ঢাকা ০৫:০৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

পাহাড়ে ব্যাংক ডাকাতি, জড়িতদের কঠোর শাস্তির হুশিয়ারি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৩:২৪:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল ২০২৪ ১১৮ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

একরাতের ব্যবধানে পার্বত্য চট্টগ্রামের বান্দরবানে তিন ব্যাংকে ডাকাতির ঘটনায় জড়িতদের কঠোর শাস্তির আওতায় অনার হুশিয়ারি দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জানান খান কামাল।

বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

বান্দরবানের রুমায় ২ মার্চ রাতে সোনালী ব্যাংকে ডাকাতি, অস্ত্র লুট ও ম্যানেজারকে অপহরণ করে নিয়ে যায় বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রীসী গোষ্ঠী। পর দিন ৩ মার্চ দুর্গম এলাকা থানচিতে জোড়া ব্যাংক ডাকাতির ঘটনা ঘটায় সেই বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী।

তারা প্রকাশ্য দিবালোকে ফিল্মী কায়দায় সোনালী ও কৃষ্টি ব্যাংকে ডাকাতি করে ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে পালিয়ে যায়।

ঘটনার দুই দিন পরও রুমায় ব্যাংকে ডাকাতি, অস্ত্র লুট ও ব্যাংক ম্যানেজারকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

এসব ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।

অপর দিকে বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) দুপুরে খাগড়াছড়িতে সেনাবাহিনী এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। সেখানে বলা হয়, পাহাড়ে স্থায়ীভাবে শান্তি স্থাপনে কাজ করছে সেনাবাহিনী। পাহাড়ে কোনো গোষ্ঠী বা দলের অপতৎপরতা দমনে সেনাবাহিনী সর্বোচ্চ শক্তি প্রয়োগ করার কথা জানান, খাগড়াছড়ির রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার শরীফ মোহাম্মদ আমান হাসান।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

পাহাড়ে ব্যাংক ডাকাতি, জড়িতদের কঠোর শাস্তির হুশিয়ারি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

আপডেট সময় : ০৩:২৪:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল ২০২৪

 

একরাতের ব্যবধানে পার্বত্য চট্টগ্রামের বান্দরবানে তিন ব্যাংকে ডাকাতির ঘটনায় জড়িতদের কঠোর শাস্তির আওতায় অনার হুশিয়ারি দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জানান খান কামাল।

বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

বান্দরবানের রুমায় ২ মার্চ রাতে সোনালী ব্যাংকে ডাকাতি, অস্ত্র লুট ও ম্যানেজারকে অপহরণ করে নিয়ে যায় বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রীসী গোষ্ঠী। পর দিন ৩ মার্চ দুর্গম এলাকা থানচিতে জোড়া ব্যাংক ডাকাতির ঘটনা ঘটায় সেই বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী।

তারা প্রকাশ্য দিবালোকে ফিল্মী কায়দায় সোনালী ও কৃষ্টি ব্যাংকে ডাকাতি করে ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে পালিয়ে যায়।

ঘটনার দুই দিন পরও রুমায় ব্যাংকে ডাকাতি, অস্ত্র লুট ও ব্যাংক ম্যানেজারকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

এসব ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।

অপর দিকে বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) দুপুরে খাগড়াছড়িতে সেনাবাহিনী এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। সেখানে বলা হয়, পাহাড়ে স্থায়ীভাবে শান্তি স্থাপনে কাজ করছে সেনাবাহিনী। পাহাড়ে কোনো গোষ্ঠী বা দলের অপতৎপরতা দমনে সেনাবাহিনী সর্বোচ্চ শক্তি প্রয়োগ করার কথা জানান, খাগড়াছড়ির রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার শরীফ মোহাম্মদ আমান হাসান।