রয়েছে সিলিং ফ্যান, লাইট ও মাইকের ব্যবস্থা।

জাতীয় ঈদগাহে পুলিশ ও র‌্যাবের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ এবং স্বাস্থ্যসেবাকেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। ফায়ার ব্রিগেডের একটি টিম রয়েছে জাতীয় ঈদগাহে। এবারে ঈদগাহের মূল প্রবেশ পথ ৪টি এবং জামাত শেষে বের হতে উত্তর দিকে আরও ৩টি গেট করা হয়েছে।

জাতীয় ঈদগাহে নারীদের প্রবেশ আলাদা পথ ও নামাজের জন্য আলাদা জায়গা করা হয়েছে। ৩ হাজার ৫০০ জন নারী মুসল্লি একসঙ্গে ঈদের নামাজ জামাতে আদায় করতে পারবেন।

জাতীয় ঈদগাহের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে জানিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মুখপাত্র আবু নাসের বলেন, জাতীয় ঈদগাহে এবার প্রায় ৩৫ হাজার মানুষ একসঙ্গে নামাজ আদায় করতে পারবেন। অতি বৃষ্টিতেও যাতে নগরবাসী স্বাচ্ছন্দ্যে ঈদের নামাজ আদায় করতে পারেন, সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

প্রস্তুত জাতীয় ঈদগাহ, প্রধান জামাত ৭.৩০

আপডেট সময় : ১১:৩৪:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪

 

ঢাকায় ঈদের প্রধানজামাত অনুষ্ঠিত হবে জাতীয় ঈদগাহে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে। একসঙ্গে ৩৫ হাজার ধর্মপ্রাণ মুসল্লি ঈদের জামাতে অংশগ্রহণ নিতে পারবেন।

জাতীয় ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাত ঘিরে নেওয়া হয়েছে নিবচ্ছিন্ন নিরাপত্তা ব্যবস্থা। মুসলমানদের দ্বিতীয় সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা। জাতীয় ঈদগাহের প্রধান ফটক এবং অভ্যন্তর সাজানো হয়েছে সুসজ্জিত সাজে।

বাংলাদেশে সোমবার (১৭ জুন) পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিত হবে। জামাতে রাষ্ট্রপতি, প্রধান বিচারপতি, মন্ত্রিসভার সদস্য, সংসদ সদস্য, রাজনীতিবিদ, কূটনীতিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ঈদের জামাতে অংশ নেবেন। সেজন্য প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা প্রস্তুতি শেষ করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

জাতীয় ঈদগাহে ঈদুল আজহার প্রথম জামাতে প্রায় ২৫০ জন অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও ৮০ জন গুরুত্বপূর্ণ নারী অংশ নেবেন। সাধারণ পুরুষ প্রায় ৩১ হাজার এবং নারী ৩ হাজার ৫০০ জন মিলিয়ে প্রায় ৩৫ হাজার জন মানুষ ঈদ নামাজে অংশ নেবেন।

ঈদের জামাতে মূল ইমামের দায়িত্ব পালন করবেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা মুফতি রুহুল আমিন। বিকল্প ইমাম হিসেবে থাকবেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম মুফতি হাফেজ মাওলানা মিজানুর রহমান। মূল উপস্থাপক হিসেবে থাকবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের দীনি দাওয়াত ও সংস্কৃতি বিভাগের পরিচালক মো. আনিছুর রহমান সরকার।

জাতীয় ঈদগাহর নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার হাবিবুর রহমান এবং র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ানের মহাপরিচালক হারুন অর রশিদ।

ঈদের জামাতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিতের কথা জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) হাবিবুর রহমান। বলেন, পুরো ঈদগাহকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে। পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে। আমাদের সাধারণ ইউনিফর্ম পুলিশ প্যাট্রোলিং, চেকপোস্ট, সাইবার প্যাট্রোলিং, সিসিটিভি ক্যামেরা থাকছে।

ছাড়াও পুলিশ, র‌্যাবসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা ও স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স-এসএসএফ এবং ভিভিআইপিদের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা সেখানে দায়িত্ব পালন করবেন। আমরা আশা করি ঈদের এই জামাত সুষ্ঠুভাবে সুন্দরভাবে অনুষ্ঠিত হবে।

ডগ স্কোয়াড, সিসি ক্যামেরা, মেটাল ডিটেকটর, ওয়াচ টাওয়ার ব্যবহারসহ সব ধরনের প্রস্তুতির কথা জানিয়ে র‌্যাব মহাপরিচালক বলেন, আমাদের গোয়েন্দারা যেমন মাঠে থেকে কাজ করছে, তেমনই সাইবার ওয়ার্ল্ডে সার্বক্ষণিক নজরদারি হচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করে কেউ উসকানিমূলক বক্তব্য দিলে তাকে দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।

ঈদুল আযাহা উপলক্ষ্যে ঢাকার বিভিন্ন রাস্তা ও সড়ক দ্বীপ ঈদ মোবারক খচিত পতাকায় সজ্জিত করা হয়েছে। ঈদগাহের প্রধান ফটক সাজানো হয়েছে দৃষ্টি নন্দন সাজে। অজুর ব্যবস্থা ছাড়াও রয়েছে সিলিং ফ্যান, লাইট ও মাইকের ব্যবস্থা।

জাতীয় ঈদগাহে পুলিশ ও র‌্যাবের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ এবং স্বাস্থ্যসেবাকেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। ফায়ার ব্রিগেডের একটি টিম রয়েছে জাতীয় ঈদগাহে। এবারে ঈদগাহের মূল প্রবেশ পথ ৪টি এবং জামাত শেষে বের হতে উত্তর দিকে আরও ৩টি গেট করা হয়েছে।

জাতীয় ঈদগাহে নারীদের প্রবেশ আলাদা পথ ও নামাজের জন্য আলাদা জায়গা করা হয়েছে। ৩ হাজার ৫০০ জন নারী মুসল্লি একসঙ্গে ঈদের নামাজ জামাতে আদায় করতে পারবেন।

জাতীয় ঈদগাহের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে জানিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মুখপাত্র আবু নাসের বলেন, জাতীয় ঈদগাহে এবার প্রায় ৩৫ হাজার মানুষ একসঙ্গে নামাজ আদায় করতে পারবেন। অতি বৃষ্টিতেও যাতে নগরবাসী স্বাচ্ছন্দ্যে ঈদের নামাজ আদায় করতে পারেন, সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।