ঢাকা ০১:১০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪

জিম্মি নাবিকদের উদ্ধারের চেষ্টা, গুলি বিনিময়

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৩:৪১:০১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ ২০২৪ ১৮২ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

লন্ডন ও কুয়ালালামপুরভিত্তিক জলদস্যুতা পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম ব্যুরো (আইএমবি) বরাত দিয়ে বাংলাদেশ মার্চেন্ট মেরিন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন, সোমালিয়ার উপকূল থেকে ২০ নটিক্যাল মাইল দূরে জিম্মি জাহাজটি নোঙর করেছে জলদস্যুরা।

বৃহস্পতিবার দুপুর নাগাদ জাহাজটি গ্যারাকাদ সংলগ্ন এলাকায় নোঙর করা হয়। থেকে তথ্য নিয়ে জাহাজটির এই অবস্থানের তথ্য দিয়েছে বাংলাদেশ মার্চেন্ট মেরিন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন। জাহাজটি গ্যারাকাদ থেকে ২০ নটিক্যাল মাইল দূরে নোঙর করে রাখা হয়েছে। উপকূল থেকে জাহাজে পৌছানোয় প্রায় দুই ঘণ্টা সময় লাগবে।

এদিকে সোমালিয়ার জলদস্যুদের হাতে জিম্মি বাংলাদেশি জাহাজ ও নাবিকদের উদ্ধারে সরকার সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমালিয়ান জলদস্যুদের হাতে জিম্মি বাংলাদেশি জাহাজের নাবিকদের উদ্ধারে অপর একটি জাহাজ অভিযান চালায়। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে গুলিবিনিময় হলেও জিম্মিদের হত্যার আশঙ্কায় পিছিয়ে আসে উদ্ধারে নাম জাহাজটি।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে সংবাদমধ্যমকে এমন তথ্য জানিয়েছে একজন জিম্মি নাবিক।

তিনি বলেন, গতকাল রাতে (বুধবার দিনগত রাত) নেভির একটা জাহাজ আমাদের উদ্ধার করার চেষ্টা করে। জলদস্যুরা আমাদের দেয়নি। তারা উদ্ধারে আসা জাহাজ বাইরে থেকে ফায়ার করেছে। তখন জলদস্যুরা বলছে, বাংলাদেশি নাবিকরা জিম্মি রয়েছে। উদ্ধারে আসা জাহাজ যদি হামলা করে, তাহলে জিম্মিদের মেরে ফেলা হবে।

জিম্মি নাবিক বলেন, এরপর ওরা সরে গেছে। উদ্ধারে আসা জাহাজ ২০ নটিক্যাল মাইল দূরে থেকে আমাদের অনুসরণ করছে। আমাদের ক্যাপ্টেনকে বলছে, ওরা আমাদের ফলো করছে, ২০ ন্যাটিক্যাল মাইল দূরে দূরে থাকছে। যথাসম্ভব ওরা কাছে আসতে পারবে না।

উদ্ধার করতে আসা জাহাজটি বুধবার বিকেল থেকে বাংলাদেশি জাহাজটিকে অনুসরণ করছিল। তথ্যদাতা বলছেন, সেটি সোমালিয়ান নেভি কি না নিশ্চিত না। ধারণা করা হচ্ছে, আরব আমিরাত বা অন্যকোনো আরব দেশের হবে।

জাহাজের নাবিকরা মাইক ব্যবহার করে বাংলাদেশি নাবিকদের বারবার আশ্বস্ত করেন। তারা জলদস্যুদের জাহাজ ত্যাগ করার আহ্বান জানান। ফায়ার করেন। কিন্তু জিম্মিদের মেরে ফেলার হুমকিতে তারা ২০ নটিক্যাল মাইল পিছু হটেন।

জিম্মি নাবিকের তথ্য অনুযায়ী, ইতোমধ্যে সোমালিয়ান সময় সকাল ১০টায় জাহাজটি নোঙর করেছে। এখন অন্য দস্যুদের হাতে হস্তান্তর প্রক্রিয়া শুরু হবে। তার আশঙ্কা করছেন এরপর হয়তো আর যোগাযোগ করা সম্ভব হবে না।

ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম ব্যুরোর (আইএমবি) বরাত দিয়ে বাংলাদেশ মার্চেন্ট মেরিন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, বর্তমানে জাহাজটি সোমালিয়ার গারাকাড উপকূল থেকে ২০ মাইল দূরে অবস্থান করছে।

অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাখাওয়াত হোসেন বলেন, সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশি জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ সোমালিয়ার গারাকাড উপকূল থেকে ২০ মাইল দূরে অবস্থান করছে। গারাকাড উপকূলে পৌঁছাতে জাহাজটির আর মাত্র দুই ঘণ্টার মতো সময় লাগতে পারে।

 

 

 

 

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

জিম্মি নাবিকদের উদ্ধারের চেষ্টা, গুলি বিনিময়

আপডেট সময় : ০৩:৪১:০১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ ২০২৪

 

লন্ডন ও কুয়ালালামপুরভিত্তিক জলদস্যুতা পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম ব্যুরো (আইএমবি) বরাত দিয়ে বাংলাদেশ মার্চেন্ট মেরিন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন, সোমালিয়ার উপকূল থেকে ২০ নটিক্যাল মাইল দূরে জিম্মি জাহাজটি নোঙর করেছে জলদস্যুরা।

বৃহস্পতিবার দুপুর নাগাদ জাহাজটি গ্যারাকাদ সংলগ্ন এলাকায় নোঙর করা হয়। থেকে তথ্য নিয়ে জাহাজটির এই অবস্থানের তথ্য দিয়েছে বাংলাদেশ মার্চেন্ট মেরিন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন। জাহাজটি গ্যারাকাদ থেকে ২০ নটিক্যাল মাইল দূরে নোঙর করে রাখা হয়েছে। উপকূল থেকে জাহাজে পৌছানোয় প্রায় দুই ঘণ্টা সময় লাগবে।

এদিকে সোমালিয়ার জলদস্যুদের হাতে জিম্মি বাংলাদেশি জাহাজ ও নাবিকদের উদ্ধারে সরকার সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমালিয়ান জলদস্যুদের হাতে জিম্মি বাংলাদেশি জাহাজের নাবিকদের উদ্ধারে অপর একটি জাহাজ অভিযান চালায়। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে গুলিবিনিময় হলেও জিম্মিদের হত্যার আশঙ্কায় পিছিয়ে আসে উদ্ধারে নাম জাহাজটি।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে সংবাদমধ্যমকে এমন তথ্য জানিয়েছে একজন জিম্মি নাবিক।

তিনি বলেন, গতকাল রাতে (বুধবার দিনগত রাত) নেভির একটা জাহাজ আমাদের উদ্ধার করার চেষ্টা করে। জলদস্যুরা আমাদের দেয়নি। তারা উদ্ধারে আসা জাহাজ বাইরে থেকে ফায়ার করেছে। তখন জলদস্যুরা বলছে, বাংলাদেশি নাবিকরা জিম্মি রয়েছে। উদ্ধারে আসা জাহাজ যদি হামলা করে, তাহলে জিম্মিদের মেরে ফেলা হবে।

জিম্মি নাবিক বলেন, এরপর ওরা সরে গেছে। উদ্ধারে আসা জাহাজ ২০ নটিক্যাল মাইল দূরে থেকে আমাদের অনুসরণ করছে। আমাদের ক্যাপ্টেনকে বলছে, ওরা আমাদের ফলো করছে, ২০ ন্যাটিক্যাল মাইল দূরে দূরে থাকছে। যথাসম্ভব ওরা কাছে আসতে পারবে না।

উদ্ধার করতে আসা জাহাজটি বুধবার বিকেল থেকে বাংলাদেশি জাহাজটিকে অনুসরণ করছিল। তথ্যদাতা বলছেন, সেটি সোমালিয়ান নেভি কি না নিশ্চিত না। ধারণা করা হচ্ছে, আরব আমিরাত বা অন্যকোনো আরব দেশের হবে।

জাহাজের নাবিকরা মাইক ব্যবহার করে বাংলাদেশি নাবিকদের বারবার আশ্বস্ত করেন। তারা জলদস্যুদের জাহাজ ত্যাগ করার আহ্বান জানান। ফায়ার করেন। কিন্তু জিম্মিদের মেরে ফেলার হুমকিতে তারা ২০ নটিক্যাল মাইল পিছু হটেন।

জিম্মি নাবিকের তথ্য অনুযায়ী, ইতোমধ্যে সোমালিয়ান সময় সকাল ১০টায় জাহাজটি নোঙর করেছে। এখন অন্য দস্যুদের হাতে হস্তান্তর প্রক্রিয়া শুরু হবে। তার আশঙ্কা করছেন এরপর হয়তো আর যোগাযোগ করা সম্ভব হবে না।

ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম ব্যুরোর (আইএমবি) বরাত দিয়ে বাংলাদেশ মার্চেন্ট মেরিন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, বর্তমানে জাহাজটি সোমালিয়ার গারাকাড উপকূল থেকে ২০ মাইল দূরে অবস্থান করছে।

অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাখাওয়াত হোসেন বলেন, সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশি জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ সোমালিয়ার গারাকাড উপকূল থেকে ২০ মাইল দূরে অবস্থান করছে। গারাকাড উপকূলে পৌঁছাতে জাহাজটির আর মাত্র দুই ঘণ্টার মতো সময় লাগতে পারে।