ঢাকা ১১:৫১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo রাজাকার  স্লোগান দিলে আর ছাড় নয়: রাবি ছাত্রলীগ সভাপতি Logo ঢাবিতে সংঘর্ষে আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেলে ২২৬, আতঙ্ক Logo শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা: দেশজুড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে মঙ্গলবার বিক্ষোভের ডাক Logo শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার জন্য  প্রাধ্যক্ষরা রাতভর হলে অবস্থান করবেন: উপাচার্য  Logo ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন Logo আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলায় দুই শতাধিক আহতের দাবি Logo সত্য না লিখলে পত্রিকা ডাস্টবিনে ফেলে দিন: প্রধানমন্ত্রী Logo এর জবাব ছাত্রলীগই দেবে: কাদের Logo ঢাবিতে আন্দোলনকারী ও ছাত্রলীগের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া Logo ভিক্ষু ড.এফ দীপংকর মহাথেরুর মৃত্যুর বিষয়টি তদন্ত করছে পুলিশ : পুলিশ সুপার

প্রাথমিক শিক্ষায় ব্যয় বেড়েছে ২৫ শতাংশ

গণমুক্তি ডিজিটাল ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৪:৫২:১৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪ ১১৯ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক গনমুক্তি অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

প্রাথমিক শিক্ষায় ব্যয় ২৫ শতাংশ বেড়েছে। আর মাধ্যমিক ৫১ শতাংশ। শনিবার (৩০ মার্চ) ঢাকার সিরডাপ মিলনায়তনে গণসাক্ষরতা অভিযানের এডুকেশন ওয়াচ-২০২৩ পরিচালিত বাংলাদেশে বিদ্যালয় শিক্ষা মহামারি উত্তর টেকসই পুনরুত্থান শীর্ষক গবেষণা প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়।

গবেষণায় বলা হয়, ২০২১ সালে সর্বস্তরে প্রায় ৪৪ মিলিয়ন শিক্ষার্থীর (কওমি মাদ্রাসা ব্যতীত) মধ্যে ৪২ শতাংশ সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে, ৩৮ শতাংশ সরকারি সহায়তা পাওয়া বেসরকারিপ্রতিষ্ঠানে এবং ২০ শতাংশ প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা করে। সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও শিশুদের শিক্ষার জন্য পারিবারিক ব্যয়ের উল্লেখযোগ্য অবদান রয়েছে।

গবেষণায় বলা হয়, মুদ্রাস্ফীতির ক্রমবর্ধমান ধারা, আনুষ্ঠানিক ও অনানুষ্ঠানিক ফি, প্রাইভেট টিউটর, পরিবহন, শিক্ষা উপকরণ ও স্টেশনারিসহ শিক্ষা সংশ্লিষ্ট পারিবারিক খরচ বেড়েছে।

২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর সময়ে বাংলাদেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি শিশুর শিক্ষার জন্য বার্ষিক পারিবারিক গড় ব্যয় ছিল ১৩ হাজার ৮৮২ টাকা। এ ক্ষেত্রে গ্রাম ও শহরে কিছু ভিন্নতা রয়েছে। একই সময়ে মাধ্যমিক স্তরের একজন শিক্ষার্থীর জন্য পরিবারের ব্যয় ছিল ২৭ হাজার ৩৪০ টাকা। উভয় ক্ষেত্রেই ব্যয়ের প্রধান্য প্রাইভেট টিউটরের বেতন ও গাইড বই বা নোট বই বাবদ।

২০২৩ সালের প্রথম ছয় মাসে পারিবারিক শিক্ষা ব্যয় আগের বছর ২০২২ সালের তুলনায় প্রাথমিক স্তরে বার্ষিক ২৫ শতাংশ এবং মাধ্যমিক স্তরে ৫১ শতাংশ বেড়েছে। প্রাথমিক স্তরে প্রায় ৪১ শতাংশ অভিভাবক এবং মাধ্যমিক স্তরে ১৭ শতাংশ অভিভাবক বলেছেন, প্রতি সন্তানের জন্য তাদের মাসিক ব্যয়ের সামর্থ্য ছিল ২ হাজার টাকার মধ্যে, যা ২০২২ ও ২০২৩ সালের গড় ব্যয়ের তুলনায় অনেক কম।

গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী, গবেষণা দলের প্রধান ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক মনজুর আহমদসহ সংশ্লিষ্টরা বক্তব্য রাখেন।

এডুকেশন ওয়াচের চেয়ারপারসন ও জাতীয় শিক্ষানীতি-২০১০ প্রণয়ন কমিটির কো-চেয়ারম্যান কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ এতে সভাপতিত্ব করেন।

 

 

 

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

প্রাথমিক শিক্ষায় ব্যয় বেড়েছে ২৫ শতাংশ

আপডেট সময় : ০৪:৫২:১৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪

 

প্রাথমিক শিক্ষায় ব্যয় ২৫ শতাংশ বেড়েছে। আর মাধ্যমিক ৫১ শতাংশ। শনিবার (৩০ মার্চ) ঢাকার সিরডাপ মিলনায়তনে গণসাক্ষরতা অভিযানের এডুকেশন ওয়াচ-২০২৩ পরিচালিত বাংলাদেশে বিদ্যালয় শিক্ষা মহামারি উত্তর টেকসই পুনরুত্থান শীর্ষক গবেষণা প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়।

গবেষণায় বলা হয়, ২০২১ সালে সর্বস্তরে প্রায় ৪৪ মিলিয়ন শিক্ষার্থীর (কওমি মাদ্রাসা ব্যতীত) মধ্যে ৪২ শতাংশ সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে, ৩৮ শতাংশ সরকারি সহায়তা পাওয়া বেসরকারিপ্রতিষ্ঠানে এবং ২০ শতাংশ প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা করে। সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও শিশুদের শিক্ষার জন্য পারিবারিক ব্যয়ের উল্লেখযোগ্য অবদান রয়েছে।

গবেষণায় বলা হয়, মুদ্রাস্ফীতির ক্রমবর্ধমান ধারা, আনুষ্ঠানিক ও অনানুষ্ঠানিক ফি, প্রাইভেট টিউটর, পরিবহন, শিক্ষা উপকরণ ও স্টেশনারিসহ শিক্ষা সংশ্লিষ্ট পারিবারিক খরচ বেড়েছে।

২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর সময়ে বাংলাদেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি শিশুর শিক্ষার জন্য বার্ষিক পারিবারিক গড় ব্যয় ছিল ১৩ হাজার ৮৮২ টাকা। এ ক্ষেত্রে গ্রাম ও শহরে কিছু ভিন্নতা রয়েছে। একই সময়ে মাধ্যমিক স্তরের একজন শিক্ষার্থীর জন্য পরিবারের ব্যয় ছিল ২৭ হাজার ৩৪০ টাকা। উভয় ক্ষেত্রেই ব্যয়ের প্রধান্য প্রাইভেট টিউটরের বেতন ও গাইড বই বা নোট বই বাবদ।

২০২৩ সালের প্রথম ছয় মাসে পারিবারিক শিক্ষা ব্যয় আগের বছর ২০২২ সালের তুলনায় প্রাথমিক স্তরে বার্ষিক ২৫ শতাংশ এবং মাধ্যমিক স্তরে ৫১ শতাংশ বেড়েছে। প্রাথমিক স্তরে প্রায় ৪১ শতাংশ অভিভাবক এবং মাধ্যমিক স্তরে ১৭ শতাংশ অভিভাবক বলেছেন, প্রতি সন্তানের জন্য তাদের মাসিক ব্যয়ের সামর্থ্য ছিল ২ হাজার টাকার মধ্যে, যা ২০২২ ও ২০২৩ সালের গড় ব্যয়ের তুলনায় অনেক কম।

গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী, গবেষণা দলের প্রধান ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক মনজুর আহমদসহ সংশ্লিষ্টরা বক্তব্য রাখেন।

এডুকেশন ওয়াচের চেয়ারপারসন ও জাতীয় শিক্ষানীতি-২০১০ প্রণয়ন কমিটির কো-চেয়ারম্যান কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ এতে সভাপতিত্ব করেন।