ঢাকা ০৮:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪

ব্যাংক মালিকদের বড় অংশের উদ্দেশ্যই ছিল অর্থ আত্মসাৎ

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৭:০৮:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ মার্চ ২০২৪ ১২৫ বার পড়া হয়েছে

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ ছবি : সংগ্রহ

দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

রাজনৈতিক বিবেচনায় অনুমোদন পাওয়া সবকটি ব্যাংকের অবস্থাই দুর্বল

ব্যাংক একীভূতকরণ ইতিবাচক হলেও প্রক্রিয়াটি জটিল মন্তব্য করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ বলেছেন, রাজনৈতিক সদিচ্ছার ঘাটতিই ব্যাংকিং খাতের সুশাসনের পথে বড় বাধা। ব্যাংক মালিকদের বড় অংশের উদ্দেশ্যই ছিল অর্থ আত্মসাৎ করা।

ব্যাংক একীভূতকরণ সংক্রান্ত বিতর্ক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেন, আর্থিক খাতের সংকটের দায় বাংলাদেশ ব্যাংক এড়াতে পারে না। রাজনৈতিক বিবেচনায় অনুমোদন পাওয়া সবকটি ব্যাংকের অবস্থাই দুর্বল।

উচ্চ খেলাপি ঋণকে আর্থিক খাতের জন্য বড় হুমকি বলে চিহ্নিত করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। তারা বলছে, ব্যাংক ব্যবস্থায় থাকা এই উচ্চ খেলাপি ঋণ আর্থিক খাতের অগ্রগতিতে বিপদ ডেকে আনছে।
সম্প্রতি প্রকাশিত ত্রৈমাসিক পর্যালোচনা প্রতিবেদনে এসব কথা জানায় বাংলাদেশ ব্যাংক।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ব্যাংক মালিকদের বড় অংশের উদ্দেশ্যই ছিল অর্থ আত্মসাৎ

আপডেট সময় : ০৭:০৮:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ মার্চ ২০২৪

 

রাজনৈতিক বিবেচনায় অনুমোদন পাওয়া সবকটি ব্যাংকের অবস্থাই দুর্বল

ব্যাংক একীভূতকরণ ইতিবাচক হলেও প্রক্রিয়াটি জটিল মন্তব্য করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ বলেছেন, রাজনৈতিক সদিচ্ছার ঘাটতিই ব্যাংকিং খাতের সুশাসনের পথে বড় বাধা। ব্যাংক মালিকদের বড় অংশের উদ্দেশ্যই ছিল অর্থ আত্মসাৎ করা।

ব্যাংক একীভূতকরণ সংক্রান্ত বিতর্ক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেন, আর্থিক খাতের সংকটের দায় বাংলাদেশ ব্যাংক এড়াতে পারে না। রাজনৈতিক বিবেচনায় অনুমোদন পাওয়া সবকটি ব্যাংকের অবস্থাই দুর্বল।

উচ্চ খেলাপি ঋণকে আর্থিক খাতের জন্য বড় হুমকি বলে চিহ্নিত করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। তারা বলছে, ব্যাংক ব্যবস্থায় থাকা এই উচ্চ খেলাপি ঋণ আর্থিক খাতের অগ্রগতিতে বিপদ ডেকে আনছে।
সম্প্রতি প্রকাশিত ত্রৈমাসিক পর্যালোচনা প্রতিবেদনে এসব কথা জানায় বাংলাদেশ ব্যাংক।