ঢাকা ০৪:১২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪

জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্টসহ ১০ নেতার ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:১৮:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪ ১৬৪ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট এমারসন মানাঙ্গাগওয়ার, তার স্ত্রী, জিম্বাবুয়ের ভাইস প্রেসিডেন্ট, প্রতিরক্ষামন্ত্রীসহ অন্তত ১০ জন নেতা ও তিনটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আমেরিকা।

জানা গিয়েছে, দুর্নীতি ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে এই নিষেধাজ্ঞা আরে পের কথা জানায় মার্কিন প্রশাসন। নিষেধাজ্ঞার কারণে জিম্বাবুয়ের এই নেতাদের আমেরিকায় থাকা সম্পদ আটকে যাবে এবং সেখানে তারা ভ্রমণও করতে পারবেন না।

হোয়াইট হাউসের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমরা জিম্বাবুয়েতে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক এবং মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন প্রত্যক্ষ করছি।

১৯৯০ সালের শুরুর দিকে একবার জিম্বাবুয়ের ওপর অর্থনৈতিক এবং ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল আমেরিকা। তখন জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবেসহ আরও বেশ কয়েকজর উচ্চ পদস্থ সরকারি কর্মকর্তার ওপর এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে মার্কিন প্রশাসন।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন বলেছেন, জিম্বাবুয়েতে বহু অপহরণ, শারীরিক নির্যাতন এবং বেআইনি হত্যার ঘটনা ঘটেছে, যা সাধারন মানুষদের জীবনযাপনকে চরম শঙ্কার মধ্যে ফেলে দিয়েছে।

জো বাইডেনের প্রশাসন এসব শোষণ ও নির্যাতনের জন্য দায়ী ব্যক্তিসহ অন্যদের জবাবদিহিতার আওতায় আনার চেষ্টা করছে বলেও জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্টসহ ১০ নেতার ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

আপডেট সময় : ০১:১৮:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪

 

জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট এমারসন মানাঙ্গাগওয়ার, তার স্ত্রী, জিম্বাবুয়ের ভাইস প্রেসিডেন্ট, প্রতিরক্ষামন্ত্রীসহ অন্তত ১০ জন নেতা ও তিনটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আমেরিকা।

জানা গিয়েছে, দুর্নীতি ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে এই নিষেধাজ্ঞা আরে পের কথা জানায় মার্কিন প্রশাসন। নিষেধাজ্ঞার কারণে জিম্বাবুয়ের এই নেতাদের আমেরিকায় থাকা সম্পদ আটকে যাবে এবং সেখানে তারা ভ্রমণও করতে পারবেন না।

হোয়াইট হাউসের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমরা জিম্বাবুয়েতে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক এবং মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন প্রত্যক্ষ করছি।

১৯৯০ সালের শুরুর দিকে একবার জিম্বাবুয়ের ওপর অর্থনৈতিক এবং ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল আমেরিকা। তখন জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবেসহ আরও বেশ কয়েকজর উচ্চ পদস্থ সরকারি কর্মকর্তার ওপর এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে মার্কিন প্রশাসন।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন বলেছেন, জিম্বাবুয়েতে বহু অপহরণ, শারীরিক নির্যাতন এবং বেআইনি হত্যার ঘটনা ঘটেছে, যা সাধারন মানুষদের জীবনযাপনকে চরম শঙ্কার মধ্যে ফেলে দিয়েছে।

জো বাইডেনের প্রশাসন এসব শোষণ ও নির্যাতনের জন্য দায়ী ব্যক্তিসহ অন্যদের জবাবদিহিতার আওতায় আনার চেষ্টা করছে বলেও জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।