ঢাকা ০৪:৩৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪

পশ্চিমা এলিটদের রক্তচোষার দিন শেষ : পুতিন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৩৬:১১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ ২০২৪ ১৪১ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

পৃথিবীর বিভিন্ন জাতি ও জনসাধারণকে শোষণের ক্ষমতা পশ্চিমা এলিটদের শেষ হয়ে আসছে বলে মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

বুধবার রাশিয়ার গণমাধ্যম রিয়া নভোস্তিতে প্রকাশিত একটি বিশেষ সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

পুতিন বলেছেন, কয়েক শতক ধরে তারা আফ্রিকা, এশিয়া এবং লাতিন আমেরিকার জনগণকে পরজীবী বানিয়েছে। এসব মানুষের রক্ত-মাংস দিয়ে পেট আর অর্থ দিয়ে পকেট ভরতে সক্ষম হয়েছে। তাদের বুঝতে হবে, তাদের দিন শেষ হয়ে যাচ্ছে।

পুতিন বলেন, যারা গত ৫০০ বছর ধরে ক্রমাগত পশ্চিমাদের শোষনের শিকার, তারা সার্বভৌমত্ব ও স্বাধীন উন্নয়নের জন্য নিজস্ব আকাঙ্ক্ষাকে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করতে শুরু করেছে।

এর আগে, গত মাসে রাশিয়ার ফেডারেল অ্যাসেম্বলিতে মূল ভাষণে পুতিন বলেছিলেন, পশ্চিমারা বিশ্বজুড়ে জাতীয় সংঘাত উস্কে দেওয়ার ঔপনিবেশিক অভ্যাস নিয়ে রাশিয়ার উন্নয়নকে থামিয়ে দিতে এবং ইউক্রেনের মতো দেশকে মৃত প্রায় ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য সম্ভাব্য সবকিছু করতে চায়।

রাশিয়ার পরিবর্তে তারা এমন একটি মৃতপ্রায় জায়গা চায়, যেখানে তারা যা খুশি তাই করতে পারে।

পুতিন বলেন, অভিজাত শ্রেণির অনেক পশ্চিমা রুশোফোবিয়ায় অন্ধ হয়ে পড়েছেন। তারা রাশিয়াকে এমন জায়গায় ঠেলে দিতে সক্ষম হয়েছিলেন যেখানে ২০১৪ সালে পশ্চিমাদের দ্বারা শুরু হওয়া যুদ্ধের অবসান ঘটাতে ইউক্রেনে সামরিক আক্রমণ শুরু করতে হয়েছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পশ্চিমা এলিটদের রক্তচোষার দিন শেষ : পুতিন

আপডেট সময় : ০৫:৩৬:১১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ ২০২৪

 

পৃথিবীর বিভিন্ন জাতি ও জনসাধারণকে শোষণের ক্ষমতা পশ্চিমা এলিটদের শেষ হয়ে আসছে বলে মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

বুধবার রাশিয়ার গণমাধ্যম রিয়া নভোস্তিতে প্রকাশিত একটি বিশেষ সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

পুতিন বলেছেন, কয়েক শতক ধরে তারা আফ্রিকা, এশিয়া এবং লাতিন আমেরিকার জনগণকে পরজীবী বানিয়েছে। এসব মানুষের রক্ত-মাংস দিয়ে পেট আর অর্থ দিয়ে পকেট ভরতে সক্ষম হয়েছে। তাদের বুঝতে হবে, তাদের দিন শেষ হয়ে যাচ্ছে।

পুতিন বলেন, যারা গত ৫০০ বছর ধরে ক্রমাগত পশ্চিমাদের শোষনের শিকার, তারা সার্বভৌমত্ব ও স্বাধীন উন্নয়নের জন্য নিজস্ব আকাঙ্ক্ষাকে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করতে শুরু করেছে।

এর আগে, গত মাসে রাশিয়ার ফেডারেল অ্যাসেম্বলিতে মূল ভাষণে পুতিন বলেছিলেন, পশ্চিমারা বিশ্বজুড়ে জাতীয় সংঘাত উস্কে দেওয়ার ঔপনিবেশিক অভ্যাস নিয়ে রাশিয়ার উন্নয়নকে থামিয়ে দিতে এবং ইউক্রেনের মতো দেশকে মৃত প্রায় ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য সম্ভাব্য সবকিছু করতে চায়।

রাশিয়ার পরিবর্তে তারা এমন একটি মৃতপ্রায় জায়গা চায়, যেখানে তারা যা খুশি তাই করতে পারে।

পুতিন বলেন, অভিজাত শ্রেণির অনেক পশ্চিমা রুশোফোবিয়ায় অন্ধ হয়ে পড়েছেন। তারা রাশিয়াকে এমন জায়গায় ঠেলে দিতে সক্ষম হয়েছিলেন যেখানে ২০১৪ সালে পশ্চিমাদের দ্বারা শুরু হওয়া যুদ্ধের অবসান ঘটাতে ইউক্রেনে সামরিক আক্রমণ শুরু করতে হয়েছিল।